• টইপত্তর  অন্যান্য

  • পুরোনো বাংলার ছড়াগুলি

    Parolin
    অন্যান্য | ২০ জুন ২০০৬ | ৮৯৬৬ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • dri | 199.106.103.254 | ২১ জুন ২০০৬ ০৩:০৭603072
  • আচ্ছা আরেকটা ছিল না?

    গলা জলে ডোবা কলা বউ আমি তলা খসে যাওয়া বালতি
    যে আমার করে উপকার তার বাবা তুলে আমি গাল দি
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ০৪:২৬603073
  • কাজের ছেলে
    যোগীন্দ্রনাথ সরকার

    'দাদখানি চাল, মুসুরির ডাল,
    চিনি-পাতা দই,
    দুটা পাকা বেল, সরিষার তেল,
    ডিম ভরা কই'।
    পথে হেঁটে চলি, মনে মনে বলি,
    পাছে হয় ভুল;
    ভুল যদি হয়, মা তবে নিশ্চয়,
    ছিঁড়ে দেবে চুল।
    'দাদখানি চাল, মুসুরির ডাল,
    চিনি-পাতা দই,
    দুটা পাকা বেল, সরিষার তেল,
    ডিম ভরা কই'।
    বাহবা বাহবা- ভোলা ভুতো হাবা
    খেলিছে তো বেশ!
    দেখিব খেলাতে কে হারে কে জেতে কেনা হলে শেষ।

    'দাদখানি চাল মুসুরির ডাল,
    চিনি-পাতা দই,
    ডিম ভরা বেল, দুটা পাকা তেল,
    সরিষার কই।'
    ঐ তো ওখানে ঘুড়ি ধরে টানে,
    ঘোষেদের ননী;
    আমি যদি পাই তা হলে উড়াই,
    আকাশে এখনি!
    'দাদখানি তেল, ডিম ভরা বেল,
    দুটা পাকা দই,
    সরিষার চাল, চিনি পাতা ডাল,
    মুসুরির কই।'
    এসেচি দোকানে- কিনি এইখানে,
    যতকিছু পাই;
    মা যাহা বলেছে ঠিক মনে আছে,
    তাতে ভুল নাই।
    'দাদখানি বেল, মুসুরির তেল,
    সরিষার কই,
    চিনি পাতা চাল, দুটা পাকা ডাল,
    ডিম ভরা দই।'
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ০৪:৩৬603074
  • মজার মুল্লুক
    যোগীন্দ্রনাথ সরকার

    এক জে আছে মজার দেশ,
    সব রকমে ভালো,
    রাত্তিরেতে বেজায় রোদ,
    দিনে চাঁদের আলো!

    আকাশ সেথা সবুজ বরণ,
    গাছের পাতা নীল;
    ডাঙায় চরে রুই কাতলা
    জলের মাঝে চিল!

    সেই দেশেতে বেড়াল পালায়
    নেংটি ইঁদুর দেখে;
    ছেলেরা খায় 'ক্যাস্টর-অয়েল'
    রসগোল্লা রেখে!

    মন্ডা -মিঠাই তিতো সেথা
    ওষুধ লাগে ভালো;
    অন্ধকারতা সাদা দেখায়,
    সাদা জিনিস কালো!

    ছেলেরা সব খেলা ফেলে
    বই নে বসে পড়ে;
    মুখে লাগাম দিয়ে ঘোড়া
    লোকের পিঠে চড়ে!

    ঘুড়ির হাতে বাঁশের লাটাই,
    উড়তে থাকে ছেলে;
    বঁড়শি দিয়ে মানুষ গাঁথে,
    মাছেরা ছিপ ফেলে!

    জিলিপি সে তেড়ে এসে
    কামড়ে দিতে চায়;
    কচুরি আর রসগোল্লা
    ছেলে ধরা খায়!

    পায়ে ছাতি দিয়ে লোকে
    হাতে হেঁতে চলে;
    ডাংআয় ভাসে নৌকা জাহাজ,
    গাড়ি ছোটে জলে!

    মজার দেশের মজার কথা
    বলব কত আর;
    চোখ খুললে জায় না দেখা
    মুদলে পরিষ্কার!
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ০৪:৫১603075
  • হারাধনের সেই যে ছেলে
    গিয়েছিল বনে,
    সাপে-খাওয়া ভায়ের দেখা
    পেলে ওঝার সনে।

    হারাধনের দুইটি ছেলে
    বেড়ায় হেসে খেলে;
    মাছের পেটে পায় মেছুনি
    মাছে গেলা ছেলে।

    হারাধনের তিনটি ছেলে
    ওষুধ নিয়ে আসে;
    আছাড় খেয়ে মরা ছেলে
    চক্ষু মেলে হাসে।

    হারাধনের চারটি ছেলে
    বাঘ শিকারে যায়;
    বাঘে-খাওয়া ভাইকে তারা
    বাঘের পেটে পায়।

    হারাধনের পাঁচটি ছেলে
    তা ধেই ধেই নাচে;
    পিছলে পড়ে মরা ছেলে
    হাসপাতালে বাঁচে।

    হারাধনের ছয়টি ছেলে
    খেলছে সাঁতার-বাজি;
    জলে ডোবা ছেলেটিকে
    তুললে করিম গাজি।

    হারাধনের সাতটি ছেলে
    দরজি ডেকে ঘরে,
    পেট-ফাটা সে ভায়ের পেটে
    রিপু(ফু)কর্ম করে।

    হারাধনের আটটি ছে্‌হলে
    সুখদু:খের সাথি;
    কাটা ছেলে লাগায় জোড়া
    হরে জোলার নাতি।

    হারাধনের নয়টি ছেলে
    বনের মাঝে যায়,
    হারিয়ে জাওয়া ভাইকে শেষে
    চোরের ঘরে পায়।

    হারাধনের দশটি ছেলে
    চোরকে গেল তেড়ে;
    চুলের ঝুঁটি ধরে দিল
    কানটি কেটে ছেড়ে।
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ০৪:৫৮603076
  • মামার বাড়ি

    মামাদের দরজায়
    বাঘা থাকে এক;
    তেড়ে নাহি আসে, নাহি
    করে ভেক ভেক!

    মামাদের পুকুরেতে
    আছে বড় রুই;
    পশু আর মাছে মিলে
    একে একে দুই।

    মামাদের বাগানেতে
    চরিছে হরিণ;
    দুই পশু, এক মাছ-
    দুয়ে একে তিন।

    মামাদের রাঙা গরু
    কিবা রূপ তার;
    তিন পশু, এক মাছ-
    তিনে একে চার।

    মামাদের বানরের
    কী মজার নাচ;
    চার পশু, এক মাছ-
    চারে একে পাঁচ।

    মামাদের সাদা ভেড়া
    উঠানেতে রয়;
    পাঁচ পশু, এক মাছ-
    পাঁচে একে ছয়।

    মামাদের খরগোশ
    চাটে এসে হাত;
    ছয় পশু, এক মাছ-
    ছয়ে একে সাত।

    মামাদের পোষা মেনি
    যেন বড়োলাট!
    সাত পশু, এক মাছ-
    সাতে একে আট।

    মামাদের রাজহাঁস
    পুকুরেতে রয়,
    পশু পাখি মাছে মিলে
    আটে একে নয়।

    মামাদের চাকরের
    হয়েছে বয়স,
    সবে তারে ভালোবাসে
    নয়ে একে দশ।
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ০৪:৫৯603077
  • সূত্র: চিরকালের সেরা-যোগীন্দ্রনাথ সরকার। শিশু সাহিত্য সংসদ।
    হাশিখুশি ১ আর ২-তেও পাওয়া যাবে।
  • tan | 131.95.121.251 | ২১ জুন ২০০৬ ০৫:১৫603078
  • ওহ্‌হ ইন্দ্রানীদি,আজ প্যারাডাইস রিগেইনড!
    হারাধনের সেই সব ছেলেরা... ফিরে এসেছে...
    আমার সেই দু:খী বন্ধুনী যদি আজ এখানে থাকতো! ও কিনা খুব দু:খ পেতো হারাধনের ছেলেদের বিয়োগের ছড়া পড়ে!আজ সব দু:খ ওর দিব্যি ধুয়ে যেতো!
    অনেক শুভেচ্ছা অনেক ধন্যযোগ অনেক অনেক কি বলবো...

  • dri | 199.106.103.254 | ২১ জুন ২০০৬ ০৭:৪৪603079
  • আচ্ছা,

    আতা গাছে তোতা পাখি
    ডালিম গাছে মৌ

    এর পরের দুটো লাইন

    এত ডাকি তবু কথা
    কও না কেন বৌ

    না?
  • Paramita | 64.105.168.210 | ২১ জুন ২০০৬ ০৮:২০603080
  • এরা সব লিখে ফেলেছে - আমার জন্যে কিচ্ছু রাখেনি গো
  • Paramita | 64.105.168.210 | ২১ জুন ২০০৬ ০৯:১৩603082
  • পার্বতীর ছড়া
    অন্নদাশংকর রায়

    এক যে ছিল পার্বতী
    ফার্বতী
    মার্বতী
    ধার্বতী

    তার যে ছিল বেড়ালটা
    ফেরালটা
    ভেরালটা
    মেড়ালটা

    মেড়ালটাকে ধরতে যাই
    একটু আদর করতে চাই
    ওমা তখন পার্বতী
    পার্বতী না ফার্বতী
    ফার্বতী না মার্বতী
    কেড়ে নিল বেড়ালটা
    বেড়ালটা না ফেরালটা
    ফেরালটা না ভেরালটা
    অমন বেড়াল চাইনে
    ওদের বাড়ী যাইনে।

    পার্বতী ও পার্বতী
    দেখি না ভাই বেড়ালটা!

  • Riju | 203.197.96.50 | ২১ জুন ২০০৬ ১০:০৮603083
  • ধন্যবাদ এরকম একটা দারুন থ্রেড শুরু করার জন্যে।
    জনতা সব ই তো লিখে দিয়েছে । জানিনা এটা কেউ লিখেছে কি না তাও লিখি -
    খোকা যাবে বে করতে সঙ্গে যাবে কে
    ঘরে আছে হুলো বেড়াল কোমর বেঁধেছে
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ১১:৩০603084
  • কোথায় আমার চাঁদমণি
    মিষ্টিহাসির মুখখানি
    ঝাঁপিয়ে কোলে আয় দেখি মা
    গাল ভরে দি হাজার চুমা
  • indrani | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ১১:৩৫603085
  • এক যে আছে একানড়ে
    বাড়ি তার তালগাছ পরে
    যে ছেলেটা কাঁদে
    তারে ঝুলির ভেতর বাঁধে
    গাছের ওপর চড়ে
    আর তুলে আছাড় মারে।
  • i | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ১১:৩৯603086
  • এই থ্রেডে উল্লেখিত অনেক ছড়াই পাবেন ছড়া ও ছবি বইতে-৪টি পাতলা বই-৪টি পর্ব। শিশু সাহিত্য সংসদ।
  • i | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ১১:৪২603087
  • মরুজাহাজ মরুজাহাজ
    চলল উটের কুচকাওয়াজ
    উটের পিঠে বাক্স ঝুড়ি
    তার ওপরে একটি বুড়ি
    বুড়ির কোলে শিশু
    কেউ জানে না বড় হয়ে হলেন তিনি যীশু।
  • i | 130.155.48.169 | ২১ জুন ২০০৬ ১১:৫৭603088
  • নাম কি রে তোর?
    গ্রাম মূলাজোড়।
    নিবাস কোথায়?
    নীলমণি রায়।
    কি কাজ করিস?
    তা প্রায় ঊনিশ।
    বয়স কত?
    চালাই অটো।
  • ® | 203.197.96.50 | ২১ জুন ২০০৬ ১২:১৩603089
  • "খোকা যাবে মাছ ধরতে" টাও আরেকটা ভার্সন
  • vikram | 134.226.1.136 | ২১ জুন ২০০৬ ১৩:৪৮603090
  • তোর নাম কি রে?
    আমি খোকা।
    মাথায় কি রে?
    আমের ঝাঁকা।
    খাস নে কেনো রে?
    দাঁতে পোকা।
    বিলোস রে কেনো রে?
    ওরেব্বাবা!

    বিক্রম
  • *.*p | 203.200.40.194 | ২১ জুন ২০০৬ ১৫:৩৪603091
  • ইন পিন সেপটিপিন,ইন পিন আউট,টেক ইওর হকিস্টিক এন্ড গেট আউট।

    ঘুম যায় ঐ চাঁদ মেঘপরিদের সাথে
    সূর্য ডোবার পালা এখন ----ফরগট---ঘনায় নিশিরাতে---( এটা গোঁজামিল)
  • dam | 208.251.193.3 | ২১ জুন ২০০৬ ১৬:২৬603094
  • সুখ নেইকো মনে
    নাকছাবিটি হারিয়ে গেছে হলুদ বনে বনে।

    এটা কি ছড়া না কবিতা না প্রবাদ?
  • Somnath | 59.145.225.101 | ২১ জুন ২০০৬ ১৬:৫৫603095
  • পথের পাঁচালী অবধি মনে আছে, আর গান। দুর্গা ও ইন্দির ঠাকরুন।
  • Tirthankar | 130.207.94.244 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৩৩603096
  • আচ্ছা, এটা কেউ লেখেনি বলে মনে হচ্ছে -

    আঁটুল বাঁটুল শামলা শাঁটুল
    শামলা গেছে হাটে
    শামলাদের মেয়েগুলো পথে ব'সে কাঁদে
    আর কেঁদো না, আর কেঁদো না
    ছোলা ভাজা দেবো
    আবার যদি কাঁদো তবে তুলে আছাড় দেবো।

  • Tirthankar | 130.207.94.244 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৩৬603097
  • গড়গড়ার মা লো, তোর গড়গড়াটা কই?
    হালের গরু বাঘে খেয়েছে, পিঁপড়ে টানে মই।
  • tan | 131.95.121.251 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৩৭603098
  • ভোর হলো দোর খোলো
    খুকুমণি ওঠো রে,
    ঐ ডাকে জুঁইশাখে
    ফুলখুকী ছোট রে।

    তারপরে?????
  • tan | 131.95.121.251 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৩৮603099
  • রবিমামা দেয় হামা
    গায়ে রাঙা জামা ঐ,
    দারোয়ান গায় গান
    রামা হৈ রামা হৈ।
  • Tirthankar | 130.207.94.244 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৪৬603100
  • এটা কাজীসাহেবের লেখা না? নজরুল ধরলে অবিশ্যি অনেক ছড়াই হুড়মুড়িয়ে চলে আসবে - লিচু চোর, কাঠবেড়ালি, খাঁদু-দাদু ... অগুন্তি।
  • kali | 160.36.205.19 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৫০603101
  • রাশিয়ান ছড়া দেবো বলেছিলাম।এখন শুধু সেই বহুবার বলা গোলরুটি আর কেঠো পা ভালুকই মনে পড়ছে।তাই লিখলাম।

    ছোট্ট গোল রুটি
    চলেছি গুটি গুটি
    গমের ধামা চেঁছে
    ময়দার টিন মুছে
    ময়ান দিয়ে ঠেসে
    ঘি দিয়ে ভেজে
    জুড়োতে দিলো যেই
    পালিয়ে এলাম সেই
    বুড়ো পেলোনা
    বুড়ি পেলোনা
    খরগোশ পেলো না
    নেকড়ে পেলো না
    ভালুক পেলোনা
    সেয়ানা শেয়াল তুইও পাবি না।

    আর,

    গরর গরর গুরুক
    আমি কেঠো পা ভালুক
    সবাই রয়েছে ঘুমিয়ে
    আমি চলি শুধু খুঁড়িয়ে
    বুড়ি হোথা ঐ জাগছে
    আমারই গায়ের ছাল পেতে বসে
    লোম দিয়ে সুতো কাটছে
    স্পর্ধা দেখেছো বুড়িটার?
    আমারই পায়ের মাংস রাঁধছে
    বসে বসে খাবে বুড়ো তার।
  • kali | 160.36.205.19 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৫৭603102
  • আর হলদে ঝুঁটি মোরগটির গল্পে শেয়ল এসে গান গাইতো,

    ছেলে মেয়েরা এ পথ দিয়ে চলে গিয়েছে
    যেতে যেতে বাদাম গুলো ছড়িয়ে পড়েছে
    মুরগীর দল খুঁটে খুঁটে খেতে লেগেছে
    মুরগীর দল মোরগদের বাদ দিয়েছে।

    এইই গানে দ্বিতীয় দিন কাজ না হলে 'ছেলে মেয়ে'দের বদলে লোকজনেরা আর বাদামের বদলে গমের দানা করে গাইতো।

    এই ছড়ার আরেকটা ভার্সন আছে, তাতে শেয়াল গাইছিলো

    মোরগ ভায় মোরগ ভায়া
    মাথায় ঝুঁটি,হলুদ ছায়া।
    তেল চকচক তোমার গা
    রেশমী তোমার দাড়িটা।
    জানলা দিয়ে মুখ বাড়াও,
    মটরশুঁটি নিয়ে নাও।

    আর বেড়ল যখন শেয়ল ধরতে গেলো,তখন ছিলো:

    ত্রিমত্রিম বাজনদার
    বোল তুলেছে সোনার তার
    শেয়াল বোন কি আছে ঘরে?
    গুটিসুটি কোটর জুড়ে?

    কিম্বা,

    ত্রিম ত্রিম বাজন-যন্ত্র গাইছে সোনার সুর,
    শেয়াল বোন কি ঘরে আছে? নাকি গেছে অনেক দূর?
  • kali | 160.36.205.19 | ২১ জুন ২০০৬ ২০:৫৯603103
  • আর যেটা না দিলেই নয় :

    সিভকা বুর্কা,
    জাদুকা লেড়কা
    চেকনাই ঘোড়া
    সামনে এসে দাঁড়া।

    আর,

    পাপড়ি আমার যা উড়ে যা
    পূব পশ্চিম যা ঘুরে যা
    যা উত্তর ,যা দক্ষিণ
    সাঙ্গ করে প্রদক্ষিণ
    যেই না এসে পড়বি ভুঁয়ে
    ইচ্ছে উঠুক সফল হয়ে।
  • Tirthankar | 130.207.94.244 | ২১ জুন ২০০৬ ২১:০০603106
  • অ-মা, তোমার বাবার নাকে কে মেরেছে ল্যাং?
    খাঁদা নাকে নাচছে নাদা, নাক-ড্যাঙা-ড্যাং-ড্যাং

    দাদুর নাকি ছিল না মা অমন চ্যাপ্টা নাক
    ঘুম দিলে ঐ ভীষণ নাকেই বাজত সাতটা শাঁখ
    দিদিমা তাই থাবড়া মেরে ধ্যাবড়া করেছেন
    অ-মা, আমি হেসে মরি, নাক-ড্যাঙা-ড্যাং-ড্যাং

    দাদু বুঝি চীনেম্যান মা, নাম বুঝি চাংচু?
    তাই বুঝি ওঁর নাকটা অমন চ্যাপ্টা সুধাংশু?
    জাপান দেশের নোটিস উনি নাকে এঁটেছেন
    অ-মা, আমি হেসে মরি, নাক-ড্যাঙা-ড্যাং-ড্যাং

    বাকি স্ট্যানজাগুলো আর মনে নেই .. সঠিক সিকোয়েন্সটাও।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে মতামত দিন