Muhammad Sadequzzaman Sharif RSS feed

Muhammad Sadequzzaman Sharifএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • মানবিক
    এনআরএস-এর ঘটনা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এরকম ঘটনা বারেবারেই ঘটে চলেছে এবং ভবিষ্যতে ঘটতে চলেছে আরও। ঘটনাটি সমর্থনযোগ্য নয় অথবা ঘৃণ্য অথবা পাশবিক (আয়রনি); এই জাতীয় কোনো মন্তব্য করার জন্য এই লেখাটা লিখছি না। বরং অন্য কতগুলো কথা বলতে চাই। আমার মনে হয় এই ঘটনার ...
  • ডিগ্রি সংস্কৃতি
    মমতার সবৈতনিক শিক্ষানবিস শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়োগের ঘোষণায় চারপাশে প্রবল হইচই দেখছি। বিশেষ গাদা গাদা স্কুলে হাজার হাজার শিক্ষক পদ শূন্য, সেখানে শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়োগ সংক্রান্ত ব্যাপারে কিছুই না করে এই ঘোষণাকে সস্তায় কাজ করিয়ে নেওয়ার তাল মনে হইয়া খুবই ...
  • বাংলাদেশের শিক্ষিত নারী
    দেশে কিছু মানুষ রয়েছে যারা নারী কে সব সময় বিবেচনা করে নারীর বিয়ে দিয়ে। মানে তাদের কাছে বিয়ে হচ্ছে একটা বাটখারা যা দিয়ে নারী কে সহজে পরিমাপ করে তারা। নারীর গায়ের রং কালো, বিয়ে দিতে সমস্যা হবে। নারী ক্লাস নাইন টেনে পড়ে? বিয়ের বয়স হয়ে গেছে। উচ্চ মাধ্যমিকে ...
  • #মারখা_মেমারিজ (পর্ব ৫)
    স্কিউ – মারখা (০৫.০৯.২০১৮)--------...
  • গন্ডোলার গান
    সে অনেককাল আগের কথা। আমার তখন ছাত্রাবস্থা। রিসার্চ অ্যাসিস্ট্যান্টশিপের টাকার ভরসায় ইটালি বেড়াতে গেছি। যেতে চেয়েছিলাম অস্ট্রিয়া, সুইৎজারল্যান্ড, স্ট্রাসবুর্গ। কারণ তখন সবে ওয়েস্টার্ন ক্লাসিকাল শুনতে শুরু করেছি। মোৎজার্টে বুঁদ হয়ে আছি। কিন্তু রিসার্চ ...
  • শেকড় সংবাদ : চিম্বুকের পাহাড়ে কঠিন ম্রো জীবন
    বাংলাদেশের পার্বত্য জেলা বান্দরবানের চিম্বুক পাহাড়ে নিরাপত্তা বাহিনীর ভূমি অধিগ্রহণের ফলে উচ্ছেদ হওয়া প্রায় ৭৫০টি ম্রো আদিবাসী পাহাড়ি পরিবার হারিয়েছে অরণ্যঘেরা স্বাধীন জনপদ। ছবির মতো অনিন্দ্যসুন্দর পাহাড়ি গ্রাম, জুম চাষের (পাহাড়ের ঢালে বিশেষ চাষাবাদ) জমি, ...
  • নরেন হাঁসদার স্কুল।
    ছাটের বেড়ার ওপারে প্রশস্ত প্রাঙ্গণ। সেমুখো হতেই এক শ্যামাঙ্গী বুকের ওপর দু হাতের আঙুল ছোঁয়ায় --জোহার। মানে সাঁওতালিতে নমস্কার বা অভ্যর্থনা। তার পিছনে বারো থেকে চার বছরের ল্যান্ডাবাচ্চা। বসতে না বসতেই চাপাকলের শব্দ। কাচের গ্লাসে জল নিয়ে এক শিশু, --দিদি... ...
  • কীটদষ্ট
    কীটদষ্টএকটু একটু করে বিয়ারের মাথা ভাঙা বোতল টা আমি সুনয়নার যোনীর ভিতরে ঢুকিয়ে দিচ্ছিলাম আর ওর চোখ বিস্ফারিত হয়ে ফেটে পড়তে চাইছিলো। মুখে ওরই ছেঁড়া প্যাডেড ডিজাইনার ব্রা'টা ঢোকানো তাই চিৎকার করতে পারছে না। কাটা মুরগীর মত ছটফট করছে, কিন্তু হাত পা কষে বাঁধা। ...
  • Ahmed Shafi Strikes Again!
    কয়দিন আগে শেখ হাসিনা কে কাওমি জননী উপাধি দিলেন শফি হুজুর। দাওরায় হাদিস কে মাস্টার্সের সমমর্যাদা দেওয়ায় এই উপাধি দেন হুজুর। আজকে হুজুর উল্টা সুরে গান ধরেছেন। মেয়েদের ক্লাস ফোর ফাইভের ওপরে পড়তে দেওয়া যাবে না বলে আবদার করেছেন তিনি। তাহলে যে কাওমি মাদ্রাসা ...
  • আলতামিরা
    ঝরনার ধারে ঘর আবছা স্বয়ম্বর ফেলেই এখানে আসা। বিষাদের যতো পাখিচোর কুঠুরিতে রাখিছিঁড়ে ফেলে দিই ভাষা৷ অরণ্যে আছে সাপ গিলে খায় সংলাপ হাওয়াতে ছড়ায় ধুলো। কুটিরে রেখেছি বই এবার তো পড়বোই আলোর কবিতাগুলো।শুঁড়িপথ ধরে হাঁটিফার্নে ঢেকেছে মাটিকুহকী লতার জাল ফিরে আসে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

Ahmed Shafi Strikes Again!

Muhammad Sadequzzaman Sharif

কয়দিন আগে শেখ হাসিনা কে কাওমি জননী উপাধি দিলেন শফি হুজুর। দাওরায় হাদিস কে মাস্টার্সের সমমর্যাদা দেওয়ায় এই উপাধি দেন হুজুর। আজকে হুজুর উল্টা সুরে গান ধরেছেন। মেয়েদের ক্লাস ফোর ফাইভের ওপরে পড়তে দেওয়া যাবে না বলে আবদার করেছেন তিনি। তাহলে যে কাওমি মাদ্রাসা গুলায় মেয়েদের দাওরায় হাদিস পড়ান হয় সেগুলা বন্ধ করে দিতে হয় এখন! মেয়েরা তোমরার আর এম এ পাস করা হইল না, দাওরায় হাদিস দিয়াও না!!

এর আগে হুজুর তত্ব দিয়েছিলেন নারীদের নারী ডাক্তার ছাড়া চিকিৎসা নেওয়া যাবে না। তখনও সবার মনে প্রশ্ন উঠে ছিল তাহলে ক্লাস ফোর ফাইভে পড়া মেয়েদেরই কী ডাক্তার বানাতে হবে এখন থেকে? হাইস্যকর বড়ই হাইস্যকর আলাপ!
এই হুজুররা তত্ব দেয় মেয়েরা তেঁতুলের মত, পড়ালেখা করা যাবে না, মেয়েদের চাকরি করা যাবে না, গার্মেন্টসে কাজ করা মেয়েরা আসলে পতিতাবৃত্তি করে সহ নানা তত্ব। কিন্তু আসলে যা হচ্ছে বাংলাদেশের মানুষ হুজুরদের এই সব কথাবার্তা ওয়াজে শুনার সময় শুনে ওয়াজ থেকে বের হয়ে নিজের স্বার্থে ব্যাঘাত করে এমন সব আস্তে করে ভুলে যায়।

নারীর এখন ওই দিন নাই যে হুজুর তত্ব দিবে আর সব মেয়েরা সুড়সুড় করে কাজ কাম ছেড়ে ঘরে খিল দিয়ে বসে থাকবে। নারী পাত্তাও দেয় না এই ধমককে। প্রমাণ হচ্ছে গত কয়েক বছরে নারী-পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের অবস্থানের বড় অগ্রগতি।ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরাম প্রকাশিত বৈশ্বিক লিঙ্গ বিভাজন সূচক বা গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্সের সর্বশেষ প্রতিবেদনে বাংলাদেশের অবস্থান দক্ষিণ এশিয়ায় সবার উপরে। বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৪৭ তম। অন্য দিকে আমাদের আশেপাশের প্রতিবেশী দেশ গুলার অবস্থান যথাক্রমে মালদ্বীপ ১০৬, ভারত ১০৮, শ্রীলঙ্কা ১০৯, নেপাল ১১১, ভুটান ১২৪ ও পাকিস্তান রয়েছে ১৪৩ তম অবস্থানে। আমাদের আশেপাশেও কেউ নাই এখন। ভারতের মত বড় ও অর্থনৈতিক ভাবে শক্তিশালী দেশ বাংলাদেশ থেকে ৬০ ধাপ পিছনে পরে আছে। বাংলাদেশের অবস্থানের উন্নতির পথে চারটা খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে বলে বলা হয়েছে। খাত গুলা হচ্ছে -শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি ও রাজনীতি। আর আজকে হুজুর বলে দিলেন প্রথম যে খাত সেই শিক্ষাই নিতে পারবে না নারী!

বাংলাদেশের অর্থনীতি যে যে আস্তে আস্তে শক্তিশালী অবস্থানে পৌঁছে যাচ্ছে তার অন্যতম প্রধান কারন আমাদের নারী পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে। বাংলাদেশ যখন সুপারসনিক গতিতে সামনে এগিয়ে যেতে চাচ্ছে তখন এই ধরনের বক্তব্য আর কছু না শুধু নারী কে অপমানই করে।তাদের এই বক্তব্য কোন প্রভাব ফেলে না জানার পরেও তারা এই ধরনের বক্তব্য দিয়ে যায়। দিয়ে যায় কারন সম্ভবত উনারা যে এখনো দেশে আছেন তা বোঝানোর জন্য। একটু ফোঁস করার চেষ্টা করে অতীতে যে তারা বেশ জোরেশোরে ফোঁস ফাঁস করতেন তা মনে করার জন্য হয়ত এমন করেন।

236 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন



আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন