এই সপ্তাহের খবর্নয় (অক্টোবর ২৬)


লিখছেন --- খবরোলা অ্যান্ড কোং


আপনার মতামত         


ভাইরাসনামা
----------------
সেই ছোটবেলা থেকে আমাদের সঙ্গে ভাইরাসের আলাপ। জীব ও জড়ের মাঝে থাকা এক কিম্ভুত বস্তু, যাদের জীবনধারণের একমাত্র উদ্দেশ্য প্রজনন, তাদের সম্পর্কে আমাদের অগাধ বিরক্তি ও অজস্র জিজ্ঞাসা চিরকাল। সেই অসংখ্য প্রশ্নেরই একটার উত্তর মিললো সম্প্রতি। বিজ্ঞানীরা খুঁজে পেলেন এমন এক ভাইরাস, যে স্বজাতির দেহেই সংক্রমণ ঘটায়। বিভিন্ন শ্রেণীর প্রাণী ও উদ্ভিদদেহে থাকার সময় ভাইরাস বংশবৃদ্ধি ঘটায়, এবং তার ফলে সেই প্রাণী বা উদ্ভিদকোষটি ধ্বংস করে বেরিয়ে যায়। এই প্রথম জানা গেল নতুন এক প্রজাতির ভাইরাসের কথা, যে এক বিশেষ ধরণের জায়ান্ট ভাইরাসের কোষে বংশবিস্তার করে। নতুন পাওয়া এই ভাইরাসের নাম - ""স্পুটনিক""।

বিশাল আকৃতির এই জায়ান্ট ভাইরাসটিও বিজ্ঞানীদের নব আবিষ্কার। এই প্রজাতির ভাইরাসদের বলে মিমিভাইরাস, এবং এরা এত বড়ো যে সাধারণ অণুবীক্ষণ যন্ত্রেই এদের দেখা যায়। এই মিমিভাইরাসের মধ্যেও নব-আবিষ্কৃত বিশাল আকৃতির ভাইরাসটি একটু বেশিই বড়ো বলে তাদের নাম দেওয়া হয়েছে মামাভাইরাস।

স্পুটনিক আকারে ছোটো, মামাভাইরাসের পাশে তাকে একরত্তি ""ভাগ্নে"" ছাড়া কিছু ভাবাই যায়না। কিন্তু তাদের আক্রমণে মামাভাইরাসের প্রজনন বন্ধ হয়ে যায়। প্রজননে অক্ষম ভাইরাসের থেকে নিরীহ বস্তু পৃথিবীতে বিরল, এবং স্পুটনিক একা না, একটা গোটা প্রজাতির ভাইরাস এরকম স্বজাতিনিধন যজ্ঞে পটু তার প্রমাণও পাওয়া গেছে। বলা বাহুল্য, এতে চিকিৎসাশাস্ত্রের নতুন দিগন্ত খুলে যাবে, এই আশাতেই আপাতত সবাই উচ্ছ্বসিত।


কোল্ড ওয়ার এবং সোভিয়েত
---------------------------
প্রায় ১৭ বছর পার হয়ে গেছে সোভিয়েত রাশিয়া পতনের। বহুবছর ধরে চলে আসা ঠান্ডা যুদ্ধের ইতি সেখানেই। আজ শুধুমাত্র ইতিহাসের পাতায় আর অনেক পুরনো স্মৃতিতে, পুরনো বই এর পাতার ফাঁকে হয়তো পড়ে আছে সেই সোভিয়েত দেশের গল্প। কিন্তু নাহ, এখানেই সামান্য ভুল করে ফেলেন সবাই। আজও সোভিয়েত রাশিয়া সমান ভাবে জীবন্ত রয়েছে আর একটা জায়গায়। সেটি হলো আমাদের এই ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল দুনিয়া। সোভিয়েত রাশিয়ার পতনের এত বছর পরেও .su ডোমেনের বাজার কিন্তু এতটুকু পড়েনি। বরং প্রতি বছর বেড়েই চলেছে .su র রেজিস্ট্রেশান। আর ফের আর এক ঠান্ডা যুদ্ধ শুরু এখান থেকেই।

তবে এবারের প্রতিপক্ষ আস্ত আমেরিকা নয়, একটি মার্কিন সংস্থা মাত্র। ICANN নামের সংস্থাটির কাজ হলো এই World Wide Web এর দেখাশোনা করা। আর এই সংস্থাটি এখন চাইছে .su ডোমেনটিকে মুছে দিতে। ১৯৯০ এর সেপ্টেম্বার মাসে ICANN তৈরী করে .su ডোমেন। তার মাত্র ১৫ মাস বাদেই ভেঙে যায় সোভিয়েত দেশ। এর পরে রাশিয়ার জন্য তৈরী হয় .ru ডোমেন। কিন্তু .su কে মুছে ফেলার কোনো চেষ্টা করেননি ওনারা। ফলে এতদিন ধরে .ru র পাশাপাশি সমান ভাবে ব্যবহার হয়েছে .su । প্রায় ১০,০০০ ওয়েবসাইট আছে সোভিয়েত রাশিয়ার নামে। এই ২০০৮ এ আরো জুড়েছে নতুন ১৫০০ টি ওয়েব সাইট। আর সেই জন্যই ICANN এর সাথে ঠান্ডা যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে Russian Institute of Public Networeks এর, যারা .su ডোমেনটিকে বাঁচিয়ে রাখতে বদ্ধপরিকর।

ICANN এর মূল সমস্যা হলো যে একই দেশের নামে দুটো ডোমেন থাকায়, অসুবিধে হচ্ছে তাদের কাজকর্মে। এমনিতেই ডোমেনের নাম রাখা হয় ISO 3166-1 লিস্ট অনুসারে। সেই লিস্ট থেকে বহু যুগ আগে বাদ পড়েছে .su । শুধু সোভিয়েত নয়, এক কালে যখন চেকোস্লোভাকিয়া ভেঙে যায়, তখন পাল্টে ফেলা হয় তাদের .cs ডোমেন। এমনকি Zaire যখন কঙ্গো হয়ে যায়, তখন .zr ডোমেনও তাদের অস্তিত্ব হারায়। তাই সোভিয়েত রাশিয়ার নামে একটি ডোমেন পুষে রাখতে মোটেই রাজি নন ICANN কর্তৃপক্ষ।

তবে ICANN এর এই চিন্তাভাবনায় মোটেই খুশী নন রাশিয়ান ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক নেটওয়ার্কস এর ডিরেক্টর Alexei Platonov । উনি বলেন যে, যদিও .gb ডোমেন আছে গ্রেট বৃটেনের জন্য, তা সত্ত্বেও .uk র ব্যবহার এখনো হয়ে আসছে সমান ভাবে। তাহলে .su কেন একা 'নন্দ ঘোষ' হবে। আপাতত চাপান উতোর চলছে ভালরকম। Development of the Internet নামে রাশিয়ার এক NGO ও হাত মিলিয়েছে .s¤ ডোমেনের পক্ষে। এই ভার্চুয়াল ঠান্ডা যুদ্ধে, শেষ অব্দি জিতবে কি সোভিয়েত? জানা যাবে আর কিছুদিনের মধ্যেই।


টুকরো খবর
------------
ভার্চুয়াল জিনিসপত্র চুরির দায়ে বিচার হলো দুই ডাচ কিশোরের। তেরো বছরের এক কিশোর আর তার সঙ্গী মিলে তাদের গেম অ্যাকাউন্টে ভার্চুয়াল মাস্ক সরাচ্ছিলো, টের পেয়ে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় আপাতত তাদের কমিউনিটি সার্ভিসে পাঠানো হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ায় মত্ত অবস্থায় এক মহিলাকে বিরক্ত করছিলো এক মহাপুরুষ। নিজের গাড়ী থেকে ঐ মহিলার উদ্দেশ্যে যথেষ্ট পরিমাণ ""মধুবর্ষণের'' পর পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। মহাপুরুষের ততোধিক মহান আইনজীবী আদালতে জানিয়েছেন, ""আমার ক্লায়েন্ট বিপদে পড়ে ঐ মহিলার কাছে চিৎকার করে সাহায্য চাইছিলো। ""

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজি এক প্রকাশনা সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে হুমকি দিয়েছেন। সংস্থাটি পাবলিসিটির জন্য সারকোজির পুতুল এবং সাথে ভুডু ম্যানুয়াল বিতরণ করছিলো, পিন ফোটানোর নিয়ম সমেত।

অক্টোবর ২৬,২০০৮