বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2]     এই পাতায় আছে7--37


           বিষয় : ২১স্ট সেঞ্চুরি তে ক্যাপিটালিস্ট বা কমিউনিস্ট ন্যারেটিভ
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন :Amit
          IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:28 May 2019 -- 11:01 AM




Name:  dc          

IP Address : 127812.49.7890012.21 (*)          Date:28 May 2019 -- 09:20 PM

রঞ্জনদা, আমার মতে শিক্ষা আর স্বাস্থ্য সরকারের ভালোমতো রেগুলেট করা উচিত, এই দুটো সেক্টরেই অনেক বেশী করে স্পেন্ড করা উচিত (অন্তত জিডিপির ১০-১৫% করে)। সরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা আর স্বাস্থ ব্যবস্থা এতোটাই ভালো হওয়া উচিত যে বেশীরভাগ লোক পাবলিক স্কুলে পড়াতে চাইবে, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে যাবে। আর এগুলো সবই বিনামূল্যে দেওয়া উচিত বা নামমাত্র মূল্যে। এর পরেও যদি আম্বানি স্কুল বা হাসপাতাল খুলতে চায় তো সরকারের সমস্ত নিয়ম মেনে খুলতে হবে, তার পরেও সেই স্কুলে পড়াশোনার মান কেমন হচ্ছে সেটা দেখার অধিকার সরকারের থাকবে। আপনার ১ আর ২ নং পয়েন্টের সাথে একমত।

"রিজার্ভ ব্যাংকের একটা বড় দায়িত্ব ইকনমির বিশ্লেষণ করে রোডম্যাপ ঠিক করা"

সে তো বটেই, অবশ্যই। রিজার্ভ ব্যাংক সেন্ট্রাল ব্যাংকার, ইকোনমির ওভারল মনিটরিং এর দায়িত্বে থাকবে। ইনফ্লেশান টার্গেট করবে না গ্রোথ টার্গেট করবে সেই ডিসিশান নেবে, ইন্টারেস্ট রেট কমাবে বা বাড়াবে। মনেটারি পলিসি ঠিক করবে, টি বিল, টি বন্ড ইত্যাদির গ্যারান্টর হবে।

সম্পদের অসম বন্টনে সরকারের কতোটা রোল হওয়া উচিত সে নিয়ে খুব একটা শিওর নই, তবে প্রেফার করবো যতোটুকু ইন্টারভেনশান না করলেই না তার বেশী যেন সরকার নাক না গলায়। সোশ্যালিজমের দিকে যেন না ঝোঁকে, যতোটা সম্ভব ক্যাপিটালিস্ট ইকোনমি চালায়।





Name:  dc          

IP Address : 127812.49.7890012.21 (*)          Date:28 May 2019 -- 09:37 PM

আর ২০০৮-০৯ এর ক্রাইসিস অ্যামেরিকান সরকার যেভাবে হ্যান্ডল করেছিল সেটা আমার মতে ভুল ছিল। সরকারের পলিসি হওয়া উচিত ছিল লিভ অ্যান্ড লেট ডাই। সিটিব্যাংক, মেরিল লিঞ্চ ইত্যাদিদের কোল্যাপ্স করতে দেওয়া উচিত ছিল, ট্যাক্সপেয়ারের টাকায় বেলআউট একেবারে ভুল পলিসি।


Name:  খ          

IP Address : 340123.99.121223.132 (*)          Date:28 May 2019 -- 09:38 PM

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী ওয়েলফেয়ার স্টেট এর যে বেসিক টেনেট্স, সেগুলোকে এখন বাম দের বলতে হচ্ছে। সর্বত্রই, কারণ গণতন্ত্র ইত্যাদি বলতে যা বোঝায়, সেগুলি কে নতুন করে ডিফেন্ড করতে হচ্ছে বাম দের। ক্যাপিটালিজম এর পক্ষে এখন আর গণতন্ত্র ডিমান্ড জেনারেশন বা প্রোডাকশন প্রসেস স্টেবিলাইজ এর জন্য প্রয়োজনীয় টুল না। বাম পজিশন সব সময়েই ক্যাপিটালিজম এবং তার সঙ্গে স্টেট ইনটারভেন্শন এর সম্পর্কের , বা স্টেট এর নেচার অনুযায়ী বদলেছে। এই আলোচনায় সেই আসপেক্ট টা পাচ্ছি না।



Name:  খ          

IP Address : 340123.99.121223.133 (*)          Date:28 May 2019 -- 10:24 PM

এবং এটা নিজেদের মইদ্যে বলে রাখতে অসুবিধে নাই, (যদিও ইশান বাঙালি ন্যাশনালিস্ট সত্ত্বা বেশি প্রকাশ করার পর থেকে লেপ্ট লিবেরেল দের ক্যামন ঠেশ দিয়া কথা কয়), কালদর্শী কমরেড ঈশ্বর এবং কমরেড মার্ক্স এর রসবোধ এর পরিচায়ক হোক বা না হোক, দুটি ঘটনা একটু বিচিত্র।

বলা হয় ১৯৩৭ রুজভেল্ট এর নিউ ডিল , এমনকি ১৯৪৫ এ এটলি দের ন্যাশনাল হেল্থ সার্ভিস ঘোষণার আগেই, আধুনিক ওয়েলফেয়ার স্টেট বড় সড় শুরু। যদিও ওয়েস্টফালিয়ান ডেমোক্রাসি যেগুলো, তাতে পেনসন শুরু হয়েছিল কিছু বিংশ শতকের গোড়ায়। এবং আরো বলা হয়, রুজভেল্টে র এই ১৯২৯ মহা ক্র্যাশ পরবর্তী পদক্ষেপ, আসলে সোভিয়েট সেন্ট্রাল প্ল্যানিং এর একটা প্রতিক্রিয়া, যেটা ক্র্যাশ এ অপেক্ষাকৃত কম অ্যাফেকটেড হয়। (যদিও পরে দেখা গেছে সেটা সবটা সত্যি না)।
আবার বলা হয়, সেই একই সময় তেই ১৯৩৩ এ যে ফ্র্যাংক অ্যান্ড ডড রুল্স ইত্যাদি করা হয়েছিল, স্পেকুলেটিভ ইনভেস্ট মেন্ট এর সঙ্গে অন্য ইনভেস্টমেন্ট আর পেমেন্ট্স কে সেগ্রিগেট করার জন্য, যাতে রিটেল ইনভেস্টর আর জব্স রক্ষা পায়, তাকেই হালকা করে করে , বিশেষতঃ ১৯৮৪ র রেগান থ্যাচার দের নেতৃত্ত্বের কনসেনসাস এর আমল থেকে, আপনাদের এই দুরবস্থা ২০০৮ থেকে ২০১১ ইত্যাদি।

অন্য দিকে এখন এই যে গণতন্ত্র কে উন্নয়ন এবং বৃদ্ধি দুটোর পক্ষেই বাধা হিসেবে ধরা হচ্ছে, সেটা চীনের ১৯৭৯ পরবর্তী উত্তেজনাপূর্ণ মহাশক্তিমান হবার স্টোরির অনুপ্রেরনা, কিছু লোকের মাথায় ঢুকেছে, সব ধরণের সব পার্টির লিবারেলাইজার দের মধ্যেই, দ্যাট ইজ দ্য মডেল টু ফলো। আর অন্য দিকে ক্যাপিটালিস্ট জগতে অটোমেশন ইত্যাদি ঠ্যাকন দেবার জনয়া, সোশাল স্টেবিলিটির জন্য ইউনিভার্সাল বেসিক ইনকাম ইত্যাদি ভাবনা আসছে।

তো বুঝতে পারছেন, আমরা বামপন্থী রা দু চারবার অল্প হিলিয়ে যে গেছি, আপনারা তাতে রিয়াকট করেই মরছেন, তাই বলে কি সামান্যতম অহংকার করিচি? ঃ-)))))
আদি ব্রাহ্ম হলে দেখতেন এর মধ্যে এমনকি ফ্যামিলি কেস ও কিছু ঢুকে যেত ঃ-)))


Name:  কল্লোল          

IP Address : 342323.191.4556.29 (*)          Date:28 May 2019 -- 10:39 PM

মুস্কিলটা হচ্ছে বামেদের হাতেও কোন বিকল্প নেই। বিকল্প হিসাবে বামেরা এতোকাল যে মডেল ভেবে এসেছে সেটা রাষ্ট্রীয় পুঁজির মডেল যা অকৃতকার্য হতে বাধ্য এবং তাইই হয়েছে।
পুঁজি এখন দুটো সংকটে পড়ছে - ১) যন্ত্রায়নের ফলে বাজার ক্রমাগতঃ ছোট হয়ে যাওয়া, ২) পরিবেশ দূষণ যা পৃথিবীকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।
প্রথমটা থেকে বেরিয়ে আসার কিছু রাস্তা - ১) বাজারের বাইরে ভোগের সামর্থ্য না থাকা বিশাল জনসংখ্যাকে মরে যেতে দেওয়া বা মেরে ফেলা অথবা ২) ইউনিভার্সাল বেসিক ইনকাম চালু করা অথবা ৩) শ্রমনিবিড় শিল্পে ফিরে যাওয়া
দ্বিতীয়টির ক্ষেত্রে রাস্তা একটাই বিশিল্পায়ন। হয়্তো প্রথম সমস্যাটার ৩য় সমাধানটি এর প্রাথমিক পদক্ষেপ হতে পারে।
আর একটা রাস্তা, একদম নতুন কোন প্রযুক্তি যাতে দূষণ হবেই না বা দূষণ কমতে থাকবে।



Name:  কল্লোল          

IP Address : 342323.191.4556.29 (*)          Date:28 May 2019 -- 10:46 PM

হয়তো বা রোজাভা/আচলান কোন পথ দেখতে পারে।



Name:  Amit          

IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:29 May 2019 -- 05:46 AM

কল্লোল দার পয়েন্ট গুলো তে একমত। আজকে ডেভেলপেড দেশ গুলোতে অটোমেশন আর তার জন্য জব লস একটা খুব বড় সমস্যা। তা ছাড়াও পুঁজির গ্লোবালিজাসন এর পর বেশির ভাগ লেবর ইনটেনসিভ মেনুফ্যাক্টরউইং এশিয়া র দেশ গুলোতে শিফট করে গেছে। IT সাপোর্ট ও আউটসৌর্সড, এখানে জব পাওয়াই সমস্যা খুব হাই এন্ড স্পেশালিস্ট ছাড়া।

এবার সরকার সোশ্যাল সিকিউরিটি দিয়ে সামলাতে পারছে না। থাম্ব রুল হলো প্রতি একজন কে সোশ্যাল সিকিউরিটি বা মেডিকেয়ার দিতে গেলে মিনিমাম চারজন ট্যাক্স পেয়ার চাই। সেই রাসিও দিন দিন কমে আসছে। এক সময় এটা ভেঙে পড়বেই। পিরামিড উল্টে যাচ্ছে।

ফিনল্যাণ্ড ইউনিভার্সাল ইনকাম এর কথা ভেবেছে। ওদের লোক কম , ন্যাচারাল রিসোর্সে বেশি। হয়তো ওরা বেশ কিছু দিন সুস্টাইন করতে পারে, কিন্তু বাকি দেশ গুলোর পক্ষে সেই মডেল কতদিন চালানো সম্ভব কেও জানে না। ক্যাপিলাসম এর একটা অল্টারনেটিভ মডেল দরকার। যে পুড়ে ক্যাপিটালিজম মডেল ডিসি বললেন , সেটা গ্রোথ ইকোনমি তে ভালো কাজ করে , স্ট্যাগনান্ট ইকোনমি তে নয়। এবার এক্সপোর্ট/ কন্সাম্পসন কমে গেলে এক সময় বা এক সময় স্ট্যাগনেশন আসতে বাধ্য, ল অফ মোমেন্টাম। বাজার ও গুটিয়ে আসবে।

শ্রম নিবিড় শিল্পে ফিরে যাওয়া খুব শক্ত, প্রতিটা টেকনোলজি আজকাল রোবট, রিমোট সেন্সিং, অটো কন্ট্রোল, AI এর দিকে ঝুকে পড়েছে। কোনো কর্পোরেট ফেরত যেতে রাজি নয়, কারণ যন্ত্র ইউনিয়ন করে না , মাইনে দিতে হয়না। এর থেকে প্রফিটাবলে, নির্ঝঞ্ঝাট মডেল আর নেই। কোনো সরকার জোরাজুরি করলে জাস্ট অন্য দেশে ব্যবসা গুটিয়ে নাও। নো ইমপ্যাক্ট।

ডিসি-কে, অন্য ভাবে নেবেন না, কিন্তু বাস্তব দুনিয়াতে "সারভাইভাল অফ টি ফিটেস্ট রুল" শুনতে ভালো, যতক্ষণ না হটাৎ নিজের চাকরি যায়। তা ছাড়াও, কোনো সরকার চায়না হুট্ করে কোনো কোম্পানি ফেল করুক আর তাদের ঘাড়ে বিশাল সোশ্যাল সিকিউরিটি র বোঝা চাপুক। তাই অনেক সময় আইনত দরকার না থাকলেও জাস্ট হিউমান স্টান্ডপয়েন্ট থেকে ট্যাক্স পেয়ার দের টাকায় কোম্পানি কে survive করানোর চেষ্টা হয়। কোনো সময় কাজ হয় (বিগ ৩ ইন ডেট্রয়ট), কোনো সময় ডুবে যায় (এয়ার ইন্ডিয়া)। সব সময় যে কোনো কোম্পানি নিজের দোষে ডোবে তাও নয়, জাস্ট তারা টেকনোলজি দিসরূপশন সামলাতে পারে না বা ট্রেন্ড বুঝতে পারে না (ইস্ট ম্যান কোডাক)।

তার মানে এই নয় যে ক্যাপিটালিজম খারাপ। জাস্ট এটা বলা যে ইডিয়াল ওয়ার্ল্ড ষ্টীল দাস নট এক্সিস্ট ইন রিয়েল লাইফ বা ওয়ান রুল ফিটস অল র মতো কোনো সাকসেস ফর্মুলা এখনো অব্দি আছে বলে জানা নেই। আর ইকোনমিক্স বা ম্যানেজমেন্ট কোনো অবসোলুট সাইন্স নয়, ওগুলো কোনো ফিজিক্যাল ল অফ নেচার মেনে চলে না , ওগুলো মেনলি হিস্টরিকাল স্ট্যাটিসটিক্স বেসড ডাটা প্রেডিকশন আর সেগুলোকে বেহ্যাভ সাইন্স এর সাথে মিলিয়ে একটা স্ট্যান্ডার্ড প্যাটার্ন তৈরী করার চেষ্টা।


Name:  Amit          

IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:29 May 2019 -- 05:47 AM

সরি, পিওর ক্যাপিটালিজম মডেল হবে।


Name:  কল্লোল          

IP Address : 342323.191.3456.130 (*)          Date:29 May 2019 -- 06:39 AM

অমিত। "শ্রম নিবিড় শিল্পে ফিরে যাওয়া খুব শক্ত, প্রতিটা টেকনোলজি আজকাল রোবট, রিমোট সেন্সিং, অটো কন্ট্রোল, আঈ এর দিকে ঝুকে পড়েছে। কোনো কর্পোরেট ফেরত যেতে রাজি নয়, কারণ যন্ত্র ইউনিয়ন করে না , মাইনে দিতে হয়না। "
কোনো কর্পোরেট ফেরৎ যেতে রাজি নয় - এই গল্পটা আজকের। আজ থেকে ২৫/৩০ বছর পরে কর্পোরেটরা বুঝবে যন্ত্র কনজিউমার নয়। যন্ত্র চাল-ডাল-গম-মাছ-মাংস-গাড়ি-টিভি-টুথপেস্ট-ফ্রিজ-কম্পিউটার কিছুই কেনে না। তখন কনজিউমার বাড়ানোর কথা ভাবতে হবে। হয়তো অনেক আগেই ভাবববে তারা। যদি না ঐ বিশাল নন-কনজিউমার জনসংখ্যাকে তারা নিশ্চিহ্ন করে দেবার প্ল্যান না করে। ধরা যাক কোন কারনে যদি পৃথিবীর ৭০/৮০% লোক মরেই যায়, তো প্রাকৃতিক সম্প্দ আপেক্ষিকভাবে বেড়ে যাবে। উৎপাদন কমিয়ে ফেললে, দূষণও কিছুটা কম হবে। কিন্তু এটা করা যাবে কি?
এর উপর আছে আবহাওয়ার দূষণ আর সমুদ্রস্তর বেড়ে যাওয়া জনিত প্রাকৃতিক বিপর্যয়। ।
বিশিল্পায়ন ছাড়া পথ বেশ কঠিন।



Name:  Amit          

IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:29 May 2019 -- 06:48 AM

আরে ৭০ - ৮০-% লোক মরে গেলে যদি আমরাও তার মধ্যে পরে যাই, তাহলে গুরুতে গুচ্ছের আট ভাট লিখবে কারা- ? এতো জরুরি সব সাবজেক্ট।

জোকস এপার্ট। ইন প্রিন্সিপাল আমি ১০০-% এগ্রি করছি আপনার সাথে , সত্যি কনসিউমার বেস কমে গেলে কর্পোরেট গুলোও বাঁচবে না। নিজেদের বাঁচাতে চেঞ্জ টা মানুষ আর কর্পোরেট দুজনের জন্যই জরুরি। কিন্তু সেই বেড়ালের গলায় ঘন্টা বাধা টা যে কবে, কিভাবে শুরু হবে , সেটাই জানি না। নিজে এনার্জি সেক্টরে কাজ করি বলে জানি , কার্বন ক্যাপচার এ এখনো কোম্পানি গুলোর কি রকম এলজি।

আর সেরকম ইকোনমিক টেকনোলজি ও আসছে না এসবে । একটা অদ্ভুত ভিসুয়াস সাইকেল, প্রফিটেবলে নয় বলে রিসার্চ হয়না বেশি, ইনভেস্টমেন্ট আসে না। আর ইনভেস্টমেন্ট আসেনা বলে কেও রিসার্চ করতে চায়না।

যুদ্ধ লেগে ৭০-৮০ % সাবাড় হলে অবশ্য অন্য গল্প। বেঁচে থাকলে আবার এই পাতায় শুরু করবো। :) :)


Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:29 May 2019 -- 06:53 AM

তাহলে কি প্রগতির সঙ্গে সঙ্গে যেসব যন্ত্রপাতি তৈরী হবে সেগুলোকে বর্জন করা হবে? গাড়ি না চালিয়ে পালকিতে করে যাতায়াত করলে সেটা বেশ শ্রমনিবিড় ইসে হলো। আবার মনে করুন চিকিৎসা ক্ষেত্রে যেসব যন্ত্রপাতি তৈরী হয়েছে সেগুলোকে কি ফেলে দেওয়া হবে? বা স্ট্যাটিস্টিকাল প্যাকেজগুলো বিশাল বড় ডেটাবেস কয়েক সেকেন্ডে অ্যানালাইজ করে দেয়। সেটি না করে ম্যানুয়ালি করলে কয়েক বছর লাগবে। সেটাও বেশ শ্রম নিবিড়তার দিকে অগ্রগতি হলো।

অটোমেশান মানেই সেটা বামপন্থার বিরুদ্ধে কেন? আম্রিগায় হয়েছে বলে? চীনে হলেই বাম অর্থনীতির অংশ হয়ে যেতো? আমার তো মনে হয় যান্ত্রিক প্রগতির সঙ্গে বামপন্থার কোনও বিরোধ থাকা উচিত নয়। থাকলে সেটা বামপন্থার জন্য চিন্তার, প্রগতির জন্য নয়।

কয়েক দশক পরে কর্পোরেটরা বুঝতে পারবে যে তাদের কন্জিউমার বেস কমে যাচ্ছে, তখন তারা অটোমেশান কমাবে ইত্যাদি - এগুলোর কোনোটাই বামপন্থার কথা না। ফলে তখন যে সমাধান বেড়বে সেটাও ধনতন্ত্রের অঙ্গই হবে, এবং ধনতন্ত্রকে আরো শক্তিশালী করবে।


Name:  কল্লোল          

IP Address : 342323.191.3456.130 (*)          Date:29 May 2019 -- 07:05 AM

আমিও তো তাইই বলছি বড় এস।
সে তো মার্ক্স কোথায় যেন লিখেওছিলেন - তখন যন্ত্রই সব কাজ করে দেবে। মানুষ অখন্ড অবসর ভোগ করবে - শিল্প-সাহিত্য ইঃতে বেশী বেশী সময় দেবে।

ধণতন্ত্রও তখন তার আজকের রূপে থাকতে পারবে না। সেটা বাম কি বাম নয় তা নিয়ে ভাবারও কোন কারন নেই। কিন্তু কোথাও কাউকে ভাবতে হবে মানুষ ও পৃথিবী বাঁচানোর কথা।




Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:29 May 2019 -- 07:30 AM

কল্লোলদা, ধনতন্ত্রও এখন কোমাতে গেছে; অক্সিজেন মাস্ক লাগিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে। একটা জিনিস খেয়াল করবেন যে সারা দুনিয়ার সব রাইট উইঙ্গ পার্টিগুলো, যারা আগে ফ্রী মার্কেট, ফ্রী স্পীচ, গণতন্ত্র, গ্লোবালাইজেশনের পক্ষে সওয়াল করতো, আজকাল সেসব শুনলে সরাসরি আক্রমণই করে বসে। আর এইসব দলগুলোকে যে পুঁজিরা মদত দেয়, তারাও কেমন লাজুক মুখ নিয়ে চুপটি করে বসে থাকে। ধনতন্ত্রের পুজারিরা যে আসলে নাস্তিক সেটা গত ক্রাইসিস-রিশেসানের সময় বোঝা হয়ে গেছে। বহু লোকের চোখ থেকে ঠুলি সরে গেছে।

আম্রিগার হাউসে নিউ গ্রীন ডীল আনার কথা হয়েছিল। সেখানে ১০ মিলিয়নের বেশি আয় হলে ৭০% কর বসার কথা ছিল। সে বিল অবশ্য ফ্লোরে আলোচনার জন্যও আসেনি। কিন্তু অদ্ভুত ভাবে এখনো সারা আম্রিগা সেই নিয়ে কথা বলেই চলেছে। ধনতন্ত্রের পুজারী ফক্স নিউজে সে নিয়ে এখনও সমালোচনা চলে। কেন? কারণ, ওরাও জানে যে আজ না হোক কাল এই লাইনেই হাঁটতে হবে। অন্য কোনও উপায় নেই। আগেরবার ট্যাক্স কমানোর পর বহু বড়লোকরা সেটার বিরোধীতা করেছিলেন। ক্যাপিটালিজমের বহু পন্ডিত বলেছেন যে ট্যাক্স কাট কোনও কাজে দেবেনা। অথচ ট্যাক্স কাট ধনতন্ত্র প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অন্যতম প্রধান হাতিয়ার।

ওবামাকেয়ার গরীবদের বিনি/কম পয়সায় ইন্সিওরেন্স দেয়। প্রথম প্রথম সেই নিয়ে বিরোধীতা থাকলেও, এখন সেই নিয়ে জাস্ট কোনও আলোচনাই হয়্না। ট্রাম্প জেতার পর অনেকে বলেছিলো যে উনার জেতার অন্যতম প্রধান কারণ হলো ওবামাকেয়ার। অদ্ভুত ব্যাপার হলো ট্রাম্প জেতার পর প্রায় দুবছর হোয়াইট হাউস, কঙ্গ্রেসের দুই কক্ষই হাতে থাকা সত্ত্বেও ওবামাকেয়ার সড়াতে পারেনি। বহু রিপাব্লিকানরা ভোট দিতে পারেনি ওবামাকেয়ার রিপীলের পক্ষে (একজনের অফিস জানিয়েছিলো যে তারা ওবামাকেয়ার রিপিল করার পক্ষে ৪টে ফোন পেয়েছে, আর রাখার পক্ষে ১৮০০ টা)। ২০১৮তে ডেমরা জিতলই যাতে ওবামাকেয়ার থেকে যায়। আমি অবাক হবোনা যদি আর কয়েক বছরের মধ্যে ইউনিভার্সাল হেল্থকেয়ার চালু হয়। গরীব ছাত্রদের জন্য সরকারি কলেজকে টিউশান মুক্ত করার কথা অলরেডি চলছে। এমনকি বড় কোম্পানিগুলোকে ভেঙে ছোট করার প্ল্যানও আছে। আজকাল আলোচনায় বার বার উঠে আসে যে থিও রুজভেল্ট থাকলে এই বড় কোম্পানিগুলোকে ঠিক ভেঙে দিতেন।


Name:  Atoz          

IP Address : 125612.141.5689.8 (*)          Date:29 May 2019 -- 07:52 AM

কী সর্বনাশই যে হবে! এখনই ফেবুতে যে হারে কবিতা আসে, তাতেই অবস্থা কাহিল। যন্ত্র সব কাজ করে দেবে আর সব লোকে শিল্প সাহিত্য চর্চা করবে, সেই সময়ে যে কী হবে ভাবতেই হৃৎকম্প হচ্ছে। ঃ-)


Name:  রঞ্জন          

IP Address : 238912.69.340112.207 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:01 AM

আলোচনা জমে গেছে।
একবিংশ শতাব্দীতে নতুন করে ভাবা দরকার। শুরুও হয়েছে।
গুরুজনদের আমার মত চণ্ডালএর কোশ্নঃ
১ আজকের ক্যাপিটালিজম কি মার্ক্সের ক্যাপিটাল -২ ও ৩তে বর্ণিত বা এঙ্গেলস এর ম্যাঞ্চেস্টারের বস্ত্রশিল্পের বর্ণিত ছবির সঙে মেলে?
-- কেননা অনেক গুরজন উন্নত ক্যাপিটালিস্ট দেশে থাকার এবং কাজ করার ফলে হাতে গরম এক্সপোজার পাচ্ছেন।

২ শিল্পে প্রলেতারিয়েতের সংখ্যা বাড়ছে না কমছে? মার্ক্সের সরলীকৃত মডেল-- ক্রমশঃ পুঁজির সঞ্চয় , বৃদ্ধির অতি কেন্দ্রীকরণের ফলে একদিকে হাতে গোণা বৃহৎ পুঁজিপতি আর অন্য দিকে বিশাল প্রলেতারিয়েতের ভীড় যাদের হাতের শেকল ছাড়া হারাবার কিছু নেই-- - আজ কতদূর সত্যি?

৩ আমাদের ছোটবেলার মডেল রাশিয়ায় পুঁজির সামাজিকীকরণ হয়েছিল, না রাষ্ট্রীকরণ? যদি দ্বিতীয়টি হ্যাঁ হয় , তাহলে ওই ইকনমিকে সোশ্যালিস্ট বলব কি স্টেট ক্যাপিটালিজম?

৪ শ্রমিক সোভিয়েত রাশিয়ায় পুঁজির মালিক হয়েছিল? নাকি ওয়েজ লেবার থেকে গেছল? শিক্ষা স্বাস্থ্য বাসস্থান ইত্যাদি ওয়েলফেয়ার মেজারের কথা ধরছি না । ওগুলো আজকাল অনেক উন্নত ওয়েলফেয়ার স্টেটে দ্যাখা যায় ।

৫ আজকে সমস্ত পুঁজিবাদী দেশে সরকারের নিয়ন্ত্রণ, কেইন্সীয় দাওয়াই দিয়ে ট্রেড সাইক্ল নিয়ন্ত্রণ , ইত্যাদির ফলে এবং চীন ইত্যাদি দেশে ব্যক্তিগত মুনাফা কে তোল্লাই দেয়ার ফলে ক্ল্যাসিক্যাল ক্যপিটালিজম ও সোশ্যালিজম এর বাইপোলার ছবিা বাস্তবে অনেক আবছা হয়ে গেছে কি না?




Name:  dc          

IP Address : 127812.49.011223.144 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:02 AM

অমিত, পয়েন্ট ওয়েল টেকেন ঃ-) S আর কল্লোলদাও ঠিক বলেছেন। প্রথমত, ক্যাপিটালিজম এর তো সমস্যা আছেই, আর সেই সমস্যা মেটানোর উপায়ও ক্যাপিটালিস্টদের খুঁজতে হবে, নাহলে অন্য কোন সিস্টেম চলে আসবে। তবে টেকনোলজিকাল প্রোগ্রেস এর কথা তো সোলো-সোয়ান মডেলে বলা হয়েছে, যেটাকে নিওক্লাসিকাল মডেলের মধ্যে ধরা হয়। মানে নতুন নতুন টেকনোলজি এসে ক্লোসড ইকোনমিতে লেবারের ডিমিনিশিং রিটার্ন কাউন্টার করতে পারে। বাস্তবেও সেরকমই অনেকটা হয়েছে।

আর অটোমেশান সমস্যা মনে হচ্ছে, কিন্তু লং টার্মে সেরকম নাও হতে পারে (কম্পু নিয়েও সেরকমই আশংকা করা হয়েছিল)। আমার একটা সন্দেহ হচ্ছে যে আগামী পঞ্চাশ বছরে আমরা একটা দুটো গ্রহে কলোনি বানানোর চেষ্টা করবো, তখন এইসব নতুন টেকনোলজি কাজে লাগবে আর পৃথিবীতেও পপুলেশানের চাপ কিছুটা কমবে। অবশ্য তার আগেই ক্লাইমেট ডিসাস্টার শুরু হয়ে যেতে পারে। দেখা যাক কি হয়।


Name:  dc          

IP Address : 127812.49.011223.144 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:09 AM

Atoz, এআই জীবনান্দ আর এআই রবীন্দ্রনাথ সরাসরি ল্যাম্পপোস্ট থেকে কবিতা শোনাবে তখন।

রঞ্জনদার এক থেকে চার প্রশ্নের উত্তর আমি দিতে পারবোনা, কারন মার্ক্স এক লাইনও পড়িনি, উনি ক্যাপিটাল নিয়ে কি বলেছিলেন তাও জানিনা (ক্যাপিটালিস্টরা ধ্বংস হলো বলে, এরকম কিছু একটা বলেছিলেন বোধায়)। সোভিয়েত ইউনিয়নে কি হতো তাও খুবই কম জানি, একেবারেই আবছা দুয়েকটা ব্যপার জানি।

আর আজকের বড়ো পুঁজিবাদী দেশগুলোতে কেইনসের মডেল খুব বেশী চলে না, বরং মনেটারি পলিসি বেশী চলে, যা কিনা অনেকটাই নিওলিবারাল মডেল হিসেবে খ্যাত (স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলো কিছুটা এর ব্যতিক্রম)।


Name:  রঞ্জন          

IP Address : 238912.69.340112.207 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:14 AM

্ডিসি,
ঠিক কথা । গত তিনটে দশকে ফ্রিডম্যানরা জাঁকিয়ে বসেছেন।
কিন্তু ২০০৮ এর সংকটের পরে আবার ঘুরে ফিরে অন্য নামে কেইন্সীয় প্যাকেজ। আবার জোসেফ স্টিগলিজ ও অন্যেরা বেশি প্রাসংগিক হচ্ছেন।


Name:  রঞ্জন          

IP Address : 238912.69.340112.207 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:16 AM

এবং ফ্রান্স থেকে পিকেটির কন্ঠস্বর!


Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:29 May 2019 -- 08:57 AM

৩ আমাদের ছোটবেলার মডেল রাশিয়ায় পুঁজির সামাজিকীকরণ হয়েছিল, না রাষ্ট্রীকরণ? যদি দ্বিতীয়টি হ্যাঁ হয় , তাহলে ওই ইকনমিকে সোশ্যালিস্ট বলব কি স্টেট ক্যাপিটালিজম?

সেটা ডিপেন্ড করছে যে মোট পুঁজির কতটা সেন্ট্রাল বডির হাতে ছিলো, তার উপরে। পলিটব্যুরো আর সেন্ট্রাল কমিটি যদি প্ল্যানিং কমিশানের মাধ্যমে প্রায় সব কিছুই ঠিক করে দেয়, তাহলে সেটাও সমস্যার। তার থেকে লোকাল বডিরা যদি ঠিক করে, তাহলে সেটা একটু বেশি হলেও সমর্থনযোগ্য।

৫ আজকে সমস্ত পুঁজিবাদী দেশে সরকারের নিয়ন্ত্রণ, কেইন্সীয় দাওয়াই দিয়ে ট্রেড সাইক্ল নিয়ন্ত্রণ , ইত্যাদির ফলে এবং চীন ইত্যাদি দেশে ব্যক্তিগত মুনাফা কে তোল্লাই দেয়ার ফলে ক্ল্যাসিক্যাল ক্যপিটালিজম ও সোশ্যালিজম এর বাইপোলার ছবিা বাস্তবে অনেক আবছা হয়ে গেছে কি না?

ক্লাসিকাল ক্যাপিটালিজম তো বহুদিন হলো প্রায় কোনও দেশেই নেই। এমনকি পস্চীমের যত বড়সড় দেশ রয়েছে, সেগুলো ক্রমশঃ ক্লাসিকাল থেকে সড়ে আসছে। ফ্রিডম্যান আর গ্রীনস্প্যানও এখন অতীত বলতে পারেন। গ্রীনস্প্যান ওয়াজ বেসিকালি আ লিবারেটেরিয়ান। তা ওদের এখন আর কেউ সিরিয়াসলি নেয়না। ফলে ক্লাসিকাল ক্যাপিটালিজম ও সোশ্যালিজম বাইপোলারই রয়েছে। যেটা হচ্ছে বলে মনে হয় সেটা হলো ক্রুড ক্যাপিটালিজমকে সড়িয়ে সোশালিজম ক্রমশ জায়্গা করে নিচ্ছে। সেই প্রক্রিয়াটা সহজ নয় এবং বহু বাধা বিঘ্ন আসছে। ফলে দুপা এগোলে একপা পিছতে হচ্ছে।

আমার মনে হচ্ছে যে ক্যাপিটালিজম থাকবে। কিন্তু সেটা সমাজে কি রোল প্লে করবে সেটা সোসাইটিই ঠিক করে দেবে। মানে ক্যাপিটালিজমের রসটুকু (ইনোভেশন, ওয়েল্থ ক্রিয়েশান, জবস, ট্রেড ইত্যাদি) খেয়ে বাকিটা ফেলে দাও।


Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:29 May 2019 -- 09:06 AM

ফ্রিডম্যান ওয়াজ বেসিকালি আ লিবারেটেরিয়ান।


Name:  রঞ্জন          

IP Address : 232312.176.9004523.57 (*)          Date:29 May 2019 -- 03:59 PM


এস,
"আমার মনে হচ্ছে যে ক্যাপিটালিজম থাকবে। কিন্তু সেটা সমাজে কি রোল প্লে করবে সেটা সোসাইটিই ঠিক করে দেবে। মানে ক্যাপিটালিজমের রসটুকু (ইনোভেশন, ওয়েল্থ ক্রিয়েশান, জবস, ট্রেড ইত্যাদি) খেয়ে বাকিটা ফেলে দাও।"

-- একদম। কমিউনিকেশন বিপ্লব আগের অনেক উপপাদ্যকেই অচল বা সীমিত করে দিয়েছে। আর ক্যাপিটালিজমের ক্রাইসিস থেকে ফিনিক্সের মত বেঁচে ওঠার এবং নিজেকে রি-ইনভেন্ট করার ক্ষমতা অদ্ভূত। লেনিনের 'মরিবান্ড ক্যাপিটালিজমের' ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে মনে হয় । এখনও অবিচুয়ারি লেখার সময় আসে নি ।

তাই বামপন্থাকেও আজ নিজেকে রি-ইনভেন্ট করতে হবে, নইলে "ডোডো" হয়ে যেতে হবে।


চলুন , আমরা আগামী দিনের জন্যে লিবারতেরিয়ান সোশ্যালিজম অ্যাজ পলিটিক্যাল ফিলজফি এবং মডেল হিসেবে উন্নত ওয়েলফেয়ার স্টেটের জন্যে আন্দোলন/প্রচার করি । এটাই হবে একুশে শতাব্দীর 'পোকিতো বামপন্থা '। সিরিয়াসলি!


Name:  dc          

IP Address : 670112.203.5667.139 (*)          Date:29 May 2019 -- 04:34 PM

সেই স্টেটে ফ্রি মার্কেট থাকলেই হলো।


Name:  রঞ্জন          

IP Address : 232312.176.9004523.57 (*)          Date:29 May 2019 -- 05:03 PM

ফর কঞ্জিউমার গুডস, ইয়েস!


Name:  Amit          

IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:30 May 2019 -- 02:36 AM

উন্নত ওয়েলফেয়ার স্টেট এর জন্য স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশ গুলো আদর্শ মডেল। বিশাল ট্যাক্স, কিন্তু ফ্রি মেডিকেল আর সোশ্যাল সিকিউরিটি, ওল্ড এইজ সাপোর্ট। কিন্তু এই দেশ গুলো এক দিকে হাই এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ দারুন ডেভেলপেড আর ন্যাচারাল রিসোর্সে আছে প্রচুর। এক্সপোর্ট মার্কেট বিশাল। লোক সংখ্যা কম আর লিটারেসি ১০০-%। এরা যত সহজে সোশ্যাল এক্সপেরিমেন্ট গুলো করতে পারে , জানিনা সেই মডেল রেপ্লিকেট করা একটা ইন্ডিয়া র মতো হাই পপুলেশন, লো ইনকাম, লো লিটারেসি, হাই সোশ্যাল এন্ড ইনকাম ডিসক্রিমিনেশন এর দেশে সম্ভব হবে। পাবলিক সার্ভিস গুলো জাস্ট ওভার ডিমান্ড এর চাপে বসে যাচ্ছে। নতুন মডেল চাই।

হারারি র সাপিয়েন্স বই টাতে অ্যাকচুয়াল পভার্টি আর সোশ্যাল পভার্টি নিয়ে বেশ কিছু ইন্টারেষ্টিং অবসেরভেশন আছে, ইনক্লুডিং ইন্ডিয়া। ইন্ডিয়ার মতো কাস্ট বেসড দেশে সোশ্যাল পভার্টি টা বহু ক্ষেত্রেই রেজাল্ট ইন অ্যাকচুয়াল পভার্টি ফর মেনি জেনেরেশন্স। সেখান থেকে বেরোনোর কোনো রাস্তাই পায়না কোটি কোটি লোক যতই সোজা পথে চেষ্টা করুক। শিক্ষা, ভালো চাকরি কিচ্ছু ম্যাটার করেনা বা করলেও ১-২ জেনারেশন, ব্যাস।

ইন ফ্যাক্ট কংগ্রেস এর ন্যায় প্রকল্প টা একটা দিশা দেখাচ্ছিল যদিও ভোট বাক্সে আসে নি। যদি নতুন সরকার অল্প হলেও যদি ওই ডাইরেকশন এ কাজ করে হয়তো কিছুটা চেঞ্জ আসবে। UPA সরকারের ১০০ দিনের প্রকল্প সামান্য হলেও ইমপ্যাক্ট তো ফেলেছিলো গ্রামের পপুলেশন এ। কিন্তু মোদী সরকার সুপার রিচ এর ওপর ট্যাক্স বাড়াবে, বা ডিফেন্স বাজেট কমাবে কেও আশা করে না। শুরুটা কোথা থেকে হবে, সেটাই কোশ্নো।



Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:30 May 2019 -- 03:24 AM

দুটো কথা শিখিয়েছিলো।

১) ভারতে একজন নীচুজাতির হলে তার গরীব হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর ভারতে একজন মুসলমান হলে তার গরীব হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

২) ইন্ডিয়া ইকনমিক রিভোলিউশানের সময় একটা স্টেপ মিস করে গেছে। কৃষিকে সাধারণতঃ শিল্প রিপ্লেস করে। শিল্পকে রিপ্লেস করে সার্ভিস। ইন্ডিয়ায় কৃষিকে একবারেই সার্ভিস রিপ্লেস করে দিয়েছে। জিডিপিতে এক ধাক্কায় কৃষি অনেকতা কমে গেছে আর সার্ভিস বেড়ে গেছে। ফলে খুব কম লোক দারুন চাকরিবাকরি-লাইফস্টাইল পেয়ে গেছে। কিন্তু মাস জনতার বিভিন্ন কলকারখানায় যে ওয়েল পেয়িঙ্গ ফুল-টাইম জব পাওয়ার কথা ছিল, সেটা হয়নি। জনসংখ্যার একটা বিশাল অংশ লোক কম ইনকামের কৃষিকাজে আটকে রয়েছে।


Name:  S          

IP Address : 458912.167.34.76 (*)          Date:30 May 2019 -- 03:25 AM

* অনেকটা


Name:  Amit           

IP Address : 340123.0.34.2 (*)          Date:30 May 2019 -- 03:56 AM

আবাপতে কদিন আগেই এই আর্টিকেল টা এসেছিলো। ইন্টারেষ্টিং লাগলো পড়ে।

ইন্ডিয়া এর পরে মিডল ইনকামের ট্রাপ এ আটকে যেতে পারে। এক্সপোর্ট সেভাবে বাড়ে নি, এখন ডোমেস্টিক ডিমান্ড ও একটা রেট এ পৌঁছে গেছে, আর নাও বাড়তে পারে। যদি সত্যি সে পথে যায়, তাহলে বেশ ভালো রিস্কি হবে যেকোনো সরকারের পক্ষে।

সার্ভিস সেক্টর বা IT ডিমান্ড কিরকম বাড়বে জানা নেই। নেক্সট কয়েক বছর ভালো মতো টেকনোলজি, অটোমেশন ডিসটার্বান্স আসতে চলেছে। আগের রেট এ বাড়বে না সেটা প্রায় নিশ্চিত।

https://www.anandabazar.com/business/it-will-take-a-long-journey-for-i
ndia-to-become-middle-income-nation-1.485423



Name:  কল্লোল          

IP Address : 342323.191.3456.108 (*)          Date:30 May 2019 -- 06:32 AM

বিষয়টা কি শুধু ভারতের অর্থনীতির সমস্যা?
আজ যদি বিষয়টা পরিবেশের জায়গা থেকে দেখতে হয়, তবে লং টার্ম সলিউশন কি? শিপ্লের সমস্ত সেক্টরে নতুন ইকো ফ্রেন্ডলি টেকনোলজি। তারও তো একটা মিনিমাম সময় লাগবে। ততোদিনে পরিবেশের সমস্যা আরও জটিল হয়ে উঠবে কি?



Name:  রঞ্জন          

IP Address : 232312.176.9004523.57 (*)          Date:30 May 2019 -- 01:08 PM

অমিত,
এটা মোদীর ইকনমিক অ্যাডভাইসার রথীন রায় মশায় ক্রমাগত বলছেন যে আম্মাদের অর্থনীতি এক্ষণ জে গাড্ডায় পড়েছে তাতে চিনের সঙ্গে তুলনা চলবে না । জিডিপির কার্ভ হবে প্ল্যাটু'র মত। তুলনা হবে ব্রাজিল, ভেনেজুয়েলা এবং সাউথ আফ্রিকার সংগে।


Name:  কল্লোল          

IP Address : 232312.163.01.254 (*)          Date:31 May 2019 -- 11:39 AM

এখানে কথাবার্তা থেমে গেলো কেন?
বেশ ভালো চলছিলো।


এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2]     এই পাতায় আছে7--37