আপনার মতামত         


শৌভ চ®–¡পাধ্যায়





পরিক্রমা

আমি আজ উচাটন আত্মার মুখে
জলনিরোধক ছিপি লাগিয়ে ঘুরেছি
সারাদিন
ঘুরেছি চারণক্ষেত্রে, মফস্বলে, অচেনা রাস্তায়
ভিড় বাসে, ময়দানে, শহীদ মিনারে
কোথাও কারুর ভাষা একবর্ণ বুঝতে পারিনি

দুপুরে, পথের পাশে, মন দিয়ে দেখেছি কী ভাবে
অতিশয় শান্ত হয়ে আসে
মূক ও বধির ইশকুল





শীত

ব্যর্থ পাতার দিন সমাগত, উড়ে গেছে রঙিন বেলুন
সমস্ত চিঠিপত্র জড়ো করে উঠোনে রেখেছি
মেলার মুখোশ আর বাঁকানো ধনুক
রাংতা উড়িয়ে নিচ্ছে জÆর, খোড়ো হাওয়া

উড়ন্ত বেলুনগুলি বনের ভিতরে যেতে যেতে
একে একে ফেঁসে যাচ্ছে এলোমেলো ডালে
হলুদ ঘাসের মধ্যে উড়োচিঠি, পিউ-পিউ কাঁহা!

পিঠ জুড়ে অতর্কিতে রোদ্দুরের রোমশ বিড়াল





ঘূণ

গভীর টÊ¡কের শব্দে বেজে ওঠে আলোকিত রাত
গতিহীন, তোমার বিছানা বাক্স পড়ে আছে দূরে
একলা বনের মধ্যে, জÆলে ওঠে করুণ আলেয়া
শুধু সরে যায়, বিষন্ন ছায়াগুলি সরে সরে যায়,
বিস্বাদ চায়ের গন্ধে লেগে থাকে দু-একটি অনচ্ছ আঁশ

অগভীর জলের ভিতরে খর তরবারি, জানি
তোমার সমস্ত স্পর্শ তোমার অনন্ত শীতলতা
ঘূণ হয়ে বেঁচে ওঠে অনাহত গাছে