ন্যাড়া RSS feed
বাচালের স্বগতোক্তি

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • 'আইনি পথে' অর্জিত অধিকার হরণ
    ফ্যাসিস্ট শাসন কায়েম ও কর্পোরেট পুঁজির স্বার্থে, দীর্ঘসংগ্রামে অর্জিত অধিকার সমূহকে মোদী সরকার হরণ করছে— আলোচনা করলেন রতন গায়েন। দেশে নয়া উদারবাদী অর্থনীতি লাগু হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণপন্থার সুদিন সূচিত হয়েছে। তথাপি ১৯৯০-২০১৪-র মধ্যবর্তী সময়ে ...
  • সম্পাদকীয়-- অর্থনৈতিক সংকটের স্বরূপ
    মোদীর সিংহগর্জন আর অর্থনৈতিক সংকটের তীব্রতাকে চাপা দিয়ে রাখতে পারছে না। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে ভারতের অর্থনীতি সংকটের সম্মুখীন হয়েছে। সংকট কতটা গভীর সেটা তার স্বীকারোক্তিতে ধরা পড়েনি। ধরা পড়েনি এই নির্মম ...
  • কাশ্মীরি পন্ডিত বিতাড়নঃ মিথ, ইতিহাস ও রাজনীতি
    কাশ্মীরে ডোগরা রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হবার পর তাদের আত্মীয় পরিজনেরা কাশ্মীর উপত্যকায় বসতি শুরু করে। কাশ্মীরি ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ছিলেন। এরা শিক্ষিত উচ্চ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেনি। দেশভাগের পরেও এদের ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজে পড়াশোনা করেছে। অন্যদিকে ...
  • নিকানো উঠোনে ঝরে রোদ
    "তেরশত নদী শুধায় আমাকে, কোথা থেকে তুমি এলে ?আমি তো এসেছি চর্যাপদের অক্ষরগুলো থেকে ..."সেই অক্ষরগুলোকে ধরার আরেকটা অক্ষম চেষ্টা, আমার নতুন লেখায় ... এক বন্ধু অনেকদিন আগে বলেছিলো, 'আঙ্গুলের গভীর বন্দর থেকে যে নৌকোগুলো ছাড়ে সেগুলো ঠিক-ই গন্তব্যে পৌঁছে যায়' ...
  • খানাকুল - ২
    [এর আগে - https://www.guruchan...
  • চন্দ্রযান-উন্মত্ততা এবং আমাদের বিজ্ঞান গবেষণা
    চন্দ্রযান-২ চাঁদের মাটিতে ঠিকঠাক নামতে পারেনি, তার ঠিক কী যে সমস্যা হয়েছে সেটা এখনও পর্যন্ত পরিষ্কার নয় । এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে শুরু হয়েছে তর্কাতর্কি, সরকারের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে । প্রকল্পটির সাফল্য কামনা করে ইসরো-র শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানীরা ...
  • দেশত্যাগ...
    আমার এক বন্ধু ওর একটা ভিজিটিং কার্ড আমাকে দিয়েছিল। আমি হাতে নেওয়ার সময় কার্ডটা দেখে বুঝতে পারলাম কার্ডটা গতানুগতিক কোন কার্ড না, বেশ দামি বলা চলে। আমি বাহ! বলে কাজ শেষ করে দিলাম। আমি আমার বন্ধুকে চিনি, ওর কার্ডের প্রতি এরচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখালে ও আমার মাথা ...
  • পাঠকের সঙ্গে তাদের হয় না কো দেখা
    মানস চক্রবর্তীকবিতা কি বিনােদনসামগ্রী? তর্ক এ নিয়ে আপাতত নয়। কবিতা কি আদৌ কোনাে সামগ্রী? কোনাে কিছুকে পণ্য হয়ে উঠতে হলেও তার একটা যােগ্যতা দরকার হয়। আজকের দিনে কবিতা সে-অবস্থায় আদৌ আছে কি না সবার আগে স্পষ্ট হওয়া দরকার। কবিতা নামে একটা ব্যাপার আছে, ...
  • হে মোর দেবতা
    তোমারি তুলনা তুমি....আজ তাঁর জন্মদিন। আমার জংলা ডায়রির কয়েকটা ছেঁড়া পাতা উড়িয়ে দিলুম তাঁর ফেলে যাওয়া পথে।দাঁড়াও পথিকবর....জন্ম যদি তব অরণ্যে," সবুজ কাগজেসবুজেরা লেখে কবিতাপৃথিবী এখন তাদের হাতের মুঠোয়"(বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়)মহাভারত...
  • বেকার ও সমীকরণ
    'বেকার'-এই শব্দটি আমাকে আজন্ম বিস্মিত করেছে। বাংলায় লেখাপড়া শিখে, এমনকী একাদশ শ্রেণীতে বিজ্ঞান বিভাগে পড়ে, সে কী বাংলায় পদার্থবিদ্যার বিদ্যা বালানীয় চর্চা! যেমন, 'ও বিন্দুর সাপেক্ষে ভ্রামক লইয়া পাই।' ভ্রামক কি রে? ভ্রম না ভ্রমণের কাছাকাছি? না, ভ্রামকের ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ক্রিকেট অ্যানালিসিস

ন্যাড়া

হাটে-বাটে, মাঠে-ঘাটে, রণে-বনে, জলে-জঙ্গলে লোকে আমায় জিগেস করে, "ন্যাড়াবাবু, আপনার এই অতুলনীয় গেম-রিডিং আপনি কোথা থেকে শিখলেন?" আমি মৌরি হেসে পাশ কাটিয়ে যাই। উত্তর দিইনা।

আজ বিবেক বলল, "এ কি সঙ্গে নিয়ে যাবি? বিলিয়ে দে, বিলিয়ে দে।" তাই আমার গোপন কথা আজ ফাঁস করেই দিই।

দেখুন বালকবৃন্দ ও স্নেহের হিজিবিজবিজ, আমরা যখন খেলার অ্যানালিসিস শিখছি তখন না ছিল কালার টেলিভিশন, না ছিল টাক-মাথায়-ঢেউ-খেলান-চুল নিয়ে হর্ষ ভোগলের দল। গাভাসকার-গাঙ্গুলির দল তখন ব্যাট নাবিয়েই কমেন্ট্রিবক্সে ছুটত না। আমাদের ছিল রেডিও কমেন্ট্রি। আনন্দ শেতলাবাদ, নারোত্তম পুরী, সুশীল যোশী, কিশোর ভিমানিরা। সত্যি বলতে ক্রিকেট কমেন্ট্রি শুনে যত ইংরিজি শিখেছি, পি কে দেসরকার থেকে নেসফিল্ড কেউই অত ইংরিজি শেখাতে পারেননি। হিন্দিতে তাও অমিতাভ থেকে ধর্মেন্দ্র সবাই দায়িত্ব নিয়ে সুশীল দোশীকে সাপোর্ট দিয়েছেন। ইংরিজিতে সে গুড়ে বালি। ক্লিন্ট ইস্টউড চুরুট চিবিয়ে চিবিয়ে ক্যাঁও-ম্যাও করে দুটো কথা বলেই ঠাঁই-ঠাঁই-ঠাঁই-ঠাঁই-ঠাঁই। হলিউডের সব সিনেমাই আমার কাছে ছবিতে-গল্প।

ক্রিকেট অ্যানালিসিস শিখেছি বাংলায়। অবস্থাটা কল্পনা করুন। টিভিতে সাদা-কালো খেলা। বল দেখা যায় না। মাঠের সবাই খুদি-খুদি এবং হাল্কা আউট-অফ-ফোকাস। আন্দাজে এবং কল্পনা মিশিয়ে খেলা দেখতে হত। এমতাবস্থায় অগতির গতি বাংলা কমেন্ট্রি। কী লাইন-আপ! অজয় বসু, পুষ্পেন সরকার আর এক্সপার্ট কমল ভট্টাচার্য। লোকে টিভিতে খেলা দেখার সময়েও টিভির সাউন্ড বন্ধ করে রেডিওয় এনাদের কমেন্ট্রি শুনত।

অজয় বসু শাপভ্রষ্ট সাহিত্যিক। বিভূতিভূষণ ঘরানা। প্রকৃতি খুব টানে ওনাকে। পেটের দায়ে ক্রীড়া-সাংবাদিকতা করছেন, মনে হয়। হাড্ডাহাড্ডি খেলা চলছে, ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চেপে ধরেছে। মাঠময় কি-হয় কি-হয় উত্তেজনা। ওদিকে অজয় বসু চিল দেখছেন। আর তার বর্ণনা করে চলেছেন। "সবুজ মাঠের ওপরে নীল মেঘমুক্ত আকাশ। দুটি চিল, সোনালী ডানার চিল, চক্রাকারে উড়ছে। হয়ত ভোজ্যের টানে কখনও নেবে আসবে ইডেনের বুকে। ঠোঁটে তুলে নেবে মানুষের উচ্ছিষ্ট। এই কি তাদের ভবিতব্য? সভ্য মানুষ গড়েছে কংক্রিটের স্টেডিয়াম। কেড়ে নিয়েছে তাদের বাসভূমি।" হঠাৎ গলা চড়িয়ে, "বলতে বলতে দুটি উইকেট পড়ে গেছে। চন্দ্রশেখর ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুটি মূল্যবান উইকেট তুলে নিলেন। যা বলছিলাম, হায় চিল, সোনালী ডানার চিল।"

পুষ্পেন সরকারের আবার প্রকৃতি-টকৃতির দিকে তেমন মন নেই। ওনার কল্পনা মনুষ্যচরিত্রে - বলা ভাল, কথোপকথনে। দুজন ব্যাটসম্যান পিচের মাঝে কী বলছেন, উনি মানসকর্ণে শুনে ফেলেন। "বিশ্বনাথ গাভাসকারকে বলছেন, তুমি হোল্ডিংকে ঠোকো, আমি মারি।" অনেকটা সেই "তুমি কষে ধরো হাল, আমি তুলে বাঁধি পাল" স্টাইল। আবার কখনও "পাতৌদি চন্দ্রশেখরকে বলছেন, তোমার ওপরেই আজ ভরসা চন্দ্রশেখর। এই নাও বল। দেখাও তোমার কেরামতি। চন্দ্র পাতৌদিকে বললেন, 'পায়ে পড়ি ক্যাপ্টেন। আজ নয়। আজ অন্য কাউকে বল দাও।' পাতৌদি কিন্তু নাছোড়বান্দা। চন্দ্রকেই বল দেবেন। চন্দ্র বল নিয়ে দেখছেন। ভাবছেন, আজ কি পারবেন?"

তবে কল্পনার লাগাম যদি কেউ ছাড়াতেন, তিনি হলেন কমল ভট্টাচার্য। "বল করতে আসছেন অ্যান্ডি রবার্ট। অ্যান্ডিরা দুই ভাই। অ্যান্ডি রবার্ট আর ম্যান্ডি রবার্ট। দুজনকে একসঙ্গে ওদের মা রবার্টস বলে ডাকেন। তাই অ্যান্ডির নাম হয়েছে অ্যান্ডি রবার্টস। আমি অবশ্য রবার্টই বলি।"

এতেও যদি ক্রিকেট অ্যানালিসিসের অন্তর্দৃষ্টি না গজায়, তাহলে আর কিসে গজাবে কাকা!

385 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: দ

Re: ক্রিকেট অ্যানালিসিস

ইসে, কেমন তীত্থদ্বারা অনুপ্রাণিত মনে হচ্ছে। ঠিউক ন্যাড়াদা ইস্টাইল নয়।
Avatar: lcm

Re: ক্রিকেট অ্যানালিসিস

হে হে, কমলদার এই রবার্ট্‌স - এটা আগে শুনেছি বলে মনে পড়ছে না।
Avatar: b

Re: ক্রিকেট অ্যানালিসিস

বলতে না বলতে উইকেট পড়ে গেলো (দ্রুত),
বলতে বলতে (পজ), উইকেট পড়ে গেলো
বলতে বলতে
(গলাটা চড়া থেকে খাদে নেবে যেতো)

তবে ক্রিকেট কমেন্ট্রি সম্ভবতঃ এইটা সেরাঃ

https://www.youtube.com/watch?v=KsVTpX7LdZQ
মনে রাখবেন leg over মানে ইসে ।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন