এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--5


           বিষয় : পাদ বিষয়ে দু চারটি কথা
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন :কৌশিক
          IP Address : 57.11.4.201 (*)          Date:18 May 2017 -- 07:34 PM




Name:  কৌশিক          

IP Address : 57.11.4.201 (*)          Date:18 May 2017 -- 07:35 PM

পাদ নিয়ে দুচার কথা যা আমি জানি
******************************
উচ্চমাধ্যমিকে বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসের শুরুতেই বেজায় গন্ধ ছড়াত। চর্যাপদের লেখকদের নাম এলেই ক্লাসে ফিসফিস আওয়াজ (হাসির)শুরু হয়ে যেত।লুইপাদ কাহ্নপাদ ইত্যাদি নামের শেষ অংশতে যদি বা হাসি এড়ানো যেত, ভুসুকুপাদ শোনার পর সে হাসি বাঁধ ভাঙত।আমার এক বন্ধু বলেছিল ভুসুকুপাদ নাকি আসলে খুব খারাপ আর কুৎসিত ধরণের গন্ধযুক্ত পাদ-যা দিতেন বলে লেখকের অমন নাম। ইস্কনের প্রভুপাদকে নিয়েও অনেকের অনেক হাসি শুনেছি। প্রভুর গ্যাস হয়েছে আর তাই তাঁকে হালকা হবার পরামর্শ দেওয়া হচ্চে-এই নাকি কনসেপ্ট।

আসলে পা বা পদ অর্থে পাদ শব্দের ব্যবহার অতি প্রাচীনকালেই সংস্কৃতে ছিল। গ্রীক আক্রমনের সময় তাঁরা পায়ু নির্গত বায়ুর জন্য একটি শব্দ রেখে গেলেন-শব্দটি হল πέρδομαι যা উচ্চারণে হয় perdomai। ল্যাটিনে একেই বলা হত pēdĕre যা থেকে সংস্কৃতে পার্দেৎ ও পরে পার্দন শব্দটি আসে।এই পার্দনই আসলে পাদ শব্দের উৎস। আবার কি মজা দেখুন এই ইন্দো ইউরোপীয় শব্দ যখন জার্মন ভাষায় পরিবর্তিত হল, তখন গ্রিমের সূত্র মেনে ( হ্যাঁ সেই বিখ্যাত ভাষাবিদ ভিলহেলম গ্রিম যিনি একটা রূপকথার বইও লিখেছিলেন) p পরিবর্তিত হয় f এ আর d হয় t তে। ফলে pardet হয়ে যায় fartet। এই fartet সরাসরি ইংরাজিতে ঢুকে যায়। ইংরাজি ভাষার প্রাচীনতম শব্দের মধ্যের একটি এই fartet বা fart.

মধ্যযুগের ইংরাজী গান Summer canon এ দেখি গ্রীষ্মকাল আসার অন্যতম লক্ষণ নাকি এই সময় the buck farts..হরিণ পাদে। চসারের ক্যান্টারবেরি টেলসে তো এই পাদকে কেন্দ্র করে লম্বা কাহিনি আছে। অ্যাবসোলন নামে এক যুবক অ্যালিসন নামের একটি মেয়ের প্রেমে পড়ে। সে তাঁকে বলে রাতের অন্ধকারে জানলায় দাঁড়াতে, সে তাঁর মুখচুম্বন করবে। খবর পেয়ে অ্যালিসনের প্রেমিক জানলায় নিজ নিতম্ব বার করে বসে থাকে এবং অ্যাবসোলন চুমু খেলে এক মোক্ষম ভুসুকুপাদে তাঁকে ধরাশায়ী করে। গল্পটি ঐতিহাসিক। এর পর থেকেই ইংরাজিতে kiss the buttock বা পরে kiss the ass চালু হয়।
কেন জানি না তার পরপরই সাহিত্যে শব্দটি ব্যবহার বন্ধ হয়ে গেল। লোকমুখে প্রচলিত থাকলেও সাহিত্যে ভদ্দরলোকি flatulance ব্যবহার হত।অনেক বাদে উনবিংশ শতকে স্যামুয়েল জনসন যখন ডিকশনারী বানালেন তখন তিনিই প্রথম এ শব্দকে অভিধানে স্থান দেন।

তবে মানুষকে জব্দ করতে "মুখে পেদে দেওয়া"র জুড়ি নেই। সেই ১৫৪৫ সালে মার্টিন লুথার তাঁর প্রটেস্টান্ট ধর্ম নিয়ে লেখা বইতে পোপকে চরম ব্যাঙ্গ করেন। সেখানেই এক ছবিতে দেখা যায় সাধরণ মানুষ পোপের মুখে পেদে দিয়ে যাচ্ছে।

পাদ বললে দুটো ব্যাপার আসে। এক-অদ্ভুত এক শব্দ। যাকে ইংরাজিতে raspberry brust বলে আর দুই- শব্দের সঙ্গী গন্ধ। একে আবার রহস্য করে সাহেব মেমরা বলেন who cut the cheese? পচা চিজের গন্ধের সাথে নাকি পাদের গন্ধের প্রচুর মিল। এই গন্ধটা না থাকলেই পাদ নিয়ে এত লুকোচুরির কিছু থাকত না। লোকে কাশির মত পাদ দিত। গড় পাদে ৫৯% নাইট্রোজেন, ২১% হাইড্রোজেন,৯%কার্বন ডাই-অক্সাইড, ৭% মিথেন, ৩% অক্সিজেন থাকলেও গন্ধ হয় ১%এরও কম থাকা হাইড্রোজেন সালফাইডের জন্য। তাই মুলো বা সালফার প্রধান খাদ্য খেলে স্বাভাবিক ভাবেই পরিবেশ বেশি দূষিত হয়। এইমাত্র আমি একটা ভুল কথা বললাম। নেচার পত্রিকায় বিজ্ঞানীরা বলছেন পাদের এই হাইড্রোজেন সালফাইডের নাকি ক্যান্সার প্রতিরোধ ক্ষমতা অসীম। তাই দিনে গড়ে ১৪ বার ৭ মাইল প্রতিঘন্টা বেগে নির্গত পাদ সেবন করুন। আমাদের নতুন স্লোগান হোক

SMELL FOURTEEN FARTS A DAY, KEEPS THE DOCTOR AWAY.


Name:  dc          

IP Address : 132.164.76.75 (*)          Date:18 May 2017 -- 07:58 PM

আহা স্কুলজীবনের অনেক কথা মনে পড়লো। উচ্চমাধ্যমিকের সবচাইতে ভয়াবহ বিষয় ছিল বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস, কিন্তু এই লুইপাদ, প্রভুপাদ আর ভুসুকুপাদরা সেটা কিছুটা সহনীয় করে রাখতেন ঃ)


Name:  অ          

IP Address : 52.110.154.129 (*)          Date:18 May 2017 -- 10:09 PM

মনুসংহিতাতে শূদ্রের অতি কড়া শাস্তির বিধান আছে - ব্রাহ্মণের গায়ে বাতকম্ম করলে.. প্রথম জেনে মজা লেগেছিলো!! তার মানে এই সম্ভাবনাটা ছিলো যাকে আটকাতে বিধান দিতে হলো :-)


Name:  SD          

IP Address : 193.82.35.109 (*)          Date:20 May 2017 -- 12:45 AM

অসাধারন পুরো farta-farti ঃ)


Name:   Souvik Bez           

IP Address : 113.16.208.170 (*)          Date:20 May 2017 -- 01:55 AM

চমত্কার এত দিন পেদেছি কিন্তু পাদের ইতিহাস এতদিনে জানলাম | আচ্ছা স্লোগান এরকম হলে কেমন হত
' আপনার পাদ একটি প্রাণ বাঁচাতে পারে ,
তাই পাদুন ও প্রাণ বাঁচান '

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--5