Rouhin Banerjee RSS feed

Rouhin Banerjeeএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • বার্সিলোনা - পর্ব ২
    বার্সিলোনা আসলে স্পেনের শহর হয়েও স্পেনের না। উত্তর পুর্ব স্পেনের যেখানে বার্সিলোনা, সেই অঞ্চল কে বলা হয় ক্যাটালোনিয়া। স্বাধীনদেশ না হয়েও স্বশাসিত প্রদেশ। যেমন কানাডায় কিউবেক। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মনে হয় এরকম একটা জায়গা থাকে, দেশি হয়েও দেশি না। ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ১
    ঠিক করেছিলাম আট-নয়দিন স্পেন বেড়াতে গেলে, বার্সিলোনাতেই থাকব। বেড়ানোর সময়টুকুর মধ্যে খুব দৌড় ঝাঁপ, এক দিনে একটা শহর দেখে বা একটা গন্তব্যের দেখার জায়গা ফর্দ মিলিয়ে শেষ করে আবার মাল পত্তর নিয়ে পরবর্তী গন্তব্যের দিকে ভোর রাতে রওনা হওয়া, আর এই করে ১০ দিনে ৮ ...
  • লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া
    -'একটা ছিল লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া।আর ছিল একটা নীল ঝুঁটি মামাতুয়া।'-'এরা কারা?' মেয়েটা সঙ্গে সঙ্গে চোখ বড়ো করে অদ্ভুত লোকটাকে জিজ্ঞেস করে।-'আসলে কাকাতুয়া আর মামাতুয়া এক জনই। ওর আসল নাম তুয়া। কাকা-ও তুয়া বলে ডাকে, মামা-ও ডাকে তুয়া।'শুনেই মেয়েটা ফিক করে হেসে ...
  • স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি
    স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি। আমি স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে কাজ করছি ১৯৯৮ সাল থেকে। সিলিকন ভ্যালিতে। সময়ের একটা আন্দাজ দিতে বলি - গুগুল তখনও শুধু সিলিকন ভ্যালির আনাচে-কানাচে, ফেসবুকের নামগন্ধ নেই, ইয়াহুর বয়েস বছর চারেক, অ্যামাজনেরও বেশি দিন হয়নি। ...
  • মৃণাল সেন : এক উপেক্ষিত চলচ্চিত্রকার
    [আজ বের্টোল্ট ব্রেশট-এর মৃত্যুদিন। ভারতীয় চলচ্চিত্রে যিনি সার্থকভাবে প্রয়োগ করেছিলেন ব্রেশটিয় আঙ্গিক, সেই মৃণাল সেনকে নিয়ে একটি সামান্য লেখা।]ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কীভাবে যেন পরিচালক ত্রয়ী সত্যজিৎ-ঋত্বিক-মৃণাল এক বিন্দুতে এসে মিলিত হন। ১৯৫৫-তে মুক্তি ...
  • দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল পড়ে
    পড়লাম সিজনস অব বিট্রেয়াল গুরুচন্ডা৯'র বই দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল। বইটার সঙ্গে যেন তীব্র সমানুভবে জড়িয়ে গেলাম। প্রাককথনে প্রথম বাক্যেই লেখক বলেছেন বাঙাল বাড়ির দ্বিতীয় প্রজন্মের মেয়ে হিসেবে পার্টিশন শব্দটির সঙ্গে পরিচিতি জন্মাবধি। দেশভাগ কেতাবি ...
  • দুটি পাড়া, একটি বাড়ি
    পাশাপাশি দুই পাড়া - ভ-পাড়া আর প-পাড়া। জন্মলগ্ন থেকেই তাদের মধ্যে তুমুল টক্কর। দুই পাড়ার সীমানায় একখানি সাতমহলা বাহারী বাড়ি। তাতে ক-পরিবারের বাস। এরা সম্ভ্রান্ত, উচ্চশিক্ষিত। দুই পাড়ার সাথেই এদের মুখ মিষ্টি, কিন্তু নিজেদের এরা কোনো পাড়ারই অংশ মনে করে না। ...
  • পরিচিতির রাজনীতি: সন্তোষ রাণার কাছে যা শিখেছি
    দিলীপ ঘোষযখন স্কুলের গণ্ডি ছাড়াচ্ছি, সন্তোষ রাণা তখন বেশ শিহরণ জাগানাে নাম। গত ষাটের দশকের শেষার্ধ। সংবাদপত্র, সাময়িক পত্রিকা, রেডিও জুড়ে নকশালবাড়ির আন্দোলনের নানা নাম ছড়িয়ে পড়ছে আমাদের মধ্যে। বুঝি না বুঝি, পকেটে রেড বুক নিয়ে ঘােরাঘুরি ফ্যাশন হয়ে ...
  • দক্ষিণের কড়চা
    (টিপ্পনি : দক্ষিণের কথ্যভাষার অনেক শব্দ রয়েছে। না বুঝতে পারলে বলে দেব।)দক্ষিণের কড়চা▶️এখানে মেঘ ও ভূমি সঙ্গমরত ক্রীড়াময়। এখন ভূমি অনাবৃত মহিষের মতো সহস্রবাসনা, জলধারাস্নানে। সামাদভেড়ির এই ভাগে চিরহরিৎ বৃক্ষরাজি নুনের দিকে চুপিসারে এগিয়ে এসেছে যেন ...
  • জোড়াসাঁকো জংশন ও জেনএক্স রকেটপ্যাড-১৪
    তোমার সুরের ধারা ঝরে যেথায়...আসলে যে কোনও শিল্প উপভোগ করতে পারার একটা বিজ্ঞান আছে। কারণ যাবতীয় পারফর্মিং আর্টের প্রাসাদ পদার্থবিদ্যার সশক্ত স্তম্ভের উপর দাঁড়িয়ে থাকে। পদার্থবিদ্যার শর্তগুলি পূরণ হলেই তবে মনন ও অনুভূতির পর্যায় শুরু হয়। যেমন কণ্ঠ বা যন্ত্র ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

Rouhin Banerjee

সবাই বলছেন বাম ভোট রামে গেছে বলেই নাকি বিজেপির এত বাড়বাড়ন্ত। হবেও বা - আমি পলিটিক্স বুঝিনা একথাটা অন্ততঃ ২৩শে মের পরে বুঝেছি - যদিও এটা বুঝিনি যে যে বাম ভোট বামেদেরই ২ টোর বেশী আসন দিতে পারেনি, তারা "শিফট" করে রামেদের ১৮টা কিভাবে দিল। সে আর বুঝবও না হয়তো কোনদিনই - কারণ আমরা তো উদ্ধত। আমরা ভুল থেকে শিখি না।

হ্যাঁ আমরা উদ্ধত - কিন্তু মোদির মত উদ্ধত হতে পারলে হয়তো আরেকটু বেশী ভোট পেয়ে প্রধানমন্ত্রী হয়ে যেতে পারতাম। মমতার মত উদ্ধত হতে পারলে মুখ্যমন্ত্রী। হ্যাঁ আমরা অত্যাচারী - কিন্তু এন আর সি বা কাকদ্বীপ করাতে পারলে হয়তো আমরাই মেজরিটি ভোট পেতাম। কাজেই উদ্ধত হওয়া বা অত্যাচারী হওয়া আমরা যথেষ্ট শিখতে পারিনি, এতে ভুল নেই।

এবার আসল কথায় আসা যাক। অন্ততঃ আজকের দিনে দাঁড়িয়ে পলিটিকালি কারেক্ট থাকার দায়বোধ করছি না খুব একটা তাই আমার মনের কথা খোলাখুলিই বলি, এই কথার দায় কোন পার্টির নয়, ব্যক্তিগত মত, আমি জানি আমার পার্টির অনেকেই প্রতিবাদে সোচ্চার হবেন এর বিরুদ্ধে। তারা স্বাগত।

রাম বামের গপ্পে পশ্চিমবঙ্গের একটা ব্যখ্যা না হয় পাওয়া গেল - সারা ভারতের গপ্পটা কি? সেখানেও বাম ভোট বিজেপি পায়নি নিশ্চই? তাহলে গল্পটা কী? গল্পটা হল এই যে ভারতের মেজরিটি হিন্দু কমিউনিটি প্যাথেটিক ইসলামোফোব - সাভারকারবাবুর মতই মেজরিটি মনে করে ইসলামই আমাদের প্রধাণ শত্রু। মোদী সরকার অর্থনীতির বারোটা বাজিয়েছে, বেকার সমস্যা স্বাধীনতার পরে সর্বোচ্চ, উচ্চশিক্ষাকে প্রায় ধ্বংস করে দিয়েছে, অসংগঠিত ক্ষেত্রের কোমর ভেঙে দিয়েছে, স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে বিক্রী করে দিয়েছে - এগুলো প্রায় কারোই অজানা এমন নয়। কিন্তু এগুলো এই ভোটে ফ্যাক্টরই হয়নি। ফ্যাক্টর কোনগুলো? মোদী মুসলমানদের শায়েস্তা করছে। মোদী সার্জিকাল স্ট্রাইক করে পাকিস্তানকে "জবাব" দিচ্ছে। সত্যিমিথ্যে বিচারের প্রয়োজন নেই [- এগুলো "করছে" বলে লোকে জেনেছে, তাতেই সাতখুন মাফ।

বিজেপিকে দুহাত উপুড় করে ভোট দিয়েছে ভারতের জনতা। নোটবন্দীর পরে, জি এস টি র পরে, রাফালের পরে, শবরিমালার পরে, আখলাকের পরে, আফরাজুলের পরে, গৌরী লঙ্কেশের পরে, দাভোলকারের পরে। এই ভোট হিন্দুত্বের পক্ষে, মুসলিম ঘৃণার পক্ষে ল্পরিষ্কার ম্যান্ডেট। ভারতবাসী বুঝিয়ে দিয়েছে সারা পৃথিবীকে যে তারা ঘৃণার রাজনীতিই চায়। এবং পশ্চিমবঙ্গেও এই ইস্যুতেই ভোট হয়েছে। হিন্দু মুসলমান মেরুকরণ হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও সাম্প্রদায়িক ভোট হয়েছে। অভিনন্দন, শাইনিং ইন্ডিয়া, শাইনিং ওয়েস্ট বেঙ্গল। আমি এই মেজরিটির ম্যান্ডেটকে মেনে নিচ্ছি না বলার তো উপায় নেই - কিন্তু আমি এই ম্যান্ডেট থেকে ব্যক্তিগতভাবে বিচ্ছিন্ন বোধ করছি, এটুকু অবশ্যই বলব।

3496 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9]   এই পাতায় আছে 146 -- 165
Avatar: এলেবেলে

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

পিটি, আপনি অন্তত জানেন যে আমি আপনার প্রজ্ঞাকে শ্রদ্ধা করি। সে কথা লিখিতভাবেই আছে গুরুর পাতায়। আলোচনাটা আমি আদৌ এই অ্যাঙ্গেল থেকে দেখছি না, পণ্ডিতমশাই-এর মুকুট পেতেও কদাচ আগ্রহী নই। আলোচনাটাকে এই জায়গায় নিয়ে গিয়েছিলেন অন্য এক বাম সমর্থক যাঁর বাচনভঙ্গী ওই 'বিধিসম্মত সতর্কীকরণ'-এ খানিক দেওয়া আছে। কাজেই কে আগে বললেন আর কে পরে সে নিয়ে কথা অর্থহীন। কিন্তু কথাগুলো একই থাকছে যদিও ২৩ তারিখের আগে কথাগুলো এমন ছিল না, বরং 'সৈকত' নাম্নী কেউ ৭% ভোট বামেরা পাওয়ায় তাদের সমর্থকদের 'ক্যালিবার' নিয়ে যথেষ্ট ঠাট্টাই করেছিলেন। এইভাবে ব্লক ভোটিং তারপরেও কেউ কেউ মেনে নিতে পারেননি। এবং এলেবেলে লিংক দিলে তার পাল্টা লিংক এসেছে 'লেবেলেএ' নিকে। আমিও এখানে মাঝে মাঝে উড়ে এসে জুড়ে বসি, এর বেশি কিছু নয়। তবে এই বসাবসিটা অনেকে ভালোভাবে নেন না, তার প্রভূত প্রমাণ আমার কাছে মজুত আছে। শেষে বলি, যদি কোনও ভাবে আপনাকে আঘাত দিয়ে থাকি তবে আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত ও ক্ষমাপ্রার্থী।
Avatar: S

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

আমি এই টইতেই এই ভোট বদল নিয়ে কিছু লিখেছি। বেশ সংখ্যা টংখ্যা দিয়েই বিশ্লেষণ করেছি। তা সে কারোর খুবেকটা পছন্দ হওয়ার কথা নয়। কারণ লোকে ঐ অর্ণব আর সঙ্গে সুমন টাইপের আলোচনায় এতো বেশি স্বচ্ছন্দ্য যে তথ্য দিয়ে নিজে থেকে কিছু বোঝার থেকে নিজের দলের দিকে ঝোল টানা লিন্ক দিয়ে চেঁচানোকেই আজকাল বিতর্ক ভাবতে শিখে গেছে।

এটা ঘটনা যে বামেদের আগের ইলেকশনে যারা ভোট দিয়েছিলেন, এবারে তাদের বেশ কিছু অংশ রামে ভোট দিয়েছেন। কিন্তু সেই ট্রেন্ড অনেক আগে থেকেই ঘটছিলো। আগেরবার যখন বামেদের ভোট কমলো আর বিজেপির ভোট বাড়লো, তখন কিন্তু তিনোপন্থীরা কোনও আপত্তি করেনি (বামেদের খিল্লি করা ছাড়া) কারণ বিরোধী ভোট ভাগ হওয়ার নিজেদের সুবিধে হচ্ছিলো। এইবারে সেই একই ট্রেন্ডে নিজেদের ঝামেলা হয়েছে। তিনোরা যদি মনে করে যে উনারা প্রচুর কারচুপির পরও ৪০-৪৫% ভোট পাবে, আর তিনো বিরোধী ভোট ভাগের দায়িত্ব বাকি দলগুলো নিয়ে উনাদেরকে সব সীটে জিতিয়ে দেবে, তাইলে উঁটপাখি।

এছাড়া ম্যাসিভ চেন্জ ইন ডেমোগ্রাফিক্সও একটা কারণ। এবং সেইটাই সবথেকে বড় চিন্তার। ৬০-৭০ দশকের কঙ্গ জমানার ভয়াবহতা যারা দেখেছেন এবং বাম জমানার প্রথমদিকের কাজকম্ম যারা দেখেছেন, ভোটের বুথে তাদের সংখ্যা কমছে। তার বদলে তিনোদের কুশাসন যারা দেখেছে, বামেদের শক্তিহীন অবস্থায় যারা দেখেছে, আর মোদিবন্দনা যাদের মোবাইলে ক্রমাগত এসে চলেছে তারাই ভবিষ্যতে ভোটার সংখ্যার একটা বড় অংশ হতে চলেছে।
Avatar: এলেবেলে

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

@S, আপনার তথ্যভিত্তিক বিশ্লেষণ দেখেছি। খুবই যথাযথ। আমার কাছে এই মুহূর্তে ৪২টা সিটের ২০১৪ এবং ২০১৯এর ভোট পার্সেন্টেজের হিসাব আছে। কিন্তু কে ওসব চায় বলুন? তাই দিইনি ইচ্ছে করেই।
Avatar: সৈকত

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

এলেবেলেকে। আপনি লিখেছেনঃ

"বরং 'সৈকত' নাম্নী কেউ ৭% ভোট বামেরা পাওয়ায় তাদের সমর্থকদের 'ক্যালিবার' নিয়ে যথেষ্ট ঠাট্টাই করেছিলেন।"

আপনি বাই এনি চান্স মনে করেননি তো যে এই 'সৈকত' নাম্নী কেউ, আপনাকে নিয়ে ঠাট্টা করেছিল ? বা আমি বাম সমর্থক ? দুটোর কোনটাই হলে খুবই দুঃখ পাব।

আর 'ক্যালিবার' তো লিখিনি, 'তালেবড়' লিখেছিলাম। ঃ-)


Avatar: dc

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

ইয়ে এলেবেলেকে একটা কথা বলতে পারি, এখানে কে আপনার বসাবসি নিয়ে কি ভাবলো সে নিয়ে খুব একটা ভাবিত হবেন না। আপনি আপনার মতো লিখে যান, কেউ ঠাট্টা করলে বা খোঁচালে ইগনোর করুন বা পাল্টা দিন। এক্দম বিন্দাস থাকুন ঃ-)
Avatar: এলেবেলে

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

@সৈকত, না আমি কখনই মনে করিনি যে আপনি আমাকে নিয়ে ঠাট্টা করেছিলেন বা আপনি বাম সমর্থক। অতটা ইমম্যাচিওর আমি নই। বরং এর উত্তরে আমি যখন 'সিপিএমের ২৭% ভোট দেওয়ার ব্যাপারটা যদি আলিমুদ্দিন থেকে কন্ট্রোলড না হয়ে থাকে তবে এতে সবাই এত অবাক হচ্ছেন কেন জানি না' লিখেছিলাম, আপনি যে আর সে নিয়ে কথা বাড়াননি সেটাও নজর করেছি। প্রসঙ্গত, গুরুতে 'সৈকত' নাম্নী লোকেরা যথেষ্ট পোলাইট ও রসিক বলেই আমি জানি। হ্যাঁ, 'তালেবড়' লিখেছিলেন কিন্তু ওই বাক্যে প্রয়োগ করতে গিয়ে একটু এদিক-ওদিক হয়ে গেছে আর কি।

পিটিকেও লিখেছিলাম, "পিটি, পোলারাইজেশন হবে অথচ 'প্রতিশোধস্পৃহা' থাকবে না? 'মুসলমান তোষণ' মাথায় এমন ঢুকে গেছে, সিন্ডিকেট এমন থাবা বসিয়েছে যে সবাই হেস্তনেস্ত চেয়েছেন। ঘোর তিনোরাও চাপা ছিল, বাইরে ভাব দেখিয়েছে তিনোর। দেওয়াল লিখেছে, খেটেছে কিন্তু বিক্ষুব্ধ হিন্দু তিনো ভোট দিয়েছে পদ্মে।" যদিও এর উত্তর উনি দেননি। দিতেই হবে সে দায় যদিও ওঁর নেই।

@dc, আমি বিন্দাসই থাকি। ২০১৭তে লিখেছিলাম, 'এ টই কারও পৈতৃক জমিদারি নয়। এখানে গুরুরা খেলবে, চণ্ডালরাও। তাদের ঘামের গন্ধে আপনাদের গা গোলালে তাদের বয়ে গেছে সে নিয়ে ভাবতে।' কাজেই এ জিনিস নতুন নয়। আমি আজকাল ইগনোর করি এবং এই কারণেই এই টইতে লিখছি অন্য টই ছেড়ে দিয়েছি বলে। এতে একটা উটকো ঝামেলা হয়, কিছু মানুষ হুট করে অন্য নিকে ঢুকে এমন দুমদাম মন্তব্য করে উধাও হয়ে যান যে তখন আর সেই থ্রেডে লিখতে ইচ্ছে করে না। খুব সম্প্রতি এই কারণে আমি আরেকটা ভালো টই থেকে নিজেকে সরিয়ে নিই।
Avatar: PT

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

"দেওয়াল লিখেছে, খেটেছে কিন্তু বিক্ষুব্ধ হিন্দু তিনো ভোট দিয়েছে পদ্মে।"

বেশ কিছুদিন আগে লিখেছিলাম-কোন টইতে মনে নেই। আপনার আগে না পরে তাও মনে নেই। মালদহের এক কলেজে গিয়ে পরিচয় হয় এক তিনো কর্মীর সঙ্গে যার দাদা স্থানীয় তিনো কাউন্সিলার। সন্ধ্যে বেলায় জল খেতে খেতে ছেলেটি জানাল যে তারা নিজের দলের "মুসলিম তোষণে" বীতশ্রদ্ধ। কি করে রাতে বাংলাদেশে গরু পাচার হয় লোড্শেডিং করে BSF-এর সহায়তায় সে সবও বলল।

আমি সেজন্যেই লিখেছিলাম যে সিপিএমের ভোট তিনোতে আর তিনোর ভোট বিজেপিতে যাওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা আছে।

Avatar: dc

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

" ঘোর তিনোরাও চাপা ছিল, বাইরে ভাব দেখিয়েছে তিনোর। দেওয়াল লিখেছে, খেটেছে কিন্তু বিক্ষুব্ধ হিন্দু তিনো ভোট দিয়েছে পদ্মে"

এলেবেলে, এরকম তো হয়ে থাকতেই পারে। মানে সব ইলেকশানেই কিছু এদলের ভোটার ওদলে ভোট দেয়, কিছু বিক্ষুব্ধ থাকে নানান কারনে, তারা অন্য দলে ভোট দেয়। সেরকম ক্রস ভোটিং এবারও অবশ্যই হয়েছে। খোঁজ নিয়ে দেখুন, একজন দুজন তিনো পেয়ে যাবেন যারা সিপিএমকে ভোট দিয়েছে আর ভাইস ভার্সা, একজন দুজন বিজেপি পেয়ে যাবেন যারা তিনোকে ভোট দিয়েছে আর ভাইস ভার্সা, ইত্যাদি। তবে এবার বাম দলের ভোট কমলো ২৩% আর বিজেপির ভোট বাড়লো ২৩%, এ ভারি মজার ব্যপার। এরকমভাবে বাম সমর্থকেরা বিজেপিকে এন ব্লক ভোট ট্রান্সফার করবে, এরকমটা খুব একটা ভাবা যায়নি।
Avatar: saikat

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

যাক, বাঁচালেন। @এলেবেলে।
Avatar: Amit

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

ইয়ে মানে এই বামের ভোট রামে এই বুজিদের কান্নাকাটি কি ২০২১ অব্দি চলবে ? একটু দম বাঁচিয়ে রাখলে হতো না ? যা হালচাল, ততদিন পিসির সরকার টিকলে হয়। তখন তো আবার ২০২৬ অবধি টানতে হবে।

তবে এটা স্বীকার করি যখন এলেবেলে ভোটের প্রেডিকশন করেছিলেন কয়েক সপ্তাহ আগে, আমার ঠিক বিশ্বাস হয়নি। এখন তো দেখছি উনি এক্সিট পোল দের ঘোল খাওয়াতে পারেন। আপনাকে লাল সেলাম।
Avatar: Amit

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

আজকের কাগজে ফিরহাদ এর বয়ান :

"‘‘বড় জাহাজ যখন একটু টলমল করে, তখন সবার আগে ইঁদুররা সমুদ্রে ঝাঁপ দেয়। তার পর সেই জলেই ডুবে মরে। একটা রাজনৈতিক দল কয়েকটা আসন পেয়েছে। তাতে ঘাবড়ে গিয়ে যাঁরা পালিয়ে যাচ্ছেন বা চাপের মুখে যাঁরা মাথা নত করে পালিয়ে যাচ্ছেন, তাঁরা আদর্শের রাজনীতি করে না। আদর্শের রাজনীতি করলে আদর্শের জন্য জীবন উৎসর্গ করে দেওয়া যায়। আদর্শের রাজনীতি যাঁরা করবেন তাঁরা আন্দোলন করে তার বিরুদ্ধে লড়াই করবেন। "

ওফফ, কোনো কথা হবে না। জাস্ট অসাম। চোখে জল এসে যাচ্ছে পুরো।

দিদির দলবল আদর্শের জন্য লড়াই করেছে , কেমন কঙ্কালের বগলে চুল এর মতো লাগলেও এই জোশ টাকে অস্বীকার করতে পারি না।
Avatar: S

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

ফিরহাদ পড়েছে আসল মুশকিলে।
Avatar: রঞ্জন

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

ইংরিজি কাগজে দেখলাম 'সিংকিং শিপ' বলেছে।
ভাবলাম ফিরহাদও মেনে নিচ্ছে তিনো সিংকিং শিপ?
ব্রেশ, ব্রেশ!
একটা খবর শুনলাম--জ্যোতিপ্রিয় নাকি পদ্মে যাচ্ছে? পুরো সার্কাস। পয়সা উশুল।
Avatar: dc

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

তাও ভালো অমিতবাবু বগলে চুলের কথা ভেবেছেন।
Avatar: Amit

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

হায় হায় ডিসি, এসব বলবেন না। এই কদিন আগে পার্থ চাটুজ্জেকে জাস্ট মোটা বলার জন্য এ পাড়ার এক স্বঘোষিত মুরুব্বি কত কি শুনিয়ে দিলেন। কোনো খারাপ কথা একদম নয়, বাচ্ছারা আছে এখানে, শুনে ফেলবে।

কিন্তু পার্থ চাটুজ্জে সত্যি মোটা মাইরি, ওকে আর কি বলা যেতে পারে ভেবে পাচ্ছি না। :) :)
Avatar: S

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

লোকে পার্থ চ্যাটার্জির নাম দিয়েছিল ব্যর্থ চ্যাটার্জি। আর পাড়ার লোকে নাকি ওকে হুলো বলে ডাকে। ঃ))

দিদি বিজেপিতে কবে জয়েন করছেন, সেই নিয়ে কোনও খবর আছে?
Avatar: S

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

একি? আগে যে শুনেছিলাম দিল্লি যাবেন না। মোদির ক্যাবিনেটে পবর মুখ্যমন্ত্রীর পোস্টও আছে নাকি?
Avatar: @PT

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

সন্ধ্যে বেলায় জল খেতে খেতে ছেলেটি জানাল যে তারা নিজের দলের "মুসলিম তোষণে" বীতশ্রদ্ধ। কি করে রাতে বাংলাদেশে গরু পাচার হয় লোড্শেডিং করে BSF-এর সহায়তায় সে সবও বলল।

১. সনদেহপ্রবণ, তার্কিক পিটি 'তোষনের' (ঘেটোলর্ডদের ইমিউনিটি দেয়া ছাড়া) কোনো স্পেসিফিক উদাহরন জানতে চাইলেন? না সোনামুখ করে স্টেটমেন্টটা ফেসভ্যালুতে মেনে নিলেন?

২. 'গরু পাচার'টা কী জিনিস? বাংলাদেশে গরুর চাহিদা আছে, তো সেখানে যায়। বিনা পয়সায় তো যায় না, ওরা এসে কেড়ে নিয়েও যায় না। ভারতে বৈধভাবে গরু কাটার স্লটারহাউজ চালানো অনেক স্টেটে হয় নিষেধ নয় খুব কঠিন। বৈধভাবে রপ্তানী করতে দিন, ক্রিমিনাল এলিমেন্ট উঠে গিয়ে উইন উইন সিচুয়েশন তৈরি হবে।

এই গরুগুলো রাস্তায় ঘুরে বেড়ায় আর গরিব সব্জিওয়ালাদের আর্থিক সর্বনাশ করে বেড়ায়। তো মোদীর দল যাই বলুক আর ধনী মারওয়ারি-গুজরাতি ব্যবসাদার যত গোশালা বানাক এদের রাখাটা অসম্ভব (মানুষের যেখানে মাথা গোঁজার ঠাই নেই, গরুর জন্য, বানরের জন্য স্যাংচুয়ারি বানানো অকহতব্য অন্যায়)

আর বিএসএফও কী টিএমসি চালায় নাকি? দিদির হাত এত লম্বা?
Avatar: PT

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

গোটা উত্তর বঙ্গ গেরুয়া-গৌরবঙ্গেও গেরুয়ার ঢল নেমেছে। ছেলেটি বানিয়ে বলেনি বলেই তো মনে হচ্ছে।
সবজি খেয়ে বলে গরুপাচারকারীদের পক্ষে দাঁড়াচ্ছে কেউ-এও এক নতুন মতামত জানা গেল।
যতদিন বাঁচি ততদিন শিখি!!!!!

(গরু নিয়ে যাদের এত চিন্তা তারা অবিশ্যি তাপসী মালিকের ইন্সাফ নিয়ে বিশেষ উদ্বেগ দেখায় না।)
Avatar: PT

Re: ঔদ্ধত্যের খতিয়ান

#গরু সবজি খেয়ে ফেলে বলে

দিদির হাত লম্বা কি লোকাল দাদাদের হাত লম্বা তা কেউ জানে না। কিন্তু ধোঁয়া থাকলে যে আগুনও থাকে তা কে না জানে। একটু পড়াশুনো করে তারপরে তো লেখা যায়....

"The Delhi High Court has dismissed the plea of a former Border Security Force (BSF) jawan who was dismissed from service for allowing 15 cattle to be smuggled into the country from Bangladesh."

মন্তব্যের পাতাগুলিঃ [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9]   এই পাতায় আছে 146 -- 165


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন