• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • আনন্দের বাজারে হাম্পটি ডাম্পটি

    Swarnendu Sil লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ০৭ এপ্রিল ২০১৮ | ২৮৫০ বার পঠিত
  • পথিকের প্রদর্শিত পথ সুজয়যুক্ত করতে আনন্দের বাজারে এখন হাম্পটি ডাম্পটি।

    গতকাল ( ৬ই এপ্রিল, ২০১৮) যে দৈনিক দৈনিক না পড়লে আপনি পিছিয়ে পড়বেন তাঁরা আপনাকে এগিয়ে রাখতে জেনেভা থেকে নিয়ে এলেন হাম্পটি ডাম্পটি কে ( এখানে দেখুনঃঃ http://www.anandabazar.com/others/science/cern-discovers-humpty-dumpty-particle-at-lhcb-experiment-dgtl-1.782195?ref=hm-editorschoice )। লিংক খুললেই দেখবেন, প্রতিবেদনে সুজয় চক্রবর্তী লিখছেন: "ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র কণাদের সাম্রাজ্যেও এ বার সেই ‘হাম্পটি ডাম্পটি কণা’র দেখা মিলল। এই প্রথম। জেনিভার অদূরে, ‘সার্ন’-এর ভূগর্ভস্থ লার্জ হ্যাড্রন কোলাইডারের এলএইচসি-বি পয়েন্টে। ‘সার্ন’-এর তরফে জানানো হয়েছে, ২০১২ সালে ‘ঈশ্বর কণা’ বা ‘হিগস্‌ বোসন’ আবিষ্কারের পর কণা-পদার্থবিজ্ঞানের ইতিহাসে এই আবিষ্কার যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ।চোখের পলক পড়তে না পড়তেই ওই ‘হাম্পটি ডাম্পটি কণা’ও কোথায় যেন উধাও হয়ে গেল! টুকরো টুকরো হয়ে ভেঙে গেল দু’টি আলোর কণা- ‘ফোটন’-এ। এক সেকেন্ডের ১০ লক্ষ ভাগের এক ভাগ সময়ের মধ্যেই।"

    বিষয়টা কি? জেনেভার কাছে সার্ণ গবেষণাগার (CERN) পয়লা এপ্রিল তারিখে একটা পোস্ট দেন নিজেদের ওয়েবসাইটে। তাতে বলা হয় যে 'হাম্পটি-ডাম্পটি' কণা আবিষ্কার হয়েছে। (এখানে দেখুনঃ https://home.cern/about/updates/2018/04/humpty-dumpty-particle-discovered )।

    খ্যাতনামা বিজ্ঞান সাংবাদিক এই খবরটিই বাংলায় আমাদের পরিবেশন করেছেন। ওনারা স্বভাব-সাহিত্যিক, তাই হাম্পটি-ডাম্পটি কে ও কারা সে বিষয়ে সচিত্র প্রাঞ্জল বর্ণনাও আছে পরিবেশনায়। "অবিকল ডিমের মতো দেখতে হাম্পটি ডাম্পটি পাঁচিল থেকে আচমকা পড়ে গিয়ে টুকরো টুকরো হয়ে গিয়েছিল! তার খেল খতম হয়েছিল বরাবরের মতো। রাজার ঘোড়ারা বিস্তর চেষ্টা করেছিল। হাম্পটি ডাম্পটিকে জোড়া লাগাতে খুব কসরৎ করেছিল রাজার সেনারা। তবু টুকরো টুকরো হয়ে যাওয়া হাম্পটি ডাম্পটিকে আর জোড়া লাগানো যায়নি।"

    তা, এতে সমস্যাটা কী? যাঁরা এখনো সার্ণের মূল লেখাটা পড়েননি বা তারিখটা খেয়াল করেননি, তাঁদের জন্যে জানাই, সার্নের মূল লেখাটি আদৌ কোনো বিজ্ঞানিক আবিষ্কারের ঘোষণা নয়, ওটি ছিল পয়লা এপ্রিলের ফাজলামি মাত্র। সেটা থেকেই বাংলা সংবাদপত্রের প্রতিবেদক একটি সিরিয়াস লেখা নামিয়ে দিয়েচেন।

    সার্নের সেই ইয়ার্কিমূলক মূল লেখার কিছু সংক্ষিপ্তসার দেওয়া যাক।

    "The LHCb experiment at CERN’s Large Hadron Collider (LHC) has announced the discovery of Eggeron ηgg (eta-gg), familiarly known as the “Humpty Dumpty” particle, the smallest lump of nuclear glue."

    বলা বাহুল্য, ইটা হচ্ছে গ্রীক বর্ণমালার e, ফলত \eta gg হচ্ছে egg, ডিম। চক্রবর্ত্তীদের জন্যে তোড়ায় বাঁধা, যদিও ঘোড়ার কিনা সে নিয়ে এখনো সম্ভবত সার্নে গবেষণা চলছে।

    পরমাণুর নিউক্লিয়াসেও আঠা বা glue নেইকো, ফলত বাক্যটি যে নিছক অর্থহীন ছ্যাবলামো তা বুঝতে আইনস্টাইন হতে হয় না, শুধু বাংলার বিজ্ঞান সাংবাদিক না হলেই চলে সম্ভবত।

    ওই পোস্টে ডিম সংক্রান্ত ফাজলামির আর কিছু নমুনা --

    "Hard-boiled scientists"
    " which allowed ηgg to coagulate." ( ডিমের সাদা অংশের বা ওভালবুমিন-এর জমে যাওয়াকে coagulation বলা হয়, শব্দটির মূল ব্যবহার এই অর্থে, যদিও একই রকম প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে অন্যত্র ব্যয়ভার হয়)
    " “It is an eggstraordinary result,” explains Giovanni Passalova, chef of the LHCb collaboration and INFN researcher."
    এখানে eggstraordinary ছাড়াও অন্য সূত্র আছে। chef মানে রাধুনী, যা অবধারিতভাবেই কবিকল্পনায় chief হয়ে বাংলায় 'প্রধান' হয়েছেন, এমনকি প্রতিবেদক নাকি এই পাসালোভা ভদ্রলোকের থেকে ইমেইলও পেয়েছেন, অথচ পাসালোভা নামে সার্ণে কেউ নেই। LHCB র spokesperson এর নাম Giovanni Passaleva, পাসালেভা, লোভা নন। কিন্তু টুকতে বাঙালি বিজ্ঞান সাংবাদিকদের ভুল ব্রিটিশ আমল থেকে কেউ কখনো দেখাতে পারেনিকো।

    " “It took us some time to unscramble the data but sunny-side up we cracked it."

    " At one point, we were treading on eggshells to prevent other collaborations from poaching the data."

    " But, at the end of the day, you can’t make an omelette without breaking some eggs."

    মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন। কিন্তু বস্তুত এর পরেও সার্ণের মূল পোস্ট শেষ হচ্ছে এইভাবে

    " Today, with the discovery of the ηgg, we have finally opened up the path to the great unification between subatomic physics and molecular gastronomy”.

    এর সাথেও শেষ লাইনে আর একটি লিঙ্ক ছিল যাতে ছিল আরও বেশি অর্থহীন একটা পোস্ট। কিন্তু বিজ্ঞানসাধকের জ্ঞানলিপ্সা ঠেকায় সার্ণ কেন, তার বাবারও অসাধ্য। বাংলায় এসব 'সরল' করে লেখা হচ্ছে এইভাবেঃ "এই ‘হাম্পটি ডাম্পটি কণা’- ‘এগেরনস্‌’-ও খুবই ক্ষণস্থায়ী। তা চোখের পলক পড়তে না পড়তেই দু’টি ফোটন কণায় ভেঙে যায়। আর তাত্ত্বিক ভাবে সম্ভাবনা থাকলেও সেই ভেঙে যাওয়া দু’টি ফোটন কণা থেকে এই ‘এগেরনস্‌’দের আর ফিরিয়ে আনা যায় না। তার মানে, যে ভাবে এক বার ডিম ভাঙলে তার টুকরোটাকরাগুলিকে জুড়ে বাস্তবে আর কিছুতেই গোটা ডিম বানিয়ে ফেলা যায় না, তেমনই ‘এগেরনস্‌’ ভেঙে যে দু’টি ফোটন কণার জন্ম হয়, তাদের জুড়ে আবার ‘এগেরনস্’ কণা বানানো অন্তত বাস্তবে অসম্ভবই।" অত্যন্ত গুরুগম্ভীর ব্যাপার, সন্দেহ নেই।

    সবশেষে, বাংলায় সংবাদটি পরিবেশিত হয়েছে ৬ই এপ্রিল। সাংবাদিক মহাশয় একটু কষ্ট করে ২ তারিখ সার্ণের ওই পোস্টটা আবার মিলিয়ে দেখে নিতে গেলেই দেখতে পেতেন ২রা এপ্রিল সার্ণ ওই পোস্টে আপডেট দিয়ে পাঠক-পাঠিকাবর্গকে জিগ্যেস করেছে যে পয়লা এপ্রিলের ঠাট্টা কেমন লেগেছে। বিজ্ঞানভিক্ষু তখন সম্ভবত প্রতিবেদনটি লিখছিলেন তাই সেটুকু কষ্ট আর করে ওঠা হয়নি, বদলে উনি সেই সময় pure force এর বঙ্গানুবাদ করে 'পবিত্র বল' লেখায় ব্যস্ত ছিলেন।

    হাম্পটির যেমন ডাম্পটি ছিল, আমাদের বিজ্ঞানভিক্ষুও তেমনি জানিয়েছেন সল্টলেকের ‘ভেরিয়েব্‌ল এনার্জি সাইক্লোট্রন সেন্টার (ভিইসিসি)’-এর প্রাক্তন অধিকর্তা, বিশিষ্ট কণাপদার্থবিজ্ঞানী বিকাশ সিংহও তাঁকে এ তথ্যের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত করেছেন। একজন কণাপদার্থবিদ কাঁচা ঘুম থেকে উঠেও শুধুই দুটো গ্লুওন দিয়ে গঠিত কণার 'সত্যতা' নিশ্চিত করবেন এটা মেনে নিতে মন চায় না, তাই তিনিও ঠাট্টা করেছিলেন কিনা, নাকি বাকি সবটার মত এইটাও সাংবাদিক মহাশয়ের উর্বর মস্তিষ্কপ্রসূত সেইটা অবশ্য এ অধমের জানা নেই।

    ----------------------------------------------------------------------------------------------------------------

    কৃতজ্ঞতাঃঃ লেখাটি সম্পাদনায় সহায়তা করেছেন সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায়।

    সংশোধনঃঃ উপরে একটা বিশ্রী ভুল করেছি। ইটা গ্রীক বর্ণমালার e লেখাটা নিছক ভুল, গ্রীকের e অবশ্যই এপসাইলন। সার্নের মূল পোস্টে ইটা লেখা অবশ্যই eta র সাথে e এর মিল করেই এবং \eta gg দিয়ে egg বোঝাতে চেয়েই।
    বানান সংশোধনীঃঃ coagulation প্রসঙ্গে ' ব্যয়ভার' শব্দটি 'ব্যবহার' হবে এবং সার্ন-এর বাংলা বানান সর্বত্রই এইটা, অর্থাৎ দন্ত ন হবে, কিছু কিছু জায়গায় মূর্ধণ্য ণ হয়ে গেছে।

     

  • আরও পড়ুন
    বয়স - Swarnendu Sil
    আরও পড়ুন
    গল্প - pradip kumar dey
  • বিভাগ : ব্লগ | ০৭ এপ্রিল ২০১৮ | ২৮৫০ বার পঠিত
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • রিভু | 117.0.228.218 (*) | ০৭ এপ্রিল ২০১৮ ০৯:৪১62379
  • :(
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০১:২৭62380
  • ওপরে একটা বিশ্রী ভুল করেছি।
    ইটা গ্রীক বর্ণমালার ই লেখাটা নিছক ভুল, e অবশ্যই এপসাইলন। এখানে ইটা লেখা অবশ্যই eta র সাথে e এর মিল করেই।
  • দেবল দেব | 132.163.21.221 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:০১62387
  • স্বর্ণেন্দু, তোমার চমৎকার লেখাটার এক জায়গায় (coagulation প্রসঙ্গে) লিখেছ "ব্যয়ভার" - বোঝা যায়, শব্দটা হবে "ব্যবহার"। ওটা ঠিক করে নিও।
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:০৬62388
  • হ্যাঁ দেবলদা, ওইটা অভ্রের বানান উপদেশ আর আমার চোখ এড়িয়ে যাওয়ার মিলিত ফল। গুরুতে লেখা এডিট করা যায় না। সংশোধনী জোড়া যায় অবশ্য, জুড়ে দিচ্ছি।
  • Ekak | 11.39.133.246 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:৩৭62389
  • দেখো , সায়েন্স এর ঠিক ভুল নিয়ে আমার কিছু বলার নেই, ও তোমরা আমার চে ঢের বেশি জান । যেটা দীর্ঘদিন ধরে গা পিত্তি জ্বলার কারন হয়েচে জে , রাজনৈতিক তামাশা ছাড়া আর কোন ক্ষেত্রেই সাঙ্গবাদিকতার কোনো জায়্গ নেই।

    তোম্রা কি রিসেন্ট লি কোনো ব্যব্সায়ির ইন্টার্ভিউ দেকেচো ? পীপ্ল উইথ ফেইনএস্ট ক্লু এবাঊট বিয্নেস ওয়ার্ল্ড সেই ইন্টারভিউ গুলো নেয়। বোকা বোকা প্রশ্ন করে। যার্নালিয্মের জোহোতে পার্টিকুলার্লি এতো গারোল কিভাবে এক্জায়্গা হোলো এটা বুঝ্তে গেলে বর্তোমান মিডিআ ব্যব্সার দৈন্যোতা কে বুঝ্তে হোবে। কোনো ইন্ডিভিজুঅল সুজয় কে খিস্তি কোরে লাভ নেই। এরা এক্টা সিস্টেমের ফোসোল।
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:৪০62390
  • একক,

    হ্যাঁ ঠিকই। জার্নালিজম ব্যাপারটাকেই দায়িত্ব নিয়ে এই জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে ও হচ্ছে।
  • dc | 132.174.170.133 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:৪৮62381
  • "আনন্দবাজারের পাঠানো প্রশ্নের জবাবে ‘সার্ন’-এর এলএইচসি-বি পয়েন্টের প্রধান জিওভান্নি পাসালোভা ই-মেলে লিখেছেন, ‘‘রাঁধার সময় তাপমাত্রা বাড়া-কমার সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন পদার্থের গুণগত ও রাসায়নিক যে সব পরিবর্তন হয়, একেবারে পারমাণবিক স্তরে তার ধাপগুলি বোঝার কাজটা এ বার অনেক সহজ হয়ে গেল।’’"

    ওরে বাবারে! :d :d

    স্বর্ণেন্দু বাবুকে ধন্যবাদ রোববারের সকাল সকাল এরকম একটা লিংক দেবার জন্য।
  • cm | 113.205.212.132 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:০৬62391
  • বিজ্ঞান বিষয়কে অতিরিক্ত গুরুত্ব দেওয়ার ফলেই কি এরকম হল? তবে হ্যাঁ কেউ যদি এপ্রিল ফুল নাই হল তাহলেই বা কেমন হয়। এতে অন্তত সার্ন কতৃপক্ষ উৎসাহ পাবে।
  • রুকু | 212.142.104.161 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:০৭62392
  • :( :(

    "আনন্দবাজারকে অ্যাটাক করা সবথেকে সোজা" ইত্যাদি মতবাদ বাজারে প্রচলিত। নিজেরাই নিজেদের হ্যাটা খাওয়ার ব্যবস্থা করে রাখে।
  • dc | 116.203.93.100 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:৪৫62393
  • cm এর সাথে একমত। কেউ যদি এপ্রিল ফুলই না হলো তাহলে আর মজা কিসের?
  • S | 194.167.2.96 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৫:০২62394
  • আপনারা কিচ্ছু জানেন না। তিমি মাছের ডিম ভেঙ্গেই এই হাম্পটি ডাম্পটি কণার সৃষ্টি হয়। আবাপ না পড়লে পিছিয়ে পড়তে হয়।
  • anirban | 96.20.145.210 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:০২62382
  • স্বর্ণেন্দু, ব্রিলিয়ান্ট!
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:১০62395
  • :P
  • T | 129.74.180.59 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০৮:০৩62383
  • হে হে হে, কী বিচ্ছিরি খোরাক হয়েছে। আরে কেউ আবাপর লিংকের তলায় কমেন মেরে এসো।
  • lcm | 109.0.80.158 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ১১:০৭62396
  • হো, হো - বোঝো !
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ১২:০৬62384
  • T,
    খোদ সুজয়বাবুকেই জানানো হয়েছে। উনি খুবই adamantly ও audacious ভাবেই এইটা ঠিক তথ্য, তাঁকে বিকাশবাবু কনফার্ম করেছেন ও সার্ন থেকে ইমেইল ও পেয়েছেন ইত্যাদি বলার পরই এইটা লেখা। ভুল করা ততটা অপরাধ নয় যতটা ভুল ধরিয়ে দেওয়ার পরেও মিথ্যে বলে যাওয়া এবং complete moron এর মত হনুগিরি দেখানো যতটা।

    ( সুজয়বাবুর সাথে যোগাযোগ আমি করিনি, আমার এক বন্ধু রাজিবুল করেছিল, সে নিজেও ফিজিক্সের ছাত্র ও এখন ফ্যাকাল্টি। ওর ফেসবুক পোস্টেই পুরোটার অনেক বেশি ডিটেইলস আছে। কিন্তু ও বড় বেশিই ভদ্র, তাই ওর সেই পোস্টটা পাবলিক নয়। সেগুলো পড়ে তারপরে আমি একটা পাবলিক পোস্ট দিয়েছিলাম ও এই লেখাটা লিখি। )
  • T | 129.74.180.59 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ১২:০৮62385
  • আমি আবাপর প্রতিবেদনের নীচে লিখে এলাম, এই লেখার লিংকও দিয়ে এলাম। কিছুক্ষণ পরে দেখি ডিলিট করে দিয়েছে। :)
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ১২:২৩62386
  • বাহ! কি চমৎকার অ্যাটিচিউড আর সাংবাদিকসুলভ সততা!! disgusting!
  • sswarnendu | 138.178.69.138 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৩:৪৬62405
  • আজ দুঃখপ্রকাশ করেছে আনন্দবাজার।
    কিন্তু তার ভাষা দেখে গা পিত্তি জ্বলে যাওয়ার মত।

    ঐ পোস্টের লিঙ্কে ক্লিক করলেই এখন দেখতে পাবেন কি লিখেছে।
    তবু এখানেও রেখে যাই।

    "এই ‘খবর’টি সার্ন (CERN বা ইউরোপিয়ান অর্গানাইজেশন অব নিউক্লিয়ার রিসার্চ)-এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয় গত ১ এপ্রিল। পরে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়— এটি একটি ‘এপ্রিল ফুল’ স্টোরি। সার্নের মতো কণা-পদার্থবিদ্যায় অগ্রণী গবেষণা সংস্থার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ‘খবর’-এর সত্যতা নিয়ে আমাদের মনে কোনও রকম সন্দেহ আসেনি। এমনকী, অনেক সামনের সারির বিজ্ঞানীও এ ‘খবর’টিকে গুরুত্ব দিয়েই গ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বোঝা গেল, এটি সম্পূর্ণ ভুল, নিছক ‘মজা’ করতেই সার্ন তাদের ওয়েবসাইটে এটি প্রকাশ করেছিল। আমাদের প্রকাশিত প্রতিবেদনে অনিচ্ছাকৃত এই ভুলের জন্য আমরা দুঃখিত।

    ‘খবর’টি যা ছিল, নীচে তা অবিকল রেখে দেওয়া হল: "

    মানে বেসিক্যালি নিজেদের incompetence এর দায় scientific community ওপর চাপানোর চেষ্টা।
  • Pratap Raychaudhuri | 168.144.59.171 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:৪১62397
  • Rajibul-er moto amar-o Sujoy-babur songe jogajog hoechilo. Sujoy-babu ja janalen seta holo Bikash Sinha-r kach theke confirmation pee-i lekhata likhechilen. Theke sikhlen.

    Bikash-babur kach theke er kono protibad sunini. Itimoddhe Rajibul-o Bikash babuke likheche ebang jatodur jani uttor paeni. Tai Sujoy-babur kathar satyata ekhano sandeho korte parchi na.
  • b | 24.139.196.6 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৪:৫৪62406
  • নতুন লেখায় বিকাশ সিনহার কথাটা বাদ গ্যাছে। হ্যা হ্যা। কি খোরাক মাইরি।
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:৩৭62398
  • @Pratap Raychaudhuri

    সুজয়বাবুর কথার সত্যতা সন্দেহ করার কারণ তো ইতিমধ্যেই রয়েছে। অন্য কিছু না হোক, অন্তত সার্নের পাসালোভার ইমেইল পাওয়ার গল্পটা তো নিছক মিথ্যে। LHCB তে ওই নামে কেউ নেই।

    যাঁর বক্তব্যের অন্তত একটা অংশ নিশ্চিত মিথ্যে, তাঁর বক্তব্যের বাকিটা সত্যি আর বিকাশ সিনহা এইটা বলেছেন ধরে নেওয়ার থেকে পুরোটা মিথ্যেটাই বেশি সম্ভাব্য মনে হচ্ছে আমার।

    তাছাড়া বিকাশবাবু বলে থাকলেও সুজয়বাবুর দায়িত্ব মিটে যায় না প্রতাপবাবু। আমি সেজন্যেই এখানে সার্নের মূল লেখা থেকে কোট করেছি। সুজয়বাবু সেগুলোরই বাংলা করেছেন, অর্থাৎ সেইটা পড়েননি এমন হওয়া অসম্ভব। সেইটা বিশুদ্ধ ইয়ার্কি বুঝতে বিজ্ঞান ও জানতে হয় না, কণাপদার্থবিদও লাগে না, ইংরেজি পড়তে পারলেই যথেষ্ট।
  • sswarnendu | 41.164.147.89 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:৪৫62399
  • আর আপনার লেখা ওই "ঠেকে শিখলেন" অংশটা সত্যি হলে আনন্দবাজার বা সুজয়বাবু, যে কারোর তরফে অন্তত ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়াটাই সাংবাদিকোচিত কাজ হত, তেমন কিছু এখনো অবধি চোখে পড়েনি আমার। কারোর চোখে পড়লে জানাবেন, আন্তরিকভাবে খুশি হব।

    আমার কারোর বিরুদ্ধেই কোন ব্যক্তিগত অ্যাজেন্ডা নেই, বিজ্ঞানের ছাত্র ও বাঙালি হিসেবে এগুলো দেখলে রাগ-দুঃখ-লজ্জা-হতাশা সবই হয় কমবেশি, সেই জায়গা থেকেই কথাগুলো বলা।
  • | 144.159.168.72 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৭:৫৯62400
  • হুঁ আমার গ্র্যাজুয়েশান লেভেলের ফিজিক্স জ্ঞান দিয়েই এটা ইয়ার্কি বলে বেশ বোঝা যাচ্ছে। কমন সেন্স জিনিষটা এত দুর্লভ হয়ে গেল কবে থেকে রে বাবা!!
  • abcd | 24.139.163.173 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ০৯:০৮62401
  • CERN না হয় বিশ্ববাসীকে এপ্রিল ফুল বানাতে চেয়েছিল। বাজারি পত্রিকাটির এই রিপোর্ট থেকে পরিষ্কর, তারা বাঙ্গালিদের সব্সময়েই ফুল বলে মনে করে। বাজারির মাথারা ভাবেন খবরের কাগাজের ঠোঙ্গায় যা ওরা খেতে দেবে সেটাই বাঙ্গালী খেয়ে নেবে পিছিয়ে পড়ার ভয়ে।
  • de | 24.139.119.174 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ১০:২১62402
  • এতো যা তা লেভেলের ভুল স্বীকার করে নেওয়াটাই উচিত - সাধারণ খবরের বেলা তো স্বীকার করা হয়, বিজ্ঞানের খবরেই বা তার অন্যথা হবে কেন?

    বিকাশ সিনহা এপ্রিল ফুলের ঠাট্টা ধরতে পারেননি, এটা খুবই সম্ভব, সেক্ষেত্রে ওনারও সেটা ডিক্লেয়ার করা উচিত!
  • de | 24.139.119.174 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ১০:২৪62403
  • প্রতাপবাবুর "ঠেকে শিখেছেন" দেখে আমি হাসি চাপতে পারছি না!
  • S | 194.167.2.96 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৮ ১০:২৮62404
  • এরা কি গাধা নাকি? নিচে লিখে দিলেই হতোঃ মজার উদ্দেশ্যে বা ছেলেপিলেদেরকে বেশি সায়েন্স প্রিয় করা উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে।
  • de | 69.185.236.57 (*) | ১১ এপ্রিল ২০১৮ ০১:০৬62420
  • ওনার লেখাটা ইংরাজীতে ট্রান্স্লেট করে সার্নকে পাঠানো উচিত - সরকারী পয়সায় সার্নে বছরে বেশ কয়েকবার এনারা এমনিই ভিজিটে যান - গিয়ে কিছুটা অপ্রস্তুতে পড়বেন -
  • S | 194.167.2.96 (*) | ১১ এপ্রিল ২০১৮ ০১:২৬62421
  • বিকাস সিনহার লেখাটা ট্রান্সলেট করে পাঠান আর বলুন সামনেই আসছে ওয়ার্ল্ড লাফটার ডে, সেখানে পোস্ট করতে।
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যুদ্ধ চেয়ে প্রতিক্রিয়া দিন