Muhammad Sadequzzaman Sharif RSS feed

Muhammad Sadequzzaman Sharifএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • অরফ্যানগঞ্জ
    পায়ের নিচে মাটি তোলপাড় হচ্ছিল প্রফুল্লর— ভূমিকম্পর মত। পৃথিবীর অভ্যন্তরে যেন কেউ আছাড়ি পিছাড়ি খাচ্ছে— সেই প্রচণ্ড কাঁপুনিতে ফাটল ধরছে পথঘাট, দোকানবাজার, বহুতলে। পাতাল থেকে গোঙানির আওয়াজ আসছিল। ঝোড়ো বাতাস বইছিল রেলব্রিজের দিক থেকে। প্রফুল্ল দোকান থেকে ...
  • থিম পুজো
    অনেকদিন পরে পুরনো পাড়ায় গেছিলাম। মাঝে মাঝে যাই। পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হয়, আড্ডা হয়। বন্ধুদের মা-বাবা-পরিবারের সঙ্গে কথা হয়। ভাল লাগে। বেশ রিজুভিনেটিং। এবার অনেকদিন পরে গেলাম। এবার গিয়ে শুনলাম তপেস নাকি ব্যবসা করে ফুলে ফেঁপে উঠেছে। একটু পরে তপেসও এল ...
  • কাঁসাইয়ের সুতি খেলা
    সেকালে কাঁসাই নদীতে 'সুতি' নামের একটা খেলা প্রচলিত ছিল। মাছ ধরার অভিনব এক পদ্ধতি, বহু কাল ধরে যা চলে আসছে। আমাদের পাড়ার একাধিক লোক সুতি খেলাতে অংশ নিত। এই মৎস্যশিকার সার্বজনীন, হিন্দু ও মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ে জনপ্রিয়। মনে আছে ক্লাস সেভেনে পড়ার সময় একদিন ...
  • শুভ বিজয়া
    আমার যে ঠাকুর-দেবতায় খুব একটা বিশ্বাস আছে, এমন নয়। শাশ্বত অবিনশ্বর আত্মাতেও নয়। এদিকে, আমার এই জীবন, এই বেঁচে থাকা, সবকিছু নিছকই জৈবরাসায়নিক ক্রিয়া, এমনটা সবসময় বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করে না - জীবনের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য-পরিণ...
  • আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার চাই...
    দেশের সবচেয়ে মেধাবীরা বুয়েটে পড়ার সুযোগ পায়। দেশের সবচেয়ে ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিঃসন্দেহে বুয়েট। সেই প্রতিষ্ঠানের একজন ছাত্রকে শিবির সন্দেহে পিটিয়ে মেরে ফেলল কিছু বরাহ নন্দন! কাওকে পিটিয়ে মেরে ফেলা কি খুব সহজ কাজ? কতটুকু জোরে মারতে হয়? একজন মানুষ পারে ...
  • ইন্দুবালা ভাতের হোটেল-৭
    চন্দ্রপুলিধনঞ্জয় বাজার থেকে এনেছে গোটা দশেক নারকেল। কিলোটাক খোয়া ক্ষীর। চিনি। ছোট এলাচ আনতে ভুলে গেছে। যত বয়েস বাড়ছে ধনঞ্জয়ের ভুল হচ্ছে ততো। এই নিয়ে সকালে ইন্দুবালার সাথে কথা কাটাকাটি হয়েছে। ছোট খাটো ঝগড়াও। পুজো এলেই ইন্দুবালার মন ভালো থাকে না। কেমন যেন ...
  • গুমনামিজোচ্চরফেরেব্বাজ
    #গুমনামিজোচ্চরফেরেব্...
  • হাসিমারার হাটে
    অনেকদিন আগে একবার দিন সাতেকের জন্যে ভূটান বেড়াতে যাব ঠিক করেছিলাম। কলেজ থেকে বেরিয়ে তদ্দিনে বছরখানেক চাকরি করা হয়ে গেছে। পুজোর সপ্তমীর দিন আমি, অভিজিৎ আর শুভায়ু দার্জিলিং মেল ধরলাম। শিলিগুড়ি অব্দি ট্রেন, সেখান থেকে বাসে ফুন্টসলিং। ফুন্টসলিঙে এক রাত্তির ...
  • দ্বিষো জহি
    বোধন হয়ে গেছে গতকাল। আজ ষষ্ঠ্যাদি কল্পারম্ভ, সন্ধ্যাবেলায় আমন্ত্রণ ও অধিবাস। তবে আমবাঙালির মতো, আমারও এসব স্পেশিয়ালাইজড শিডিউল নিয়ে মাথা ব্যাথা নেই তেমন - ছেলেবেলা থেকে আমি বুঝি দুগ্গা এসে গেছে, খুব আনন্দ হবে - এটুকুই।তা এখানে সেই আকাশ আজ। গভীর নীল - ...
  • গান্ধিজির স্বরাজ
    আমার চোখে আধুনিক ভারতের যত সমস্যা তার সবকটির মূলেই দায়ী আছে ব্রিটিশ শাসন। উদাহরণ, হাতে গরম এন আর সি নিন, প্রাক ব্রিটিশ ভারতে এরকম কোনও ইস্যুই ভাবা যেতো না। কিম্বা হিন্দু-মুসলমান, জাতিভেদ, আর্থিক বৈষম্য, জনস্ফীতি, গণস্বাস্থ্য ব্যবস্থার অভাব, শিক্ষার অভাব ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ষড়যন্ত্র তত্ত্ব...

Muhammad Sadequzzaman Sharif

আমরা ষড়যন্ত্র ত্বতে খুব সহজে বিশ্বাস আনি। দীর্ঘ পরাধীনতা থেকেই সম্ভবত এই বিশেষ গুণ আমাদের জিনে বাসা করেছে। হোক না হোক আপনি একটা ষড়যন্ত্র তত্ত্ব বাজারে ছাড়ুন বিশ্বাস করার লোকের অভাব হবে না। একই সাথে সব কিছুতেই সন্দেহ এবং সহজে বিশ্বাস আনা সম্ভবত এই দুনিয়ায় আমরাই পারি। এই রোগ আমাদের গভীরে প্রোথিত হয়ে গেছে, এর আর নড়নচড়ন নাই।

আমরা বিশ্বাস করি আমরা বাদে বাকি দুনিয়া আমাদের কে ধ্বংস করার জন্য সকালে উঠে নাস্তা না করেই, চোখে মুখে পানি দিয়েই আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা শুরু করে। ষড়যন্ত্র করেই আমাদেরকে দাবিয়ে রাখা হয়েছে, না হলে এতদিনে আমরা পৃথিবী ছেড়ে মঙ্গলের পথে পা বাড়াতাম না? এই যে পা বাড়াতে পারলাম না, কেন পারলাম না? ষড়যন্ত্র! আবার কী!

ফুটবল খেলা দেখে আর ষড়যন্ত্র তত্ত্ব বিশ্বাস করে না এমন আদমি এই দুনিয়ায় পাওয়া যাবে না।ফুটবলের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্র ত্বতে সম্ভবত পুরো দুনিয়াই মাতাল, আমাদের এদিকে এইটা আরও বেশি করে আছে। রিয়েলের সমর্থকরা দাবী করে বার্সা বরাবর রেফারীর অনুকম্পা পায়, ঠিক বিপরীত দাবী বার্সার! কোকেন খেয়ে ম্যারাডোনা নিষিদ্ধ হল, আর্জেন্টিনার সমর্থকরা প্রবল ভাবে বিশ্বাস করল যে এটা ষড়যন্ত্র! না হলে ফুলের মত চরিত্রের একজনের নামে এমন অপবাদ দেও কেউ! এখন হলে হয়ত ব্রাজিলের নাম বলত কিন্তু তখন দোষ গিয়ে পড়েছিল জার্মানির ঘাড়ে! তখন জার্মানি সদ্য কাপ জয়ী দল, ষড়যন্ত্র করলে আর ক্যাডায় করব? জার্মানি ষড়যন্ত্র করে ম্যারাডোনাকে খেলা থেকে দূরে রাখতে এই কাজ করেছে।

ইহুদিদের কাজ কী? ষড়যন্ত্র করা! আশ্চর্য! আবার কী? সকাল সকাল উঠেই ষড়যন্ত্র শুরু করে কিভাবে মুসলিমদের বাঁশ দেওয়া যায়! আর কোন কাজ কাম নাই ওদের। বিশ্বাস না হলে একটু কান, চোখ খোলা রেখে ঘুরে দেখুন। লক্ষ লক্ষ মানুষ সাক্ষ্য দিবে যে ইহুদিরা একটা কাজই করে তা হচ্ছে ষড়যন্ত্র করা। কোথাও মুসলিম সমাজ বা রাষ্ট্র বিপদে পরল? কার কাজ? ইহুদিদের! সোজা হিসাব। মুসলিমরা মুসলিমদের ধরে ধরে মারছে? নিশ্চয়ই পিছনে ইহুদিদের ষড়যন্ত্র আছে, না হলে মারবে কেন!

আমেরিকারও বসে বসে ষড়যন্ত্র করে। আমেরিকার ষড়যন্ত্র করার ক্ষেত্রের অভাব নাই। প্রতিটা স্বল্প উন্নত দেশকে কিভাবে পথে বসান যায়, কিভাবে মুসলিমদের অধিকার খর্ব করা যায় এসবই আমেরিকার প্রধান কাজ।সব মার্কিন ষড়যন্ত্র এই বানী শুনে নাই এমন ব্যক্তি কোথাও খুঁজে পাওয়া যাবে? সম্ভবত না। বাম রাজনীতি নিয়ে নাড়াচাড়া করে আর মার্কিন ষড়যন্ত্র কপচায় নাই? এ হবার লয়!

বেশ কিছুদিন আগে ( মানুষের মুখে শুনে আর বই পত্র পড়ে বলছি, আমার দেখা ইতিহাস না) বাংলাদেশে চলত হচ্ছে সব র’এর ষড়যন্ত্র! র ছাড়া আর কে এই কাজ করবে? এখন আর র বলে না। সরাসরি ভারতের চাল এইটা, গভীর ষড়যন্ত্র বলে বসে থাকে। আমাদের এলাকায় এক বড় ভাই ছিল, ছিল বলছি কারন তিনি মারা গেছেন, আর তাই নাম উল্লেখ্য করলাম না। এলাকার যে কোন অনভিপ্রেত ঘটনার দোষ তার ঘাড়ে পড়ত। কোন কারন ছাড়াই, কেউ একজন বলে বসত এইটা ওর কাজ! ব্যস সবাই মনে মনে বিশ্বাস করে ফেলত, হুম, এইটা অমুক ছাড়া আর কেউ করতেই পারে না। দিনের পর দিন তিনি এই অপবাদ ঘাড়ে নিয়ে চলেছেন!! দুনিয়ার সকল না হোক, আমাদের দেশের সত্তর ভাগ সমস্যা ভারতের সৃষ্টি এই তত্ত্ব অবিশ্বাস করবে না সত্তর ভাগ মানুষও। সব বিরোধী দলের চক্রান্তের মতই সব ভারতের চক্রান্ত প্রচার ও বিশ্বাস করার লোকের অভাব এই দেশে নাই।

তবে সব ষড়যন্ত্রের সেরা ষড়যন্ত্র হচ্ছে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র! এই আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র যে কত কী করে ফেলল তার কোন ইয়ত্তা নেই। ঘরের সুই হারানো থেকে শুরু করে রানা প্লাজা ধ্বংস সব আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। ধানের ফলন কম হইছে? এটা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কী? যে কোন সমস্যায় আপনি আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র উল্লেখ্য করে দেখুন, ঠিক ঠিক খাপে খাপ মিলে যাবে।আপনার ব্যক্তিগত সমস্যাও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র বলে চালায় দিতে পারবেন নিশ্চিন্তে। এমনকি আপনার পেটের গ্যাসের সমস্যাও!

এত এত অবিশ্বাস নিয়ে কিভাবে বেঁচে আছি এ এক রহস্য। প্রবল সন্দেহ আবার সহজেই বিশ্বাস, এই বিপরীতমুখী আচরণ নিয়ে আমরা দিব্যি বেঁচে আছি। যে কোন সমস্যায়, যে কোন পরাজয়ে ষড়যন্ত্র খুঁজে পেলে মনের দিক থেকে একটা আলাদা শান্তি পাওয়া যায়। মনে হয়, না, আমাকে তো ষড়যন্ত্র করে হারিয়েছে! কিন্তু এই মিথ্যা বিশ্বাস আসলে কী আমাদের উপকার করে? সবেতেই এই তত্ত্ব খাটিয়ে দিন দিন কোথায় গিয়ে দাঁড়াচ্ছি? নিজের দিকে কবে দৃষ্টি দেওয়া হবে?

( ষড়যন্ত্র তত্ত্ব নতুন করে প্রবল ভাবে শোনার জন্য তৈরি থাকুন। দিন সমাগত। ভারত ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেছে কেন? ষড়যন্ত্র! আবার কী!! দুই তারিখ ষড়যন্ত্র তত্ত্বর আপডেট ভার্সন গুলোর জন্য অপেক্ষায় আছি!)


271 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: dd

Re: ষড়যন্ত্র তত্ত্ব...

ষড়যন্ত্র ম্যানিয়া সর্বত্রই দেখি।

আগে ভাবতাম ওটা বামপন্থীদের খাসতালুক, এখন দেখিসব পক্ষই এই কনস্পি তত্ত্বের ইজারাদার। আর সোস্যাল মিডিয়া হওয়ায় "আজকের ষড়যন্ত্র" বলে রোজ একটা পোস্ট না হলে পেট ভরে না অনেকেরই।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন