এই সপ্তাহের খবর্নয় ( ডিসেম্বর ১৪)


লিখছেন --- খবরোলা অ্যান্ড কোং


আপনার মতামত         


গণতান্ত্রিক
----------
উত্তর ইরানের একটি শহর থেকে গত এক সপ্তাহে ৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের পোষাকের জন্য। দেশব্যাপী পশ্চিমী সংস্কৃতির বিরুদ্ধে প্রচার এতে নতুন মাত্রা পেল । ইরানে এখন কারুর গায়ে আধুনিক পোষাক দেখলেই তাদের আটক করে , ঈশ্বরবিরোধী আখ্যা দিয়ে, চূড়ান্ত হেনস্থা করা হচ্ছে এবং তাদের বলপূর্বক পোষাকসম্পর্কিত নিয়ম (অবশ্যই সরকার প্রবর্তিত) মানতে বাধ্য করা হচ্ছে। এমনিতে এই পোষাক নিয়ে বাড়াবাড়ি ইরানে নতুন নয়। তবে সাধারণত: এটা কয়েক সপ্তাহ চলে। এবারের ""কার্যক্রম"" চলছে ২০০৭ থেকে, এবং এখনও এর ঝাঁঝ একটুও কমেনি। ওয়েস্টার্ন স্টাইলের পোষাক, চুলের আদল দেখলেই "" ব্যবস্থা"" নেওয়া হচ্ছে। মাহমুদ রহমানী, একজন ""দায়িত্বশীল"" পুলিশ অফিসার হিসেবে জানিয়েছেন, "" কোনো কোনো ব্যক্তি আমাদের শত্রুদের বানানো পোষাক পরছে। প্রকাশ্যে এরকম পোষাক দেখলেই আমরা শাস্তি দিতে থাকবো। ইরানের শত্রুরা আমাদের যুবসমাজকে ভুলপথে চালিত করে তাদের অসুস্থ জীবনের দিকে ঠেলে দিতে চায়। "" এর আগেই মহামহিম আয়াতোল্লা খোমেইনি বলেছিলেন, "" ইরানের শত্রুপক্ষ এই দেশে সাংস্কৃতিক বিপ্লব ঘটাতে চায়""।

বোকা হওয়া সহজ নয়
---------------------
স্টুপিড ডট কম নামে এক ওয়েবসাইট সম্প্রতি সবথেকে নির্বোধ দশটি উপহারের তালিকা প্রকাশ করেছে। এই ওয়েবপাতার মতে, সত্যিকারের অর্থহীন উপহার দেওয়াও একটা আর্ট। সবার দ্বারা সম্ভব নয় এতটা বোকা হওয়া। যেমন ধরুন বড়োদিনের উপহার হিসেবে কেউ দিলো একটা ঝাঁ চকচকে "" আন্ডারওয়্যার রিপেয়ারিং কিট""। স্টুপিড ডট কম জানিয়েছে, "" ২০০৮ আমেরিকার অর্থনীতির পক্ষে খুব খারাপ বছর হলেও, বোকামির উৎকর্ষ বৃদ্ধিতে এই বছর অন্যতম সেরা। যে দশটি উপহারকে সবথেকে বিরক্তিকর বা অর্থহীন বা নির্বুদ্ধিতার ফসল বলে চিহ্নিত করা হয়েছে সেগুলি হল :
১। একটি রবারনির্মিত খেলনা মোরগ। আচমকা এর আর্তচিৎকারে বাড়ির ছাদ ভেঙ্গে পড়তে পারে। একে ""বিশ্বের সবথেকে বিরক্তিকর খেলনা"" সম্মানে ভূষিত করা হয়েছে।
২। একটি চারাগাছ যার গায়ে লেখা: Wealth Redistribution 2008 Holiday . গাছের গায়ে লেখা আছে, "" এখানে একটি দামী গয়না রাখা ছিলো, কিন্তু গয়নাটা এমন একজনকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে যার সেটা সত্যিই প্রয়োজন। অর্থাৎ এতদ্বারা আপনি আপনার সম্পত্তির ""রিডিস্ট্রিবিউট"" করলেন।
৩। মিনি গিটার হিরো। একটি ছয় ইঞ্চি লম্বা খেলনা, যার দ্বারা সমস্ত গান বাজানো যায় বলে উপহারদাতা (ও সংশ্লিষ্ট কম্পানি) দাবী করেছেন।
৪। একটি সুদৃশ্য কমোড।
৫। বাঁধাকপি নির্মিত বাব্‌লগাম। এর থেকে বাব্‌ল তৈরী করলেই আচমকা সেটা ফেটে গিয়ে জামা নোংরা করে দেয়।
৬। আন্ডারওয়্যার রিপেয়ারিং কিট (পুং )। বর্তমান ইকনমির সাথে তাল রাখার জন্য একেবারে আদর্শ। রিসাইক্লিং এর শেষ কথা।
৭। ওবামা নামাঙ্কিত "" ইয়েস উই ক্যান"" ওপ্‌নার। বলা হচ্ছে, ওবামা অনুরাগীরা এর জন্য নিজেদের জীবন বিপন্ন করতেও পিছপা হবেন না।
৮। একটি টাই, যার গায়ে লেখা "" হাউ টু টাই এ টাই ""। এই টাইয়ের গায়ে সহজে টাই বাঁধার ছয়টি ধাপ চিত্রসহ দেওয়া আছে। মাত্র কয়েক মিনিটেই আপনি জর্জ ক্লুনি হয়ে উঠতে পারেন এর সাহায্যে।
৯। 2009 Dog Poop calender . মন্তব্য নিÖপ্রয়োজন।
১০। পোল ড্যান্সার অ্যালার্ম ক্লক। এই ঘড়িতে যথাবিধি অ্যালার্ম বাজে। সাধারণ সাদামাটা বাজনা। তারপর সেটা বন্ধ করে দিলেই এতক্ষণ নিথর থাকা ব্লন্ড পুতুলটি তৎপর হয়ে ওঠে। তারস্বরে নাচের বাজনা শুরু হয় ও ডিস্কো আলো ঝলমলাতে থাকে। এবং অনির্দিষ্টকাল ধরে পুতুলটা পাক খেতে থাকে।

এখন আর আশাকরি কারুর উপহার কিনতে যাওয়ার সময় মাথার চুল ছেঁড়ার মত অবস্থা হবে না। আমাদের তালিকা থেকে যেটা খুশি বেছে কিনে নিন।

একটি গুজব
-------------
কর্মক্ষেত্র থেকে ধর্মস্থান, সর্বত্রই যখন ""স্ট্রেস"" নামে এক দৈত্যের জয়যাত্রা অব্যাহত, তখন সুশীতল বাতাসমারফৎ খবর এলো, মাইক্রোসফ্‌ট আনতে চলেছে এমন এক অপারেটিং সিস্টেম, যা নাকি উল্লেখযোগ্যভাবে কমিয়ে দেবে স্ট্রেস। এখন বাজারে মাইক্রোসফ্‌টের যে অপারেটিং সিস্টেম চালু, সেই উইন্ডোজ ভিস্তা নিয়ে লোকের বিস্তর অভিযোগ। সফ্‌টওয়্যার নিয়ে সমস্যা ও আরো হাজারটা বায়নাক্কার পাশাপাশি ভিস্তার একটা বড়ো রোগ- সে বড্ড ঘ্যানঘ্যানে। অনবরত আপডেট ইন্সটল করতে বলে, ক্রমাগত সফ্‌টওয়্যার কম্প্যাটিবিলিটি নিয়ে জ্বালায় এই নবাগত অপারেটিং সিস্টেম। তাই বেশিরভাগ ক্রেতাই অত্যন্ত বিরক্ত ভিস্তার ওপর। হয়ত সেটা আঁচ করেই মাইক্রোসফ্‌টের এই উদ্যোগ। মোদ্দা কথা, আগামী দিনে কেউ আর হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোক হওয়ার জন্য কম্পিউটারকে দায়ী করতে পারবেন না। আশা করা হচ্ছে, সামনের বছরের মধ্যেই এই অপারেটিং সিস্টেম পেয়ে যাবেন ক্রেতারা।


ডিসেম্বর ১৪, ২০০৮