Somnath Roy RSS feed

নিজের পাতা

Somnath Royএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ট্রিনিটি
    ট্রিনিটিসরিৎ চট্টোপাধ্যায় / অণুগল্পসিড একটু নড়েচড়ে বসে মাথা চুলকে বলল, পিকুদা, মোটা মাথায় কিস্সু ঢুকছে না। একটু বুঝিয়ে বলো। একদিকে এক বিশাল কৃষ্ণ গহ্বর, অপরদিকে একটি সুপারনোভা। মাঝের জায়গাটাই আপাতত স্বর্গের বর্তমান ঠিকানা। তারই একপাশে এক সবুজ প্রশস্ত ...
  • এবং আফস্পা...
    (লেখাটি আঁকিবুকি পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।)২১শে ফেব্রুয়ারী,১৯৯১। কাশ্মীরের কুপওয়াড়া জেলার কুনান পোসপোরা গ্রামে ইন্ডিয়ান আর্মি সন্দেহভাজন উগ্রপন্থীদের খোঁজে ঢোকে।পুরুষ ও নারীদের আলাদা করা হয়।পুরুষদের অত্যাচার করা হয় তদন্তের নামে। আর সেই রাতে ১৩ থেকে ৮০ ...
  • মন্টু অমিতাভ সরকার
    পর্ব-৩স্নেহের বরেণ, মানিকচকের বাজারসরকার মারফৎ সংবাদ পেলাম তোমার একটি পুত্র সন্তান হয়েছে। বংশের পিদিম জ্বালাবার লোকের যে অভাব ছিল তা বুঝি এবার ঘুঁচলো। সঙ্গে একটি দুঃসংবাদে হতবাক হলাম।সন্তান প্রসবকালে তোমার স্ত্রী রানীর অকাল মৃত্যু। তুমি আর কি করবে বাবা? ...
  • পুঁটিকাহিনী ৮ - বাড়ি কোথায়!!
    একটা দুষ্টু পরিবারের বাড়িতে পুঁটিরা ভাড়া থাকত। নেহাত স্কুল কাছে হবে বলে বাড়িটা বাছা হয়েছিল, নইলে খুবই সাদামাটা ছিল বাড়িটা। ২৭৫ টাকা ভাড়ায় কেজি টুতে ঐ বাড়িতে চলে আসে পুঁটিরা। ও বাড়ির লোকেরা কথায় কথায় নিজেদের মধ্যে বড্ড ঝগড়া করত, যার মধ্যে নাকি খারাপ খারাপ ...
  • WannaCry : কি এবং কেন
    "স্টিভেন সবে সকালের কফি টা হাতে করে নিয়ে বসেছে তার ডেস্ক এ. রাতের শিফট থাকলে সব সময়েই হসপিটাল এ তার মেজাজ খারাপ হয়ে থাকে। উপরন্তু রেবেকার সাথে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় ঝগড়া টাও তার মাথায় ঘুরে বেড়াচ্ছিল। বাড়ি ফিরেই আজ তার জন্যে কিছু একটা ভালো কিছু ...
  • কাফিরনামা...(পর্ব ২)
    আমার মতন অকিঞ্চিৎকর লোকের সিরিজ লিখতে বসা মানে আদতে সহনশীল পাঠকের সহ্যশক্তিকে অনবরত পরীক্ষা করা ।কোশ্চেনটা হল যে আপনি কাফিরনামা ক্যানো পড়বেন? আপনার এই দুনিয়াতে গুচ্ছের কাজ এবং অকাজ আছে। সব ছেড়ে কাফিরনামা পড়ার মতন বাজে সময় খুদাতলা আপনাকে দিয়েছেন কি? ...
  • #পুঁটিকাহিনী ৭ - ছেলেধরা
    আজ পুঁটির মস্ত গর্বের দিন। শেষপর্যন্ত সে বড় হল তাহলে। সবার মুখে সব বিষয়ে "এখনও ছোট আছ, আগে বড় হও" শুনে শুনে কান পচে যাবার জোগাড়! আজ পুঁটি দেখিয়ে দেবে সেও পারে, সেও কারো থেকে কম যায় না। হুঁ হুঁ বাওয়া, ক্লাস ফোরে কি আর সে হাওয়া খেয়ে উঠেছে!! রোজ মা মামনদিদি ...
  • আকাটের পত্র
    ভাই মর্কট, এমন সঙ্কটের সময়ে তোমায় ছাড়া আর কাকেই বা চিঠি লিখি বলো ! আমার এখন ক্ষুব্বিপদ ! মহামারি অবস্থা যাকে বলে । যেদিন টিভিতে বলেছে মাধমিকের রেজাল্ট বেরোবে এই সপ্তাহের শেষের দিকে, সেদিন থেকেই ঘরের পরিবেশ কেমনধারা হাউমাউ হয়ে উঠেছে। সবার আচার-আচরণ খুব ...
  • আকাটের পত্র
    ভাই মর্কট, এমন সঙ্কটের সময়ে তোমায় ছাড়া আর কাকেই বা চিঠি লিখি বলো ! আমার এখন ক্ষুব্বিপদ ! মহামারি অবস্থা যাকে বলে । যেদিন টিভিতে বলেছে মাধমিকের রেজাল্ট বেরোবে এই সপ্তাহের শেষের দিকে, সেদিন থেকেই ঘরের পরিবেশ কেমনধারা হাউমাউ হয়ে উঠেছে। সবার আচার-আচরণ খুব ...
  • মন্টু অমিতাভ সরকার
    পর্ব-২ঝাঁ-চকচকে শহরের সবচেয়ে বিলাসবহুল বহুতলের ওপরে, সৌর বিদ্যুতের অসংখ্য চাকতি লাগানো এ্যান্টেনার নীচে, একটা গুপ্ত ঘর আছে। সেটাকে ঠিক গুপ্ত বলা যায় কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ থাকতে পারে। যাহা চোখের সামনে বিরাজমান, তাহা গুপ্ত হয় কেমনে? ভাষা-বিদ্যার লোকজনেরা চোখ ...

Somnath Roy প্রদত্ত সর্বশেষ দু পয়সা

RSS feed

নামসংকীর্তন কহে নরোত্তম দাস

সাধনপদ্ধতি হিসাবে কীর্তনের প্রয়োগ সম্ভবতঃ ভক্তিধর্মের উত্থানের একদম গোড়ার দিক থেকেই। বৌদ্ধ সহজিয়া সাধনাতেও সমবেতভাবে আধ্যাত্মিক গান গাওয়ার প্রচলন ছিল (উদাঃ চর্যাগীতি)। বাংলায় বিভিন্ন আকর গ্রন্থে (চৈতন্যমঙ্গল, চৈতন্য চরিতামৃত) ‘সংকীর্তনদাতা’ বা ‘সংকীর্তনপ্রবর্তক’ হিসাবে শ্রীচৈতন্যের নাম পাওয়া যায়। অর্থাৎ, একভাবে মনে করা হয়, তিনি উপাসনার বিশেষ পদ্ধতি হিসেবে কীর্তনের প্রচলন করেন। জয়ানন্দের চৈতন্যমঙ্গলে দেখি, শ্রীচৈতন্য বলছেন-
কীর্ত্তন সকল কর্ম্ম কীর্ত্তন সকল ধর্ম্ম
কীর্ত্তন সকল ব্রহ্মজ

নববর্ষ কথা

খ্রিস্টীয় ৬২২ সালে হজরত মহম্মদ মক্কা থেকে ইয়াথ্রিব বা মদিনায় যান। সেই বছর থেকে শুরু হয় ইসলামিক বর্ষপঞ্জী ‘হিজরি’। হিজরি সন ৯৬৩ থেকে বঙ্গাব্দ গণনা শুরু করেন মুঘল সম্রাট আকবর। হিজরি ৯৬৩-র মহরম মাসকে ৯৬৩ বঙ্গাব্দের বৈশাখ মাস ধরে শুরু হয় ‘ তারিখ ই ইলাহি’, যে বর্ষপঞ্জীর উদ্দেশ্য ছিল বাংলার কৃষিবর্ষকে হিসেবে রেখে খাজনা আদায়ের দিনগুলি নির্ধারণ করা। বাংলার আকাশে তারা দেখে মাস নির্ধারণ করা হত। হিজরির চান্দ্রমাসের চলনকে ধরে রেখে তারা-ঝিকমিকি মাসগুলিকে পঞ্জিকায় ঢুকিয়ে ফেলেন ফারসি-ভাষী জ্যোতির্বিদ ফাতুল্লাহ

কালিকাপ্রসাদ বেঁচে থাকবেন

কালিকাপ্রসাদের প্রয়াণের পর প্রায় সপ্তাহ ঘুরে গেল, এখনও ঘটনার শক কাটছে না। এরকম নয় যে আমি তাঁকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনতাম, কিন্তু শিল্পী, বিশেষতঃ একজন সঙ্গীত শিল্পী, যাঁর কন্ঠ আমাদের জীবনের বিভিন্ন ওঠাপড়ার মুহূর্তের সঙ্গে জড়িয়ে যায়, তাঁর চলে যাওয়ায় আত্মীয়বিয়োগের ব্যথা তো বাজবেই। আর তার সঙ্গেই ঘুরেফিরে আসছে, কালিকাপ্রসাদ ও তাঁর কর্মকাণ্ডের স্মৃতিগুলি। কালিকা সম্ভবতঃ ১৯৯৭-৯৮ নাগাদ কলকাতায় আসেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর পড়াশুনো করতে। কিছুদিনের মধ্যেই দোহার গানের দলটি গড়ে ওঠে। নব্বইয়ের শেষভাগ ক

সিঙ্গুর -- একটি পাঠপ্রতিক্রিয়া

সিঙ্গুরের ঘটনাপুঞ্জ তার বৃত্ত সম্পূর্ণ করলো এই সপ্তাহে। এইখানে বৃত্ত লিখতে তবুও একটু বাঁধছে, কারণ, গত দশ বছর আগে কোনও ভাবেই ভাবতে পারিনি যে শেষটা এইখানে হবে। প্রথমে তো বেশ ভালোই লাগছিল, অফিসে কম্পিউটার আর প্রাথমিকে ইংরেজি বর্জনকারী সিপিএম অবশেষে রাজ্যে ইন্ডাস্ট্রি আনা নিয়ে সিরিয়াসলি কিছুটা এগোচ্ছে দেখে। চাকরি বাকরি বাড়বে, ক্যাশ ফ্লো বাড়বে, অর্গানাইজড লেবার ক্লাস তৈরি হবে--- ইত্যাদি মিলিয়ে সে বেশ ভালো ব্যাপার মনে হচ্ছিল। তারপর সেই ফোর্থ ইয়ার থেকে জেনেছি কোর জব করতে হলে বাড়ি ছাড়তে হবে, এই শিল্পা

চ্যাং মুড়ি কানি এবং অন্যান্য



পার্লামেন্টে সাম্প্রতিক জেএনইউ বিতর্কের শুরুর দিন স্মৃতি ইরানি জেএনইউর ছাত্রদের প্রচারিত একটি লিফলেট থেকে পড়ছিলেন, যেখানে দুর্গাকে একজন বেশ্যা হিসেবে দেখানো হয়েছে যিনি মূলবাসী রাজা মহিষাসুরকে ছলনা করে বধ করেন। স্মৃতিজি পড়ছেন যখন সংসদ জুড়ে শেম শেম ধ্বনি শোনা যাচ্ছে। এরপর তিনি বলেন যে, এই কী বাক্‌ স্বাধীনতা, কলকাতার রাস্তায় কেউ এরকম বলতে পারবে? পুরাণেতিহাসের এই ভিন্নতর ভার্সন নিয়ে আলোচনার অবকাশ আছে। একটি মত শুনছি কোনো জনজাতির মধ্যে নাকি এইরকম লোকগাথা আছে। দুর্গাপ্রতিমা গড়তে বাংলায় বেশ্

রাষ্ট্রদ্রোহের ডাক

এমন করেই ছড়িয়ে গেছে মাটির থেকে জলে
সমুদ্র তার স্রোতের পথে অজানা অঞ্চলে,
মানুষ দিয়ে জড়িয়ে রাখে আমার দেশের টান
সেইখানেই তো নদীর তীরে মাটির থেকে ধান-
সোনার মতন আকাশ, নীচে ঘর খুঁজে পায় লোক
তখনও তার বনদেবতার হস্তীর মস্তক।
এমনি করেই নগর এবং বন্দর সভ্যতা
যে সভ্যতায় কেউ ভাবেনি অস্ত্রশালার কথা-
আবার যখন মরুভূমি মুছল নগর, নদী
নতুন করে শিখছে শ্রুতি সন্তান সন্ততি,
আমার দেশে সব মানুষই দেবতা হয়, একা-
সেই জেনেছে একান্তকে অনেকভাবে দেখা।
বিশ্বজয়ী গ্রিক সেনানীর রক্ত

আলোকপ্রাপ্তির কবিতামালা

(৫)
শার্ঙ্গক পক্ষীর স্তব
========

(“এই পঞ্চদশ দিনের মধ্যে তত্রস্থ সমস্ত জীবজন্তুই সেই প্রচণ্ডানলে দগ্ধ হইল; কেবল অশ্বসেন, ময় ও চারিটি শার্ঙ্গক রক্ষা পাইয়াছিল”)

প্রণম্য অগ্নি তুমি পিতৃমাতৃঘাতী, তবু
তোমাকেই স্তুতি করি কারণ বাঁচতে চাই আরও
স্বর্গমর্তব্যাপী তোমার যশোকীর্তি স্মারক
দেখে যেতে পারি যেন অধম দাসের চোখে প্রভু

প্রণম্য অগ্নি তুমি, আমরা তো পক্ষীশাবক
এতদিন এই বনে গাছে ও গুহায় বেড়ে উঠি
কীটভূক, উঞ্ছবৃত্তি শস্যদানা খাব বলে খুঁটি
কিম্বা ফলট

অক্ষর শব্দমালা

নাথুসংকটে হাঁকে তিব্বতী হাওয়া
---------------
শব্দরা ধনী। অর্থের বিত্তই তার সম্পদ। ধ্বনির শরীর থেকে উঠে আসে শব্দ। আওয়াজেরা মারা যায়, যৌথ আওয়াজে উঠে আসে মানে, দ্যোতনা, খোদাই করে রাখা অমরত্বের নিশানা। হিরণ্যগর্ভের আভাস পেয়ে ব্যক্তি মানব চিৎকার করে ওঠে- শৃণ্বন্তু। গোষ্ঠীর স্মৃতিতে থাকে অমৃতের অধিকার। আক্রান্ত গোষ্ঠীর নিশ্চিন্ততম মানুষটি শব্দের ইশারায় কেঁপে ওঠে। বিদেশ থেকে ফিরে আসে জাহানারা ইমামের সন্তান, চিরপরিচিত শব্দের মায়ায়, মর্যাদায়, শব্দের মধ্যেই ডুবে যায় একাত্তরের রুমি, একাত্তরের দিন

পুজোর সনেট

এসো স্মৃতি এসো সংকেত ভেদ করে এই পথমাঝে
রূপের গভীর থেকে মূর্তির মত চিনে নেওয়া ঘ্রাণে
আরতির ধোঁয়া এসে স্বয়ং উদিত হও ঘটের বিরাজে
যেরকম কুয়াশার থেকে মিশে গ্যাছো আশ্বিনের ধানে
এসো পথ এসো স্তবের বিচার থেকে স্মৃতির সকালে
রৌদ্র মেঘের ফাঁকে রেখে যাক পখি ওড়ানোর গান
ঢাল তুলে যেরকম বন্যা থামিয়ে দিতে নদীর কপালে
শিউলির হাসি দিয়ে নিয়ে সেজে যেত বিষাদবাগান
এসো রৌদ্র এসো বর্ষা কুয়াশার কাছে এসো ভুলপথ
মাঠের নবীন বাহু তালগাছ দুটি সিগন্যালে স্থিত
ভোরের রসের মত ঘুমের পর্দা তুলে

প্রি-পুজো সনেট

কুকুরের মাস শেষে এসে গেলে; যাকে বলি ঘ্যাম
ঘামের বিষাদ মেখে ট্রাফিকের বিস্তর জ্যাম
চুঁইয়ে চুঁইয়ে পড়ে সিগন্যাল থেকে, যেন জল
রেলিং-এর নীলসাদা হলুদ আর সিকির অচল
পাতায় নতুন করে ঘ্রাণ নিই নতুন বাঁধাই
যেরকম মহালয়া এসে গেলে এস এম এস পাই
সাতদিন রোববার সপ্তাহে ছুটি ছুটি মেনু
রেডিওয় আলো জ্বলে কীভাবে যে বেজে যেত বেণু!

আলোয় শব্দ বাজে রঙ ঠুকে যায় কাঁচে কাঁচে
বাঁশের কাঠামো থেকে গান বাজে আনাচে কানাচে
গানেরও শরীর থাকে মায়াবিনী সমারোহ সাজ
মাস গুণে তিথি মেনে ঠিকরিয়ে

এদিক সেদিক যা বলছেনঃ

24 May 2017 -- 06:06 PM:টইয়ে লিখেছেন
আর, প্রাইমারিলি ব্যাপারটা সিপিএমের। সেটা নিয়ে ফুটেজ খেতে চাইলে ট্রল বা ইগনোর দুটোর একটা করা যায়।
24 May 2017 -- 06:03 PM:টইয়ে লিখেছেন
এগেইন, তুমি যদি মূল লেখাটা পড়ো, স্পিরিটটা কিন্তু, ব্যারিকেড ভাঙব, পুলিশ জলকামান ছুড়লে পুলিশকে ইঁট ছু ...
24 May 2017 -- 05:24 PM:টইয়ে লিখেছেন
পুলিশ না আটকালে সিপিএম কী করত? বিদ্যাসাগর সেতুর ওপর দিয়ে মিছিল নিয়ে যেত?
24 May 2017 -- 04:58 PM:টইয়ে লিখেছেন
দ্যাখো, এমনিতে একটা মানুষ মাটিতে পড়ে মার খাচ্ছে এটা দেখলে খারাপ লাগে। কিন্তু সিপিএম নিজেকে মন জায়গায় ...
24 May 2017 -- 04:04 PM:টইয়ে লিখেছেন
সিপিএম বিপ্লব করছে, সে গল্প জনে জনে পড়বে তো
24 May 2017 -- 11:27 AM:টইয়ে লিখেছেন
এটা তিয়েনান্মেনের থ্রেড, এদ্দিন ঘোরার পর এবার দাঁড়াচ্ছে, খাগড়াগড় ফড় এর কাছে লাগে!
24 May 2017 -- 11:21 AM:টইয়ে লিখেছেন
আচ্ছা এই ছদ্মনামে লেখা কি সালকিয়া প্লেনামের পথ পরিত্যাগ করে গোপন ও ষড়যন্ত্রমূলক হয়ে ওঠার পুনর্প্র্যা ...
24 May 2017 -- 10:51 AM:টইয়ে লিখেছেন
ঋতব্রতও কলকাতায় নেই?
24 May 2017 -- 10:35 AM:টইয়ে লিখেছেন
কাল মিছিলে নাকি সুমিত তালুকদার আর ঋতব্রত ব্যানার্জী একই ইঁট থেকে আধলা ভেঙে পুলিশের দিকে ছুঁড়েছে, সিপ ...
24 May 2017 -- 10:33 AM:টইয়ে লিখেছেন
ভালো লাগল। কিন্তু এই রেজিস্ট্যান্সটা দিতে ৬ বছর লেগে গেল কেন? তবে এই স্ট্রিট ফাইট দিনের পর দিন চললে ...
23 May 2017 -- 06:01 PM:টইয়ে লিখেছেন
মেয়ের জন্যে কয়েকটা বানিয়েছিলাম, সেগুলোর কিছু দিইঃ (১) হুড়মুড়িয়ে জোর কদমে যাচ্ছে ঘেঁটু ...
18 Apr 2017 -- 01:16 PM:মন্তব্য করেছেন
RSS-- <3
18 Apr 2017 -- 01:16 PM:মন্তব্য করেছেন
এই বইটায় কিছু আছে হয়তঃ https://books.google.co.in/books?id=gcGiwyBS3YwC&pg=PT112&lpg=PT112&dq=tarikh ...
18 Apr 2017 -- 11:02 AM:মন্তব্য করেছেন
তথ্যসূত্র ইন্টারনেটে খুব সহজে পাওয়া যায়। আলাদা করে কোনও স্পেসিফিক বই মেনশন করছিনা। তবে আকবর যে তারিখ ...
27 Jan 2017 -- 12:20 AM:টইয়ে লিখেছেন
ভারতবর্ষের মাটিতে যে বিভিন্ন সার্বভৌম রাষ্ট্রশক্তি বিভিন্ন সময়ে মাথা তুলেছে তাদের গড় আয়ু কীরকম? ...
27 Jan 2017 -- 12:19 AM:টই খুলেছেন
ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের আয়ু আর কদ্দিন?
19 Sep 2016 -- 06:42 AM:মন্তব্য করেছেন
এই সভ্যতা ধ্বংসের পর পৃথিবী আর মানুষের বাসযোগ্য থাকবে কি?
18 Sep 2016 -- 11:22 PM:মন্তব্য করেছেন
ইউক্লিড-বরাহমিহির থেকে সেই আ কী কী প্রযুক্তি এল? একটু যদি বিশদ করেন।
18 Sep 2016 -- 11:17 PM:মন্তব্য করেছেন
কল্লোলদা, এই পেছনে ফেরা যায় না- এরকম প্রতিপাদ্য নিয়ে আমার একটু ইসে আছে। আমাদের দেশের ইতিহাসেই তো দেখ ...
17 Sep 2016 -- 01:40 PM:মন্তব্য করেছেন
শিশুমৃত্যু।লাইফ এক্সপেন্টেন্সি প্রভৃতি যা যা বেড়েছে, তা কি শিল্পবিপ্লব না হলে বাড়ত না? ধরা যাক, পাবল ...