Sayantani Putatunda RSS feed

Sayantani Putatundaএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা... বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপথ পরিবর্তন হওয়ার দিন
    বিএনপি এখন অস্তিত্ব সংকটে আছে। কিন্তু কয়েক বছর আগেও পরিস্থিতি এমন ছিল না। ক্ষমতার তাপে মাথা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল দলটার। ফলাফল ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড মেরে হত্যার চেষ্টা। বিরোধীদলের নেত্রীকে হত্যার চেষ্টা করলেই ...
  • তোমার বাড়ি
    তোমার বাড়ি মেঘের কাছে, তোমার গ্রামে বরফ আজো?আজ, সীমান্তবর্তী শহর, শুধুই বেয়নেটে সাজো।সারাটা দিন বুটের টহল, সারাটা দিন বন্দী ঘরে।সমস্ত রাত দুয়ারগুলি অবিরত ভাঙলো ঝড়ে।জেনেছো আজ, কেউ আসেনি: তোমার জন্য পরিত্রাতা।তোমার নমাজ হয় না আদায়, তোমার চোখে পেলেট ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ২
    বার্সিলোনা আসলে স্পেনের শহর হয়েও স্পেনের না। উত্তর পুর্ব স্পেনের যেখানে বার্সিলোনা, সেই অঞ্চল কে বলা হয় ক্যাটালোনিয়া। স্বাধীনদেশ না হয়েও স্বশাসিত প্রদেশ। যেমন কানাডায় কিউবেক। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মনে হয় এরকম একটা জায়গা থাকে, দেশি হয়েও দেশি না। ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ১
    ঠিক করেছিলাম আট-নয়দিন স্পেন বেড়াতে গেলে, বার্সিলোনাতেই থাকব। বেড়ানোর সময়টুকুর মধ্যে খুব দৌড় ঝাঁপ, এক দিনে একটা শহর দেখে বা একটা গন্তব্যের দেখার জায়গা ফর্দ মিলিয়ে শেষ করে আবার মাল পত্তর নিয়ে পরবর্তী গন্তব্যের দিকে ভোর রাতে রওনা হওয়া, আর এই করে ১০ দিনে ৮ ...
  • লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া
    -'একটা ছিল লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া।আর ছিল একটা নীল ঝুঁটি মামাতুয়া।'-'এরা কারা?' মেয়েটা সঙ্গে সঙ্গে চোখ বড়ো করে অদ্ভুত লোকটাকে জিজ্ঞেস করে।-'আসলে কাকাতুয়া আর মামাতুয়া এক জনই। ওর আসল নাম তুয়া। কাকা-ও তুয়া বলে ডাকে, মামা-ও ডাকে তুয়া।'শুনেই মেয়েটা ফিক করে হেসে ...
  • স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি
    স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি। আমি স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে কাজ করছি ১৯৯৮ সাল থেকে। সিলিকন ভ্যালিতে। সময়ের একটা আন্দাজ দিতে বলি - গুগুল তখনও শুধু সিলিকন ভ্যালির আনাচে-কানাচে, ফেসবুকের নামগন্ধ নেই, ইয়াহুর বয়েস বছর চারেক, অ্যামাজনেরও বেশি দিন হয়নি। ...
  • মৃণাল সেন : এক উপেক্ষিত চলচ্চিত্রকার
    [আজ বের্টোল্ট ব্রেশট-এর মৃত্যুদিন। ভারতীয় চলচ্চিত্রে যিনি সার্থকভাবে প্রয়োগ করেছিলেন ব্রেশটিয় আঙ্গিক, সেই মৃণাল সেনকে নিয়ে একটি সামান্য লেখা।]ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কীভাবে যেন পরিচালক ত্রয়ী সত্যজিৎ-ঋত্বিক-মৃণাল এক বিন্দুতে এসে মিলিত হন। ১৯৫৫-তে মুক্তি ...
  • দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল পড়ে
    পড়লাম সিজনস অব বিট্রেয়াল গুরুচন্ডা৯'র বই দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল। বইটার সঙ্গে যেন তীব্র সমানুভবে জড়িয়ে গেলাম। প্রাককথনে প্রথম বাক্যেই লেখক বলেছেন বাঙাল বাড়ির দ্বিতীয় প্রজন্মের মেয়ে হিসেবে পার্টিশন শব্দটির সঙ্গে পরিচিতি জন্মাবধি। দেশভাগ কেতাবি ...
  • দুটি পাড়া, একটি বাড়ি
    পাশাপাশি দুই পাড়া - ভ-পাড়া আর প-পাড়া। জন্মলগ্ন থেকেই তাদের মধ্যে তুমুল টক্কর। দুই পাড়ার সীমানায় একখানি সাতমহলা বাহারী বাড়ি। তাতে ক-পরিবারের বাস। এরা সম্ভ্রান্ত, উচ্চশিক্ষিত। দুই পাড়ার সাথেই এদের মুখ মিষ্টি, কিন্তু নিজেদের এরা কোনো পাড়ারই অংশ মনে করে না। ...
  • পরিচিতির রাজনীতি: সন্তোষ রাণার কাছে যা শিখেছি
    দিলীপ ঘোষযখন স্কুলের গণ্ডি ছাড়াচ্ছি, সন্তোষ রাণা তখন বেশ শিহরণ জাগানাে নাম। গত ষাটের দশকের শেষার্ধ। সংবাদপত্র, সাময়িক পত্রিকা, রেডিও জুড়ে নকশালবাড়ির আন্দোলনের নানা নাম ছড়িয়ে পড়ছে আমাদের মধ্যে। বুঝি না বুঝি, পকেটে রেড বুক নিয়ে ঘােরাঘুরি ফ্যাশন হয়ে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

Sayantani Putatunda

অত্যন্ত ভয়ে ভয়ে ‘কাদম্বরী’ দেখিলাম। একা দেখি নাই অবিশ্যি। সঙ্গে পাড়ার হুলো মস্তানটিকে লইয়া গিয়াছিলাম। কেন? লোকমুখে শুনিয়াছি উহার নাকি একটি ‘আনলাইসেন্সড রিভলবার’ আছে। একেই ‘বম্বকেস’ বাবুর বম্ব খাইয়া হিরোশিমা-নাগাসাকির মত ‘থ’ কেস খাইয়া বসিয়াছি। তাহার পর ‘কাদম্বরী’র সাইড এফেক্টে কী হইবে কে জানে। গঙ্গা যদি কোলে তুলিয়া না লন্‌, তবে হুলোর রিভলবারই সই! ‘মরিব মরিব সখী, নিশ্চয়ই মরিব-ও-ও-ও-ও...!’
ইয়ে, মানে সব ফিলিমকে খারাপ বলিলে লোকে আমাকে নিন্দুক বলিবে। তাই ‘কাদম্বরী’কে খারাপ বলিব না! ভালোই হইয়াছে। বেশ হইয়াছে। যেমনই হইয়াছে প্রশংসা করিয়াই ছাড়িব।
পরন্তু একখানাই সমস্যা। দেখিবার পর আমার এমন চন্দ্রবদন তো বটেই, এমনকি হুলো মস্তানের খানদানি বদনাখানিও কাদম্বরীর শকে ‘কাঁদো কাঁদো’ হইয়া উঠিয়াছে। আমার দৃঢ় ধারণা, ইহার পর ও বহুদিন ধরিয়া স্যাড সং গাহিবে। এবং আমার এমন সুন্দর, কোমল, চমৎকার, অপূর্ব, ঐশ্বর্য সমতুল (আবে থাম্‌! গলতফ্যায়মিরও একটা সীমা আছে!), আহেম...আহেম... যাহাই হউক, আমার এমন পাতিলের মত মুখখানি বহুদিন অলাবুর মত ঝুলিয়া থাকিবে। এবং যিনিই দেখিবেন, তিনিই প্রশ্ন করিবেন—‘কে গেলেন ভাই?’
হ্যাঁ...হ্যাঁ... ভাঁট না বকিয়া ফিলিমের কথায় আসিতেছি। ফিলিম খারাপ হয় নাই। সত্যি বলিতেছি! শুধু কাদম্বরী দুই শিফ্‌টে মরিলেন। এই কলিকালে মরণও ই এম আই লইতেছে! যাহাই হউক। কঙ্কনা সেন শর্মাকে দেখিয়া মনে হইল পরিচালক উহাকে ‘ইন-অ্যাক্টিভ মোডে’ সেট করিয়াছেন। ভালো ভালো সাজসজ্জা করিয়া ঝমর ঝমর করিতে করিতে ঘুরিয়া বেড়ানো, মাঝেমাঝে ‘ডিপ্রেশনের’ রোগী হওয়া, আবার কথা নাই বার্তা নাই তুড়ুক-তিড়িক করিয়া নাচিয়া কুঁদিয়া বৌদিগিরি করা ছাড়া উহার ললাটে আর কিছুই জুটিল না। ইহার চেয়ে তাহাকে কেবল ‘পতন ও মূর্ছা’র রোল দিলেও তিনি জমাইয়া দিতেন। তবে বিষণ্ণ কঙ্কনাকে ভালো লাগিয়াছে! বিষণ্ণতার কারণটা আমরা সকলেই জানি, শুধু পরিচালক জানেন কি না সন্দ হয়—কারণ কাদম্বরীর দুঃখের বিষয়টি আরও পরিস্ফুট হইলে ভালো লাগিত। মানিতেছি জ্যোতিদাদা দেখিতে অপূর্ব! ভদ্রলোককে শোকেসে সাজাইয়া রাখিলে মন্দ হইত না। কিন্তু গোটা ফিলিমে তিনি যে কী করিলেন, বুঝিতে বুঝিতে প্রাণ গেল! মধ্যে মধ্যে উজবুকের মত এমন হাসি হাসিলেন, যেন ওষ্ঠদুটিকে লইয়া কী করিবেন বুঝিতে পারিতেছেন না! শুধু ওষ্ঠ নয়, ভদ্রলোককে দেখিয়া মনে হইল উহাকে জগন্নাথদেবের রোলটি দিলে সবচেয়ে ভালো হইত। কারণ হাতদুটিকে লইয়া তাহার প্রবল সমস্যা! ঐ দুটিকে কোথায় রাখিবেন বুঝিতে না পারিয়া কথা নাই বার্তা নাই, যখন তখন বেহালায় গুঁতা মারিতে শুরু করিলেন! মনে হইল, বেহালাটির সঙ্গে আমারও প্রাণ যাইতেছে। ওরে দাদা রে! ওটা বেহালা! ঢাল-তরোয়াল কদাপি নয় যে যেমন করিয়া খোঁচা মারিলেই চলিবে! উহার বেহালা-বাদন দেখিয়া কসাইয়ের মুর্গী জবাইয়ের ভঙ্গি মনে পড়িয়া যায়!
তাহার পর বিনোদিনী কান্ড! ভাবিতেছেন তো—আহা, জ্যোতিদাদা অ্যাকশনে নামিয়াছেন! আজ্ঞে না! সুন্দরী বিনোদিনী আসিয়া দাঁড়াইলেন। তবুও কিছুই হইল না! আসলে উহার কিছুতেই কিছু হইবার নয়! তাহার পরিবর্তে একটি ত্রিফলা বাতিকে অভিনয়ে নামাইয়া দিলেও চলিত!
যে ইস্তক ‘আমি রবি ঠাকুরের বৌ’ সিরিয়ালের গোটা কয়েক এপিসোড দেখিয়া বাম্বু খাইয়াছি, সেদিন হইতে ভয়—কাদম্বরী মাত্রেই রঞ্জন-দন্তমঞ্জনের বিজ্ঞাপন না হইয়া যায়! সেই ভয় লইয়াই গুটি গুটি গিয়াছিলাম! দেখিলাম পরিচালক দন্ত-মঞ্জন দিয়া দাঁত মাজিয়াছেন বটে, তবে গিলিয়া ফেলেন নাই এই রক্ষে! সর্বত্র শালীনতা বজায় রাখিয়াছেন। ইহার জন্য অবশ্যই তাহার সাধুবাদ প্রাপ্য। পরমব্রতকে শ্মশ্রু-গুম্ফগুচ্ছে ‘তরুণ রবীন্দ্রনাথ’ বেশ মানাইয়াছে—তবে যতক্ষণ না মুখ খুলিতেছেন, ততক্ষণই ঠিক আছে। মুখ খুলিলেই সাড়ে সর্বনাশ! দৃষ্টিতে সর্বক্ষণই দুষ্টামি নাচিতেছে যা কখনও কখনও বেমানান মনে হইল! তরুণ রবি ঠাকুরের গাম্ভীর্য ও গভীরতার সাড়ে বারোটা বাজাইয়া ফিচেল রবির অবতার লইয়াছেন। তা মন্দ কি? বলিলাম না, যেমন করিয়া হউক—প্রশংসা করিয়াই ছাড়িব!
এই ছবি হইতে আরও একটি শিক্ষণীয় বিষয় আছে। সম্ভবত ঠাকুর পরিবারের প্রত্যেকটি লোক একটি বিশেষ সুরের সাধনা করিতে! ভালোবাসেন! কেউ মন্দ্রের ‘সা’ ছাড়িয়া ওঠেন না তো কেউ ‘কড়ি মধ্যমেই’ আটকাইয়া আছেন! অহো! মন্দ কী! যাত্রায় নামিলে উহাদের খ্যাতি কোনও অমুকের বাপও আটকাইতে পারিবেন না! একটি সুরকে অবলম্বন করিয়া কীভাবে কথা বলিতে হয়—ইহাদের দেখিয়া শিখিবার সাধ জাগিল! এখন হইতে আমি তার সপ্তক ছাড়া কথাই বলিব না! অভিব্যক্তির নিকুচি করিয়াছে। কাঁদিলেও তার সপ্তক, হাসিলেও তার সপ্তক! তার সপ্তক হইতে কিছুতেই নামিতেছি না!
যাহা হউক। সব মিলাইয়া মন্দ হয় নাই। কোল্ড ড্রিঙ্ক ও পপকর্ণের সঙ্গে একটু কষ্ট করিয়া হইলেও ভক্ষণ করা যায়। তবে মনে দুস্ক রহিল, পরিচালক কি জগদ্দল গীতবিতান কিংবা সঞ্চয়িতা হইতে একটু কষ্ট করিয়াই হউক, কিছু বেশি মাত্রায় রবীন্দ্রসঙ্গীত কিংবা কবিতা আমদানি করিতে পারেন নাই? গোটা ফিলিমে এমন ‘রাজকুমারী’ কম পড়িল কেন? অন্যান্য ফিলিমে তো রবি ঠাকুরের গানের গুষ্টির তুষ্টি, এমনকি উ-লা-লা ফর্মে রবীন্দ্রসঙ্গীত ও দন্তবাদ্য করিতে করিতে সহ্য করিয়াছি। তবে গঙ্গাপূজায় গঙ্গাজল কম পড়িল কেন?
যাহাই হউক। মোদ্দা কথা, সব মিলাইয়া মন্দ হয় নাই। অন্তত অসহনীয় নয়! প্রশংসা করিব বলিয়াছিলাম। করিয়াছি।


405 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: Runar kotha

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

Rোন্জোন রোশ্মি তোহ রোবি কিরোনের কিন্চিত বতোত বজইঅছেন।।।।ঈহ ওবোগোতো আছি।।।।সেই ভোয়ে ঈহ ওবোলোকোনের স্পোর্ধ কোরি নয়ি।।।।এক্খোনে এই লেখ পোরিয় স্বোস্তি বোধ কোরিতেছি জ ভুল ভবি নয়ি।।
Avatar: Runar kotha

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

Ronjon roshmi toh robi kironer kinchit batota bajaiachhen....eeha obogoto aachhi....sei voye eeha obolokoner spordha kori nayi...ei lekha poriya swosti bodh korilam j nehat e vul vabi nayi..
Avatar: ঋজু গাঙ্গুলি

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

আহা! কী রিভিউ! সিনেমাটি না দেখেও 'ভিউ' হয়ে গেল, আর এও বুঝলাম যে হলে গিয়ে ভেউ ভেউ কাঁদার হাত থেকে অল্পের জন্যে বেঁচে গেছি| জয় গুরু!
Avatar: ব

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

ফেসবুকে আগেই পড়েছি। অসাধারণ রিভিউ!! ঃ))
Avatar: Angshuman

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

Robithakur na Shahrukh seta bujhte bujhtei dekhi Kodubodi afing khailen.. :( tobe "dupurer dushtumi" ta darun diechhe.. :D
Avatar: PM

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

ধুস, কিস্যু হয় নি। ৫টা দুর্বোধ্য জারগন, ৬ টা দুর্বোধ্য লইন ছাড়া সিনিমা সমলোচনা হয় নাকি?!!! অন্তত গুরুতে হয় না।

আমার মত সিনেমা মূর্খ-ও পুরো বক্তব্য়্টা বুঝতে পারলো!!!! এটা ফিল্ম সমালোচনা না রকের আড্ডা?

কিস্যু হয় নি
Avatar: ranjan roy

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

"আমার মত সিনেমা মূর্খ-ও পুরো বক্তব্য়্টা বুঝতে পারলো!!!! এটা ফিল্ম সমালোচনা না রকের আড্ডা?"
---যা বলেছেন!ঃ))

সায়ন্তনী ,
অনেকদিনের পরে এলেন। আপনার চমৎকার সব ছোটগল্পের ঝাঁপি থেকে কিছু বের করুন। কতদিন ভালো কিছু পড়িনি।
Avatar: mukhpora

Re: কাদম্বরীর ফিল্মি বাক্স

রাজকন্যা
ইনভার্টেড কমার মধ্যে তো, বড্ড চোখে লাগছে


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন