ন্যাড়া RSS feed
বাচালের স্বগতোক্তি

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দক্ষিণের কড়চা
    গরু বাগদির মর্মরহস্য➡️মাঝে কেবল একটি একক বাঁশের সাঁকো। তার দোসর আরেকটি ধরার বাঁশ লম্বালম্বি। সাঁকোর নিচে অতিদূর জ্বরের মতো পাতলা একটি খাল নিজের গায়ে কচুরিপানার চাদর জড়িয়ে রুগ্ন বহুকাল। খালটি জলনিকাশির। ঘোর বর্ষায় ফুলে ফেঁপে ওঠে পচা লাশের মতো। যেহেতু এই ...
  • বাংলায় এনআরসি ?
    বাংলায় শেষমেস এনআরসি হবে, না হবে না, জানি না। তবে গ্রামের সাধারণ নিরক্ষর মানুষের মনে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে। আজ ব্লক অফিসে গেছিলাম। দেখে তাজ্জব! এত এত মানু্ষের রেশন কার্ডে ভুল! কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানলাম প্রায় সবার ভোটারেও ভুল। সব আইকার্ড নির্ভুল আছে এমন ...
  • যান্ত্রিক বিপিন
    (১)বিপিন বাবু সোদপুর থেকে ডি এন ৪৬ ধরবেন। প্রতিদিন’ই ধরেন। গত তিন-চার বছর ধরে এটাই বিপিন’বাবুর অফিস যাওয়ার রুট। হিতাচি এসি কোম্পানীর সিনিয়র টেকনিশিয়ন, বয়েস আটান্ন। এত বেশী বয়েসে বাড়ি বাড়ি ঘুরে এসি সার্ভিসিং করা, ইন্সটল করা একটু চাপ।ভুল বললাম, অনেকটাই চাপ। ...
  • কাইট রানার ও তার বাপের গল্প
    গত তিন বছর ধরে ছেলের খুব ঘুড়ি ওড়ানোর শখ। গত দুবার আমাকে দিয়ে ঘুড়ি লাটাই কিনিয়েছে কিন্তু ওড়াতে পারেনা - কায়দা করার আগেই ঘুড়ি ছিঁড়ে যায়। গত বছর আমাকে নিয়ে ছাদে গেছিল কিন্তু এই ব্যপারে আমিও তথৈবচ - ছোটবেলায় মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘুড়ি ওড়ানো "বদ ছেলে" দের ...
  • কুচু-মনা উপাখ্যান
    ১৯৮৩ সনের মাঝামাঝি অকস্মাৎ আমাদের বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ(ক) শ্রেণী দুই দলে বিভক্ত হইয়া গেল।এতদিন ক্লাসে নিরঙ্কুশ তথা একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করিয়া ছিল কুচু। কুচুর ভাল নাম কচ কুমার অধিকারী। সে ক্লাসে স্বীয় মহিমায় প্রভূত জনপ্রিয়তা অর্জন করিয়াছিল। একটি গান অবিকল ...
  • 'আইনি পথে' অর্জিত অধিকার হরণ
    ফ্যাসিস্ট শাসন কায়েম ও কর্পোরেট পুঁজির স্বার্থে, দীর্ঘসংগ্রামে অর্জিত অধিকার সমূহকে মোদী সরকার হরণ করছে— আলোচনা করলেন রতন গায়েন। দেশে নয়া উদারবাদী অর্থনীতি লাগু হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণপন্থার সুদিন সূচিত হয়েছে। তথাপি ১৯৯০-২০১৪-র মধ্যবর্তী সময়ে ...
  • সম্পাদকীয়-- অর্থনৈতিক সংকটের স্বরূপ
    মোদীর সিংহগর্জন আর অর্থনৈতিক সংকটের তীব্রতাকে চাপা দিয়ে রাখতে পারছে না। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে ভারতের অর্থনীতি সংকটের সম্মুখীন হয়েছে। সংকট কতটা গভীর সেটা তার স্বীকারোক্তিতে ধরা পড়েনি। ধরা পড়েনি এই নির্মম ...
  • কাশ্মীরি পন্ডিত বিতাড়নঃ মিথ, ইতিহাস ও রাজনীতি
    কাশ্মীরে ডোগরা রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হবার পর তাদের আত্মীয় পরিজনেরা কাশ্মীর উপত্যকায় বসতি শুরু করে। কাশ্মীরি ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ছিলেন। এরা শিক্ষিত উচ্চ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেনি। দেশভাগের পরেও এদের ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজে পড়াশোনা করেছে। অন্যদিকে ...
  • নিকানো উঠোনে ঝরে রোদ
    "তেরশত নদী শুধায় আমাকে, কোথা থেকে তুমি এলে ?আমি তো এসেছি চর্যাপদের অক্ষরগুলো থেকে ..."সেই অক্ষরগুলোকে ধরার আরেকটা অক্ষম চেষ্টা, আমার নতুন লেখায় ... এক বন্ধু অনেকদিন আগে বলেছিলো, 'আঙ্গুলের গভীর বন্দর থেকে যে নৌকোগুলো ছাড়ে সেগুলো ঠিক-ই গন্তব্যে পৌঁছে যায়' ...
  • খানাকুল - ২
    [এর আগে - https://www.guruchan...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

রবি ঘোষ

ন্যাড়া

কৈফিয়তঃ জন্মদিন-মৃত্যুদিনে লেখা নাবানো ফেসবুকাব্দের একটি অসুখ বিশেষ। এটি সেই অসুখের সিম্পটম। একমাত্রা সেভিং গ্রেস, লেখাটি অগাস্ট মাসের।

বাংলা ছবি আর কিছু না হোক চরিত্রাভিনেতাদের নিয়ে জগতসভায় গিয়ে শ্রেষ্ঠ আসনের জন্যে কম্পিটিশনে নাবতে পারে। চরিত্রাভিনেতারাই ছবির বুনিয়াদ, যার ওপর মূল অভিনেতারা নিজেদের অভিনয়ের ইমারত তৈরি করেন। সে ইমারত হর্ম্য হবে না প্রাসাদ হবে না কুটীর হবে তা স্থির হত মূল অভিনেতার অভিনয়ের জোরে। কিন্তু সে ইমারত কতটা টেঁকসই হবে তা নির্ভর করে ইমারতের ভিতের জোরের ওপর - অর্থাৎ চরিত্রাভিনেতাদের অভিনয়ের জোরের ওপর। এইবার ভেবে দেখুন বাংলা সিনেমা চরিত্রাভিনেতা, ওরফে পার্শ্বচরিত্র হিসেবে, কী সব অভিনেতাদের পেয়েছে। নাম করব? ছবি বিশ্বাস, ছায়া দেবী, উৎপল দত্ত, রবি ঘোষ থেকে শুরু করে আজকের খরাজ মুখোপাধ্যায়।

রবি ঘোষকে সত্যজিৎ-সহ নাট্যামোদি দর্শক দেখেছিলেন উৎপল দত্তর দলের নাটকে একটা ছোট চরিত্রে। সেই চরিত্র থেকে 'অভিযান' ছবিতে রবি ঘোষের উত্তরণ। উত্তরণ বলে উত্তরণ! উল্কাপ্রায়। তারপর তো ইতিহাস। সৌমিত্র যদি সত্যজিতের গাড়ির ইঞ্জিন হন, রবি ঘোষকে সত্যজিতের গাড়ির আত্মা বলতে পারি। ছবির নায়ক সবসময়ে পরিচালকের কথা বলতে পারে না। অভিযানের রবি ঘোষ, অরণ্যের দিনরাত্রির রবি ঘোষ বকলমে পরিচালকের কথা বলে গেছেন। অথচ কত আলাদা তাদের চরিত্রায়ণ। এর সঙ্গে ভাবুন মহাপুরুষের রবি ঘোষ। ভাবুন জন-আরণ্যর রবি ঘোষ। বাঘা হিসেবে রবি ঘোষকে তো ছেড়েই দিলাম।

রবি ঘোষ নিজে উৎপল দত্তর দল "পিপলস লিটিল থিয়েটার"-এ দীর্ঘদিন টিঁকে না থাকতে পারলেও চিরকাল উৎপল দত্তকে অভিনয়ের গুরু হিসেবে মেনে এসেছেন। অত্যন্ত ব্যতিক্রমী 'ঠগিনী' ছবিতে উৎপলের চ্যালার চরিত্রে রবি ঘোষের চরিত্রের আন্ডার-অ্যাক্টিংটি বাংলা ছবির ইতিহাসে অনুকরণযোগ্য হয়ে থাকার কথা। ঠিক যেমন থাকার কথা জন-আরণ্য ছবিতে নটবর মিত্রর চরিত্রের অভিনয়।

অথচ রবি ঘোষের পরিচয় বাংলা ছবিতে কমেডিয়ান হিসেবে। এ যে কত বড় অপমানজনক তকমা, সে যে কোন অভিনেতা-মাত্রই বুঝবেন। এই বাক্যটা একটু বুঝিয়ে বলা দরকার। কমেডিয়ান-মাত্রই চরিত্রাভিনেতা। কিন্তু চরিত্রভিনেতা শুধু কমেডিয়ান নন। কমেডি চরিত্রাভিনয়ের একটা সাবসেট মাত্র। সুতরাং একজন অভিনেতাকে কমেডিয়ান তকমা দেওয়া মানে তাঁর অভিনয়ের বাকি অনেকগুলো দিককে চাপা দিয়ে দেওয়া হল। বাংলা ছবির সৌভাগ্য যে অসম্ভব প্রতিভাবান সব চরিত্রাভিনেতা বাংলা ছবিতে কমেডিয়ানের ভূমিকায় অভিনয় করতে বাধ্য হয়েছিলেন - তুলসী চক্রবর্তী, ভানু বন্দোপাধ্যায়, জহর রায় থেকে রবি ঘোষ, অনুপকুমার। অনুপকুমারের অন্যকে মেরে নিজের প্রতি দৃষ্টি-আকর্ষণের বদভ্যেস থাকলেও, এ ব্যাপারে রবি ঘোষের পরিমিতিবোধের দিকে নজর দিতেই হয়। রবি ঘোষ যদি উৎপল দত্তর হাতে তৈরি হল, অনুপকুমার তৈরি হয়েছিলে বড়বাবু শিশির ভাদুড়ির হাতে। অনুপকুমারের পিতৃদেব ধীরেন্দ্রনাথ দাসও নেহাত হেলাফেলার শিল্পী ছিলেন না।

রবি ঘোষের এই পরিমিতিবোধই অন্য শিল্পীদের থেকে তাঁকে বিশিষ্ট করে তুলেছিল। অভিজানের রামা নরসিঙের সাইডকিক। আবার মহাপুরুষে রবি ঘোষের চরিত্রটিও চারুপ্রকাশ ঘোষের মহাপুরুষের সাইডকিক। অথচ কত ভিন্ন তাদের চরিত্রায়ণ! মহাপুরুষে রবি ঘোষের বরাদ্দ ডায়লগই বা কটি! শুধুমাত্রা বডি ল্যাঙ্গুয়েজ আর মুখের মাসল দিয়ে অভিনয় করে গেলেন সারাটা ছবি। কখনই ছাড়িয়ে যেতে যেতে চাননি মূল চরিত্রকে।

একই রকম ভাবে ভাবুন 'বসন্ত বিলাপ' ছবিতে বাঙাল ও সিরিয়াস অধ্যাপক প্রেমিকের চরিত্রটি। কত আলাদা অথচ কত প্রাণবন্ত। আদ্যন্ত কমার্শিয়াল ছবি, যেমন ঘটকালি বা সুবর্ণ-গোলক ছবিতে রবি ঘোষের চরিত্রগুলো সবই একইরকম। অতি ধুরন্ধর অভিনেতার হাতেও এগুলো একই ছাঁচে পড়ে যাবার ভয় থাকে। অথচ এই চরিত্রই যখন রবি ঘোষের হাতে পড়ছে, এগুলি থেকে ভিন্ন সৌরভ বের করছেন এই অসামান্য অভিনেতা। চরিত্রাভিনেতার এই হল হলমার্ক।

লং লিভ রবি ঘোষ।

836 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: শঙ্খ

Re: রবি ঘোষ

অতি অল্প হইল।
Avatar: ~

Re: রবি ঘোষ

এভাবে হবে না। টক আপডেট করতে হবে বা <VLOG> করতে হবে। এই কটা কথা বলার জন্য এত সময় নিয়ে লেখালেখি, বা লেখালেখির সময়ের অভাবে এই কটা মাত্র কথা বলে কেটে পড়া মেনে নেওয়া হচ্ছে না --
Avatar: কুশান গুপ্ত

Re: রবি ঘোষ

আলোচনাটি ভাল।

তবে, সত্যজিৎকৃত 'জন অরণ্য'-তে নটবর মিত্রর রোলটি একটি দুরূহ ভিন্ন ধারার অভিনয়, যা রবি ঘোষের আশ্চর্য অভিনয় ক্ষমতার সাক্ষ্য দেয়।
আলোচক হয়ত একমত হবেন।
Avatar: অনামী

Re: রবি ঘোষ

জন অরণ্য ছবিতেও অভিনয়ের ধারাটি কমেডিকই বলা চলে।ডার্ক হিউমার।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন