বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

বর্ন ফ্রী

আগের পর্বের পর

বস্টন মসালা ওয়েবসাইট

মসালার গল্পে আবার পরে আসবো, মানে আসতেই হবে, তবে আপাততঃ একটু মুর্গির কথা বলা যাক। কিছুদিন হল, সমপ্রেমিদের বিয়ের অধিকার নিয়ে এদেশে আক্ষরিক অর্থেই মুর্গির লড়াই বেঁধে গেছে। একদিকে মুর্গি-স্যান্ডুইচের এক ফাস্টফুড চেন মুর্গি-খা, অন্যদিকে সমপ্রেমি ও তাদের সমর্থকরা। এই মুর্গি-খা এখনো ভারতে ম্যাক-ডি বা ডমিনোসের মত পরিচিত নাম নয়। সম্ভবতঃ সাগর পার করে এরা এখনো ভারতে পৌঁছে উঠতে পারে নি (থ্যাঙ্কফুলি)। পৌঁছলে নিশ্চিত করে বলা যায়, রামদেব বাবা এবং তাঁর সঙ্গীসাথীদের সঙ্গে এদের ভারি দোস্তি হত। কেননা, রামদেব বাবার মতই এই ফুডচেনের মালিকও মনে করেন, "গে রুগি"-দের সারিয়ে তোলা যায়। এই মালিক ভদ্রলোকটি অতীব ধর্মপ্রাণ, যেসাসকে সকালে জল না দিয়ে কখনো মুর্গি ছোঁন না, রবিবারে ব্যবসা বন্ধ রাখেন আর যাবতীয় এলজিবিটি বিরোধী সংগঠনদের মোটা মোটা ডোনেশান দেন। অতএব রামদেব বাবা এবং তার বন্ধুবান্ধবদের সুপ্রীম কোর্টে মামলা চালাতে কখনো টাকাপয়সার টানাটানি চললে এনার সাথে যোগাযোগ করতেই পারেন। অবশ্য আমি জানি, তার কোনও দরকার হবে না কেননা ভারতে মুর্গি-খা-র মালিকের ভাই-বেরাদরের কোনো কমতি নেই।   

সে যাই হোক, আসল কথা হল, ওনার টাকা, উনি রামকে দিন কি রমনিকে দিন, তাই নিয়ে এত হই-হট্টগোল কেন? হক্‌ কথা, ঠিক যেমন আজ যদি আম্বানি ভাইয়েরা রামসেনা কি বজরং দলকে মোটা টাকা ডোনেট করেন, আমার নীতিগত বিরোধ থাকলেও আপত্তি করার জায়গা নেই। কিন্তু তারপর যদি দেখি যে রামসেনা কি বানরসেনা সেই টাকায় পরিপুষ্ট হয়ে কোন মেয়ে কী পরবে, কী খাবে, কোথায় যাবে, কার সঙ্গে যাবে, সেই নিয়ে ফতোয়া দিচ্ছে, তাহলে আমার পবিত্র গা-জ্বলুনির কিয়দংশ অবশ্যম্ভাবি ভাবে আম্বানিদের প্রতিও ধাবিত হবে, আমার কিছু করার নেই।

এদেশেও ঠিক তাই হয়েছে। মুর্গি-খা-র ওয়েবসাইটে বলা আছে "জাত-ধর্ম-বর্ণ ও সেক্সুয়াল ওরিয়েন্টেশন নির্বিশেষে প্রত্যেক মানুষের সাথে সম্মান, শ্রদ্ধা ও সম্ভ্রমপুর্বক ব্যবহার করাই আমাদের নীতি ও ঐতিহ্য।" বাহ্‌, শুনিয়া কান প্রীত হইল। এর পাশাপাশি শুধু সমপ্রেমী-বিরোধী সংগঠনদের টাকা দেওয়াই নয়, বিভিন্ন সাক্ষাতকারে, সভা-সমাবেশে মুর্গি-খা-র সর্বাধিনায়ক বলেছেন যে "বিবাহের অধিকার শুধুমাত্র বাইবেলে বর্ণিত নারী ও পুরুষদের জন্য নির্দিষ্ট। সমপ্রেমীদের বিবাহের অধিকার দেওয়া ভগবানকে চ্যালেঞ্জ জানানোর সমান। আমি আমাদের জেনারেশানের এই অজ্ঞ অহমিকার জন্য ঈশ্বরের কাছে ক্ষমা চাইছি।" অর্থাৎ, তোমার সাথে আমি "সম্মানপুর্বক ব্যবহার করব" (না করলে আইনে আটকাবে), তবে সম-মান দেব না।

যারা ভাবছেন, বিয়ের অধিকার না পাওয়া গেল তো কী এসে গেল, ইকুয়াল ডোমেস্টিক পার্টনারশিপ তো দেওয়াই হচ্ছে, তাদের জন্য একটা ছোট্ট সওয়াল। ধরুন কোন স্কুলে বলা হল, সবাইকে সমান ভাবে পড়ান হবে, একভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে, খাতা দেখা হবে, শুধু খাওয়ার জলের কলটা ইসলাম ধর্মাবলম্বী ছাত্রছাত্রীদের জন্য আলাদা হবে, মেনে নেবেন? জল একই থাকবে, শুধু কলটাকে সবুজ রঙ করে দেওয়া হবে? জানি আপনি মেনে নেবেন না, কেন না আপনি যদি মেনে নেওয়ার দলের হতেন তা হলে এই লেখাটা এতদূর পড়তেন না। দিনের শেষে সাম্যের অধিকার এক মৌলিক অধিকার, যে অধিকারের প্রশ্নে আপোষ করা চলে না।

আপোষ করা চলে না বলেই, মুর্গি-খা-র দ্বিচারিতার বিরুদ্ধে এক হয়েছেন বহু মানুষ। বস্টনের এবং শিকাগোর মেয়রেরা জানিয়েছেন, তাঁরা তাঁদের শহরে মুর্গি-খাকে দোকান খুলতে দেবেন না। বিভিন্ন কলেজ-ইউনিভার্সিটির ছাত্রছাত্রীরা পিটিশন করে তাদের ক্যাম্পাসে মুর্গি-খার দোকান খোলা বন্ধ করিয়েছেন। বহু সমপ্রেমী মানুষ এবং তাদের সমর্থকরা এদের বিভিন্ন দোকানের সামনে ঠোঁটে ঠোঁট রেখে ব্যারিকেড গড়েছেন। এমনকি বেশ কিছু হেটেরোসেক্সুয়াল ছেলেমেয়েরা শুধুমাত্র প্রতিবাদ করার জন্যই রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাদের সমলিঙ্গের বন্ধুদের ঠোঁটে চুমু খেয়েছেন (ওয়াও)।  এদের সবাইকে আমার আনত অভিবাদন। এই সন্মিলিত প্রতিবাদের সামনে দাঁড়িয়েই এই বছরের জুলাই মাসে মুর্গি-খার তরফ থেকে বলা হয়েছে যে তারা সমলিঙ্গে বিয়ের ব্যাপারটা সরকার ও রাজনৈতিক বিতর্কের ওপরে ছেড়ে দিচ্ছেন। অবশেষে। তবে কেন লোক হাসালি? অবশ্য গে-বিরোধী সংগঠনদের আর্থিক সাহায্য করা বন্ধ করবেন কি না, সেই বিষয়ে ওদের তরফ থেকে এখনো কিছু বলা হয় নি। 

শেষপাতে

মুর্গি হল, মসালা হল, শেষপাতে চাটনিই বা বাদ যায় কেন? আজ সকালে খবরের কাগজের পাতায় দেখলাম, এক যাবজ্জীবন দন্ডাজ্ঞাপ্রাপ্ত খুনের আসামীকে লিঙ্গ পরিবর্তনের অধিকার দিয়েছে ম্যাসাচুসেটসের আদালত। বিকেলে ফেরার সময় দেখলাম একজন তাঁর কাজের জায়গা থেকে ফিরছেন, গলায় ঝুলছে আইডেন্টিটি কার্ড, পরনে স্কার্ট, কানে দুল, শরীরে নারী লক্ষণ স্পষ্ট। খালি ভাল করে লক্ষ্য করলে বোঝা যায়, মুখের হাল্কা দাড়ি-গোঁফ এবং গলার স্বর এখনো তাঁর পুরুষজীবনের গোধূলি আলো বহন করছে। সম্ভবত, তিনি সেক্স চেঞ্জ প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে চলছেন এবং তার জন্য তাঁর কর্মজীবন কোনো ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় নি। মনে পড়ে গেল, ভারতের সংস্কৃতি-রাজধানীর বুকে কয়েক সপ্তাহ আগে ঘটে যাওয়া এক কুনাট্যরঙ্গের কথা। যেখানে কলকাতার পুলিশ বুক খামচে জানার চেষ্টা করেছিল একজন নারী সত্যিই নারী কি না, ভারতের রেল, যা লেট করার জন্য অতি কুখ্যাত, কোন লেট না করেই তাঁকে চাকরি থেকে সাসপেন্ড করে দিয়েছিল। দুঃখ হল এই ভেবে, এই বাংলার বুকেই একজন মানুষ একতারা হাতে নিয়ে গেয়ে গিয়েছিলেন "তোমরা বল নারী-পুরুষ, আমি দেখি শুধুই মানুষ"। কবে সেদিন আসবে যেদিন আমরা শুধুই মানুষ দেখতে শিখব?



507 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

কোন বিভাগের লেখাঃ ধারাবাহিক  অন্য যৌনতা 
শেয়ার করুন


মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2]   এই পাতায় আছে 8 -- 27
Avatar: S

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

ওপু,
মুর্গি খা হচ্ছে একটা ফাস্ট ফুড চেন - আসল নাম চিক ফিলে (chick-fil-a)। লেখক ঐ নামটার বাংলা অনিবাদ করেছেন মুর্গি খা।
Avatar: S

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

অনুবাদ
Avatar: Born Free

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

সব্বাইকে থ্যাঙ্কু।
Avatar: de

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

খুব ভালো লেখা!!
Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

এই পর্বটি বেশ লাগলো। বেশ গতিশীল, অহেতুক বাক্যজটিলতা নেই। :)

পরের পর্বের অপেক্ষায়। চলুক।
Avatar: Pramit

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

অনেক অজানা তথ্য জানা গেলো। শেষপাত টা অসাধারণ। লেখক কে প্রচুর ধন্যবাদ
Avatar: Born Free

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

আবার-ও ধন্যবাদ, প্রমিত, দে, বিপ্লব্বাবু এবং অনন্যান্যদের। :)
Avatar: sikta

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

দারুণ লাগলো!!
Avatar: nina

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

খুব ভাল লাগল।
Avatar: তাতিন

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

এমনিতে ভালো, কিন্তু আজকাল
" ধরুন কোন স্কুলে বলা হল, সবাইকে সমান ভাবে পড়ান হবে, একভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে, খাতা দেখা হবে, শুধু খাওয়ার জলের কলটা ইসলাম ধর্মাবলম্বী ছাত্রছাত্রীদের জন্য আলাদা হবে, মেনে নেবেন? জল একই থাকবে, শুধু কলটাকে সবুজ রঙ করে দেওয়া হবে? জানি আপনি মেনে নেবেন না, কেন না আপনি যদি মেনে নেওয়ার দলের হতেন তা হলে এই লেখাটা এতদূর পড়তেন না।"
এরকম সরলীকৃত অ্যাজাম্পশন দেখলে কেমন যেন লাগে!
Avatar: born free

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

তাতিন,
"জানি আপনি মেনে নেবেন না, কেন না আপনি যদি মেনে নেওয়ার দলের হতেন তা হলে এই লেখাটা এতদূর পড়তেন না।" এরকম সরলীকৃত অ্যাজাম্পশন দেখলে কেমন যেন লাগে! "

খুব খুব ঠিক কথা, তবে এই বস্টনে বঙ্গে লেখাটা খুব হালকা ভাবে লেখা তো, তাই এমন ওভার সিম্প্লিফিকেসান এখানে ওখানে রয়ে গেছে। ওটা ভাই মাপ করে দিতে হবে। :)


Avatar: born free

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

যেমন ধরুন, শুধুমাত্র সমপ্রেম বিরোধিতার কারণে চিক-ফিল-আ কে বস্টনে ব্যবসা করতে না দেওয়া কতটা গণতান্ত্রিক ও যুক্তিসঙ্গত, তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় আছে। সাধারণ মানুষ যদি মুরগি-খার homophibic অবস্থানের বিরুদ্ধে আপত্তি জানান, তাদের দোকানের সামনে বিক্ষোভ করেন, সেটা অবশ্যই স্বাগত। কিন্তু যতক্ষণ তারা আইনসঙ্গত ভাবে ব্যবসা করছেন, তাদের খাবার-এর মান ঠিক আছে, ততক্ষণ সরকারিভাবে তাদের ওপর নিষেধাগ্গা চাপানো, আমার মতে মুক্ত-চিন্তার কন্ঠরোধ। হতে-ই পারে, সেই চিন্তা আমার অবস্থানের বিরোধী, তবুও।
কিন্তু এই লেখায় আমি সচেতনভাবেই-ই সেই সব যুক্তি-তর্কের বিন্যাসে যাই নি।
Avatar: তাতিন

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

:)
Avatar: সে

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

"শেষপাতে" খুব সুন্দর।

Avatar: Trina

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

আপনি বেশ ভালো লেখেন ।
Avatar: tracer

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

কিছু মনে করবেন না বর্ণ ফ্রি মশাই - আপনি ভারী ইয়ে, এত ভালো লেখার হাত আপনার - দেশে না হয় কামইং আউট করতে পারেন নি - লেখা তেও কি বস্টন আসার দরকার পড়ল ? অসাধারণ - ভাবছি আপনার ফ্যান ক্লাব খুলবো :)
Avatar: Shampa

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

আমি তো আপনার ফ্যান হয়ে গেলাম!! ধ্যন্যবাদ।
Avatar: Born Free

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

এত্ত প্রশংসা-ই লজ্জা লজ্জা লাগছে। থ্যান্ক উ স মাচ। তবে, আপনাদের সব্বাইকে, যাদের এই লেখা ভালো লাগছে, তাদের কাছে অনুরোধ, প্লিজ, সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে বন্হুদের সাথে কথা বলুন। আর Jodi আপনি সমপ্রেমি-দের অধিকার সমর্র্থন করেন, তবে তা খোলা গলায়, অকুন্ঠ ভাবে করুন। প্লিজ, মিনে রাখবেন, আপনার মৌনতা আমাদের মুক করে দেবে।
Avatar: Soma K Mishra

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

রাস্তা ঘাটে আসতে যেতে সর্বত্র chick fil a ( মুর্গি খা ) র দর্শন মেলে ...আমি নিরামিষ ভোজী হলে ও সেখানে কি পাওয়া সেটা জানি ...তবে আলাদা করে সে সব নিয়ে কোনোদিন এমন কিছু ভাবি নি ...আপনার লেখা তো ভালো লেগেছে ই তবে এখন থেকে ঐ মুর্গি খা র দিকে তাকালেই ভীষণ হাসি পাবে ..আর মূল বিষয় টি নিয়ে কথা বলতে গেলে লোকজন এখন ও কেমন যেন একটা কিন্তু ভাব এ আচ্ছন্ন হয়ে থাকে তবু যখন বিষয় এত বিশদ ভাবে জানলাম অবশ্য ই কাছের বন্ধু দের সাথে আলোচনা করবো আর আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
Avatar: Golam Robbani

Re: বস্টনে বঙ্গেঃ তৃতীয় পর্ব

ভাল লাগল

মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2]   এই পাতায় আছে 8 -- 27


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন