বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--7


           বিষয় : বিষয়ঃ মহালয়ার মহাগণ্ডগোল, লিখছেন অঞ্জন মজুমদার ও বিশ্বজিৎ রায়
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন :অঞ্জন মজুমদার
          IP Address : 236712.158.1234.161 (*)          Date:28 Sep 2019 -- 09:57 AM




Name:  অঞ্জন মজুমদার          

IP Address : 236712.158.1234.161 (*)          Date:28 Sep 2019 -- 10:09 AM

বছর কয়েক আগের কথা। সেবার মহালয়ার দিনে এক মজার কাণ্ড নিয়ে আমার এক বিজ্ঞানকর্মী বন্ধু (বিশ্বজিৎ রায়) আর আমি মিলে মেতে উঠেছিলাম। অদ্ভুত ধরণের এই কাণ্ড নিয়ে আমাদের অনুসন্ধান প্রক্রিয়ার মধ্যে কখনও টুকটাক পরীক্ষা নিরীক্ষা এসেছে আবার কখনো এসেছে যৌক্তিক বিশ্লেষণ। কাহিনী অনেকটা গোয়েন্দা গল্পের মত এগিয়েছে — শেষ পর্যন্ত একটি মডেল বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধানের চরিত্র পেয়েছে। পরে তা নিয়ে একটা গল্প লেখা হয় –’মহালয়ার মহাগণ্ডগোল’ শিরোনামে ‘আরেক রকম’ পত্রিকার ১ – ১৫ জুলাই, ২০১৮ সংখ্যায় লেখাটি প্রথম প্রকাশিত হয়। এরপর লেখাটিতে কিছু পরিমার্জনা করি। ‘মাসকাবারি’ পত্রিকার এপ্রিল ২০১৯ সংখ্যায় এই পরিমার্জিত সংস্করণটি প্রকাশিত হয়। মহালয়ার গল্প – মহালয়ার দিনে ভালো লাগতে পারে –এই ভেবে মহালয়ার দিনে গুরুচণ্ডা৯- তে লেখাটির লিঙ্ক দিলাম।

লিঙ্কঃ https://drive.google.com/file/d/1AHpJNfr1FR05vZlHTL4xxGPX7JgDosxu/view
?usp=sharing




Name:  ন্যাড়া          

IP Address : 237812.68.234512.4 (*)          Date:29 Sep 2019 -- 11:07 AM

ভাল, কিন্তু কনক্লুশনটা কী করে পৌঁছন গেল, সেটা আরও বিস্তারিত বললে ভাল হত। অবজার্ভেশন অংশটা বরং কমানো যেতে পারে।


Name:  অঞ্জন মজুমদার           

IP Address : 236712.158.1234.151 (*)          Date:29 Sep 2019 -- 09:48 PM

লেখাটি পড়ে খুশী হয়ে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ ক্ষেত্রে শীর্ষ ব্যক্তিত্ব সমর বাগচি ২৯শে সেপ্টেম্বর,২০১৯, তারিখে লেখা একটি ই-মেল-এ মন্তব্য করেছেন "অতীব সুন্দর গল্প। ছোটোদের পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়া দরকার শিশুকাল থেকে একটা যুক্তিবাদী গড়ে তোলার জন্য। এখনতো গণেশের শুঁড়ে প্লাস্টিক সার্জারি করার কথা বলছেন আমাদের বর্তমান " সবই ব্যাদে আছে" বিশ্বাসী শাসকরা"।

খবরটি আমার কাছে খুবই আনন্দের। আপনাদের সাথে এই আনন্দ ভাগ করে নিতে চাইলাম।


Name:  অঞ্জন মজুমদার          

IP Address : 236712.158.1234.155 (*)          Date:03 Oct 2019 -- 10:05 PM

লেখাটি পড়ে বিশিষ্ট অ্যাস্ট্রোফিজিসিস্ট ও রবীন্দ্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত লেখক বিমান নাথ ২রা অক্টোবর, ২০১৯ তারিখে সুদীপ্ত সরস্বতীকে লেখা একটি ই-মেল-এ মন্তব্য করেছেন::

"I really enjoyed the off-beat piece by your teacher. This is exactly what we should be doing as a part of 'science popularisation'-- not portray science as a store house of information, but as the upholder of a 'method'."

ওনার মন্তব্যের আমার করা বাংলা অনুবাদ :

"তোমার শিক্ষক মশায়ের লেখা 'মহালয়ার মহাগণ্ডগোল' সত্যিই ভাল লাগল। এটি একদম ভিন্ন ধরনের একটি লেখা। আমরা যারা 'বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণের' কাজের অঙ্গ হতে চাই — তথ্যের ভাণ্ডার হিসেবে না দেখে বিজ্ঞানকে একটি ‘পদ্ধতি’র ধারক হিসেবে তুলে ধরবার জন্য আমাদের ঠিক এটাই করা দরকার ।"

আমার আনন্দ আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম৷



Name:   অঞ্জন মজুমদার          

IP Address : 236712.158.1234.135 (*)          Date:07 Oct 2019 -- 09:36 AM

লেখাটি পড়ে কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক, পশ্চিমবঙ্গের বিজ্ঞান আন্দোলনের দীর্ঘদিনের কর্মী ও বিশিষ্ট বিজ্ঞান লেখক রবীন মজুমদার ৫ই অক্টোবর ২০১৯, তারিখে লেখা একটি ই-মেলে মন্তব্য করেছেন,
অঞ্জনবাবুর লেখাটি বেশ ভালো লাগলো, চেষ্টা খুবই ভালো, লেখার আঙ্গিক বেশ আকর্ষণীয়।
কিন্তু আমার কয়েকটা বক্তব্য আছে।
১) ক্যাপশন ক্যাচি করতে গিয়ে প্রাসঙ্গিকতা হারিয়েছে। মহালয়ার দিনে ঘটনাটি হওয়া ছাড়া মহালয়ার সঙ্গে কী যোগ ? পাঠককে একটু ধর্মীয় সুড়সুড়ি দেওয়া ছাড়া ?
2) আসলে তো ঘটনাটির কারণ/ব্যাখ্যা উদ্ঘাটিত হয়নি। আর সেকথা প্রাঞ্জলভাবে তুলে ধরা হয়নি বা যায়নি সেটা হতেই পারে। কিন্তু যখন জানা (শোনা? ) গেল যে,আরথিং ঠিক করে দেওয়ার ফলে ধোঁয়া বেরোনো বন্ধ হয়েছে – তাহলে আরও অনুসন্ধান করে কোন কারণ/ব্যাখ্যা প্রযোজ্য,তা বের করার চেষ্টা কেন করা হলোনা ?
৩) এরকমটা বাড়িতে বা অন্য যে কোনও জায়গায় হতে পারে বলে মনে হচ্ছে। পুরো জানা গেলে সবারই উপকার হতে পারতো – এই দিকটি উপেক্ষিত হয়েছে কি ? নাকি ঐ ঘটনার একটি দিন বা স্থান মাহাত্ম্য আছে বোঝাতে চাওয়া হয়েছে ?
অঞ্জনবাবু ভুল বুঝবেননা। আরও এগোবার জন্য প্রশ্ন করলাম।



Name:  অঞ্জন মজুমদার           

IP Address : 236712.158.676712.136 (*)          Date:15 Oct 2019 -- 10:10 AM

লেখাটি পড়ে বিদ্যাসাগর সান্ধ্য কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরে পদার্থবিজ্ঞানের একাধিক পাঠ্য বইয়ের (http://physicsandmore.net) লেখক, সমাজ ও বিজ্ঞান বিষয়ক নানা প্রবন্ধের লেখক, তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানের গবেষক এবং পশ্চিমবঙ্গের গণবিজ্ঞান আন্দোলনের দীর্ঘদিনের কর্মী অভিজিৎ লাহিড়ী ৯ই অক্টোবর ২০১৯, তারিখে লেখা একটি ই-মেলে মন্তব্য করেছেন :
অনুসন্ধানমূলক প্রবন্ধটি পড়ে ভালো লাগলো। লেখকদের জানাই ধন্যবাদ ও অভিনন্দন।



Name:  সুমিত কুমার চক্রবর্তি          

IP Address : 236712.158.786712.127 (*)          Date:22 Oct 2019 -- 11:07 PM

লেখাটি পড়ে ভালো লাগল। লেখাটি পড়তে গিয়ে প্রকৃতি বিজ্ঞানী গোপাল ভট্টাচার্যের কথা মনে পড়ে যাচ্ছিল। বস্তুত ৩০-৩৫ বছর আগে মধ্যপ্রদেশের একলব্য নামের একটি সংস্থা স্কুলের ছাত্র ছাত্রী এবং তাঁদের শিক্ষকদের নিয়ে হাতে কলমে বিজ্ঞান শিক্ষার আয়োজন করেছিলেন। তাঁদের শিবিরে অংশ গ্রহণ করে সুভাষ চন্দ্র গাঙ্গুলি বিজ্ঞান ও বিজ্ঞানকর্মী পত্রিকার বোধহয় কয়েকটি সংখ্যায় সুন্দর প্রতিবেদন লিখেছিলেন। লেখাটি পড়তে গিয়ে সে কথাও মনে পড়ল। তবে সাম্ভাব্য দুটি কারণের মধ্যে কোনটা এক্ষেত্রে ক্রিয়াশীল ছিল তা পরীক্ষা নিরিক্ষার মাধ্যমে লেখকদের পক্ষে জানা সম্ভব না হলেও বিদ্যুৎ বিভাগের পক্ষে ততটা অসম্ভব নাও হতে পারে, বিশেষত তাঁরা(বিদ্যুৎ বিভাগ) যদি সত্যিই জানতে চান। আর এরকম সমস্যা তো অনেক যায়গায় অনেক সময়ই হতে পারে, সেক্ষেত্রে এই লেখা আমাদের আরো নির্দিষ্ট ভাবে সাহায্য করবে। পরিশেষে মনে হলো এই লেখা যদি স্কুল স্তরের বাংলা সাহিত্যের পাঠ্য বইতে ছাপানো হয় ছাত্র ছাত্রীদের বিজ্ঞান মনস্কতা তৈরিতে সাহায্য করবে।আমাদের জীবনের সাথে বিজ্ঞানের যোগ বুঝতে সাহায্য করবে।

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--7