• টইপত্তর  অন্যান্য

  • সর্ষেবাটা মোচাকাটা চিতলের মুইঠ্যা ইত্যাদি ইত্যাদি (২)

    Ishan
    অন্যান্য | ০৬ নভেম্বর ২০০৬ | ১১২৯৩ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • A | 66.41.202.93 | ১৯ অক্টোবর ২০০৭ ২২:১৭694697
  • নো, থ্যাংক ইউ।
  • d | 61.11.19.60 | ১৯ অক্টোবর ২০০৭ ২২:১৭694696
  • অম্মিতা, আমার ফিরিজে খান দুই গাব্দা গোব্দা বেগুন ছিল। আমি চীনাবাদামবাটা দিয়ে এইটাই করলাম। বেশ পাতলা করে বেটেছিলাম। খেতে ভালই লাগছে। কিন্তু এট্টু চাটনী চাটনী টাইপ হয়ে গেল কেন কে জানে? আধখানা টমেটো পড়েছিলো, সেটাকেও থেঁতো করে দিলাম বলে কি অমন চাটনী টাইপ হয়ে গেল?
  • A | 66.41.202.93 | ১৯ অক্টোবর ২০০৭ ২২:২০694698
  • দম দি,
    হতে পারে টম্যাটো'র জন্য। একটু শুকনো লংকার গুঁড়ো বা কাঁচালংকা কুচি দিয়ে ম্যানেজ করা যায় কিনা দ্যাখো না।
  • Ishan | 12.163.39.254 | ১৯ অক্টোবর ২০০৭ ২২:৩৮694699
  • ছি ছি ছি দমু রাঁধতে শেখেনি।

    ওম্মিতে, মনে থাকলে এমনিই দিয়ে দিতাম। পারমিশন থোড়াই চাইতাম। নেহাৎ মনে নেই, তাই বেঁচে গেলে :-)
  • P | 163.244.63.123 | ০৭ নভেম্বর ২০০৭ ১৮:২৯694700
  • তেল কই

    মাছের আঁশ ছাড়িয়ে , পরিষ্কার করে গায়ে বেশ করে নুন-জিরে-ধনে-হলুদগুঁড়োর পেস্ট মাখিয়ে নাও। বেশ একটা কোটিং তৌরী কর।

    আধ-ঘন্টাটাক রেখে তেলে বেশ ভালো করে ভেজে নাও। মশলা ছেড়ে ছেড়ে তেলে পড়লে কোনো অসুবিধা নেই। শুধু ঝরা মশলা পুড়তে শুরু করলে খুন্তি দিয়ে তুলে ফেলে দাও।

    সব মাছ ভেজে তুলে রাখো।

    একটা বাটিতে বেশ খানিকটা নুন, হলুদ , জিরেগুঁড়ো , ধনেগুঁড়ো , লংকাগুঁড়ো আর বেশ খানিকটা টমেটো পিউরি মেখে পেস্ট মত করে রাখো।

    কড়াইতে অনে এ এ এক তেল দাও , কিপটেমি কত্তে হলে বেগুল দিয়ে ঝোল খাও , তেল কই এর কি দরকার।

    তেল গরম হলে কাঁচা লংকা ফোড়ন দিয়ে মশলা দাও , তেল ছাড়া ছাড়া হলে তাতে মাছ দাও।

    বাঙ্গালরা প্রাণে ধরে ওতে জল দিতে পারবে কিনা জানিনা , আমি একটু জল দিয়ে দিই।

    একটু ফুটে মশলা নিচে থকথকে হয়ে জমে ওপরে তেল যদি ভাসে আর রং হয় একটু কালো-কোলো তাহলে নামিয়ে ওপরে আরো কটি কাঁচালংকা সাজিয়ে পরিবেশন।
  • Rajib | 205.204.1.31 | ০৭ নভেম্বর ২০০৭ ২০:১৮694701
  • ওয়ান-পট বিরিয়ানি

    গৌরচন্দ্রিকা

    গুরু তে আসি, কিন্তু লিখিনা, জাস্ট দেখি, ওতেই আনন্দ। ডাবলিন এর পারমিতা আমার শালী । অমি থাকি সাহেবদের দেশে, লীড্‌স এর কাছে। একট ভালো আর সহজ রেসিপি দেবার লোভ সামলানো গেলো না।

    প্রনালী

    ১) চিকেন অনেকটা দই অর অল্প নুন দিয়ে ম্যারিনেট করে ফ্রিজে রাখো রাতভর। অল্প বিরিয়ানি মশলা মেশানো যেতে পারে।
    ২) একটা ফ্রাইপ্যানে বিনা তেলে ম্যারিনেটেড চিকেন ঢেলে ভাজতে থাকো যতক্ষন না চিকেন শুকিয়ে যায়, একটু পোড়া পোড়া হলে টেস্ট আরো ভালো হয়।
    ৩) একটা তলাভারী পাত্রে অনেকটা সাদা তেল দিয়ে অনেক পেয়াজের টুকরো (বড় বড়, কুচি নয়) দিয়ে ভাজো, আদা, রসুন থেতো দাও, গোটা গরম মশলা দাও (দারচিনি বেশী), টমেটো কুচি দাও, দই দাও, ধনেপাতা কুচি, আর অনেক পুদিনা পাতা দাও, শুকনো লন্‌কা গুড়ো, কাচা লন্‌কা গোটা দাও, এছাড়া জিরে গুড়ো দাও। বেশ কসা হলে এই মিশ্রনটা চিকেনের পাত্রে ঢেলে নুন দিয়ে কসতে থাকো চিকেন প্রায় সেদ্দো হওয়া ওবধি।
    ৪) ইতিমধ্যে বাসমতি চাল আধ ঘন্টা ভিজিয়ে, ঝরিয়ে রাখো। ভেজানো চাল আর তার দেড় গুন জল আগের চিকেনের মিশ্রনে দিয়ে নাড়াচাড়া করে ঢাকা দাও মাঝারি আচে। জল মরে এলে বিরিয়ানি হয়ে যাবে। চাল সেদ্দ হল কিনা দেখার জন্য বেশি ঘাটঘাটি চলবে না'

    বি:দ্র: জল-চালের মাপ খুব জরুরী। বেশি জল হলে খিচুড়ি হয়ে যাবে। রাইস কুকারে করলে রিস্ক কম। তবে একদুবার করলে হাত পেকে যাবে। চিকেন এর পরিমান বেশী হলে ভালো হয়, আর এই রান্নার বিশেষত্ত হল পুদিনা পাতা মাস্ট। খেতে অসাধারন হয়, গ্যারন্টি দিচ্ছি, নিজে খান, করে খাওয়ান। সার্টিফিকেটের জন্যে ডাবলিনের পারোকে জিগান।

  • c | 90.196.131.45 | ০৭ নভেম্বর ২০০৭ ২০:২৫694702
  • P
    থ্যাংকু। পরে ফিডব্যাক দেবো।
  • Paramita | 63.82.71.141 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০১:১৭694703
  • ধন্যবাদোৎসব আসছে। টার্কি চলবে না। আস্ত গেম হেন রোস্ট-এর পাকপ্রণালী, একটু ইন্ডিয়ানাইজড মশল্লা দিয়ে হলে ভালো হয়, জানা থাকলে কেউ দেবেন?
  • kali | 160.36.240.55 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০২:৫৪694704
  • পামিতা দি,
    ইন্ডিয়ানাইজড মশলা কম্পালসারি না হলে খানিকটা ক্রীম-চীজে সেজ পাতার কুচি মিশিয়ে গেম হেনের স্কিন আর ফ্লেশ এর মধ্যে পুরে দিয়ে করতে পারো। সেক্ষেত্রে ওর গায়ে সামান্য অলিভ অয়েলে নুন-গোলমরিচ মিশিয়ে মাখিয়ে নিও। আর পেটের ভেতরে তেজপাতা কিম্বা থাইম যেটা হাতের কাছে পাও,আর আধখানা করে কেটে লেবুর টুকরো। লেবু বলতে লেমন বা অরেঞ্জ। লাইম দিও না, তেতো হয়ে যাবে।আভেন ৪০০ ডিগ্রী তে রেখো,পিঠ আর লেগ গুলো ব্রাউন হয়ে গেলে একটা ফয়েল দিয়ে আল্গা করে ঢাকা দিয়ে আঁচ কমিয়ে ৩৭৫ করে দিও।

    রাজীব,
    আপনার বিরিয়ানীর রেসিপি শনিবার হাতে কলমে করে দেখলাম। খুব ভালো হয়েছিলো। অনেক থ্যাঙ্কস জানবেন।
  • Arijit | 77.98.196.117 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৩:১৩694706
  • পামিতাদি কি শিকার করবে?

    কাল-পোশশু সময় পেলে মধুর জাফরির মুর্গ-মুসল্লম দিয়ে দেবো - আস্ত চিকেন মশলা মাখিয়ে ফয়েলে পুরে বেক - এট্টু ঝোলঝোল হয়ে যায়, তবে কোথায় লাগে অন্য রোস্ট।
  • tan | 131.95.121.132 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৪:১০694707
  • আলু-ছোলে-টোমাটো-হ্যালোপিনো

    চারজনের মতন লিখছি, বেশী দরকার হলে স্কেল করে নেবেন।

    হাফ পাউন্ড ছোলা ভিজিয়ে রাখুন একঘন্টা,তারপরে মাইক্রোতে দশমিনিট দিয়ে নিন।সেইসময়টা বৃথা যেতে দেবেন না,বড়ো বড়ো ভালো মাঝারি আকারের আলু দশটা (খুব বড়ো আলু হলে চারটেতেই হয়ে যাবে)নিয়ে ছোটো ছোটো করে কেটে ফেলুন,পাঁচছটা টোমাটো কাটুন একেকটা চারটুকরো করে সাবধানে,যাতে ভিতরের বস্তু না বেরিয়ে যায়।হ্যালোপিনো পাঁচ ছটা নিন,গোল গোল চাক চাক করে কাটুন।
    এইবারে কড়াই ধরনের পাত্রে বা বড়ো ফ্রাইং প্যানে তেল দিয়ে গরম হতে দিন,চারপাঁচটা কারিপাতা ফোড়ন দিতে পারেন,না দিলেও হয়।প্রথমে আলু দিন,তারপরে হ্যালোপিনো,ভাজা ভাজা হয়ে এলে ছোলাগুলো, তারপরে টোমাটো।নাড়ুন খুব করে।টোমাটো সস ও দিতে পারেন,স্বাদমতো নুন আর অল্প জল। তারপরে সয়া সস দিন,রঙ খুলবে।
    নেড়েচেড়ে বেশ ভালো বুঝলে নামিয়ে নিন।
    আনন্দে খান।:-))))
  • a x | 207.69.137.39 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৫:০৯694708
  • ট্যানের রেসিপিগুলোর মধ্যে একটা কিরকম কুটীর-শিল্প কুটীর-শিল্প ব্যাপার আছে।
  • tan | 131.95.121.132 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৫:২৫694709
  • বেচারা সায়েবদের খাওয়ানোর জন্য বাংলারেস্তুরা চেইন করার পেলান ছিলো,অবস্কিওর শহরে শহরে যেখানে ভারতীয় রেস্তুরা নাই, কিন্তু সাহসে কুলাইলো না।:-((((
    এখন বসে বসে লেজেন্দ্র, লেগুর, জ্যাকোবি, বেসেল---কি আর করা!

  • Paramita | 63.82.71.141 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৫:৪০694710
  • কলি, একবার একজনের বাড়িতে খেয়েছিলাম, মুর্গির পেটে কাঁচা ডিম আরো সব ভালো ভালো স্টাফিং ছিলো, সেগুলো বেকড হয়ে চমৎকার খেতে হয়েছিলো। তুমি স্টাফিং কিছু দাও না ক্রিম চিজ/লেবু ছাড়া?
  • kali | 76.114.73.146 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৮:৩৩694711
  • হ্যাঁ,স্টাফিং দিই বৈকি, মানে একটু রাজসিক ভাবে করতে চাইলে দিই। তাহলে একটা ফ্রাইপ্যানে একটু পেয়াঁজ,সেলেরী আর আপেলের টুকরো প্রথমে অল্প ভেজে নাও। বাঙালী জিভে গ্র্যানী স্মিথ আপেল খুব ভালো ঠেকেনা,কাজেই ফুজি আপেল নাও,বা গোল্ডেন ডিলিশাস নিও। আচ্ছা, এইবার স্মোকেড আন্ডুয়ী সসেজ ছোট টুল্করো করে ওর মধ্যে দাও। একটু নেহে চেড়ে সামান্য নুন গোলমরিচ দাও। অন্য একটা বাটিতে পাউঁরুটি ছোটো ছোট টুকরো করে নাও, এর মধ্যে একটা ডিম ভেঙে দিয়ে দাও, খানিকটা চিকেন স্টক দাও যাতে বেশ ময়েস্ট হয়,কিন্তু কাদা কাদা না হয়ে যায়। এইবার ওর মধ্যে ঐ আপেল-পেয়াঁজ ইত্যাদির মিশ্রণটা ঢেলে দিয়ে বেশ করে হাত দিয়ে পুরোটা মিশিয়ে নাও। এইটা মুরগীর ভেতরে স্টাফ করে দিও। ঐ কাঁচা ডিম সমেত সব বেক হয়ে চমৎকার বাদামী রং ধরবে,খেতেও ভারী ভালো হবে। আমাকে অবশ্য একজন ভয় দেখিয়েছে যে কাঁচা মুরগীর পেটে অমনি করে স্টাফ করলে সালমোনেল্লা ইনফেকশন হবেই হবে। তাই পেটে না ভরে স্রেফ ওটা আলাদা বেক করে নিয়েও সার্ভ করি মাঝে মাঝে। সেক্ষেত্রে কায়দা করে ওকে স্টাফিং না বলে ড্রেসিং বলি :)
  • kali | 76.114.73.146 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ০৮:৩৪694712
  • টুকরো*
    নেড়ে*.... ইত্যাদি।
  • Paramita | 216.10.193.20 | ২০ নভেম্বর ২০০৭ ১১:১২694713
  • এইবার বেশ লোভনীয় শোনাচ্ছে (মাইনাস আপেল)। এটাই করে ফেলবো।
  • c | 90.196.131.35 | ২১ নভেম্বর ২০০৭ ০৫:২২694714
  • P
    তেল কই ভালো হয়েছিলো। না এবার কোনো স্মেল পাই নি। ভয়ে আমি বছর তিনেক খাই নি। Credit goes to you
  • nyara | 67.88.241.3 | ২১ নভেম্বর ২০০৭ ০৫:৫৫694715
  • বাঙালীর টার্কি ডিনার
    --------------------
    টার্কি কিনুন একটা। সবথেকে ছোট। সবথেকে সস্তা। আভেনে নিজের পছন্দমতন বেক করুন।

    মুর্গির ঠ্যাং কিনুন ছটা।
    কড়াইতে তেল গরম করে লম্বা করে কাটা পেঁয়াজ ভাজতে থাকুন।
    বাদামি রং ধরতে শুরু করলে সরু ফালি করে কাটা দুটো ক্যাপসিকাম দিন।
    ক্যাপসিকাম নরম হয়ে এলে দুটো টমাটর কুচিকুচি করে কেটে দিন।
    ভাজুন। ভাজুন। ভাজুন।
    মালটা মোটামুটি থকথকে হয়ে এলে হলুদ, নুন, লংকাগুঁড়ো দিন। ভালো করে মিশিয়ে নিন।
    মুর্গির ঠ্যাং দিন।
    ভাজুন। ভাজুন। ভাজুন। ভাজুন।
    ঠ্যাং-এর থেকে যখন মাংস আলগা হয়ে আসছে, মাল্টর রং যখন গাঢ় হয়ে এসেছে তখন বুঝবেন সুসময় উপস্থিত।

    টেবিলে টার্কি সাজিয়ে তার দিকে আড়চোখে তাকাতে তাকাতে গরম ভাত সহযোগে মুর্গি খান। খবর্দার টার্কি ছোঁবেন না।

    পরের পরের পরের পরের দিন আপিশে গিয়ে গল্প করুন, "নরশু যা টার্কি ডিনার হল না!"
  • Arijit | 128.240.229.67 | ২১ নভেম্বর ২০০৭ ১৯:৫৩694717
  • মুর্গ মুসল্লম (মধুর জাফরির রেসিপি) -

    Ingredients:

    For the marinade -

    1 inch cube fresh ginger, peeled and coarsely chopped
    2 large cloves of garlic, peeled
    6 tablespoons of natural yoghurt
    1/2 teaspons of ground turmeric
    1 and 1/4 teaspoons of salt
    1/4 - 1/2 teaspoon cayenne pepper
    flreshly ground black pepper

    You also need -

    One 1.5kg chicken
    225 gm onions
    4 cloves of garlic, peeled
    1 and 1/2 inch cube fresh ginger, peeled and coarsely chopped
    10-12 blanched almonds
    2 teaspoon ground cumin
    2 teaspoons ground coriander
    1/2 teaspoon ground turmeric
    1 tablespoon paprika
    1/4 teaspoon cayenne pepper
    1 and 1/2 teaspoon salt
    8 tabelspoon vegetable oil
    2 tablespoons lemon juice
    1 teaspoon coarsely ground black pepper
    1/2 teaspoon garam masala

    Make the marinade - Put the ginger, garlic and 3 tablespoons of the yoghurt into the container of a foodprocessor or electric blender. Blend, pushing down with a rubber spatula whenever you need to, until you have a paste. Add the turmeric, salt, cayenne and black pepper. Blend for a second to mix. Empty the marinade into a bowl. (Do not wash the blender yet). Add the remaining 3 tablespoons of yoghurt to the marinade and beat it in with a fork.

    Skin the entire chicken with the exception of the wing tips. Skin the neck. Put the chicken, breast up, on a platter and put the giblets somewhere near it. Rub the chicken, inside out, as well as the giblets, with the marinade. Set aside, unrefridgerated, for 2 hours.

    Meanwhile, put the onions, garlic, ginger and almonds into the food processor or blender. Blend, pushing down with a rubber spatula whenever you need to, until you have a paste. Add the cumin, coriander, turmeric, paprika, cayenne and salt. Blend again to mix.

    Put the oil in a large, non-stick pan and set over medium-high heat. When hot, put in the paste from the food processor or blender. Fry, stirring, for 8-9 minutes. Add the lemon juice, black pepper and garam masala. Mix. Turn off the heat and let the paste cool.

    Pre heat the oven to 180C/350F/gas 4

    When the chikcen has finished sitting in its marinade for 2 hours, spread out a piece of aluminium foil, large enought to enclose the chicken. Put the chicken, breast up, in the centre of the foil and put the giblets somewhere near it. Rub the chicken, inside out, as well as the giblets, with the fried spice paste. Bring the ends of the foil towards the centre to form a tight packet. All "seams" should be 2 inches above the "floor" of the packet.

    Put the wrapped chicken, breast up, on a baking tray and bake in the oven for 1 and 1/2 hours or until the chicken it tender.


    তারপর আর বল্লাম না। উলস্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স্‌স
  • Arijit | 128.240.229.67 | ২১ নভেম্বর ২০০৭ ২০:১৩694718
  • বাই দ্য ওয়ে - আমি গিবলেটস (বা জিবলেটস) মানে জানতুম না - তো বাজার থেকে জিনিসপত্র আনার আগে ডিকশনারী দেখে জানলুম। ওইটে না হলে কিস্যু এসে যায় না - এখানে সুপারমার্কেটে চিকেন উইথ গিবলেটস মেলে না। সব উইদাউট গিবলেটস।
  • * | 203.99.212.224 | ০৩ ডিসেম্বর ২০০৭ ১০:৫০694719
  • রাজীব,
    আপনার বিরিয়ানীর রেসিপি যে এত ভালো হবে ভাবতেই পারিনি। গত শনিবার বনানোর পর আমরা কর্তা-গিন্নী চেটেপুটে খেলাম। খাওয়া শেষে হাত চাটতে চাটতে মনে হল এর জন্য সবচেয়ে বড় ধন্যবাদটা আপনার-ই প্রাপ্য। অনেক ধন্যবাদ নেবেন। সবাইকে বলি, সময় পেলেই রাজীবের বিরিয়ানীর রেসিপি অবশ্যই ট্রাই করবেন।

  • Arpan | 193.134.170.35 | ০৩ ডিসেম্বর ২০০৭ ১৫:৫২694720
  • কী আশ্চর্য। আমরাও যে কাল বানালাম আর যেটা দুবেলা ধরে খাবার প্লায়্‌ন ছিল সেটা জাস্ট একবেলায় উড়ে গেল! অসাধারণ হয়েছিল।

    রাজীবকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
  • Arpan | 193.134.170.35 | ০৩ ডিসেম্বর ২০০৭ ১৫:৫৩694721
  • ** প্ল্যান
  • Rajib | 205.204.2.15 | ০৪ ডিসেম্বর ২০০৭ ২১:২৮694722
  • *, অর্পন - ধন্যবাদ দিয়ে ছোটো না করলেই ভালো। যাক, আমার বিরিয়নির রেসিপি ভালো লেগেছে জেনে খুব আনন্দ পেলাম। সময় করে অন্য রেসিপি দেব।
  • Debu | 71.138.61.4 | ২৬ ডিসেম্বর ২০০৭ ০০:১৪694723
  • কিছু নতুন কোড দিন
  • kali | 76.114.73.146 | ২৬ ডিসেম্বর ২০০৭ ০০:২২694724
  • অরিজিৎ আর আরো কেউ এই ছুটিতে চিকেন রোস্ট করবে বলে ভাবছো? একটা রাব ট্রাই করতে পারো। হালে করে দেখলাম খুব ভালো হচ্ছে। ধনে, মৌরী আর গোটা গোলমরিচ শুকনো তাওয়ায় মাঝারী আঁচে টোস্ট করে নাও। ভালো গন্ধ বেরোলেই তাওয়া আঁচ থেকে সরিয়ে রাখো। একটু ঠান্ডা হলে কফি গ্রাইন্ডারে দিব্যি করে গুঁড়ো করে নাও।এবারে মুর্গির গায়ে নুন,গোলমরিচ আর অলিভ অয়েল এর পরে এই রাবটাও ভালো ভাবে মাখিয়ে রোস্ট করো। বেশ একটা এক্‌জটিক ফ্লেভার আসবে। আভেন শুরু থেকে শেষ অব্দি ৪২৫ এ রেখে বেশ ভালো হয়। তবে শুরুর মিনিট ১০-১৫ পরে একটা ফয়েল আলতো করে ফেলে রেখো যাতে পিট আর পা বেশী ব্রাউন না হয়ে যায়। ৪৫ মিনিটের মধ্যে হয়ে যাওয়া উচিৎ। বেশীক্ষণ রাখলে ড্রাই হয়ে যাবে।
  • omnath | 59.93.243.18 | ২৬ ডিসেম্বর ২০০৭ ০৪:৩৩694725
  • কেউ কেক তৈরি নিয়ে লিখেছিল না মাইক্রোওয়েভে? পেলাম না কেন? বড়দিনের বাজারে কেক করতে গিয়ে একখানা গোদা বিস্কুট বানলুম। ছি ছি। টাইমিং গুনো বলে দেবে একবার?
  • I | 59.93.244.40 | ২৬ ডিসেম্বর ২০০৭ ২২:২৯694726
  • গুরুর সবচে পপু সুতলিদুটোর একটা; আরেকটা হচ্ছে শিশুটক। এরা দুইজনে মিলে রাজনীতিকেও ফেল পরিয়ে দিচ্ছে।

    আপগানী চিকেন তো আজকাল আমরা খুব খাচ্ছি। একটু বেশী ঝাল, এই যা।
    অক্ষদাদার পাহাড়ীও সিদিন ট্রাই কল্লাম। বেড়ে। কিন্তু, একটু সাত্তিক মত। বোষ্টম মাংস।
    আগামীদিনে ইন্দো-পরিবারে এই থ্রেডখানির চাহিদা বাত্তে চলেছে। এমংকি বলা যায় না, মাস ছয়েক সময় দিলে এই খাঞ্জা খাঁ ইন্দোবাবুও হয়তো একদিন দিলে একদলা রেসিপি ঠুকে।
    একদিন আসবে একদিন আসবে....

    সষষেবাটা দীঘ্‌ঘ্‌জীবী হোক।
  • mita | 24.211.173.47 | ২৭ ডিসেম্বর ২০০৭ ০১:৪২694728
  • সামরানের রেসিপি দিয়ে মাটন বিরিয়ানী বানালাম, গেস্টরা খেয়ে দারুন খুশি। ভাবলাম আমার বানানো খেয়েই যদি এই রিয়াক্‌শন হয়, সামরানের হাতের খেলে না জানি কি বলতো!
    সামরান, থ্যান্‌কু!!!
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লাজুক না হয়ে মতামত দিন