Saikat Bandyopadhyay RSS feed

Saikat Bandyopadhyayএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • জীবন যেরকম
    কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটা পোষ্ট করেছিলাম “সাচ্‌ ইজ লাইফ” বলে। কেন করেছিলাম সেটা ঠিক ব্যখ্যা করে বলতে পারব না – আসলে গত দুই বছরে ব্যক্তিগত ভাবে যা কিছুর মধ্যে দিয়ে গেছি তাতে করে কখনও কখনও মনে হয়েছে যে হয়ত এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি মানুষ চট করে হয় না। আমি যেন ...
  • মদ্যপুরাণ
    আমাদের ভোঁদাদার সব ভাল, খালি পয়সা খরচ করতে হলে নাভিশ্বাস ওঠে। একেবারে ওয়ান-পাইস-ফাদার-মাদা...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ৩
    ঊনবিংশ শতকের শেষে বা বিংশশতকের প্রথমে বার্সিলোনার যেসব স্থাপত্য তৈরী হয়েছে , যেমন বসতবাটি ক্যাথিড্রাল ইত্যাদি , যে সময়ের সেলিব্রিটি স্থপতি ছিলেন এন্টোনি গাউদি, সেগুলো মধ্যে একটা অপ্রচলিত ব্যাপার আছে। যেমন আমরা বিল্ডিং বলতে ভাবি কোনো জ্যামিতিক আকার। যেমন ...
  • মাসকাবারি বইপত্তর
    অত্যন্ত লজ্জার সাথে স্বীকার করি, আমি রিজিয়া রহমানের নামও জানতাম না। কখনও কোনও আলোচনাতেও শুনি নি। এঁর নাম প্রথম দেখলাম কুলদা রায়ের দেয়ালে, রিজিয়া রহমানের মৃত্যুর পরে অল্প কিছু কথা লিখেছেন। কুলদা'র সংক্ষিপ্ত মূল্যায়নটুকু পড়ে খুবই আগ্রহ জাগে, কুলদা তৎক্ষণাৎ ...
  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা... বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপথ পরিবর্তন হওয়ার দিন
    বিএনপি এখন অস্তিত্ব সংকটে আছে। কিন্তু কয়েক বছর আগেও পরিস্থিতি এমন ছিল না। ক্ষমতার তাপে মাথা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল দলটার। ফলাফল ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড মেরে হত্যার চেষ্টা। বিরোধীদলের নেত্রীকে হত্যার চেষ্টা করলেই ...
  • তোমার বাড়ি
    তোমার বাড়ি মেঘের কাছে, তোমার গ্রামে বরফ আজো?আজ, সীমান্তবর্তী শহর, শুধুই বেয়নেটে সাজো।সারাটা দিন বুটের টহল, সারাটা দিন বন্দী ঘরে।সমস্ত রাত দুয়ারগুলি অবিরত ভাঙলো ঝড়ে।জেনেছো আজ, কেউ আসেনি: তোমার জন্য পরিত্রাতা।তোমার নমাজ হয় না আদায়, তোমার চোখে পেলেট ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ২
    বার্সিলোনা আসলে স্পেনের শহর হয়েও স্পেনের না। উত্তর পুর্ব স্পেনের যেখানে বার্সিলোনা, সেই অঞ্চল কে বলা হয় ক্যাটালোনিয়া। স্বাধীনদেশ না হয়েও স্বশাসিত প্রদেশ। যেমন কানাডায় কিউবেক। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মনে হয় এরকম একটা জায়গা থাকে, দেশি হয়েও দেশি না। ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ১
    ঠিক করেছিলাম আট-নয়দিন স্পেন বেড়াতে গেলে, বার্সিলোনাতেই থাকব। বেড়ানোর সময়টুকুর মধ্যে খুব দৌড় ঝাঁপ, এক দিনে একটা শহর দেখে বা একটা গন্তব্যের দেখার জায়গা ফর্দ মিলিয়ে শেষ করে আবার মাল পত্তর নিয়ে পরবর্তী গন্তব্যের দিকে ভোর রাতে রওনা হওয়া, আর এই করে ১০ দিনে ৮ ...
  • লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া
    -'একটা ছিল লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া।আর ছিল একটা নীল ঝুঁটি মামাতুয়া।'-'এরা কারা?' মেয়েটা সঙ্গে সঙ্গে চোখ বড়ো করে অদ্ভুত লোকটাকে জিজ্ঞেস করে।-'আসলে কাকাতুয়া আর মামাতুয়া এক জনই। ওর আসল নাম তুয়া। কাকা-ও তুয়া বলে ডাকে, মামা-ও ডাকে তুয়া।'শুনেই মেয়েটা ফিক করে হেসে ...
  • স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি
    স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি। আমি স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে কাজ করছি ১৯৯৮ সাল থেকে। সিলিকন ভ্যালিতে। সময়ের একটা আন্দাজ দিতে বলি - গুগুল তখনও শুধু সিলিকন ভ্যালির আনাচে-কানাচে, ফেসবুকের নামগন্ধ নেই, ইয়াহুর বয়েস বছর চারেক, অ্যামাজনেরও বেশি দিন হয়নি। ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

Saikat Bandyopadhyay

পঞ্চাশবার লিখতে হলে পঞ্চাশবারই লিখব, কিন্তু মোদ্দা কথা হল এন-আর-সি একটি বর্বর জিনিস। কেন বর্বর? ওপার বাংলা থেকে এপারে কি লোক আসেনি? আসেনা? একশবার এসেছে। কেন এসেছে? কারণ আমাদের ধেড়ে খোকা জাতীয়-নেতারা তেলের শিশির বদলে একটা জাতির মাঝখান থেকে একটা লাইন টেনে দিয়েছিলেন। তার ফলে অন্তত কোটিখানেক মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে যখন পাড়ি জমাচ্ছিলেন সীমান্তের একদিক থেকে অন্য দিকে, তখন আমাদের নেতারা কী করছিলেন? নেহরু এই মানুষগুলিকে উদ্বাস্তুর স্বীকৃতি অবধি দেননি, ওপারে ফিরে যাবার উপদেশ দিয়েই কর্তব্য শেষ করেছেন। কানাকড়ি অবধি ঠেকাননি। শিয়ালদা স্টেশন যখন ভরে যাচ্ছে ছিন্নমূল মানুষে অন্য আরেকজন মহাপ্রভু শ্রী শ্যামাপ্রসাদ তো 'আমি পাকিস্তান ভেঙে দিয়েছি' বলে উদ্বাহু হয়ে কাশ্মীর দৌড়চ্ছেন।

৫১ থেকে ৬১ হয়ে ৭১। সেই স্রোত কমেনি। পূর্ব ভারতের, বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গের পরিকাঠামো ভেঙে পড়েছে। দায় কার? তাঁদের, যাঁরা স্রেফ বাঙালি হবার কারণে লাথি-ঝাঁটা খেয়েছেন, হত্যালীলার শিকার হয়েছেন এপারে, ওপারে, আসামে, তাঁদের? না যাঁদের ফুর্তির প্রাণ গড়ের মাঠ হওয়ায় যাঁরা একটা লাইন টেনে দেশভাগের হুজুগ তুলেছিলেন, আর তারপর শখ মিটে যাওয়ায় হাত ধুয়ে পগার পার হয়েছিলেন, সেই নেতাদের? বছর তিরিশেক আগে পর্যন্ত এই দোষ-টোষ সরাসরি স্বীকার না করলেও উদ্বাস্তুদের কথা, তাঁদের স্বীকৃতি না দেবার কথা, দন্ডকারণ্যে ঠেলে পাঠানোর কথা, মরিচঝাঁপির কথা, এসব প্রসঙ্গ চুপচাপ এড়িয়ে যেতেন সরকারি কর্তাব্যক্তিরা। তখন অন্তত চক্ষুলজ্জাটুকু ছিল। এখন সে পাটও গেছে। এখন শোনা যাচ্ছে, উদ্বাস্তু হবার দায়ও নাকি বাঙালির। "আমরা তো একটা লাইন টেনেই দিয়েছিলাম, তোরা টপকে এলি কেন? যা শালারা বাংলাদেশ যা" টাইপের কথাবার্তা বুক বাজিয়ে বলার সাহস অর্জন করে ফেলেছেন জাতির নেতা নামক বিশুদ্ধ আপদরা।

এন-আর-সি এই আপদদেরই নতুন মস্তিষ্কপ্রসূত খেলনা। এঁরাই ৪৭ এ তেলের শিশি ভাঙার মতো করে কোটিখানেক লোকের ভিটে-মাটি চৌপাট করে দিয়েছিলেন। আবার নতুন করে আরেকদফা সেই খেলায় নামছেন। আরও কত লোকের ভিটে-মাটি-জান-প্রাণ এতে উচ্ছন্নে যাবে জানা নেই। সেই জন্যই জোর গলায় কটি কথা বলা উচিত। যে, হ্যাঁ, সীমান্তের এপার থেকে ওপারে চলাচল হয়। হ্যাঁ, এদেশে উদ্বাস্তুরা এসেছেন, আসেন। হ্যাঁ, তাতে এদেশের অর্থনীতি, পরিকাঠামোতে চাপ পড়ে। কিন্তু এর দায় যাঁরা এসেছেন তাঁদের নয়। এর দায়, ভারত এবং পাকিস্তানের জাতির পিতাদের, যাঁরা অবস্থাটা তৈরি করেছেন। এর দায় হিন্দু মহাসভার, উদ্বাস্তু সমস্যা তৈরি হতে যাঁরা আনন্দে লাফিয়েছিলেন, এর দায় কমিউনিস্টদের, যাঁরা পাকিস্তান চেয়েছিলেন। এর দায় কংগ্রেসের, মুসলিম লিগের, যাঁরা ক্ষমতার লোভে আস্ত একটা ভূখন্ডে কোটি-কোটি মানুষকে বলি দিতে পিছপা হননি। এই দায় তাঁদের নিতে হবে। বাংলাদেশের সঙ্গে কথা বলে যৌথ উদ্যোগে সমস্যা মেটান। বাংলাকে উদ্বাস্তু কল্যাণ খাতে তার প্রাপ্য টাকা সুদসমেত ফিরিয়ে দিন। তাতেও না মিটলে অপদার্থতার দায় ঘাড়ে নিয়ে নিজেরাই বাংলাদেশ, বার্মা যেখানে খুশি বিদেয় হোন। কিন্তু নিজেদের অপদার্থতার দায় বাঙালি জাতির ঘাড়ে আরও একবার চাপাবেন না।

#pakistan #india #partition

1184 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6]   এই পাতায় আছে 41 -- 60
Avatar: S

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

"তবে সব লোক একসঙ্গে আশ্রয় নিতে এলে অর্থনীতি লাটে উঠবে তাও ঠিক"

এটা কি করে জানা গেল? আম্রিগার বার্থ রেট এখন যা (এবং যেভাবে ক্রমশ কমছে) তাতে বাইরে থেকে লোক না এলে পপুলেশান কমে যাবে। লজিকালি এইসব ইমিগ্র্যান্টরা না এলেই অর্থনীতি লাটে উঠে যাবে।
Avatar: dc

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

"আর উল্টোদিকের অবস্থান হল "ইহাদের ক্রমে নাগরিক করে তোলো""

এটা আমারও অবস্থান। ফাইন্যান্স আর লেবার ফ্লো অবাধ হোক, বর্ডার কন্ট্রোল ইত্যাদি উঠে যাক, ক্যাপিটাল আর লেবার দুটোরই ফ্রি ট্রেড আরও বাড়ুক। লোকে যে দেশে খুশী গিয়ে থাকুক, যেখানে ইচ্ছে কাজ করুক, সে দেশের ইকোনমিতে কনট্রিবিউট করুক। এরকম হলে আমি নিউ জিল্যান্ডে গিয়ে সেটল করবো।
Avatar: S

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

আমার ক্যাপিটাল অন্যের দেশে পাঠিয়ে বা সেখান থেকে অসময়ে তুলে নিয়ে সেই দেশের অর্থনীতি চৌপাট করে দেওয়ার ক্ষমতা যদি থাকে, তাহলে লেবার ফ্লো কন্ট্রোলই বা করা হবে কেন? গ্যাট চুক্তির নিয়ম অনুযায়ী লেবার ফ্লো অবাধ হবার কথা। বাকিগুলো অবাধ করে দিয়ে এখন লেবারের কথা আসতেই সবাই দরজা বন্ধ করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

এইটা এই টইয়ের ব্যাপার নয়। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে মুলতঃ হিন্দুরাই এদেশে এসেছে। আসামে এনারসি যে হচ্ছে সেতো সেখান থেকে মুসলমান (বিজেপির ইন্টারেস্ট) এবং সবধর্মেরই বাঙালী (অসমীয়াদের ইন্টারেস্ট) তাড়ানোর আছিলা মাত্র। আর পস্চিমবঙ্গে এনারসির জন্য অতি উৎসাহিত সামান্য কিছু ঘটি পাব্লিক। এখানে নেটিভ পাব্লিকের তেমন সাপোর্ট নেই, তাই এখানে হবেনা। এইসব ক্ষেত্রে শুধুমাত্র নেতারা চাইলেই যে কিছু হয়্না, পাব্লিকের সাপোর্ট দরকার হয় - এনারসিই তার উদাহরণ। আবার নেতারা চাইলে এটাকে ডিলে করিয়ে করিয়ে শেষে না করালেও পারতো।

আরেকটা কথা বলি - সোশাল মিক্সিং খুব জরুরী। সেটা না হলেই দেশভাগ, এনারসির মতন ঘটনাগুলো ঘটে। পাশাপাশি বাস করেও যদি দুই ধর্ম, জাতের লোকের দুটো আলাদা দুনিয়া হয়, তখন সমস্যা তৈরী হবেই।
Avatar: dc

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

"বাকিগুলো অবাধ করে দিয়ে এখন লেবারের কথা আসতেই সবাই দরজা বন্ধ করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।"

এক্স্যাক্টলি। এই বন্ধ দরজাগুলো খুলতে হবে। ক্যাপিটালিজমকে নিওরাইট হাইজ্যাক করে নিয়েছে, তাদের হাত থেকে বাঁচাতে হবে।

"সোশাল মিক্সিং খুব জরুরী"

১০০% সহমত। সবরকম মবিলিটি এনকারেজ করা জরুরি, তাতে মার্কেটও বাড়ে।
Avatar: PM

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

সোভিয়েত গুলো " সভেরেন ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেট" ছিলো ? 😳ইচ্ছে করলেই বেড়িয়ে যেতে পারতো? 😲

এটাকে অজ্ঞতা বলবো না। কিন্তু তক্কে জেতার অদ্ভুত প্রচেষ্টাই বলব
Avatar: PM

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

স্কট্ল্যন্ড সভেরেন ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেট" ? ওয়র্ল্ড অ্যাটলাস তা বলছে না

"Scotland is one of the four countries that make up the sovereign state of the United Kingdom. However, Scotland is itself not a sovereign state and is recognized more closely as a province or region."

স্কট্ল্যান্ড আর নরদার্ন আয়ারল্যান্ড এর সভেরেনিটি একটি অতি বিতর্কিত বস্তু যা নিয়ে ২০১৮ সালেও ব্রিটিশ পার্লামেন্ট কে রেসলিউসন পাস করতে হয়। তার মানে ইশান বাবুর মত পন্ডিতের সাথে আমার মত অজ্ঞ লোকের দুনিয়ায় অভাব নেই। ব্রিটিশ পার্লামেন্ট এও নেই । নইলে বিতর্ক হত না।ঃ)







Avatar: কল্লোল

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

পিএম।
হ্যাঁ, সমস্ত ইউনিয়ান রিপাবলিকগুলোর যখন খুশী USSR থেকে বেরিয়ে যাবার অধিকার ছিলো -
Stalin’s CConstitution of the USSR
Moscow, USSR December 1936
ARTICLE 17. To every Union Republic is reserved the right freely to secede from the U.S.S.R.
সূত্রঃ
http://insidethecoldwar.org/sites/default/files/documents/Constitution
%20of%20the%20USSR%20under%20Stalin_0.pdf




Avatar: Amit

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

আচ্ছা, এই ওপেন মডেল যুক্তরাজ্য নিয়ে মাঝেই মাঝেই টইতে কিসব ভেসে ওঠে। সেসব দেশে নাকি যে কোনো রাজ্য যখন ইচ্ছে ধ্যাকতে পারে , যখন ইচ্ছে বেরোতে পারে , পুরো মুক্তাঞ্চল ja ke বলে। সেসব জায়গা নাকি একেবারে স্বর্গের পরের স্টেশন। ওরকম ই নাকি জিন্নার আইডিয়া ছিল, কে জানে বাবা, আর ওসব ইমপ্লিমেন্ট হলেই ইন্ডিয়া পাক বাংলাদেশের যাবতীয় সমষ্যা ইভাপোরেট হয়ে যেত। জাস্ট নেহেরু আর প্যাটেল শয়তানি করে হতে দেয়নি।

এই তিনটে দেশ বাদ দ্যান, একেবারে আজেবাজে লোক নেতা হয়ে এগুলোকে ডুবিয়ে দিয়েছে। কিন্তু বাস্তবে কটা দেশে এরকম ভাঙা গড়া র মেলামেলি পুরো শান্তিপূর্ণ হয়েছে , কেও একটু উদাহরণ দিয়ে জানাবেন ? এই হালে তো দেখি স্পেন এ হৈচৈ হয়ে গেলো ক্যাটালোনিয়া কে বেরোতে দেবেনা বলে। গ্রীস আর মেকাদিনিয়ার মধ্যেও বাবল হতে দেখি। নর্থ আইর্লন্ড্ আবার ব্রেক্সিট এর পরে খেপে গেছে , গণভোট নিয়েও কি অবস্থা। যুগোস্লাভিভিয়া একখান দেশ ভেঙে এখন চারটে হয়ে গেলো, তাতেও লড়ালড়ি, আফ্রিকার দেশ গুলো আর কি বলবো, এদিকে ইন্দোনেশিয়া ভেঙে ইস্ট টিমোর বেরিয়ে গেলো , তাতেও মারামারি। কানাডা র ইতিহাস টা একটু খুঁজে দেখতে পারেন, প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের সময় কি রকম টার্বুলেন্ট ছিল। এই সব আর কি। USA এ যদ্দুর মনে পড়ছে ১৮ শতকে ক্যালিফর্নিয়া একবার কিসব রেসল্যুশন আনছিল, সেখানেও তাড়াতাড়ি সব ধামাচাপা পরে গেলো। কোথাও সেই ওপেন মডেল দেখতে পাইনা , কোথাও শান্তি নেই।

এই সব বড়োলোক দেশ সব ছড়িয়ে ফেলছে , আর এদিকে আশা করা হচ্ছে, দাঙ্গার মধ্যে নাকি ইন্ডিয়া পাকিস্তান ওপেন যুক্তরাষ্ট্র মডেল তৈরী করবে।

ঈশেন বাবু অবশ্য একটা দিকে লজিক্যালি ঠিক। উনি সোভিয়েত দেশের কথা বলেছেন শুধু, ওটাকে ভালো খারাপ বা ফলো করার কথা কিছু বলেন নি । কেন বললেন বা এই টইতে তার রেলেভ্যান্সি কোথায় তা অবশ্য জানা নেই।

আর কল্লোল দা, স্তালিন এর রাশিয়ার মডেল নিয়ে প্লিজ আর হাসাবেন না। খাতায় কলমে যাই থাক , আসলে কি কি হয়েছিল সেটা তো সবাই ভালোই জানেন। আর কষ্ট করে নাই বা লিখলাম। :) :)
Avatar: dc

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

"সমস্ত ইউনিয়ান রিপাবলিকগুলোর যখন খুশী USSR থেকে বেরিয়ে যাবার অধিকার ছিলো"

দিদিও বলেছেন কাটমানি ফেরত দিতে হবে।
Avatar: কল্লোল

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

স্তালিনের মডেল কি মডেল না, সেটার চেয়েও বড়ো ক্থা এই অধিকার ছিলো - এটা সত্যি। এটুকুই।
Avatar: Ishan

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

"ঈশেন বাবু অবশ্য একটা দিকে লজিক্যালি ঠিক। উনি সোভিয়েত দেশের কথা বলেছেন শুধু, ওটাকে ভালো খারাপ বা ফলো করার কথা কিছু বলেন নি । কেন বললেন বা এই টইতে তার রেলেভ্যান্সি কোথায় তা অবশ্য জানা নেই।"

যথেষ্টই বুঝেছেন। মুসলিম লিগের লাহোর প্রস্তাবের কথা উঠেছিল। সেখানে পাকিস্তান প্রসঙ্গে সার্বভৌম শব্দটা ব্যবহার করা হয়েছিল। আমি বলি, যে, সার্বভৌম মানেই আলাদা জাতিরাষ্ট্র হতেই হবে এমন না। ১৯৪০ সালের হিসেবে। পিএম বললেন সে সময়ে সার্বভৌম রাজ্যদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কনসেপ্ট চালু হয়নি। সে প্রসঙ্গেই সোভিয়েত। সোভিয়েতে এই কনসেপ্টটি ছিল। ইউক্রেনে বা কাজাকস্তানে কী হয়েছিল, সে অন্য প্রসঙ্গ, কিন্তু কনসেপ্টটা অবশ্যই ছিল।

ভারতবর্ষের ইতিহাস দেখলে দেখবেন, এই ধারণাটি নিয়ে প্রচুর টানাপোড়েন হয়েছে। শুধু পাকিস্তান নয়, বাংলা সার্বভৌম হতে চেয়েছিল। উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত সার্বভৌম হতে চেয়েছিল। কাশ্মীরও তাই। কাশ্মীর অবশ্য দেশীয় রাজ্য ছিল। এরকম আরও কয়েকটি দেশীয় রাজ্য ছিল। তারা সার্বভৌমত্ব চেয়েছিল, কিন্তু আলাদা থাকবে বলে নয়। তারা স্ব-ইচ্ছায় সারভৌমত্ব সমেত ভারতীয় ইউনিয়নে (বা পাকিস্তানে) যোগ দিতে চেয়েছিল। ভারতবর্ষের এবং পাকিস্তানের এই ধারণাটি ছিল আল্গা। ঢিলে-ঢালা। উল্টোদিকে প্যাটেল এবং নেহরু একটি কেন্দ্রীভূত ভারতবর্ষ চেয়েছিলেন। মূলত সেই জন্যই ক্যাবিনেট মিশন প্রস্তাব প্রত্যাখান, বাংলা ভাগ, ইত্যাদি।

শেষমেশ যদিও ভারতের নাম ইউনিয়ন, পশ্চিমবঙ্গ বা তামিলনাড়ু একটি স্টেট, রাজ্যগুলি ভাষা বা জাতিভিত্তিক, কিন্তু তাতেও জিনিসটা বকচ্ছপ হয়েই দাঁড়িয়েছে। মস্কোর আধিপত্যের মতো দিল্লির আধিপত্য। অনেকে অবশ্য তাতে খুশিই, কারণ এতে করে রাজকাপুরের নাম সারা পৃথিবীতে অনেকে জেনে গেছে, আর ভারতের ক্রিকেট টিম কতবার যেন বিশ্বকাপ জিতেছে।
Avatar: দ

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

অনেকেই খুশী হবেন জেনে যে কর্ণাটকেও ডিটেনশান ক্ল্যাম্প বানিয়েছে কংগ্রেস সরকার।
Avatar: Amit

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

আরে সেটাই তো জানতে চাইছি । এই সার্বভৌম মডেল এর ঠিকঠাক কোথায় কোথায় শান্তি পুর্ন ইমপলিমেনট হয়েছে? রেগে যাচ্ছেন কেন ?
Avatar: PM

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

ধন্যবাদ কল্লোলদা। এটা জানা ছিলো না যে অন্তত খাতায় কলমে সোভিয়েত দের বেরিয়ে যাবার অধিকার ছিলো।

কিন্তু তাতে তর্ক টা থামছে না। ১৯২২ বা ১৯৪০ এর সংবিধানে কোথাও দেখি নি যে সোভিয়েত গুলো সভেরেন ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেট। অপানি কোথাও তার রেফেরেন্স পেলে দিন । সেচ্ছায় বেরিয়ে যাবার ক্ষমতা একটা মাত্র ট্রেট সভেরেনিটির।

Moldova was declared a sovereign state on June 23, 1990 যদি মলদোভা আগে থেকেই সভেরেন থাকবে , তাহলে নতুন করে সভেরেনিটি ডিক্লেয়ার করার দরকার হলো কেনো ১৯৯০ তে?

মুল প্রশ্নটা হলো "ইন্ডিপেন্ডেন্ট সভেরেন স্টেট" বলতে ৯৯% যা বুঝত , লাহোর রেসেলুসনে তা বোঝাতে চাওয়া হয় নি, অন্য কিছু বোঝাতে চাওয়া হয়েছে, এরকম ক্লেম করতে হলে এর সপক্ষে যতটা তথ্য দেওয়ার কথা লেখক তা দেন নি। তাই দেশ ভাগ হটাত হয়েছে---নেতারাই দাই--- আর পাবলিকের কোনো দায় নেই এই প্রোপোসিসন সাব্স্ক্রাইব এখ্নো করার মতো যুক্তি আসে নি।

এর মানে কিন্তু এই নয় যে নেতাদের দায় নেই। অবশ্যি আছে। কিন্তু দুপারের সাধারন বাঙালী ও সমান দায়ী।











Avatar: এলেবেলে

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

@অমিত লিখেছেন --- "সোহরাওয়ার্দি একটি অতি উত্তম খচ্চর ছিলেন এবং তাঁর বিশ্বাসযোগ্যতা ছিল প্রায় শূন্য। ডায়রেক্ট অ্যাকশন ডে-তে তাঁর ভূমিকা নিঃসন্দেহে নিন্দনীয়। কিন্তু তাঁর থেকেও অতি উত্তম খচ্চর ছিলেন কংগ্রেসের হিন্দু উচ্চবর্ণের নেতারা। তাঁরা তাক বুঝে অনেক আগেই অস্ত্রশস্ত্র-গাড়ি-মাস্তান রেডি করে রেখেছিলেন।" এসব তো ডিসক্লেইমার , তথ্য নয়।

ডিসক্লেইমার হতে যাবে কোন দুঃখে? তথ্য তো বলছে ওই দিন মারা গিয়েছিলেন চার হাজার নিরীহ মানুষ যাঁদের অধিকাংশই মুসলমান। অথচ কায়দা করে দোষটা ফেলা হয়েছিল মুসলিম লিগের ঘাড়ে। মুসলিম লিগ যে কত বড় সাম্প্রদায়িক দল, কত সহিংস, কত বিপজ্জনক তা বোঝাতে। গোপাল পাঁঠা এবং তার দলবল গাড়ি-অস্ত্র মজুত করেই রেখেছিল গণ্ডগোল পাকাবে বলে। কারণ কংগ্রেস এটাকে ব্যবহার করেছিল 'as an excuse to go ahead with the transfer of power to a Congress-only cabinet.' ইংরেজি উদ্ধৃতিটা আমারও নয়, তথ্য হিসেবে ভুলও নয়। তাহলে এসব অভিযোগের অর্থ কী?
Avatar: এলেবেলে

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

দেশভাগে জনসাধারণকে দায়ী করে লাভ কী? পৃথিবীর ইতিহাসের বৃহত্তম মাইগ্রেশনটি নেতারা করেছিলেন না সাধারণ জনগণ? দেশভাগের ৯০ শতাংশ দায় গান্ধী-নেহরু-প্যাটেলের এবং চক্রবর্তী রাজাগোপালাচারীর। তারও আগে লাজপত রায়ের যিনি পাকিস্তান প্রস্তাবের বহু আগে তা চেয়েছিলেন। জিন্না বড়জোর ১০ ভাগ দায়ী, তা-ও তাঁকে একরকম বাধ্য করা হয়েছিল। ওই যে ১৪ দফা প্রস্তাব সে ব্যাপারে বহু আগে দ্বিতীয় গোলটেবিল বৈঠকে গান্ধী ঘুষ হিসেবে দিতে চেয়ে আম্বেদকরকে আটকাতে চেয়েছিলেন। এসব তো ডকুমেন্টেড।
Avatar: কল্লোল

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

পিএম।
চ্যাপটার ২। আর্টিকেল ১৩ আর ১৪।
ARTICLE 13. The Union of Soviet Socialist Republics is a federal state, formed on the basis of the voluntary association of Soviet Socialist Republics having equal rights, namely :
The Russian Soviet Federative Socialist Republic
The Ukrainian Soviet Socialist Republic
The Byelorussian Soviet Socialist Republic
The Azerbaijan Soviet Socialist Republic
The Georgian Soviet Socialist Republic
The Armenian Soviet Socialist Republic
The Turkmen Soviet Socialist Republic
The Uzbek Soviet Socialist Republic
The Tajik Soviet Socialist Republic
The Kazakh Soviet Socialist Republic
The Kirghiz Soviet Socialist Republic
The Karelo-Finnish Soviet Socialist Republic
The Moldavian Soviet Socialist Republic
The Lithuanian Soviet Socialist Republic
The Latvian Soviet Socialist Republic
The Esthonian Soviet Socialist Republic
ARTICLE 14. The jurisdiction of the Union of Soviet Socialist Republics, as represented by its highest organs of state authority and organs of government, covers :
a) Representation of the Union in international relations, conclusion and ratification of treaties with other states;
b) Questions of war and peace;
c) Admission of new republics into the U.S.S.R.;
d) Control over the observance of the Constitution of the U.S.S.R. and ensuring conformity of the Constitutions of the Union Republics with the Constitution of the U.S.S.R.;
e) Confirmation of alterations of boundaries between Union Republics;
f) Confirmation of the formation of new Territories and Regions and also of new Autonomous Republics within Union Republics;
g) Organization of the defence of the U.S.S.R. and direction of all the armed forces of the U.S.S.R.;
h) Foreign trade on the basis of state monopoly;
i) Safeguarding the security of the state;
j) Establishment of the national economic plans of the U.S.S.R.;
k) Approval of the single state budget of the U.S.S.R. as well as of the taxes and revenues which go to the all-Union, Republican and local budgets;
l) Administration of the banks, industrial and agricultural establishments and enterprises and trading enterprises of all-Union importance;
m) Administration of transport and communications;
n) Direction of the monetary and credit system;
o) Organization of state insurance;
p) Raising and granting of loans;
q) Establishment of the basic principles for the use of land as well as for the use of natural deposits, forests and waters;
r) Establishment of the basic principles in the spheres of education and public health;
s) Organization of a uniform system of national economic statistics;
t) Establishment of the principles of labour legislation;
u) Legislation on the judicial system and judicial procedure; criminal and civil codes;
v) Laws on citizenship of the Union; laws on the rights of foreigners;
w) Issuing of all-Union acts of amnesty.
ARTICLE 15. The sovereignty of the Union Republics is limited only within the provisions set forth in Article 14 of the Constitution of the U.S.S.R.
Outside of these provisions, each Union Republic exercises state authority independently. The U.S.S.R. protects the sovereign rights of the Union Republics.
ARTICLE 16. Each Union Republic has its own Constitution, which takes account of the specific features of the Republic and is drawn up in full conformity with the Constitution of the U.S.S.R.
ARTICLE 17. To every Union Republic is reserved the right freely to secede from the U.S.S.R.
ARTICLE 18. The territory of a Union Republic may not be altered without its consent.
ARTICLE 19. The laws of the U.S.S.R. have the same force within the territory of every Union Republic.
ARTICLE 20. In the event of a discrepancy between a law of a Union Republic and an all-Union law, the all-Union law prevails.
ARTICLE 21. A single Union citizenship is established for all citizens of the U.S.S.R.
Every citizen of a Union Republic is a citizen of the U.S.S.R.
সূত্রঃhttps://www.marxists.org/reference/archive/stalin/works/1936/12/05.htm
Avatar: কল্লোল

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

অমিত। আপনি লিখেছেন - "আচ্ছা, এই ওপেন মডেল যুক্তরাজ্য নিয়ে মাঝেই মাঝেই টইতে কিসব ভেসে ওঠে। সেসব দেশে নাকি যে কোনো রাজ্য যখন ইচ্ছে ধ্যাকতে পারে , যখন ইচ্ছে বেরোতে পারে , পুরো মুক্তাঞ্চল জ কে বলে। সেসব জায়গা নাকি একেবারে স্বর্গের পরের স্টেশন। ওরকম ই নাকি জিন্নার আইডিয়া ছিল, কে জানে বাবা, আর ওসব ইমপ্লিমেন্ট হলেই ইন্ডিয়া পাক বাংলাদেশের যাবতীয় সমষ্যা ইভাপোরেট হয়ে যেত। জাস্ট নেহেরু আর প্যাটেল শয়তানি করে হতে দেয়নি।"
বোঝা গেল না। এটা কে দাবী করেছে যে ঠিকঠাক যুক্তরাষ্ট্র হলে (সোভিয়েৎ ইউনিয়ানের মত) ইন্ডিয়া পাক বাংলাদেশের যাবতীয় সমষ্যা ইভাপোরেট হয়ে যেত।
যা হতো হতো। অন্ততঃ আমরা (বাঙ্গালীরা) আমাদের সমস্যা বুঝে নিতাম।
আপনার যুক্তি ধরলে তো বাংলাদেশের স্বাধীন হাওয়া উচিৎ হয়নি। স্বাধীন হয়ে কি যাবতীয় সমষ্যা ইভাপোরেট হয়ে গেছে???
যায়নি তো। তাহলে বলুন বাংলাদেশ স্বাধীন হাওয়াটাও ভুলভাল।

Avatar: Amit

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

এলেবেলে,

আমার পয়েন্ট টা হলো নেতারা অন্য গ্রহ থেকে উঠে আসা কোনো এলিয়েন এনটিটি নয়, ডেমোক্রেটিক সিস্টেম এ নেতা হলো সমাজের একটা বড়ো অংশের মানুষের নিজেদের বিশ্বাস, ভয়, এম্বিশন সবকিছুর একটা ব্রড রিফ্লেকশন। পাবলিক এর মধ্যে থেকেই নেতা উঠে আসে, যারা সেই বিশ্বাস বা ভয় কোনো কিছুকে ভালো করে এক্সপ্লইট করে সেটাকে একটা ভয়েস দিতে পারে। এখানে সমাজ বা দেশ বলতে ওপর থেকে নিচে সবাইকে মিলিয়ে ধরেছি আমি, কয়েকজন শিক্ষিত মধ্যবিত্ত নয়। আপনি নিজেই বলছেন দাঙ্গার প্রস্তুতি ছিল, কাদের বেশি কম ছিল সেটা প্রশ্নই নয়। কিন্তু সেই প্রস্তুতি কি ? তাতে একটা বড়ো গুন্ডা বাহিনী বা দলবল লাগে না ? তো সেই দলবল কি অন্য দেশ বা গ্রহ থেকে এসেছিলো ? তা নয় , সেই গুন্ডার দলবল যে একই সমাজ থেকে উঠে আসা এটা নিশ্চয় মানবেন ?

আমি মনে করি না আদৌ ক্যাবিনেট মিশন মেনে নিলে দাঙ্গা হতো না, এটা ভুল প্রেডিকশন, জমি তৈরী করাই ছিল, না হলে তার জন্য প্রস্তুতি দরকার পড়ে না। কিছু না কিছু ছুতোয় দাঙ্গা লাগানো হতোই two নেশন তত্ত্বের র সাকসেসফুল এপ্লিকেশন করার জন্য। ততদিনে two নেশন তত্ত্ব ভালো মতো মান্যতা পেয়ে গেছে।

ওই সমাপতন হিসেবে করলে কালকে মোদী বাবু ও বলবেন গোদরাতে ট্রেন জ্বালানো না হলে ২০০২ গুজরাট হয়না। সেটাও মেনে নেবেন আশা করি ? এই প্রশ্নটা ঈশেন বাবু কে অবশ্য।

একই যুক্তি তে আমি মনে করি ২০১৯ এ যে জনগণ মোদিকে জিতিয়ে এনেছে, পাঁচ বছর পরে যদি দেশকে একটা বড়ো যুদ্ধের মুখে ফেলে দেওয়া হয়, যদি এমন হাল হয় যে পুরো দেশটাই জিজি তে গেলো , তখন সব দোষ মোদী বাবুর ঘাড়ে ফেলে জনগণ হাত ধুয়ে ফেললে হবে না, সেই জনগণের মেজরিটি অংশ এদেরকে জিতিয়ে এনেছে। এখানে ইন্ডিভিজুয়াল কেও কেও তার বিরোধিতা করেছে , সেটা ইম্প নয়, মেজরিটি যেটা বললো সেটাই ম্যাটার। এটা ভালো না লাগতে পারে, আমার ও লাগে না সব সময়, কিন্তু তাও বাকি অপশন গুলোর থেকে গণতন্ত্রকে বেটার অপশন মনে হয় কারণ বাকি গুলো বলতে, মোনার্কি, ডিকটেটরশীপ , টোটালিটারিয়ান - এগুলো আরো বেশি খারাপ।

ঈশেন বাবু ক্লেম করছেন ক্যাবিনেট প্রস্তাব মেনে নিলে নাকি কোনো দাঙ্গা হতো না এবং সেটা ফ্যাক্ট। যা ঘটেনি সেটা ফ্যাক্ট কি করে হয় বুঝলাম না। আর জিন্নাহ কেন ক্যাবিনেট প্রস্তাব মেনে ছিলেন , তার দু একটা কারণ অলরেডি লিখেছি। তার মধ্যে এই তথাকথিত সরভোমত্ব-ফত্ব কিস্যুই ছিল না, যেটা মুখ্য উদ্দেশ্য ছিল যাতে সংখ্যাগরিষ্ঠ কংগ্রেস সেই সময়ে মুসলিম লীগ কে জাস্ট সংখ্যার জোরে স্টিম রোল না করতে পারে তার জন্য রাস্তায় একটা গোদা রোড বাম্পার লাগানোর চেষ্টা। এই ওপেন যুক্তুরাষ্ট্র মডেল খাতায় কলমে অনেক দেশে আছে, যেমন কল্লোলদা দেখালেন সোভিয়েত :) , কিন্তু প্রাক্টিক্যালি একটা মডেল কাজ করেছে একটা বড়ো দেশ এ শান্তিপূর্ণ ভাবে, তার উদা কিন্তু এখনো এলো না। সুতরাং যেটা কোথাও মেজর স্কেল এ রিয়েল লাইফ এ ট্রাইড এন্ড টেস্টেড মেথড নয়, শুধু কাগুজে তত্ত্বের র ওপর ভিত্তি করে সেই কেবিনেট মিশন তত্ত্ব বা জিন্না কে ফুল মার্ক্স্ দেওয়াটা আমার কাছে হাস্যকর লাগছে। উদা দেখান যেগুলো ইন্ডিয়ার সাথে তুলনায় আসছে, তাহলে নিশ্চয় ভুল মেনে নেবো।

কংগ্রেস আর মুসলিম লীগ দুজনেই দাবার গুটি খেলে গেছে ওই টালতামাল সময়ে, যে ম্যাক্সিমাম মাইলেজ পেতে পারে ব্রিটিশ দের থেকে ৪৫-৪৭ এর চৈত্র সেল এর বাজারে। বাকিরা ও পারলে খেলতো নিশ্চয় , কিন্তু তারা পাত্তা পাওয়ার জায়গায় জাস্ট ছিল না। মুসলিম লীগ তখন মাত্র ৬ টা স্টেট এ ক্ষমতায়, বাকি সবকটাতে কংগ্রেস, সুতরাং বার্গেইনিং পাওয়ার তাদের ন্যাচারালি বেশি ছিল। এর মধ্যে কি হলে কি হতনা, এসব প্রেডিকশন জাস্ট পইন্টলেস।

আর হ্যা, অত যদি জিন্নার সার্বভৌমত্বের প্রতি এতো প্রগাঢ় প্রেম ছিল, তাহলে ১৯৭১ এ রক্তগঙ্গা হয়না।

আমার কাছে সামনে তাকানোটা জরুরি, আগে কি হয়েছে সেটাকে উল্টোনো যাবে না। বড়ো জোর হয়তো ৫০-১০০ বছর পরে পরিস্থিতি বদলালে একটা ক্ষমা প্রার্থনা আসবে ব্রিটিশ বা কংগ্রেস বা মুসলিম লীগের থেকে। তাতে ইতিহাস বদলাবে না।
Avatar: Amit

Re: নাগরিকপঞ্জি -- আরও এক দফা

কল্লোল দা,

এর আগে একটা টোয়িতে আপনার সাথে বাংলাদেশ নিয়ে লম্বা আলোচনা হয়েছিল। খুঁজে পেলে তুলে দিচ্ছি। আপনারা অখণ্ড বাংলার স্বপ্নে বিভোর, খুব ভালো কথা। মনে আছে আপনার যুক্তি ছিল অখণ্ড থাকলে নাকি হিন্দু মুসলিম পপুলেশন কাছাকাছি থাকতো , তাহলে দাঙ্গা হতো না। যখন আমি ১৯৪৭ পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ এ হিন্দু পপুলেশন কমে যাওয়ার ট্রেন্ড দেখলাম, তখন আপনার যুক্তি ছিল দেশভাগের ফলে মুসলিম পপুলেশন বেড়ে যাওয়ায় এর জন্য দায়ী। এবার যখন আমি লেবানন এর উদা দিলুম যেখানে মুসলিম খ্রীষ্টান পপুলেশন প্রায় ৫০-৫০ % থাকা সত্ত্বেও দাঙ্গা আটকায়নি , তখন আপনি যুক্তি নিয়ে এলেন বাংলায নাকি লালন ফকির , বাউল গানের যে সংস্কৃতি ইত্যাদি, তাতে নাকি বাঙালি কোনোদিন দাঙ্গা করতেই পারে না।

বেশ লম্বা আলোচনা ছিল , অনেক কিছু লেখালেখি হয়েছিল, পারলে তুলে দেব ওটা।

কিন্তু সমস্যা হলো ফ্যান্টাসি আর লজিক হাত ধরাধরি করে চলে না সব সময়।

আর ঈশেন বাবু লাস্ট পোস্ট এ সেই আবার যথারীতি হিন্দি বনাম বাংলা র, রাজ্ কাপুর , ক্রিকেট ইত্যাদি চেনা ট্র্যাকে ফিরে গেছেন। তো সেটা সোজা করে বললেই হয়ে যেত , তার জন্য নরক দিয়ে শুরু করে এতো ১৯৪৫-৪৭ আমড়াগাছি টেনে আনার কি দরকার ছিল বুঝি না।

মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6]   এই পাতায় আছে 41 -- 60


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন