Arijit Guha RSS feed

Arijit Guhaএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ট্রেড ওয়ার ও ট্রাম্প শুল্ক নিয়ে কিছু সাধারণ আলোচনা
    বর্তমানে আলোচনায় আসা সব খবরের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনের বিলিয়ন ডলার মূল্যের উপর কঠিন শুল্ক বসিয়ে দিয়েছে, যাদের মধ্যে ডিশ ওয়াশার থেকে শুরু করে এয়ারক্রাফট টায়ার সবই আছে। চায়না অনেক দিন ধরেই এই হুমকির মুখে ...
  • নারীবাদ নিয়ে ইমরান খানের বক্তব্য ও নারীবাদে মাতৃত্ব নিয়ে বিতর্ক
    সম্প্রতি একটা খবর পড়লাম। পাকিস্তান তেহরিক ই ইনসাফ এর নেতা ও পাকিস্তান দলের সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান বলেছেন, তিনি পশ্চিমাদের থেকে আমদানি করা নারীবাদ সমর্থন করেন না। তার নারীবাদকে সমর্থন না করবার কারণও তিনি জানান, তার মতে নারীবাদ মাতৃত্বের মর্যাদাকে ছোট ...
  • রেনবো জেলি: যেমন লাগলো দেখে.....
    ইপ্সিতা বলল, রিভিউ লেখ। আমি বললাম, আমি কি সিনেমা বুঝি নাকি? ইপ্সিতা বলল, যা দেখে ভাল লাগল তাই লেখ। আমি বললাম, তবে তাই হোক।সিনেমা র নাম, রেনবো জেলি। ইউটিউবে ট্রেলার দেখেই বড্ড ভাল লাগল। তাই রিলিজ করার পরের দিনই আমার চারবছুরের কন্যে সহ আমি হলমুখী।টাইটেল ...
  • বর্ষা ও খিচুড়ি
    বর্ষাকাল। তিনদিন ধরে ঝমঝম করে বৃষ্টি হয়েই চলেছে। আমাদেরও ইস্কুল টিস্কুল বন্ধ। রাস্তায় এক হাঁটু জল। মায়েরও আজ অফিস যাওয়ার উপায় নেই। কি মজা। যদিও পুরোনো বাড়ির ছাদ চুঁইয়ে জল পড়ছে, ঘরের মেঝেতে ড্যাম্প, জামাকাপড় না শুকিয়ে স্যাঁতস্যাঁত করছে, কিন্তু তাতে আমাদের ...
  • বিজ্ঞাপনের কল
    তত্কালে লোকে বিজ্ঞাপন বলিতে বুঝাইতো সংবাদপত্রের ভেতরের পাতায় শ্রেণীবদ্ধ সংক্ষিপ্ত বিজ্ঞাপন, এক কলাম এক ইঞ্চি, সাদা-কালো খোপে ৫০ শব্দে লিখিত-- পাত্র-পাত্রী, বাড়িভাড়া, ক্রয়-বিক্রয়, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, চলিতেছে (ঢাকাই ছবি), আসিতেছে (ঢাকাই ছবি), থিয়েটার (মঞ্চ ...
  • বিশ্বাস, পরিবর্তন ও আয়ার্ল্যান্ড
    সম্প্রতি আয়ার্ল্যান্ডে আইনসিদ্ধ হল গর্ভপাত । যদিও এ সিদ্ধান্তকে এখনও অপেক্ষা করতে হবে রাষ্ট্রপতির আনুষ্ঠানিক অনুমোদনের জন্য, তবু সকলেই নিশ্চিত যে, সে কেবল সময়ের অপেক্ষা । এ সিদ্ধান্ত সমর্থিত হয়েছে ৬৬.৪ শতাংশ ভোটে । গত ২৫ মে (২০১৮) এ ব্যাপারে আইরিশ সংসদের ...
  • মব জাস্টিস-মব লিঞ্চিং এর সংস্কৃতি ও কিছু সমাজ-মনোবৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা
    (আজকে এখানে "জুনেদ-এর চিঠিঃ ঈদের নতুন পোশাকে" আর্টিকেলটি পড়তে গিয়ে একটা নতুন টার্মের সাথে পরিচিত হলাম - "মব লিঞ্চিং এর সংস্কৃতি"। এটা কেবল একটা নতুন টার্মই নয়, একটি নতুন কনসার্নও, তাই এটা নিয়ে লেখা...)মব লিঞ্চিং এর ব্যাপারটা এখন আমরা প্রায়ই শুনি। ...
  • বিশ্ব যখন নিদ্রামগন
    প্রত্যেকটি মানুষের জীবন বদলে দেওয়া কিছু দিন থাকে, থাকে রাত, যার পর আর কিছুতেই নিজের পূর্বসত্বার কাছে ফিরতে পারা যায় না, ওটাই বোধহয় নিজঅস্ত্বিত্বের 'রেস্টোর পয়েন্ট' হয়ে দাঁড়ায় সর্বশক্তিমান প্রোগ্রামারের মর্জিমাফিক।25শে সেপ্টেম্বর, 1992 রাত আনুমানিক পৌনে ...
  • শিক্ষায় সমস্যা এবং মানবসম্পদ উন্নয়ন
    (সম্প্রতি গুরুচণ্ডালির ফেইসবুক গ্রুপে Gour Adhikary বাবুর শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে একটি অসাধারণ লেখা পড়লাম। বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব চেয়েছেন তিনি সেখানে। এরমধ্যে কয়েকটি প্রশ্নকে সাজিয়ে লিখলে এরকম হয়, "যারা ফেইল করে, তারা কেন সামান্য পাশ মার্ক জোগাড় করতে পারে ...
  • পরবাসে পরিযায়ী
    আজকে ভারতে চাঁদরাত। অনেকটা দূরে বসে আমি ভাবছি কি হচ্ছে আমার বাড়িতে, আমার পাড়াতে। প্রতিবারের মতো এবারেও নিশ্চয়ই সুন্দর করে সাজিয়েছে পুরো শহরটা। আমাদের বাড়ির সামনের ক্লাবে সার সার দিয়ে বসে আলুকাবলি, আচার, ফুচকা, আইসক্রীম এবং আরো কতকি খাবারের স্টল! আমি ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

টুকরোটাকরা ৭

Arijit Guha



বম্বে থেকে কোনো গানের রেকর্ডিং করে মান্না দে কলকাতায় ফিরছেন।এয়ারপোর্ট থেকে পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় ওনাকে রিসিভ করে নিয়ে আসছেন।শ্যামবাজারের দিক দিয়ে পুলক বাবু ড্রাইভ করে আসছেন, সেই সময় মান্না দে হঠাৎ একটা ভজন গেয়ে উঠলেন 'ঘুংঘট কে পট খোলো'।পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় একবার শুনলেন।তারপর বললেন 'দাদা আরেকবার গানটা করুন তো'।মান্না দে ও আরেকবার গানটা গাইলেন।গাড়ি তখন শ্যামবাজার মোড় পাড় করে গেছে।পুলকবাবু গাড়ি ঘুড়িয়ে শ্যামবাজার মোড়ে বাণীচক্র গানের স্কুলের সামনে এসে দাঁড়ালেন।গাড়ি থেকে মান্না দে কে টেনে নামিয়ে হনহনিয়ে ঢুকে পরলেন স্কুলে।বাণীচক্রের ছাত্র ছাত্রীরা তো দুজনকে একসাথে দেখে অবাক।কাউকে পাত্তা না দিয়ে সামনে যে শিক্ষিকা গান শেখাচ্ছিলেন তার কাছ থেকে হারমোনিয়াম টেনে নিয়ে মান্না দে কে দিয়ে বললেন 'আরেকবার করুন তো গানটা'।মান্না দে আরেকবার গাইলেন।পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় ততক্ষণে একজনের কাছ থেকে গানের খাতা টেনে নিয়ে লিখতে শুরু করে দিয়েছেন ওই গানটার বাংলা ভার্সান 'ললিতা গো ওকে আজ চলে যেতে বল না'।
কোনো এক সময়ে মান্না দে পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় কে একটা হিন্দি শের শুনিয়েছিলেন।সেটা হচ্ছে 'মজাল হ্যায় কে কহে মুঝে দিওয়ানা,অগর তুমনে কহা হ্যায়তো কোই বাত নেহি'।এর মানে করলে দাঁড়ায় কার ঘাড়ে কটা মাথা যে আমাকে পাগল বলবে।কিন্তু তুমি বললে ঠিক আমি মেনে নেব।কয়েকবছর বাদে বেড়িয়ে এলো সেই গান 'যখন কেউ আমাকে পাগল বলে'।
পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় এরকমই বাস্তব থেকে গানের কথা সংগ্রহ করতেন।একবার পুজো এগিয়ে আসছে,অথচ কোনো গান তখনো তৈরি হয় নি।মান্না দেও ভালো কোনো লেখা পাচ্ছেন না বলে গাইতে পারছেন না আর পুলক বাবুরও লেখা কিছু তৈরি হয় নি।এরকম সময়ে দুজনে মিলেই পুলক বাবুর ভায়রা ভাই গৌরীসাধন মুখার্জির সাথে দেখা করতে যাচ্ছেন।হয়ত ঘুরতে বা কোনো কাজে।বাড়ির কাছাকাছি এসে পুলক বাবু কিছুতেই ঠিক বাড়িটা চিনতে পারছেন না।একটা বাড়ির সামনে পুলক বাবু নেমে পরলেন গাড়ি থেকে।মান্না দে কে বললেন দাদা একটু বসুন।আমার মনে হচ্ছে ওই বাড়িটাই হবে, বলে একটা বাড়ির ভেতর ঢুকে গেলেন।এর কিছুক্ষণ পরেই বাড়ি থেকে হাসি হাসি মুখে বেরিয়ে এলেন।মান্না দে জিজ্ঞাসা করলেন, 'কি হল? বাড়ি খুঁজে পেলেন? একজন ভদ্রমহিলা তো দরজা খুলল দেখলাম।আপনাকে কি বলল আর আপনিও হাসি হাসি মুখ করে বেরিয়ে চলে এলেন।'পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, 'নাহ,আমি ভুল করেছি।এই বাড়ি নয়।একজন খুব সুন্দরী ভদ্রমহিলা দরজা খুলে আমাকে তাই বলল।'
'তাতে আপনার এত খুশি হওয়ার কারন কি'?
'খুশি হব না?আপনার পুজোর গানের কথা পেয়ে গেছি যে।'
সে বছর পুজোর গান মান্না দে গাইলেন পুলক বাবুর সুরে 'ও কেন এত সুন্দরী হল?এমনি করে ফিরে তাকালো!দেখে তো আমি মুগ্ধ হবই'
আরেকবার রাতের প্লেনে করে পুলক বাবু কলকাতায় ফিরছেন।সেদিন ছিল পূর্ণিমার রাত।বাইরের অপূর্ব জ্যোৎস্না দেখতে দেখতে বিভোর হয়ে গেছিলেন পুলক বাবু।এরপরেই সুন্দরী এয়ার হোস্টেস যখন খাবার নিয়ে তাকে দিতে এলেন, পুলক বাবুর মনে হল বাইরের ওই চাঁদই যেন নেমে এসেছে তার বিমানে।খাবারের প্যাকেটের সাথে দেওয়া ট্যিশু পেপারে লিখে ফেললেন 'ও চাঁদ, সামলে রাখো জ্যোৎস্নাকে'।
কোনো একটি সিনেমার জন্য সুরকার অধীর বাগচি পুলক বাবুর বাড়িতে বসেই মান্না দের সাথে সেই ছবির গানের সুর নিয়ে আলোচনা করছেন।গেয়ে চলেছেন একের পর এক রাগ।প্রথমে গাইলেন বেহাগ।পছন্দ হল না।এরপর গাইলেন বসন্ত,কিন্তু না তাও পছন্দ হয় না।একটা শেষ হলেই বলেন এটা হল না,দেখুন তো এটা ভালো লাগে কিনা বলেই আবার আরেকটা রাগ ধরছেন।পুলক বাবু ততক্ষণে লিখে ফেলেছেন 'বেহাগ যদি না হয় রাজি বসন্ত যদি না আসে'
পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গান তৈরি নিয়ে এরকম প্রচুর গল্প আছে।ছোট ছোট ঘটনা থেকে মুহূর্তে উনি গান বানিয়ে ফেলতে পারতেন।

শেয়ার করুন


Avatar: dd

Re: টুকরোটাকরা ৭

বাঃ।

এই সিরীজের একটা লেখা আবার হোয়াটসয়াপে আমার কাছে এসেছে। অবশ্যই কোনো রকম লেখকের স্বীকৃতি না দিয়েই।
Avatar: শেসে

Re: টুকরোটাকরা ৭

বাঃ, বেশ কিছু গানের সৃষ্টির পিছনের কাহিনী জানা গেল ়
এরকম কাহিনী আরো শুনতে মুঞ্চায় ়
Avatar: মনোজ ভট্টাচার্য

Re: টুকরোটাকরা ৭

অরিজিতবাবু,

বাঃ ! আপনার এই সিরিজের লেখাগুলো খুব ভাল লাগছে তো ! যদিও গানের এই কথা সংগ্রহের কিছু ইতিহাস আগে শোনা ! তাতে কি ! আবার করে তো জানা যাচ্ছে !
এগুলো তো ইতিহাস !

মনোজ
Avatar: সিকি

Re: টুকরোটাকরা ৭

তুলতেই হল।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন