• টইপত্তর  অন্যান্য

  • আগামীর অবয়ব

    dri
    অন্যান্য | ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১১ | ১০৩২১৯ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • দ্রি | 162.158.158.180 | ০২ মে ২০২০ ২১:০৭731023
  • US Hospitals Getting Paid More to Label Cause of Death as ‘Coronavirus’

  • দ্রি | 162.158.159.53 | ০২ মে ২০২০ ২১:১২731024
  • ডঃ ফাউচি জুডি মিকোভিৎজের পেছনে লেগে তাঁর কেরিয়ার বরবাদ করে দিয়েছিলেন, জেলে পাঠিয়েছিলেন। জুডি মিকোভৎ্জের ইন্টারভিউ।

  • ar | 162.158.62.152 | ০২ মে ২০২০ ২১:১৬731025
  • Project Veritas:

    Project Veritas is an American right-wing activist group.
    The group is known for producing deceptively edited videos about media organizations and left-leaning groups. In a 2018 book on propaganda and disinformation in U.S. politics, three Harvard University scholars refer to Project Veritas as a "right-wing disinformation outfit".

    In March 2020, The New York Times published an exposé detailing Project Veritas' use of spies recruited by Erik Prince, to infiltrate "Democratic congressional campaigns, labor organizations and other groups considered hostile to the Trump agenda". The Times piece notes O'Keefe's and Prince's close links to the Trump administration, and details contributions such as a $1m transfer of funds from an undisclosed source to support their work. The findings were based in part on discovery documents in a case brought by the American Federation of Teachers, Michigan, which was infiltrated by Project Veritas.

    https://en.wikipedia.org/wiki/Project_Veritas

    Project Veritas: how fake news prize went to rightwing group beloved by Trump

    https://www.theguardian.com/us-news/2017/nov/29/project-veritas-how-fake-news-prize-went-to-rightwing-group-beloved-by-trump
  • দ্রি | 162.158.158.214 | ০২ মে ২০২০ ২১:২১731026
  • একটা অদ্ভুত কথা জানতে পারলাম। সিডিসি কিন্তু গভর্মেন্ট এজেন্সি (রান বায় ট্যাক্সপেয়ার মানি) নয়। ইট ইজ আ প্রাইভেট (ফর-্প্রফিট) কোম্পানী। সেই জন্যই এটা ভ্যাক্সিন কোম্পানী, ফার্মা কোম্পানীর হয়ে ব্যাটিং করে।
  • দ্রি | 162.158.158.220 | ০২ মে ২০২০ ২১:২৫731027
  • ভেরিটাস রাইট উইং অফ কোর্স। স্পাই কাজে লাগায়, শিওর। কিন্তু আপাতত প্রশ্ন হল, স্পাই কাজে লাগিয়ে যেটা বার করেছে সেটা ট্রু, না ফল্স। দিস ইজ আ ভেরি ইম্পর্ট্যান্ট থিং।

    একটা কথা সত্যি না মিথ্যে ইজ মোর ইম্পর্ট্যান্ট দ্যান হোয়েদার ইট ইজ কামিং ফ্রম আ রাইট উইং অর লেফট উয়িং সোর্স।
  • দ্রি | 162.158.158.142 | ০২ মে ২০২০ ২১:৩৩731029
  • এগেইন, আমার একটাই কথা। জুডি যা বলছেন, সেটা সত্যি না মিথ্যে। সত্যি যদি হয়, সেটা স্ক্যান্ডালাস।
  • দ্রি | 162.158.159.127 | ০২ মে ২০২০ ২১:৫৮731030
  • ইন্ডিয়ান মিডিয়ায় উহানের ল্যাব থেকে ভাইরাস এসেছে কিনা সেটা অলোচনা করতে গিয়ে আর প্রসন্নন তুলে আনলেন একটি পুরনো কনস্পিরেসি থিওরি অ্যাবাউট অ্যান ওল্ড আউটব্রেক।

    During the 1994 plague outbreak in Surat and Beed, it was found that the germs had an extra protein ring which could only have been inserted artificially. Indian scientists had raised concerns about a US biowar experiment having gone awry. THE WEEK had carried reports giving details of germ war reseach being carried on in labs under the Centre for Disease Control in Atlanta and about a newly developed germ detector being tested. The US embassy had denied the allegations. There were also reports that the Surat germ could have been developed in a lab in Almaty, Kazakhstan.

    https://www.theweek.in/theweek/cover/2020/01/31/genie-from-a-war-lab.html
  • S | 162.158.107.96 | ০২ মে ২০২০ ২৩:৪৯731034
  • সিডিসি ফেডারাল সরকারি এজেন্সি। ডেপার্টমেন্ট অব হেলথ আর হিউমান সার্ভিসেসের আন্ডারে। ওয়েবসাইট সিডিসি ডট গভ।
  • s | 173.245.54.146 | ০৩ মে ২০২০ ০০:৪০731035
  • CDC একটি ফেডেরাল এজেন্সি। তবে ফেডেরাল এজেন্সি হলেই এ সেটা পুরোপুরি ট্যাক্সপেয়ার ডলারে চলবে তা নয়।
  • s | 172.69.63.242 | ০৩ মে ২০২০ ০০:৪৮731036
  • আর CDC রেগুলেটরি এজেন্সি নয়। মানে ভ্যাকসিন বা ড্রাগ প্রোডাক্টস আর রেগুলটেড বাই FDA। এতে CDC র কোনো রোল নেই। CDC র কাজ পাবলিক হেঅল্থ পলিসি রেকমেন্ড আর ইম্প্লিমেন্টেশন করা।
  • সম্বিৎ | ০৩ মে ২০২০ ০১:৪৫731037
  • আরেক মিথ্যেবাদী আল্ট-রাইট কনস্পিরেসি থিওরিস্টের নতুন মিথ্যের ভান্ডার থেকে মণিমুক্তো আসতে শুরু করেছে - justthenews

    John Solomon, the controversial conservative journalist whose newspaper columns in The Hill helped spread conspiracy theories cited in the anonymous whistleblower complaint that led to President Donald Trump’s impeachment, is launching a new media venture, Just the News.

    https://www.mediaite.com/news/john-solomon-who-helped-spread-conspiracy-theories-about-ukraine-launching-a-site-devoted-to-facts/

  • দ্রি | 162.158.91.142 | ০৩ মে ২০২০ ০২:৪১731038
  • 'ফেডারাল এজেন্সি' কথাটার মানে কী?

    উইকি বলছে,

    Legislative definitions of a federal agency are varied, and even contradictory, and the official United States Government Manual offers no definition.

    https://en.wikipedia.org/wiki/List_of_federal_agencies_in_the_United_States

    আমেরিকায় ফেডারাল এজেন্সি প্রাইভেট হতে পারে। উদাহরণ, ফেডারাল রিজার্ভ। এই ব্যাপারটা একটু কনফিউজিং এবং হজম করা একটু শক্ত।

    যাই হোক, সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশান ডান অ্যান্ড ব্রাডস্ট্রীটে লিস্টেড একটা কোম্পানী (কর্পোরেশান সাবসিডিয়ারি)।

    https://www.dnb.com/business-directory/company-profiles.centers_for_disease_control_and_prevention.0348cac60c2dba7ce46504f1c3d9c920.html

    এরা কিছু ফেডারাল ফান্ডস পায় (যেমন ডিফেন্স কোম্পানীগুলোও পায় অস্ত্র কেনার সময়)। বিশেষ হেলথ ইমার্জেন্সির সময়। কিন্তু এদের অন্য সোর্স অফ ইনকাম আছে।

    সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশান একটা কোম্পানী যার অ্যাসোসিয়েটেড নন প্রফিট অর্গানাইজেশানের নাম সিডিসি ফাউন্ডেশান। এতে ডোনেশান দেয় গেটস ফাউন্ডেশান, গ্যাভি (গেটস যার অন্যতম ডোনার), গ্ল্যাক্সো (যে আগে গিলিয়াডের পেটেন্ট করা ট্যামিফ্লু ম্যানুফ্যাকচার এবং মার্কেটিং করেছিল), মার্ক, ইউনিভার্সিটি অফ নর্থ ক্যারোলাইনা, চ্যাপেল হিল (যাদের উহান ল্যাবের সাথে ভালো কোলাবরেশান এবং প্রচুর পেপার টেপার আছে), ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশান ইত্যাদি।

    https://www.cdcfoundation.org/FY2019/organizations

    এই অর্গানাইজেশানের বোর্ড মেম্বারের মধ্যে আছেন ব্লু শিল্ড ইন্সুরেন্স কোম্পানীর সিইও।

    https://www.cdcfoundation.org/FY2019/board

    সুতরাং পুরো অ্যারেঞ্জমেন্টের মধ্যে কনফ্লিক্ট অফ ইন্টারেস্ট আছে। আমেরিকান পাবলিকের হেলথ, নাকি বিভিন্ন লবির ইন্টারেস্ট।
  • দ্রি | 162.158.91.248 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:০২731039
  • ন্যাড়াদা, আপনার মেডিটেট তো ক্লেম করছে,

    His stories for The Hill alleged, among other things, that Joe Biden conspired to dethrone a Ukrainian prosecutor in order to protect his son from being investigated and that Ukraine interfered in the 2016 election.

    এটা তো একদম নির্জলা সত্যি কথা। বাইডেন তো এইকথা কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশানসের মিটিং খুবই বড়াই করে বলেছেন। তার ভিডিওও আছে।

    ইউক্রেনে এই ইনভেস্টিগেশান আবার রিওপেনড হয়েছে।
  • S | 162.158.106.71 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:০৩731040
  • ফেডারাল এজেন্সি প্রাইভেট হয়্না কখনই। ইন্ডিপেন্ডেন্ট হতে পারে। এই পার্থক্যটা বোঝা যে কনফিউজিং এবং হজম করা শক্ত, সেটা উপরের পোস্ট পড়েই বোঝা গেল।

    ফেডারাল রিজার্ভের কোনও মালিকানা নেই। কারণ ফেডের শেয়ার কাউকে বিক্রি করা হয়নি। এটা ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফেডারাল এজেন্সি। মানে প্রেসিডেন্ট দ্বারা চালিত ফেডারাল গভের মধ্যে নয়। ফলে ফেডারাল রিজার্ভের কাজকর্মে প্রেসিডেন্ট নাক গলাতে পারেনা। প্রেসিডেন্ট আদেশ দিতে পারেনা ইটারেস্ট রেট বাড়ানো-কমানোর ব্যাপারে বা মানি সাপ্লাইয়ের ব্যাপারে।

    কঙ্গ্রেসের ফেডারাল রিজার্ভ অ্যাক্ট অনুসারে ফেডের জন্ম। এর গভর্ণরা সবাই প্রেসিডেন্ট দ্বারা অ্যাপয়েন্টেড (সেই অ্যাক্ট অনুযায়ীই)। এবং ফেডারাল রিজার্ভ তার কাজ কর্মের জন্য একমাত্র কঙ্গ্রেসের কাছেই অ্যাকাউন্টেবল।

    আমাদের দেশেও এরকম অনেক এন্টিটি আছে যেগুলো ইন্ডিপেন্ডেন্ট সরকারি বডি। যেমন আর বি আই বা নির্বাচন কমিশান। এর প্রধানদের প্রধানমন্ত্রী বা রাষ্ট্রপতি অ্যাপয়েন্ট করে বটে, কিন্তু সরকার এদের কাজকর্মের নির্দেশ দিতে পারেনা। এছাড়া বহু সারকারি কলেজ ইউনিভার্সিটি আছে যেগুলো সরকারি সংস্থা হলেও ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

    এগুলো তো জানতে হবে। কঠিন কিছুই তো নয়।
  • দ্রি | 162.158.93.20 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:১৮731041
  • ফেডারাল রিজার্ভের কোন মালিকানা নেই। কিন্তু ১২টা রিজিওনাল ফেডারাল রিজার্ভের মালিকানা আছে।
  • S | 162.158.106.161 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:১৮731042
  • এখানে একটা জিনিস ক্লিয়ার করে দিই নইলে লোকে চিল্লাতে শুরু করবে।

    ফেডারাল রিজার্ভের স্টক আর প্রাইভেট কোম্পানির স্টকের মধ্যে পার্থক্য আছে। ফেডারাল রিজার্ভের "স্টক" বহু প্রাইভেট কমার্শিয়াল ব্যান্কের কাছে আছে বটে (মেম্বারশিপ ব্যান্ক) কিন্তু সেটার মানে হল তারা শুধুমাত্র ফেডারাল গভকে ক্যাপিটাল সাপ্লাই করে (ডিভিডেন্ডের পরিবর্তে)। কিন্তু কোনও কন্ট্রোল নেই।

    মানে আমি আপনি যখন কোনও ব্যান্কে টাকা রাখি তখন যেমন তাদেরকে আমরা ক্যাপিটাল দিচ্ছি তাদের অপারেশনের জন্য এবং সুদ পাই সেরকম। আপনি গিয়ে স্টেট ব্যান্কের কিচ্ছু পরিবর্তন করতে পারেব্ন না।
  • দ্রি | 172.68.142.208 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:৩৭731043
  • "তারা শুধুমাত্র ফেডারাল গভকে ক্যাপিটাল সাপ্লাই করে (ডিভিডেন্ডের পরিবর্তে)।"

    একদম ঠিক। এবার প্রশ্ন হল, কোন ব্যাঙ্কের ক্ত স্টক, এবং সেই ব্যাঙ্কগুলো কারা কন্ট্রোল করে। মোট কত ডিভিডেন্ট কারা পায়। কে যেন একবার সাজেস্ট অরেছিল, ফেডারাল রিজার্ভের একটা অডিট হোক।
  • S | 108.162.245.81 | ০৩ মে ২০২০ ০৩:৫১731044
  • স্ট্যাটুটরি ডিভিডেন্ড রেট হল ৬% ফিক্সড। বিভিন্ন ব্যান্ক যেমন ক্যাপিটাল দিয়েছে, তাদের কাছে তেমনি "স্টক" আছে বা মেম্বারশিপ রয়েছে। এই ব্যান্কগুলো ফেডারাল রিজার্ভকে কন্ট্রোল করতে পারেনা, করেও না। এই কারণেই ফেডারাল গভেরও কোনও কন্ট্রোল নেই। প্রতি বছর খরচ এবং স্ট্যাটুটরি ডিভিডেন্ডের পর ফেডারাল রিজার্ভ যে লাভটুকু করে সেটা ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টকে (যেটা সরকারি এজেন্সি এবং প্রেসিডেন্টের আন্ডারে) ফিরত দেয়।
  • s | 172.69.63.242 | ০৩ মে ২০২০ ০৬:৫৬731045
  • উইকি বলছে-
    The executive branch of the federal government includes the Executive Office of the President and the United States federal executive departments (whose secretaries belong to the Cabinet). Employees of the majority of these agencies are considered civil servants.

    কিছু কিছু ইন্ডিপেন্ডেন্ট এজেন্সি আছে যেমন লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস, সেগুলো লেজিসলেশন অনুসারে ঠিক হয়। কিন্তু CDC আমেরিকার এক্সিকিউটিভ ব্রান্চের আন্ডারে একটি এজেন্সি, অর্থাত ডাইরেক্টলি প্রেসিডেন্টের আন্ডারে। প্রেসিডেন্ট চাইলে যে কোন সময় CDC এর যে কোনো এমপ্লয়িকে ফায়ার করতে পারেন। এক্সিকিউটিভ ব্রান্চের আন্ডারে যে বড় এজেন্সি আছে তার মধ্যে একটি হচ্ছে DHHS বা ডিপার্টমেন্ট অফ হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসেস। HHS এর সেক্রেটারি প্রেসেডেন্টের ক্যাবিনেটের মেম্বার। এই HHS এর আন্ডারে একটি এজেন্সি হচ্ছে CDC। এছাড়াও FDA, NIH, IHS, AHRQ , CMS এরাও HHS এর আন্ডারে। এই সমস্ত এজেন্সিতে সাধারণত দু রকম এম্প্লয়ী থাকে। এক কেরিয়ার এমপ্লয়ী আর পলিটিকাল অ্যাপয়েন্টি, যাদের প্রেসিডেন্ট ডাইরেক্টলি অ্যাপয়েন্ট করে থাকেন। অ্যাডমিনিস্ট্রেশন চেন্জ হবার সাথে সাথে এই পলিটিকাল অ্যাপয়েন্টিরা চেন্জ হয়। সব ফেডেরাল এম্প্লয়িদের স্যালারি আসে মূলত কংগ্রেস অ্যাপ্রোপ্রিয়েশান থেকে। অ্যাপ্রোপ্রিয়েশনের বাংলা হচ্ছে ট্যাক্সপেয়ার ডলার। কিছু রেগুলেটরি এজেন্সি অ্যাপ্রোপ্রিয়েশান ছাড়াও অন্য কিছু মেকানিজম ইউজ করে আর্ন করতে পারে। যেরকম অনেক এজেন্সি ইউজার ফি নামক একটি ফি ইউজ করে। যদি সেই এজেন্সির এম্প্লয়িদের স্যালারি ইউজার ফি থেকে হয়, তাহলে গভর্ন্মেন্ট শাট ডাউন হলেও সে সব এম্প্লয়িরা ফার্লো হয় না।
    মোদ্দা কথা, CDC কর্পোরেট সাব্সিডিয়ারি হলে NASA, FBI, NIH সবাই কর্পোরেট সাবসিডিয়ারি এবং কর্পোরেশান হচ্ছে গিয়ে ইউএস গভর্নমেন্টের এক্সিকিউটিভ ব্রান্চ।

    "যাই হোক, সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশান ডান অ্যান্ড ব্রাডস্ট্রীটে লিস্টেড একটা কোম্পানী (কর্পোরেশান সাবসিডিয়ারি)।" - এই সাইটে তো বলছে আল্টিমেট পেরেন্ট ইউএস গভর্নমেন্ট।

    আর যে সব এজেন্সি বেসিক রিসার্চের সাথে যুক্ত তাদের অনেকেরি একটা ফাউন্ডেশান থাকে। NIH এর ও আছে। খুঁজলে সেখানেও দু চারজন ফার্মার লোক পাওয়া যাবে। CDC অনেক পাব্লিক হেল্থ রিসার্চ করে। এই ফাউন্ডেশান কোনোভাবেই গভর্নমেন্ট এন্টিটি নয় এবং এই ফাউন্ডেশানের বোর্ড মেম্বার বা এম্প্লয়িরা গভর্নমেন্ট এম্প্লয়ি নয়।
  • S | 162.158.106.173 | ০৩ মে ২০২০ ০৭:১৮731046
  • আমাদের সরকারি ইউনিভার্সিটিরও একটা ফাউন্ডেশান আছে, যারা ছাত্রদের জন্য স্কলারশিপের পয়সা জোগাড় করে। এই ফাউন্ডেশান সরকারের অধীনে নয়, এবং এখানকার সব মেম্বারই প্রাইভেট সিটিজেন এবং স্কুলের সাথে কোনও ডাইরেক্ট সম্পর্ক নেই।
  • dc | 172.69.134.248 | ০৩ মে ২০২০ ১১:০৫731049
  • এইত্তো ফক্স নিউজে বলেছে US Hospitals Getting Paid More to Label Cause of Death as ‘Coronavirus’

    এদ্দিন অবধি আমার এই সন্দেহটা হচ্ছিল, এবার অকাট্য প্রুফ পেয়ে গেলাম। করোনা বলে আসলে কিছুই হয়নি, স্রেফ ডিপ স্টেটের একটা কারসাজি। mh 370 এর যাত্রীদের মৃতদেহগুলো নিউ ইয়র্কে ফেলে দিয়ে করোনা নামে চালিয়ে দিচ্ছে যাতে লোকে সন্দেহ না করে। কিন্তু করোনা নাম কেন? কারন ফ্ল্যাট আর্থের উল্টোদিকে ডিপ স্টেটের একটা বিয়ার তৈরি করার কারখানা আছে, যার নাম করোনা। এই কারখানাটা আবার সেই স্টুডিওর পাশেই বানানো যেখানে ফেক মুন ল্যান্ডিং এর ভিডিও তোলা হয়েছিল। এবার বুঝেছেন তো ডিপ স্টেটের ষড়যন্ত্র কতো গভীর? ফক্স নিউজ দেখতে থাকুন, সব জানতে পারবেন।
  • S | 162.158.107.158 | ০৩ মে ২০২০ ২৩:৩৮731076
  • হাইড্রক্সক্লোরোকুইন নিয়ে ফক্স নিউজ যে মিথ্যা দাবী করেছিল তা সামনে এল।

    গতমাসে টাকার কার্লসন শোতে এক স্ট্যানফোর্ডের মেডিকাল স্কুলের অ্যাডভাইজারকে নিয়ে আসে যে দাবী করে যে নামি লোকেদের দ্বারা করা এক পিয়ার রিভিউড স্টাডিতে নাকি পাওয়া গেছে যে ম্যালেরিয়ার অষুধের ১০০% কাজে দিয়েছে।

    মিথ্যাঃ
    ১) সেই লোক মোটেই স্ট্যানফোর্ডের অ্যাডভাইজার নয়।
    ২) স্ট্যানফোর্ড এরকম কোনও স্টাডি করেনি।
    ৩) স্টাডি করা হয়েছে মোট ২০ জনের স্যাম্পেলে।
    ৪) এই স্যাম্পেলের মধ্যেও ৩ জন আইসিউতে যায় এবং শেষে একজন মারা যায়।

    সমস্যা হল এর পর থেকেই ট্রাম্পের মাথায় হাইড্রক্সক্লোরোকুইন ঢোকে।

    https://www.mediamatters.org/coronavirus-covid-19/comprehensive-guide-foxs-promotion-hydroxychloroquine-and-chloroquine

    https://www.washingtonpost.com/opinions/2020/04/23/why-are-fox-news-opinion-hosts-so-wrong-about-hydroxychloroquine/

    https://www.vanityfair.com/news/2020/03/trumps-touting-of-an-untested-coronavirus-drug-is-dangerous
  • দ্রি | 162.158.150.87 | ০৪ মে ২০২০ ০০:৩৯731078
  • "স্ট্যাটুটরি ডিভিডেন্ড রেট হল ৬% ফিক্সড। বিভিন্ন ব্যান্ক যেমন ক্যাপিটাল দিয়েছে, তাদের কাছে তেমনি "স্টক" আছে বা মেম্বারশিপ রয়েছে। এই ব্যান্কগুলো ফেডারাল রিজার্ভকে কন্ট্রোল করতে পারেনা, করেও না। এই কারণেই ফেডারাল গভেরও কোনও কন্ট্রোল নেই। প্রতি বছর খরচ এবং স্ট্যাটুটরি ডিভিডেন্ডের পর ফেডারাল রিজার্ভ যে লাভটুকু করে সেটা ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টকে (যেটা সরকারি এজেন্সি এবং প্রেসিডেন্টের আন্ডারে) ফিরত দেয়।"

    কিন্তু এই ব্যাঙ্কগুলো ফেডারাল রিজার্ভকে ক্যাপিট্যাল দিয়েছে কেন? এমন একটা এজেন্সিকে যার মানি ক্রিয়েটিং পাওয়ার রয়েছে, এবং ইন্টারেস্ট রেট সেট করার পাওয়ার রয়েছে।

    দ্বিতীয়ত, এই বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কারা? তাদের ক্যাপিট্যাল দেওয়ার প্রোপোর্শান কিরকম?

    ফেডারাল রিসার্ভ তো বেশ প্রফিটেবল এন্টারপ্রাইজ। ডিভিডেন্ট বাবদ মোট কত টাকা বিভিন্ন ব্যাঙ্কের কাছে যায়? এর শেষ অডিট কবে হয়েছে?
  • S | 108.162.246.184 | ০৪ মে ২০২০ ০০:৫৪731079
  • মানি ক্রিয়েটিং পাওয়ার ফেডের নেই। ট্রেজারির রয়েছে। ট্রেজারি একদম প্রেসিডেন্টের আন্ডারে।

    ক্যাপিটাল ছাড়া চলবে কোনও এজেন্সি কি করে? যেখানে এত বড় একটা এজেন্সি, ১২ টা রিজিওনাল এজেন্সি। সরকারের কাছ থেকে ক্যাপিটাল নিলে সরকার নাক গলাবে। যেটা এখন আরবিআইকে ভুগতে হচ্ছে।

    সবথেকে বড় কন্ট্রিবিউটার ব্যান্ক অব আমেরিকা, সিটি ব্যান্ক, ওয়াচোভিয়া, জেপি মর্গান - আমেরিকার সবথেকে বড় কমার্শিয়াল ব্যান্কগুলো। বাকি কমার্শিয়াল ব্যান্কগুলো-ও মেম্বার এবং কন্ট্রিবিউট করেছে।

    ফেডের অডিট হয় প্রত্যেক বছর। গভর্ণমেন্ট অ্যাকাউন্টেবিলিটি অফিস (কঙ্গ্রেসের) প্রতি বছর ফেডের বিভিন্ন কাজকর্মের অডিট করে।

    ইনস্পেক্টার জেনারাল অফিস (এর প্রধানকে প্রেসিডেন্ট অ্যাপয়েন্ট করে) একটা আউটসাইডার অডিট ফার্মকে নিয়োগ করে, যারা প্রতিবছর ফেডের ফাইনান্সিয়াল স্টেটমেন্টের অডিট করে। এই অডিটের রিপোর্ট কঙ্গ্রেস এবং জনগনের কাছে পাবলিশ করা হয়।
  • S | 108.162.246.184 | ০৪ মে ২০২০ ০০:৫৬731080
  • ১৯৯৫ থেকে ২০১৮ অবধি প্রত্যেক বছরের সমস্ত কাজকর্মের এবং ফাইনান্সিয়াল রেকর্ড রয়েছে এই নীচের লিন্কে।

    ফেড সম্বন্ধে বাজে রিউমারে বিশ্বাস করার আগে এবং সেগুলোকে ছড়ানোর আগে একটা সামান্য গুগল সার্চ করে নিলেই আর পাতার পর পাতা মিথ্যা লিখতে হয়্না।

    https://www.federalreserve.gov/publications/annual-report.htm
  • S | 108.162.246.184 | ০৪ মে ২০২০ ০১:০১731081
  • বহু ইকনমিস্টদের (অ্যাকাডেমিক্স এবং প্র‌্যাক্টিশনার) কাজই হল ফেডের কাজকর্ম রেগুলার ফলো করা। ফেডের থেকে বেশি ট্রান্সপারেন্ট এজেন্সি আমেরিকাতে খুব কম আছে।

    যে এজেন্সির সত্যিই বহুকাল অডিট হয়্নি, সেটা হল আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অব ডিফেন্স। অথচ সেই নিয়ে কনস্পিরেসি থিয়োরিস্টরা চুপ। সেখানকার অডিটের ফলাফল দেখা যাচ্ছেঃ

    https://www.defensenews.com/pentagon/2019/11/16/the-pentagon-completed-its-second-audit-what-did-it-find/
  • দ্রি | 172.68.174.139 | ০৪ মে ২০২০ ০১:২৬731082
  • "ক্যাপিটাল ছাড়া চলবে কোনও এজেন্সি কি করে? যেখানে এত বড় একটা এজেন্সি, ১২ টা রিজিওনাল এজেন্সি। সরকারের কাছ থেকে ক্যাপিটাল নিলে সরকার নাক গলাবে। যেটা এখন আরবিআইকে ভুগতে হচ্ছে।"

    সরকারের থেকে টাকা নিলে সরকার নাক গলাবে। কিন্তু প্রাইভেট পার্টির থেকে টাকা নিলে তারা নাক গলাবে না? ওয়েবসাইটে এক লাইন লিখে দেওয়া যে 'ওরা নাক গলায় না' কি এনাফ অ্যাশিওরেন্স।

    আমি ধরে নিলাম ফেডের নিজের ওয়েবসাইটে যে ফাইনান্সিয়াল স্টেটমেন্ট দেওয়া আছে সেগুলো ফেয়ার ভাবে অডিট করা হয়েছে। এইটা ২০১৮-১৯ এর স্টেটমেন্ট।

    https://www.federalreserve.gov/aboutthefed/files/combinedfinstmt2019.pdf

    আমি মোট ডিভিডেন্ট পেমেন্টের একটা এস্টিমেট নেওয়ার চেষ্টা করছি। সেটা কত? এই স্টেটমেন্ট অনুযায়ী? প্রায় ৩৫ বিলিয়ান ইন ২০১৯?
  • S | 108.162.245.81 | ০৪ মে ২০২০ ০১:৫৯731083
  • প্রত্যেকটা বাক্য ভুল।

    সরকারের কাছ থেকে ক্যাপিটাল নিলে সরকার ফেডকে যেরকম খুশি সেরকম চালনা করতে পারে, আরবিআইতেই দেখা যাচ্ছে। আমেরিকার সবকটা ন্যাশনাল এবং স্টেট-চার্টার্ড ব্যান্ক ফেডের মেম্বার। তাছাড়া কঙ্গ্রেসের নজরদারি থাকে। আর সব গভর্ণররা প্রেসিডেন্ট দ্বারা অ্যাপয়েন্টেড। ফলে কারোর একার দ্বারা খুব কিছু করা বেশ চাপের।

    ডকুমেন্টটাতে একবার চোখ দিলেই দেখা যাবে বড় বড় করে কেপিএমজির নাম লেখা আছে অডিটার হিসাবে।

    সামান্য অন্ক জানলেই বোঝা যায় যে কোনওকিছুর ৬% = ৩৫ বিলিয়ন হলে যত ক্যাপিটাল লাগে সেটা কেউ দিতে পারেনা।

    ২০১৯ সালে ফেড আয় করেছে ৫৫ বিলিয়ন ৬০৭ মিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে মেম্বার ব্যান্কগুলো ডিভিডেন্ড পেয়েছে ৭১৪ মিলিয়ন ডলার। বাকি পুরো লাভটা ট্রেজারিকে ফেরত দেওয়া হয়েছে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লড়াকু মতামত দিন