Muhammad Sadequzzaman Sharif RSS feed

Muhammad Sadequzzaman Sharifএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • কাইট রানার ও তার বাপের গল্প
    গত তিন বছর ধরে ছেলের খুব ঘুড়ি ওড়ানোর শখ। গত দুবার আমাকে দিয়ে ঘুড়ি লাটাই কিনিয়েছে কিন্তু ওড়াতে পারেনা - কায়দা করার আগেই ঘুড়ি ছিঁড়ে যায়। গত বছর আমাকে নিয়ে ছাদে গেছিল কিন্তু এই ব্যপারে আমিও তথৈবচ - ছোটবেলায় মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘুড়ি ওড়ানো "বদ ছেলে" দের ...
  • কুচু-মনা উপাখ্যান
    ১৯৮৩ সনের মাঝামাঝি অকস্মাৎ আমাদের বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ(ক) শ্রেণী দুই দলে বিভক্ত হইয়া গেল।এতদিন ক্লাসে নিরঙ্কুশ তথা একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করিয়া ছিল কুচু। কুচুর ভাল নাম কচ কুমার অধিকারী। সে ক্লাসে স্বীয় মহিমায় প্রভূত জনপ্রিয়তা অর্জন করিয়াছিল। একটি গান অবিকল ...
  • 'আইনি পথে' অর্জিত অধিকার হরণ
    ফ্যাসিস্ট শাসন কায়েম ও কর্পোরেট পুঁজির স্বার্থে, দীর্ঘসংগ্রামে অর্জিত অধিকার সমূহকে মোদী সরকার হরণ করছে— আলোচনা করলেন রতন গায়েন। দেশে নয়া উদারবাদী অর্থনীতি লাগু হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণপন্থার সুদিন সূচিত হয়েছে। তথাপি ১৯৯০-২০১৪-র মধ্যবর্তী সময়ে ...
  • সম্পাদকীয়-- অর্থনৈতিক সংকটের স্বরূপ
    মোদীর সিংহগর্জন আর অর্থনৈতিক সংকটের তীব্রতাকে চাপা দিয়ে রাখতে পারছে না। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে ভারতের অর্থনীতি সংকটের সম্মুখীন হয়েছে। সংকট কতটা গভীর সেটা তার স্বীকারোক্তিতে ধরা পড়েনি। ধরা পড়েনি এই নির্মম ...
  • কাশ্মীরি পন্ডিত বিতাড়নঃ মিথ, ইতিহাস ও রাজনীতি
    কাশ্মীরে ডোগরা রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হবার পর তাদের আত্মীয় পরিজনেরা কাশ্মীর উপত্যকায় বসতি শুরু করে। কাশ্মীরি ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ছিলেন। এরা শিক্ষিত উচ্চ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেনি। দেশভাগের পরেও এদের ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজে পড়াশোনা করেছে। অন্যদিকে ...
  • নিকানো উঠোনে ঝরে রোদ
    "তেরশত নদী শুধায় আমাকে, কোথা থেকে তুমি এলে ?আমি তো এসেছি চর্যাপদের অক্ষরগুলো থেকে ..."সেই অক্ষরগুলোকে ধরার আরেকটা অক্ষম চেষ্টা, আমার নতুন লেখায় ... এক বন্ধু অনেকদিন আগে বলেছিলো, 'আঙ্গুলের গভীর বন্দর থেকে যে নৌকোগুলো ছাড়ে সেগুলো ঠিক-ই গন্তব্যে পৌঁছে যায়' ...
  • খানাকুল - ২
    [এর আগে - https://www.guruchan...
  • চন্দ্রযান-উন্মত্ততা এবং আমাদের বিজ্ঞান গবেষণা
    চন্দ্রযান-২ চাঁদের মাটিতে ঠিকঠাক নামতে পারেনি, তার ঠিক কী যে সমস্যা হয়েছে সেটা এখনও পর্যন্ত পরিষ্কার নয় । এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে শুরু হয়েছে তর্কাতর্কি, সরকারের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে । প্রকল্পটির সাফল্য কামনা করে ইসরো-র শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানীরা ...
  • দেশত্যাগ...
    আমার এক বন্ধু ওর একটা ভিজিটিং কার্ড আমাকে দিয়েছিল। আমি হাতে নেওয়ার সময় কার্ডটা দেখে বুঝতে পারলাম কার্ডটা গতানুগতিক কোন কার্ড না, বেশ দামি বলা চলে। আমি বাহ! বলে কাজ শেষ করে দিলাম। আমি আমার বন্ধুকে চিনি, ওর কার্ডের প্রতি এরচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখালে ও আমার মাথা ...
  • পাঠকের সঙ্গে তাদের হয় না কো দেখা
    মানস চক্রবর্তীকবিতা কি বিনােদনসামগ্রী? তর্ক এ নিয়ে আপাতত নয়। কবিতা কি আদৌ কোনাে সামগ্রী? কোনাে কিছুকে পণ্য হয়ে উঠতে হলেও তার একটা যােগ্যতা দরকার হয়। আজকের দিনে কবিতা সে-অবস্থায় আদৌ আছে কি না সবার আগে স্পষ্ট হওয়া দরকার। কবিতা নামে একটা ব্যাপার আছে, ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ষড়যন্ত্র তত্ত্ব...

Muhammad Sadequzzaman Sharif

আমরা ষড়যন্ত্র ত্বতে খুব সহজে বিশ্বাস আনি। দীর্ঘ পরাধীনতা থেকেই সম্ভবত এই বিশেষ গুণ আমাদের জিনে বাসা করেছে। হোক না হোক আপনি একটা ষড়যন্ত্র তত্ত্ব বাজারে ছাড়ুন বিশ্বাস করার লোকের অভাব হবে না। একই সাথে সব কিছুতেই সন্দেহ এবং সহজে বিশ্বাস আনা সম্ভবত এই দুনিয়ায় আমরাই পারি। এই রোগ আমাদের গভীরে প্রোথিত হয়ে গেছে, এর আর নড়নচড়ন নাই।

আমরা বিশ্বাস করি আমরা বাদে বাকি দুনিয়া আমাদের কে ধ্বংস করার জন্য সকালে উঠে নাস্তা না করেই, চোখে মুখে পানি দিয়েই আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা শুরু করে। ষড়যন্ত্র করেই আমাদেরকে দাবিয়ে রাখা হয়েছে, না হলে এতদিনে আমরা পৃথিবী ছেড়ে মঙ্গলের পথে পা বাড়াতাম না? এই যে পা বাড়াতে পারলাম না, কেন পারলাম না? ষড়যন্ত্র! আবার কী!

ফুটবল খেলা দেখে আর ষড়যন্ত্র তত্ত্ব বিশ্বাস করে না এমন আদমি এই দুনিয়ায় পাওয়া যাবে না।ফুটবলের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্র ত্বতে সম্ভবত পুরো দুনিয়াই মাতাল, আমাদের এদিকে এইটা আরও বেশি করে আছে। রিয়েলের সমর্থকরা দাবী করে বার্সা বরাবর রেফারীর অনুকম্পা পায়, ঠিক বিপরীত দাবী বার্সার! কোকেন খেয়ে ম্যারাডোনা নিষিদ্ধ হল, আর্জেন্টিনার সমর্থকরা প্রবল ভাবে বিশ্বাস করল যে এটা ষড়যন্ত্র! না হলে ফুলের মত চরিত্রের একজনের নামে এমন অপবাদ দেও কেউ! এখন হলে হয়ত ব্রাজিলের নাম বলত কিন্তু তখন দোষ গিয়ে পড়েছিল জার্মানির ঘাড়ে! তখন জার্মানি সদ্য কাপ জয়ী দল, ষড়যন্ত্র করলে আর ক্যাডায় করব? জার্মানি ষড়যন্ত্র করে ম্যারাডোনাকে খেলা থেকে দূরে রাখতে এই কাজ করেছে।

ইহুদিদের কাজ কী? ষড়যন্ত্র করা! আশ্চর্য! আবার কী? সকাল সকাল উঠেই ষড়যন্ত্র শুরু করে কিভাবে মুসলিমদের বাঁশ দেওয়া যায়! আর কোন কাজ কাম নাই ওদের। বিশ্বাস না হলে একটু কান, চোখ খোলা রেখে ঘুরে দেখুন। লক্ষ লক্ষ মানুষ সাক্ষ্য দিবে যে ইহুদিরা একটা কাজই করে তা হচ্ছে ষড়যন্ত্র করা। কোথাও মুসলিম সমাজ বা রাষ্ট্র বিপদে পরল? কার কাজ? ইহুদিদের! সোজা হিসাব। মুসলিমরা মুসলিমদের ধরে ধরে মারছে? নিশ্চয়ই পিছনে ইহুদিদের ষড়যন্ত্র আছে, না হলে মারবে কেন!

আমেরিকারও বসে বসে ষড়যন্ত্র করে। আমেরিকার ষড়যন্ত্র করার ক্ষেত্রের অভাব নাই। প্রতিটা স্বল্প উন্নত দেশকে কিভাবে পথে বসান যায়, কিভাবে মুসলিমদের অধিকার খর্ব করা যায় এসবই আমেরিকার প্রধান কাজ।সব মার্কিন ষড়যন্ত্র এই বানী শুনে নাই এমন ব্যক্তি কোথাও খুঁজে পাওয়া যাবে? সম্ভবত না। বাম রাজনীতি নিয়ে নাড়াচাড়া করে আর মার্কিন ষড়যন্ত্র কপচায় নাই? এ হবার লয়!

বেশ কিছুদিন আগে ( মানুষের মুখে শুনে আর বই পত্র পড়ে বলছি, আমার দেখা ইতিহাস না) বাংলাদেশে চলত হচ্ছে সব র’এর ষড়যন্ত্র! র ছাড়া আর কে এই কাজ করবে? এখন আর র বলে না। সরাসরি ভারতের চাল এইটা, গভীর ষড়যন্ত্র বলে বসে থাকে। আমাদের এলাকায় এক বড় ভাই ছিল, ছিল বলছি কারন তিনি মারা গেছেন, আর তাই নাম উল্লেখ্য করলাম না। এলাকার যে কোন অনভিপ্রেত ঘটনার দোষ তার ঘাড়ে পড়ত। কোন কারন ছাড়াই, কেউ একজন বলে বসত এইটা ওর কাজ! ব্যস সবাই মনে মনে বিশ্বাস করে ফেলত, হুম, এইটা অমুক ছাড়া আর কেউ করতেই পারে না। দিনের পর দিন তিনি এই অপবাদ ঘাড়ে নিয়ে চলেছেন!! দুনিয়ার সকল না হোক, আমাদের দেশের সত্তর ভাগ সমস্যা ভারতের সৃষ্টি এই তত্ত্ব অবিশ্বাস করবে না সত্তর ভাগ মানুষও। সব বিরোধী দলের চক্রান্তের মতই সব ভারতের চক্রান্ত প্রচার ও বিশ্বাস করার লোকের অভাব এই দেশে নাই।

তবে সব ষড়যন্ত্রের সেরা ষড়যন্ত্র হচ্ছে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র! এই আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র যে কত কী করে ফেলল তার কোন ইয়ত্তা নেই। ঘরের সুই হারানো থেকে শুরু করে রানা প্লাজা ধ্বংস সব আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। ধানের ফলন কম হইছে? এটা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কী? যে কোন সমস্যায় আপনি আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র উল্লেখ্য করে দেখুন, ঠিক ঠিক খাপে খাপ মিলে যাবে।আপনার ব্যক্তিগত সমস্যাও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র বলে চালায় দিতে পারবেন নিশ্চিন্তে। এমনকি আপনার পেটের গ্যাসের সমস্যাও!

এত এত অবিশ্বাস নিয়ে কিভাবে বেঁচে আছি এ এক রহস্য। প্রবল সন্দেহ আবার সহজেই বিশ্বাস, এই বিপরীতমুখী আচরণ নিয়ে আমরা দিব্যি বেঁচে আছি। যে কোন সমস্যায়, যে কোন পরাজয়ে ষড়যন্ত্র খুঁজে পেলে মনের দিক থেকে একটা আলাদা শান্তি পাওয়া যায়। মনে হয়, না, আমাকে তো ষড়যন্ত্র করে হারিয়েছে! কিন্তু এই মিথ্যা বিশ্বাস আসলে কী আমাদের উপকার করে? সবেতেই এই তত্ত্ব খাটিয়ে দিন দিন কোথায় গিয়ে দাঁড়াচ্ছি? নিজের দিকে কবে দৃষ্টি দেওয়া হবে?

( ষড়যন্ত্র তত্ত্ব নতুন করে প্রবল ভাবে শোনার জন্য তৈরি থাকুন। দিন সমাগত। ভারত ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেছে কেন? ষড়যন্ত্র! আবার কী!! দুই তারিখ ষড়যন্ত্র তত্ত্বর আপডেট ভার্সন গুলোর জন্য অপেক্ষায় আছি!)


236 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: dd

Re: ষড়যন্ত্র তত্ত্ব...

ষড়যন্ত্র ম্যানিয়া সর্বত্রই দেখি।

আগে ভাবতাম ওটা বামপন্থীদের খাসতালুক, এখন দেখিসব পক্ষই এই কনস্পি তত্ত্বের ইজারাদার। আর সোস্যাল মিডিয়া হওয়ায় "আজকের ষড়যন্ত্র" বলে রোজ একটা পোস্ট না হলে পেট ভরে না অনেকেরই।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন