এই আমাদের হ-য-ব-র-ল, রূপকথারা, টুকরো-টাকরা আর চায়ের কাপের তুফান। পড়ুনঃ নতুন বিষয়ঃ শেকড়ের সন্ধানে

এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14]     এই পাতায় আছে372--402


           বিষয় : আমেরিকায় দশ বছর।
          বিভাগ : অন্যান্য
          বিষয়টি শুরু করেছেন : Monorama Biswas
          IP Address : 71.167.46.249          Date:15 Sep 2011 -- 07:27 AM




Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 07:29 PM

পুজো , বইমেলা, বিয়ে টিয়ে তো আছেই।
কিন্তু ঠেক মারার জায়গা, ক্যাম্পাস লাইফ এদুটো সবচে বেশি করে সত্যি। সত্যি মিস করার মত। দেশে পড়াশুনার সময় যে লাইফ কাটিয়েছি ( পড়াশুনার বাইরে), সেটা এখানে কাটালে জীবনে মস্ত বড় কিছু মিস হয়ে যেত।আমার মনে হয়।



Name:  rimi           Mail:             Country:  

IP Address : 75.76.118.96          Date:18 Sep 2011 -- 08:15 PM

আরে রিদ্ধিবাবু আমারে গ্যাংলিডার বানিয়ে দিয়েছে দেখছি! ভেরি গুড :-)

তবে যাই বলো বাপু, তোমরা আমারে উস্কে দিতে পারবা না। আমার যতটুকু বলার ততটুকু বলবো, আর শুধু ততটুকুই বলব :-)))



Name:  Tim           Mail:             Country:  

IP Address : 173.163.204.9          Date:18 Sep 2011 -- 10:10 PM

তাতিনের পোস্ট লাইকালাম। তবে সবার এত খারাপ অভিজ্ঞতা হয়না। আমরা তো প্রথম দুবছর হস্টেলে থাকার মত করে থেকেছি। উত্তাল আড্ডা ( ক্যাম্পাসে এবং ঘরেও) মেরেছি, প্রচুর সিনেমা দেখেছি। দেশে থাকলে আমি কখনও গুরুচন্ডালীতে এসে আড্ডা মারতাম না। খুঁজতামই না। সেটা বড়ো প্রাপ্তি।
নিরাপত্তা, আর্থিক সঙ্গতি, এগুলো স্টেট টু স্টেট ভ্যারি করে। আমার ফ্র্যাঙ্কলি কোনোদিন মনে হয়নি আমি অত্যন্ত গরীব। বরং ইন্ডিপেন্ডেন্স তৈরী হয়েছে সেটার জন্য ভালো লাগে। এত দেশের মানুষের সাথে যোগাযোগ হত কোনোদিন, দেশে বসে থাকলে?

বাকি তাতিন যা বলেছে, পার্সোনাল লস তো থাকবেই। সেসব প্রচুর আমাদের সবার। কিন্তু এখনও মনে হয়, ওয়র্থ ইট। কটা বছর বই তো নয়।



Name:  nyara           Mail:             Country:  

IP Address : 122.172.214.128          Date:18 Sep 2011 -- 10:14 PM

আমি যে ক্যাম্পাসে কাটিয়েছি (মার্কিন), খুব সেফ, ঠেক মারার জায়গাও যথেষ্ট, মেরেওছি।

রান্না শেখার থেকেও আমার অনেক বড় প্রাপ্তি অভিজ্ঞতা আর স্বাবলম্বি হতে শেখা। প্রথম দু-চার বছরের শিক্ষা ভাঙিয়ে বিদেশের বাকি বারো-তেরো বছর কাটিয়েছি।



Name:  rimi           Mail:             Country:  

IP Address : 75.76.118.96          Date:18 Sep 2011 -- 10:46 PM

তাতিনবাবু লুইসিয়ানার না? ঐ ক্যামপাসটা সত্যি খুব বাজে জয়গা, নিরাপত্তা কম। আমিও ওখানেই চার বছর কাটিয়েছি, তার মধ্যে শেষের দু বছর একদম একা থাকতাম, আর শেষের সাতমাস প্রেগ্ন্যান্ট ছিলাম। একাই। কিন্তু আমেরিকা বলেই কোনো অসুবিধা হয় নি। ইউনিভার্সিটির হেলথ সেন্টারে অবস্ট্রেটিক্স বিভাগ ছিল না, তাই চেকাপের জন্যে যেতে হত ১৫ মাইল দূরের উইমেন্স হস্পিটালে, একাই, গাড়ি চালিয়ে। দু তিনবার এমার্জেন্সি হওয়াতে রাত বারোটা, একটাতেও ঐ হসপিটালে গেছি, সেও একেবারে একাই, নিজেই গাড়ি চালিয়ে। পিএইচডি ডিফেন্ড করেছি, সাড়ে সাত মাস চলছে তখন। সব একাই সামলেছি। তাই বিদেশবাসে আমারো বিরাট প্রাপ্তি এই স্বাবলম্বী হবার শিক্ষা। এখন কোনো পরিস্থিতেই ঘাবড়াই না, ভয় পাই না।

আর একা সবকিছু সাফল্যের সঙ্গে করে ফেলতে পারার যে স্যাটিসফ্যাকশন, সেটাও আমার কাছে খুব বড় পাওয়া।



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 11:01 PM

দেশে পড়াশুনা করার সময় বিদেশে যেক'বার যেতে ও থাকতে হয়েছে, স্বাবলম্বী হয়ে সব কিছু করে ফেলার কোটা তখনই খতম করে ফেলেছি :)

আর টিম, দেশে থাকতেও আমি শেষের দিকে নেট ঠেকে চলে এসেছিলুম। আমি তো অনে্‌ক পরে, আমার আশেপাশের লোকজন আরো অনেক আগে। ইন ফ্যাক্ট রিজার্ভেশন নিয়ে সে কি তক্কো, ইন্‌স্‌টটিউটের অর্কুট ফোরামে। ইয়ুথ ফর ইকুয়ালিটির প্রোগ্রামে যাওয়া আটকানো ইত্যাদি সব ভার্চুয়াল ফোরাম থেকেই হয়েছিল। একি ল্যাবের দু'জন পাশাপি্‌স্‌শ টার্মিনালে বসে থেকে ফোরামে একে অন্যের বিরুদ্ধে তর্ক করতো। তার আগে হয়তো তাদের জানাই ছিল না, এই ইস্যুতে তারা এত ভিন্নমত। :) এই ভার্চুয়াল তর্ক গুলো তারপর ক্যান্টিনের টেবিলে ট্রান্সফার হত।

এই নেট ঠেকগুলোর দৌলতে দেশে থাকতেও নানা দেশের মানুষের সাথে যোগাযোগ হওয়া এখন রুটিন ব্যাপার।



Name:  rimi           Mail:             Country:  

IP Address : 75.76.118.96          Date:18 Sep 2011 -- 11:03 PM

পাই, তবে আর বিদেশে এলি কেন? :-))



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 11:07 PM

বিদেশে এসেছি কিছু কাজ করব,এখান থেকে কিছু কাজ শিখব বলে। ট্রেনিং নেবো বলে।
স্বাবলম্বী হতে শিখবো বলে থোড়াই এসেছি।



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 11:09 PM

কিম্বা নেটে বসে নানা দেশের মানুষের সাথে যোগাযোগ করবো বলেও না।
পাকেচক্রে অবশ্য তাই হয়ে চলেছে :)

তবে সেটা দেশে থাকলেও হত। হয়ত একটু দেরিতে, একটু কম।



Name:  Tim           Mail:             Country:  

IP Address : 173.163.204.9          Date:18 Sep 2011 -- 11:11 PM

যাক্কলা, শুধুই স্বাবলম্বী হতে কে বিদেশে এসেছে? এরকম কোন ডিপারমেন আছে নাকি? ( হতবাক হবার ইমোটিকন)



Name:  Tim           Mail:             Country:  

IP Address : 173.163.204.9          Date:18 Sep 2011 -- 11:12 PM

বা স্রেফ বিভিন্ন দেশের লোকজনকে মিট করতেই বা কে বিদেশে পড়াশুনো করতে আসে! ( আরো হতবাক)



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 11:13 PM

হ্যাঁ, আমিও তো রিমিদির প্রশ্নে অবাক ই হলাম।
স্বাবলম্বী হওয়া আর বিদেশের মানুষের সাথে যোগাযোগ আগেই ঘটে গিয়েছিল বা দেশ থেকে হওয়া সম্ভব বলাতে তালে কেন আর এদেশে এলাম জিগালো বলে :)



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 72.83.92.218          Date:18 Sep 2011 -- 11:14 PM

'তবে আর কেন' কেন এল ? এর পর আরো আরো হতবাক ইমোটিকন হবেনা ? :)



Name:  rimi           Mail:             Country:  

IP Address : 75.76.118.96          Date:18 Sep 2011 -- 11:19 PM

আরে আমি পাতি ইয়ার্কি মারছিলাম :-)) ভালো করেই জানি তোরা কেন বিদেশে এসেছিস।



Name:  ppn           Mail:             Country:  

IP Address : 112.133.206.18          Date:18 Sep 2011 -- 11:20 PM

দ্যাখেন, কিছু এনারাইয়ের লিখনী পড়লে মনে হয় বোস্টন থেকে বরানগর এই বাইরে যে একটা দুনিয়া আছে তার খবর তারা রাখে না।

"দেশ' মানে কি শুধুই পারিবারিক ভদ্রাসন? বা নিজের রাজ্যের গণ্ডিটুকু?



Name:  Tim           Mail:             Country:  

IP Address : 173.163.204.9          Date:18 Sep 2011 -- 11:20 PM

পাই, সবার কাছে সম্ভব না। বল্লামই তো আমি গুরুচন্ডালী, বা-লা নেট-ঠেক এসবের নামই শুনিনি। তবে এসবও বোনাস। জাস্ট এটা বোঝাতেই বলা, যে অনেক কিছু হারানোর মধ্যেও কিছু কিছু জিনিস বোনাস হিসেবে পেয়েওছি।
এত ভালো পড়াশুনো করার পরিবেশ ও সুযোগ দেশে থাকতে পাইনি । তাই বললাম, প্রাপ্তিও অনেক, এবং একটুও রিগ্রেট করিনা।



Name:  nk           Mail:             Country:  

IP Address : 151.141.84.194          Date:19 Sep 2011 -- 12:12 AM

আহা চোখের সামনে দেখতেও তো ইচ্ছে করে! শুধু ভার্চুয়ালে কি প্রাণ ভরে? হ্যান্ডশেক বা কোলাকুলি করতে ইচ্ছে করে, সামনাসামনি কথা কইতে ইচ্ছে করে, কোনোকিছু শুনে তাদের চোখমুখ কেমন হলো তা দেখতে ইচ্ছে করে, কোনো কিছু বুঝতে চেয়ে তাদের মন কেমন উন্মুখ হলো, বুঝতে পেরে কেমন শান্তি শান্তি হলো---এসব কি ভার্চুআলে হবে?
এই পাশাপাশি দুধসাদা দীর্ঘকায় সুইডিশ, কৃষ্ণাঙ্গ ভীষণ কোঁক্‌ড়ানো চুল দীর্ঘ স্লিম নাইজিরিয়ান, কোমল বাদামী স্প্যানিশ, স্বর্ণসাদা ক্ষুদ্রচক্ষু খর্বনাসা অতি ছোটো ছাঁটা চুল চাইনিজ, উজ্জল শ্যাম শান্তমুখ মধ্যমদীর্ঘ উপমহাদেশীয়---এত এত ছেলেমেয়ে পাশাপাশি হাতে হাতে কাজ করছে, কথা কইছে, এ কী ভার্চুয়ালে বোঝা যাবে?




Name:  kd           Mail:             Country:  

IP Address : 59.93.247.117          Date:19 Sep 2011 -- 12:15 AM

ধুর! আমেরিকায় এলে স্বাবলম্বী হতে হবে কেন? আমি তো চল্লিশ বছরেও হলুম না। ইচ্ছে থাকলেই না হওয়া যায়। অবিস্যি তার জন্যে তেমন বরাত নিয়ে জন্মাতে হয়। :)

আর কলেজ-লাইফের তুলনাটা একটু ""আম আর জাম'' এর মতো হচ্ছে। দেশের অভিজ্ঞতা মোস্টলি আন্ডারগ্র্যাড লেভেলে আর এখানে পোস্ট-গ্র্যাড লেভেলে (মনে হয় না তোমরা কেউই এখানে আন্ডারগ্র্যাড করেছো)। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে সঙ্কোচ করাও বেড়ে যায় (একটা পাঁচ বছরের শিশু যত তাড়াতাড়ি বন্ধু পাতাতে পারে, একটি পনেরো বছরের ছেলের অনেক বেশী সময় লাগে)। তা ছাড়া গোড়ায় একদম নতুন পরিবেশ, সবসময় ইঞ্জিরি বলা, এ'সব তো আছেই।




Name:  tatin           Mail:             Country:  

IP Address : 117.197.65.251          Date:19 Sep 2011 -- 08:34 AM

নাহ্‌, আন্ডার গ্র্যাড- পোস্ট গ্র্যাড গোলানো হচ্ছে না। যাঁরা দেশ থেকে পিএইচডি করেছেন ফারাকটা বলতে পারবেন। আমি নিজে মাস্টার্সের সময়ে যেটা দেখেছি- পিএইচডি আর এমটেকরা মোটামুটি একই রকম জীবন কাটায়- হোস্টেলের আড্ডা, মালের ঠেক, ক্যান্টিন, ভলিবল-ফুটবল-বাইরে খাওয়া মিলিয়ে। সেই ব্যাপারটা বিদেশে গ্র্যাড স্টুডেন্ট লাইফে ১% ও পাইনি।



Name:  lcm           Mail:             Country:  

IP Address : 69.236.168.211          Date:19 Sep 2011 -- 01:11 PM

পৃথিবীর সব দেশেই স্টুডেন্ট লাইফ কমবেশী একরকম - ঐ যেরকম তাতিন লিখেছে। ইউএস-তেও ৯৯% স্টুডেন্ট এরকমই স্টুডেন্ট লাইফ কাটায় - আড্ডা, ঠেক, খেলা, পড়া, সিনেমা, অ্যাসাইনমেন্ট, ... এই সব নিয়েই।
তাতিন মনে হচ্ছে ১% মধ্যে ।




Name:  Biplab Pal           Mail:             Country:  usa

IP Address : 63.118.38.200          Date:26 Sep 2011 -- 09:31 PM

একজন দেখলাম আমেরিকাতে দারিদ্র নিয়ে লিখেছে। ওটা ভীষন ভাবে লেখা উচিত।

আমি এদেশে এসেছি পি এই চ ডি শেষ করে, বেশ ভাল মাইনার চাকরী নিয়ে। এদেশে টাকা থাকলে, কষ্ট লাঘব-তাই গ্রাড স্টুডেন্টদের ফাইটিং লাইফ দেখেছি। টাকার থেকেও ওদের বেশী কষ্ট হত, গার্লফ্রেইন্ড না থাকার জন্যে। আমি যখন চাকরিতে ঢুকলাম আমেরিকাতে, আমার অনেক বন্ধুর পি এই চ ডিতে শেষ বছর। সেই সূত্রে ওদের ডর্ম লাইফ কিছুটা দেখেছি। আই আই টিতে এর থেকে আমি অনেক ভাল রিচার্চ লাইফ কাটিয়েছি- গার্লফ্রেইন্ড, কোচিং সেন্টারের ব্যবসা, রাজনীতি -গবেষণা সব কিছু নিয়ে এক বিরাট কর্মবহুল জগতে ছিলাম দেশে । আমেরিকাতে আসতে ভালো মাইনের কল্যানে গরীব হলাম না, কিন্ত বাকী সব জগত হারিয়ে গেল। সেখানে এল স্টার্টাপের চাপ-চোখের সামনে লে অফ। নিউ জার্সিতে নরেন্দ্রপুরের ৯ জন স্কুলমেট ছিল-তাই উইকেন্ডগুলো মাল খেয়ে আর ফুটবল খেলে ভাল কেটেছে। ক্যালিফোর্নিয়ার দিনগুলো বরং অনেক ভাল কেটেছে। চাকরির কল্যানে ক্যালিফোর্নিয়া এফোঁর ওফর করে ঘুরতাম। ওটা দারুন প্রাপ্তি জীবনে। সামাজিক সার্কল ছিল ছোট-ভিন্নমত ওখান থেকেই শুরু করি।

তবে আমেরিকান জীবনে দারিদ্রটা বাস্তব। টাকা উপায়ের বিচারে আমেরিকার ওপরে স্তরে থেকেও, মনে হয় না এখানে খুব ভাল লাইফস্টাইলে আছি। সকাল থেকে রাত অব্দি খাটি। ঘাস কাটতে হয় সপ্তাহে তিন দিন। বাথরুম থেকে সব কিছু নিজেদেরই পরিস্কার করতে হয়। রাজনীতিতে আমরা ইন্ডিয়ান আউটরিচ কমিটির তস্য সদস্য। বাম ডান-কেঐ খুব একটা পাত্তা দেয় না। মিলিয়ান ডলার পার্টি ফান্ডে যেদিন দেওয়ার ক্ষমতা হবে, সেদিন হয়ত দেবে! বাঙালী পার্টি করার সময় নেই-এই ব্যস্ততার মাঝেও অনেক কিছু চালাচ্ছি। দেখা যাক। আমেরিকার জীবন আহামরি ভাল কিছু না। শুধু বৌরা এই দেশ ছাড়তে চায় না।



Name:  rimi           Mail:             Country:  

IP Address : 168.26.205.19          Date:26 Sep 2011 -- 10:01 PM

আমেরিকার জীবনের নেগেটিভ দিকটা বেশ মজার কিন্তু - নিজের কাজ নিজে করা। :-))) বড় মাইনের চাকুরী করা মানুষজন কোথায় অন্যলোককে পয়সা আর হুকুম দিয়েই দায়িত্ব শেষ করবে, তা নয়, সব নিজেকেই করতে হয়! এরকম একটা দেশ পৃথিবীতে কেন যে থাকে, আর বৌরা কেন যে এত খাটুনি সঙ্কেÄও এই দেশটাকে নিজের দেশের থেকেও বেশি পছন্দ করে ফেলে সেটা একটা ভাববার বিষয় নয়?? :-((




Name:  Biplab Pal           Mail:             Country:  usa

IP Address : 63.118.38.200          Date:26 Sep 2011 -- 10:10 PM

বৌরা কেন এদেশটাকে ভালবাসে বেশী? কারন শাশুড়ির উৎপাত নেই। হাফপান্ট পড়ে ঘুরলে কেও বকবে না। বর ডিভোর্সের ভয়ে চাকর হয়ে থাকবে। মোদ্দা কথা আইন এবং সমাজ এদেশে মেয়েদের অনেক বেশী
সুবিধা দিচ্ছে। ছেলেদের জন্যে আমেরিকা বেশ খারাপ।



Name:  Sibu           Mail:             Country:  

IP Address : 122.175.11.26          Date:26 Sep 2011 -- 10:12 PM

নিজে নিজেই সব কাজ করতে হয় এটা সবসময় সত্যি নয়। আজকেই এক জনতার সাথে কথা হচ্ছিল। সে সিয়াটলে থাকে। এখন নাকি সিয়াটলে মাসে এই ১৫০০ ডলার মত দিলে সারাদিন কাজ করার মত লোক পাওয়া যাচ্ছে। রিসেশনের ঠ্যালায় পুরো ব্যাপারটা কোথায় গিয়ে ঠেকবে বলা মুশকিল।



Name:  Biplab Pal           Mail:             Country:  United States

IP Address : 69.250.67.136          Date:27 Sep 2011 -- 04:48 AM

1500 ?? এখানে ৪০০ ফেললেই নেপালি বা পাকিস্তানি আয়া পাওয়া যাচ্ছে। সপ্তাহে তিনদিন এসে সব করে দেয়। সেটাও আরেক পিয়ার প্রেসার। বৌ বার বার কথাটা তোলে, আমি চেপে যাচ্ছি। ভারতীয় বাড়িগুলোতে এসব আজকাল স্টাটাস এখানে।

আমেরিকার অর্থনীতি বেশ খারাপ। অনেক স্টেটে কোন চাকরিই নেই। ২-৩ ডলারে ভুড়িভোজ দিচ্ছে।



Name:  Sibu           Mail:             Country:  

IP Address : 122.175.11.26          Date:27 Sep 2011 -- 08:36 AM

১৫০০ মানে সপ্তাহে পাঁচ দিন, দিনে ৮-১০ ঘন্টা। রান্না করবে, বাসন মাজবে, কাপড় কাচবে, ঘর ঝাড়ু দেবে, ইত্যাদি। ঐ দেশের কম্বাইন্ড হ্যান্ড যাকে বলে। দরকারে বাচ্চাও ধরবে। শুধু গাড়ী চালাবে না।

এবং প্রফেশনালদের একটা বড় অংশ (এই আমাদের এজ গ্রুপ) এটা অ্যাফোর্ড করতে পারে। বিশ বছর আগে যখন আম্রিকা এসেছিলাম তখন দেশটার এই দুর্গতি ভাবাই যেত না। মনে আছে, ফরেন স্টুডেন্ট ওরিয়েন্টেশনে বলেছিল - তোমাদের অনেকেই দেশে চাকর-বাকরে অভ্যস্ত। কিন্তু আমেরিকায় সেটা রেয়ার ব্যাপার। আমরা দেশ হিসেবে ইগালিটারিয়ান। আর সেটা নিয়ে আমরা গর্ব বোধ করি। এখন সেই জুলিকে (আমাদের ফরেন স্টুডেন্ট অ্যাডভাইসর) পেলে কোশ্নো করতাম এখনো আম্রিকা ইগালিটারিয়ান বলে গর্ব হয় কিনা।



Name:  dukhe           Mail:             Country:  

IP Address : 122.160.114.85          Date:27 Sep 2011 -- 10:36 AM

আমাদের এক ম্যানেজার কলকাতা থেকে মার্কিন মুলুকে পাড়ি দেওয়ার সময় বলেছিলেন - দেড় দু কোটি না হলে ফিরছি না ।
বছর দশেক পর কেউ জিজ্ঞেস করল - ফিরবেন না ? অ্যাদ্দিনে তো -
- না:, বউ বলে কলকাতায় ধুলো, বালি, শাশুড়ি -



Name:  pi           Mail:             Country:  

IP Address : 128.231.22.133          Date:12 Nov 2011 -- 12:32 AM

এটা পড়ে ইন্টারেস্টং লেগেছিল।

http://www.thedailybeast.com/newsweek/2011/05/15/in-nyc-suketu-mehta-s
ees-that-immigration-works.html




Name:  seema           Mail:  banerjeelotus08@gmail.com           Country:  US

IP Address : 76.184.55.193          Date:01 Dec 2011 -- 09:33 PM

দারুন লাগছে এই পাতাগুলি ... ধন্যবাদ



Name:  I           Mail:             Country:  

IP Address : 14.99.87.45          Date:02 Dec 2011 -- 12:29 AM

তাতিনের পোস্টটা পড়ে মন খারাপ হয়ে গেল। নিজের ছোট্ট ইংল্যান্ড-বাসের সঙ্গে রিলেট করতে পারলাম।



Name:  kd           Mail:             Country:  

IP Address : 59.93.212.92          Date:02 Dec 2011 -- 09:00 PM

আমার লেখার ভুলে তাতিন ঠিক বুঝতে পারেনি। আমি বলতে চেয়েছি যে তোমরা সকলেই (তাই তো মনে হয়) ও'দেশে লেখাপড়া শুরু করেছো গ্র্যাড লেভেলে, হোয়্যারঅ্যাজ দেশে শুরু করেছো আন্ডারগ্র্যাড লেভেলে (তাই বা কেন, নার্সারি স্কুল থেকে)। তফারেন্স হ্যাস।

এ'ছাড়া তোমরা বেশীর ভাগই নেকাপড়া করতে গ্যাছো - অ্যাকাডেমিক সারাউন্ডিং, লেখাপড়ার চাপ, বাজেটের চাপ, নিজে রান্নাবান্না করার চাপ, সেইসব সামলে সোশ্যালাইজিংএ সময় বার করাও নট সোজা, স্পেশালি গোড়ার দিকে।
সে'জায়গায় আমরা যারা কম বয়সে ও'দেশে চাকরি করতে গেছি, লাইফ পুরো অন্যরকম - কাজ শেষে পুরো ফ্রি, পকেটে গত হপ্তার মাইনে (ওই বয়সে পয়সা জমানোর কোন প্রেসার নেই, পুরো ইট, ড্রিঙ্ক অ্যান্ড বি মেরি) - বার নাইটক্লাব রাত দু'টো অব্দি খোলা (বস্টনের ক্লাবগুলোতে দু'টাকা কভার চার্জ, ফার্স্ট ড্রিঙ্ক ফ্রি) - ফুল মস্তি। বন্ধুত্ব হ'তেও খুব টাইম লাগে নি, যদিও গোড়ায় ইঞ্জিরি বলা নিয়ে একটু অসুবিধে ছিলো। তবে আমেরিকার মেয়েরা সত্যি খুব হেল্পফুল, সঙ্কোচ কাটতে বেশী সময় লাগে নি।
তবে হ্যাঁ, আমার সমসাময়িক সকলেই যে পেরেছে, তা নয়। আমারই বয়সী যদুপুরের একজন খুব বোর হ'তো - আমি মাঝেমধ্যে টেনে নিয়ে গেলেও। হয়তো ওর পার্সোনালিটি (মনে হয় না যদিও, ও তো বলতো কলেজে ও নাকি দারুণ আড্ডাবাজ ছিলো) বা ও আমার মতো পাঁচ বছর হোস্টেলে কাটায় নি।


এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14]     এই পাতায় আছে372--402