• টইপত্তর আলোচনা
  • কুমুদির রোমহর্ষক গল্পসমূহ

    Abhyu
    বিভাগ : অন্যান্য | শুরু: ১০ জুলাই ২০১৪ | শেষ মন্তব্য: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৩৯১* বার পঠিত

  • পাতা : 1 | 2 | 3 | 4 | 5 | 6 | 7 | 8 | 9 | 10
  • commentসে | 188.83.87.102 | ১৪ এপ্রিল ২০১৫ ২৩:০৯
  • এটা দুঃখের গল্প।
  • commentAbhyu | 138.192.7.51 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০০:৩০
  • তখনকার দিনে চল্লিশ টাকার ভ্যালু কত ছিল?
  • commentAbhyu | 85.137.13.237 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:১১
  • "অন্য কানটি মলে" - তার মানে পুলুশে কানমলার ব্যাপার্টাই ঠিক?
  • comment | 183.17.193.253 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:২০
  • কুমু মৃণালকে এক তঃগবেষকের সঙ্গে কফি হৌসে বসিয়ে এক কাপ কফি খাওয়ালে খুব খুশি হতামঃ)
  • commentkumu | 132.161.127.101 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:২৯
  • ধরেন ,এখনকার ৪০০০ টাকা।
    তখন ফিসফ্রাই ৫০ পয়সা ছিল,এখন অন্তত ৫০ টাকা বা তার বেশী।
    আহা কানমলা ব্যাবসা সবি শোনা কথা তো।এই হিসাবে।
    মিঠু, না, না, গবেষকরা কফিটফি খেতেন্না।কফি হাউসে অ্যাপ্রন পরে গেলে ঢুকতে দিতো না।
  • commentAbhyu | 85.137.13.237 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:৩০
  • তবে আসল লাইনটা কুমুদি আলাদা করে লিকেছে - জগন্নাথদা ঐ অ্যাপ্রনটি ফেলে দেয়,কাচায় বিশ্বাস ছিল না কিনা।
  • commentsosen | 212.142.121.35 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:৪৬
  • আরো আরো
  • commentসিকি | 192.69.227.2 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৮:৫৪
  • মানে - আশাপুন্না আর লীলুপিসির একটা জম্পেশ ককটেল - অথচ কমপ্লিট অন্য জঁর। নববর্ষের সকালটা সুন্দর হয়ে গেল।
  • commentaranya | 83.197.98.233 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৯:২৬
  • দারুণ, দূর্দান্ত, কুমু রকস :-)
  • commentkiki | 53.230.133.212 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৯:২৮
  • কুমুউউউউউউউউউউউউউউউউউ,
    উফ!!

    সত্যি অ্যাপ্রনের লাইনটা। হো হো হি হি।
  • commentsan | 113.245.13.21 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৯:২৯
  • ইয়েস্‌স , কুমুদি রক্‌স !
  • commenthu | 188.91.253.22 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৯:৪০
  • কুমুদিকে হামু
  • commentসিকি | 192.69.227.2 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৯:৫০
  • অ্যাকদম FC
  • commentde | 69.185.236.52 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ১২:১০
  • কুমুদি এতো কম কেন লেখে!

    খুব ভালো লাগলো গপ্পো!
  • commentএকক | 24.96.123.65 | ১৫ এপ্রিল ২০১৫ ১৩:৫৫
  • উহ খাশা ! :)
  • comment4z | 79.157.80.175 | ১৯ এপ্রিল ২০১৫ ০৮:১৫
  • comment4 | 109.172.117.250 | ২৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:১২
  • তুলে দিলাম।
  • commentAbhyu | 118.85.88.75 | ২৬ জুলাই ২০১৫ ০৩:২০
  • name: kumu mail: country:

    IP Address : 132.161.116.2 (*) Date:25 Jul 2015 -- 02:13 PM

    অত হ্যাটা করবেন্না।কুমুর লেখা এক অদ্ভুত নাটক একবার পুজোয় অভিনীত হয়েছিল।অভিনেতা/নেত্রী দের আদলে লেখা পুরো ডিজাইনার নাটক,বুঝলেন।একেকজন অভিমান/পেটখারাপ/বৌএর অর্ডারে ছেড়ে যান বা ঝগড়া মিটে যাওয়া/বিজ্ঞাপন আনার কারণে যোগ দ্যান আর নতুন করে লেখা হয়।
    এমনকি একঘন্টা আগেও স্ক্রিপট পালটায় ,বুঝলেন।

    সেই নাটকে নাইকার নীল শাড়ি নিয়ে কী এক ডায়লগ ছিল, নাইকা সেটি খ্যাল না করে গোলাপী মত এক শাড়ি পরে মঞ্চে অবতীর্ণ হয়েচেন,আর সহ অভিনেতাবারবার নীল শাড়ি বলে যাচ্চেন।এদিকে দর্শকদের চিৎকার,গোলাপী,অ অমুকদা,গোলাপী বলুন।শেষটায় দুমিনিটের জন্য নাটক বন্ধ করে তিনি মাইক নিয়ে তিনি প্রথমটা শিবনেত্র হয়ে দাঁইড়ে রইলেন,তারপর প্রায় ফিসফিস করে আত্মমগ্ন স্বরে বল্লেন,নীলের জায়গায় গোলাপী বলতে গেলে তাল কেটে যায়,ছন্দে ভুল হয়।বোঝেন এসব?
    আর নাটক শেষে নাইকা আমায় মারতে বাকি রাখল-দেখলি পিংক পরেছি,তাও নীল লিখলি কেন?
  • commentAbhyu | 118.85.88.75 | ০১ আগস্ট ২০১৫ ১১:৫৩
  • কুমুদিইইইইইইইইইইইই
  • commentbhaaT theke kapipesT | 132.172.217.4 | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৮:০৩
  • name: kumu mail: country:

    IP Address : 11.39.34.222 (*) Date:15 Sep 2015 -- 06:03 PM

    একবার আমি আমার দুই গুণধর ও শাশুড়ীকে নিয়ে কলকাতা গিয়েছিলাম ট্রেনে।সারা রাস্তা বড় ছেলে বাবা কেন এল না কখন আসবে ইত্যাদি প্রশ্ন করে করে আমাকে প্রায় অর্ধমৃত করে ফেল্ল।
    হাওড়ায় নেমেচি কোনমতে মালপত্রসহ দুজনকে টানতে টানতে,ছেলে প্রথমে দেখে নিল স্টেশনেবাবাকে দেখা যাচ্চে কিনা(প্রাণের দায়ে সেরকমই বলেছিলাম)।তারপর খুব কনফি নিয়ে যারা রিসিভ করতে এসেছিল তাদের বলল "ঐ উল্টোদিকের ট্রেনে অমাদের তুলে দাও তো।স্টেশনে বাবা থাকবে"।
  • commentভাট থেকে কপিপেস্ট | 132.172.217.4 | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৮:০৪
  • name: kumu mail: country:

    IP Address : 11.39.34.222 (*) Date:15 Sep 2015 -- 06:22 PM

    আমারো লাস লাইনের আগেই পোস্ট হয়ে গেল-বাবা এদিকে খুব বেশী হলে দিনে ২ /৩ ঘন্টা বাচ্চাদের সঙ্গে থাকতেন।
  • commentde | 69.185.236.55 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৪:১৮
  • তুললাম!
  • commentdiku | 69.161.77.147 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৭:২৯
  • অনেক ধন্যবাদ দে
  • commentAbhyu | 85.137.13.237 | ২৮ নভেম্বর ২০১৫ ০৮:৫৮
  • তুলে দিলাম।
  • commentAbhyu | 85.137.14.155 | ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ ০১:২১
  • এটা এইখানে যাবে।

    Name: kumu

    IP Address : 132.161.253.132 (*) Date:14 Jan 2016 -- 12:36 AM

    ছোটবেলায় আমরা কৃষ্ণনগরে থাকতাম।
    চারদিকে পাঁচিল ঘেরা বাড়ী,সাম্নের দিকে দুটি ও পেছনের দিকে দুটি দরজা ছিল।পেছনের দরজা দুটি কোন জন্মে ব্যবহার হত না,বন্ধ থাকত,কিন্তু পাঁচিলের অন্যদিকে আম কাঁঠাল ইত্যাদি গাছ থাকায় জায়্গটা সর্বদা কেমন অন্ধকার থাকত আর ঐ দরজা ভেঙে যে একদিন চোর আসবে সে বিষয়ে কারো কোন সন্দেহ ছিল না।দরজা দুটির বিশাল কড়াতে বিকট দেখতে তালা ঝুলত,তারোপর গরুর দড়ি,শাড়ীর পাড়,বস্তা বাঁধার দড়ি ইত্যাদি দিয়ে যথাসম্ভব শক্ত করে কড়া দুটি বেঁধে সুরক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।
    কিন্তু মুনিরা খাগের/বগের কলম দিয়ে কোনকালে লিখে গেছেন নিয়তি কেন বাধ্যতে,এক ঘনকৃষ্ণ অমবস্যার রাত্রে আমাদের বাড়ীতে চোর পড়ল।
  • commentAbhyu | 85.137.14.155 | ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ ১০:৪৯
  • Name: kumu

    IP Address : 132.161.211.145 (*) Date:14 Jan 2016 -- 09:22 AM

    সেযুগে বাড়ীতে চোর পড়া বেশ গা সওয়া ব্যাপার ছিল।বরম সেই প্রাকটিভি নিস্তরঙ্গ সময়ে চোর বেশ একটু উত্তেজনার খোরাক এনে দিত।কখন কিভাবে কেন চোর এসেছিল,কে খুট/টিং আওয়াজ পেয়েছিলেন,কার পিসেমশাই কত বড় দারোগা ছিলেন,কী কী জিনিস চুরি গেল,পুলিশ কীবলল এইসব চলতে থাকত যতদিন না আবার নতুন চোর পড়ে।
    তা আমাদের বাড়ীর এই চোরটির মনে হয় আমার মায়ের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্বন্ধে কোন ধারণা ছিল না।উঠোনে দাঁড়িয়ে চারদিক খুব খুঁটিয়ে দেখেও সে চুরিযোগ্য কিছুই আবিষ্কার করতে পারল না।দরজার পাপোষ,একটি দোলনা ও দুটি ঝাঁটা ছাড়া কোথাও কিছু নেই।বাথরুমে পর্যন্ত তালা।সরকারী অফিসারের বাড়ী চুরি করতে এসে পুরোনো
    পাপোষ /ঝাঁটা এইসব নিয়ে ফেরা ঠিক না,রান্নাঘরের তালা ভাঙা ছাড়া উপায় নেই এইসব ভাবতে ভাবতে বারান্দার এক কোণে কাপড় চাপা দেয়া কী র্কটা নজরে পড়ল।কাপড় সরিয়ে দেখা গেল একটি পানের ডাবর (তরুণ প্রজন্মের জন্য ডাবর হল পান সুপুরি চুন ইত্যাদি রাখার পেতলের পাত্র)।

    Name: kumu

    IP Address : 132.161.211.145 (*) Date:14 Jan 2016 -- 09:49 AM

    এখানে বলা দরকার আমাদের বাড়ীতে কেউ পান খেত না।ডাবরটিঅন্য অনেক জিনিসের মতই দেশভাগের সময় দাশগুপ্ত পরিবারের সঙ্গে আসে।এবং দাশগুপ্তরা কখনৈ কোন জিনিস ফেলে দেয়ার নীতিতে বিশ্বাসী ছিলেন না,তাই ডাবরটি অন্তত ৫টি শহর ও ১২/১৩টি বাড়ী ঘোরার পর তখন কৃষ্ণনগরে পোস্টিং পেয়েছিল।আমার ভাই তখন নিতান্ত শিশু ,তার এক বিশেষ কাজের জন্য ওটি ব্যবহার হত,যে কারণে ইচ্ছা না থাকলেও মা রাত্রে ডাবরটি বাইরে অরক্ষিত অবস্থায় ফেলে রাখতে বাধ্য হতেন।
    এদিকে চোর ডাবরটি হাতে নিয়ে একটু থতমত হয়ে গেল,ডাবরের মধ্যে ফিনাইল,ডেটল ও অন্য কী একটা বিজাতীয় গন্ধ!!উঠোনের মাঝখানে দাঁড়িয়ে সে ডাবরটি ভাল করে দেখচে এমন সময়--
    ভ্যাঁ ১০ করে ভাইয়ের জগদ্বিখ্যাত চিৎকার(রাত্রে অন্তত ৩ বার বিনাকারণে চেল্লাত),বাড়ীশুদ্ধু সকলের ঘুম ভেঙ্গে জল,দুধ ইত্যাদি দেয়ার উপদেশ,ঐরকম আল্লাদ দিয়ে দিয়েই--,কাকার দরজা খুলে বাইরে আসা ও উঠোনে ডাবর হাতে চোর আবিষ্কার,
    ভীষণ গর্জনে বাঘের মত লাফ দিয়ে চোরকে জাপটে ধরা ,বাড়ীত অন্যান্যরাও বেরিয়ে অসমসাহসে চোরসহ কাকাকে জাপটে ধরা,আমাকে ও ভাইকে দুহাতে আগলে মায়ের উচ্চস্বরে রামরাম -এতসব ঘটতে ৫/৭ মিনিট লাগল।
  • commentAbhyu | 85.137.14.155 | ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ ১১:৩৬
  • Name: kumu

    IP Address : 132.161.211.145 (*) Date:14 Jan 2016 -- 10:52 AM

    বলেছি তো ঐ সময়ে চোর পড়া/ধরার জন্য সকলের মানসিক প্রস্তুতি থাকত।তাবাদে দাশগুপ্তদের কম্বুকন্ঠে গগনভেদী চিৎকারের মধ্যে বিছানায় পড়ে থাকাও অসম্ভব।সুতরাং চারদিকের বাড়ী থেকে চাদরমুড়ি দিয়ে কাকা/জ্যাঠাবাবুরা জড়ো হলেন ও সকলে মিলে চোরকে নিয়ে থানায় চল্লেন।টিমের নেতৃত্ব দিলেন ৯০ বছরের মহাতেজী বড়ঠাকুমা"তরা পোলাপান মানুষ,গুছাইয়া সব কইতে পারবিনা।আরে ডাবরটা ল,দারোগাবাবুরে দ্যাখাইতে হইব।"
    কৃষ্ণনগর কোতোয়ালী থানা ছিল আমাদের বাড়ীর সামনেই,রাস্তার এপার ওপার।

    দুঃখের বিষয় থানা পার্টি ২ মিনিটে ফিরে এল।নাকী দারোগাবাবুর দেহের বাড়ীর পুকুরে সকালবেলা জাল ফেলা হবে তাই তিনি সেখানে গেছেন,অন্য পুলুশরাও গেছে,থানা খালি।

    সরকারী অফিসারের বাড়ীতে চোর,থানা খালি,দেশব্যাপী কী ভীষণ অরাজকতা,সিএমকে একটা চিঠি দেয়া দরকার,কালসকালেই ড্রাফ্টিংটা ইত্যাদি আলোচনা করতে করতে সকলে ফিরে এলেন।ঠিক হল চোরকে রান্নাঘরের বারান্দাতে বসিয়ে রাখা হোক।সকালে যা হোক ব্যবস্থা হবে।তাই হল,বাবার অফিসের এক পিয়ন তেওয়ারী বাড়ীতে থাকত,সে পাহারায় রইল।

    সকালে উঠে দেখি ভাই যথারীতিসোয়েটার কোট ইত্যাদি চাপিয়ে গম্ভীর ভাবে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে চোরকে দেখছে। তেওয়ারী প্রবল নাকডাকিয়ে ঘুমোচ্ছে।।
  • comment. | 76.87.18.97 | ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ ২০:২৩
  • commentrabaahuta | 215.174.22.27 | ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ ২৩:৩৭
  • তারপর কি হলো?
  • commentBlank | 24.99.109.101 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ০০:১৫
  • তার্পর !!
  • commentd | 144.159.168.72 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১০:০৮
  • কিন্তু চোরের ভয়েসটা জাঁহাপনা? সে কী করছে? সেও কি গম্ভীরভাবে ভাইকে দেখছে? নাকি তেয়োয়ারীর পাশে নাক ডাকিয়ে বা না ডাকিয়ে ঘুমাচ্ছে?
  • commentde | 24.139.119.171 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১০:৩৬
  • চোরকে কি বেঁধে রাখা হয়েছিলো?
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১১:৩১
  • একটুক সবুর করেন।
  • commentde | 24.139.119.172 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১১:৪০
  • যাই বলো, স্যার না কাঁদলে তোমাদের চোর ধরা পড়তো না - ঃ)
  • commentkumu | 11.39.34.139 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৭:৫২
  • কুমু চিরকালই চিন্তাশীল মানুষ,প্রবল দুশ্চিন্তায় সে সারা রাত লেপের তলায় জেগেছিল,মোটে ঘুমোয় নি।
    অত মজবুত দরজা,তালা,সর্বোপরি মাতাশ্রীর হাতের নানবিধ দড়ির বাঁধন ভেদ করে যে ঢুকতে পারে সে তো সামান্য মানুষ নয়!সে নিশ্চয়ই সার্কাসের সেই লোকটার চেয়ে লম্বা,তেওয়ারীকাকুর চেয়ে চওড়া,ছবির মহাভারতের ভীমের মত গুলিগুলি হাত -ওরে বাবারে ,সে কিনা কুমুদেরই রান্নাঘরের বারান্দায় বসে আছে !!
    ভয়ে সিকিখানা হয়ে সারাত কাটিয়ে সকালের আলোয় একটু সাহস পেয়ে কুমু কোনমতে একটা সোয়েটার চাপিয়ে বাইরে এল।তাকে দেখে ভাই আরো গম্ভীর মুখ করে পরিচয় করিয়ে দিল,চোরকাকু ,এই যে আমার দিদি।

    কত শতক আগের এক শীতের কুয়াশাসকালে দুই ভাইবোন অবাক চোখে জীবনের প্রথম চোরকে দেখতে লাগল।
  • commentkumu | 11.39.34.139 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:০৯
  • চোর বেজায় রোগা, তালপাতার সেপাই,সরু সরু হাতপা ল্যাগব্যাগ কচ্ছে,খোঁচা খোঁচা চুল।নোংরা গেঞ্জীর ওপর তেওয়ারীকাকুর একটা পুরনো পাটকিলে চাদর জড়ানো,খালি পা তাতে এত্ত বড় বড় নখ।একটা বহু পুরনো গামছা দিয়ে কেউ বোধহয় হাত বেঁধে দিয়েছিল,সেটি হাতে ঝুলে আছে।সামনে বড় পেতলের গেলাসে গরম চা,আর বাসী রুটি গরম করেঘি মাখিয়ে দেওয়া হয়েছে,পাশে গুড়।
    দাশগুপ্ত পরিবার ছাড়া যে ব্রেকফাস্ট কেউ খায় কিনা সন্দেহ।
    চোর একটু লজ্জা লজ্জা মুখ করে আছে ,খাবারে হাত দিচ্চে না দেখে কুমু ভাবল যাই মুখটুখ ধুই,এ খেয়ে নিক।
    মুখ ধুতে গিয়ে চোখে পড়ল,এ কী দরজা তো যেমনকার তেমন,চোর তবে এল কোদ্দিয়ে??
  • commentrobu | 233.29.204.178 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:১৬
  • "তাকে দেখে ভাই আরো গম্ভীর মুখ করে পরিচয় করিয়ে দিল,চোরকাকু ,এই যে আমার দিদি।"
    ওফ ওফ!!
  • commentkumu | 11.39.34.139 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:২৪
  • মা ,অ মা, দরজা তালা কিচ্ছু না ভেঙে চোরকাকু বাড়ীতে ঢুকল কী করে?
    মা ভীষণ মন দিয়ে চা খাচ্ছিলেন ও ভাইকে একবাটি দুধমুড়ি খাওয়ানোর জন্য শরীরে ও মনে পর্যাপ্ত শক্তি সঞ্চয় করে নিচ্ছিলেন।মেয়ের কথা শুনে ভুরু কুঁচকে তাকালেন। চোর এতক্ষণ চুপ করে ছিল কিন্তু এই ভীষণ টেকনিকাল ক্যোয়ারি শুনে সে কিছুতেই স্থির থাকতে পারল না।
    "পানচিল তো বেশী উঁচা না,আমগাছের ডাল ধইরা পাঁচিলের উপর লাফাইলাম ,তার পর--"
    কয়েকজোড়া বিস্ফারিত দৃষ্টির সামনে চোরের কথা বন্ধ হয়ে গেল!
  • commentde | 69.185.236.53 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:২৬
  • ঃ)))
    তারপর? বাড়ি যেতে পারছি না!
  • commentKaju | 131.242.160.210 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:২৬
  • দয়ালু দাশগুপ্ত পরিবার, চোরকে ঘি মাখিয়ে রুটি খেতে দিল সাথে আবার গুড় ! অন্য চোরেরা ব্রেকফাস্টো খাবার লোভেই তো বারবার আসার কথা।
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৯:২৫
  • সকলেই ঐ ব্রেকফাস্ট খেত।আর ঘি না ওটি মাখন হবে।
  • commentAbhyu | 85.137.14.155 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৯:৩৬
  • তা বেশ বাকিটা কি হল?
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ১৯:৫৮
  • "সে এ এ কী ঈ ঈ--
    মার আর্ত্তনাদে আমরা সকলে চমকে উঠলাম।
    "ডাল থেকে পাঁচিল থেকে লাফিয়ে বাড়ীর ভেতর?
    আজ একজন কাল দশজন লাফিয়ে লাফিয়ে পড়বে?চোর ডাকাতে বাড়ী ভরে যাবে?হে মা জগদম্বা গো,দুটি বাচ্চা নিয়ে থাকি,উনি তো অর্ধেক ট্যুরে,আজই এই বাড়ী বদলাতে হবে গো,দরকার নেই এত বড় বাড়ীতে,তুই আবার জল আনলি কেন?"শেষটা মঙ্গলার উদ্দেশ্যে।
    বাস্তবিক আমার মাতৃদেবীর লৌহকঠিন সুরক্ষাপ্রাচীরে যে এতবড় ছ্যাঁদা থাকতে পারে তা অভাবনীয় ছিল।
    তবে মাতাশ্রী দমে যাওয়ার পাত্রী ছিলেন না,তিনি বিপদে ভয় নাকরার নীতিতে বিশ্বাসী।ভাইকে দুধমুড়ি খাওয়াতে খাওয়াতেই তিনি মঙ্গলাকে ডেপ্যুট করে বড়ঠাকুমা সহ পাড়ার কয়েকজন জাঁদরেল গিন্নীবান্নীকে ডেকে ইমার্জেন্সী মিটিং বসিয়ে দিলেন।

    গিন্নীদের পিছনে কর্ত্তারাও এলেন,তেওয়ারীকাকু এত্তবড় পাতিলে চা বসিয়ে দিলেন,কালোজিরে দেয়া সাদা আলুর তরকারী,লুচি,সুজি,কচুরী জিলিপী রসগোল্লা সহ কিংকর্ত্তব্য নির্ধারণ করা হতে লাগল।বলা বাহুল্য তখন আপিসটাপিস নিয়ে কেউ অত ব্যস্ত হত না।

    আড়চোখে কুমু দেখল ভাইএর কোটের ওপর ৪/৫ টি রসের নদী গড়িয়ে নেমেছে।
    মন ভাল হয়ে গেল।
  • commentAbhyu | 85.137.14.155 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২০:০৫
  • শেষটা মঙ্গলার উদ্দেশ্যে। :)))))))))))))
  • comment | 24.96.163.179 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২০:১৫
  • কিন্তু চোর? সে পালিয়ে না গিয়ে বসেই আছে?
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২০:৫৫
  • থানা পুলিশের কথা আর কারো মনে নাই।
    বহু আলাপ আলোচনার পর ঠিক হল বাড়ী পালটানোর দরকার নেই।পাঁচিলের ওপর লাইন করে কাঁচ বসানো হোক।
    জনার্দন এতক্ষণে অনেক সহজ হয়ে গেছে,বোনের কথা বলে নিমেষে বড়ঠাকুমার গুড বুকে এসে গেছে,টুকটাক মন্তব্যও করছে।কাঁচ বসানোর কথা শুনে বলল "হেই রকমই যদি স্থির করেন,তবে আমার পিসারে ডাকি,হে এই কাজ করে।"
    সকলেই একমত হল যে চেনাজানা লোক দিয়েই কাজ করানো ভাল।
    পরের কাহিনী সংক্ষিপ্ত-পাড়ার অনেক বাড়ীতে পাঁচিলে কাঁচ লাগিয়ে,ভয়ংকর গন্ধওলা বাতের তেল এনে দিয়ে ,কচুশাক ও আরো কিসব সাপ্লাই করে ,পুজোয় অক্লান্ত খেটে এবং ঘন্টার পর ঘন্টা বড়ঠাকুমার গল্প শুনে সে পাড়ার সকলের মন জয় করে ফেলেছিল।

    ২/৩ বছর পর আমরা কৃষ্ণনগর ছেড়ে আসি।জনার্দন তখন বাবাদের আপিসে পিয়ন।

    আসার আগের দিন সারারাত বাঁধাছাঁদা করার পর মা তাকে অন্য জিনিসের সঙ্গে সেই ডাবরটি দান করেন।তখন ডাবরের কাজ ফুরিয়েছিল,কিন্তু সযত্নে নিয়মিত তেঁতুল দিয়ে মেজে কাপড়ে মুড়ে রাখা হত।

    অনেক বছর পর আমরা বাবার আপিসের ঠিকানায় আমরা জনার্দনের একটি চিঠি পাই।অনেক কষ্টে ঠিকানা জোগাড় করে লেখা।সকলের কুশল জিজ্ঞেস করেছিল।

    শেষে ছিল"মাজে ২ ডাবোরটি বের করিয়া হাতে ধড়িয়া থাকি ।চখে জল পরে।সেইদিন আর কাযে জাইতে পারিনা।"
  • comment | 24.96.163.179 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২১:১০
  • আহাহা কুমুর এই গল্পটা একেবারে আগের সবকটা গল্পের চেয়ে ভাল। বড্ড বড্ড ভাল।
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২১:১০
  • এইরকম পড়ুন-
    থানা পুলিশের কথা আর কারো মনে নাই।
    চোরের নাম জনার্দন,হাঁসখালি বাড়ী,বাবার অল্প চাশের জমি,বোন কালো বলে বিয়ে হচ্চে না,বারবার ফেল হওয়াতে বাবা জানর্দনের ইশকুল ছাড়িয়ে দিয়ে বলেচে খেটে খেতে-বড়ঠাকুমা এইসব তথ্য সংগ্রহ করে ফেলেচেন।
    বহু আলাপ আলোচনার পর--
  • commentrabaahuta | 149.72.158.28 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২১:১১
  • প্রচন্ড ভালো। দিনের শুরুটা চমৎকার হয়ে গেল।
  • commentkumu | 132.161.211.145 | ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ ২১:১২
  • চাষের জমি

  • পাতা : 1 | 2 | 3 | 4 | 5 | 6 | 7 | 8 | 9 | 10
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • হরিদাসের বুলবুলভাজা : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • জাগ্রত শাহিন বাগ
    (লিখছেন... বিপ্লব রহমান, আজ সুপ্রিম কোর্টে, Anjan Banerjee)
    জনসন্ত্রাসের রাজধানী
    (লিখছেন... র, pi, রঞ্জন)
    কোকিল
    (লিখছেন... দেবাশিস ঘোষ)
    বিনায়করুকুর ডায়েরি
    (লিখছেন... ^&*, একলহমা , pi)
    মিষ্টিমহলের আনাচে কানাচে - দ্বিতীয় পর্ব
    (লিখছেন... দীপক দাস , দীপক, দীপক)
  • টইপত্তর : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • আগামীর অবয়ব
    (লিখছেন... দ্রি, দ্রি, দ্রি)
    নিমো গ্রামের গল্প
    (লিখছেন... সুকি , সুকি , সুকি)
    যুক্তরাস্ট্র নির্বাচন ২০২০
    (লিখছেন... )
    প্রেমিকাকে কোলকাতাতে ফুল পাঠাবো কিভাবে?
    (লিখছেন... pi, pi, সুকি)
    পুরোনো লেখা খুঁজছেন, পাচ্ছেন না - এখানে জিজ্ঞেস করুন
    (লিখছেন... lcm, r2h, দু:শাসন)
  • হরিদাস পালেরা : যাঁরা সম্প্রতি লিখেছেন
  • শ্রী রামকৃষ্ণ : কিছু দ্বন্দ্ব : Sumana Sanyal
    (লিখছেন... রঞ্জন, এলেবেলে, Anjan Banerjee)
    যুদ্ধ : Swapan Majhi
    (লিখছেন... )
    গাধা সময়ের পদাবলী : রোমেল রহমান
    (লিখছেন... Du)
    জোড়াসাঁকো জংশন ও জেনএক্স রকেটপ্যাড-৮ : শিবাংশু
    (লিখছেন... dd, i, শিবাংশু)
    তিরাশির শীত : কুশান গুপ্ত
    (লিখছেন... anandaB, ন্যাড়া, Apu)
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তত্ক্ষণাত্ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ যে কেউ যেকোনো বিষয়ে লিখতে পারেন, মতামত দিতে পারেন৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
  • যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত