একক RSS feed
ঋণাত্মক শুন্যতায় ডুবে যেতে, যেতে যেতে যেতে, হুলো বেড়ালের মত ফ্যাঁস করে জেগে ওঠে আলো

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • থিম পুজো
    অনেকদিন পরে পুরনো পাড়ায় গেছিলাম। মাঝে মাঝে যাই। পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হয়, আড্ডা হয়। বন্ধুদের মা-বাবা-পরিবারের সঙ্গে কথা হয়। ভাল লাগে। বেশ রিজুভিনেটিং। এবার অনেকদিন পরে গেলাম। এবার গিয়ে শুনলাম তপেস নাকি ব্যবসা করে ফুলে ফেঁপে উঠেছে। একটু পরে তপেসও এল ...
  • কাঁসাইয়ের সুতি খেলা
    সেকালে কাঁসাই নদীতে 'সুতি' নামের একটা খেলা প্রচলিত ছিল। মাছ ধরার অভিনব এক পদ্ধতি, বহু কাল ধরে যা চলে আসছে। আমাদের পাড়ার একাধিক লোক সুতি খেলাতে অংশ নিত। এই মৎস্যশিকার সার্বজনীন, হিন্দু ও মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ে জনপ্রিয়। মনে আছে ক্লাস সেভেনে পড়ার সময় একদিন ...
  • শুভ বিজয়া
    আমার যে ঠাকুর-দেবতায় খুব একটা বিশ্বাস আছে, এমন নয়। শাশ্বত অবিনশ্বর আত্মাতেও নয়। এদিকে, আমার এই জীবন, এই বেঁচে থাকা, সবকিছু নিছকই জৈবরাসায়নিক ক্রিয়া, এমনটা সবসময় বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করে না - জীবনের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য-পরিণ...
  • আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার চাই...
    দেশের সবচেয়ে মেধাবীরা বুয়েটে পড়ার সুযোগ পায়। দেশের সবচেয়ে ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিঃসন্দেহে বুয়েট। সেই প্রতিষ্ঠানের একজন ছাত্রকে শিবির সন্দেহে পিটিয়ে মেরে ফেলল কিছু বরাহ নন্দন! কাওকে পিটিয়ে মেরে ফেলা কি খুব সহজ কাজ? কতটুকু জোরে মারতে হয়? একজন মানুষ পারে ...
  • ইন্দুবালা ভাতের হোটেল-৭
    চন্দ্রপুলিধনঞ্জয় বাজার থেকে এনেছে গোটা দশেক নারকেল। কিলোটাক খোয়া ক্ষীর। চিনি। ছোট এলাচ আনতে ভুলে গেছে। যত বয়েস বাড়ছে ধনঞ্জয়ের ভুল হচ্ছে ততো। এই নিয়ে সকালে ইন্দুবালার সাথে কথা কাটাকাটি হয়েছে। ছোট খাটো ঝগড়াও। পুজো এলেই ইন্দুবালার মন ভালো থাকে না। কেমন যেন ...
  • গুমনামিজোচ্চরফেরেব্বাজ
    #গুমনামিজোচ্চরফেরেব্...
  • হাসিমারার হাটে
    অনেকদিন আগে একবার দিন সাতেকের জন্যে ভূটান বেড়াতে যাব ঠিক করেছিলাম। কলেজ থেকে বেরিয়ে তদ্দিনে বছরখানেক চাকরি করা হয়ে গেছে। পুজোর সপ্তমীর দিন আমি, অভিজিৎ আর শুভায়ু দার্জিলিং মেল ধরলাম। শিলিগুড়ি অব্দি ট্রেন, সেখান থেকে বাসে ফুন্টসলিং। ফুন্টসলিঙে এক রাত্তির ...
  • দ্বিষো জহি
    বোধন হয়ে গেছে গতকাল। আজ ষষ্ঠ্যাদি কল্পারম্ভ, সন্ধ্যাবেলায় আমন্ত্রণ ও অধিবাস। তবে আমবাঙালির মতো, আমারও এসব স্পেশিয়ালাইজড শিডিউল নিয়ে মাথা ব্যাথা নেই তেমন - ছেলেবেলা থেকে আমি বুঝি দুগ্গা এসে গেছে, খুব আনন্দ হবে - এটুকুই।তা এখানে সেই আকাশ আজ। গভীর নীল - ...
  • গান্ধিজির স্বরাজ
    আমার চোখে আধুনিক ভারতের যত সমস্যা তার সবকটির মূলেই দায়ী আছে ব্রিটিশ শাসন। উদাহরণ, হাতে গরম এন আর সি নিন, প্রাক ব্রিটিশ ভারতে এরকম কোনও ইস্যুই ভাবা যেতো না। কিম্বা হিন্দু-মুসলমান, জাতিভেদ, আর্থিক বৈষম্য, জনস্ফীতি, গণস্বাস্থ্য ব্যবস্থার অভাব, শিক্ষার অভাব ...
  • সার্ধশতবর্ষে গান্ধী : একটি পুনর্মূল্যায়নের (অপ?) প্রয়াস
    [কথামুখ — প্রথমেই স্বীকার করে নেওয়া ভালো, আমার ইতিহাসের প্রথাগত পাঠ মাধ্যমিক অবধি। তবুও অ্যাকাডেমিক পরিসরের বাইরে নিছকই কৌতূহল থেকে গান্ধী বিষয়ক লেখাপত্তর পড়তে গিয়ে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের এই অবিসংবাদী নেতাটি সম্পর্কে যে ধারণা লাভ করেছি আমি, তা আর ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

অবন্ধু

একক


বই কীকরে বন্ধু হয় বুঝিনা । কোনকালেই অবশ্য ঠিক বই এর পোকা নই । নিজেকে ওভাবে প্রজেক্ট করতেও আলাদা করে কোনো ভালো লাগা বোধ হয়না । শুনি অনেকে বলে বই তাদের শ্রেষ্ট বন্ধু ।যেন কাক সমাজ্বন্ধু । ফেসবুকে শেয়ার করে এরকম লিখে যে : অনলি বুকস ক্যান এক্সেপ্ট ইউ এস ইউ আর । এরকম একজন কে মুসোলিনির বক্তৃতা সংকলন পাঠালুম এক কপি আর সমুদ্র জ্যোতিষ । পত্র না পাঠ করেই ফেরত । কেন ভাই ? তুমি যেমন ঠিক তেমনটি এক্সেপ্টেড হলনা ? বেশি খোঁচাতে ভাল্লাগেনা । বন্ধুসন্খ্যা এমনিতেই তলানি তে। খোঁচাই না । বরং লক্ষন্বিচারে বিশ্বাসী হয়ে উঠি । স্টেটাস মেসেজ দেখে আন্দাজ করি হতভাগা মেন্টালি গেঁজে আছে । সুপার্কুলের মত সুপার লোনলি। কেও তাকে "এস ইস " নিচ্ছেনা । কেও না । কড়িকাঠ বলছে একটু নীচু হয়ে , পুরনো সোয়েটার বলছে এক বছরেই এই , সহপাঠী বলছে কী যে বলিস বুঝিনা , আর ক্রমশ ক্রমশ পরস্পর যোগাযোগ সম্ভাবনা হীন কালো কালো মাথা ডুবে যাচ্ছে আপন পছন্দের বই এ । যে , কোনো পাল্টা প্রশ্ন করবেনা । আর করলে ভাঁজ করে রাখা যাবে । আজকাল তো সাজেশন ও সহনশীলতা বুঝেই ভেসে ওঠে ।


কুকুর কীকরে বন্ধু হয় তাও বুঝিনা অবশ্য । সর্বদা সঙ্গে থাকত বলে আলাদা করে ভেবে দেখার দরকার ও হয়নি । সঙ্গী বুঝি । খাচ্ছি , খাচ্ছে । চল দৌড়ে আসি । অনেক রাত হলো ঘুমো । একদিন খান তিনেক গল্প বলে দেখলুম । একটা গল্প তার মধ্যে কুকুদের প্রতি বেশ অপমানজনক । সেখানে একটা কুকুর কে এক উদ্ভিন্নযুবতী বেড়াল দক্ষিন-পশ্চিম পায়ের লাথি মেরে বৈঠক খানা থেকে বের করে দিচ্ছে । নিরুত্তাপ । বাম হাত চেটে দিলো । এন্জেল অবশ্য যাবার সময় কয়েক ঘটি কেঁদেছিল । সঙ্গী তো ।

যত বয়েস হচ্ছে কেমন যেন ভোরব্যালা উঠছি ।না হওয়া সকাল দিয়ে হেঁটে যেতে বেশ । ছাড়ার আগে একবার তিন্নির সঙ্গে দেখা করতে হবে । ওনলি দেখা । কিছু আজাইরা ফালতু তর্ক করতে পারে বটে ।দুনিয়ার লোক কে আলবাল বলে রেখেছে । বীচ ।

234 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: একক

Re: অবন্ধু

#
Avatar: Tim

Re: অবন্ধু

পড়লাম, ভালো লেগেছে
Avatar: san

Re: অবন্ধু

হুম ।
Avatar: রৌহিন

Re: অবন্ধু

চমৎকার
Avatar: sosen

Re: অবন্ধু

ভলো লাগলো
Avatar: aranya

Re: অবন্ধু

বেশ
Avatar: Robu

Re: অবন্ধু

সহজেই বোঝা গেল ঃ-(


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন