বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1


           বিষয় : অস্ত্রমিছিল কেন
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন : ফরিদা
          IP Address : 37.56.166.148 (*)          Date:26 Mar 2018 -- 09:24 PM




Name:   ফরিদা           

IP Address : 37.56.166.148 (*)          Date:26 Mar 2018 -- 09:25 PM



রামনবমী মূলত উত্তর ভারতীয় উৎসব বলে জানি। কলকাতার স্কুলে পড়তে রামনবমী উপলক্ষে ছুটিও বোধ হয় একবার দু’বার পেয়েছি বলে মনে পড়ে। তা সেই কলকাতা ছেড়ে উত্তর ভারতে দিল্লি সংলগ্ন শহরতলীতে বসবাসের বয়স প্রায় কুড়ি বছর হতে চলল।

এখানে “নবরাত্রি” বছরে দু’বার আসে। একবার দুর্গাপুজোর সময়ে, আর একবার এই বাসন্তী পুজোর সময়ে। গল্প হচ্ছে এই বসন্ত কালীন নবরাত্রির ক্লাইম্যাক্স হল গিয়ে রামনবমী, যা কিনা রামের জন্মদিন। যেমন শরতের নবরাত্রি র ক্ল্যাইম্যাক্স “দশেরা” য়। যেদিন কিনা রাবণ বধ হয়ছিল।

দুই ধরণের “নবরাত্রি”ই একেবারেই উপদ্রবের উৎসব নয়, ছিল না, এখনও নেই এই অঞ্চলে। শুধু এই ক’টা দিন হয়ত মাংসের চেনা দোকানটা বন্ধ রইল। চারটে মুদি দোকানের দুটোয় হয়ত ডিম রাখল না। আর একটা বড় ভোগান্তি হল প্রতিবেশীর বাড়িতে এক সন্ধ্যায় “রামকথা” পাঠ উপলক্ষে এক সন্ধ্যার মাইকের অত্যাচার। আর শরতের নবরাত্রিতে রাস্তা আটকে এক সন্ধ্যার জন্য “মাতা কি চৌকি”। তা সেটা খুব গায়ে লাগে না, কারণ রাস্তা আটকে দুর্গাপুজো কালীপুজো র চেয়ে অনেক নিরীহ তা। সন্ধে থেকে শুরু হয়ে ভোররাত্রে প্যাণ্ডেল অবধি হাওয়া।

এখনও পর্যন্ত “নবরাত্রি” তথা রামনবমী উপলক্ষে উত্তর ভারতে যা হয় তা এইটুকুই। আজ্ঞে হ্যাঁ। “রামনবমী উপলক্ষে অস্ত্রমিছিল তো দূরস্থান, রাস্তায় একটা জমায়েত অবধি হয় না। মন্দিরে মন্দিরে রামকথা, রামায়ণ পাঠ হয়। লোকের ভিড় হয় সেখানে। ব্যস।

তা পশ্চিমবঙ্গে একটি রাজনৈতিক দল এটা অন্যভাবে কেন পালন করছে - এই প্রশ্নটা তুলুন। কেন তাকে প্রতিহত করতে গিয়ে শাসক দল পালটা সশস্ত্র মিছিল করছে - সেই প্রশ্নটাও।

প্রশ্নগুলো গুরুত্বপূর্ণ। এতে মানুষ মারা হচ্ছে। মানুষ নষ্ট হচ্ছে। নিজের গালে মশা বসলে যেমন নিজেকেও থাপ্পড় মারতে হয়, সেইভাবে দেখুন এটাকে। দরকারে থাপ্পড়ও মারুন। পরের অনেক ভোগান্তি থেকে বাঁচতে।




এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1