ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • হরিদাস পাল  ব্লগ

  • অন্নদা মুন্সীর চা-পান বৃত্তান্ত 

    Siddhartha Mukherjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ১১৪৯ বার পঠিত | রেটিং ৩.৩ (৪ জন)
  • অন্নদা মুন্সীর চা-পান বৃত্তান্ত
      
    ওদের চা...  মোদের চা
     সবার চাই  স্বাদের  চা ! 
                     
      বিজ্ঞাপন দুটি শ্রী অন্নদা মুন্সীর সৃষ্টি।
      ওনাকে ভারতের Commercial Art 
    এর জনক বলে গিয়েছেন সত্যজিৎ রায়।
    মানুষটি ছিলেন স্বদেশীয়ানার "ফ্লেভারে" ভরপুর।
     
    Lipton Co. র কাজ হাতে নিয়েছিলেন এই শর্তে
     -- " আমি কিন্তু স্বদেশী চা বাগানের মালিকের বিজ্ঞাপনও বানাবো সাহেব ! ইচ্ছে হয় আমায় রাখো,  নয়ত চল্লুম। " 
     দেশের মানুষের জন্য বিজ্ঞাপন করতেন বিনা পারিশ্রমিকে।
     
     
       শ্রী অন্নদা মুন্সি মশাই ছিলেন এক অন্যতর ব্যক্তিত্ব। 
    এবং মনে প্রাণে, যাকে বলে... Upto Bone Marrow বাঙ্গালি ( এবং অবশ্যই ভারতীয়)। 
     
       অন্নদাবাবু কে বলা হয় ভারতে কমার্শিয়াল আর্ট -এর আদিগুরু -পিতৃপ্রতিম । 
     সঙ্গীতের হাতেখড়ি ছোটকাকার কাছে। রবীন্দ্রসংগীত গাইতেন অসাধারণ ।  বেহালা-এস্রাজের হাত ছিল মধুক্ষরা।  আর  পিয়ানো?  বাখ - সোঁপা - মোৎজার্ট ছেড়েই দিন,  পিয়ানোয় মেঘমল্লার  বাজাতেন  আকাশে মেঘ জমলে !  
     
     কত দেশ ঘুরেছেন তার সঙ্গীত নিয়ে... চাকরিসূত্রে।  তখনকার বোম্বাই রেডিও তে নিয়মিত রবীন্দ্র গান গাইতেন... এমনকি বেশ কিছুদিন রবীন্দ্রসঙ্গীত শিক্ষার  আসর পরিচালনা করেছেন সেই Tinsel Town এ।  
     
    তাছাড়া,  পাশ্চাত্য সঙ্গীতের আসর তো ছিলই -- সেখানেও সমান মুন্সীয়ানার পরিচয় দিয়েছেন বহুদিন।
     
      কি খেয়াল হ'ল --বোম্বাই তেই Times of India র পাতায় কার্টুন  আঁকতে শুরু করলেন।  পরিচালকমন্ডলী ধরলেন তাদের কাগজের বিজ্ঞাপন এঁকে দেবার জন্য। কিছু কাজ করলেনও।  
     
        তারপর , পাইকপাড়ার জন্য বড্ড মন কেমন করতে লাগল একদিন।  ব্যস,  ধুতি-পাঞ্জাবি প'রা মানুষ টি একহাতে স্যুটকেস, অন্যহাতে বেহালার বাক্স নিয়ে হাওড়া স্টেশনে এসে নামলেন।
     
                     ****
     
     এবার হাতে উঠল রঙ-তুলি-প্যাস্টেল।  ডি. জে. ক্র‍্যামার তখন খুব নামজাদা বিজ্ঞাপন সংস্থা। প্রচুর খোসামোদ করে তারা অন্নদাবাবুকে রাজি করালেন যোগ দিতে।  
    তবে শর্ত আছে -- ধুতি-পাঞ্জাবি আর লাঞ্চ টাইমে রবীন্দ্রসংগীত।
    (তার চেম্বারে তিনি বিভোর হয়ে গাইতেন...বেহালা বাজাতেন আর বাইরে নাকি গোরা-সাহেবরা ঠায় দাঁড়িয়ে শুনতো  ...  ডেসার্টের আইসক্রিম ততক্ষণে  গলে ক্ষীর !)
     
       এই ক্র‍্যামার কোম্পানিতে থাকার সময়ই তিনি Commercial Art কে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে আসেন। কতো বিষয়ের বিজ্ঞাপনী তৈরী করেছেন  রঙ-তুলিতে।
     
      এই সময়ে, Indian Tea Planters Association থেকে বরাত পান চা-য়ের ওপর বিজ্ঞাপন করার।
      বেশ কিছু Ad করলেন Lipton, Brooke Bond দের জন্য।  দারুন সুনামও পেলেন।  ইংরেজ চা-বাগান মালিকদের কাজ করতে গিয়ে বুঝলেন যে, ভারতীয়দের কাছে চা-পান কিন্তু বিলিতি নেশাই হয়ে রয়েছে...  যতোই তিনি ছবি এঁকে পকেট ভরান না কেন!  অথচ, দেশীয় শ্রমিকরা রক্তজল  করে  চাষ করছে,  দেশের মাটিতেই !
     
      যে কয়েকজন ভারতীয় চা-বাগান মালিক ছিলেন তাদের অন্নদাবাবু প্রস্তাব দিলেন : 
     
    বিশুদ্ধ  বাঙ্গলা ভাষায় তিনি "ছবি-লেখার" বিজ্ঞাপন তৈরি  করে দেবেন যাতে চা-পানের বহুল প্রচার হয় ।  তাদের দায়িত্ব জনবহুল স্থানে সেগুলি বিজ্ঞাপিত করা। 
       আর হ্যাঁ,  তার পারিশ্রমিক নেবেন না।
     
                      *******
     
       ১৯৩০ - ৩২ সাল।
    এই সিরিজে তিনি বেশ কয়েকটি পোস্টার প্যানেল করেন। তার মধ্যে থেকে অন্তত  তিনটি  একসাথে  বিজ্ঞাপিত হতো
     হাওড়া,  শিয়ালদহ সহ বেশ কিছু জংশন স্টেশনে, কোর্ট-কাছারির বাইরে,  থিয়েটার পাড়ায় আর গড়ের মাঠে যেখানে ফুটবল খেলা হ'ত !  
     
        ইংরেজ মালিকের  নিষেধ উপেক্ষা করে ইংরেজিতেও এঁকেছিলেন ছবি -- ঘরের মা-বৌ চরকা কাটছে... পাশে চায়ের কাপ।  
     
    একবার সুইডিশ কোম্পানির জন্য দেশলাই বাক্সের লেবেল ডিজাইন করলেন।
    INDIAN BEAUTY .
    নেবেন তো নিন... আমি এই আঁকবো !  
    ভারতীয়ত্বের মেজাজ !  
     
    বাঙ্গালি তখনো আমাদের মতন  সরীসৃপ  হয় নি, মশাই। 
     
                    *****
     
      সত্যজিৎ রায় নামে এক শিল্পী তাকে গুরু বলে স্বীকার করে নিয়েছিলেন, 
     কাজ করেছেন তার সাথে আর বারংবার  প্রণাম জানিয়েছেন তার প্রতিভা,  ব্যক্তিত্ব আর বাঙ্গালিয়ানাকে। 
     তাঁর পথে হেঁটে সত্যজিৎ নিজেও করেছিলেন কয়েকটি  "চা-পান " বিজ্ঞাপন। 
     
    Matter of fact,  এ কথাও বলে রাখি,
     রবিশংকর আর  সুনীল  গঙ্গোপাধ্যায় নামে আরও দুজন বাঙ্গালি ভদ্রলোকও তাঁর  পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করতেন বলে শুনেছি।
     
       তার প্রতি রইল এই অলেখকের  অনেক শ্রদ্ধা। 
     
    ( দ্রিঘাংচুর দিগ্ দর্শন  /দ্বিতীয় খন্ড / 
    সপ্তর্ষি প্রকাশন  থেকে )
  • | রেটিং ৩.৩ (৪ জন) | বিভাগ : ব্লগ | ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ১১৪৯ বার পঠিত
  • আরও পড়ুন
    চিঠি - Shomita Banerjee
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • ভূদেব সেনগুপ্ত | 2405:201:800b:c8dd:1047:173e:755e:178 | ২৭ নভেম্বর ২০২১ ১১:২৮501471
  • অজানা অনেক কিছুই জানতে পারলাম এই অসাধারণ মানুষটি সমন্ধে। শিল্পী পাইকপাড়াতে থাকতেন জানতাম। তার সমন্ধে আরও অনেক কিছু জানার ইচ্ছে রইল।বন্ধু বর সিদ্ধার্থ কে জানালাম অসংখ্য ধন্যবাদ। 
  • সত্যেন্দু সান্যাল | 110.227.145.186 | ২৭ নভেম্বর ২০২১ ১৫:৫৫501476
  • অসাধারন,তথ্যপূর্ন লেখাটির জন্য আমরা ড: মুখার্জি কে ধন্যবাদ জানাই।
    সংযোজন হিসেবে লিখনে উল্লিখিত এই ছবিটি সংশ্লিষ্ট হৈল।
     
    SatyajitAdv-3
     

    Above: Poster by Annada Munshi for ITMEB, 1947. Courtesy Centre for Studies in সোশ্যাল মিডিয়া

     

  • Sobuj Chatterjee | ২৮ নভেম্বর ২০২১ ০৭:৩১501492
  • দারুন লাগলো! ঋদ্ধ হলাম।
  • Piu Mukherjee | 2409:4060:11e:a165::2986:30a0 | ২৯ নভেম্বর ২০২১ ০৮:১৫501519
  • Satyee jantam na onek kichu totthyo, khub bhalo laglo....janlam onek kichu.
  • reeta bandyopadhyay | ৩০ নভেম্বর ২০২১ ১৪:৪৮501550
  • কি চমৎকার তথ্যসম্বৃদ্ধ লেখা।
  • শ্যামলকুমার চক্রবর্তী | 117.194.106.5 | ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ১৯:২০501696
  • কীই ই ই  যে ভালো লাগলো তা বলে বোঝাতে পারব না। অথচ, কিছুই জানতাম না এই নমস্য ব্যক্তি সম্বন্ধে।  
  • বিপ্লব রহমান | ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ১৫:২৭501766
  •  
    এপারেও লিপটন ইয়লো লেভেলের বেশ কদর, এই গুণীজনকে চিনিয়ে দেওয়ায় অনেক ধন্যবাদ। 
    সবচেয়ে ভাল লেগেছে, দুর্লভ সব চায়ের বিজ্ঞাপন। 
    তবে বিনয় করে বলি, লেখাটি গুরুতর সম্পাদনার পরেই প্রকাশ করা যেত, এই সম্পাদনা লেখক নিজে বা যোগ্যতম যে কেউ করতে পারতেন। 
     
    যেমন, লেখায় অহেতুক ইংরেজি হরফের ব্যবহার কলোনিয়াল হ্যাংওভারকে মনে করায়, খুবই পাঠ বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। 
     
    ভাষাটিও খুব সাবলীল নয়। 
     
    শুভ 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। না ঘাবড়ে মতামত দিন