Sumana Sanyal RSS feed

Sumana Sanyalএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • মাজার সংস্কৃতি
    মাজার সংস্কৃতি কোন দিনই আমার পছন্দের জিনিস ছিল না। বিশেষ করে হুট করে গজিয়ে উঠা মাজার। মানুষ মাজারের প্রেমে পরে সর্বস্ব দিয়ে বসে থাকে। ঘরে সংসার চলে না মোল্লা চললেন মাজার শিন্নি দিতে। এমন ঘটনা অহরহ ঘটে। মাজার নিয়ে যত প্রকার ভণ্ডামি হয় তা কল্পনাও করা যায় ...
  • এখন সন্ধ্যা নামছে
    মৌসুমী বিলকিসমেয়েরা হাসছে। মেয়েরা কলকল করে কথা বলছে। মেয়েরা গায়ে গা ঘেঁষটে বসে আছে। তাদের গায়ে লেপ্টে আছে নিজস্ব শিশুরা, মেয়ে ও ছেলে শিশুরা। ওরা সবার কথা গিলছে, বুঝে বা না বুঝে। অপেক্ষাকৃত বড় শিশুরা কথা বলছে মাঝে মাঝে। ওদের এখন কাজ শেষ। ওদের এখন আড্ডা ...
  • ছবিমুড়া যাবেন?
    অপরাজিতা রায়ের ছড়া -ত্রিপুরায় চড়িলাম/ ক্রিয়া নয় শুধু নাম। ত্রিপুরায় স্থাননামে মুড়া থাকলে বুঝে নেবেন ওটি পাহাড়। বড়মুড়া, আঠারোমুড়া; সোনামুড়ার সংস্কৃত অনুবাদ আমি তো করেছি হিরণ্যপর্বত। আঠারোমুড়া রেঞ্জের একটি অংশ দেবতামুড়া, সেখানেই ছবিমুড়া মানে চিত্রলপাহাড়। ...
  • বসন্তের রেশমপথ
    https://s19.postimg....
  • ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা ও লিঙ্গ অসাম্য
    ভারতের সেরা প্রযুক্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কোনগুলি জিজ্ঞেস করলেই নিঃসন্দেহে উত্তর চলে আসবে আইআইটি। কিন্তু দেশের সেরা ইনস্টিটিউট হওয়া সত্ত্বেও আইআইটি গুলিতে একটা সমস্যা প্রায় জন্মলগ্ন থেকেই রয়েছে। সেটা হল ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যার মধ্যে তীব্ররকমের লিঙ্গ অসাম্য। ...
  • যে কথা ব্যাদে নাই
    যে কথা ব্যাদে নাইআমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন ...
  • কাল্পনিক কথোপকথন
    কাল্পনিক কথোপকথনরাম: আজ ডালে নুন কম হয়েছে। একটু নুনের পাত্রটা এগিয়ে দাও তো।রামের মা: গতকাল যখন ডালে নুন কম হয়েছিল, তখন তো কিছু বলিস নি? কেন তখন ডাল তোর বউ রেঁধেছেন বলে? বাবা: শুধু ডাল নিয়েই কেন কথা হচ্ছে? পরশু তো মাছেও নুন কম হয়েছিল। তার বেলা? ...
  • ছদ্ম নিরপেক্ষতা
    আমেরিকায় গত কয়েক বছর ধরে একটা আন্দোলন হয়েছিল, "ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার" বলে। একটু খোঁজখবর রাখা লোকমাত্রেই জানবেন আমেরিকায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো বেশ ভালই রয়েছে। বিশেষত পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা হবার ঘটনা আকছার হয়। সামান্য ট্রাফিক ভায়োলেশন যেখানে ...
  • শুভ নববর্ষ
    ২৫ বছর আগে যখন বাংলা নববর্ষ ১৪০০ শতাব্দীতে পা দেয় তখন একটা শতাব্দী পার হওয়ার অনুপাতে যে শিহরণ হওয়ার কথা আমার তা হয়নি। বয়স অল্প ছিল, ঠিক বুঝতে পারিনি কি হচ্ছে। আমি আর আমার খালত ভাই সম্রাট ভাই দুইজনে কয়েকটা পটকা ফুটায়া ঘুম দিছিলাম। আর জেনেছিলাম রবীন্দ্রনাথ ...
  • আসিফার রাজনৈতিক মৃত্যু নিয়ে কিছু রাজনৈতিক কথা
    শহিদদের লম্বা মিছিলে নতুন নাম কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার আট বছরের ছোট্ট মেয়ে আসিফা। এক সপ্তাহ ধরে স্থানীয় মন্দিরে হাত-পা বেঁধে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করে তাকে ধর্ষণ করা হল একাধিক বার, শ্বাসরোধ করে খুন করা হল মন্দিরের উপাসনালয়ে। এবং এই ধর্ষণ একটি প্রত্যক্ষ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

সমবেত কুরুক্ষেত্রে

Sumana Sanyal

"হে কৃষ্ণ, সখা,আমি কীভাবে আমারই স্বজনদের ওপরে অস্ত্র প্রয়োগ করবো? আমি কিছুতেই পারবো না।" গাণ্ডীব ফেলে দু'হাতে মুখ ঢেকে রথেই বসে পড়েছেন অর্জুন আর তখনই সেই অমোঘ উক্তিসমূহ...রণক্ষেত্রে কেউ স্বজন নয়। হে পার্থ,তুমি যা করছো, তা আমারই ইচ্ছায়। শরীর কে হনন করলেও আত্মা নিহত হন না। সেই অঙ্গুষ্ঠ পরিমাণ পুরুষ ন হন্যতে হন্যমানে শরীরে। অত:পর ধর্মযুদ্ধে অর্জুন আবার অস্ত্র ধরলেন। ইতিপূর্বে পরশুরামের কুঠার অনেকবার ক্ষত্রিয়শূন্য করেছে এই দ্যাবা পৃথিবী কে। সেও এক অন্য ধর্মযুদ্ধ। ভারতবর্ষের আদি অধিবাসী,কালো মানুষটি কে ছলচাতুরীর আশ্রয় নিয়ে, পেছন থেকে এক ভাই কে খুন করে, তার বিধবাকে অন্য ভাইটির ভোগ্যবস্তু হিসেবে ভেট চড়িয়ে ইজ্জত রক্ষার্থে বউ কে উদ্ধার করে তাকে পূর্ণ গর্ভবতী অবস্থায় বেড়াল পার করেছেন ঈক্ষাকু বংশের রাজপুত্র, যাঁকে তাঁর দুর্বলচিত্ত ক্সমুক বাবার কথা রাখতে বনে আসতে হয়েছিলো। এবং আদি অধিবাসীকে তাড়িয়ে সাদা চামড়ার আর্য আধিপত্য বিস্তার যার এজেণ্ডা ছিলো। এও কিন্তু লাভ জিহাদ। রাজস্থানের খুনের ঘটনার বিভিন্ন নিউজ লিঙ্কে, বিশেষত এবিপির লিঙ্কের মন্তব্যগুলো পড়ে শিউরে উঠছি। বেশ হয়েছে। ঠিক হয়েছে। জেহাদি নিপাত যাক। আজ আমার ফেসবুক পোস্টে দেবযানী হালদার উষ্মা প্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন কেরলের আরএসএস হত্যার পরে অথবা বাদুড়িয়া আর বনগাঁ র নিতাই আর দীপঙ্কর যখন মুসলমান মেয়েকে বিয়ে করে 'কাফের' হবার অপরাধে মেয়েদুটির পরিবারের হাতে খুন হয়, তখন এ রাজ্যের মিডিয়া নীরব থাকে কেনো? এছাড়া এই নিহত দীনমজুরটির পরিবারের একজন কে চাকরী আর তিন লক্ষ টাকা দেওয়াতেও দেবযানীদেবী যারপরনাই উত্তেজিত। তিনি একা নন, এবিপির ওই থ্রেডে বহুলোক লিখেছেন হিন্দু হলে চাকরী টাকা দিতোনা। আমার মনে পড়ছে সম্প্রতি নিহত এস আই অমিতাভ মালিকের স্ত্রী সদ্য চাকরী পেয়েছেন স্র তাদের তো হিন্দু বলেই জানি। যে লোকটা পোড়াচ্ছিলো আফরাজুল কে, সেই শম্ভু কী দৃপ্ত ভঙ্গীতে জেহাদ শব্দটা উচ্চারণ করছিলো। দেবযানী এবং আরও অনেকেই লিখলেন কী??? এতবড়ো আস্পর্ধা? ঘরে বউ থাকতেও হিন্দু মেয়েকে বিয়ে করার প্ল্যান? শালা নেড়ে,কাটার বাচ্চা। মার শালাকে। এরপর একেবারে খাপ পঞ্চায়েতের হিট সীন!! শম্ভুর ১২ বছরের ভাইপো ভিডিও তুললো। অথচ ওই দৃশ্য দেখে ১২ বছরের ছেলেই শুধু নয়, অনেক দেড়েলেরও প্যান্ট ভিজিয়ে ফেলার কথা! আসলে এরা, এই আরএসএস রা এইসব বাভচাদের এভাবেই ট্রেনিং দিচ্ছে। জেহাদি খতম ট্রেনিং।
হিন্দু লোকজন যখন বউ কে লুকিয়ে মন্দারমণিতে ফুর্তি করে, প্রতিটি সিরিয়ালে যখন হিন্দু পুরুষদের একাধিক বউ এর একই বাড়িতে সহাবস্থান দেখায়, তখন সেটা কি লাভ জেহাদ নয়? নাকি ধর্মযুদ্ধ? অর্জুন বনবাসে গিয়ে চিত্রাঙ্গদা উলুপী কে কি করেছিলো গুরু? আর সুভদ্রা হরণ? লাভ জেহাদ নয়? কোথাও লিঙ্ক পাইনি চাড্ডিদের লেখা ছাড়া, বাদুড়িয়ার নিতাই দাস আর বনগাঁর দীপঙ্কর কে মুসলিম মেয়ে বিয়ে করার অপরাধে মেয়ে দুটির পরিবার লহুন করে। লিঙ্ক না পেলেও প্রতিবাদ করলাম। কারণ স্যেকুলারিজম কখনো একপাক্ষিক, সিলেক্টেড হয়না। কিন্তু এই সমবেত কুরুক্ষেত্রে মরছে তো মানুষ। "মড়ার আবার জাত থাকে নাকি?" শ্রীকান্ত কে বলেছিলো ইন্দ্রনাথ। ইন্দ্রনাথ যোগী আদিত্যনাথকে চিনতো না আর "নেক্রোফিলিয়া" শব্দটাও জানতো না। জানলে কি বমি করে দিতো?
প্রেম পোড়ার গন্ধে গা গুলাচ্ছে। ভালোবাসার ধ্বংসস্তূপে আমি তোমাকেই খুঁজছি মুর্শিদ আমার! আমার অধরচাঁদ।
আজও আমি অবৈধতা বুঝিনা, জেহাদ বুঝিনা। কিন্তু প্রেম কে খুন করতে এলে এবার আমিও হাতে অস্ত্র তুলে নেবো, ওয়াশিকুর, অনন্তবিজয়, আজরাফুলের দিব্যি। জলের ওপর পানি না পানির ওপর জল তাও আমি বুঝিনা দয়াল। শুধু জানি আমি বন্ধুর প্রেমাগুণে পোড়া, আমি মরলে পোড়াস নে তোরা!!! এখানে কোনো জেহাদ নেই, চামড়া পোড়ার গন্ধও নেই। এখানে আমি চিরকাল সেই অধর মানুষ কে খুঁজে ফিরবো।
"ভয় হতে তব অভয়মাঝে
নূতন জনম দাও হে"

শেয়ার করুন


Avatar: সিকি

Re: সমবেত কুরুক্ষেত্রে

...


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন