শারদ্বত RSS feed

[email protected]
শারদ্বত এর বিবিধ এঁচোড়ে পাকামি...

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • আমাদের চমৎকার বড়দা প্রসঙ্গে
    ইয়ে, স-অ-অ-অ-ব দেখছে। বড়দা সব দেখছে। বড়দা স্রেফ দেখেনি ওইখানে এক দিন রাম জন্মালেন, তার পর কারা বিদেশ থেকে এসে যেন ভেঙেটেঙে মসজিদ স্থাপন করল, কেন না বড়দা তখন ঘুমোচ্ছিলেন। ঘুম ভাঙল যখন, চোখ কচলেটচলে দেখলেন মস্ত ব্যাপার এ, বড়দা বললেন, ভেঙে ফেলো মসজিদ, জমি ...
  • ধর্ষকের মৃত্যুদন্ড দিলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে ?
    যেকোন নারকীয় ধর্ষণের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়ে সামনে আসার পর নাগরিক হিসাবে আমাদের একটা ঈমানি দায়িত্ব থাকে। দায়িত্বটা হল অভিযুক্ত ধর্ষকের কঠোরতম শাস্তির দাবি করা। কঠোরতম শাস্তি বলতে কারোর কাছে মৃত্যুদন্ড। কেউ একটু এগিয়ে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়ার ...
  • তোমার পূজার ছলে
    বাঙালি মধ্যবিত্তের মার্জিত ও পরিশীলিত হাবভাব দেখতে বেশ লাগে। অপসংস্কৃতি নিয়ে বাঙালি চিরকাল ওয়াকিবহাল ছিল। আজও আছে। বেশ লাগে। কিন্তু, বুকে হাত দিয়ে বলুন, আপনার প্রবল ক্ষোভ ও অপমানে আপনার কি খুব পরিশীলিত, গঙ্গাজলে ধোওয়া আদ্যন্ত সাত্ত্বিক শব্দ মনে পড়ে? না ...
  • The Irishman
    দা আইরিশম্যান। সিনেমা প্রেমীদের জন্য মার্টিন স্করসিসের নতুন বিস্ময়। ট্যাক্সি ড্রাইভার, গুডফেলাস, ক্যাসিনো, গ্যাংস অব নিউইয়র্ক, দা অ্যাভিয়েটর, দ্য ডিপার্টেড, শাটার আইল্যান্ড, দ্য উল্ফ অব ওয়াল স্ট্রিট, সাইলেন্টের পরের জায়গা দা আইরিশম্যান। বর্তমান সময়ের ...
  • তোকে আমরা কী দিইনি?
    পূর্ণেন্দু পত্রী মশাই মার্জনা করবেন -********তোকে আমরা কী দিইনি নরেন?আগুন জ্বালিয়ে হোলি খেলবি বলে আমরা তোকে দিয়েছি এক ট্রেন ভর্তি করসেবক। দেদার মুসলমান মারবি বলে তুলে দিয়েছি পুরো গুজরাট। তোর রাজধর্ম পালন করতে ইচ্ছে করে বলে পাঠিয়ে দিয়েছি স্বয়ং আদবানীজীকে, ...
  • ইশকুল ও আর্কাদি গাইদার
    "জাহাজ আসে, বলে, ধন্যি খোকা !বিমান আসে, বলে, ধন্যি খোকা !এঞ্জিনও যায়, ধন্যি তোরে খোকা !আসে তরুণ পাইওনিয়র,সেলাম তোরে খোকা !"আরজামাস বলে একটা শহর ছিল। ছোট্ট শহর, অনেক দূরের, অন্য মহাদেশে। অনেক ছোটবেলায় চিনে ফেলেছিলাম। ভৌগোলিক দূরত্ব টের পাইনি।টের পেতে দেননি ...
  • ছন্দহীন কবিতা
    একদিন দুঃসাহসের পাখায় ভর করে,ছুঁতে চেয়েছিলাম কবিতার শরীর ।দ্বিখন্ডিত বাংলার মত কবিতা হয়ে উঠলোছন্দহীন ।অর্থহীন যাত্রার “কা কা” চিৎকারে,ছুটে এলোপ্রতিবাদী পাঠক।ছন্দভঙ্গের নায়কডানা ভেঙ্গে পড়িপুঁথি পুস্তকের এক দোকানে।আলোক প্রাপ্তির প্রত্যাশায়,যোগ ধ্যানে কেটে ...
  • হ্যালোউইনের ভূত
    হ্যালোউইন চলে গেল। আমাদের বাড়িতে হ্যালোউইনের রীতি হল মেয়েরা বন্ধুদের সঙ্গে ট্রিক-অর-ট্রিট করতে বেরোয় দল বেঁধে। পেছনে পেছনে চলে মায়েদের দল। আর আমি বাড়িতে থাকি ক্যান্ডি বিতরণ করব বলে। মুহূর্মুহূ কলিং বেল বাজে, আমি হাসি-হাসি মুখে ক্যান্ডির গামলা নিয়ে দরজা ...
  • হয়নি
    তুমি ভালবাসতে চেয়েছিলে।আমিও ।হয়নি।তুমিঅনেক দূর অব্দি চলে এসেছিলে।আমিও ।হয়নি আর পথ চলা।তুমি ফিরে গেলে,জানালে,ভালবাসতে চেয়েছিলেহয়নি। আমি জানলামচেয়ে পাইনি।হয়নি।জলভেজা চোখে ভেসে গেলআমাদের অতীত।স্মিত হেসে সামনে এসে দাঁড়ালোপথদুজনার দু টি পথ।সেপ্টেম্বর ২২, ...
  • তিরাশির শীত
    ১৯৮৩ র শীতে লয়েডের ওয়েস্টইন্ডিজ ভারতে সফর করতে এলো। সেই সময়কার আমাদের মফস্বলের সেই শীতঋতু, তাজা খেজুর রস ও রকমারি টোপা কুলে আয়োজিত, রঙিন কমলালেবু-সুরভিত, কিছু অন্যরকম ছিলো। এত শীত, এত শীত সেই অধুনাবিস্মৃত কালে, কুয়াশাআচ্ছন্ন পুকুরের লেগে থাকা হিমে মাছ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

হাম্বা (নাটক)

শারদ্বত

ঋণঃ সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘গোরু রচনা’

চরিত্র
গোষ্ঠঃ নগন্য এক শ্যামলী গাই, চাকরবিশেষ (ধুতি-ফতুয়া-খালি পা)
গোপালঃ শ্যামলী রাষ্ট্রপ্রধান (ধুতি-পাঞ্জাবি-উত্তরীয়)
গোয়েবলসঃ ধবলী বিদেশসচিব (কোট-শার্ট-টাই-জিনস)
জার্সিঃ ধবলী শিল্পপতি (জার্সি-জিনস-মাথায় বেসবল ক্যাপ)

[মাউথ অর্গ্যান বা এসরাজ বা বাঁশিতে ‘আমরা সবাই রাজা’র সুর বাজে]

[মঞ্চের ওপর একটা বড় টেবিল, একদিকে একটি ও অন্যদিকে দু’টি চেয়ার রাখা, গোলটেবিল বৈঠকের ঢঙ এ সাজানো]

(নেপথ্যেঃ গরু দুই প্রকার। শ্যামলী ও ধবলী। শ্যামলীরা উন্নয়নশীল, ধবলীরা উন্নত। শ্যামলীদের দেশ এই গোষ্পদ। সমস্ত ঐতিহ্যশালীদের মত গোষ্পদও দরিদ্র। যাগ‘গো’বল্ক্য, ‘গোতম’ ঋষির দেশ ছিল গোষ্পদ। কিন্তু এখন, গোষ্পদের লেখালিখি- মাস্টারের নোটবই, গোষ্পদের আইন- পুলিশের ধাতানি, গোষ্পদে উড়ালপুল মানেই উন্নয়ন। এ হেন প্র‘গো’তিশীল দেশ গোষ্পদের প্রতিনিধি গোপালের সঙ্গে দেখা করতে আসছেন ধবলীদের দেশের রাজা গোবামার প্রতিনিধিরা।
সাক্ষাৎস্থল- গোষ্পদের শ্রেষ্ঠ খাটাল- ‘গ্র্যান্ড খাটাল’
উদ্দেশ্য ? - সে তো আপনারা এক্ষুনি দেখতে পাবেন।)

(নেপথ্য ভাষণের মাঝামাঝি গোষ্ঠের প্রবেশ, চেয়ার-টেবিল ঠিক করে সাজায়, কাল্পনিক ধুলো ঝাড়ে। নেপথ্য ভাষণ শেষ হলে উইংসের দিকে তাকিয়ে ডাকে)
গোষ্ঠঃ স্যার, স্যার...
(গোপালের হন্তদন্ত প্রবেশ)
গোপালঃ বল গোষ্ঠ, ওঁরা এসে গেছেন ?
গোষ্ঠঃ হ্যাঁ স্যার, রিসেপশনে অপেক্ষা করছিলেন, এখন এদিকেই আসছেন।
গোপালঃ তুমি যাও, ওঁদের নিয়ে এসো, দাঁড়িয়ে থেকো না। ধবলী তো, ঠিকঠাক আপ্যায়ন না করলে আবার গোঁসা করতে পারেন।
(গোষ্ঠের প্রস্থান, জার্সি ও গোয়েবলসকে নিয়ে প্রবেশ, জার্সির হাতে একটা ব্রিফকেস)
গোপালঃ আসুন, আসুন স্যার, কী সৌভাগ্য আমাদের, এই গোষ্পদে আপনাদের ক্ষুরের ধূলি পড়ল।
জার্সিঃ Mice to meet you Mr. Gopal. আমি মিস্টার জার্সি, আর আমার সঙ্গে আছেন, মহান রাজা গোবামার বিদেশসচিব মিস্টার গোয়েবলস।
গোপালঃ আসুন, বসে কথা বলা যাক।
(গোপাল জার্সির সঙ্গে হ্যান্ডশেক করে, গোয়েবলসের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে গেলে গোয়েবলস পকেটে হাত পুরে অন্যদিকে ঘুরে দাঁড়ায়)
গোপালঃ গোষ্ঠ, ওঁদের বসাও।
গোষ্ঠঃ হ্যাঁ স্যার।
(চেয়ার টেনে দু’জনকে বসতে সাহায্য করে, তারপর গোপালের পাশে দাঁড়িয়ে থাকে)
জার্সিঃ আপনারা তো আমাদের আসার উদ্দেশ্য জানেনই...
গোপালঃ তবুও আর একবার যদি খোলসা করে বলেন, কারণ আমাদের গ্র্যান্ড খাটালের বাইরেও তো (দর্শকদের দিকে উদ্দেশ্য করে) আরো অনেক সাধারণ গরু অপেক্ষা করে আছে, তাদের জ্ঞাতার্থে...
গোয়েবলসঃ দেখুন মিস্টার গোপাল, সুদীর্ঘ গোবলয়ের ইতিহাসে আমরা বেশ কয়েকবার ‘গো’ঘাতী-’গো’রক্তক্ষয়ী বিশ্বযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছি, এবং তা থেকেই আমরা এটা অনুধাবন করেছি যে, সাধারণ গরুরা যুদ্ধ চায় না। তারা চায় দু’বেলা দু’আঁটি খড়, শীতকালে চট, আর বর্ষা-বাদলে থাকার জন্য গোয়াল। আর আপনি তো এটা মানবেনই যে, এই খড়, চট আর গোয়াল তৈরিতে আমরা, ধবলীরা এক্সপার্ট।
গোষ্ঠঃ (অবাক হয়ে) এক্সপার্ট ! এটা কে বলেছে ?
গোপালঃ (গোষ্ঠকে থামিয়ে) হ্যাঁ হ্যাঁ, তা তো বটেই।
গোয়েবলসঃ আমাদের মহান রাজা গোবামা তাই মনে করেন, আমাদের কর্তব্য, আমাদের এই যে উন্নত শিক্ষা, সংস্কৃতি, জীবন-যাপন (জার্সি ও গোপাল ঘাড় নাড়ে), তাতে আপনাদের, এই তৃতীয় বিশ্বের গোষ্পদকে তার অঙশীদার করে তোলা।
গোপালঃ (বিগলিত কন্ঠে) বেশ, বেশ। আমিও তো তাইই চাই। কিন্তু, এই উদ্দেশ্যের পদ্ধতিটা কীভাবে রূপায়িত হবে, তা যদি একটু খুলে বলেন...
জার্সিঃ খুব সহজভাবে। যেমন আপনারা এই খড় খান, চট পরেন, কোনো ব্র্যান্ড-বিচার না করেই। কিন্তু দেখুন, এই আমাদের খড়লিক্স (ব্রিফকেস থেকে হরলিক্সের শিশি বার করে) স্বাদে ও স্বাস্থ্যে ভরা। এছাড়াও আছে Free to ‘Hay’s বা ‘Hay’s Chips... তরুণ-তরুণী গরুদের বড্ড পছন্দের।
গোষ্ঠঃ (Horlicks এর উপাদানগুলো দেখতে দেখতে) কিন্তু এগুলো তো তৈরি হয় সেই খড় থেকেই, যা আমরা, এই তৃতীয় বিশ্বের গরুরা যা খেতে খামারে ফলাই !
গোয়েবলসঃ আপনি থামুন তো ! (গোষ্ঠ চুপ করে যায়) এছাড়া ধরুন, এই যে আপনি এই চটের থানটা গায়ে দিয়েছেন, আমাদেরটাও কিন্তু সেই চটেরই তৈরি, কিন্তু Stretchable ! দেখুন, দেখুন, বিখ্যাত গোভাইস ব্র্যান্ডের, কী স্মুদ... তাই না?
গোপালঃ সত্যি ! (হাঁটু মুড়ে বসে গোয়েবলসের পায়ে হাত দিয়ে কাপড়টা পরখ করে) আমার যে বিশ্বাসই হচ্ছে না !
(গোষ্ঠ অবাক হয়ে দেখে, লজ্জায় মাথা হেঁট করে)
জার্সিঃ তাই আমাদের, মানে উন্নত ধবলীদের তরফ থেকে শ্যামপ্লীদের উপহার, এই DDI Bill (ফাইল থেকে কনট্র্যাক্ট পেপার বার করে)
গোপালঃ মানে ?
গোয়েবলসঃ দেখুন, এটা সবাই জানি যে আপনাদের দেশের সাধারণ গরুরা অত্যন্ত নিম্নমানের জীবন-যাপন করে, সেটা বড্ড খারাপ দেখায়। এটা বদলানো দরকার। তাই, এখন থেকে তারা কেবলই খড় আর চট প্রস্তুত করুক, আর আমরা তা ন্যায্যমূল্যে কিনে নিয়ে যাব। তার বদলে আপনারা পাবেন এইসব Free to ‘Hay’s, গোভাইসের মত আরো হাজার হাজার...
জার্সিঃ কী মিস্টার গোপাল, আমাদের উপহার আপনাদের পছন্দ হয়েছে তো?
(গোষ্ঠ কনট্র্যাক্ট পেপারটা সবার অলক্ষ্যে নিয়ে পড়তে শুরু করে, চমকে ওঠে)
গোপালঃ (ধরা গলায়) পছন্দ কী বলছেন স্যার ! আনন্দে চোখে জল এসে যাচ্ছে স্যার !
গোষ্ঠঃ আচ্ছা, এর মানে কি, আমরা আমাদের মত খামারের খড়-চট আর বিক্রি করতে পারব না ? কেবল আপনাদের বসানো নতুন বড় বড় রিটেলার খামার থেকেই সে সব কিনতে হবে, এই তো ?
গোয়েবলসঃ (একান্তে) জার্সি, এই গরুটি কে হে ? বড় প্রশ্ন করে তো !
গোষ্ঠঃ (গোপাল গোষ্ঠকে বাধা দিতে যায়, গোষ্ঠ পাত্তা দেয় না) এবার আপনারা যদি আপনাদের Free to ‘Hay’s, খড়লিক্স, গোভাইসের দাম ক্রমশ বাড়াতে থাকেন, তাহলে তো আমাদের গোষ্পদের সাধারণ গরুরা না খেতে পেয়ে মারা যাবে !
জার্সিঃ মিস্টার গোপাল, এই নব্য গরুটির কথাগুলো কিন্তু কুখ্যাত ইতালিয়ান গরু আন্তোনিও গোমসির মত ঠেকছে ! এ তো ভালো লক্ষ্মণ নয় !
গোয়েবলসঃ (ঈষৎ হুমকির সুরে) দেখুন মিস্টার গোপাল, গোবলয়নের পর এ হল আমাদের এক সার্থক সৎ প্রচেষ্টা। এর মধ্যে দুরভিসন্ধি খুঁজে খুঁজে বার করা মানে তো আপনারা নিজেদেরকে, এই গোষ্পদকে আরো অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন।
জার্সিঃ আর এরপর যদি আপনাদের সঙ্গে ঐ পাশের গোর্কিস্তানের সুঁতোগুঁতি লাগে...
গোয়েবলসঃ জার্সি, জার্সি, আহা, কেন বেলাইনে যাচ্ছো? ওঁরা আমাদের কথা ঠিকই বুঝতে পারছেন। ঠিক কি না ?
জার্সি ও গোপালঃ ঠিক, ঠিক...
গোষ্ঠঃ (গোপালকে, চেঁচিয়ে) স্যার, ভয় পেয়ে আর বিজ্ঞাপনে ভুলে থেকে আর কত দিন কাটবে আমাদের ? এরা যে গরু হয়ে গরুরই মাংস খায়, এরা গোমাংসভোজী, ক্যানিবালের দল !
গোয়েবলসঃ যাদের দিনে দু’বেলা খড় জোটে না, তাদের হাম্বার এত জোর !
গোষ্ঠঃ ভয় পেয়েছেন ? গোবরই যদি মুছবেন, তাহলে ল্যাজ নেই কেন ?
গোয়েবলসঃ আমাদের ল্যাজ নাড়ার প্রয়োজন হয় না, তাই ওটা রাখিনি। তোমাদের ল্যাজ কই?
গোষ্ঠঃ আমাদের ল্যাজ নেড়ে কাজ হয় না, ওটা তাই ইভলিউশনে খসে গেছে। ভয়ে বা টোপে আমরা আর ল্যাজে-গোবরে হই না। আর, ল্যাজ না থাকলে হাম্বার জোর তো বাড়বেই !
গোয়েবলসঃ (প্রচণ্ড রেগে) আপনি কিন্তু এবার সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছেন। মনে রাখবেন, গোষ্পদ একদা ‘স্বর্গাদপি ‘গো’রিয়সী’ ছিল কি না কেউ জানে না, আজ এটা ‘গো’রীবের দেশ।
জার্সিঃ মিস্টার গোপাল, এই রইল আপনার কনট্র্যাক্ট পেপার, আর এই রইল স্ট্যাম্প-প্যাড। হয় খুরের ছাপ দিন, নইলে গো টু হেল !
(কনট্র্যাক্ট পেপার নিয়ে প্রায় কাড়াকাড়ি চলে, একদিকে জার্সি-গোপাল-গোয়েবলস অন্যদিকে গোষ্ঠ)
গোষ্ঠঃ স্যার, স্যার, একবার পুরোটা পড়ে দেখুন স্যার ! কী করতে যাচ্ছেন ?
গোপালঃ সরে যাও !
(সজোরে গোষ্ঠকে ধাক্কা দেয়, গোষ্ঠ মঞ্চের একপ্রান্তে ছিটকে পড়ে ‘falling on back and roll’ step, গোপাল খুরের ছাপ দেয়। গোয়েবলস গোপালের হাত থেকে কনট্র্যাক্ট পেপারটা প্রায় ছোঁ মেরে নিয়ে নেয়)
গোষ্ঠঃ (কোনমতে ওঠার চেষ্টা করে, পারে না, কাতরায়, কাঁদে) এ কী করলেন ! কী করলেন ! আমাদের রাজা তো গোবামা নন... আমাদের রাজা গোবামা নন...
(গোয়েবলস গোষ্ঠের মুখের সামনে কনট্র্যাক্ট পেপারটা নাচায়, মুচকি হাসে)
গোষ্ঠঃ আমাদের রাজা তো আমরাই !!!
(‘আমরাই’ বলার সঙ্গে সঙ্গে এক ঝটকায় কনট্র্যাক্ট পেপার ধরে থাকা গোয়েবলসের হাতটা ধরে, ধাক্কায় কনট্র্যাক্ট পেপার মাটিতে পড়ে যায়, জার্সি ছুটে এসে একসঙ্গে হাতটা ছাড়াতে চেষ্টা করে, পারে না। গোষ্ঠ আস্তে আস্তে পায়ে ভর দিয়ে উঠে একটানে জার্সি আর গোয়েবলসকে মাটিতে শুইয়ে দেয়। গোপাল হাঁ হয়ে দেখে, freeze । গোষ্ঠ মাটি থেকে কনট্র্যাক্ট পেপারটা কুড়িয়ে নিয়ে গান ধরে)

আমরা সবাই গরু আমাদেরই গরুর রাজত্বে
নইলে গো-দের রাজার সনে মিলব কী সত্ত্বে
আমরা সবাই গরু

(পড়ে থাকা দুজনকে ডিঙিয়ে মঞ্চের সামনে আসে গোষ্ঠ, হাতে ধরা কাগজটা কুচি কুচি করে ছিঁড়তে ছিঁড়তে বলে)
গোষ্ঠঃ অবাক লাগছে, তাই না ? তৃতীয় বিশ্বের গরুদের কখনো গলা ছেড়ে গান গাইতে শোনেননি তো, তাই লাগছে। কানে আঙুল দিন মশাইরা, শুনতে অভ্যেস নেই তো, তালা লাগতে পারে, দুনিয়ার সব গরু একসাথে হাঁক ছাড়বে-
হাম্বা হা হা হা হা হা হা
(আকাশে কাগজের কুচিগুলো উড়িয়ে দেয়, দর্শকদের উদ্দেশে জোড়হাত করে)
-হাম্বা।
[নেপথ্যে মাউথ অর্গ্যানে খুব জোরে জোরে ‘আমরা সবাই রাজা’ বাজতে থাকে, বাজতেই থাকে]



বিধিসম্মত সতর্কীকরণ
1. কলেজের সেকেন্ড ইয়ারের দুগ্ধপোষ্য ও দাঁত না ওঠা ছেলের লেখা, তাত্বিক আলোচনায় গেলে নিজেরই বিপদ।
2. দশ মিনিটের নাটক প্রতিযোগিতার জন্য লেখা। এটা নাটক নয়, নাটিকা, না-টিকটিকিও বলা যায়।
3. প্রচুর নির্দেশ দেওয়া আছে, নাটক পাঠে ব্যাঘাত ঘটাতে যা যথেষ্টর চেয়েও বেশি।
4. ২০১১-১২ সালের FDI বিলের অতিসরলীকৃত ব্যাখ্যা দেওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা আছে এতে।
5. মান্য-কলকাত্তাইয়া-সুশীল পাঠকরা পড়ে শেষ করতে পারলে তাঁরা দেবের সিনেমাও দেখে শেষ করতে পারবেন।
6. যে খুশি অভিনয় করতে পারেন, তবে বিনে-পয়সায় নয়। লেখকের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁকে একটি মাঝারি গোল্ড-ফ্লেকের সিলড প্যাকেট দিলে তবেই অভিনয়ের অনুমতি মিলবে, নচেৎ কোর্ট-কাছারি।

309 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: কল্লোল

Re: হাম্বা (নাটক)

চমৎকার হয়েছে। ক্যামোন অ্যানিমেল ফার্মের মতোন। শুধু একটা ইয়ে আছে - তৃতীয় বিশ্বের জায়গায় তৃতীয় গোশালার হলে বোধহয় মানাতো।
Avatar: Debasish Dasgupta

Re: হাম্বা (নাটক)

অভিনয় টভিনয় পরে, আগে আপনাকে একটা গোল্ড ফ্লেক (sealed) দিতে চাই।
Avatar: anag

Re: হাম্বা (নাটক)

কল্লোলদার সঙ্গে সম্পূর্ণ একমত।
Avatar: pi

Re: হাম্বা (নাটক)

উফফ ! অবশেষে এটা পড়তে পাওয়া গেল ! ঃ)

যা-তা !
Avatar: শারদ্বত

Re: হাম্বা (নাটক)

@কল্লোল, @anag, আমি বিশ্বের জায়গায় 'গোলোব', 'গোবলয়' লিখব ভেবেছিলাম। কিন্তু বার বার 'গো' শব্দটার pun এসে এসে লেখাটার সহজ গতিটা আটকে দিচ্ছিল... তাই, তৃতীয় বিশ্বই লিখে দিয়েছিলুম। দর্শক আর পাঠকের তফাৎটাও মাথায় রাখতে হয়েছিল। যেটা পাঠকের ভালো লাগে, সেটা অনেকসময় দর্শকের বুঝতে অসুবিধে হয়... এই আর কী...
Avatar: শারদ্বত

Re: হাম্বা (নাটক)

postimg.org/image/h8wafxnc1/
Avatar: শারদ্বত

Re: হাম্বা (নাটক)

Avatar: শারদ্বত

Re: হাম্বা (নাটক)

হাম্বার ছবি, প্রথমবার মঞ্চস্থ হওয়ার সময়।



আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন