• ভাটিয়ালি
  • এ হল কথা চালাচালির পাতা। খোলামেলা আড্ডা দিন। ঝপাঝপ লিখুন। অন্যের পোস্টের টপাটপ উত্তর দিন। এই পাতার কোনো বিষয়বস্তু নেই। যে যা খুশি লেখেন, লিখেই চলেন। ইয়ার্কি মারেন, গম্ভীর কথা বলেন, তর্ক করেন, ফাটিয়ে হাসেন, কেঁদে ভাসান, এমনকি রেগে পাতা ছেড়ে চলেও যান। এই হল আমাদের অনলাইন কমিউনিটি ঠেক। আপনিও জমে যান। বাংলা লেখা দেখবেন জলের মতো সোজা।

  • commentS | 162.158.107.184 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:০১
  • আমাদের ইস্কুলেও বেশ কিছু কম্পিউটার এসেছিল। সেখানে কম্পিউটারের স্পেশাল ক্লাস নেওয়া হত। আমি নেইনি। বেসিক না কি একটা ল্যাঙ্গুয়েজ শেখানো হত। একজন শিক্ষকও নিয়োগ করা হয়েছিল। তিনি আবার অনেক কয়েকজন শিক্ষককে ট্রেনিং দিতেন। আমি কয়েকবার ক্লাস কেটে কম্পিউটার রুমে ঐ গেমস টেমস খেলেছি। গরমের দিনে এসি রুমে সময় কাটানো আরকি।
  • commentPM | 162.158.166.86 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৫৭
  • একটা ছোটো কনফিউসন । আমি যখন ক্লাস ৯ এ পড়তাম , আমাদের স্কুলে এ ঢাউস ঢাউস গোটা দশেক কম্পুটার এসেছিলো। আমরা রোজ করতাম। গেম ও খেলতাম। ফিসিক্স আর অংক টিচারদের ধরে বেধে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছিল সরকার থেকে।

    স্কুলের কিছু স্টুডেন্ট দের নেহেরু চিলড্রেন্স মিউসিয়াম এ নিয়ে গিয়ে ট্রেনিং করানো হয়েছিলো। সেখানে মনিষা ম্যাম পড়াতেন, তিনি আবার আমাদের অনেকের জীবনের প্রথম ক্রাশ।

    এই সব ই ৮৮-৮৯ এর আশে পাশের সরকারী স্কুলের গল্প।

    অপুর কথা শুনে আমার খুব সন্দেহ হচ্ছে আমি কি সত্যি তখন পঃ্বঃ এ থাকতাম ? :o
  • commentর২হ | 162.158.166.110 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৫৭
  • .. কে থ্যাঙ্কিউ, দেখবো।

  • commentর২হ | 162.158.166.110 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৫৬
  • একটু ডাইগ্রেস করি।

    একত্তরে অনেক মানুষ এসেছেন, সেটা সত্যি, য্তদূর জানি। উদ্বাস্তুর ঢল নেমেছিল, আবার।

    তাদের সঙ্গে কি করা উচিত ছিল বলে মনে হয়, ব্রতীনদা?

    অনেকে ফিরে গেছেন, অনেক পুশব্যাক হয়েছে, অনেক অমানবিক ব্যাপার হয়েছে। দেশভাগের আফ্টার্ম্যাথের শিকার এই থেকে যাওয়া লোকেদের সঙ্গে কী করা উচিত ছিল?

    এটাকে স্থানান্তরিত গোলপোস্ট না, নতুন প্রশ্ন হিসেবেই রাখলাম।
  • commentPT | 162.158.155.115 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৫৪
  • স্ট্যাটের লোক সংখ্যাকে হেলাফেলা করছে কেন?
  • comment অপু | 162.158.165.197 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৪৬
  • যাক । এইসব তর্কের কোন সমাধান নেই।

    তা আজকে একপিস বিয়ে বাড়ি আছে। ওটাই একমাত্র আশাব্যঞ্জক। :))
  • commentঅপু | 162.158.165.197 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৪৪
  • তা দ আপনি তো এই ব্যাপার টি নিয়ে ই বই লিখেছেন। আমার কাছে না থাকলেও আপনার কাছে নিশ্চয়ই আনুমানিক ফিগার টা আছে। ঠিক কত বলুন তো? তাহলে আলোকিত হই।
  • commentEklohoma | 108.162.237.57 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৩৬
  • বসন্তকালে সাপেদের খুশী নিয়ে কথা হওয়ার সময় সাপ নিয়ে কিছু পুরানো কবিতার স্মৃতি জড়িয়ে নিচ্ছিল। কিন্তু একটা কবিতাও মনে এলো না। তার মধ্যে একটা আমার নিজের-ই এক পুরানো খসড়া। প্রায় এক দশক আগে ফ্লিকারে জোর আড্ডা দিতাম। আমার বেজায় আনন্দ ছিল পছন্দের ছবি পেলে, ছবিটা থেকে মনে একটা অণুগল্প ভেসে এলে, মন্তব্যে কবিতা বা তার খসড়া মত কিছু বসিয়ে দেওয়া।

    ঘণ্টা খানেক ধরে তল্লাশি চালিয়ে বার কলাম সে আব্জাবটাকে।

    অণুগল্পটা অতি সাদাসিধে - চুমু খাওয়ার মুহূর্তে বুঝতে পারলেন, যাক্‌গে নামিয়ে দিই বরং এখানে।

    সর্পিল

    রক্তে আমার লাগিয়ে দিয়ে দোলা
    সন্ত সেজে বেড়াও ঘুরে, ঘুরে!
    খুঁজে খুঁজে চোখ হয়েছে ঘোলা
    আমার কলজে গেছে পুড়ে।

    বলেছিলে আসতে যদি পারো
    যদি ভালোই বাস মনে -
    জড়িয়ে নিও একটু কাছে আরো
    অমর কোরো চুম্বনে, চুম্বনে।

    পালিয়ে গেলে তুচ্ছ প্রাণের ডাকে
    রটিয়ে দিলে নিন্দা চারিপাশে -
    মৃত্যু হত আমার রূপের পাকে
    (কারণ) আমার বিষ ছিল নিঃশ্বাসে!
  • commento | 108.162.215.9 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৩৪
  • তবে কি, লাখ লাখ, কোটি কোটি যা খুশি বিশ্বাস করুন, কেবল চিঁড়ে খাওয়াটা কন্ট্রোল করবেন কমরেড। অবশ্য তাপ্পরও ডিটেনশন ক্যাম্পে তো দেখা হচ্ছেই। তকন না হয় এই লাখ লাখ উদবাস্তুর গপ্পো না গেলার জন্য দুটো বেশি ছারপোকাওয়ালা গদিতে শোবো। কুছ পরোয়া নেহি। ততদিন লাল সেলাম (নিজ নিজ সানগেলাস বাছুন ও প্রয়োজনমত রংয়ে কনভার্ট করে নিন)। :-)))

  • comment.. | 162.158.159.49 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৩১
  • দিস ইজ ফর হুতোদা

  • comment.. | 162.158.158.252 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:২৫
  • among Marwari and upper castes of Bengali Hindu hatred towards Muslim is rising exponentially mainly amongst middle aged individual. However,this is not true for youngsters .
  • comment | 172.69.135.135 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:২০
  • ৭১ এ আসা অনেকে ফেরতও গেছেন। যেমন কুলদা রায়ের পরিবার অভিজিত রায়ের পরিবার ইত্যাদি।

    যাইহোক বি এর ফ্যাক্টস সম্পর্কে বক্তব্যে ক্ক
  • comment.. | 141.101.107.119 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:১৮
  • আপ CAA কবে সাপোর্ট করলো?
  • commentlcm | 172.69.33.172 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:১৭
  • অরিন বোধহয় অ্যাক্টিভিস্ট অরোবিন্দোকে খুঁজছে। দেখো, ২০১৯-র লোকসভা ইলেক্শনে ৩৭.৩৬% ভোট পেয়ে বিজেপি নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা (৩০৩/৫৪৩) নিয়ে জিতল, অথচ, কয়েক মাস বাদে দিল্লি অ্যাসেমব্লি ইলেক্শনে তার থেকে বেশি ৩৮.৫১% ভোট পেয়েও মোটে ৮/৭০ এ।
    কারণ বিরোধী ভোট ভাঙ্গে নি। খুব চেষ্টা করেছিল, কারণ এইভাবেই বিজেপি জিতে আসছে। ২০১৪ তে মাত্র ৩১.৩৪% ভোট পেয়ে ক্ষমতায় এসেছিল। দিল্লিতেও চেষ্টা করেছিল। কিন্তু অরোবিন্দোর জন্য পারল না। এছাড়া এই মুহুর্তে অরোবিন্দোর হাতে আর অপশন নেই। অ্যাক্টিভিজিম দিয়ে ভোটে জেতা মুশকিল।

    আমার এক বন্ধু আমাকে বলল, দিল্লিতে বিজেপি হারল কংগ্রেসের জন্য, বিজেপি-বিরোধী ভোট কংগ্রেস ভাঙতে পারল না।
  • commentঅরিন | 198.41.238.121 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:০৭
  • "এবারে উল্টোটা ভাবুন। এইসবগুলো কেজরি করলো এবং বিজেপি ভোটে জিতলো।"

    হুঁ, এব়ং ভোটই ভগবান। ভারতেন্দু হরিশ্চন্দ্রের " অন্ধের নগরী চৌপট রাজা,  টাকা সের ভাজি, টাকা সের খাজা " নাটকটা ভারতে চমৎকার মঞ্চস্থ হচ্ছে। 

    একশো কোটি অভিনেতা অভিনেত্রী, ভুল হবার জো আছে?

  • commentlcm | 162.158.59.21 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:০৫
  • দেখো, '৭১ এ যারা এসেছিলেন, তারা ছিলেন যুদ্ধ শরণার্থী। তাদেরকে ঠিক বেআইনি অনুপ্রবেশকারী বলা যায় না। আর তাদের বৈধতা তখনই প্রায় দিয়ে দেওয়া হয়েছিল - যুদ্ধ শরণার্থী হিসেবে।
  • commento | 172.69.33.112 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৫৬
  • কে না জানে অন্ধ হলে প্রলয় বন্ধ থাকে না। কিন্তু হাতে যখন হ্যারিকেনটুকুও নেই, তখন অন্ধ হওয়াটাও একটি ভ্যালিড স্ট্র্যাটেজি বৈকি!

    আর সংখ্যাতত্ত্ব নিয়ে বলি। আজকাল আর ফ্যাক্টস দেখে অপিনিয়ন তৈরী হয়না। অপিনিয়ন আগে থেকে তৈরী থাকে, সেই অনুযায়ী ফ্যাক্টস এক্সেপ্টেড অথবা ডিসকার্ডেড হয় মাত্র। সুতরাং সংখ্যাতত্ত্ব একটি বিলাসিতা।

    এই গেল আজকের দু'পয়সা। :-)
  • comment | 162.158.165.235 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৫১
  • রেশন কার্ড সম্পর্কে আমার ব্যক্তিগত ধারণা হল অদিকাংশ গরীব লোক এবং বেশ কিছু মধ্যবিত্তেরও কাগজপত্র সম্পর্কে খানিক উদাসীন, অনেকক্ষেত্রে বানাতে অপারগও। তো বিহার ইউপির বহু লোকজপ্ন যারা বিভিন্ন মিল ইত্যাদিতে কাজের জন্য একসময় পশ্চিমবঙ্গে আসতেন, তাঁদের এইসব কাগজপত্র ছিল না। ৭৭ এ সিপিএম ক্ষমতায় আসার পর এটাকে সিস্টেমেটিক ডকুমেন্টেশানের জন্য রেশন কার্ড দেওয়া, ভূমিহীনদের বা উদবাস্তুদের জপমির পাট্টা দেওয়া ইত্যাদি শুরু কিরে। যদি সত্যিই আদৌ অকাতরে রেশন কার্ড দেওয়া হয়ে থাকে তো তার একটা বড় অংশের ভোক্তা সম্ভবত: বিহার ইউপি থেকে আগত লোকজন।

    মধ্যবিত্ত তথাকথিত ভদ্রলোকের মন্নোগত বাঙালবিদ্বেষ মুসলমানবিদ্বেষ ও 'ছোটোলোক'ঘৃণা মিলেমিশে এই ' লাখ লাখ বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী' মিথটির জন্ম দিয়েছে। সেটাকেই দিল্লু, বাবুল, বর্গীরা হাওয়াবাতাস দিয়ে উস্কে চলেছে।
  • commentঅপু | 162.158.166.56 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৪৮
  • এলসিএম দা, 1971 থেকে ই বলছি
  • commentঅপু | 162.158.166.56 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৪৭
  • ভারতবর্ষ বোধহয় পৃথিবীর একমাত্র দেশ যার মোট জনসংখ্যা সম্মর্কে স্পষ্ট ধারণা নেই। তার মূল কারণ অনুপ্রবেশকারী রা। আর আমরা জাতি হিসাবে বেশ অসত বলেই সামান্য কিছু টাকার বিনিময়ে রেশন কার্ড করে দিয়ে এদের বৈধ ভারতবাসী হিসাবে মান্যতা দি।

    কেন থাকবে না?
    সেনসাসে নিশ্চয় ই আছে। শুধু জানা নেই বেড়া টপকে ছিল কিনা? তা যে কারণেই হোক। সেটা জানার ন্যেই দুষ্টু বিজেপি CAA র ছ কষছে!!
  • commentS | 162.158.106.131 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৪৫
  • এবারে উল্টোটা ভাবুন। এইসবগুলো কেজরি করলো এবং বিজেপি ভোটে জিতলো।
  • commentঅরিন | 198.41.238.119 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:৩১
  • @Amit: "কেজরিওয়াল এর জেতাটা একটা ভালো মেসেজ। "

    হুঁ, এবং একটা ব্যাপার বোঝা গেল

    - কাশ্মীরিদের গণতান্ত্রিক অধিকার বাতিলের  বিরুদ্ধে একটি কথাও না বলে,

    - শাহীন বাগের আন্দোলনকে সমর্থন না জানিয়ে

    - CAA কে সমর্থন করে

    - NRC NPR নিয়ে কোন স্টান্স না নিয়ে, খুব সম্ভব সমর্থন করেন

    - ভোটে জিতে মঙ্গলবার বলে হনুমান  মন্দিরে মাথা ঠেকিয়ে 

    দিব্যি একটা ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক দেশে স্রেফ ভোটে জিতলেই "ভাল মেসেজ" পাঠানো যায়।

    RSS কেন মনে মনে হাসবেনা বলতে পারেন?

    চালিয়ে যান মশাইরা! 

  • commentlcm | 172.69.34.115 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:২৫
  • বোতিন,

    না, দেখো, ব্যাপারটা সংখ্যাতত্ত্ব দিয়ে বোঝা যাক।

    যে হারে (১৭.৮৪%) পশ্চিমবঙ্গে জনসংখ্যা বেড়েছিল ১৯৯১-২০০০ এই দশ বছরে, তার থেকে কম হারে (১৩.৮৩%) বেড়েছে পরের দশ বছরে ২০০০-২০১০ ।

    এই দুই দশকে সারা দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল ২১.৫% এবং ১৭.৫%।

    অর্থাৎ, পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার গোটা দেশের তুলনায় কম ছিল।

    সেক্ষেত্রে বাইরের লোক প্রচুর ঢুকে জনসংখ্যা বাড়িয়ে দিয়েছে এই যুক্তিটা স্রেফ সংখ্যাতত্ত্বের হিসেবে দাঁড়াচ্ছে না।

    সীমান্ত এলাকার রাজ্য হওয়ায় পশ্চিমবঙ্গে অনুপ্রবেশ হয় নি তা নয়, কিন্তু বোঝাই যাচ্ছে তাতে করেও জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার কমেছে, বাড়ে নি। অর্থাৎ, সংখ্যাটা গোতা রাজ্যের পপুলেশনের নিরিখে তেমন সিগনিফিক্যান্ট কিছু নয়।

    ১৯৭১-র যুদ্ধের সময় একটা বড় সংখ্যক মানুষ এসেছিলেন শরণার্থী হয়ে, কিন্তু তার পর থেকে অনুপ্রবেশ হয়েছে গত ৪০ বছর ধরে, কিন্তু যতটা বাড়িয়ে বলা হয় ততটা নয়, সেটা ডিক্রিজিং পোপুলেশন গ্রোথ রেট দিয়ে বোঝাই যাচ্ছে।

    আর রেশন কার্ড ব্যাপারটার সঙ্গে অনুপ্রবেশকারীর কিছু নেই, বাম আমলে অনেকেই রেশন কার্ড পেয়েছেন, বাম আমলে কেন সব আমলেই পেয়েছেন। রেশন কার্ড পাবার পদ্ধতিটিও তখন ছিল খুবই ইয়ে, ইংরেজিতে যাকে বলে ভেগ। আবেদনকারী যে প্রকৃতই ঐ এলাকার এক্জন বাসিন্দা, সেটা প্রমাণ করবার জন্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে আনতে হবে - এরকম কিছু একটা ছিল - বোঝাই যাচ্ছে পদ্ধতিটি খুবই দুর্বল।
  • commentb | 162.158.165.233 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:২১
  • একলহমা,
    ঠিক। তাপস (পিয়ানো বাজাচ্ছেন যিনি?) যেটা করতে চাইছেন সেটা অনেকটা ভারত বা পাকিস্তানের কোক স্টুডিও-র এক্সপেরিমেন্ট। রেজওয়ানা, অদিতি আর সাহানাকে দিয়ে গাওয়ানো রবিদাদুর গানগুলো-ও ভালো লাগলো (কতবার ভেবেছিনু গানটা এমনিতে ধুর লাগে, সে কথা থাক)।
  • comment... | 162.158.154.30 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৯:০১
  • Once a chaddi, always a chaddi
  • comment | 162.158.165.235 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৫৪
  • উঁহু বোঝেন নি। আমি একমত দ্বিমত কিছুই নই। আমি জানতে চেয়েছি যদি সত্যিই 'অকাতরে রেশান কার্ড পাইয়ে' দেওয়া হয়েই থাকে তাহলে সেই রেশান কার্ড হোল্ডাররা কোথায় উবে গেল? সেন্সাস রিপোর্টে তাদের দেখা যাচ্ছে না কেন? সেই অকাতরে পাইয়ে দেওয়া রেশন কার্ডএর সংখ্যা সেন্সাস রিপোর্টে অকাতরে বেড়ে উঠছে না কেন? বরং কমছে কীভাবে?
  • commentEklohoma | 108.162.238.244 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৫৩
  • @b
    পুরোপুরি। এইটা শুনেছি আগে; অ্যারেঞ্জমেন্ট ও অসাধারণ ছিল। আবার শুনলাম এখন। মন ভরে যায়।
  • commentEklohoma | 108.162.238.244 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৫১
  • @বা
    পুরোপুরি। এইটা শুনেছি আগে; অ্যারেঞ্জমেন্ট ও অসাধারণ ছিল। আবার শুনলাম এখন। মন ভরে যায়।
  • commentঅপু | 172.69.134.188 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৪২
  • তাহলে দেখা আছে অকাতরে রেশন কার্ড পাইয়ে দেওয়া নিয়ে সবাই একমত।
    সমস্যা শুধু সংখ্যা নিয়ে। বেশ তো ওখানে যা প্রাণ চায় বসিয়ে নিন। তবে আমার নিজের দৃঢ ধারনা 133 জনের বেশী ওদেশ থেকে আসে নি। সব বেটা বিজেপি র অপপ্রচার বামে দের বদনাম করার জন্যে। :)))
  • commentAtoz | 162.158.187.12 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৩৯
  • অমর
    আকবর
    অ্যান্টনি
  • comment অপু | 172.69.134.188 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৩৩
  • ধুর ত্রিদেব হল সানি দেওল+ নাসিরুদ্দিন শাহ+ জ্যাকি শ্রুফ ( ওয়ে ওয়ে খ্যাত)
  • commentb | 172.69.134.14 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:২০
  • পাপন রকস
  • commentgaja | 172.69.34.97 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:৩৪
  • তাহলে কি বোঝা গেল - তখন রেলমন্ত্রী মমতার সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেববাবুর যেমন সম্পর্ক ছিল, ঠিক তেমনই সম্পর্ক এখন রেলমন্ত্রী পীযুষের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতার, অর্থাৎ তাদের বি-টিম। ঠিক যেমন বুদ্ধদেববাবু ছিলেন।
  • commentPT | 162.158.167.183 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:২৭
  • "ইস্টওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধন হতে চলেছে আগামিকাল, বৃহস্পতিবার। শহরে মেট্রো রেলের যাত্রাপথের সূচনা করবেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আমন্ত্রিত না থাকায় অনুষ্ঠান বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সুজিত বসু, কাকলি ঘোষ দস্তিদার ও কৃষ্ণা বসু। বিজেপির বিরুদ্ধে রাজনীতির অভিযোগ করেছে ঘাসফুল শিবির। পাল্টা তৃণমূলকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অতীত স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন মুকুল রায়। জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটালকে মুকুল রায় বলেন,''এতো ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি! মমতাও তো রেলমন্ত্রী থাকাকালীন টালিগঞ্জ থেকে গড়িয়া বাজার মেট্রোর সম্প্রসারণে ডাকেননি তত্কালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে।''"
  • commentEklohoma | 162.158.186.23 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:২৬
  • @b
    হা:-হা:-হা:-হা:
    আর না। এবার ক্ষান্ত দিলাম।
  • commentAtoz | 108.162.237.87 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:২৫
  • একলহমা,
    গড্ডলিকাপ্রবাহে ভেসে চলা থেকে যা ত্রাণ করে , তাও হতে পারে। ঃ-)
  • commentb | 172.69.134.176 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:১৪
  • নেত্রর অবস্তা গরু কেবল কান্দিতেছে।
  • commentEklohoma | 162.158.186.227 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৭:১০
  • ব্যাকপ্রজেকশানে এইটা করে ফেলি?
    নী + ত্র = নেত্র
    নী (এগোনো) + (থেকে) ত্র (ত্রাণ করে) = নেত্র (এগিয়ে গিয়ে গাড্ডায় পড়া থেকে যা ত্রাণ করে)
    তাই ত তৃতীয় নেত্রর উন্মীলনে আসে সেই অন্তর্দৃষ্টি, যা আমাদের দেয় প্রকৃত জ্ঞান, যা আমাদের রক্ষা করে অজ্ঞানতা থেকে, অন্ধকার থেকে, এগিয়ে দেয়/নেয় আলোর দিকে।
  • commentAtoz | 108.162.238.112 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৫:৪৪
  • কেজরিওয়াল এবং তাঁর মতন লোকও তো দেশে আছেন, এই মেসেজটা যাচ্ছে। অনেক উচ্চশিক্ষিত লোকেরাও দেখা যেত ভীষণ চাড্ডি, রামে পতঞ্জলিতে হাঁসগোরুর অক্সিজেনে বিশ্বাস করে, এখন কেজরিওয়ালদের উত্থানে লোকে খবর পাবে, সবাই ওরকম রাম গোরু বিশ্বাস করে না। এটাও একটা ভরসার কথা।
    আর সরকারী স্কুলগুলোর ক্ষেত্রে যাঁরা বলছিলেন তাঁরা নিজের ছেলেমেয়েদের পাঠান না, তা কিন্তু নয়। কেজরিওয়ালের আমলে দিল্লির সরকারী স্কুলগুলোর অবস্থা ভালো হওয়ায় অনেক মধ্যবিত্তই এখন নিজের সন্তানদের ওসব স্কুলে ভর্তি করছেন। এটা আমার ব্যক্তিগত মতে আরো অনেক বেশি পজিটিভ মেসেজ। এই আদর্শটা অন্যান্য বিভিন্ন রাজ্যে ছড়ানো সম্ভব হলে শিক্ষার পণ্যায়ণ ও গঙ্গাযাত্রা রোধ করা সম্ভব। এটা আরো অনেক বেশি দরকার। ফ্যাসিস্টদের রমরমা পাল্লা দিয়ে বাড়ে শিক্ষার পণ্যায়ণ হতে থাকলে।
  • commentAmit | 162.158.2.115 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৫:২৫
  • S -কে , হ্যা, সেটা তো আছেই। দেশের একটা বড়ো শিক্ষিত অংশই মনে মনে পুরোপুরি চাড্ডি দের সমর্থক, জাস্ট গত ৫০-৬০ বছরে এরা লজ্জার খাতিরে ওপেনলি নিজের আসল চেহারা দেখতে পারে নি, একটু রেখে ঢেখে থাকতো। এখন তো খোলা উন্মুক্ত ময়দান, আর গরুর পালকে ঠেকায় কে। পুরো জঞ্জালের বালতি উপুড় করে দিচ্ছে হোয়াটস্যাপ এ।

    তবুও মনে হয় কেজরিওয়াল এর জেতাটা একটা ভালো মেসেজ। আকাশ কুসুম কিচ্ছু হবে না, এরকম দেশের পাবলিক নিয়ে হওয়ার কথাও নয়। কিন্তু ওই আর কি, এখন আমাদের "দাদা ভিক্ষে চাই না, শুধু কুকুর টাকে সামলান " র মতো দশা। যেটুকু যেখানে হয়, তাই লাভ। বিজেপি যা হাল করে ফেলেছে গত ক বছরে, তার থেকে সফট হিন্দুত্ব ও ভালো মনে হচ্ছে। ওই করেই যদি একটু একটু সেনসিবল লোক আসে আরো বেশি করে পলিটিক্স এ।

    জানি বিশাল রিস্ক আছে সফট হিন্দুত্ব নিয়ে খেলার, বিজেপি যেকোনোদিন দাবা ১০০-% উল্টে দিতে পারে নিজের মাঠে খেলা টেনে এনে। কিন্তু কি করা যাবে আর। যতদিন বিপ্লব এসে দরজায় না করা নাড়ে, ততদিন আপ র মতো দল গুলোই ই ভরসা।
  • commentএকলহমা | 162.158.187.116 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:৪৮
  • ত্রিদেব = সনাতন ধর্মের Holy Trinity :-)
  • commentAtoz | 162.158.187.54 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:৩৪
  • তিন আরো কত! যেমন ধরুন তেপান্তর। তিন প্রান্তর। তারপরে ধরুন ত্রিপুর, তিনটি পুর। যেমন ধরুন ত্রিগুণ, তিনটি গুণ। আবার ত্রিকাল, ত্রিলোক। ত্রিমাত্রা। এরকম কত! কথায় কথায় লোকে বলে তিনকূল। তিন বংশধারা। ঃ-)
  • commentএকলহমা | 162.158.187.116 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:৩১
  • @ s
    পূর্ণ সহমত।
  • commentএকলহমা | 162.158.187.116 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:২৭
  • ত্রি কি শুধুই শিবের? :-)
  • commentS | 108.162.246.112 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:১৯
  • সমস্যা হল যোগেন্দ্র যাদবের মতন লোকজন পলিটিক্সে গেলে বা আপে যে এক্সপেক্টেশান নিয়ে গেছিলেন, সেইধরনের পলিটিকাল পার্টি, পলিটিক্স, পলিসি, ডিসকোর্সের জন্য দেশ এখনও তৈরী নয়। ইউ গেট দ্য লীডার ইউ ডিজার্ভ।

    দেশের শিক্ষিতদের একটা বড় অংশ আরেসেস- বিজেপি- মোদি- শাহ- যোগীর সমর্থক। পাকিস্তানকে দেখে নেব, মুসলমানরা খুব বাড় বেড়েছে, কাস্ট সিস্টেম আসলে ভালো ব্যাপার এগুলোতে সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। এরা ভেবেছিল যে ইকনমি তো ভালো হবেই (এমনিতেই হওয়ার কথা) তার সাথে ৩৭০, মন্দির এইসবও হবে। এদের সবার হোয়াট্স্যাপ পড়ে মাথা খারাপ হয়ে গেছে, তা নয়। মাথা আগে থেকেই গরম হয়ে আছে, তাই হোয়াট্স্যাপে এত অন্ধ বিশ্বাস, মিথ্যা জেনেও সেগুলো গেলে আর ছড়ায়।
  • commentAtoz | 162.158.187.154 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:১৩
  • ধন্যবাদ অরিন। যা বুঝলাম তা হল, নেত্র অর্থাৎ কিনা নী+ত্র, "বদ্ধ জীবকে যে ত্রাণ করে।" শিব। সত্য শিব সুন্দর।
    অনেক ধন্যবাদ।
  • comment:-3 | 172.68.46.196 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:০৫
  • শুধু আপনার না, বহু ত্রি-র সঙ্গেই শিবঠাকুর জড়িত। বিল্বাষ্টকের প্রথম শ্লোকটাই তো তাইঃ
    त्रिदलं त्रिगुणाकारं त्रिनॆत्रं च त्रियायुधं
    त्रिजन्म पापसंहारम् ऎकबिल्वं शिवार्पणं
  • commentAmit | 162.158.2.205 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৪:০৪
  • যোগেন্দ্র যাদব বা প্রশান্ত ভূষণ এর মতো লোকজন আমি আদমি পার্টি থেকে বেরিয়ে যাওয়া দুর্ভাগ্য, কিন্তু কি আর করা যাবে। ভালো লোক হলে ও যে তাদের মধ্যে ইগো ক্লাশে হবে না তা তো নয়। কেজরিওয়াল শুরু তে সব সময় ফাইটিং বা অনশন মোড এ থাকতেন, সেই এক মোড এ থাকলে আজকে তিনি জিতে ফিরতে পারতেন কি না বলা মুশকিল। সে পিকে হোক বা যার কথা তেই হোক, গত ৩-৪ বছরে আমি আদমি পার্টি যে গভর্নেন্স র দিকে নজর দিয়েছে, তার একটা যে পসিটিভ রেজাল্ট এসেছে , একজন সাধারণ , সেনসিবল নাগরিক সেটা দেখে অনেকের ই খুব ভালো লাগছে। অন্তত দিলিই তে কেজরি না এলে তার জায়গায় , বিজেপি চলে আসতো, তার থেকে অনেক ভালো অপসন।

    এতো বড়ো দেশে হাজার সমস্যা। সব সমস্যা নিয়ে সবাই লড়তে গেলে তো মুশকিল। সে তো কেজরিওয়াল এর হনূমান চালিশা পাঠ নিয়েও মিডিয়া আওয়াজ দিয়েছে। সফট হিন্দুত্ব বহুজনের মধ্যেই আছে, কিন্তু তার মধ্যেও অন্তত কেও যদি একটা ভালো, এফিসিয়েন্ট এডমিনিস্ট্রেশন দিতে পারে, তাই এই বাজারে মন্দের ভালো। অল্টারনেটিভ যা সব আছে, সে তো আরো খারাপ। নীতিশ কুমার বা পাটনায়েক কেও মনে করি ভালো এডমিনিস্ট্রেটর। দুর্ভাগ্য যে ওনারা বিজেপি র মতো একটা সাম্প্রদায়িক দলের সাথে আছেন, কিন্তু কি করা যাবে আর। সব একসাথে শোধরাবে না জীবনেও।

    এটাই স্বপ্ন দেখি যে কোনোদিন দেশে একটা সরকার আসবে, যে মিলিটারি র পেছনে রাফাল না গুঁজে সেই পয়সা স্কুল বানানোর কাজে লাগাবে, ইন্ডিয়া পাকিস্তান-বাংলাদেশ শ্রীলংকা জুড়ে EU র মতো একটা অঞ্চল তৈরী করবে, সর্বক্ষণ উদ্বাস্তু নিয়ে চিৎকার না করে, NRC / CAA নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে, যুদ্ধবাজি না দেখিয়ে একটা প্রপার ওয়ার্ক ভিসা সিস্টেম চালু করবে যাতে লোকজন এই দেশ গুলোতে ফ্রীলি ঘুরে বেড়াতে পারে এবং কাজ করতে পারে। সেটা আমাদের জীবন কালে হয়তো হবে না, কিন্তু হয়তো একদিন হবে।
  • commentঅরিন | 198.41.238.121 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৩:৫৩
  • "হুঁ, দৃষ্টি। কিন্তু এইভাবে ভাগ করলেও বহির্দৃষ্টি আর অন্তর্দৃষ্টি দুটো ক্যাটেগোরি হচ্ছে। এমনি যে দুই চোখ, সেই দুটোই একই কাজ করছে, বাইরের দৃষ্টির ব্যাপারটা সামলাচ্ছে , তাদের আলাদা করে তাহলে আর দুই চোখ বলার তো দরকার থাকছে না।"

    নেত্র কথাটির যতদূর জানি একাধিক তাৎপর্য আছে। সংস্কৃত অভিধান অনুযায়ী নেত্র কথাটির মানে "guide " বা গুরু অর্থে ধরতে হবে (যেমন "চক্ষুরুন্মীলিতাং যেন তস্ময়ী (ভুল বানান) শ্রী গুরবে নমঃ")। তাই যদি হয়, এই আভিধানিক অর্থে সত্যি নেত্র দৃষ্টি বা চোখই বটে, বা একাধারে দৃষ্টি, ও চোখ (দেখা ও দেখানো, বৌদ্ধ দর্শনে পালি ভাষায় "স্পর্শ" অর্থে যেমন পস্স কথাটির ব্যবহার হয়, বা সালায়তন (বানান ভুল), অর্থাৎ ছটি ইন্দ্রিয় এবং তাদের "সেন্সরি inputs " ।

    - এদিক থেকে দেখলে "নেতা"ও একধরণের গাইড বটেই।
    - অন্তর বাহির যেদিক দিয়েই বিচার করুন, নেত্র অন্ধকার থেকে আলোয় যাবার অবলম্বন।

    তাহলে @অটোজ এর পুরোনো প্রশ্ন, তিনে নেত্র কথাটা কথা থেকে এসে থাকতে পারে ? দুয়ে নেত্র ই বা নয় কেন? এর একটা ব্যাখ্যা ২০১২ সালে জয়দেব সিংহের লেখা "শিবসূত্র" নামে একটি বইতে (১) দেখছি যেখানে তিনি লিখেছেন, নিরুক্তিক বা "etymological " সেন্স দিয়ে দেখলে নেত্র কথাটার আরেকটা মানে হতে পারে "নিয়ন্ত্রিতানাম ত্রানম ", অর্থাৎ বদ্ধ জীবের পরিত্রাতা। বইটার ১৯৭ পাতা থেকে তিনি যা লিখেছেন তুলে দিলাম,

    "Siva is called netra (lit. eye) not because He is the physical eye,but because it is He who through His grace reveals His concealed being to them who in turn towards Him. It is He alone who both conceals and reveals Himself "

    ত্রিনেত্র মনে করলে (আমার অন্তত) শিবের কথাটা প্রথম মনে হয়। সেই অর্থে তিনি নেত্র কথাটা এসে থাকতে পারে।

    (১) https://www.amazon.com/Siva-Sutras-Yoga-Supreme-Identity/dp/8120804074/ref=sr_1_1?keywords=9788120804074&linkCode=qs&qid=1581547934&s=books&sr=1-1
  • commentAtoz | 162.158.187.192 | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৩:২৫
  • ভীষণ লাল সেই টিপ। রক্তচক্ষু হয়ে থাকেন আরকি। ঃ-)

  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • হরিদাসের বুলবুলভাজা : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • জাগ্রত শাহিন বাগ
    (লিখছেন... বিপ্লব রহমান, আজ সুপ্রিম কোর্টে, Anjan Banerjee)
    জনসন্ত্রাসের রাজধানী
    (লিখছেন... র, pi, রঞ্জন)
    কোকিল
    (লিখছেন... দেবাশিস ঘোষ)
    বিনায়করুকুর ডায়েরি
    (লিখছেন... ^&*, একলহমা , pi)
    মিষ্টিমহলের আনাচে কানাচে - দ্বিতীয় পর্ব
    (লিখছেন... দীপক দাস , দীপক, দীপক)
  • টইপত্তর : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • আগামীর অবয়ব
    (লিখছেন... দ্রি, দ্রি, দ্রি)
    নিমো গ্রামের গল্প
    (লিখছেন... সুকি , সুকি , সুকি)
    যুক্তরাস্ট্র নির্বাচন ২০২০
    (লিখছেন... )
    প্রেমিকাকে কোলকাতাতে ফুল পাঠাবো কিভাবে?
    (লিখছেন... pi, pi, সুকি)
    পুরোনো লেখা খুঁজছেন, পাচ্ছেন না - এখানে জিজ্ঞেস করুন
    (লিখছেন... lcm, r2h, দু:শাসন)
  • হরিদাস পালেরা : যাঁরা সম্প্রতি লিখেছেন
  • শ্রী রামকৃষ্ণ : কিছু দ্বন্দ্ব : Sumana Sanyal
    (লিখছেন... রঞ্জন, এলেবেলে, Anjan Banerjee)
    যুদ্ধ : Swapan Majhi
    (লিখছেন... )
    গাধা সময়ের পদাবলী : রোমেল রহমান
    (লিখছেন... Du)
    জোড়াসাঁকো জংশন ও জেনএক্স রকেটপ্যাড-৮ : শিবাংশু
    (লিখছেন... dd, i, শিবাংশু)
    তিরাশির শীত : কুশান গুপ্ত
    (লিখছেন... anandaB, ন্যাড়া, Apu)
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তত্ক্ষণাত্ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ যে কেউ যেকোনো বিষয়ে লিখতে পারেন, মতামত দিতে পারেন৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
  • যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত