বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

[41310]  [41309]  [41308]  [41307]  [41306]  [41305]  [41304]  [41303]  [41302]  [41301]  [41300]  [41299]  [41298]  [41297]  [41296]  [41295]  [41294]  [41293]  [41292]  [41291]  [41290]  [41289]  [41288]  [41287]  [41286]  [41285]  [41284]  [41283]  [41282]  [41281]  [41280] 

name:  দ               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.9001212.32 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 05:40 PM

অ্যাহ এ তো সহজ। ডাকিনী যোগিনী হল গিয়ে তৎকালীন বুজি। কাজেই ঋণাত্মক অর্থে ব্যভার হইছে। :-)


name:  খ               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.891212.213 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 05:40 PM

পুশকিন সম্পর্কে আমার আগ্রহ খুব ই বেড়ে গেছে। তোমাদের যার যা পড়া আছে, হালকা ফান্ডা দিলে ভালো হয়। বাড়ার কারণ জেমস মিক এর একটি প্রবন্ধ। আমি সত্যি ই জানতাম না, অ্যামেদিয়াস এর স্ক্রীন প্লে টা, যেটা পিটার শ্যাফার এর করা বলে জানতাম, এবং জানতাম তাঁর ই নিজের নাটক থেকে করা, সেটা আসলে পুশকিন এর 'মোজার্ট অ্যান্ড সালিয়েরি' থেকে 'অনুপ্রাণিত'।

https://lesleychamberlain.wordpress.com/2017/02/16/mozart-and-salieri-
from-alexander-pushkin-to-peter-shaffer/


https://www.lrb.co.uk/v41/n11/james-meek/the-village-life

শ্যাফার নাটক টা লিখছেন ১৯৭৯ তে, লন্ডন মিউজিকাল থিয়েটার পাড়ায় হচ্ছে ঐ সময়তেই, আমি নাটক টা পড়েছি, ১৯৮৮-১৯৯০ এর মধ্যে তে, সম্ভবত শুভায়ন বিশ্বাস বলে আমার এক বন্ধু, নাড়ু দার কাছ থেকে আমাকে ফোটোকপি করে এনে দেয়, ঐ সময়ে আমি পর পর নাটক পড়ছিলাম। তখন সিনেমাটা হয়ে গেছে কিনা মনে পড়ছে না। অথচ এই অনুপ্রেরণা টা আমার ধরতে পারা উচিত ছিল, নিশ্চয়ী এ বিষয়ে বাংলা ছোটো পত্রিকায় লেখা লিখিও হয়েছে, ৭০/৮০/৯০ এর দশকে। ধরতে পারা উচিত ছিল কারণ আমার ধারণা আমাদের পুশকিন এর ছোটো নাটকের একটা বাংলা সংকলন ছিল এবং তাতে মোজার্ট ও স্যালিয়েরি নাটকটা থাকার কথা , নাকি ছিল না। এর উত্তর একমাত্র সোম্নাথ দের সাইট থেকেই পাওয়া সম্ভব। কিন্তু আমার কিরকম স্মৃতি ভাসা ভাসা হয়ে গেছে। একবার মনে হচ্ছে আমি যতটুকু যা পড়েছি পুশকিন (ইউজিন ওনেজিন?) ইংরেজি তে পড়েছি, অথচ, বাংলা নাটকের বৈটার দুটো বেঁটে মোটা খন্ড কেমন মনে হচ্ছে চোখে ভাসছে। একটু খুজে দেখতে হবে। আমি ফেবু তে নেই, সোমনাথ একটু তোদের সাইটে পুশকিন বাংলায় কি আহ্চে আর তাতে মোজার্ট এর উপরে নাটক টা আছে কিনা বলবি?

বাই দ্য ওয়ে, আমি এটাও জানতাম না, সেই আফ্রিকান (ক্যামেরুনিয়ান) দাস যিনি হঠাৎঅ সেন্ট পিটারস্বুর্গে রাইজ করে বিশাল নাম করা এঞ্জিনিয়ার হয়ে গেছিলেন, তিনি পুশকিন এর প্রমাতামহ।


name:  সৈকত               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.782323.33 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 05:34 PM

রান কি হবে না ?


name:  সৈকত               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.782323.33 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 05:10 PM

ন্যাড়াবাবুকে জিজ্ঞাসা করব ভাবিঃ

ডাকিনী, যোগিনী, নাগিনী আর পিশাচদের সাথে মন্বন্তরের সময়ের শোষণ আর কুটিলতার তুলনা, সলিল চৌধুরীর গানে, একটু অদ্ভুত নয় ? নাগিনী আর পিশাচ না হয় প্রচল ব্যবহার অনুযায়ী - নাগিণীরা তো সাপ, রবীন্দ্রনাথও ব্যবহার করেছেন আর প্রেত-পিশাচ কাছাকাছি, যদিও নাগ-নাগিণী আর পিশাচেরা ক্ষমতাসম্পন্নই - কিন্তু যোগিনী আর ডাকিনী কেন ? যোগী-যোগিনীর তো অন্য অর্থ আর ডাকিনীরা তো গুণী মহিলা ছিলেন সব, সিদ্ধাচার্যদের অনেকেরই গুরু ছিলেন এঁরা অর্থাৎ জ্ঞানী। ডাক-ডাকিনীর ডাক শব্দের অর্থ তো জ্ঞান এবং যোগী-যোগিনীদের সাথে তাদের মিল যে তারা আলাদা অথচ নীচুশ্রেণীর মানুষের কাছের লোক এরা সব।

কিন্তু, গানটিতে অর্থগুলো সম্পূর্ন উল্টে দেওয়া ! এ কী শুধু মিল দেওয়ার জন্য নাকি অর্থগুলিরই পতন ঘটে গেছে ? অথবা এঁদের গুহ্য সাধনপ্রণালীর জন্য, উঁচুতলার দৃষ্টি দিয়ে নীচুতলাকে দেখা ?




name:  খ               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.891212.75 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 03:09 PM

শামি কে খেলাচ্ছে না, পুনরায় ভুবনেশ্বর। রান চেজ ইত্যাদি বলা হবে




name:  lcm               mail:                 country:                

IP Address : 237812.68.344512.125 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 12:32 PM

খেয়াল রাখবেন এসব মুঘল আমলের কেতাবি প্রথা।

মডার্ন প্রসেস এক্কেবারে আলাদা, টেকনলজিতে টইটুম্বুর - মাইক্রোওয়েভে বাসমতি চালের ঝুরঝুরে ভাত করে নিন, চাল-জল মিশিয়ে ১৫-২০ মিনিট, দেখবেন ইলেকট্রোম্যাগনেটিক রেডিয়েশনে ভাত কেমন খোলে। চাল একটু শক্ত রাখবেন।
ওভেনে মশলা মাখা মাংস ৩৫০ ডিগ্রিতে আধঘন্টা বেক করে নিন। এর পরে ট্রে-তে বেক্‌ড্‌ মাংস আর ভাত মিশিয়ে অ্যালুমিনিয়ম ফয়েল দিয়ে সিল করে দিন। আবার বেকে দিয়ে দিন ৩৬০-৩৭০ ডিগ্রিতে আধঘন্টার মতন। নামিয়ে নিন বেক্‌ড্‌ বিরিয়ানি।

প্রথমবার ট্রাই করতে গিয়ে আবার একগাদা বানিয়ে ফেলবেন না যেন - খেতে অখাদ্য হলে, পরিমাণ দেখে আরও খারাপ লাগবে - সুইগি বা জোমাটো থেকে অর্ডার দিয়ে দোকানের বিরিয়ানি আনিয়ে নিন। প্ল্যান-এ এর আগে প্ল্যান-বি ঠিক করে রাখবেন। মনে রাখবেন বি হল বিগ, সবাই বলে বিগ-বি, বিগ-এ কেউ বলে না, অমিতাভো নিজেও না।


name:  lcm               mail:                 country:                

IP Address : 237812.68.124512.141 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 12:00 PM

হ্যাঁ। পারস্য। মানে, ধরো আজকের ইরান।

দম পাখ্‌ত্‌ (Dum Pukht) - ফার্সি ভাষায় যার মানে হল - স্লো কুকিং। খুব কম তাপে (আঁচে) দীর্ঘক্ষণ ধরে রান্না। ফ্রেশ মাংসে জল থাকে। মানুষের শরীরেই প্রায় ৬০% জল - ছাগল, ভেড়া, গরুও তাই। তো মাংস টুকরো করে কেটে, অল্প করে ফ্রেশ মশলা/হার্ব মাখিয়ে একটা হাঁড়িতে দাও, বেশি মশলার দরকার নেই, এক্সট্রা জল দেবার দরকার নেই, মাংসে জল আছে। একটা ঢাকনা নিয়ে একদম সিল করে দাও। সিল করার জন্য অনেকে আটা মাখা লেচি হাঁড়ির ঢাকনার মুখে লাগিয়ে এক্কেবারে এয়ার-টাইট করে দেয়। এবার কম আঁচে ঐ মাংস অন্তর্বর্তী জলেই আস্তে আস্তে সেদ্ধ হবে, গায়ে চর্বি থাকলে সেগুলো সামান্য গলে মাখনের মতন মাংসের টুকরোর গায়ে ঝুলে থাকবে। হার্ব/মশলা গুলো মাংসের রোঁয়ার মধ্যে ঢুকে যাবে।

ঘন্টা পাঁচেক পরে যখন ঢাকনা খোলা হবে - ওহ! অভূতপূর্ব সেই সুঘ্রাণ, সেই অনুভূতি।


name:  Amit               mail:                 country:                

IP Address : 237812.68.6789.105 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 11:48 AM

জিভে জল এসে গেলো পুরো।

কিন্তু বিরিয়ানি কি মুমতাজ এর আবিষ্কার ? মিডল ইস্ট থেকে এসেছিলো না ?


name:  lcm               mail:                 country:                

IP Address : 237812.68.344512.125 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 11:41 AM

মমতাদি-বুদ্ধদা দের অনেক অনেক আগে, তখন সম্রাট ছিলেন শাহ জাহান। তো একদিন সম্রাজ্ঞী মুমতাজ বেরিয়েছিলেন ব্যারাকে সৈন্যদল প্রদর্শন করতে। সেখানে গিয়ে হাড় জিরজিরে সৈন্যদের চেহারা দেখে মুমতাজের - এ কি অবস্থা, ম্যালনিউট্রিশনের চূড়ান্ত। তিনি তখন হেড শেফ-কে বললেন এমন খাবার বানাতে যাতে কার্বোহাইড্রেট এবং প্রোটিন দুইই থাকবে, যা খেলে সৈন্যরা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে উঠবে। তখন সেই শেফ তৈরী করলেন বিরিয়ানি - বাসমতি চালের কার্ব, আর, মাংসের প্রোটিন।

এ তো গেল ১৬০০ শতকের কথা। এর পরে অধুনা ১৯৪১ সালে, সিদ্ধার্থদা, জ্যোতিদা-দের যুগের অনেক আগে, বিহার থেকে কলকাতা এলেন আরশাদ আলি এবং আলি হোসেন। উদ্দেশ্য কলকাতায় বিরিয়ানির রেস্তোঁরা খুলবেন। দেখা করলেন শেফ সামসুদ্দিনের সঙ্গে যিনি ছিলেন নবাব ওয়াজেদ আলি শাহ-এর মেইন শেফ-এর বংশধর। দেখা করে তাকে জানালেন ওদের বাসনা, সেই সূদুর বিহার থেকে এসেছেন বিরিয়ানি রেস্টুরেন্ট খুলবেন বলে। ব্যস্‌, পার্ক সার্কাস-মল্লিক বাজারের ক্রশিং-এর মুখে তিনজনে খুলে ফেললেন রেস্টুরেন্ট - নাম দিলেন - সিরাজ।

সাদা পোর্সেলিনের প্লেটের সোনাঝুরি বাসমতি চাল, তার মধ্যে সুগন্ধী মাংসের টুকরো, মার্সমেলোর মতন এক পিস আলু। আহা, সোনার দেশ।


name:  ধুয়ো               mail:                 country:                

IP Address : 236712.158.891212.5 (*)          Date:09 Jul 2019 -- 11:12 AM

জয় এনারাই বাবাদের জয়




    পরের পাতা         আগের পাতা
**এই বিভাগের কোনো মন্তব্যের জন্যই এই সাইট দায়ী নয়৷ যে যা মন্তব্য করছেন, তা ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত মতামত৷ গুরুচন্ডালি সাইটের বক্তব্য নয়৷