• টইপত্তর  অন্যান্য

  • সর্ষেবাটা, মোচা কাটা, চিতলের মুইঠ্যা বানানো ইত্যাদি ইত্যাদি

    r
    অন্যান্য | ১৪ জুলাই ২০০৬ | ১৯২১ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০২:৫৬634054
  • স্বপ্নে নয়, অ্যামেরিকায়। এটাতো রূপকথার বই। আইশোরিয়ার পাত্র এবারেও আম্রিকান। ব্রাইড অ্যান্ড প্রেজুডিস থেকেই আইশোরিয়ার যোগ্য ইন্ডিয়ান পাত্র পাওয়া যাচ্ছিলো না, সব সাব স্ট্যান্ডার্ড। এবারেও আম্রিকান হ্যান্ডু পাত্রের গলায় সে মালা দিলো। হাই বাজেট ব্যাপার স্যাপার।
  • tan | 131.95.121.251 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:০৫634055
  • আইশোরিয়ার ছবি এখানে সব ইন্ডিয়ান ছাত্ররা কম্পুটারে স্ক্রীনে রেখে দিয়েছে।সকালে খুলেই যাতে দ্যাখে।
    কিন্তু এর যোগ্যপাত্র তো সত্যি যে সে নয়! যাতা থার্ড ওয়ার্ল্ডের হেজিপেজি তো এর যোগ্য হতে পারে না!
    আমেরিকান ছেলেরা জানতে চাইলো ইনি এখনো ও দেশে পড়েই বা আছেন কেন? হলিউড যেখানে কোল পেতে রেখেছে?
    তবে এদের আর বেশী হয়তো অপিক্ষেও কত্তে হবে না!
  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:১৮634056
  • হ্যান্ডু ছেলে ইন্ডিয়ায় পাওয়া যায় না- এটা কিন্তু মানতেই হবে ট্যান।
  • tan | 131.95.121.251 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:২১634057
  • ঠিক বলেছ যোদি।

  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:২৩634058
  • রান্নাঘরে বসেই বলছি, একটা ঠিকঠাক চেহারার ইন্ডিয়ান ছেলে নেই মাইরি। সাধে কি অ্যামেরিকান খোঁজে?
  • tan | 131.95.121.251 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:২৬634059
  • নানামাপের চোরে অসতে ট্যাক্স ফাঁকি দেয়া দরবারে না পাইলাম ঠাঁই/ঘরে আইয়া বৌ কিলাই লোকে ভরা দেশে রূপ যশ জয় যায় কখনো?
    বলি, একটা ইয়ে আছে না?
  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:২৮634060
  • অ্যাই আমি কিন্তু সিরিয়াস। মানে একদম মন থেকে বলছি। কিন্তু এরম কেন হয় বলতো? কেন নেই?
  • tan | 131.95.121.251 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:৩৩634061
  • পাঞ্জাবে কাশ্মীরে কি আর নেই? কিন্তু অন্ধ্রে তামিলনাড়ুতে লম্বা ফর্সা লাক তীক্ষ্ণ পাবে কি করেই বা?
  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:৩৫634062
  • কোত্থাও নেই। কী একটা যেন মিসিং। কেন বলতো? ভাবনার কথা নয়?
  • J | 84.72.45.33 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:৩৯634064
  • না: থাক এনিয়ে এখন আর লিখব না। কে কখন দু:খ পাবে।
  • tan | 131.95.121.251 | ১৯ জুলাই ২০০৬ ০৩:৪১634065
  • ঠিক।বলতে হবে না।
    কে হায় হৃদয় খুঁড়ে বেদনা জাগাতে...
    আমার খালি রামায়ন মনে পড়ে কেন কেজানে!
  • s | 141.80.168.75 | ২০ জুলাই ২০০৬ ০০:২৯634066
  • এই থ্রেডে যদিও এ প্রসঙ্গ অপ্রাসঙ্গিক তবুও লিখছি এই নিয়ে দুকথা আগে লেখা হয়েছে দেখে। হ্যাণ্ডু মানেই যে লম্বা ফর্সা তীক্ষ্ম নাসা হতে হবে কে বলল। অমিতাভ বচ্চন যে এক দশক ধরে আপামর নারী গণের হৃদয়ে ঢেউ তুললেন তো তাঁকে এই ক্যাটাগরিতে কিকরে ফেলা হল!!! বর্তমানে এনার ছেলেকেও অতি সুপুরুষ বলে ধরা হয়, সেও তো টল ডার্ক ক্যাটগরিতেই পড়ে।
    আর অন্ধ্রে তামিলনাড়ুতে ফর্সা লোক নেই? আইয়ার আয়েঙ্গার কি একটু উচ্চবর্ণের ঘরগুলোয় ঝাঁকি মেরে দেখলে দিব্যি ফুটফুটে ফসসা লোকজন দেখতে পাওয়া যায়, বিশেষত মেয়েরা।
  • J | 160.62.4.10 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৩:১৮634067
  • হাতের কাছে যা পাচ্ছে তাতেই সন্তুষ্ট থাকছে। কিন্তু লিস্টের লোকেদের আমার কখনোই হ্যান্ডু লাগে নি, তা এর সঙ্গে ফস্‌সা বেঁটে কালো রোগা লম্বার কি সম্পোর্কো? যেটা মিসিং সেটা অন্য জিনিস।
  • Parolin | 213.94.228.210 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৫:৫০634068
  • কাল আমার বাড়িওয়ালা সামনের বাগানের গাছগুলো এক এক করে চেনালেন। হার্ব এ ভর্তি। থাইম থেকে শুরু করে রোজ মেরী পজ্জন্ত।
    যেটা দেখে অবাক হলুম সেটা হল লেমন মিন্ট। দেখতে একদম মিন্ট কিন্তু গন্ধ লেবুর। তা দিয়ে আইস টি করে দেখলুম দিব্যি লাগে।
    আর ছিল পেপার মিন্ট। পাতাবাহারী গাছের মত ই , তবে ছোট পাতা। আর বেশ তেজালো মিন্টের গন্ধ।

  • J | 160.62.4.10 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৬:১৭634069
  • লেমন মিন্ট-ই কি লেমন গ্রাস, যেটা সুপে দিই?
  • Parolin | 213.94.228.210 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৬:৪৬634070
  • না গো যোদি , লেমন গ্রাস তো ঘাসের মত লম্বা লম্বা। উটিতে যতবার বেড়াতে গেছি গোছা গোছা তুলে এনেছি।
    আর লেমন মিন্ট একদম মিন্ট বা পুদিনা পাতার মতই দেখতে। ঘন সবুজ আর প্রায় গোল। গন্ধ কিন্তু লেবুর আর ফিকে মিন্ট মেশানো।
  • J | 160.62.4.10 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৬:৫০634071
  • লেমন মিন্টে তবে লেবুর গন্ধো না মিন্টের? কোনটা? দুবার দুরম লিকলি ক্যানো?
  • Parolin | 213.94.228.210 | ২০ জুলাই ২০০৬ ১৭:০০634072
  • ছড়িয়েছি না ?
    লেবুর ই গন্ধ মোস্টলি তবে ফিকে মিন্টের গন্ধও আছে। বোঝলা ?
    কাল মোট তিন রকমের মিন্ট নিজের বাগানে দেখে থেকে ভেবলে আছি। পোড়া ডাবলিনে বেড়াতে এসো , দেখাবো।
  • J | 160.62.4.10 | ২০ জুলাই ২০০৬ ২০:৫৩634073
  • ভেটকির ফ্রাই।
    প্রথমে চাই ভেটকি মাছ। না পাওয়া গেলে অন্য মাছ, যাতে কাঁটা কম, মাছের ফিলে পাতলা পাতলা করে রেডি থাকলেই হলো। লেবুর রস আর নুন লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে ঐ ফিলে গুলোকে বেশ করে মজিয়ে রাখতে হবে ঘন্টা দু তিন।
    এবার যত রাজ্যের শুকনো পাঁউরুটি কে বারান্দায় নিয়ে গিয়ে পুরোনো খবরের কাগজের ওপর রেখে যতটা কম শব্দ করে সম্ভব ভেঙ্গে ছোটো ছোটো টুকরো করে নিতে হবে। তারপরে সেগুলো রান্নাঘরে নিয়ে এসে গ্রাইন্ডারের মধ্যে দিয়ে বেশ দানাদানা থাকে এমন ভাবে গ্রাইন্ড কত্তে হবে। এটা হচ্ছে বিস্কুটের গুঁড়ো। এবার গোটা দুয়েক ডিম ফেটিয়ে রাখতে হবে একটা আলাদা পাত্রে। ননস্টিক প্ন্যানে প্রচুর তেল গরম হোক, তেলের কোনো কার্পন্য নয়। এবার ঐ ফিলে গুলো দিমে চুবিয়েই ঝপ করে তুলে নিয়ে ঐ বিস্কুটের গুঁড়োর স্তুপে ফেলতে হবে। এগুলো একটার পর একটা আগে থেকেও করে রাখা যায়। মানে ফ্রাই করার আগে অবদি সব ফিলে তখন সারাগায়ে বিস্কুট মেখে রেডি। এবার এদের গরম তেলে ছড়তে হবে। খুব কায়দা করে নাড়তে হবে যাতে বিস্কুটগুলো গায়ে লেগে থাকে, নীচে তলিয়ে না যায়, তলালেও কম তলায়। ভাজা হয়ে গেলে ছেঁকে তুলে, পেপার রোল দিলে তেল মুছে গরম গরম খাও। সঙ্গে ঝাল চিলি সস বা ঝাল টম্যাটো কেচাপ আর স্যালাদ।
    এই স্যালাদ শুধু কোলকাতার স্পেশ্যালিটি। এর জন্যে চাই ঝিরি ঝিরি করে কাটা বীট, গাজর, শসা আর পেঁয়াজ। তারপর তাদের ভালো করে মিশিয়ে নিতে হয়। কোনো নুন টুন দিতে নেই এই স্যালাদে। গরম ভেটকিফ্রাইয়ের পাশে এক মুঠো স্যালাদ আর সস। ঠিক রূপবাণী রেস্টুরেন্ট। আ:, সঙ্গে গরম চা আর লোক থাকলে আড্ডা।
  • J | 160.62.4.10 | ২০ জুলাই ২০০৬ ২১:০৫634075
  • যাদের কাছে কাসুন্দী আছে, তারা সসের বদলে কাসুন্দী দিয়ে খাক।
  • dd | 202.122.18.241 | ২০ জুলাই ২০০৬ ২১:৫৪634076
  • J'র সার্বিক অজ্ঞতা বিভিষিকাময়।

    বলে গরম ভেটকি মাছের ফ্রাইএর সাথে সস এবং চা !! ছেলেমানুষদের হাতে পরলে ফ্রাইএর দশাটা কি হয় বুঝুন।

    মাস্টার্ড সস ভেবেছিলে কি ? তাইলে তাও পার পেয়ে যাও। টমাটম সস আর বীটের সালাড? ইস। ছ্যা।

    চা নয়, ওরে চা নয়। ঠান্ডা বীয়ার।

    মহাজনেরা ও পথেই গেছেন।
  • dd | 202.122.18.241 | ২০ জুলাই ২০০৬ ২২:০২634077
  • আর ফ্রেঞ্চ ফ্রাই। এক থালা। আর প্যাঁজ।

    ব্যস। কবিতার বই আর দাউ নাহলেও চলে যায়।
  • J | 160.62.4.10 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৩:০৬634078
  • এবার ঘরে বসে ওয়াইন বানাবার রেসিপি দোবো।
  • J | 160.62.4.10 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৩:১২634079
  • মাস্টার সসকেই আমরা কাসুন্দী বলি। আর টমাটম সস ক্ষতি কি কল্ল? বেশ ঝাল ঝাল করে ভালোই তো লাগে। কিম্বা চিলি সস। কুমড়ো সস তো বলিনি। আর বীটের স্যালাদ হাজারবার দোবো। একি পার্ক স্ট্রীটের বাহারী রেস্টুরেন্ট নাকি? এহোলো সুশীলা হোটেল অ্যান্ট রেস্টুরেন্ট, রূপবানী কেবিন, বসন্ত কেবিন, DD গ্যাছে কখনো সেসব জাগায়? মর্ম বুঝবে ক্যামোন করে? ওসব জাগার বীয়ার পাওয়া যায় না হে। ছোটো কাপে চা। অ্যাই চারনম্বরে দুটো ফিস্‌ফাই, দোটো চা, ফটাফট..... আর কিছু দেবো?
  • J | 160.62.4.10 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৩:৩০634080
  • চিনির মতো মিষ্টি, মধুর মতো মিষ্টি আঙ্গুর নাও যতটা পারো। আঙুরগুলো ঠান্ডা জলে ভিজিয়ে রাখো ঘন্টা দুই। এর পরে ভলো করে ধুয়ে ফ্যালো। সমস্ত বোঁটা ছাড়িয়ে নাও। জল ঝরিয়ে পরিষ্কার কাপড় বা কাগজ বাথালার ওপরে রাখো।
    এবার নাও তাগড়া সাইজের কাচের বোয়াম, যার কিনা ঢাকনা বন্ধ হয়, তবে প্যাঁচ দেয়া ঢাকনা নয়, ছিপি জাতীয় চাপ দিয়ে বন্ধ করা ঢাকনা।
    এবারে আঙুরগুলোকে পরিষ্কার হাতে চটকে থেঁতো করে বা মিক্সিতে অল্প মাখা মাখা করে, ঐ পরিষ্কার জীবানুশূণ্য বোয়ামে ঢালো। এতে দাও গোটা ছয়েক আলোচাল, আর গোটা পাঁচেক গোলাপফুলের পাপড়ি। এবার ছিপি এঁটে বোয়ামকে চালান করে দাও শুকনো জায়গায়, ছায়ায়, কিন্তু ফ্রীজে নয়, রুম টেম্পারেচারে রাখো তিন চার দিন। রোজ একবার করে উঁকি মেরে দেখে নিও বোয়ামের অবস্থা। সাত আট দিন পরে বা আরো বেশিদিন পরে দেখবে বোয়ামের ভেতরে সব গেঁজিয়ে উঠেছে, ছিপি ছিটকে বেরিয়ে যাবে ভেতরের চাপে।
    এবার পরিষ্কার কাপড়ে ছেঁকে নাও বোয়ামের তরল। গেলাসে ঢালো আর খাও। এরেই কয় রোজওয়াইন।
    বিধিসম্মত সতর্কীকরণ : আঙ্গুরে যদি সামান্য টক ভাব থাকে, তবে উক্ত তরল, ওয়াইন না হয়ে ভিনিগারে রূপান্তরিত হবে, প্লীজ আঙুর একটু ভালো দেখে কিনো, বেস্ট কোয়ালিটি- দাম দিয়ে। টক আঙুরে চিনি মিশিয়ে ওয়াইনকে ঠকানো যায় না।
    সমস্ত জিনিসপত্র খুব শুদ্ধ হওয়া চাই। মন ও শুদ্ধ হতে হবে।
    স্যাঁৎসেঁতে আবহাওয়ায় নৈব নৈব চ।

  • sup | 82.36.89.196 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৪:১৮634081
  • J,
    আজ এবঙ্গ সপ্তাহান্তে বেশ কিছু রেসিপি (আপনার দেওআ )চেষ্টা করব।
    সোমবার এ এ বলব কি হোলো ও কেমন হোলো..?
  • J | 160.62.4.10 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৪:২৩634082
  • sup,
    প্রাণ নিজ দায়িত্বে রাখিবেন।
    রেসিপি নিজ দায়িত্বে রাঁধিবেন।
    সোমবার থেকে নাম পাল্টে, আইপি অ্যাড্রেস পাল্টে আসব।
  • sup | 82.36.89.196 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৪:৩২634083
  • সার্ডিন দিয়ে তেঁতুল টক
    ---------------------
    সার্ডিন ভালো ক'রে আঁশ ছাড়িয়ে,কানকো ইত্যাদি পরিষ্কার করে খুব ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে।নুন হলুদ মাখিয়ে কিছুক্ষন রাখতে হবে।জলে তেঁতুল ভিজিয়ে কিছুক্ষন রেখে ক্কাথ টা নিতে হবে।মাছ গুলোকে ভেজে নিতে হবে(খুব কড়া করে নয় কিন্তু!)।এবার কড়ায় তেল গরম কোরে পাঁচফোড়ন ,কাঁচা লংকা ও সামান্য হলুদ দিতে হবে।তাপ্পর তেঁতুল এর ক্কাথ ও পরিমান মত জল দিয়ে চাপা দিয়ে একটু ফুটতে দিতে হবে।স্বাদ অনুযায়ী নুন দিয়ে মাছ গুলোকে কড়ায় ছাড়তে হবে,ভালো কোরে ফুটে গেলে,নামিয়ে নিলে ই ব্যাস ready
    টক ও নুন এর পরিমাণ,পছন্দ অনুযায়ী দেওয়া ই ভালো
  • sup | 82.36.89.196 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৪:৩৬634084
  • J
    কেন কেন কেন??
    তবে কি...
    ঠিক আছে ভালো লাগলে তবে ই বলব নাহলে কিচ্ছু বলবো না।নাম টাম পাল্টাতে হবে না।
  • Parolin | 213.94.228.210 | ২১ জুলাই ২০০৬ ১৪:৩৮634086
  • আচ্ছা এই তেঁতুল দিয়ে টকটা কি ঘটি স্পেসিফিক ? আমার বাঙ্গাল শ্বশুড়বাড়ির কেউ ই এটা কখোনো করে না , ওরা করে কাঁচা আম দিয়ে মাছের টক।
    এই টক টা ইলিশ দিয়ে করলেও অদ্ভুত ভালো খেতে হয় কিন্তু।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভেবেচিন্তে প্রতিক্রিয়া দিন