• টইপত্তর  অন্যান্য

  • প্রসঙ্গঃশিক্ষার পথপ্রদর্শক ও সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন।

    যা যা বর... লেখকের গ্রাহক হোন
    অন্যান্য | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ | ১০৩০ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
আরও পড়ুন
হে রাম! - Ranjan Roy
আরও পড়ুন
চুপির চর  - Abhyu
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • যা যা বর... | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ২০:১৫685044
  • প্রসঙ্গঃশিক্ষার পথপ্রদর্শক ও সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন।

    মানব সভ্যতার ঊষা লগ্ন থেকে শিক্ষার গুরুত্ব ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেতে থাকে।এই শিখাকে যথেচ্ছ ভাবে বিস্তার করার জন্য দরকার শিখকের।একজন শিখকই পারেন তাঁর জ্ঞান আদর্শ ও ব্যক্তিত্ব কে সবার মাঝে বিতরন করতে।পুত্র তুল্য শিক্ষার্থীকে পরম জ্ঞানের সাহায্যে অন্ধকার থেকে আলোকের পথ নির্দেশ করাই ছিল তাঁর সর্বপ্রধান দায়িত্ব্য। এছাড়াও শিক্ষকের পরম কত্বব্য হল শিক্ষার্থীকে শিক্ষার জন্য প্রেরনা দেওয়া।
    এমনই এক সর্ব ভারতীয় আদর্শ শিক্ষক ছিলেন ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন।তিনি ১৮৮৮ সালে ৫ই সেপ্টেম্বর,দক্ষিন ভারতের মাদ্রাজে জন্ম গ্রহণ ক্রেন।উনার জন্ম তিথি কে স্মরণ করেই সারা দেশে শিক্ষক দিবস পালন করা হয়।তাঁর ছাত্র জীবন কাটে মাদ্রাজে।তিনি পড়াশুনাই মাধাবী এবং দর্শন শাস্ত্রে ছিলেন সু-পন্ডিত ও আর্ন্তজাতিক খ্যাতি সর্ম্পূন।কলকাতা বিশ্ববিদ্যলয়ে এবং বিদেশের বহু বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপকের কাজে বহু দিন নিযুক্ত ছিলেন।এছাড়াও তিনি দুই বার স্বাধীন ভারতে রাষ্ট্রপতির পদ কে আলোকিত করেন। দেশ প্রেমী হিসাবেও বিপ্লবী বিভিন্ন কর্মকান্ডে তিনি যোগদান করেন। তাঁর লেখা বিভিন্ন গ্রন্থের মধ্যে দর্শনের উপর বিখ্যাত বই হল-
    “Introduction to Indian Philosophy”.
    উক্ত বইয়ে তিনি ভারতের দর্শন সর্ম্পকে একটি দিক তূলে ধরেছেন।১৯৯৫ সালে ১৭ই এপ্রিল এই মহান আর্দশ্য শিক্ষক পরলোক গমন করেন।শিক্ষক দিবস, দিনটি বিশেষ তাৎপর্য পূর্ন।এই দিনটি উৎযাপনের মধ্যদিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে এক বার্তা প্রেরনের প্রয়াস করা হয়।যেহেতু শিক্ষক যথেচ্ছ জ্ঞানের অধিকারি,তাই তাদের কাছ থেকে শিক্ষার্থীদের বড় পাওনা হল উপযুক্ত শিক্ষা গ্রহন।তাছাড়া ছাত্ররা শিক্ষকের আর্দশে আর্দশিত হয়ে এক সামাজিক ও শিক্ষিত মানুষ হিসাবে গড়ে ওঠবে।শিক্ষার মাধ্যমে জ্বেলে উঠবে জ্ঞানের দ্বীপ।এই জ্ঞানের দ্বীপকে আলোকিত করতে শিক্ষকের অবদান অনস্বীকার্য।
    শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর অতপ্রত সর্ম্পক্যে আবদ্ধ।একজন শিক্ষকই পারেন শিক্ষার্থীকে উচ্চস্থানে বসাতে।শিক্ষার প্রধান লক্ষ্য হল সমাজকে সমস্ত অন্যায়-অত্যাচার,কু-সংস্কার,জাতীভেদ,ধর্মে গোঁড়ামি,বর্নবিভেদ প্রভৃতি অন্ধকার কে বিনাশ করতে ,সু-প্রতিষ্ঠিত শিক্ষার বিস্তার করা।শিক্ষকের অনুপ্ররনায় অনুপ্রানিত হয়ে শিক্ষার্থী শিক্ষা গ্রহণে পরিপূ্র্নভাবে অংশগ্রহণ করে।শিক্ষার প্রধান কাজ হল সমাজে সু- নাগরিক ও সু-সামাজিক ব্যক্তিতে পরিণত করা এবং শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের প্রধান দায়িত্ব্য হল শিক্ষকের সঙ্গে সু-সর্ম্পক্য গড়ে তোলা ও শিক্ষাক্ষেত্রে মননিবেশ করা।
    মানব সভ্যতা বিকাশের পর থেকে।শিক্ষার গুরুত্ব বাড়তে থাকে।এই শিক্ষাকে যথেচ্ছ ভাবে বিস্তার করার জন্য দরকার শিক্ষকের।একজন শিক্ষকই পারেন তার জ্ঞান,আদর্শ ও সঠিক পথের নির্দেশনা, সবার মাঝে নিঃস্বার্থ ভাবে বিতরণ করতে।তাই কবির ভাষায় বলা যায় যে – “শিক্ষাকে বাহন কর, বহন করনা”।
    তবে প্রাচীন কালে (সন তারিখ না জানা গেলেও) আমাদের দেশে গুরুপূর্ণিমার দিনটিকে আচার্য দিবস হিসাবে পালন করা হত।নেপালের বৌদ্ধরাও আজও ওই একই দিনটিকে আচার্য দিবস হিসাবে পালন করে।হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মের ঐতিহ্য মতে এই উৎসব টি পালিত হয় ‘গুরু’ পূজা নামে।‘গুরু’ অর্থ ‘যিনি অন্ধকার ময় জীবনে আলোর সন্ধান দেন’।তাই আজকের শিক্ষক দিবস ছিল এইদেশের প্রাচীনতম ঐতিহ্য।
  • pi | 233.176.10.100 | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ২০:৩৪685055
  • ইস্কুলের দিদিমণি এই রচনাটি দেখলে ১০ এ ৮/৯ দিতেন, নিশ্চিত।
  • b | 24.139.196.6 | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ২১:১০685063
  • প্রচন্ড বানান ভুল। সাড়ে চার দিলাম।(১০-এ)
  • যা যা বর... | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ২৩:৫৬685064
  • ধন্যবাদ। সকলকে। আমি আরো ভালো চেষ্টা করবো এর পরে কোন বিষয় কে দেওয়ার আগে তার ভূলগুলি সংশোধন করার।
  • Atoz | 161.141.84.176 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ০০:৩৭685065
  • কী সব্বোনাশ!!!
    ভূল?????
    ঃ-)
  • Ekak | 125.99.196.27 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১১:৫১685066
  • রাধাবাবু ওয়েস্টার্ন ক্লাসিক্যাল ভালোবাস্তেন্না কিন্তু কোনো এক সরকারী কাজে বিদেশে এক লম্বা কনসার্ট শুনতে হয় । বেজায় চেটে গিয়ে মন্তব্য করেন : good music at the end and at the beginning ,but at the middle it's all pandemonium :(( তবে ওনাকে ঠিক কী কারণে মহান শিক্ষক ইত্যাদি বলা হয় সেটা একদম জানিনা । দর্শন সংক্রান্ত লেখাপত্র ও বেশ মধ্যমানের । পলিটিকাল রিক্রুট বলেই মনে হয় ।
  • Ekak | 125.99.196.27 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১২:১৮685067
  • বলা ভালো "শিক্ষার পথপ্রদর্শক" বলার এক্স্যাক্ট কারন জানতে পারলে ভালো হত । "হিন্দু ওয়ে অফ লাইফ " নিয়ে ঘ্যানঘেনে হ্যাজ দেওয়ার বাইরে পেডাগজিক্যাল কাজকর্ম কী করেছেন , লিখেছেন ইত্যাদি । লোরেন্বাউ হেব্বি নাচ্চ্ছেন আজকাল রাধাকৃষ্ণন নিয়ে । বইগুলো পাঠ্যসূচি তে ঢোকাবার তাল ।
  • potke | 190.215.52.247 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৪:০৯685068
  • বালের পথ প্রদর্শক।
  • kc | 198.71.254.103 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৪:১৬685069
  • কেন "বালের" ---- ৫ নম্বর
  • b | 24.139.196.6 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৭:১১685045
  • শুনেছি দার্শনিকের নাকি হোমিওপ্যাথি মাত্রায় আলুর দোষ ছিলো, বিশেষতঃ ফোটো সেশন উইথ প্রেসিডেন্টের সময় সুন্দরী সিনেমা নায়িকাদের পাশে টানাটানি করে বসাতে চাইতেন।
  • তাপস | 122.79.38.21 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৮:২০685046
  • বাবা মায়ের নাম, আর গ্রামের নাম মিসিং।
  • ranjan roy | 132.176.188.86 | ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ০৯:৩১685047
  • অসইব্য ছাত্রের দল! শিক্ষকের আলুর দোষ বেগুনের দোষ দেখেও দেখতে নেই।
  • Noor alam | 178.235.195.168 | ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ২০:১৩685048
  • Best
  • DP | 117.167.107.149 | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৭:৪৮685049
  • গুরুর পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট কি আজকাল নিজেরাই খোলা যাচ্ছে নাকি?
  • pi | 24.139.221.129 | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৮:১৮685050
  • মানে ?
  • R.Boyal | 233.186.101.226 | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৯:৫২685051
  • না, বিশ্বব্যন্কের বড়সাহেব, ইলুমিনাটির কোর কমিটি, কান্চীর শন্করাচার্য, পোপ, জেপোর সর্বাধ্যক্ষ এদের সব অনুমতি লাগে।
    এত সোজা নাকি?
  • S | 184.45.155.75 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:০৪685052
  • লিস্ট থেকে সিয়ার নাম বাদ দেওয়ার চক্রান্তের পতিবাদ কত্রে গেলুম।
  • DP | 117.167.108.52 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ২১:১৯685053
  • "মানে ?"

    সরি আমারই ভুল। লগইন এর নিয়মটা ভালভাবে জানা ছিলনা।
  • SD | 228.248.49.2 | ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১০:১৩685056
  • ১৭ এপ্রিল১৯৭৫, ১৯৯৫ না
  • Sandhya roy | 785612.40.676712.188 | ১৪ জুন ২০১৮ ১৫:০০685057
  • Yes
  • অর্জুন অভিষেক | 342323.223.784512.155 | ১৫ জুন ২০১৮ ০২:৩৮685058
  • লেখাটা মনে হল বুঝি কোনো পাঁচালি ব্রতকথার মুখবন্ধ।

    শিক্ষক দিবস ৫ সেপ্টেম্বর কেন, এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলাম আমি। সেখান থেকে সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণাণ সম্পর্কে আমার মতামত তুলে দিলাম।

    ৫ই সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস। ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণাণের জন্মদিন। ডঃ রাধাকৃষ্ণাণ বিশিষ্ট দার্শনিক ও অধ্যাপক। মাদ্রাজ, কলকাতা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়িয়েছেন। দর্শন শাস্ত্রের ওপর বেশ কিছু গ্রন্থ রচনা করেছেন। কিন্তু আলাদা করে দেশের শিক্ষাপ্রসার বা সংস্কারে তার অবদান খুব পরিষ্কার নয়। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে তার সমসাময়িক এইরকম দু ডজন অধ্যাপকের নাম করা যায় যারা সকলেই স্ব স্ব ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানের নক্ষত্র। বাংলায় থাকতে রাধাকৃষ্ণাণ রবীন্দ্রনাথের খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন এবং দেশ স্বাধীন হবার পরে জওহরলাল নেহেরুর। এই দুটো অ্যাসসিয়েশন তখনকার সময়ে প্রায় কোয়ালিফিকেশনের মত কাজ করত। তার প্রথম গ্রন্থ ‘ফিলজপি অব রবীন্দ্রনাথ টেগোর’ একেবারেই বিদ্দমহলে সমাদৃত হয়নি। অধ্যাপক সুবোধ সেনগুপ্ত’র মতে ‘After reading that book, neither I understood Rabindranath nor his philosophy.’ বইটি স্বাভাবিক নিয়মে হারিয়ে গেছে। রাধাকৃষ্ণাণের এক ছাত্রী আমাকে বলেছিলেন যে উনি আলাদা করে অনেক কোনো দর্শনতত্ত্বের সন্ধান দিতে পারেননি না পেরেছেন ভারতীয় দর্শন বিশ্লেষণ করতে। সে যাইহোক রাধাকৃষ্ণাণের গবেষণাধর্মী কাজের অ্যানালিসিস করা আমার উদ্দেশ্য নয়। আমার বক্তব্য, প্রাথমিক শিক্ষা বিস্তার, শিক্ষা সংস্কার তার contribution কি? ভারতের প্রায় সব অঞ্চলে উনিশ ও বিশ শতকে অনেকের নাম করা যায় যারা প্রাথমিক শিক্ষা প্রসারে যুগান্তকারী অবদান রেখে গেছেন। কিন্তু তাদের সকলকে ছেড়ে হঠাৎ-ই ডঃ রাধাকৃষ্ণণ কি ভাবে শিক্ষকদের আইকন হয়ে গেলেন? জানিনা। তাকে একজন ব্যুরোক্রেট ছাড়া আর কিছু লাগেনা।

    তাকে বস্তুত মনে রাখা হয় রাষ্ট্রপতি হিসেবে।

    পরবর্তীকালে দর্শনশাস্ত্রে সুপণ্ডিত কেউই কি ওর ছাত্র ছিলেন?

    * উনি মারা গেছেন ১৭ এপ্রিল ১৯৭৫।
  • pi | 4512.139.122323.129 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৩:৫০685060
  • দলে দলে লোক দেখি এই টই দেখে যাচ্ছেন !!
  • pi | 4512.139.122323.129 | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৪:২৪685061
  • গতবছরের এই লেখাগুলোও থাক এখানে।

    শিক্ষকদিবস – কিছু অ-সুখস্মৃতি - দময়ন্তী
    ফলসাকিসিম - জাফরিন জাহান
    এবং
    ইসকুল-টিসকুল... রানা আলম
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে প্রতিক্রিয়া দিন