Sakyajit Bhattacharya RSS feed

Sakyajit Bhattacharyaএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • হাল্কা নারীবাদ, সমানাধিকার, বিয়ে, বিতর্ক ইত্যাদি
    কদিন আগে একটা ব্যাপার মাথায় এল, শহুরে শিক্ষিত মধ্যবিত্ত মেয়েদের মধ্যে একটা নরমসরম নারীবাদী ভাবনা বেশ কমন। অনেকটা ঐ সুচিত্রা ভট্টাচার্যর লেখার প্লটের মত। একটা মেয়ে সংসারের জন্য আত্মত্যাগ করে চাকরী ছেড়ে দেয়, রান্না করে, বাসন মাজে হতভাগা পুরুষগুলো এসব বোঝে ...
  • ক্যানভাস(ছোট গল্প)
    #ক্যানভাস১ সন্ধ্যে ছটা বেজে গেলেই আর অফিসে থাকতে পারে না হিয়া।অফিসের ওর এনক্লেভটা যেন মনে হয় ছটা বাজলেই ওকে গিলে খেতে আসছে।যত তাড়াতাড়ি পারে কাজ গুছিয়ে বেরোতে পারলে যেন হাঁপ ছেড়ে বাঁচে।এই জন্য সাড়ে পাঁচটা থেকেই কাজ গোছাতে শুরু করে।ছটা বাজলেই ওর ডেক্সের ...
  • অবৈধ মাইনিং, রেড্ডি ভাইয়েরা ও এক লড়াইখ্যাপার গল্প
    এ লেখা পাঁচ বছর আগের। আরো বাহু লেখার মত আর ঠিকঠাক না করে, ঠিকমত শেষ না করে ফেলেই রেখেছিলাম। আসলে যাঁর কাজ নিয়ে লেখা, হায়ারমাথ, তিনি সেদিনই এসেছিলেন, আমাদের হপকিন্স এইড ইণ্ডিয়ার ডাকে। ইনফরমাল সেটিং এ বক্তৃতা, তারপর বেশ খানিক সময়ের আলাপ আলোচনার পর পুরো ...
  • স্বাধীন চলচ্চিত্র সংসদ বিষয়ক কিছু চিন্তা
    জোট থাকলে জটও থাকবে। জটগুলো খুলতে খুলতে যেতে হবে। জটের ভয়ে অনেকে জোটে আসতে চায় না। তবে আমি চিরকালই জোট বাঁধার পক্ষের লোক। আগেও সময়ে সময়ে বিভিন্নরকম জোটে ছিলাম । এতবড় জোটে অবশ্য প্রথমবার। তবে জোটটা বড় বলেই এখানে জটগুলোও জটিলতর হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। কেউ ...
  • 'শীতকাল': বীতশোকের একটি কবিতার পাঠ প্রতিক্রিয়া
    বীতশোকের প্রথম দিকের কবিতা বাংলা কবিতা-কে এক অন্য স্বর শুনিয়েছিলো, তাঁর কণ্ঠস্বরে ছিলো নাগরিক সপ্রতিভতা, কিন্তু এইসব কবিতার মধ্যে আলগোছে লুকোনো থাকতো লোকজীবনের টুকরো ইঙ্গিত। ১৯৭৩ বা ৭৪ সালের পুরনো ‘গল্পকবিতা’-র (কৃষ্ণগোপাল মল্লিক সম্পাদিত) কোনো সংখ্যায় ...
  • তারাবী পালানোর দিন গুলি...
    বর্ণিল রোজা করতাম ছোটবেলায় এই কথা এখন বলাই যায়। শীতের দিনে রোজা ছিল। কাঁপতে কাঁপতে সেহেরি খাওয়ার কথা আজকে গরমে হাঁসফাঁস করতে করতে অলীক বলে মনে হল। ছোট দিন ছিল, রোজা এক চুটকিতে নাই হয়ে যেত। সেই রোজাও কত কষ্ট করে রাখছি। বেঁচে থাকলে আবার শীতে রোজা দেখতে পারব ...
  • দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল,কোপেনহেগেনে বিড়ি
    এই ঘটনাটি আমার নিজের অভিজ্ঞতা নয়। শোনা ঘটনা আমার দুই সিনিয়রের জীবনের।দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেলকোপেনহেগেনে বিডি***********পুরোট...
  • অদ্ভুত
    -কি দাদা, কেমন আছেন?-আপনি কে? এখানে কেন? ঘরে ঢুকলেন কিভাবে?-দাঁড়ান দাঁড়ান , প্রশ্নের কালবৈশাখী ছুটিয়ে দিলেন তো, এত টেনশন নেবেন না-মানেটা কি আমার বাড়ি, দরজা বন্ধ, আপনি সোফায় বসে ঠ্যাঙ দোলাচ্ছেন, আর টেনশন নেব না? আচ্ছা আপনি কি চুরি করবেন বলে ঢুকেছেন? যদি ...
  • তারার আলোর আগুন
    তারার আলো নাকি স্নিগ্ধ হয়, কাল তাহলে কেন জ্বলে মরল বারো, মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে আরো সত্তর জন! তবু মৃত্যু মিছিল অব্যাহত। আজও রাস্তায় পড়ে এক স্বাস্থ্যবান শ্যামলা যুবক, শেষবারের মতো ডানহাতটা একটু নড়ল। কিছু বলতে চাইল কি ? চারপাশ ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকা সশস্ত্র ...
  • 'হারানো সজারু'
    ১এক বৃষ্টির দিনে উল্কাপটাশ বাড়ির পাশের নালা দিয়ে একটি সজারুছানাকে ধেইধেই করে সাঁতার কেটে যেতে দেখেছিল। দেখামাত্রই তার মনে স্বজাতিপ্রীতি ও সৌভ্রাতৃত্ববোধ দারুণভাবে জেগে উঠল এবং সে ছানাটিকে খপ করে তুলে টপ করে নিজের ইস্কুল ব্যাগের মধ্যে পুরে ফেলল। এটিকে সে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

Sakyajit Bhattacharya



মনে রাখবেন, বুদ্ধিজীবি মানে কিন্তু সিরিয়াস বুদ্ধিজীবি। কথাটার ওজন রয়েছে। এই বাংলাতে দেব অথবা দেবশ্রী রায়কে যতজন চেনেন, তার দুশো ভাগের এক ভাগও দীপেশ চক্রবর্তীর নাম শোনেননি। কিন্তু দীপেশ বুদ্ধিজীবি। কবির সুমন বুদ্ধিজীবি। তো, বুদ্ধিজীবি হতে গেলে নিচের কয়েকটা শর্ত আবশ্যিকভাবে পূরণ করতেই হবে।

১। আপনার একটা বাম অতীত থাকা আবশ্যিক। সে নক্সাল হোক, অথবা সিপিআই(এম) বা তৃতীয় ধারা। মনে রাখবেন, তৃণমূল অথবা বিজেপি চিন্তার রাজ্যে এতই মেরুদণ্ডহীন যে এরা আনঅ্যাপোলজেটিক ভাবে কোনওই দক্ষিণপন্থী বুদ্ধিজীবির জন্ম দিতে পারে নি। আপনাকে আগে বাম হতে হবে, এবং সেই বামপন্থা ভাঙিয়ে আপনাকে পরের স্টেপগুলো এক এক করে পূরণ করতে হবে।

২। হাতে এক মাস সময় নিন। এর মধ্যে প্রাণপণে উইকিপিডিয়া ও গুগল সার্চ এঞ্জিন ব্যবহার করে কয়েকটা জিনিস জেনে নিন। কাকে বলে সাবঅলটার্ণ। কাকে বলে শ্রেণি। কাকে বলে জাতি। নিম্নবর্গের কী কী ধর্ম এই বাংলায় ছিল তার একটা লিস্ট জেনে নিন। ভুলেও যেন সাবঅলটার্ণ তত্ব নিয়ে খুঁটিয়ে জানতে যাবেন না ! তাহলে কিন্তু আপনি তৃণমূল থাকবেন না, শিক্ষিত হয়ে যাবেন ! কাজেই ওই ঝুঁকি নেবেন না একদম। বদলে কয়েকটা জার্গন মুখস্থ করে নিন। 'ভদ্রলোক', 'গ্রাম সমাজ', 'প্রান্ত' (ভাল হয় ইংরেজি হিসেবে 'মার্জিন' বললে, বেশি ওজন পাবে), 'কাল্ট', 'বর্ণহিন্দু', 'রণজিৎ গুহ' ইত্যাদি। আসল বইগুলো যেহেতু আপনি পড়ে বুঝবেন না, তাই কলিম খানের মেড ইজি গুলো পড়ে ফেলুন। মনে রাখবেন, তৃণমূলী ব্যাকরণের জগতে উনিই বামনদেব চক্রবর্তী।

৩। এরপর আসবে প্রয়োগের পালা। এই কাজটা অপেক্ষাকৃত সহজ। আপনাকে চোখ বুজে যে কোনও অসভ্যতাকে তাত্বিক ভিত্তি দিতে হবে। সেটা করতে গেলে প্রথমেই দুখানা বাক্য মুখস্থ করে নিন। "গত চৌঁতিরিশ বছরে ভদ্রলোকের দাপট ছিল। সেই উচ্চবর্ণের হিন্দুদের দাপট গুঁড়িয়ে দিয়ে আপাতত অন্ত্যজদের উত্থান ঘটছে"। ব্যাস, এবার এটাকেই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সর্বত্র প্রয়োগ করুন। ভোটের সময়ে বুথ দখল হচ্ছে? বেশ হচ্ছে। দখল করা হচ্ছে গ্রামীণ সাবঅলটার্ণদের স্বার্থে, কারণ এতদিন পঞ্চায়েতে ছিল ভদ্রলোক শ্রেণির প্রাধান্য। বিরোধী প্রার্থীকে ধর্ষণ করে খুন করা হচ্ছে? নিম্নবর্গের জমে থাকা ক্ষোভ যদি এভাবে বার্স্ট করে, আমরা ভদ্রলোকেরা জাজ করবার কে? তিন মাসের শিশুকে তৃণমূলের গুণ্ডাবাহিনী আছড়ে মারল? এই শিশুটি বড় হয়ে উচ্চবর্ণের তল্পিবাহক হত। তাই তাকে খুন করে গ্রামীণ নিম্নবর্গের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার রাস্তা পরিষ্কার করে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

৪। এই প্রয়োগের আবশ্যিক অঙ্গ হিসেবে অতি অবশ্যই শিক্ষা, সভ্যতা, রুচি ইত্যাদি জিনিসগুলিকে আত্বিক আক্রমণ করতেই হবে। মানে, ধরুন শহরের শিক্ষিত মানুষ যদি তৃণমূলী জমানাতে উষ্মা প্রকাশ করেন, তাঁকে অতি অবশ্যই উচ্চবর্ণের আলোকপ্রাপ্ত বাবু শ্রেণি হিসেবে দাগিয়ে দিতে হবে। এটাও প্রমাণ করতে হবে যে তাঁরা ছোটলোকদের ঘৃণা করেন। সভ্যতাকে চিহ্নিত করতে হবে পুঁজিবাদের অভিশাপ হিসেবে। রুচি-কে চিহ্নিত করতে হবে বর্ণহিন্দু মানসিকতা হিসেবে। এবং পাড়ায় পাড়ায় তৃণমূলী জলসা, কলেজ অনুষ্ঠানে মেয়েদের নাচিয়ে পয়সা ছোঁড়া, 'টুনির মা' ইত্যাদিকে সাধারণ গরীব মানুষের প্রকৃত সংস্কৃতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। দরকার পড়লে ফোক কালচার, সাংস্কৃতিক আধিপত্য বা এমন কি গ্রামশি ইত্যাদি নেমড্রপ করা যেতে পারে। কিন্তু খবরদার, ভুলেও এসব রেটরিককে খুঁটিয়ে পড়তে যাবেন না। তাহলে কিন্তু আপনি তৃণমূল থাকবেন না, শিক্ষিত হয়ে যাবেন !

৫। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অনুব্রত মণ্ডল এবং আরাবুল ইসলামকে সহজ সরল গ্রাম সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এটা করবার সেরা উপায় হল বামফ্রন্ট রাজত্বে ভদ্রলোকদের যেভাবে আধিপত্য বেড়েছিল এবং তারা যেভাবে মুসলিম ও নমঃশূদ্র বিরোধী ছিল, সেটাকে প্রচার করা। সকালবেলা উঠেই খালি পেটে বীজমন্ত্রের মত পাঁচবার আওড়াবেন 'মরিচঝাঁপি'। এতে কাজ দিতে পারে। আর সেই সঙ্গে, 'অশিক্ষিত' , 'অমার্জিত', 'অভদ্র', 'রুচিহীন' এসব শব্দবন্ধ শুনলেই আপনার আবেগ যেন ভেতর থেকে উথলে ওঠে। সেই সব মূঢ় ম্লান মূক মুখে ভাষা পৌঁছে দেবার জন্য আপনার শহুরে শিক্ষিত মনন হয়ে উঠুক এ যুগের হোয়াইট সেভিয়ার। মনে রাখবেন, এই তৃণব্যবস্থায় যে যত বেশি পড়াশোনা করে সে তত বেশি বর্ণহিন্দু ভদ্রলোক হয়।

৬। এত কঠিন টাস্ক দেখে ঘাবড়াবেন না। বাজারে আপনার কাজ সহজ করে দিতে এসে গেছে আরেক জন। তার নাম বিজেপি। মমতাকে প্রতিষ্ঠা করবার জন্য আপনি বিজেপি-র জুজু দেখিয়ে যান। যেখানে পারবেন দেখান। বিরোধী বাম পার্টির কর্মীদের পুড়িয়ে মারা হয়েছে? তৃণমূলকে সমর্থন করুন নাহলে এক্ষুনি বিজেপি এসে যাবে। পঞ্চায়েতের টাকা, একশো দিনের কাজ, চিটফাণ্ড সমস্ত কিছুর কোটি কোটি টাকা লুটে পুটে খেয়ে অনুব্রত আরাবুল নামক নব্য কুলাক শ্রেণির জন্ম হয়েছে? তৃণমূলকে সমর্থন করুন নাহলে এক্ষুনি বিজেপি এসে যাবে। তৃণমূল কংগ্রেস নিজের ভোটব্যাংক সুরক্ষিত করতে রামনবমীর মিছিল বার করে দাংগা বাধিয়েছে? তৃণমূলকে সমর্থন করুন নাহলে এক্ষুনি বিজেপি এসে যাবে। তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসবার পর তাদের প্রত্যক্ষ সহায়তায় গ্রামে গঞ্জে আরএসএসের শাখা, স্কুল, হিন্দু সংহতির অফিস হুহু করে বেড়ে গিয়েছে? পার্লামেন্টে বিজেপি-র বিরুদ্ধে আনা নো-কনফিডেন্স মোশন ভেস্তে গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস ওয়াক আউট করবার ফলে? তৃণমূলকে সমর্থন করুন নাহলে এক্ষুনি বিজেপি এসে যাবে। পঞ্চায়েত ভোটে নির্মমভাবে খুনোখুনি বোমাবাজি আর হত্যা ধর্ষণের মাধ্যমে রাজ্যে গণতন্ত্র নামক ধারণাটিই এই মুহূর্তে কোমাতে চলে গেছে? তৃণমূলকে সমর্থন করেও আর লাভ নেই, কারণ তাদের হাত ধরে বিজেপি অলরেডি এসেই গিয়েছে।

৭। আর ওপরের সমস্ত তত্বকে সুগারকোট করবার জন্য আপনার হাতের কাছে রয়েছে মার্ক্সবাদ । সিপিআই(এম) মার্ক্সকে হত্যা করেছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে কমিউনিজমের প্রকৃত প্রয়োগ হচ্ছে। এটাকে আপনি সবথেকে ভাল খাওয়াতে পারেন যদি আপনার নামের পেছনে 'প্রাক্তন নক্সালপন্থী' নামক উপমাটি থাকে। যে কোনও আলোচনার মধ্যে হালকাভাবে গুঁজে দিন 'গোথা প্রোগ্রামের সমালোচনাতে কার্ল মার্ক্স যা যা ইস্যু তুলেছিলেন সেগুলোই যেন নতুন ভাবে অ্যাড্রেসড হচ্ছে কন্যাশ্রী প্রকল্পে"। কিন্তু খবরদার, ভুলেও সেই মার্ক্সের লেখাপত্রের খুঁটিয়ে বিবরণ শোনাতে যাবেন না। ওপর ওপর বলে ছেড়ে দেবেন। না হলেই কিন্তু আপনি তৃণমূল থাকবেন না, শিক্ষিত হয়ে যাবেন !

ওপরের প্রসেসগুলো ফলো করুন। ফলো করুন। আপণই বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবি হিসেবে পরিগণিত হবেন। টিভি চ্যানেলে আসবেন, কমিটির মাথা হবেন, শহীদ মিনারে নেত্রীর চেয়ারের জল মুছিয়ে দেবেন, জয় মমতা স্লোগানে গলা মেলাতে পারবেন। কলাটা মুলোটা যে মিলবে সেসব সকলেই জানে। কিন্তু আরেকটা অদ্ভুত ঘটনা আপনি দেখতে পাবেন। আপনার শারীরিক পরিবর্তন ঘটছে। হ্যাঁ, আপনি রথম প্রথম এগুলোতে একটু অবাক হলেও পরে বুঝতে পারবেন এগুলো খুবই ছোট্ট ও স্বাভাবিক ঘটনা। খুব গরমে আপনি হ্যা হ্যা করে হাঁফাবেন। প্রতিটি নিশুতি রাত্রে আপনার সহমর্মী বুদ্ধিজীবিদের সঙ্গে উচ্চগ্রামে গলা তুলে কারণ ছাড়াই চিৎকার করবার রোগ আপনাকে পেয়ে বসবে। আপনার ঘ্রাণশক্তি খুব তীব্র হয়ে উঠবে। গন্ধ শুঁকে বলে দিতে পারবেন কে মাওবাদী, কে মুসলমান বিদ্বেষী আর কে বিজেপি-র দালাল। এরপর, যেদিন দুপুরবেলা রাস্তার ধারের ল্যাম্পপোস্ট দেখে আপনার ডান পা নিজের অজান্তেই কাঁধের কাছে উঠে যাবে, বুঝবেন আপনি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হয়ে উঠেছেন। সেই অকুণ্ঠ ভাঁড়ামির নিলাজ কার্নিভালে, কী-ই বা এসে যায়, বিজেপি যদি চলেই আসে? ইয়ে বিজেপি আগার মিল ভি যায়ে তো কেয়া হ্যায়?



শেয়ার করুন


মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7]   এই পাতায় আছে 102 -- 121
Avatar: dc

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

আমি আবার ভেবেছি তাতিন গর্গ একজনের নাম!

তবে দ্যাখেন, প্রাক পুঁজিবাদ স্বর্ণযুগ, সেটা যদি ভারতে পশ্চিমের থেকে আলাদা হয়েও থাকে, তো সেই ব্যবস্থায় ফিরে যাবার একটিমাত্র বাধা আছে।

ইলেকট্রিসিটি।

আজ থেকে একশো বছর আগে পৃথিবীর কোথাও ইলেকট্রিসিটি ছিলনা, ভারতেও না। আর ইলেকট্রিসিটি ছাড়া সমাজ অচল, ভারতেও, অন্য সব জায়গাতেও। এবার দেখুন কিভাবে সেই স্বর্ণযুগে ফিরে যাবেন - লোকজনকে বিদ্যুত ছাড়া থাকতে বলবেন নাকি ভারতে যতো বিদ্যুত দরকার হয় সেই বিদ্যুত উৎপাদন করবেন।
Avatar: N-methyl-D-aspartate

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

কে বলে ইলেক্ট্রিসিটি ছিলো না? মহাভারতের আমলে ডেটাকার্ড বা হটস্পট চলতো কী করে?
Avatar: dc

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

তাও তো বটে। সেযুগে তো দিব্যি নিউরোসার্জারিও হতো। তাহলে অবশ্য সেই রামরাজ্যে ফিরে যাওয়া যেতেই পারে।

হাওড়া ব্রিজে শীর্ষাসন করতে খারাপও লাগবে না।
Avatar: S

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

এখনও এইসব আছে, সেইকালেও ছিলো। কিন্তু সেইকালে ফিরে গেলে মহান মোদিকে পাবোনা তো। তার থেকে এইকালে থাকাই ভালো।
Avatar: দ

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

সেকালে সঅঅব ছিল শুধু লোকের বাঋতে বাত্তুম ছিল না।
Avatar: N-methyl-D-aspartate

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

উঁহু, তেনারা বাইরে অ্যাবান্ডান্ট অর্গ্যানিক ফার্টিলাইজারের বন্দোবস্ত করেছিলেন।
Avatar: Sakyajit Bhattacharya

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

সমাজবিবর্তনের কোনও গ্র্যান্ড থিওরি মার্ক্সবাদ দেয় না। প্রতিটা সমাজ তার নিজস্ব নিয়মে বিকশিত হয়। তাই পুঁজিবাদেরও কোনও গ্র্যান্ড ন্যারেটিভ নেই
Avatar: S

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

ক্যাপিটালিজমের বোধয় কিছু গ্র্যান্ড থিয়োরি আছে। মানে এগুলো থাকতে হবে। ফ্রি মার্কেট, প্রোটেকশন অব প্রাইভেট প্রপার্টি ইত্যাদি ইত্যাদি। এখন কোনও দেশেই পুরোপুরি ক্যাপিটালিজম অ্যাপ্লাই করা সম্ভব না যদি না সেদেশ মোনাকোর মতন ছোটো আর সবাই বড়লোক দেশ না হয়। তাই সব দেশেই কিছুটা কিছুটা করে ইম্প্লিমেন্ট করা হয়েছে ডিপেন্ডিঙ্গ অন সেখানে কোন দিকের ভার বেশি।

তবে যারা বইধরে ক্যাপিটালিজম ইম্প্লিমেন্ট করতে চায় সেরকম এক আধজনের সঙ্গে কথা হয়েছে। এমন সব অবাস্তব কথাবার্তা বলে যে মনে হয় জীবনে কোনওদিন মানব সমাজ দেখেইনি।
Avatar: dc

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

এরকম আমিও দুয়েকজন দেখেছি। আসলে আদর্শ ক্যাপিটালিজম বা আদর্শ মার্ক্সিসম কোনটাই যে রিয়েল লাইফে হয়না এটা বোধায় অনেকে বুঝতে পারে না।
Avatar: S

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

প্রোটেকশন অব প্রাইভেট প্রপার্টি - এর মানেটা একদিন লিখবো।
Avatar: lcm

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

রিয়েল লাইফে ক্যাপিটালিজ্‌ম্‌ আর কম্যুনিজ্‌ম সম্পুর্ণ বিপরীতধর্মী কনসেপ্ট, একটা উদাহারণ দিয়ে বলি - In Capitalism, man exploits man, in communism exactly opposite.
Avatar: dc

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

কিন্তু এই বৈপরিত্য বোঝা সহজ কাজ নয়, এর জন্য কঠিন থিওরি চাই।
Avatar: S

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

লসাগুদা আজকাল কিন্তু লোকে বলছে "In socialism, man exploits man. In capitalism, it's exactly the opposite"।
Avatar: lcm

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

দেখো, এই থ্রেডে কত লোক এসেছেন - - - দীপেশ চক্রবর্তী, কলিম খান, হরিপদ বসাক, কালাচাঁদ দরবেশ, কবীর সুমন, গুরুচাঁদ, মমতা ব্যানার্জি, আরাবুল ইসলাম, কার্ল মার্ক্স, আলিবর্দি, অনুব্রত মন্ডল, রনজিৎ গুহ, কৃত্তিবাস, রবীন্দ্রনাথ, এমনকি রাম-ও (রাজ্য সহ) --- কিন্তু ফ্যাতারু-দের বস্‌ নবারুণ এর উল্লেখ নেই। ভাবতে পারো, সাবঅল্টার্ন শব্দটা আছে কিন্তু নবারুণ নেই - বহুত না ইন্‌সাফি হ্যায়...
Avatar: হে হে

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

সমাজবিবর্তনের কোনও গ্র্যান্ড থিওরি মার্ক্সবাদ দেয় না। প্রতিটা সমাজ তার নিজস্ব নিয়মে বিকশিত হয়। তাই পুঁজিবাদেরও কোনও গ্র্যান্ড ন্যারেটিভ নেই


গ্র্যান্ড থিউরির বাপ দিয়েছে...
Avatar: cm

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

অ্যাঁ
Avatar: Atoz

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

দেখেছ দেখেছ, খালি বলে ম্যান!!!! লাগাও বত্রিশ। ঃ-)
Avatar: pi

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

স্পেশালি সোমনাথের জন্য রইল।


!http://theconversation.com/the-thinking-error-at-the-root-of-science-denial-96099
Avatar: cm

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

আহা, আহা আমার মনের কথাটি গোটা গোটা হরফে লেখা। Proof exists in mathematics and logic but not in science । আরো একধাপ এগিয়ে বলা উচিত অঙ্ক আর লজিকের বাইরে প্রমাণের মানে হয়না। যদিও এ পাতায় আমরা সদা সর্বদা নানারকম প্রমাণে মত্ত। একমাত্র পড়ে থাকে ব্যক্তির অবস্থান।
Avatar: S

Re: আপনি কি আদর্শ তৃণমূলী বুদ্ধিজীবি হতে চান?

তাহলে আর কি? গ্লোবাল ওয়ার্মিঙ্গ হচ্ছে, সেটা ডিনাই করা সহজ হয়ে গেলো।

মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7]   এই পাতায় আছে 102 -- 121


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন