ন্যাড়া RSS feed
বাচালের স্বগতোক্তি

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • পাহাড়ে শিক্ষার বাতিঘর
    পার্বত্য জেলা রাঙামাটির ঘাগড়ার দেবতাছড়ি গ্রামের কিশোরী সুমি তঞ্চঙ্গ্যা। দরিদ্র জুমচাষি মা-বাবার পঞ্চম সন্তান। অভাবের তাড়নায় অন্য ভাইবোনদের লেখাপড়া হয়নি। কিন্তু ব্যতিক্রম সুমি। লেখাপড়ায় তার প্রবল আগ্রহ। অগত্যা মা-বাবা তাকে বিদ্যালয়ে পাঠিয়েছেন। কোনো রকমে ...
  • বেঁচে আছি, আত্মহারা - জার্নাল, জুন ১৯
    ১এই জল, তুমি তাকে লাবণ্য দিয়েছ বলেবাণিজ্যপোত নিয়ে বেরোতেই হ'লযতক্ষণ না ডাঙা ফিকে হয়ে আসে।শুধু জল, শুধু জলের বিস্তার, ওঠা পড়া ঢেউসূর্যাস্তের পর সূর্যোদয়ের পর সূর্যাস্তমেঘ থেকে মাঝে মাঝে পাখিরা নেমে আসেকুমীরডাঙা খেলে, মাছেরা ঝাঁক বেঁধে চলে।চরাচর বলে কিছু ...
  • আনকথা যানকথা
    *****আনকথা যানকথা*****মোটরবাইক ঃ ইহা একটি দ্বিচক্রী স্থলযান। পেট্রল ডিজেল জাতীয় জীবাশ্ম জ্বালানির সাহায্যে চলে। বিভিন্ন আকারের ও বিভিন্ন ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরবাইক আমরা দেখিতে পাই। কোন কোন বাইকের পাশে ক্যারিয়ার থাকে। শোলে বাইক আজকাল সেরকম দেখিতে পাওয়া যায়না। ...
  • সরকারী পরিষেবার উন্নতি না গরীবকে মেডিক্লেম বানিয়ে দেওয়া? কোনটা পথ?
    এন আর এস এর ঘটনাটি যে এতটা স্পর্শকাতর ইস্যু হয়ে উঠতে পারল এবং দেখিয়ে দিল হাসপাতালগুলির তথা স্বাস্থ্য পরিষেবার হতশ্রী দশা, নির্দিষ্ট ঘটনাটির পোস্টমর্টেম পেরিয়ে এবার সে নিয়ে নাগরিক সমাজে আলোচনা দরকার।কিন্তু এই আলোচনা কতটা হবে তাই নিয়ে সংশয় আছে। কারণ ...
  • জুনিয়র ডাক্তারদের ধর্মঘট ও সরকারের ভূমিকা
    হিংসার ঘটনা এই তো প্রথম নয়। ২০১৭ ফেব্রুয়ারীতে টাউনহল খাপ পঞ্চায়েত বসিয়ে বেসরকারি হাসপাতালের ম্যানেজমেন্ট কে তুলোধোনা করার পর রাজ্যে ১ নতুন ক্লিনিক্যাল এস্তব্লিশমেন্ট অ্যাক্ট চালু হয়েছিল। বলা হয়েছিল বেসরকারি হাসপাতাল গুলি র রোগী শোষণ বন্ধ করার জন্য, ...
  • ব্রুনাই দেশের গল্প
    আশেপাশের ভূতেরা – ব্রুনাই --------------------...
  • 'বখাটে'
    তেনারা বলতেই পারেন - কেন, মাও সে তুঙ যখন ঘোষণা করেছিল, শিক্ষিত লোকজনের দরকার নেই, লুম্পেন লোকজন দিয়েই বিপ্লব হবে, তখন দোষ ছিল না, আর 'বখাটে' ছেলেদের নিয়ে 'দলের কাজে' চাকরি দেওয়ার কথা উঠলে দোষ!... কিন্তু, সমস্যা হল লুম্পেনের ভরসায় 'বিপ্লব' সম্পন্ন করার পর ...
  • ডাক্তার...
    সবচেয়ে যে ভাল ছাত্র তাকেই অভিভাবকরা ডাক্তার বানাতে চায়। ছেলে বা মেয়ে মেধাবী বাবা মা স্বপ্ন দেখে বসে থাকল ডাক্তার বানানোর। ছেলে হয়ত প্রবল আগ্রহ নিয়ে বসে আছে ইঞ্জিনিয়ারিঙের কিন্তু বাবা মা জোর করে ডাক্তার বানিয়েছে এমন উদাহরণ খুঁজতে আমাকে বেশি দূর যেতে হবে ...
  • বাতাসে আবারও রেকর্ড সংখ্যক কার্বন-ডাই-অক্সাইড, কোন পথে এগোচ্ছে পৃথিবী?
    সাম্প্রতিক একটি প্রতিবেদন বলছে বায়ুতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ আবারও বেড়ে গেছে। এই নিয়ে প্রতিবছর মে মাসে পরপর কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বৃদ্ধি পেতে পেতে বর্তমানে বায়ুতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ রেকর্ড সংখ্যক। গত মাসে (মে-তে) কার্বন ডাই অক্সাইডের ...
  • ফেসবুক রোগী
    অবাক হয়ে আমার সামনে বসা ছেলেটার কান্ড দেখছি। এই সময়ে তার আমার পাশে বসে আমার ঘোমটা তোলার কথা। তার বদলে সে ল্যাপটপের সামনে গিয়ে বসেছে।লজ্জা ভেঙ্গে বলেই ফেললাম, আপনি কি করছেন?সে উৎকণ্ঠার সাথে জবাব দিলো, দাঁড়াও দাঁড়াও! 'ম্যারিড' স্টাটাস‌ই তো এখনো দেইনি। ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

দুটি বই

ন্যাড়া

ইতিহাসে যদি প্রশ্ন আসত, "অ্যামেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধে ছিয়াত্তরের মন্বন্তরের প্রভাব আলোচনা করো" আমি দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ফেল করতাম। কিন্তু এখন এলে এই লিখব -

১৭৫৭ সালে যুদ্ধ নামক প্রহসনে বাংলা চলে গেলে লর্ড ক্লাইভের হাতে। শাসনের থেকেও বড় কথা যথেচ্ছ শোষণের ভার ক্লাইভ-সাহেব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন। তখনকার হিসেবে শোনা যায় কুড়ি লাখ ডলারের তুল্য উপহার হাতবদল হয়েছিল। আজকের হিসেবে সে অংক না ভাবাই ভাল। বলা হয়, ক্লাইভ-সাহেব রাতারাতি বিশ্বের ধনীতম হয়ে পড়েছিলেন। সাহেবের খাঁই ্তাতে কিছুমাত্র কমেনি।

১৭৬৯ সালের খরা আর তার সঙ্গে করের হার বাড়ানো - এই সব মিলিয়ে ছিয়াত্তরের মন্বন্তর। যদিও পরে দেখা যাবে ১৭৬৮ থেকে ১৭৭১ সালে কোম্পানির আয় বেড়েছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও কোম্পানির আর্থিক অবস্থা পড়তির দিকে, শেয়ারের দাম হুহু করে পড়ে যাচ্ছে বাংলা-তথা-ভারত নামক স্বর্ণডিম্বপ্রসূ হাঁসটি বোধহয় শেষ ডিম পেড়ে ফেলেছে, এমত চিন্তায়। কাজেই কোম্পানিকে তখন নজর ফেরাতে হল অন্য অঞ্চল থেকে পয়সা তুলে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া।

নজর পড়ল অ্যামেরিকার দিকে। অ্যামেরিকায় করের হার স্বদেশ ব্রিটেনের থেকেও কম। কাজেই, চাপাও আরও কর। অ্যামেরিকার বাসিন্দারা সে কথা মানবার বান্দাই নয়। বস্টনের বন্দরে চায়ের পেটি সমুদ্রে ফেলে করের বিরুদ্ধে যে প্রতিবাদ শুরু হল, তাই শেষ পর্যন্ত অ্যামেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধে পরিণত হয়ে পড়ল। বস্টন টি পার্টি।

এসবই যে কেতাবে লেখা আছে তার নাম "দ্য সিল্ক রোড"। বইয়ের নামটি কিঞ্চিৎ বিভ্রান্ত সৃষ্টি করলেও, যারা আমার মতন গন্ডুষজলের সফরী, কিন্তু বিশ্বের মধ্যযুগ থেকে হাল আমলের জটিল ইতিহাস জানতে চান, তাদের কাছে এ বইয়ের কোন জবাব নেই। হলই বা ৬০০-র বেশি পাতা।


https://i.ibb.co/qmbb9vT/Image.jpg

দ্বিতীয় যে বই, তার আকর্ষণ আমার কাছে আগের বইটার থেকেও বেশি। এবং বিষয়টাও গোলমেলে। "আর্লি ইন্ডিয়ানস" নামের বইটি ভারতীয়দের উৎস-সন্ধানে উজান বেয়ে পৌঁছে গেছে একেবারে আধুনিক মনুষ্য জন্মের গোড়ায়। অ্যাফ্রিকা থেকে হোমো স্যাপিয়েন্সের বহির্গমন থেকে আর্যদের আগমন - সব লিখেছে এই কেতাবে। এমন কি চাড্ডি তাড়া করলে ঠেকাব কী উপায়ে সে কথাও বলা আছে। সাঁটে।


https://i.ibb.co/9bRGWBs/screenshot-20190415-182338.jpg


https://i.ibb.co/DV4Br87/screenshot-20190415-183512.jpg


https://i.ibb.co/wyqX1mv/screenshot-20190415-183524.jpg

টোনি সায়েব নিজে সাংবাদিক। কাজেই নানারকম সূত্র থেকে তথ্য নিয়ে আদি ভারতীয়র গল্পটা খাড়া করেছেন অতি সুখপাঠ্যভাবে। সূত্র বলতে ভাষাতাত্ত্বিক, প্রত্নতাত্ত্বিক ও প্রজনতাত্ত্বিক (genetics)। খুব সাঁটে বলতে গেলে ৬৫০০০-৭০০০০ বছর আগে একদল হোমো স্যাপিয়েন্স অ্যাফ্রিকা থেকে বেরিয়ে সমুদ্রের উপকূল ধরে ধরে এসে ভারতীয় উপমহাদেশে ঢুকে পড়ে। হয়ত সেখানে তখন স্যাপিয়েন্স নয়, অন্য হোমো প্রজাতির মানুষ ছিল। এর বহু পরে, চাষবাস যখন সবে শুরু হচ্ছে, সে সময়ে ইরানের কৃষকপ্রজাতির মানুষ এখনকার পাকিস্তান-আফগানিস্তান অঞ্চলে এসে আগে আসা স্যাপিয়েন্সদের সঙ্গে মিলেমিশে সিন্দু সভ্যতার পত্তন করে। পরে যখন খরার প্রকোপে সিন্ধু সভ্যতা টলোমলো, মধ্য-এশিয়ার স্তেপ অঞ্চল থেকে ঘোড়ায় চড়ে তারা - যাদের নাম বলা এখন ভারতে বারণ - এসে ভারতে ঢুকে পড়ে। সিন্ধু সভ্যতার মানুষের ভাষা-সংস্কৃতির সঙ্গে নাকি আজকের দ্রাবিড় ভাষা-সংস্কৃতির খুবই মিল।

তবে পরের মুখের ঝাল কেন খাবেন! পড়ে ফেলুন।


https://i.ibb.co/QC9xXnf/Image.jpg


288 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন



আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন