ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • টইপত্তর  অন্যান্য

  • শিশুদিবস গুরু স্পেশাল

    Guruchandali
    অন্যান্য | ১৪ নভেম্বর ২০১০ | ১১৮৬০ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Guruchandali | 72.83.86.88 | ১৭ নভেম্বর ২০১০ ১৯:৪৯468660
  • ----------------------------------------------------------
    সংযোজিত হয়েছে কোলাজে আরো কিছু কুচো ছবি এবং মিঠুন ভৌমিকের আরো একটি গল্প: একটি রোমহর্ষক বিপ্লবের কাহিনী
    -------------------------------------------------------------
  • aranya | 144.160.226.53 | ১৭ নভেম্বর ২০১০ ২৩:৩৫468661
  • দুর্দান্ত সব লেখা আর ছবি, খুব ভাল লাগল। টাটকা, তাজা হাওয়ার মত। আমার দশম বর্ষীয়া কন্যার কাছে প্রস্তাব রেখেছিলাম তার কোনো ইংরেজী লেখা আমি বাংলায় অনুবাদ করে পাঠাব কিনা , এই সংখ্যার জন্যে - তো চেঁচামেচি করে আমায় বলল যে তার লেখার যা ডিটেলের কাজ আছে তা নাকি আমি ঠিকমত অনুবাদ করে উঠতে পারব না, ছড়িয়ে লাট করব, এদিকে নিজে বাংলায় লিখতে/পড়তে পারে না -যাই হোক ওরকম ঠ্যাঁটা মেয়ের লেখা অনুবাদ করতে আমার বয়েই গেছে।

    মেয়ে খুব ভাল বাংলা বলে, আর আমার মুখে বহু বহু বাংলা গল্প শোনার সূত্রে ফেলুদা, শংকু, কাকাবাবু,সন্তু, অর্জুন, জয়ন্ত, মাণিক, ব্যোমকেশ - এদের সবাইকে খুব ভাল চেনে,কিন্তু গল্পগুলো নিজে না পড়তে পারায় দু:খ পায়।

  • tatin | 130.39.149.32 | ১৭ নভেম্বর ২০১০ ২৩:৩৭468662
  • দশ বছর বয়স তো হলো, এবার একটু ক'রে বাংলা শেখান- মেয়ে বাংলা পড়তে লিখতে অবধি না পারা কিন্তু আপনার জনেও লজ্জার
  • nyara | 122.172.47.14 | ১৭ নভেম্বর ২০১০ ২৩:৪৮468663
  • লজ্জা কেন?
  • Arpan | 122.252.231.10 | ১৭ নভেম্বর ২০১০ ২৩:৫৯468664
  • আমার এক বন্ধু বিয়ে করেছে একটি চাইনিজ মেয়েকে। কেউ কারো ভাষা বোঝে না। ইংলিশে কথা বলে। আর সেটল করেছে আমেরিকাতে।

    এইবার ওদের ছেলে বা মেয়ে কী কী ভাষা শেখানো উচিত? কোন ভাষা না শেখার লজ্জার?

    আমেরিকা অব্দি যেতে হবে না। টাইমস অব ইন্ডিয়া গত বছর একটা প্রবন্ধ ছেপেছিল। তাতে কিছু সমীক্ষার ফলাফল ছিল। গত এক দশকে শহুরে ভারতে ভিন্ন রাজ্যের ভিন্ন ভাষাভাষী সম্প্রদায়ের মধ্যে বিয়ের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান। আর এই সকল পরিবারগুলির একটা বড় অংশে অবধারিতভাবে ইংরেজি প্রাথমিক কথ্য ভাষার স্থান করে নিচ্ছে।

    মানে বোঝাতে চাইছি মাতৃভাষায় লেখা/পড়া/কথা বলার প্রচলন কমে যাওয়াটা (শতাংশের বিচারে যদিও যৎসামান্য) শুধু বাঙালি জাতির 'সঙ্কট' নয়।
  • I | 14.99.2.62 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:০০468665
  • হ্যাঁ, লজ্জা কেন?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:০৮468666
  • আমি যে ভাষাটা ভালোবাসছি (সেটা না হলে আলাদা কথা অবশ্যই), আমার পরের জেনারেশন, অন্তত: আমার চারপাশে যারা আছে, যাদের শিক্ষার ওপর আমার সামান্যতম হ্যাঁ-না চলে- তাদের কে আমার ভালোবাসার জিনিসটার সঙ্গে মিনিমাম ই®¾ট্রাডাকশনটুকু না দেওয়া আমার খামতি বলেই তো মনে হয়। বাংলায় ইতিহাস ভূগোল কবিতা লেখার কথাও হচ্ছেনা, কিন্তু জাস্ট লিখতে পড়তে পারেনা, এটা বাবা-মার জন্যে লজ্জার বলেই মনে হয়। (শিশুটিকে নিয়ে কথা নেই, ঐ বয়সে তাকে যা দেওয়া হয় তাই পড়বে)-

    অবশ্য, লজ্জাবোধটা মানুষ টু মানুষ ভ্যারি করে-

    আর হ্যাঁ, লোকে শিশুকালে একাধিক ভাষা শেখেই- ইংরেজি হিন্দি শিখলে বাংলা বা কন্নড় শেখা যাবে না এরকম ও নয়
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:০৯468667
  • মানে বোঝাতে চাইছি মাতৃভাষায় লেখা/পড়া/কথা বলার প্রচলন কমে যাওয়াটা (শতাংশের বিচারে যদিও যত্‌সামান্য) শুধু বাঙালি জাতির 'সঙ্কট' নয়।



    একদমই নয়, যে ভাষা যত মার্জিনাল তার সংকট তত বেশি
  • Arpan | 122.252.231.10 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১২468668
  • মিনিমাম ই®¾ট্রাডাকশন আর লিখতে/পড়তে পারা এক হল?
  • pi | 72.83.86.88 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৩468670
  • কিন্তু তাতিন, সেটা তো অনেকটা নিজের ইচ্ছা চাপিয়ে দেওয়া ও হয়ে যায়, তাই না ? ডাক্তারি আমার ভালোলাগার জিনিস, অতএব সে ডাক্তার হোক, এইরকম কিছু। সেটাও কি খুব অভিপ্রেত ?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৪468671
  • হ্যাঁ -
  • Arpan | 122.252.231.10 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৫468673
  • অন্তত অরণ্যদা আর মেয়ের ক্ষেত্রে তো মিনিমাম ই®¾ট্রাডাকশন হয়েছে বলাই যায়। এইবার মেয়ে ইচ্ছে হলে অবশ্যই বাংলা পড়তে শেখার আগ্রহ দেখাবে। অক্ষরপরিচয় এবং পড়তে পারা এক নাকি?

    সেরকম বললে তো আমিও হিন্দি পড়তে/লিখতে পারি।
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৫468672
  • pi,
    আরে ছোটবেলায় তো অঙ্ক, ইংরেজি, বাংলা, স্বাস্থ্য সবই চাপিয়ে দেওয়া থাকে- অক্ষর পরিচয় আর ডাক্তারি পড়ানো এক ভাবলে চাপ!
  • pi | 72.83.86.88 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৬468674
  • অক্ষরপরিচয় আর বাংলায় গল্প লেখা এক জিনিশ ?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:১৯468675
  • ভদ্রলোক লিখেছেন লিখতে/পড়তে পারেনা- এর মানে গল্প লিখতে পারেনা কিনা জানিনা!

  • pi | 72.83.86.88 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:২৪468676
  • আমরা যা সংস্কৃত বা হিন্দি জানি, তা দিয়ে গল্প সাহিত্য পড়তে পারবো ? বা, পারলেও কতটা অনায়াসে ? প্রেফার করবো কি ?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০০:২৫468677
  • 'অন্তত অরণ্যদা আর মেয়ের ক্ষেত্রে তো মিনিমাম ইন্টোডাকশন হয়েছে বলাই যায়। এইবার মেয়ে ইচ্ছে হলে অবশ্যই বাংলা পড়তে শেখার আগ্রহ দেখাবে। অক্ষরপরিচয় এবং পড়তে পারা এক নাকি?'

    আর, অন্য ভাষাগুলির ক্ষেত্রে, যেমন ইংরেজি, এই লাক্সারিটা মেয়েকে দ্যান কি আপনারা? যে ইচ্ছে হলে অবশ্যই পড়তে শিখুক- দ্যান না নিশ্চিতভাবেই বলা যায়- কারণ ইংরেজি শেখাটা অসম্ভব দরকার। অঙ্কও একহাজার টীচিং এইড এনে শেখান, কারণ সেটা শেখাও দরকার, ভূগোল-ইতিহাস-বিজ্ঞান ও শেখা দরকার। তাই হাজার রকম ইন্সটিটিঊশনালাইজ করে শেখাচ্ছেন সেগুলো- ভালো কথা
    এবার সমস্যা হলো যে বাংলা শেখাটাকে আপনারা 'অসম্ভব দরকার' ভাবেন না, তাই ইচ্ছে হলে শিখতে দ্যান- না হলে শিখবেনা।

    বিটীডব্লু, 'আপনারা' জেনারেলাইজ করতে ব্যবহার করেছি
  • aka | 168.26.215.13 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:০৬468678
  • তাতিন বাংলা ভাষার কৌমার্য নিয়ে কথাবার্তা চালানোর আগে একটি অনুচ্ছেদ সম্পূর্ণ বাংলায় লিখুন নইলে তা আপনার পক্ষে অতীব লজ্জার। :)

    (উফ অংক কি কঠিন দাদা)

    আমার ছেলে বাংলা বলতে, লিখতে, পড়তে না শিখলে লজ্জিত হবার একটুও কারণ দেখি না। আধুনিক বাংলা সাহিত্য বলতে তো হুনীল, আর হন্দ্রবিন্দু ওর থেকে দেশ বিদেশের সাহিত্য বেটার। আর ছোটবেলায় পড়ার মতন একটাও বাংলা বই নেই। ছোটবেলা বলতে ০-৫-৬ বছর বলছি। দাদুর মাথায় টাক ছিল/সেই টাকে তেল মাখছিল জাতীয় কবিতা দিয়ে আর কদ্দিন চলবে? তারপরে কদিন ফেলুদা টেলুদা পড়বে, তাও সংখ্যায় সীমিত। বড় হয়ে দাদুর পরেই হুনীল হয়ে হন্দ্রবিন্দুতে হমকে যাবে।

    আর বাংলা জেনে চাকরি তো মেলেই না। দুর এতে লজ্জিত হবার কি আছে? আমার ছেলে রসগোল্লা ভালোবাসে বলে কি আমি গর্বিত?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:১৬468679
  • কৌমার্য নিয়ে তো কথা চালাচ্ছিনা - আর অবাংলা ক্রিয়াপদও ইউজ করিনি খুব একটা
  • Tim | 198.82.27.149 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:১৭468681
  • তাতিন,
    বাংলাকে কী হিসেবে তুমি অঙ্ক বা ইতিহাস বা ইংরেজীর মত অপরিহার্য্য ভাবছো, বা ভাবতে বলছো সেটা ভেবে পেলাম না। এই তর্কটা আমিও অনেক সময় করার চেষ্টা করে হেরে গেছি। বাংলা সাহিত্য বাদে ভাষাটা শেখার সুবিধেগুলো বা না শেখার অসুবিধেগুলো কী কী? আমাদের খারাপ ভালো লাগাটা এর মধ্যে ইন্‌ক্‌লুডেড নয়, বলা বাহুল্য। কারণ তার কোনো দাম নেই। বর্তমান প্রজন্ম সংখ্যা বোঝে।যুক্তি বোঝে। অঙ্ক বোঝে। প্র্যাক্টিকাল সুবিধে-অসুবিধে বোঝে। সেইসব দিয়ে বোঝাও।
  • Suvajit | 59.177.198.165 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:২৯468683
  • তাতিনের একটা পয়েন্ট আছে। সেটা ইগনোর করে পাতি চাপিয়ে দেবার চেষ্টা করাটা ঠিক নয়। এই আলোচনার জন্য অন্য থ্রেড খোলা যেতে পারে।
    আর্যর যুক্তিটা যাস্ট চাপানো যুক্তি। সে হিসেবে তো অলচিকি ভাষায় কোনো বই খুঁজেই হয়ত পাওয়া যাবে না, তো সব আদিবাসী ইংরেজি পড়া শুরু করবে। আর বাংলা ভাষা শিখতে গেলে সুনীল আর চন্দ্রবিন্দু স্টার্টিং পয়েন্ট?
    অরন্যদার মেয়েকে একটা বড় সেলাম। সেই দশ বছরের মেয়ে এটা বলতে পেরেছে যে ইংরেজিতে সে যা লিখেছে, সেই ডিটেল বা ভাব বা যাই হোক না কেন, বাংলায় অনুবাদ করে আনা যাবে না। খুব সত্যি কথা। ঠিক যেমনভাবে শরৎচন্দ্র বা দাদুর লেখার ইংরেজি অনুবাদ সেই রস ফোটাতে পারে না।
    আসলে কি ভাষায় লিখছে সেটা আজকের দিনে কোনো সমস্যা হওয়া উচিৎ না। কিন্তু মাতৃভাষা না পড়তে পারা নিশ্চয়ই সমস্যা বলে আমি মনে করি। প্রসঙ্গত আমার মেয়েরও সেই একই সমস্যা।
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:২৯468682
  • আইডেন্টিটির মতন বড়ো যুক্তি হয় নাকি! আইডেন্টিটি ধরে রাখা খুব ডেন্সড একটা যুক্তিবোধ থেকে আসে।

    এই ইউটিলিটি গুলো দু-তিনদিনের, এককালে ফার্সি শিখলে চাকরি হতো, এই কালে ইংলিশ শিখে হচ্ছে, ভবিষ্যতে চিংকি শিখে হবেনা এরকম বুকে হাত দিয়ে বলা যায় না। ভিয়েতনামে এককালে লোক সবচেয়ে চাপ নিয়ে রাশিয়ান শিখতো, এখন ইংলিশ শিখছে - বাকি বিষয়ের ক্ষেত্রেও দেখবেন, আইন থেকে ইকনমিক্স, কোনওটা আজ কাজে আসে কোনও টা কাল- কিন্তু এর মধ্যে টেনিস বল হতে হতে আমরা যদি আমাদের হাজার বছরের অর্জনগুলো, যেগুলো চারপাশ থেকে খুব ন্যাচারালি পাচ্ছি, সেগুলোকে হারিয়ে ফেলি- খুব ভালো কিছু করবোনা। সেই জন্যে আইডেন্টিটি ধরে রাখার মধ্যে অনেক সুপ্ত 'লজিক' লুকিয়ে থাকে হয়তো।

    তবে এসব হেভি তর্ক বিতর্কের কথা, মানুষ আইডেন্টিটির দাস হবে কিনা, আইডেন্টিটি অপরিবর্তনীয় কিনা (বাংলা ভাষাও তো অন্যান্য ভাষা পরিবর্তন হয়ে এসেছে) এসব নিয়ে তো ইতিহাস কেটে যাবে-

    সংক্ষেপে কথাটা হলো, আমি কী ভাষাটাকে ভালোবাসি, যেভাবে কমিউনিকেট করতে করতে এত বড়ো হলাম সেই পদ্ধতিটার সঙ্গে অ্যাটাচমেন্ট আছে, তাহলে সেই পদ্ধতিটাকে নষ্ট হয়ে যেতে দেব কি? উত্তরপ্রজন্ম না শিখলে ভাষা টেকে না- সব ভাষাই বিলুপ্ত হয়েছে সেই পথে। আর, যাঁরা নিজেরা বাংলা ভাষায় আবেগচর্চা করছেন, তাঁদের কাছে থেকেও উত্তর প্রজন্ম বাংলা না শিখলে বিলুপ্তির পথে আরও দু কদম এগোবে।
  • aka | 168.26.215.13 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:৪৩468684
  • একদম ঠিক এটাই বলতে চেয়েছি। সব আদিবাসীকে ইংরিজি পড়ানো শুরু হোক। পারলে একদম ছোটবেলায়। এরপরেও যদি কারুর ইচ্ছে থাকে তাহলে অলচিকি ভাষা পড়বে, শিখবে। নইলে না শিখবে। জোর করে ভাষা, সংস্কৃতি ধরে রাখতে হলে আমাদের আজ ধুতি পড়তে হবে, মেয়েদের শাড়ী।

    শুভজিতদা, 'আমি মনে করি' বললে কিছুই প্রমাণিত হয় না। লজ্জা জাতীয় একটা কথা বললে তা অনেক বেশি জেনেরিক হয়ে যায়। যেমন আজকের সমাজের নর্ম অনুযায়ী জামা-কাপড় না পড়ে ঘোরা লজ্জার। তা অনেক বেশি প্রমাণ দাবী করে। এই নিয়ে তো অনেক কথা চালাচালি হয়েছে, কোন টইতে মনে নেই।
  • aranya | 144.160.226.53 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:৪৬468686
  • আমি বোধহয় ঠিক বোঝাতে পারি নি, একটু খোলসা করে বলি - আমি থাকি আম্রিগায় আর গত তেইশ বছর যাবদ দেখছি যে এখানকার দ্বিতীয় প্রজন্মের বাঙালী ছেলেমেয়েরা ছোটবেলায় শনি-রোববার বাংলা স্কুলে গিয়ে অক্ষর চিনতে শেখে + সহজ পাঠ ধরণের বই একটু আধটু পড়ে এবং আর একটু বড় হলেই সব প্রম্পটলি ভুলে যায় - এর কোনো অন্যথা দেখি নি। এরা কিন্তু অনেকেই বাংলা বেশ ভাল বলে, কারণ বাড়ীতে বাংলাতেই কথাবার্তা হয়।
    স্কুলে পড়ানো হয় ইংলিশে, দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে শেখে স্প্যানিশ। এর মধ্যে বাংলাকে কোন ভাবে গুঁজে দিয়ে (ঐ সপ্তাহান্তের স্কুলে একদিন) কোন লাভ নেই, বহু বছরের কেস স্টাডি তাই বলছে, ওরা শিখলেও কিছুদিনের মধ্যেই ভুলে যায়। তবে কলেজে পড়তে গিয়ে কেউ কেউ আবার শিকড়ের সন্ধানে নতুন করে বাংলা লিখতে/পড়তে শেখে আর এই শেখাটা অনেক দীর্ঘস্থায়ী হয়।
    বাংলা ভাষায় যা ভাল বই পত্র আছে তার চেয়ে অনেক বেশী সংখ্যায় ভাল বই ইংরেজীতে পাওয়া যায়, যেহেতু অনেক বেশী লেখক ইংরেজীতে লেখেন + পৃথিবীর অন্যান্য বহু ভাষা থেকে ইংরেজীতে অনুবাদ হয় - সুতরাং বাংলা পড়তে/লিখতে না পারলে আমার মেয়ে সাহিত্যের দিক থেকে বনচিত হবে বলে মনে হয় না।
    লজ্জার কোন কারণ দেখছি না। তবে আমার ছোটবেলার প্রিয় বইগুলো - চাঁদের পাহাড়, তুঙ্গভদ্রার তীরে .. - এগুলো ও মূল ভাষায় পড়তে পেল না, গল্প শুনেই সন্তুষ্ট থাকতে হল, এজন্য দু:খ তো হয় ই। তবে তেমন দু:খ তো অনেক। যেমন ফুটবল আমার অসম্ভব প্রিয় খেলা। মেয়েকে দু টো সীজন সকার ক্যাম্পে নিয়ে গিয়েও ফুটবলের ওপর ভালবাসা জন্মাতে পারি নি, শুধু আমার সময়টা গেছে।
  • aka | 168.26.215.13 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:৪৬468685
  • কার আইডেন্টিটি কি সেটা কে ঠিক করে দেবে?

    আইডেন্টিটি তো শুধু ভাষা দিয়ে হয় না। আইডেন্টিটি মাপার মেট্রিক কি?
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০১:৫৮468687
  • ছোটবেলায় যে কোনও শেখানৈ জোর করে শেখানো (অলমোস্ট), ভাষা আইডেন্টিটির একটা মেট্রিক তো বটেই।

    - আর, না, আমি একটু ভুল করেছি, লজ্জাবোধ সকলের সমান নয়- যেমন, আমার কাছে চোতা করাটা গর্বের ছিল, কারুর কারুর কাছে সেটা লজ্জার। আমরা যখন 'আপনার পক্ষে লজ্জার' তখন নিজের লজ্জাবোধ দিয়ে তারটা ডিফাইন করে ফেলি।
  • aka | 168.26.215.13 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০২:০১468688
  • রঙীন কাগজে, সুন্দর ছবিতে, আরও সুন্দর গল্পতে ইংরিজি শেখার পরে 'ছায়ার ঘোমটা মুখে টানি আছে আমাদের পাড়া খানি' বা 'গোপাল অতি সুবোধ বালক' পড়ে/দেখে এমন একখানা ভাষা শিখতে হবে যার ইউটিলিটি শুধুই বাপ-মায়ের আহ্লাদ বা দাঁত খেঁচানো, না ভাই বিদ্যাসাগর ছাড়া এত অধ্যবসায় কারুরই নেই। এর থেকে ক্রিকেটে খেলে কাঁচ ভাঙা, লুকিয়ে বড়দের বই পড়া (আমি আট বছর বয়সে শুরু করেছিলাম), বা বন্ধুদের সাথে ছুটোছুটি করা অনেক অ্যাট্রাকটিভ। এটা যদি কোন বাচ্ছা না করতে চায় তাহলে বাপ-মায়ের লজ্জা। এরকম মনে করলে বড় হয়ে হিটলার হতে হবে।
  • tatin | 130.39.149.32 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০২:০৩468690
  • আর হ্যাঁ, অরণ্য, এটা লজ্জা জাতীয় কড়া শব্দের বাইরে এসে বলছি, আপনি যদি কেস স্টাডির অছিলায় শেখানোর চাপই না ন্যান শিখতে পারত সেই সম্ভাবনাটুকুই থাকবেনা। বড়ো হয়ে কজন নতুন ভাষা শেখে? আমি যা শুনেছিলাম, শৈশবেই ভাষা শিক্ষা সবচেয়ে সহজ হয়।
  • aka | 168.26.215.13 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০২:০৩468689
  • তাহলে ভাষা আইডেন্টিটির একমাত্র মেট্রিক নয়। তাইতো?

    তাহলে বাঙালীর উচিত ধুতি পাঞ্জাবী ধরে রাখা? রাইট?

  • Tim | 198.82.27.149 | ১৮ নভেম্বর ২০১০ ০২:১৫468692
  • অরণ্যদার সাথে একমত। কিছু কিছু ক্ষেত্রে হাল ছেড়ে দেওয়া ছাড়া আর কোন রাস্তা থাকেনা।

    এখনকার বাচ্ছারা আরো অনেক কিছুই আমাদের মত করে করেনা। দুপুরে কেউ পোকামাকড়/গাছপালা ঘেঁটে সময় নষ্ট করেনা। বর্ষায় কাদা মেখে ফুটবল খেলেনা, এরম তালিকা লম্বা হতে হতে মামুর কল বিগড়ে যাবে। বাংলা শেখাটাও এরকমই অপশনাল হয়ে গেছে। যে প্রচন্ড চাপ আর ইঁদুরদৌড়ের মধ্যে এখনকার বাচ্ছারা বড়ো হয়, তাতে ওদের কাছে বাংলা শেখাটা বিলাসিতাই।

    এবার, এতে কী ভালো কিছু হবে? নাহ্‌ হবেনা সে জানা কথাই। সবকিছু কোয়ান্টিফাই করা যায়না বলেই বাংলা হেরে গেছে। আবার সবকিছু কোয়ান্টিফাই করা যায়না বলেই বাংলা ভাষাটা অতটা অপ্রয়োজনীয়ও না। দাম তো দিতেই হবে। হচ্ছেও। এর মধ্যে লজ্জাটজ্জার কিসু নাই। দু:খ আছে অনেকটাই।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আদরবাসামূলক মতামত দিন