ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • গণতান্ত্রিক দেশদ্রোহিতা

    ঋক্ ধর্মপাল বন্দ্যোপাধ্যায় লেখকের গ্রাহক হোন
    ১৬ জুলাই ২০২১ | ৬৯৩ বার পঠিত
  • জুলাইয়ের ৫ তারিখ, মানবাধিকার কর্ম্মী স্ট্যান স্বামীকে ভারতরাষ্ট্র খুন করে। এই হত্যাকাণ্ড সম্পাদিত হয় ভারতের সংবিধান এবং বিচারব্যবস্থার পূর্ন সহায়তায়। স্বামী, চার বছর ধরে ভীমা কোরেগাঁও ভুয়ো মামলায় ইউএপিএ-এর চার্জ্জে বন্দী ছিলেন। জীবনের শেষ কিছুদিন, তিনি সলিড কিছুই খেতে পারতেন না। দুরারোগ্য পার্কিনসান রোগে আক্রান্ত এই অশীতিপর বৃদ্ধকে একটা স্ট্র-ও মঞ্জুর করা হয়নি। স্ট্যান স্বামীকে তিলে তিলে মারার পর সারা দেশজুড়ে বিক্ষোভের আগুন জ্বলে ওঠে। রাষ্ট্রপতিকে প্রতিবাদী চিঠি লেখেন মমতা ব্যানার্জি,সনিয়া গান্ধী,সীতারাম ইয়েচুরিসহ বিরোধী পক্ষের দশ নেতা। চিঠির শেষ পংক্তির শেষভাগটা তুলে ধরছি,"...misusing draconian laws like UAPA, sedition etc,be released forthwith" অর্থাৎ,এনারা মেনে নিচ্ছেন ইউএপিএ ড্রাকোনিয়ান থুড়ি নির্মম। মজাদার ট্র‍্যাজেডি এটাই যে, কংগ্রেস বোধহয় ভুলে যাচ্ছে, ভারতে ইউপিএ লাগু করে তাদের সরকারই, ১৯৬৭ খ্রীস্টাব্দে। মনমোহন সিং এর সরকার বারবার ২০০৩,২০০৮,২০১৩,২০১৪ - বারেবারে এই আইনে সংশোধন এনে নাগরিকের ভাবপ্রকাশের স্বাধীনতাকে আইনী পদ্ধতিতে হত্যা করার সুবন্দোবস্ত করে গেছেন। সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি বোধহয় ভুলে গেছেন গত পাঁঁচবছরে ১৫১টি ইউপিএ কেস সিপিআইএম-শাসিত রাজ্য কেরালায় রেজিস্টার্ড হয়েছে। তিনি বোধহয় আরও ভুলে গেছেন ২০০৯ সালে, ভ্যালিড প্রেস রেজিস্ট্রেশান নাম্বার থাকা সত্ত্বেও, কলিকাতা পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ, একটি পত্রিকার সম্পাদক স্বপন দাশগুপ্তকে ইউপিএর ১৮,২০,৩৯নং সেকশান এবং ১২১,১২১এ,১২৪এ ধারা অনুযায়ী গ্রেপ্তার করে। কিছুমাস পর তিনি শ্বাসকষ্টে এবং অভিযোগ অনুযায়ী পুলিশী অত্যাচারের কারণে, এসেসকেএমে মারা যান। কিংবা,তিনি ভুলে গেছেন লালগড় আন্দোলনের গৌর চক্রবর্তীর কথা। ৭৩বছর বয়সে তাঁকে এই আইনে, দেশদ্রোহীতার দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়। আদালত পরে তাঁকে নির্দোষ সাব্যস্ত করতে বাধ্য হয়। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বোধহয় ভুলে গেছেন ভাঙর আন্দোলনের কথা। ইউপিএর ১৬ এবং ১৮নং সেকশান অনুযায়ী বন্দী করা হয়েছিলো কুড়িজন আন্দোলনকারীদের,যার মধ্যে নয়জন ছিলেন নিছক গ্রামবাসী। তাঁর শাসনকালে, বাংলায় বিচারাধীন অবস্থায় বন্দী আছেন এখনও ৭৫জন রাজনৈতিক বন্দী। ২০০৮এ মনমোহন সিং এর সরকার যখন পার্লামেন্টে বিপুল সমর্থন পেয়ে ইউপিএর সংশোধন আনে, বিজেপি তাতে জাতীয়তাবাদের দোহাই দিয়ে পূর্ন সমর্থন জানিয়েছিলো। এই সংশোধনে জামিনের অধিকারহরণ এবং ওয়ারেন্ট ছাড়া গ্রেপ্তারের অধিকার পুলিশকে দেওয়া হয়। ২০১৫ থেকে, বিজেপি সরকারে আসার পর ইউপিএর আন্ডারে বন্দীদের সংখ্যা প্রায় ৮০% বেড়েছে। ২০১৯এ শুধুমাত্র মণিপুর এবং কাশ্মীরেই ৫৬১জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাঁচবছর ধরে সারা দেশে বন্দী করা হয় ৫১২৮জনকে। সেডিশান কেসের সংখ্যা বেড়ে যায় ১৬৫%। অবশেষে, ২০১৯এর পয়লা অগাস্ট, অমিত শাহ,রাজ্যসভায় ইউপিএর শেষ সংশোধনী বিলটি পাশ করান যার দ্বারা শুধু সংগঠন নয়,যেকোনো সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে টেররিস্টের তকমা লাগিয়ে গ্রেপ্তার এবং তার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা যাবে। বিজেপির অঙ্গুলীহেলনে চলা রাষ্ট্রপতি কোভিন্দ, সেই বিলকে নিমেষের মধ্যে আইনে পর্যাবসিত করে দেন। স্ট্যান স্বামীর নৃশংস মৃত্যু বোধ করি মানুষের বোধে অত্যাধিক ধাক্কা দিয়েছে ; তাই সময়কে ব্যবহার করে,স্রোতে ভেসে, বিরোধী পক্ষের নেতারা একজোটে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন। সেই কারণেই এই সময়ে,তাদের দ্বিচারিতা সামনে আনা দরকার। গতকাল, ১৫ই জুলাই ২০২১, ভারতের চিফ জাস্টিস রামানবাবু প্রশ্ন তুলেছেন, স্বাধীন ভারতে আদৌ কেনো এই ঔপনিবেশিক আইন এখনও বহাল রয়েছে, ১৮৭০ সালে ব্রিটিশ শাসকেরা যা প্রথম লাগু করেছিলো এবং পরবর্ত্তীকালে যা মূলতঃ ব্যবহার করা হতো স্বাধীনতা সংগ্রামীদের দমন করার স্বার্থে। সুপ্রীম কোর্টের এই বক্তব্য নিঃসন্দেহে আশার আলো। একইসঙ্গে, বিরোধী পক্ষের প্রত্যেক দলকে,মানুষের কাছে, কেন্দ্রের ফ্যাসিস্ট সন্ত্রাসবাদী শক্তির বিরুদ্ধে নিজেদের স্ট্যান্ড ক্লিয়ার করতে হবে। ইউপিএ জাতীয় রাষ্ট্রদ্রোহিতার তকমা লাগানো কালা আইনগুলির সম্পূর্ণ বিরোধিতা না করে,বাতিলকরণের রাস্তায় না হেঁটে স্ট্যান স্বামীর হত্যায় দুংখপ্রকাশ করা, এক নগ্ন দ্বিচারিতা। মানুষ বোকা নয়।।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Sobuj Chatterjee | ১৬ জুলাই ২০২১ ২০:০৪495836
  • মূল্যবান তথ্য সম্বলিত প্রতিবেদন।

  • অনামী | 2409:4060:2d80:e534:4aa2:7a46:465:bb7f | ১৬ জুলাই ২০২১ ২০:৫০495838
  • চমৎকার লিখেছেন। Hypocrite দের মুখোশ খুলে দিয়েছেন।


    জনগণ বোকা নয় বলেই আমরা (জনগণ) যে যার নিজের চরকায় তেল দেই। সব দলই যেহেতু সমান তাই প্রতিবাদ করে কোন লাভ নেই। NRC  ইস্যুতেও এসব গণতান্ত্রিক (!) দলগুলোর হিপোক্রেসি বারবার দেখা গেছে।

  • ধর্মপাল | 2409:4060:88:6f0:7569:9d6e:fa3c:f3e3 | ১৬ জুলাই ২০২১ ২১:২১495840
  • সব দলই সমান বলার সময় এটা নয়। সংসদীয় গণতন্ত্র প্রহসন বটে, কিন্তু সময়ের দাবী ফ্যাসিস্ট বিরোধী জোট। 

  • dc | 171.61.168.162 | ১৬ জুলাই ২০২১ ২১:৩০495841
  • যাকলা! সংসদীয় গণতন্ত্র যদি প্রহসনই ​​​​​​​হয় ​​​​​​​তাহলে ফ্যাসিস্ট বিরোধী জোট করেই ​​​​​​​বা ​​​​​​​কি ​​​​​​​লাভ? বিরোধী পার্টিও তো গিয়ে প্রহসনই করবে, তো রুটি পাল্টালেই বা কি? ​​​​​​​

  • ধর্মপাল | 1.23.214.37 | ১৬ জুলাই ২০২১ ২২:৪৫495843
  • লাভ - সংসদীয় গ্রাউন্ডে ফ্যাসিজমকে রোখা। অবশ্য, সোনার পাথরবাটি। গণতান্ত্রিক পার্টিগুলোর সহায়তায়ই ফ্যাসিজমের উত্থান ঘটেছে। 

  • dc | 171.61.168.162 | ১৬ জুলাই ২০২১ ২৩:০২495844
  • তাহলে আর কিসের লাভ। আমরাও যা ওরাও তা, কাজেই চুপচাপ থাকাই ভালো। 

  • Santosh Banerjee | ১৭ জুলাই ২০২১ ২০:৫৪495871
  • এরা মানে এই সব রাজনৈতিক দল গুলো সব এক গোয়ালের ....রু !!দেখছেন না , কোনো উচ্চবাচ্য নেই ?? এরা কৃষক আন্দোলন নিয়েও কোনও কথা বলেনা পেট্রল ডিজেল নিয়ে সরব হয় না , শুধু লোক দেখানো একটা ব্যাপার করে ( যেমন ১০ মিনিটের প্রতীকী প্রতিবাদ , এম এল এ সাইকেল করে বিধান সভায় এলো ।..এই রকম  আর কি !!ধূর্ত এরা !!এদের বিশ্বাস করে মানুষ ঠকেছে ঠকবে !! আর সুপ্রিম কোর্ট হঠাৎ এতো জন দরদী হয়ে উঠলো কেন ?ব্যাপার টা সন্দেহ জনক !! একই সঙ্গে মাননীয় চন্দ্রচূড় মহাশয় এবং প্রধান বিচার পতি এর বিরুদ্ধে মতামত দিচ্ছেন নিকটেই তো নির্বাচন সাধু বাবার বিপদ আসন্ন একটু ইমেজ বিল্ডিং হচ্ছেনাকি বিচারকদের দিয়ে ????।.""".পুত্র রাজনীতি বড়ো কূট """।...আওরংজেব ঠিক বলেছিলেন (( মানে শ্রী সচিন সেনগুপ্ত বলিয়েছিলেন আর কি ! )) একবারও কিন্তু কেউ বলছেন না এই আইন রদ্দ হোক !!!হুঁ হুঁ মশাই !! দেখুন মজাটা !!

  • অনামী | 2409:4060:e8e:7391:894b:c8e2:32d2:787 | ১৮ জুলাই ২০২১ ১০:২২495901
  • সন্তোষ বাবু, সব পার্টির পথ ও স্বপ্ন হল ক্ষমতায় এসে জমি অধিগ্রহণ (!) করে রিয়াল এস্টেট বা শিল্প বা কৃষি খামার তৈরি করা। উচ্ছেদ হওয়া চাষী সস্তা শ্রমিকে পরিণত হবে কিন্তু তার শ্রম বেচার জায়গাই নেই। দেশের কোটি কোটি বেকার তার প্রমাণ। দেশে সাধারণ জনগণের স্বার্থ দেখার জন্য কোন দল নেই। ফ্যাসিবাদ কে পরাজিত করার জন্য খেটে খাওয়া নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর নেতৃত্বে কোন দল উঠে আসা দরকার, পেরুর pedro castillo র মত।

  • dc | 122.174.104.8 | ১৮ জুলাই ২০২১ ১০:২৬495903
  • পেড্রোবাবুকে ভারতে নিয়ে আসা হোক। 

  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন