বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16]     এই পাতায় আছে181--210


           বিষয় : নামাবলী
          বিভাগ : অন্যান্য
          বিষয়টি শুরু করেছেন : pipi
          IP Address : 141.80.168.31          Date:31 May 2007 -- 02:01 PM




Name:  ranjan roy           Mail:             Country:  

IP Address : 122.168.73.171          Date:14 Sep 2008 -- 11:05 PM

হে-হে, শ্যামল!
সর্বাণীর সঙ্গে তাল দিয়ে বলি--- রাশিয়ানদের নাম দেখুন। মাঝখানে বাবার নাম, সঙ্গে প্রত্যয়টি হল ""ভিচ্‌'' তারপর পদবী।
মিখাইলের পুত্র জোসেফ লিখবে জোসেফ মিখাইলোভিচ।
আর মারাঠি ও পাঞ্জাবিদের পদবীতে গাঁয়ের নাম। ঐ যতগুলো ""কর'' আছে। গাভাসকর, মাঁকড়, শিভালকর, ফড়কর, গাদকর, ওয়াড়েকর, ইত্যাদি।
আবার পাঞ্জাবিদের ওয়াল বা ওয়ালা। ধাড়িওয়াল, লঙ্গোয়াল, গুজরানওয়ালা,ইত্যাদি।



Name:  kd           Mail:             Country:  

IP Address : 59.93.213.201          Date:14 Sep 2008 -- 11:30 PM

সর্বাণী, আমার মনে হয় না যে শ্যামল ঐ লম্বা নামের ব্যাপারে নাক কুঁচকেছে; ওটা বোধহয় ছ্যাবলামি করার চেষ্টা (ঐ সোশ্যাল সিকিউরিটি ঢুকিয়ে দিয়ে আর কি)। ওর বিরক্তির কারণ ও পরের প্যারায় লিখেছে - ওটা আমারও বিরক্তির কারণ - ওরা নিজেদের নামের স্টাইল নিয়ে থাকুক, আমরা আমাদের। আমরা ওদের নাম নিয়ে চ্যাংড়ামো করতে পারি, কিন্তু সিরিয়াসলি করি না - ওদের একজন নিমন্ত্রনপত্রে আমার নামের মাঝে আমার বাবার নাম (ইনিশিয়াল) ঢুকিয়েছিলো।

যদিও কিছু করার নেই, তবুও আমার একটি অসোয়াস্তির কারণ আছে আমাদের নাম নিয়ে। সাহেবদের নকল করে (আমার অনুমান) আমরা আমাদের নাম দুভাগ করে ফার্স্ট নেম, মিড্‌ল নেম করি - বেশীর ভাগ সময়েই নামের মানে পুরো পালটে যায়। আমার এক বন্ধুর নাম পার্থসারথি ঘোষ, সে লেখে পার্থ এস ঘোষ! আমার বাবার নাম বিভূতিভুষণ মুখো, উনি লিখতেন বি বি মুখো - বাবার নাম ছাই, ভাবতে পারো?

খৃস্টানদের বাবার নাম ছেলে নিলে সে হয় জুনিয়র, ঠাকুর্দার নাম নিলে হয় ২নং। ঠাকুর্দা, বাবা, ছেলে এক নাম হলে বাবা হয় জুনিয়র, ছেলে হয় ৩নং। এই রুলটা কতখানি ঠিক জানি না, ওদের কাছে যা শুনেছি তাই লিখছি। বিখ্যাত বক্সার জর্জ ফোরম্যানের সব ছেলেমেয়ের নাম জর্জ (মেয়ের নাম জর্জিয়েট) - এরা কে কত নম্বর জানি না:))



Name:  shyamal           Mail:             Country:  

IP Address : 72.24.189.126          Date:15 Sep 2008 -- 01:37 AM

কাবলিদা ঠিকই ধরেছেন। অন্ধ্রের লোকেদের বড় নাম নিয়ে আমার বিরক্তি নয়। যে যেরকম ইচ্ছা নাম রাখতে পারে।

আমার বক্তব্য বাঙালির নামকে বিকৃত করা হবে কেন? না গুজরাতি, মারাঠিরা বাবার নাম মিডল নেম হিসেবে ব্যবহার করে ( সূনীল মনোহর গাভাসকার, মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী) তাতেও আমি নাক কুঁচকাইনি। মুশকিলটা হল সৌরভ গাঙ্গুলী নিজে মিডল নেম চন্ডীদাস করেনি। কোন কাগজওয়ালা তার নিজের জাতের রীতি অনুযায়ী এই কাজ করেছে। উদাহরন হিসেবে দেখুন www.cricinfo.com

ছোটবেলায় পেলের পুরো নাম মুখস্ত করেছিলাম। নাসিমোন্টো সান্টোস কি সব ছিল যেন। এখন ভুলে গেছি। বিশাল নাম।



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 24.66.94.142          Date:15 Sep 2008 -- 02:37 AM

পেলের নাম, 'এডসেন অ্যারান্টেস ডো নাসিমেন্টো'



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 24.66.94.142          Date:15 Sep 2008 -- 02:40 AM

আরে, আমর নাম ছিলো এক, মুম্বাই তে পাশপোর্ট বানতে গিয়ে মাঝে বাপের নাম জুড়ে দিলে। আর বৌ-এর আর মেয়ের নামের মাঝে আমার নাম।



Name:  sarbani           Mail:             Country:  

IP Address : 141.80.168.31          Date:15 Sep 2008 -- 03:29 AM

কাবলীদা,
মজার ঘটনা বলি শুনুন। এদেশে আসার বহুদিন পর অবধি আমি "হের' মানে মি: হয়ে ছিলাম। চিঠি চাপাটি যা আসত সব ঐ হের সর্বাণীর নামে। অথচ সেইসব দপ্তরে ফর্ম ফিল আপ করাকালীন যতদূর মনে পড়ে আমি নিজের নারীসঙ্কÄ¡কে লজ্জা দেই নাই। তবুও যে আমি হের হলাম এবং তার চেয়েও বড় কথা সে চিঠি যে ডয়েচ পোস্ট হেরফের না করে নির্ভূল ভাবে আমার ঠিকানায় এনে উপস্থিত করত এটা আমার একটা বড় বিস্ময় ছিল। তারপর ধরুন, এদেশের নিয়ম আগে ফ্যামিলি নেম তারপর নিজের নাম। আমি বহুদিন অবধি বাংলার রীতি অনুযায়ী লিখতাম। কিন্তু কিমাশ্চর্য্যম! প্রতিবারেই দেখতাম ঠিক উল্টে এসেছে চিঠিচাপাটি, কাগজপত্তর, মেল, রোলকল ইত্যাদি। বেচারারা "র" উচ্চারণ করে না মানে বেশীরভাগ শব্দেই "র" সাইলেন্ট থাকে অতএব এদেশে এসে আমি যথাবিহিত "সাবানি" হব এতে আর কি আশ্চর্য্য। এমনকি ফর্ম টর্মে জ্বলজ্বলে করে লেখা সঙ্কেÄও আমি সাবানি এমনকি শাবানা হয়েও আমার ঠিকানায় পৌঁছেছি এমনও হয়েছে। মনে হতেই পারে যে ইচ্ছাকৃত। কিন্তু ভুল দেখান মাত্র ব্যক্তিটি যে পরিমাণ লজ্জিত হয়ে ভুল ঠিক করতে বসেছেন তাতে মনে হয় নি ওটা আমার জাতি সঙ্কÄ¡র প্রতি কোনরকম অসূয়াপ্রসূত। কি করবে বেচারারা, ফ্যামিলি নামটা আগে বসেই, র-এর প্রচলন নেই প্রায়, মগজে মেশিনের মত সেগুলো ঢুকে আছে অতএব ....
এদেশে এখনো অবধি আমি সাবানি, সানি, বানি, রানি, ভাট্টা, ভাটাখারিয়া ইত্যাদি হয়েছি। অবশ্য এগুলো নতুন অভিজ্ঞতা নয়। আমাদের বাঙালীদের একটা স্বভাব হল নাম ছোটই হোক বা বড়, সেটাকে কাটাকুটি করে সংক্ষিপ্তসার বানান। আমিও যে ইস্কুলে গিয়ে "সরু", "সরো" হব আর তাই নিয়ে সবাই পিছনে লাগবে এতে বিচিত্র কিছু নেই। তা আমি সেই বাচ্চা বেলা থেকেই শিখে গেছিলাম এগুলো বিলকুল গায়ে না মাখতে। উল্টে মজা লাগে। হ্যাঁ যদি না বাইনারির মত কেস হয়। পাসপোর্ট বা সরকারী দলিল, সার্টিফিকেট এসবে নাম ভুল লেখা হলে বিপত্তি আছে। এদেশে আমাকে ওগুলো নিয়ে অনেকবার সংশ্লিষ্ট দপ্তরে দৌড়োদৌড়ি করতে হয়েছে ঐ নামের গ্যাঁড়াকলে। তখন অবশ্য আর মজা পায় নি, দাঁত কিড়মিড় করেছি। বাকিগুলোয় নির্ভেজাল আমোদ পেয়েছি। ইনফ্যাক্ট কখন যেন মনের মধ্যে একটা প্রত্যাশাও তৈরী হয়ে গিয়েছিল যে দেখি এবার আমি কোন রূপে আসি:-))
নেমন্তন্নের চিঠিতে আমার নামের পরে বাবার ইনিশিয়াল কেউ ঢুকিয়ে দিলে, সত্যি বলছি, ব্যাপক আমোদ পেতাম। আফটার অল আমার বাবারই তো নাম ঢুকিয়েছে:-)

নামের পরে এক নং, দু নং নিয়ে আপনি ঠিকই বলেছেন তবে এদেশে ঐ নামতা আজও আমার চোখে পড়েনি। ওটা মনে হয় ইউকে/আম্রিগা তেই চালু।



Name:  Abhyuday Mandal           Mail:             Country:  

IP Address : 97.81.111.254          Date:15 Sep 2008 -- 03:38 AM

লম্বা নাম নিয়ে যে কি বিপত্তি - এখন তো কেউ জিগ্গেশ করলেই বলি a for apple, b for brad ...

তা, শুনেছিলাম যে এক ভদ্রলোককে ব্যাঙ্কের এক কর্মচারী খুব মেজাজ দেখিয়ে বলেন - "তীর্থঙ্কর দাশগুপ্ত - এতো বড়ো নাম? একটু ছোটো নাম রাখতে পারেন নি?" তীর্থদার বাবা খুব শান্তভাবে বলেন - "ভুল হয়ে গেছে ভাই - ছেলের নাম রাম দাস রাখাই উচিত ছিল।"



Name:  sarbani           Mail:             Country:  

IP Address : 141.80.168.31          Date:15 Sep 2008 -- 03:47 AM

ও, ছোট্ট একটা সংযোজন। "সাবানি" র উচ্চারণ কিন্তু "স" দিয়ে হয় না। এরা s কে উচ্চারণ করে অনেকটা z এর মত করে মানে বাঙাল উচ্চারণে "জ" যেমন হয় আর কি। তো সেই হিসেবে আমি z আবানি। শুনলেই নিজেকে কেমন বঙ্কিমের লেখার যবনী মনে হয়:-)
আবার কেউ যদি ভুলেও স কে স এর মত করে বলে তখন সাবানি শুনলে নিজেকে সাবানদানি মনে হয়। কি আর করা।



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 24.66.94.142          Date:16 Sep 2008 -- 11:07 AM

ইয়ে, ইরোপিয়ান অনেক ভাষাতেই 'র' উচ্চারন নেই। ডেনমার্কে একই রকম ছিলো। আমদের একজন সহকর্মী রঘু কে ডেনিসরা সক্কলে 'আগু' বলত, আর আমার কেমন যেন হাগু হাগু শুনতে লাগত।



Name:  Satya           Mail:             Country:  

IP Address : 24.24.228.247          Date:16 Sep 2008 -- 11:33 AM

আমার নামটাও যে হতন বলত, তার বেলা? হ্যাটাস বলতে পারে সেই ভয়েই না আমি নামটা পাল্টে নিলাম :-)



Name:  Arijit           Mail:             Country:  

IP Address : 61.95.144.123          Date:16 Sep 2008 -- 11:48 AM

ইউরোপে বেশ কিছু দেশে j -র উচ্চারণ অনেকটা " ya ' টাইপের। তো আমার নাম আর পদবী দুটোকেই ওরা ঘেঁটে ফেলতো।



Name:  siki           Mail:             Country:  

IP Address : 203.122.26.2          Date:16 Sep 2008 -- 11:58 AM

হ্যাঁ, ডাচ আর ডেনিশরা জাভাকে বলে য়াভা। ডেনিশরা "রাজু'কে বলে "অ্যাজু'।

ইনফোসিসে তো সব্বার মেল আইডি ক্রিয়েট হয় বেঙ্গালুরুর কর্পোরেট হেড আপিসে। সেখানে যথারীতি সমস্ত সুজাতা হয়ে যায় সুজাথা, কবিতা হয়ে যায় কবিথা। সত্য-ও হয়ে যায় সথ্যা।



Name:  Div0           Mail:             Country:  

IP Address : 160.83.72.211          Date:16 Sep 2008 -- 07:19 PM

সিকি'র পোস্টে একটু সংযোজন -
সাউথ ইন্ডিয়ানদের মতানুসারে, th সবসময় 'থ' হয় না। বাংলা ব্যাঞ্জনবর্ণের মত এদেরও 'ত' এর পর 'থ' আসে কিন্তু তার উচ্চারণ উত্তর/পূর্বভারতীয়দের মত ডিসটিঙ্কট হয় না। যদি কোনও দক্ষিণ ভারতীয় কাউকে 'অ আ ই ঈ ... ' পড়তে বলো তো দেখবে 'অ' আর 'আ' এর মধ্যে উচ্চারণগত খুব একটা পার্থক্য নেই। যেমন 'ক চ ট ত প' আর 'খ ছ ঠ থ ফ' এর বেসিক ডিফারেন্স নি:শ্বাস আর ইন্টারভ্যাল। বাঙালীদের মত 'অ' কে ' au ' বোধহয় অন্য কোনো প্রদেশের লোকজন বলে না। ' t ' এর পর ' h ' না লাগালে এরা সেটা পড়বে 'ট', for eg. , Sujata -- সুজাটা। বাঙালী উচ্চারণে ' Toto ' -- টোটো না তোতো?



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 198.169.6.69          Date:16 Sep 2008 -- 09:02 PM

বিশু - অ্যাই মদ্‌না, তুই প-কে ফ বলিস কেন রে ?
মদ্‌না - দুর ফাগল, অমি ফ-কে কি ফ বলি ? আমি ফ-কে ফ-ই বলি।

তারাপদ রায়,
এক বঙ্গভাষী, এক হিন্দীভাষী-কে, 'হামলোগ তো, বোলতা কো বোলতা বোলতা, আপলোগ বোলতা কো কেয়া বোলতা ?'

ব্যাপক নস্যি নেয়া সংস্ক্‌ত পন্ডিত,
'বৎসগল, তোগলা কেহ লস্য লয়িও লা। লস্য লইলে ল-কারল্‌ত শব্দ, উচ্চারল করিতে পারিবে লাআআ। যদি বল আগি (আমি) কি করিয়া পারি, তবে বলিব, ইহা আগাল (আমার) বহুদিলের অভ্যাশের ফল'।



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 198.169.6.69          Date:16 Sep 2008 -- 10:36 PM

সেতো য-এর উচ্চারণ 'ইয়' টাইপ, বাংলা ছাড়া সব ভারতীয় ভাষাতেই। মানে, সুন্দরী রিসেপসনিস্ট, ইয়ামিনী-কে জামিনী বলায়, আর ইয়াত্রীনিবাস-কে জাত্রীনিবাস আওয়াজ শুনতে হয়েছিলো।



Name:  siki           Mail:             Country:  

IP Address : 122.162.81.164          Date:16 Sep 2008 -- 11:15 PM

ওড়িয়ারা য-কে জ-ই বলে। অবশ্য জানি না ওদের আলফাবেটে য আছে কিনা।



Name:  siki           Mail:             Country:  

IP Address : 122.162.81.164          Date:16 Sep 2008 -- 11:19 PM

ওড়িয়াদের "অ' উচ্চারণ বাঙালিদের মত। ওদের এই উচ্চারণ এমনকি ইংরেজি বলার সময়েও যায় না। বাস-কে বলে বস, লাঞ্চকে বলে লঞ্চ, নাম্বারকে বলে নম্বর।

ব্যাঙ্গালোরে থাকা বাঙালি টেকি ব্যাঙ্গালোরেবাসের কিছুদিনের মধ্যেই বাঙালি বন্ধুকে ইংরেজি অক্ষরে বাংলা মেল লেখার সময়ে "তো'-কে লেখে tho



Name:  Bratin           Mail:             Country:  

IP Address : 198.45.18.38          Date:17 Sep 2008 -- 12:58 AM

ঠিক। এক বার আমার এক ওড়িয়া বন্ধু বলেছিল "আমি বসে চেপে অফিসে আসি"। শুনে তো আমি হতবাক"। :-))



Name:  papiya           Mail:             Country:  

IP Address : 165.91.215.204          Date:17 Sep 2008 -- 01:00 AM

নাম্বার কে নম্বর তো আমরাও বলি, তবে ওড়িয়া দের বস থেকে নেমে লঞ্চ করা টা বেশ মজার :)



Name:  papiya           Mail:             Country:  

IP Address : 165.91.215.204          Date:17 Sep 2008 -- 01:02 AM

ওড়িয়া উচ্চারণে আমার নাম হয় পওপিয়া :( :(



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 198.169.6.69          Date:17 Sep 2008 -- 02:17 AM

সক্কলে ওড়িয়া নিয়ে পড়লে কেনে গো ? আমার ওড়িয়া বন্ধু-র বউ প্রেথম বিদেশে এসে, আমার বউকে, কোথায় জিনসের প্যান্ট কিনতে পাবে, এইরকম জিজ্ঞাসা করেছিলো, 'ভাবীজি, জিন(অ) কোথা মিলব(অ)'।

অনেকের আবার, মানে কলকেতায় 'দ' কে ড বলার অব্যেশ আছে, --'বারান্ডায় ডাঁড়িয়ে ডাঁড়িয়ে পা ব্যাথা হয়ে গেলো'।



Name:  Satya           Mail:             Country:  

IP Address : 63.192.82.30          Date:17 Sep 2008 -- 02:28 AM

আমার এখানে একটি মক্ষী ছানা হয়েছে। তার নাম Juan Gomez. প্রথম প্রথম জানতুম না, যত তারে ডাকি জুয়ান, যুয়ান, সে মাল আর তাকায় না। উঠে গিয়ে খুঁচিয়ে ডাকতে হয়।
এখন তার নামের তলায় বাংলায় লিখে দিয়েছি হুয়ান। ওটাই নাকি তার নাম - কি কেলো।

মক্ষীরা J কে হ বলে :-)



Name:  tania           Mail:             Country:  

IP Address : 65.115.93.98          Date:17 Sep 2008 -- 02:34 AM

হেহেহেহেহে। সত্য, হাম্বা হুস খেলে ঠিক জানতে :-)



Name:  Binary           Mail:             Country:  

IP Address : 198.169.6.69          Date:17 Sep 2008 -- 02:38 AM

ইকিরে, এটা তো জানা উচিত ছেলো, ক্যালিফোর্নিয়াতে থেকে। San Jose কে, কি, স্যান যোসে বলে? অ্যাঁ ??



Name:  papiya           Mail:             Country:  

IP Address : 165.91.215.204          Date:17 Sep 2008 -- 03:15 AM

jesus কে একটা ভয়ানক pronounce করে :))



Name:  Div0           Mail:             Country:  

IP Address : 160.83.72.211          Date:17 Sep 2008 -- 03:17 AM

হেসুস?



Name:  maniratna mukhopadhyay           Mail:  [email protected]           Country:   delhiindia

IP Address : 59.178.214.45          Date:08 Apr 2010 -- 01:40 PM

সোহম == মানে স : + অহম , আমিই সেই , মানে টা বেশ কঠিন , বলার চেষ্টা করছি। প্রাণায়ামের সময় যে নি:শ্বাস প্রশ্বাস বয় তাকে হং + স: বলা হয় । উল্টো করলে স: + হং হয় । প্রাণায়াম হল প্রাণ + আয়াম । প্রাণ বায়ুকে সংহত করার বিদ্যা এটি । এর থেকে এসেছে হংস বিদ্যা , অর্থাৎ পরমাত্মার সঙ্গে মিলনের প্রস। সোহম মানে আমিই সেই , অর্থাৎ আমিই ঈশ্বর । অনেক ধর্মে এরকম বলা মানা । আমি কী করে ঈশ্বর হতে পারি , আমি তাঁর অংশ মাত্র । কিন্তু হিন্দু ধর্মে এমন বার বার বলা হয়েছে । অহম ব্রহ্মা ব্রহ্মাণী বেদিতব্যে -- লেখা আছে অথর্ববেদে , দুর্গা সপ্তসতীতে। আমি ব্রহ্মা কিংবা ব্রহ্মাণী বলে জানবে , বলছেন মহিলা ঋষি বাক । মণিরত্ন মুখোপাধ্যায় , 93 সাউথ পার্ক , কালকাজী , নদিল্লী 110019



Name:  Samik           Mail:             Country:  

IP Address : 219.64.11.35          Date:08 Apr 2010 -- 02:13 PM

উরেব্বাপ! দারুণ লিখেছেন তো!

বাই এনি চান্স, দেশে একজন গল্প লেখেন মাঝে মাঝে, মনিরত্ন মুখোপাধ্যায়। আপনিই কি সেই?



Name:  Lama           Mail:             Country:  

IP Address : 203.99.212.53          Date:08 Apr 2010 -- 02:15 PM

জনৈক ব্যক্তির সঙ্গে আমার কথোপকথন-

লামা: আমি কি জনের সঙ্গে কথা বলতে পারি?

অপর প্রান্ত: আমি ই সে

লামা: শুভ সন্ধ্যা, জন। কেমন আছেন?

অপর প্রান্ত: শুভ সন্ধ্যা, ভাল আছি। আপনি কেমন আছেন?

লামা: ভাল আছি, ধন্যবাদ। আপনার হয়তো মনে আছে, গতকাল শিকাগো নিবাসী আমার পুরনো মক্কেল শ্রীযুক্ত কোস্টাস কারনাস্তাসিস আপনাকে আমার পরিচয় দিয়ে একটি ইমেল করেছিলেন এবং একটি ওয়েবসাইটের ব্যাপারে আপনার সঙ্গে আমার আলোচনা হয়েছিল অবং আপনি আমাকে বলেছিলেন আজ ফোন করতে?

অপর কন্ঠ: শিকাগোমক্কেলটেলিফোনওয়েবসাইট ? আপনার সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল ? আমার তো তা মনে হয় না, মহাশয়।

লামা: ঘেঁটে ফেলার জন্য দু:খিত, কিন্তু যতদূর মনে পড়ে এই নম্বরেই আমি ফোন করেছিলাম।

অপর কন্ঠ: হা: হা: হা: হা:, আপনি নিশ্চয় আমার পিতৃদেবের সঙ্গে কথা বলে থাকবেন। তাঁরও নাম জন। সুতরাং পরেরবার যখন ফোন করবেন তখন দয়া করে জন সিনিয়রএর খোঁজ করবেন। তবে দু:খিত, আমার বাবা আজ বাড়ি নেই।



Name:  maniratna mukherjee           Mail:  [email protected]           Country:  delhi India

IP Address : 59.178.214.45          Date:08 Apr 2010 -- 02:18 PM

জিষ্ণু শব্দের অর্থ হল যিনি জয় করিতে জানেন । অর্জুনের আর এক নাম জিষ্ণু । জয় শব্দের(? বিজিগীষা = জয় করিবার ইচ্ছা) সঙ্গে ইষ্ণু প্রত্যয় করলে জয়ীষ্ণু বা জিষ্ণু শব্দ পাওয়া যায়।
সৌমিক = দুই ভাবে এই শব্দটি পাওয়া যাবে । সোম = সোমবার ইত্যাদি , তাকে ষ্ণিক (মানে অপত্য, সন্তান)প্রত্যয় করলে সৌমিক পাওয়া যাবে । সৌমিক এই শব্দটি সংষ্কৃত ডিকশনারিতে পাওয়া গেল না । আর একটি অর্থ আমি করতে পারি । সোম মানে সোমলতা , যার থেকে সোমরস বের করে হোম করা হত । এই রসটি বট গাছের আঠার মত , বেশিক্ষণ বাইরে রাখলে জারিত হয়ে খেজুর রসের মত মদে পরিবর্তিত হবে । সোম রস (উচ্চ জ্বলনশীল)কিংবা সোম মদ দিয়ে যজ্ঞ করা হত , মদিরা হিসাবে পান করা হত । যজুর্বেদে নানাপ্রকারের ব্রাহ্মণের নাম পাওয়া যায় । যে সকল ব্রাহ্মণেরা সোমলতা থেকে রস বের করার কার্য করতেন তাঁদের সৌমিক ব্রাহ্মণ বলা হয় । যেমন যাঁরা যজ্ঞডুমুরের গাছ থেকে যজ্ঞকাঠ সংগ্রহ করতেন তাঁদের শৌমিক ব্রাহ্মণ বলা হয় (শমী + ষ্ণিক = শৌমিক ) (সোম + ষ্ণিক = সৌমিক)
মণিরত্ন মুখোপাধ্যায় , 93 সাউথ পার্ক , কালকাজী , নদিল্লী 110019


এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16]     এই পাতায় আছে181--210