সুকান্ত ঘোষ RSS feed

কম জেনে লেখা যায়, কম বুঝেও!

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ধর্ষকের মৃত্যুদন্ড দিলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে ?
    যেকোন নারকীয় ধর্ষণের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়ে সামনে আসার পর নাগরিক হিসাবে আমাদের একটা ঈমানি দায়িত্ব থাকে। দায়িত্বটা হল অভিযুক্ত ধর্ষকের কঠোরতম শাস্তির দাবি করা। কঠোরতম শাস্তি বলতে কারোর কাছে মৃত্যুদন্ড। কেউ একটু এগিয়ে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়ার ...
  • তোমার পূজার ছলে
    বাঙালি মধ্যবিত্তের মার্জিত ও পরিশীলিত হাবভাব দেখতে বেশ লাগে। অপসংস্কৃতি নিয়ে বাঙালি চিরকাল ওয়াকিবহাল ছিল। আজও আছে। বেশ লাগে। কিন্তু, বুকে হাত দিয়ে বলুন, আপনার প্রবল ক্ষোভ ও অপমানে আপনার কি খুব পরিশীলিত, গঙ্গাজলে ধোওয়া আদ্যন্ত সাত্ত্বিক শব্দ মনে পড়ে? না ...
  • The Irishman
    দা আইরিশম্যান। সিনেমা প্রেমীদের জন্য মার্টিন স্করসিসের নতুন বিস্ময়। ট্যাক্সি ড্রাইভার, গুডফেলাস, ক্যাসিনো, গ্যাংস অব নিউইয়র্ক, দা অ্যাভিয়েটর, দ্য ডিপার্টেড, শাটার আইল্যান্ড, দ্য উল্ফ অব ওয়াল স্ট্রিট, সাইলেন্টের পরের জায়গা দা আইরিশম্যান। বর্তমান সময়ের ...
  • তোকে আমরা কী দিইনি?
    পূর্ণেন্দু পত্রী মশাই মার্জনা করবেন -********তোকে আমরা কী দিইনি নরেন?আগুন জ্বালিয়ে হোলি খেলবি বলে আমরা তোকে দিয়েছি এক ট্রেন ভর্তি করসেবক। দেদার মুসলমান মারবি বলে তুলে দিয়েছি পুরো গুজরাট। তোর রাজধর্ম পালন করতে ইচ্ছে করে বলে পাঠিয়ে দিয়েছি স্বয়ং আদবানীজীকে, ...
  • ইশকুল ও আর্কাদি গাইদার
    "জাহাজ আসে, বলে, ধন্যি খোকা !বিমান আসে, বলে, ধন্যি খোকা !এঞ্জিনও যায়, ধন্যি তোরে খোকা !আসে তরুণ পাইওনিয়র,সেলাম তোরে খোকা !"আরজামাস বলে একটা শহর ছিল। ছোট্ট শহর, অনেক দূরের, অন্য মহাদেশে। অনেক ছোটবেলায় চিনে ফেলেছিলাম। ভৌগোলিক দূরত্ব টের পাইনি।টের পেতে দেননি ...
  • ছন্দহীন কবিতা
    একদিন দুঃসাহসের পাখায় ভর করে,ছুঁতে চেয়েছিলাম কবিতার শরীর ।দ্বিখন্ডিত বাংলার মত কবিতা হয়ে উঠলোছন্দহীন ।অর্থহীন যাত্রার “কা কা” চিৎকারে,ছুটে এলোপ্রতিবাদী পাঠক।ছন্দভঙ্গের নায়কডানা ভেঙ্গে পড়িপুঁথি পুস্তকের এক দোকানে।আলোক প্রাপ্তির প্রত্যাশায়,যোগ ধ্যানে কেটে ...
  • হ্যালোউইনের ভূত
    হ্যালোউইন চলে গেল। আমাদের বাড়িতে হ্যালোউইনের রীতি হল মেয়েরা বন্ধুদের সঙ্গে ট্রিক-অর-ট্রিট করতে বেরোয় দল বেঁধে। পেছনে পেছনে চলে মায়েদের দল। আর আমি বাড়িতে থাকি ক্যান্ডি বিতরণ করব বলে। মুহূর্মুহূ কলিং বেল বাজে, আমি হাসি-হাসি মুখে ক্যান্ডির গামলা নিয়ে দরজা ...
  • হয়নি
    তুমি ভালবাসতে চেয়েছিলে।আমিও ।হয়নি।তুমিঅনেক দূর অব্দি চলে এসেছিলে।আমিও ।হয়নি আর পথ চলা।তুমি ফিরে গেলে,জানালে,ভালবাসতে চেয়েছিলেহয়নি। আমি জানলামচেয়ে পাইনি।হয়নি।জলভেজা চোখে ভেসে গেলআমাদের অতীত।স্মিত হেসে সামনে এসে দাঁড়ালোপথদুজনার দু টি পথ।সেপ্টেম্বর ২২, ...
  • তিরাশির শীত
    ১৯৮৩ র শীতে লয়েডের ওয়েস্টইন্ডিজ ভারতে সফর করতে এলো। সেই সময়কার আমাদের মফস্বলের সেই শীতঋতু, তাজা খেজুর রস ও রকমারি টোপা কুলে আয়োজিত, রঙিন কমলালেবু-সুরভিত, কিছু অন্যরকম ছিলো। এত শীত, এত শীত সেই অধুনাবিস্মৃত কালে, কুয়াশাআচ্ছন্ন পুকুরের লেগে থাকা হিমে মাছ ...
  • ‘দাদাগিরি’-র ভূত এবং ভূতের দাদাগিরি
    রণে, বনে, জলে, জঙ্গলে, শ্যাওড়া গাছের মাথায়, পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে, ছাপাখানায় এবং সুখী গৃহকোণে প্রায়শই ভূত দেখা যায়, সে নিয়ে কোনও পাষণ্ড কোনওদিনই সন্দেহ প্রকাশ করেনি । কিন্তু তাই বলে দুরদর্শনে, প্রশ্নোত্তর প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠানেও ? আজ্ঞে হ্যাঁ, দাদা ভরসা ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এয়ারপোর্টে

সুকান্ত ঘোষ


১।

আর একটু পর উড়ে যাব
ভয় করে
কথা ছিল কফি খাব
ফেরার গল্প নিয়ে
কত সহজেই না-ফিরে
ফুল হয়ে থাকা যায়
যারা ফেরে নি উড়ার শেষে
তাদের পাশ দিয়ে যাই
ভয় আসে
কথা আছে কফি নেব
দুজন টেবিলে
ফেরার পর

২।

সময় কাটানো যায়
শুধু তাকিয়ে থেকে
তোমার না বলা কথা
ওরা বলে দেয়
তোমার না ছুঁতে পারা
ওরা ছুঁয়ে দেয়
তোমারই রোমাঞ্চ
ওরা ভোগ করে
এভাবেই সময় কাটানো ভালো
দু-চার ঘন্টা
যতক্ষণ ডাক না আসে

৩।

সারি সারি মনোহর
পসার আর পসারিণী
কালো পোষাক কেন তোমাদের?
নিয়মিত দাঁড়ানো বড় কষ্টের
তাই বুঝি মধুর হেসে
শোক জানাও!

৪।

এইখান বড় দামী
কেউ ভাবে আর কতখানি পর
সুলভ হতে পারে পিপাসা
এই খানেই কেউ তরল কেনে
নানা প্রয়োজনে

৫।

হাত নাড়া শেষ হলে
কাঁচের ওধারে চলে যায় প্রিয়জন
শোনা ফুরায় চেনা কিছু কথার
আবার দেখা হবে
আবার চেনা কিছু কথা
মাঝের সময়টাই যা অচেনা
আর একেলার
নাকি স্বস্তির?

৬।

সুন্দর নারী চায় সুন্দরতর ত্বক
হাসি, ঠোঁট, বাঁকানো ধনুক
নিদারুণ ব্যস্ততা মাঝে
কে কার চোখে?
সাজতে ভালোবাসে প্রকৃতি
নিজেকে সাজাতে
তারই এক মুহুর্তে
হে মনোহর
এ জীবন

৭।

কতদিন লাগে ভুলে যেতে
খুব চেনা কিছু
খুব চেনা ছোঁয়া
হীনমন্যতা জাগিয়ে তোলা সৌন্দর্য্য?
ওর আশেপাশে যারা আছে
আমি তাদের কারোর মতই নই
নিজেকে জরিপ করি
প্রতি জরিপে অনেকটা সময় যায়
ভুলে যাই
খুব চেনা কিছু
সব জরিপের শেষেই
সৌন্দর্য্যের হীনমন্যতায়
ম্লান হয়ে আসে খুব চেনা ছোঁয়া

৮।

আবস্থান নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগলে
পর্যবেক্ষণ খুব কাজে লাগে
কিছু পুরুষ টয়লেটে অনেক সময় নেয়
কিছু নারীও।
ওরা উভয়েই চুল ঠিক করে বেরোয়
আবশ্যিক সময় শেষে -
একে অপরের জন্যই
ঐচ্ছিক সময় ব্যয় করে।
কেউ কেউ একেই
নিজস্ব সময় ভাবতে ভালোবাসে

৯।

এখানে শব্দ মিলিয়ে যায় না
আমি এক মনে পৃথক করি
চলে যাওয়া – ফিরে আসা
ইতস্ততঃ অনুরোধ
আবার উদাসী বসে থাকাও –
এখানে শব্দ অনুররণ তৈরী করে
আর অনুররণ সম্মোহন।

১০।

তারা একই পোষাক পরে হেঁটে যায়
সবার গালের রঙ গোলাপী
তারা নতুন মানুষ দ্যাখে কত
মানুষের কত ফরমাশ
আমি ঘরোয়া দেখে ফেলি
আচম্বিতে
তার গালের টোল
সে এক পৃথক জনা
যদিও একই পোষাকে হেঁটে যায়।

১১।

রঙীন মানুষ দেখি আমি
দেখি আনন্দের রঙ
আমি তো নিরালা চেয়ে
এই ব্যস্ততা পেরোই
তারা কোলাহল ছুঁতে চায়
একাকীত্বের শেষে
উভয়েরই থাকে অপেক্ষা
আর সঞ্চিত কিছু অভিমান -
মানুষ শুনি আমি
শুনি বিষাদের গান।

১২।

মেয়েটি কথা বলে
ছেলেটি শোনে
মেয়েটি কথা বলে চলে
ছেলেটি তাকিয়ে থাকে নিবিষ্ট
মেয়েটি প্রশ্ন করে
ছেলেটি চুপ করে শোনে
মেয়েটি কথার ঝাঁপি খুলে বসে
ছেলেটি ঘোষণার অপেক্ষা করে
মেয়েটিকে ইশারা দিয়ে
এগিয়ে যায়
মেয়েটি অনুসরণ করে।
এইভাবেই অকষ্মাত
মহাপুরুষদের সাথে দেখা হয়ে যায়।


478 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: এয়ারপোর্টে

কবিতার আকাশ জুড়ে যেন বিশালায়তন ধাতব পাখি। ব্রেভো, কবি! 🌷
Avatar: Du

Re: এয়ারপোর্টে

বাহ! ভালো লাগলো।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন