Soumit Deb RSS feed

Soumit Debএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • আমাদের চমৎকার বড়দা প্রসঙ্গে
    ইয়ে, স-অ-অ-অ-ব দেখছে। বড়দা সব দেখছে। বড়দা স্রেফ দেখেনি ওইখানে এক দিন রাম জন্মালেন, তার পর কারা বিদেশ থেকে এসে যেন ভেঙেটেঙে মসজিদ স্থাপন করল, কেন না বড়দা তখন ঘুমোচ্ছিলেন। ঘুম ভাঙল যখন, চোখ কচলেটচলে দেখলেন মস্ত ব্যাপার এ, বড়দা বললেন, ভেঙে ফেলো মসজিদ, জমি ...
  • ধর্ষকের মৃত্যুদন্ড দিলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে ?
    যেকোন নারকীয় ধর্ষণের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়ে সামনে আসার পর নাগরিক হিসাবে আমাদের একটা ঈমানি দায়িত্ব থাকে। দায়িত্বটা হল অভিযুক্ত ধর্ষকের কঠোরতম শাস্তির দাবি করা। কঠোরতম শাস্তি বলতে কারোর কাছে মৃত্যুদন্ড। কেউ একটু এগিয়ে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়ার ...
  • তোমার পূজার ছলে
    বাঙালি মধ্যবিত্তের মার্জিত ও পরিশীলিত হাবভাব দেখতে বেশ লাগে। অপসংস্কৃতি নিয়ে বাঙালি চিরকাল ওয়াকিবহাল ছিল। আজও আছে। বেশ লাগে। কিন্তু, বুকে হাত দিয়ে বলুন, আপনার প্রবল ক্ষোভ ও অপমানে আপনার কি খুব পরিশীলিত, গঙ্গাজলে ধোওয়া আদ্যন্ত সাত্ত্বিক শব্দ মনে পড়ে? না ...
  • The Irishman
    দা আইরিশম্যান। সিনেমা প্রেমীদের জন্য মার্টিন স্করসিসের নতুন বিস্ময়। ট্যাক্সি ড্রাইভার, গুডফেলাস, ক্যাসিনো, গ্যাংস অব নিউইয়র্ক, দা অ্যাভিয়েটর, দ্য ডিপার্টেড, শাটার আইল্যান্ড, দ্য উল্ফ অব ওয়াল স্ট্রিট, সাইলেন্টের পরের জায়গা দা আইরিশম্যান। বর্তমান সময়ের ...
  • তোকে আমরা কী দিইনি?
    পূর্ণেন্দু পত্রী মশাই মার্জনা করবেন -********তোকে আমরা কী দিইনি নরেন?আগুন জ্বালিয়ে হোলি খেলবি বলে আমরা তোকে দিয়েছি এক ট্রেন ভর্তি করসেবক। দেদার মুসলমান মারবি বলে তুলে দিয়েছি পুরো গুজরাট। তোর রাজধর্ম পালন করতে ইচ্ছে করে বলে পাঠিয়ে দিয়েছি স্বয়ং আদবানীজীকে, ...
  • ইশকুল ও আর্কাদি গাইদার
    "জাহাজ আসে, বলে, ধন্যি খোকা !বিমান আসে, বলে, ধন্যি খোকা !এঞ্জিনও যায়, ধন্যি তোরে খোকা !আসে তরুণ পাইওনিয়র,সেলাম তোরে খোকা !"আরজামাস বলে একটা শহর ছিল। ছোট্ট শহর, অনেক দূরের, অন্য মহাদেশে। অনেক ছোটবেলায় চিনে ফেলেছিলাম। ভৌগোলিক দূরত্ব টের পাইনি।টের পেতে দেননি ...
  • ছন্দহীন কবিতা
    একদিন দুঃসাহসের পাখায় ভর করে,ছুঁতে চেয়েছিলাম কবিতার শরীর ।দ্বিখন্ডিত বাংলার মত কবিতা হয়ে উঠলোছন্দহীন ।অর্থহীন যাত্রার “কা কা” চিৎকারে,ছুটে এলোপ্রতিবাদী পাঠক।ছন্দভঙ্গের নায়কডানা ভেঙ্গে পড়িপুঁথি পুস্তকের এক দোকানে।আলোক প্রাপ্তির প্রত্যাশায়,যোগ ধ্যানে কেটে ...
  • হ্যালোউইনের ভূত
    হ্যালোউইন চলে গেল। আমাদের বাড়িতে হ্যালোউইনের রীতি হল মেয়েরা বন্ধুদের সঙ্গে ট্রিক-অর-ট্রিট করতে বেরোয় দল বেঁধে। পেছনে পেছনে চলে মায়েদের দল। আর আমি বাড়িতে থাকি ক্যান্ডি বিতরণ করব বলে। মুহূর্মুহূ কলিং বেল বাজে, আমি হাসি-হাসি মুখে ক্যান্ডির গামলা নিয়ে দরজা ...
  • হয়নি
    তুমি ভালবাসতে চেয়েছিলে।আমিও ।হয়নি।তুমিঅনেক দূর অব্দি চলে এসেছিলে।আমিও ।হয়নি আর পথ চলা।তুমি ফিরে গেলে,জানালে,ভালবাসতে চেয়েছিলেহয়নি। আমি জানলামচেয়ে পাইনি।হয়নি।জলভেজা চোখে ভেসে গেলআমাদের অতীত।স্মিত হেসে সামনে এসে দাঁড়ালোপথদুজনার দু টি পথ।সেপ্টেম্বর ২২, ...
  • তিরাশির শীত
    ১৯৮৩ র শীতে লয়েডের ওয়েস্টইন্ডিজ ভারতে সফর করতে এলো। সেই সময়কার আমাদের মফস্বলের সেই শীতঋতু, তাজা খেজুর রস ও রকমারি টোপা কুলে আয়োজিত, রঙিন কমলালেবু-সুরভিত, কিছু অন্যরকম ছিলো। এত শীত, এত শীত সেই অধুনাবিস্মৃত কালে, কুয়াশাআচ্ছন্ন পুকুরের লেগে থাকা হিমে মাছ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ফ্যাশন টিভি

Soumit Deb



সে এক উত্তাল সময়। আবিষ্কারের সময়। কৈশর পায়ের বুড়ো আঙ্গুলের ওপর দাঁড়িয়ে চেষ্টা চালাচ্ছে যৌবনকে ধরবার, কিন্তু সে তখনও বিভিন্ন যোজনার মত যোজন বছর দূরে। সবাই নাকি দেখেছে, সবাই নাকি জানে “কি করে হয়”। আতিপাতি খোঁজ চলছে। ইলেভেনের দিদিদের কিছুতেই দিদি বলতে মন চাইছে না। নতুন ম্যাডাম ক্লাসে এলে বসন্ত বিলাপ। এরকম এক টালমাটাল মুহুর্তে দেবদূতের মত হাজির সে। বোতাম টিপলেই সমস্ত গোপন স্বপ্ন বিড়াল হাঁটছে তো হাঁটছেই। বাবা মায়েরা চাইল্ড লক করেও আটকাতে পারছেননা অজানা কে আবিষ্কার করবার অদম্য ইচ্ছে। হাতে রিমোট নিয়ে বাড়ির সব চাইতে রিমোট এরিয়াতে চলছে না দেখা পৃথিবী যাপন।

আমরা এক ম্যাড়ম্যাড়ে সময়ে জন্মেছি। বলবার মত কোন উত্তেজনাই পাইনি। না উডস্টক না হাংরি জেনারেশন, কোন বই ব্যান করা নেই। তাই বড়দের ব্যাপারে কৌতুহল ছিলো অপরিসীম। কিন্তু যোগান বলতে সেই টাইটানিকের “ছবি আঁকার সিন টা”-ই ছিলো সম্বল। কিন্তু এ মাধ্যম হয়ে উঠলো একেবারে আপনার,একান্ত আপন রাজধানী। যেখানে কিচ্ছু ঝাপসা নয়। একেবারে চকচকে ঝকঝকে। এই চ্যানেল আমাদের আর কিছু শেখাক না শেখাক একটা জিনিস শিখিয়েছে। উচ্চারন।

যেহেতু মিউট করে দেখতে হয় তাই আমারা জানতাম এর মালিকের নাম মাইকেল আদাম। ক্লাসের সব থেকে ইফরমেটিভ ছেলেটা খোঁজ আনলো “ও হলো মাইকের জ্যাকসনের ভাই”। আমরা কেউ আপত্তি করিনি। কারন এর আগে ও খবর এনেছিলো বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল আসলে একটা “হেব্বি বিসাল” জন্তুর নাম। ওর চামড়া দিয়ে “জারোয়ারা” এক ধরনের পোষাক বানায় যার নাম বারমুডা। সেখান থেকে আমাদের বারমুডার নাম এসেছে। তারপর ও আবার নাসায় ঘুরতে গেছিলো যেটা ক্লাসে সব্বাইকে বলেনি তাই ওর দেওয়া তথ্য নাকচ করবার হিম্মত আমাদের কারোর ছিলোনা।

ওই একদিন এসে বলল – গন্ধ পাচ্ছিস? বাবা কিনে দিয়েছে, “চ্যানেল”(Chanel) এর সেন্ট। তারপর সত্যি বলছি সারাদিন যেন একটা দারুন মিঠে গন্ধ পেলাম। ওর ইজ্জত আরও খানিকটা বেড়ে গেলো। সব্বার মনে একটাই প্রশ্ন “লিঙ্গারী”(Lingerie) টা ঠিক কখন কখন দেখায়? “হিউট কাউন্টার”(Haute Couture) দেখে আরেক বন্ধুর অমর উক্তি “হাইডি কুলুম (Heidi Klum) যেন কেন এসব করে?” এছাড়া “ডলিস আর গাবানা”(Dolce ans Gabbana) “জরেজিয়োহ আমানি”(Giorgio Armani)(কে একজন বলেছলো ওদের “আর” টা উচ্চারন করতে নেই) এসব তো আছেই।

চ্যানেলটা ফাস্ট বেঞ্চ লাস্ট বেঞ্চের ভেদাভেদটা মুছে দিয়েছিলো। যে ছেলেটা জীবনে কোনদিন ইংরিজীতে পাশ করতে পারেনি সেও জানতো “মিডনাইট হট” কখন হয়। তাকে একবার টিচার জিজ্ঞেস করলো – “বল শি ইজ ফলিং মানে কি?” সে বলল “মেয়েটা হলো হেমন্ত”। বেশীরভাগ দিনই কেউ ছলছল চোখে এসে জানান দিত বাবা ধরে ফেলেছে। সঙ্গে সঙ্গে সব্বার একবাক্য প্রশ্ন- “কি চলছিলো?”। কেউ যদি উত্তর দিতো “ক্যালেন্ডার” তার দুঃখে আমরাই ধরে রাখতে পারতাম না চোখের জল।

ভুগোল স্যারের থেকেও ভালো পৃথিবী চিনিয়েছিলো এই চ্যানেল। মিলান, প্যারিস, মায়ামী হয়ে গেছিলো ঘরের উঠোন। “মডেলার”-রা (যারা মডেল হয় তারা মডেলার) যখন কেকের ওপর আগুন জ্বালিয়ে আমোদ করত আমারাও তখন তাদের খুশিতে পাগল হয়ে যেতাম। এক বন্ধু সেই দেখে কালী পূজোর দিন ফুলঝুরী জ্বালিয়ে জমাট বাঁধা খিঁচুড়ির ওপর লাগাতে গিয়ে বেকুব বনে গেলো। সেই ইনফরমেটিভ আবার বলল “ওগুলোর নাম ফুড ফায়ার। পুরোটা জ্বলে গেলে কাঠিটা চুষে চুষে খেতে হয়। ওর বিশাল দাম। পার্ক স্ট্রীটে পাওয়া যায়, আমি খেয়েছি”

দাম তো অবশ্যিই ছিলো। সেই অফুরান বোকামো গুলোর। বোকা বাক্সে আলাদিনের আশ্চর্য হীরেটা পেয়ে যাওয়ার। কেবলওয়ালাকে মারব বলে প্ল্যান করবার (চ্যানেলটা বন্ধ হয়ে গেলো বলে)। তারও দাম এখন অল্প, ফ্যাশন টিভিরও। চ্যানেলটাকে আর এখন কেউ পাত্তা দেয়না, চাইল্ড লক করেনা। ভালো রেঁস্তোরা এখন সপরিবারে উপোভোগ করে ফ্যাব্রিকের কারুকাজ, মুখশ্রির উল্কি। আমরা যৌবন পেয়েছি আর চ্যানেলটা…নাহ তার যৌবন এখনও বেঁচে আছে, আমাদের কৈশরে, আমাদের বড় হওয়ার দিনগুলোতে, “লিঙ্গিরিতে”, “মৌলিন রুগের”(Moulin Rouge) নাচে। দাপটে বেঁচে আছে সে। থাকবেও। আমরন কাল, মিউট হয়ে রাতের অন্ধকারে।



246 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: pi

Re: ফ্যাশন টিভি

আহ। আবার নষ্টলজি।
শাক্যর লেখার সাথে সাথে এইটা ..
Avatar: ঈশান

Re: ফ্যাশন টিভি

আমি অ্যাকচুয়ালি ফ্যাশান টিভি তেমন দেখিনি। ও যদ্দিনে এল তখন আর দেখার মানে হয়না। :-)
Avatar: ranjan roy

Re: ফ্যাশন টিভি

ঈশান,
কি যে বল!
ফ্যাশন টিভি প্রথম দেখার চমক! চল্লিশ পেরিয়েও বেশ ধাক্কা দিয়েছিল। কিছুদিন নেশার মত! শুধু আমার পিতৃতন্ত্র জেগে উঠল।
এ যেন আমার মেয়েরা বা স্ত্রী না দেখে। শুধু আমি দেখব, আমি-- একা একা। কিছুদিন। তারপর ফিকে। তারপর নেগেটিভ হয়ে যাওয়া।
Avatar: Tim

Re: ফ্যাশন টিভি

এইবারে কেউ টিভি সিক্স নিয়ে একখান লিখে দিলেই সিক্সটিন ব্যানানা (পাঃ আঃ) সম্পূর্ণ হয় ঃ-)


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন