কুশান গুপ্ত RSS feed

নাম পরিবর্তন করি, এফিডেফিট বিনা।আসল নামে হাজার হাজার ডক্টর হাজরা আছেন, কে প্রথম জানা নেই, কে দ্বিতীয়, কে অদ্বিতীয়, এ ব্যাপারে ধারণা অস্বচ্ছ। অধমের ব্লগ অত্যন্ত ইনকনসিস্টেন্ট,কিছু বা খাপছাড়া, খানিকটা বারোভাজা ধরণের। কিন্তু গম্ভীর নিবন্ধের পর ক্লান্তি আসে, তখন কবিতা, তারপর ঘুম, ক্লান্তি ও নস্টালজিয়া। কোনো গন্তব্য নেই, তবু হাঁটতে হয় যেমন। একসময় অবকাশ ছিল অখন্ড, নিষিদ্ধ তামাশা লয়ে রংদার সমকাল চোখ মারিত। আজকাল আর মনেও হয় না, এ জীবন লইয়া কি করিব? আপনাদের হয়?

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • আর কিছু নয়
    প্রতিদিন পণ করি, তোমার দুয়ারে আর পণ্য হয়ে থাকা নয় ।তারপর দক্ষিণা মলয়ের প্রভাবে, পণ ভঙ্গ করে, ঠিক ঠিকখুলে দেই নিজের জানা-লা। তুমি ভাব, মূল্য পড়ে গেছে।আমি ভাবি, মূল্য বেড়ে গেছে।কখন যে কার মূল্য বাড়ে আর কার কমে , এই কথা ক'জনাই বা জানে?এই না-জানাদের দলে আমিই ...
  • একা আমলকী
    বাইরে কে একটা চিৎকার করছে। বাইরে মানে এই ছোট্টো নোংরা কফির দোকানটা, যার বৈশিষ্ট্যহীন টেবিলগুলোর ওপর ছড়িয়ে রয়েছে খাবারের গুঁড়ো আর দেয়ালে ঝোলানো ফ্যাকাশে ছবিটা কোনো জলপ্রপাত নাকি মেয়ের মুখ বোঝা যাচ্ছে না — এই দোকানটার দরজার কাছে দাঁড়িয়ে কেউ চিৎকার করছে। ...
  • গল্পঃ রেড বুকের লোকেরা
    রবিবার। সকাল দশটার মত বাজে।শহরের মিরপুর ডিওএইচেসে চাঞ্চল্যকর খুন। স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী পলাতক।টিভি স্ক্রিণে এই খবর ভাসছে। একজন কমবয়েসী রিপোর্টার চ্যাটাং চ্যাটাং করে কথা বলছে। কথা আর কিছুই নয়, চিরাচরিত খুনের ভাষ্য। বলার ভঙ্গিতে সাসপেন্স রাখার চেষ্টা ...
  • মহাভারতের কথা অমৃতসমান ২
    মহাভারতের কথা অমৃতসমান ২চিত্রগুপ্ত: হে দ্রুপদকন্যা, যজ্ঞাগ্নিসম্ভূতা পাঞ্চালী, বলো তোমার কি অভিযোগ। আজ এ সভায় দুর্যোধন, দু:শাসন, কর্ণ সবার বিচার হবে। দ্রৌপদী: ওদের বিরূদ্ধে আমার কোনও অভিযোগ নেই রাজন। ওরা ওদের ইচ্ছা কখনো অপ্রকাশ রাখেন নি। আমার অভিযোগ ...
  • মহাভারতের কথা অমৃতসমান
    কুন্তী: প্রণাম কুরুজ্যেষ্ঠ্য গঙ্গাপুত্র। ভীষ্ম: আহ্ কুন্তী, সুখী হও। কিন্তু এত রাত্রে? কোনও বিশেষ প্রয়োজন? কুন্তী: কাল প্রভাতেই খান্ডবপ্রস্থের উদ্দেশ্যে যাত্রা করব। তার আগে মনে একটি প্রশ্ন বড়ই বিব্রত করছিল। তাই ভাবলাম, একবার আপনার দর্শন করে যাই। ভীষ্ম: সে ...
  • অযোধ্যা রায়ঃ গণতন্ত্রের প্রত্যাশা এবং আদালত
    বাবরি রায় কী হতে চলেছে প্রায় সবাই জানতেন। তার প্রতিক্রিয়াও মোটামুটি প্রেডিক্টেবল। তবুও সকাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়া, মানে মূলতঃ ফেবু আর হোয়াটস অ্যাপে চার ধরণের প্রতিক্রিয়া দেখলাম। বলাই বাহুল্য সবগুলিই রাজনৈতিক পরিচয়জ্ঞাপক। বিজেপি সমর্থক এবং দক্ষিণপন্থীরা ...
  • ফয়সালা বৃক্ষের কাহিনি
    অতিদূর পল্লীপ্রান্তে এক ফয়সালা বৃক্ষশাখায় পিন্টু মাষ্টার ও বলহরি বসবাস করিত । তরুবর শাখাবহুল হইলেও নাতিদীর্ঘ , এই লইয়া , সার্কাস পালানো বানর পিন্টু মাষ্টারের আক্ষেপের অন্ত ছিলনা । এদিকে বলহরি বয়সে অনুজ তায় শিবস্থ প্রকৃতির । শীতের প্রহর হইতে প্রহর ...
  • গেরিলা নেতা এমএন লারমা
    [মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার ব্যক্তি ও রাজনৈতিক জীবনের মধ্যে লেখকের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে, তার প্রায় এক দশকের গেরিলা জীবন। কারণ এম এন লারমাই প্রথম সশস্ত্র গেরিলা যুদ্ধের মাধ্যমে পাহাড়িদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখান। আর তাঁর ...
  • হ্যামলিনের বাঁশিওলা
    হ্যামলিনের বাঁশিওলার গল্পটা জানিস তো? একটা শহরে খুব ইঁদুরের উপদ্রব হয়েছিল। ইঁদুরের জ্বালায় শহরের লোকের ত্রাহি ত্রাহি রব। কিছুতেই ইঁদুর তাড়ান যাচ্ছেনা। এমন সময়ে হ্যামলিন শহর থেকে একজন বাঁশিওলা বাঁশি নিয়ে এল। শহরের মেয়রকে বলল যে উপযুক্ত পারিশ্রমিক পেলে সে ...
  • প্রেমের জীবন চক্র অথবা প্রেমিক-প্রেমিকার
    "তোমার মিলনে বুঝি গো জীবন, বিরহে মরণ"।প্রেমের চরম স্টেজটা পার করতে গিয়ে এই রকম একটা অনুভূতি আসে। একজন আরেকজনকে ছাড়া বাঁচে না। এই স্টেজটা যদি কোনভাবে খারাপের দিকে যায় তখন মানুষের নানা পাগলামি লক্ষ্য করা যায়। কখনো কখনো পাগলামিটা তার গন্ডি ছাড়িয়ে ছাগলামিতে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

কুশান গুপ্ত

"কে কাকে রেখেছে মনে?
হিজলের বনে দোল খায় পুবদেশী হাওয়া
আজীবন যাকে চাওয়া সে হয়েছে ঈশানের মেঘ..."

সেই পুবদেশী আশ্চর্য হাওয়া আজও বয় কলকাতায় তথা মফস্বলে। সে দেশ একটাই ছিল, তারপর কাদের প্ররোচনায়, কাদের বিট্রেয়ালে কবে ভাগ হয়ে গেল গঙ্গায় পদ্মায়? দেশভাগ উদ্বেল করেছিলো সাদাত মান্টো আর ঋত্বিক ঘটককে, যুগপৎ। সমরেশ বসুর আদাব আমরা আঠারো পার করার আগেই পড়েছি। এই নিয়ে বিস্তর চর্চা ঐতিহাসিকদের। সম্প্রতি পড়লাম দময়ন্তীর লেখা ' সিজনস অব বিট্রেয়াল'। তিনি 'দ' নামে লেখেন গুরুচন্ডা৯ তে। দ বলে একটি লোকশব্দ হয়, কথাটি দহ থেকে আসা। নিস্তরঙ্গ নদীর ভেতরে থাকে গভীর গর্তের চোরাঘূর্ণি, জলের তীব্র ভরটেক্স, একেই দ বলে। বাইরে থেকে নিথর নদী টের পেতে দেয় না ভেতরের চোরাটান, কিন্তু তা দক্ষ সাঁতারুকে ডুবিয়ে মারে।

দ ওরফে দময়ন্তীর ন্যারেশন আপাতভাবে অমন নিরীহ। কিন্তু, ভেতরে রয়েছে তীব্র এক গহীন চোরাস্রোত। পড়তে পড়তে পাঠক হাঁটতে চলতে হাসতে কাঁদতে দেখবেন দেশভাগের পীড়িত, ক্ষত বিক্ষত মানুষগুলোকে। টের পাবেন শিকড়ের টান, নিজের মাটি থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার দুঃসহ জ্বালা। টের পাবেন কীভাবে মানুষকে নিজের ভিটে ছেড়ে এসে অন্য শহরে এসে স্ট্রাগল করতে হয়।এই আখ্যান ভয়, সংশয় আর উদ্বেগ নিয়ে বাঁচতে চাওয়া মানুষদের লড়াই। পূর্ব পাকিস্তানের কিশোরগঞ্জ ও পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার মধ্যে আবর্তিত হয় সম্পূর্ণ আখ্যান, যা এতটুকু গল্প নয়, মনে হয় সবটাই সত্যি।

এই কাহিনী ইতিহাস অনুসরণে, শুধু এইটুকু বললে এড়িয়ে যাওয়া হয়। গৌরকিশোর ঘোষের 'প্রেম নেই' উপন্যাস বুঝতে সাহায্য করে হিন্দু-মুসলিমের সম্পর্কের টানাপোড়েন ও তৎকালীন রাজনীতির পঙ্কিল ঘূর্ণাবর্ত।একইভাবে দেশভাগের ইতিহাসকে পুনরায় নতুন করে বুঝতে হলে দময়ন্তীর এই লোকগাথা পড়ুন। বুঝতে পারবেন দেশান্তরী মানুষের মনস্তত্ত্ব। তুখোড় ডিটেইলিং-এ লেখা এই অনন্য ন্যারেটিভ দেশ ও কালের কাছে তন্নিষ্ঠ; পাঠক, পড়েই আবিষ্কার করুন।

'সিজনস অব বিট্রেয়াল' পাওয়া যাচ্ছে কলকাতা বইমেলায় গুরুচন্ডা৯র স্টলে। স্টল নম্বর ২৯৩। আগ্রহী পাঠক, পড়ুন ও পড়ান।

739 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: aranya

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

বাঃ
Avatar: aranya

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

কবিতার লাইনগুলো কার যেন?
Avatar: Kushan

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

অরণ্য, হারিয়ে যাওয়া কবি হিমাংশু জানা। অনেক কবিই চুপে চুপে মরে গেছেন। কেউ খবর রাখেনি।

ওনার একটি কাব্যগ্রন্থ ছিল: 'জলের দুপায়ে ঝরে কথা'।
Avatar: aranya

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

'সুনীল গাঙ্গুলী-র দিস্তে দিস্তে লেখা
কত কবি চুপি চুপি মরে গেল একা একা'

- সুমন গেয়েছিলেন এক কালে
Avatar: শঙ্খ

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

এই বইটা কি গুরুতে যতটা বেরিয়েছিল ঠিক ততটাই? নাকি পরে দ দি আরো লিখেছে বই এর জন্যে?
Avatar: r2h

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

না, পরিবর্ধিত পরিমার্জিত সম্পাদিত ইত্যাদি।
Avatar: শঙ্খ

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

ওকে, থেঙ্কু। 👍
Avatar: র২হ

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

আজ বই চলে এসেছে স্টলে।
Avatar: কুশান গুপ্ত

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

আমার তিন কপি মিনিমাম লাগবে। আগের দিন গিয়ে আসেনি বলে পাইনি। পরের দিন গিয়েও হয়ত শুনব দেরিতে গেলাম বলে পাইনি।

বই ব্যাপারটার ও এরকম একটা বৈবাহিক বা বই-বাহিক লগ্ন মার্কা ব্যাপার আছে।

জানিনা নেক্সট কবে যেতে পারব।

তাই শক্তির 'যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো' গাতাচ্ছি। যদিও বইমেলা ও তৎসহ ২৯৩ স্টল ডাকছে 'আয়, আয়, যায়'
Avatar: কুশান গুপ্ত

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

Avatar:  pi

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

আরে এটা আমি!
Avatar: b

Re: সিজনস অব বিট্রেয়াল: দময়ন্তী

গু চ থেকে কে সি নাগ বেরোচ্ছে নাকি?


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন