এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16]     এই পাতায় আছে433--463


           বিষয় : নির্মল আনন্দ
          বিভাগ : অন্যান্য
          বিষয়টি শুরু করেছেন : pi
          IP Address : 72.83.82.169          Date:05 Aug 2010 -- 09:20 AM




Name:  Ekak          

IP Address : 24.96.50.109 (*)          Date:01 Jun 2014 -- 02:34 PM

"“হারের কারণ ব্যাখ্যা করার আপনারা কে? দলে নেত্রী আছেন, তিনিই সব খতিয়ে দেখবেন।”"


এইত এইত , পথে এসেছে । লেভি-বাদ ফুটে বেরুচ্ছে । আরও বেরুবে ! পা নিশপিশ নামে একটা তই খুলবো এনাদের নিয়ে এবার :))) নির্মল আনন্দের -ই একটু এক্স্তেন্ষণ ।


Name:  সিকি          

IP Address : 135.19.34.86 (*)          Date:24 Jun 2014 -- 11:54 AM

এটা এখানে থাক বরং।


http://www.epaper.eisamay.com/epaperimages/2462014/2462014-md-em-14/14
154578.jpg



Name:   সিকি           

IP Address : 132.177.230.120 (*)          Date:22 Jul 2014 -- 09:30 AM


https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t1.0-9/10478198
_794401313925922_4170487556881613148_n.jpg



https://fbcdn-sphotos-h-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t1.0-9/10380964
_707901835949687_3678366972223086661_n.jpg


জয় বাঙালি। এইসব মণিমুক্তো এখন ফেসবুকে ঘুরছে। :)


Name:   সিকি           

IP Address : 132.177.15.128 (*)          Date:24 Jul 2014 -- 12:07 PM


https://scontent-b-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t1.0-9/10355751_10152
589928735987_642598155045333960_n.jpg



Name:  pi          

IP Address : 116.212.27.253 (*)          Date:23 Aug 2014 -- 12:47 PM

উইকেণ্ডের জন্য রইলো ঃ)
http://www.montroguru.com/


Name:             

IP Address : 24.97.56.180 (*)          Date:23 Aug 2014 -- 10:21 PM

http://dailycurrant.com/2014/07/30/saudi-arabia-seriously-considering-
allowing-women-to-use-forks/



Name:  aranya          

IP Address : 78.38.243.218 (*)          Date:24 Aug 2014 -- 04:50 AM

শিবঠাকুরের আপন দেশে, আই মিন মহম্মদের আপন দেশে, নিয়মকানুন সর্বনেশে


Name:  rivu          

IP Address : 140.203.154.17 (*)          Date:24 Aug 2014 -- 06:10 AM

আগেরটা কিন্তু অনিয়ন/ফেকিং নিউজ।


Name:  aranya          

IP Address : 78.38.243.218 (*)          Date:24 Aug 2014 -- 06:26 AM

সরি, খুঁটিয়ে দেখিনি বটেক। তবে অর্থহীন নিয়মকানুনের অভাব নাই


Name:  সিকি          

IP Address : 135.19.34.86 (*)          Date:28 Aug 2014 -- 11:02 AM

http://www.fakingnews.firstpost.com/2014/08/modi-dares-kejriwal-for-ic
e-bucket-challenge-aap-sees-conspiracy-to-worsen-kejriwals-coughing/?u
tm_source=fp_cat_widget



Name:  Abhyu          

IP Address : 106.32.178.92 (*)          Date:11 Oct 2014 -- 07:53 AM

http://www.aajkaal.net/11-10-2014/news/230082/


Name:  Abhyu          

IP Address : 106.32.178.92 (*)          Date:11 Oct 2014 -- 07:55 AM

http://www.aajkaal.net/11-10-2014/news/230082/

খুচরো খবর

তুলিতেও সুর

আসমুদ্র-হিমাচল তাঁর সুরের মূর্ছনায় সম্মোহিত৷ তিনি লতা মুঙ্গেশকার৷ কন্ঠে যেমন সাত সুর খেলা করে, তেমনই তাঁর হাতের তুলিও যে সুরে চলতে পারে কে জানত! নিজেই জানান দিয়েছেন৷ টুইটারে পোস্ট করেছেন নিজের আঁকা ছবি৷ এক টুকরো গ্রামীণ প্রকৃতি৷ গ্রামছাড়া রাঙা মাটির পথ চলে গিয়েছে সবুজ নীলিমার বুক চিরে৷ সবিনয় জানিয়েছেন, বাড়ির সবাই ছবি আঁকতে পারে৷ আমিও একটু-আধটু চেষ্টা করি৷

সত্য নয়

এবার বেফাঁস মম্তব্য মাইক্রোসফ্টের শীর্ষকর্তা সত্য নাদেল্লার৷ মাইনে বাড়াবার আগে চাকরিতে মহিলাদের কাজে মন দেওয়া উচিত, অ্যারিজোনায় একটি অনুষ্ঠানে বলেছেন তিনি৷ সঙ্গে সঙ্গে আপত্তি তোলেন সঞ্চালিকা মারিয়া ক্লাওয়ে৷ পরে টুইট করে কার্যত ক্ষমাই চেয়েছেন নাদেল্লা৷ বলেছেন, ওভাবে বলা ঠিক হয়নি৷ যদিও আই টি কোম্পানি মেয়েদের তুলনায় ছেলেদেরই চাকরি দেয় বেশি, মাইনেও মেয়েদের কম৷ এটাই সত্য৷

গরবাচভ

মিখাইল গরবাচভ হাসপাতালে৷ বয়স ৮৩ নোবেল শাম্তি পুরস্কারজয়ীর৷ ডায়াবেটিসের রোগী, এখন লড়ছেন মৃত্যুর সঙ্গে৷ গ্লাসনস্ত ও পেরেস্ত্রৈকার জনককে জনসমক্ষে খুব কমই দেখা যায়৷ ইদানীং খুবই দুর্বল৷ তবে লড়ে যাবেন জীবনের জন্য, জানিয়েছেন নোভাস্তি সংবাদ সংস্হাকে৷



Name:   সিকি           

IP Address : 132.177.155.172 (*)          Date:25 Nov 2014 -- 04:56 PM

https://scontent-b-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/v/t1.0-9/10805804_151
2706722347314_2931505756322196231_n.jpg?oh=49e86ee58de15fa60d0591ab3d2
90362&oe=54DE738C



Name:  ki khabar!          

IP Address : 85.137.14.101 (*)          Date:20 Feb 2015 -- 08:03 AM


http://www.epaper.eisamay.com/epaperimages/2022015/2022015-md-em-4/139
37953.JPG



Name:   সিকি           

IP Address : 132.177.25.243 (*)          Date:09 Apr 2015 -- 03:03 PM

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=959466364078161&id=6609109
57267038&refid=17&hc_location=ufi



Name:   সিকি           

IP Address : 132.177.25.243 (*)          Date:09 Apr 2015 -- 03:04 PM

সঠিক ইতিহস জানুন।

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=960007414024056&id=6609109
57267038&refid=17



Name:  quark          

IP Address : 24.139.199.12 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 09:50 AM

http://www.anandabazar.com/state/mamata-banerjee-referred-her-own-book
-for-students-1.155407



Name:  http://www.anandabazar.com/sta          

IP Address : 127.239.72.50 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 10:09 AM

ভূতের রাজ্যে আনন্দবাজারটাও ব্লকড।


Name:  পদ্মনাভস্বামী          

IP Address : 24.139.190.82 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 11:35 AM

খুলেছে। কথান্জলির ইঙ্গরেজি হওয়া উচিত।


Name:  B          

IP Address : 127.194.36.128 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 02:24 PM

ডেরেক দায়িত্ব নিচ্ছেন।
নোবেলের জন্য নোবেল কমিটির কাছে ব্রাত্য, পার্থ ও সুগত ও সুপারিশ করছেন।
নোবেল চোর - দুই-এর নায়কের ভূমিকার দায়িত্ব মিঠুন নিয়েছেন।


Name:  pi          

IP Address : 116.212.57.82 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 05:17 PM

সন্ধ্যা রায়ের বিধায়ককে এম এল এ বানিয়ে দেবার প্রতিশ্রুতিটাও এখানে থাক।


Name:  pi          

IP Address : 116.212.57.82 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 05:20 PM

কিন্তু মনুষ্যত্বের নাম মানুষ, ঔদ্ধত্যের নাম ফানুসের ইঞ্জিরি কি সম্ভব ?


Name:  cb          

IP Address : 213.0.215.4 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 05:22 PM

manushhyatwa's name is manush
oudhyotto's name is fanush


Name:  pi          

IP Address : 116.212.57.82 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 05:33 PM

ঃ)


Name:  Lama          

IP Address : 213.99.211.133 (*)          Date:05 Jun 2015 -- 06:31 PM

1)
চার্জ করে কেহ যদি চার্জার হয়,
শুধু মার্জ করিলেই মার্জার নয়।

ক) কে চার্জ করিতে করিতে চার্জার হইয়াছেন? তাঁহার রচিত দু একটি মহাকাব্যের নাম কর।
খ) উপরোক্ত প্রশ্নে যাঁহার কথা উল্লিখিত হইয়াছে তিনি রবি ঠাকুরের সহিত কীরূপে তুলনীয় ব্যাখ্যা কর।


2) ভাবসম্প্রসারণ কর-

শুনেছ কি বলে গেল কে যেন সে বন্দ্যো?
তাঁহার লেখাতে নাকি cool cool গন্ধ।


Name:  quark          

IP Address : 24.139.199.12 (*)          Date:22 Jun 2015 -- 10:59 AM

http://navbharattimes.indiatimes.com/movie-masti/news-from-bollywood/y
oga-karo-toh-poonam-pandey-jaisa-on-twitter/articleshow/47733081.cms


হট্‌যোগ!


Name:  pi          

IP Address : 24.139.209.3 (*)          Date:21 Feb 2016 -- 02:25 PM

চাড্ডিদের পোস্টারগুলো এখানেই রাখবো এবার থেকে।

http://s7.postimg.org/4xrku7acr/bjp_nirmol_anondo.jpg

এটার সাথে আবার এটাও লেখা ছিল।
একটা প্রোফেশনাল সার্ভে সংস্থার অপিনিয়ন পোল অনুযায়ী আগামী বিধানসভা নির্বাচন ২০১৬ ত্রিশঙ্কু হতে চলেছে।।। তা হোক , কমপক্ষে তৃনমূল তো ক্ষমতায় ফিরছে না।।।। বিজেপি সিঙ্গেল লার্জেস্ট পার্টি হতে চলেছে।।। পেতে পারে ১১৫ টি আসন।।।।'


পোস্টে শয়ে শয়ে লাইকও আছে।




Name:  pi          

IP Address : 24.139.209.3 (*)          Date:21 Feb 2016 -- 06:06 PM


http://s7.postimg.org/e6mwp8tnv/arshinagar.jpg

'হিন্দু সমাজ ও ধর্ম ধ্বংস করতে - ত্বহা সিদ্দিকী, মমতা ও SHREE VENKATESH FILMS এর সুগভীর সাংস্কৃতিক ষড়যন্ত্র

আপনি যদি একটু হিসেব নিকেশ করেন, তাহলে বুঝতে পারবেন-বোঝেনা সে বোঝেনা, খিলাড়ী, রহমত আলী, অরুন্ধতী, বিন্দাস এবং লেটেস্ট আরশিনগরের মতো হিন্দু মেয়ে এবং মুসলিম ছেলের প্রেম বিয়ে এবং হিন্দু ও ইসলামি শক্তির লড়াই এবং হিন্দু পরিবারে ইসলামিক অপসংস্কৃতি অনুপ্রবেশের মতো সিনেমাগুলো তৈরি হয়েছে এবং হচ্ছে মমতার ক্ষমতায় আসার পর, অর্থাৎ মমতার আমলে। এটার প্রকৃত কারণ আলোচনা করার আগে, দেখে নেওয়া যাক, ছবিগুলোর বিষয়বস্তু কী এবং এগুলোতে প্রকৃত নিরপেক্ষতা বজায় রাখা হয়েছে কি না ?

অতীত থেকেই শুরু করি। রহমত আলী সিনেমায় একটি হিন্দু পরিবারকে দুর্দশার মধ্যে ফেলে, কৌশলে সেই পরিবারে একটি মুসলমান ছেলেকে ঢুকিয়ে, তাকে তাদের ত্রাণকর্তা হিসেবে তুলে ধরে, সেই পরিবারের একটি হিন্দু মেয়ের সাথে রহমতের প্রেম ও বিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখানে মুসলিম ছেলেটি মহান এবং সে হিন্দুদের ত্রাণকর্তা, তাই তার পুরষ্কার হিসেবে একটি হিন্দু মেয়ে তার জন্য উপহার হিসেবে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ইতিহাসের কোথায়, কোন ঘটনায়, হিন্দুদের জন্য মুসলমানরা ত্রাণকর্তা হয়েছে ? বরং এর উল্টোটাই সত্য, হিন্দুদের জীবন সব সময় বিপন্ন হয়েছে মুসলমানদের কারণেই; ৭১২ খ্রিষ্টাব্দ থেকে শুরু করে বর্তমান পর্যন্ত ইতিহাসে এর হাজার হাজার উদাহরণ রয়েছে। প্রায় ১৫/২০ বছরের পুরোনো, বলিউডের নানা পাটেকরের এই সিনেমাটিকে বাংলায় রিমেক করা হয় মমতা ক্ষমতায় আসার পর, মুসলমানদের খুশি করার অংশ হিসেবে।

বোঝেনা সে বোঝেনা সিনেমাটিতে, একটি হিন্দু মেয়ে একটি মুসলিম ছেলের সাথে অনায়াসে খুব সহজে কোনো দ্বিধা ছাড়াই প্রেম করছে, যেন এটা কোনো ঘটনা ই না এবং সেই ছেলেটিকে বিয়ে করার জন্য সে পরিবারের সাথে অবলীলায় ফাইট করছে। এই মেয়েটি তার বাবাকে বলছে, "তুমি ওর সাথে আমার বিয়ে এই কারণে দিতে চাও না, যে সে মুসলমান।" কিছুদিন আগে বাংলাদেশে একটি হিন্দু মেয়ে তার পুরো পরিবারকে মুসলমান হওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলো এই কারণে যে, সে যেন তার মুসলিম বয়ফ্রেণ্ডকে খুব সহজে বিয়ে করতে পারে; এই সংবাদটি পত্রিকায় বেরিয়েছিলো। বোঝেনা সে বোঝেনার মতো ইসলামিক তথা মুসলমান তোষণকারী সিনেমাগুলোর সাফল্য বোধ হয় এখানেই, হিন্দু মেয়েরা এই ধরণের সিনেমা দেখে ব্রেন ওয়াশড হবে এবং মুসলমান ছেলেদের বিয়ে করার জন্য পাগল হয়ে উঠবে, বোঝেনা সে বোঝেনার মতো অন্য কিছুই সে বুঝবে না; আর এর জন্য সে পরিবারে সাথে অনায়াসে ফাইট করে নিজের পরিবারকে বিপর্যস্ত করবে।

হিন্দু সমাজ ধ্বংসের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো খিলাড়ি। এই ছবিতে একই পরিবারের দুই প্রজন্মের দুইজন হিন্দু মেয়েকে, অপর একটি মুসলিম পরিবারের দুই প্রজন্মের দুই ছেলের সাথে প্রেমের বিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর এ নিয়ে যে যন্ত্রণা তা সহ্য করতে হয়েছে হিন্দু পরিবারকে এবং কাহিনীর মারপ্যাঁচে এই ঘটনাগুলোকে তাদেরকে মেনে নিতে বাধ্য করা হয়েছে। অথচ নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে সিনেমাটি তৈরি করা হলে, খুব সহজেই দুটি মেয়েকেই মুসলিম পরিবারের বোরকা কালো অন্ধকারে না পাঠিয়ে একটি মুসলিম মেয়েকে হিন্দু পরিবারের উজ্জ্বল আলোয় স্থান দিতে পারতো, তাহলে নিরপেক্ষতা বজায় থাকতো। কিন্তু তা করা হয় নি। কারণ, তাতে মুসলমানরা অখুশি হতে পারতো আর তাতে মমতার কিছু মুসলিম ভোট চলে যেতে পারতো। এখানে আরও একটা বিষয় খেয়াল করবেন, খিলাড়ী মানে হলো খেলোয়াড়, সেই খেলোয়াড়, যে কোনোদিন হারে না। এই সিনেমায় মুসলমানরা দুই দুইটা হিন্দু মেয়েকে মুসলিম পরিবারে নিয়ে গিয়ে মুসলমান বানিয়ে বিজয়ী অর্থাৎ খিলাড়ি এবং হিন্দুরা পরাজিত হয়ে হিজড়া। কিছু হিন্দু প্রকৃতপক্ষেই হিজড়া, না হলে এই ধরণের হিন্দুধর্ম ও সমাজ বিরোধী সিনেমা কিভাবে বাধাহীনভাবে সিনেমা হলে চলতে পারে এবং কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করতে পারে ?

অরুন্ধতী সিনেমায় হিন্দু মুসলমানের প্রেম বিয়ে নেই; কিন্তু তাতে হিন্দু ও ইসলামি শক্তির মধ্যে লড়াই দেখানো হয়েছে এবং তাতে ইসলামি শক্তির কাছে হিন্দু শক্তির পরাজয় দেখানো হয়েছে। এই সিনেমায় হিন্দু শক্তি হলো প্রেত শক্তি এবং তা অশুভ; সেই অশুভ শক্তিকে সিনেমার হিন্দু নায়িকা, এক মুসলমান দরবেশের সাহায্যে, বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম ব'লে কোরানের সূরা আবৃত্তি করে শক্তি সঞ্চয় করার মাধ্যমে প্রেত শক্তি অর্থাৎ হিন্দু শক্তিকে দমন করেছে।

বিন্দাস সিনেমায় ইসলামিক কালচারের বাইনচোদ সিস্টেমকে খুব সূক্ষ্ম কৌশলে হিন্দু কালচারে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। বোনদেরকে ইয়ে করার জন্য যারা বিছানায় নিয়ে যায়, তাদেরকে বলে বাইনচোদ। কাজিনরাও বোন। মুসলমানরা ধর্মীয় বিধান অনুসারে, অনায়াসে কাজিনদেরকে বিয়ে করে বিছানায় নিয়ে গিয়ে ন্যাংটা করতে পারে, সেজন্য মুসলমানরা আমার কাছে বাইনচোদ হিসেবে পরিচিত। তো এই বিন্দাস সিনেমায়, রক্তের সম্পর্কের না হলেও, শ্রাবন্তী, দেবের বাপকে কাকু বলে ডাকে এবং দেবের বাপের কাছেই ছোট বেলা থেকে বড় হয়। তাহলে দেব এবং শ্রাবন্তীর মধ্যে সম্পর্ক এক প্রকারের ভাই বোনের। বিন্দাস এ, সেই দেব-শ্রাবন্তীর মধ্যে দেখানো হলো প্রেম ও বিয়ে। অথচ সিনেমাটি যারা দেখেছেন, তারা খেয়াল করলে বুঝতে পারবেন, এই সিনেমা থেকে শ্রাবন্তীর ক্যারাক্টারকে ডিলিট করে দিলেও কাহিনীর কোনো ক্ষতি হয় না এবং শ্রাবন্তী থাকলে বা না থাকলেও সায়ন্তিকার সাথে দেবের প্রেম বিয়েই ছিলো এই কাহিনীর মিলনাত্মক পরিণতির জন্য বেস্ট। কিন্তু সেটাকে এড়িয়ে গিয়ে অপ্রাসঙ্গিক নাম ও গানের ছবি বিন্দাস এ দেখানো হলো ভাই বোনের প্রেম-বিয়ে, কারণ তাহলে হিন্দু পরিবারে ইসলামিক অপ সংস্কৃতির অনুপ্রবেশ ঘটে এবং হিন্দু সমাজকে ধ্বংস করে তাকে ইসলামিক করতে সুবিধা হয়।

বিন্দাস শব্দের অর্থ চমৎকার। সিনেমাটির নাম বিন্দাস রেখে এটাও বোঝানো হলো যে, হিন্দু ছেলে মেয়েরা অনায়াসে অর্থাৎ বিন্দাসে এই ধরণের বাইনচোদ মার্কা প্রেম বিয়ে চালিয়ে যাও, কোনো প্রব্লেম নাই। কিন্তু কেউ কি বলতে পারবেন, এই ছবির কাহিনীর সাথে চমৎকার বা বিন্দাস শব্দটির নামকরণের সার্থকতা কোথায় ? কোনো সার্থকতা নেই, হিন্দু ছেলে মেয়েরা বিন্দাসে তাদের কাজিনদের সাথে প্রেম করবে, এই ধারণাটাকে উসকে দিতেই এবং সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এই সিনেমাটি বানানো আর এর নাম বিন্দাস।

এই সিরিজের লেটেস্ট সিনেমা হলো আরশিনগর। পোস্টার দেখে বুঝলাম, এটি শেকসপিয়ারের রোমিও জুলিয়েটের বাংলা ভার্সন। যারা রোমিও জুলিয়েট পড়েছেন, তারা জানেন, এর মধ্যে ধর্মের কোনো ব্যাপার স্যাপার নেই। এটা দুই শত্রু পরিবারের লড়াই। কিন্তু মুসলমানদের খুশি করার জন্য এবং লাভ জিহাদের ঘটনাকে উসকে দেওয়ার জন্য ইচ্ছেকৃতভাবে এর মধ্যে ধর্মকে টেনে আনা হয়েছে। এই ছবির একটি বিখ্যাত সংলাপ যা হিন্দু মেয়ের মুখে বলানো হয়েছে, তা হলো, "আমি ওকে ভালোবাসি, এর জন্য আমাকে যদি ইসলাম নিতে হয় নেবো।" কোনো হিন্দু মেয়ে যদি এই সিনেমা দেখে ইমপ্রেসড হয়ে এই ডায়ালগটি মনে মনে দুইবার বলে, সে মুসলমান হওয়ার দিকে দুই ধাপ এগিয়ে যাবে। সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের মাধ্যসে ধ্বংসের বীজ কিভাবে বপন করা হচ্ছে, সেটা একবার চিন্তা করুন।

এই ধরণের সিনেমাগুলো বানানোর জন্য, সাদা চোখে, আমরা অভিনেতা অভিনেত্রী, কাহিনীকার, এবং পরিচালকদেরকে দোষ দিয়ে গালাগালি করে থাকি। যদিও কাজটা করার জন্য এরাও দোষী, কিন্তু মূলত দায়ী এরা নয়। টাকার জন্য এই কলাকুশলীরা এই ধরণের কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। কিন্তু কাজটা যে করাচ্ছে, দোষী বা দায়ী মূলত সে ই; কিন্তু কেনো সে কাজটা করছে- সেটা বুঝতে পারবেন, নিচের এই প্যারাটা পড়ার পর।

ধারাবাহিকভাবে, এধরণের সিনেমা গত চার বছরের মধ্যে নির্মান হওয়ার কারণ কী ? একটু ভাবলে বুঝতে পারবেন, পুরো বিষয়টাই রাজনৈতিক। তাই বিষয়টিকে সোজা চোখে নির্দোষ বিনোদন হিসেবে না দেখে একটি হিন্দু মন নিয়ে বাঁকা চোখে দেখার জন্য অনুরোধ করছি।

মমতা এটা খুব ভালো করেই বুঝে গেছে যে, বাংলার ক্ষমতায় তার টিকে থাকার একমাত্র উপায় হলো মুসলমান ভোট। একারণেই ফুরফুরা শরীফের ত্বহা সিদ্দিকী, টিপু সুলতান মসজিদের ইমাম বরকতি এবং সিদ্দিকুল্লাহর মতো মুসলমান নেতাদেরকে, মমতা নির্বাচনের আগেই এই প্রতিশ্রুতি দেয় যে, ক্ষমতায় এলে সে মুসলমানদের জন্য তার পক্ষে যা করা সম্ভব সব তার সবই করবে। এ কারণেই মমতার সব উন্নয়ন পরিকল্পনা মুসলমান কেন্দ্রিক এবং তার রাজ্যে মুসলমানদের সাত খুন মাফ। ত্বহা সিদ্দিকী সহ মুসলিম নেতারা, মমতার মাথায় এটা ঢুকাতে সক্ষম হয়েছে যে, মুসলমান ভোট না বাড়লে তার ক্ষমতায় থাকা এক সময় অসম্ভব হয়ে পড়বে; এজন্য যে ভাবেই হোক মুসলমান ভোট বাড়াতে হবে, সেটা জন্ম দিয়েই হোক আর অনুপ্রবেশ ঘটিয়েই হোক। কিন্তু এই দুটি ক্ষেত্রে মমতা তো সরাসরি কোনো ভূমিকা রাখতে পারবে না। কিন্তু রাজ্যের মধ্যেই ধর্মান্তর ঘটিয়ে এবং ধর্মান্তরের সংখ্যা বাড়িয়ে এই উদ্দেশ্য কিছুটা সফল হতে পারে। একারণেই হিন্দু মেয়ের সাথে প্রেম করে অপঘাতে রিজওয়ানের মরার ঘটনায় মমতা যতটা সরব হয়েছিলো, ওই একই বছর রাজ্যে আরও চারজন হিন্দু ছেলে মুসলমান মেয়ের সাথে প্রেম ও বিয়ে করার অপরাধে নিহত বা অত্যাচারিত হলেও মমতা এ ব্যাপারে মুখ খুলে নি। কারণ, মমতা জানে হিন্দু মেয়েরা মুসলমান হলে তার ভোট বাড়বে; কারণ, তাতে মুসলমানরা খুশি হবে; কিন্তু মুসলমান মেয়ে হিন্দু হলে তার কোনো লাভের সম্ভাবনা নেই; কেননা, তাতে মুসলমানরা নারাজ হবে। তাছাড়াও অদূর ভবিষ্যতে হিন্দুরা মমতার জারিজুরি ধরে ফেলে তার বিরোধী হবেই, তাই মুসলিম মেয়ে হিন্দুর ঘরে এলে সেই ভোটও মমতার না পাবারই সম্ভাবনা। এগুলো অবশ্য ছোট খাটো ব্যাপার। কিন্তু মুসলমান নেতাদের বুদ্ধি মতো, মমতা, এভাবে ব্রেন ওয়াশড হয়েছে যে, সবচেয়ে ভালো এবং গ্রেট ব্যাপার হবে, যদি বাংলার হিন্দু সমাজকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া যায়- তাহলেই বাংলায় মুসলমানদের একচ্ছত্র ক্ষমতা প্রতিষ্ঠিত হবে এবং দুই বাংলা এক সাথে মিলে গিয়ে হবে গ্রেটার বাংলা বা মুঘলিস্তান এবং মমতাই হবে সেই বাংলার, কাশ্মিরের মতো উজির-এ-আজম। তাহলে বাংলার এই হিন্দু সমাজকে কিভাবে ধ্বংস করা যাবে ? এর জন্য চালাতে হবে সাংস্কৃতিক আগ্রাসন। সিনেমা হলো সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সবচেয়ে শক্তিশালী মিডিয়া। এই সিনেমার মাধ্যমেই লাভ জিহাদের ভাইরাস হিন্দু মেয়েদের মাথায় ঢুকিয়ে দিতে হবে। যখন একটা টিনএজ বা এ্যাডাল্ট মেয়ে আড়াই -তিনঘন্টা ধরে এই লাভ জিহাদের সিনেমা দেখবে, তখন সে ব্রেনওয়াশড হবে, তারপর মুসলমান ছেলেদের সাথে প্রেম করবে, তাদেরকে বিয়ে করার জন্য পরিবারের সাথে ফাইট করবে এবং এক সময় মুসলিম ছেলেদেরকে বিয়ে করে মুসলিম হয়ে যাবে এবং একই সাথে সিনেমা দেখে ব্রেনওয়াশড হয়ে মেয়ের বাবা-মা এবং পরিবারের লোকেরাও মুসলিম ছেলেদের সাথে পরিবারের মেয়েদের প্রেম ও বিয়েকে খুব সহজেই বা বাধ্য হয়ে মেনে নেবে। এভাবে একসমময় পুরো হিন্দু সমাজ বিপর্যস্ত হবে এবং ধ্বংস হবে।আপনারা হয়তো বলতে পারেন, ততদিনে মমতা, সুবে বাংলার সিংহাসনে বসার জন্য বেঁচে থাকবে না, কিন্তু ততদিনে যে বাঙ্গালি হিন্দু সমাজ পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে মুসলমানদের পায়ের তলায় পড়ে যাবে, সেটা নিশ্চিত।মুসলমানদেরকে খুশি রেখে নিজের সাময়িক লাভের জন্য, মমতা, এইভাবে পুরো হিন্দু সমাজকে একটি গভীর খাদে নিক্ষেপ করার সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনায় অংশী হয়েছে।

আমি জানতে পেরেছি, ত্বহা সিদ্দিকী ই এই সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের পরিকল্পনার মূল প্ল্যানার। ত্বহার এই প্ল্যানের বাস্তবায়ন করছে মমতা, SHREE VENKATESH FILMS এর মাধ্যমে। আর নির্বোধ হিন্দুরা বিনোদনের মাধ্যমে ধীরে ধীরে ব্রেন ওয়াশড হয়ে হিন্দু সমাজের ধ্বংস স্তুপের উপর দিয়ে একটু একটু করে এগিয়ে যাচ্ছে ইসলামের দিকে। এটা একটি সূক্ষ্ম ও সুগভীর ষড়যন্ত্র। যাদেরকে এই ষড়যন্ত্রের বিষয়টি আমি বোঝাতে পারলাম, তাদের কাছে আমার অনুরোধ এই ধরণের হিন্দু মুসলমানের প্রেম বিয়ে সম্পর্কিত সিনেমার ব্যাপারে সচেতন হোন এবং যে কোনো মূল্যে এগুলোর প্রতিরোধ করুন। কারণ, আপনি যদি এখন এগুলো প্রতিরোধ না করেন, এই ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পড়বে আপনারই বোন বা মেয়ে বা আপনার আত্মীয় স্বজন এবং আপনিও।মনে রাখবেন, মমতার প্রেসক্রিপসন মতো সিনেমা বানাতে গিয়ে SHREE VENKATESH FILMS আর SHREE নাই, হয়ে গেছে MOHAMMAD VENKATESH FILMS এবং এটা বর্তমানে হিন্দু সমাজের জন্য একটি চরম ক্ষতিকারক সংস্থায় পরিণত হয়েছে।

বাঙ্গালি হিন্দু সমাজ ধ্বংসে মমতার ষড়যন্ত্র এতই গভীর যে, শুধু মুসলিম ভোটে তার সাধ মিটছে না, ধর্মান্তরিত হিন্দু মেয়েদের মুসলিম ভোটও তার চাই। এজন্য মুসলিম তোষণ করতে গিয়ে সে যেমন মানসিকভাবে ইসলামে দীক্ষিত হয়েছে, নিজে নামাজ পড়ছে, মাথায় হিজাব দিচ্ছে, গরুর মাংস খাচ্ছে, প্রকাশ্য রাস্তায় গরুর মাংস খাওয়ার উৎসব করে হিন্দু সমাজের আবেগ অনুভূতিকে পায়ে মাড়াচ্ছে, তেমনি পুরো বাংলার সকল হিন্দুকেই সে মুসলমান বানাতে চায়। খেয়াল করবেন, এজন্যই মুসলিম ছাত্র ছাত্রীদের জন্য, তার সাইকেল ল্যাপটপ সহ নানা উপহারের বিষয়টি। কিন্তু যতই গরীব আর অভাবী হোক হিন্দু ছেলে মেয়েদের জন্য তার কিছু নেই। এই ঘটনাগুলোর মাধ্যমে আস্তে আস্তে সে সমস্ত হিন্দু ছাত্রছাত্রীদেরকে মুসলমান হওয়ার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। কারণ, পাশের মুসলিম ছাত্রীটি যখন সাইকেল-ল্যাপটপ পেয়েছে বা পাচ্ছে তখন একজন হিন্দু ছাত্র ছাত্রীর খুব সহজেই এটা মনে হবে যে, ইস আমি যদি মুসলমান হতাম, তাহলে আমিও সাইকেল-ল্যাপটপ পেতাম। এই কথা মনে হওয়ার সাথে সাথে সাথে কিন্তু একজন হিন্দু ছেলে বা মেয়ে, মুসলমান হওয়ার পথে এক ধাপ এগিয়ে যাচ্ছে বা গিয়েছে। তাই বাংলার হিন্দু সমাজকে বাঁচাতে যে কোনো মূল্যে উপড়ে ফেলতে হবে মমতাকে, এই মূল্য যত বেশিই হোক।

আমার বিশ্লেষণ ও গবেষণায়, গান্ধীর পর মমতার মতো ক্ষতিকর রাজনীতিবিদ ভারতের ইতিহাসে হিন্দুদের জন্য আর কেউ ছিলো না এবং এখনও নেই। গান্ধীর জন্য ভারত শুধু খণ্ড-বিখণ্ডই হয় নি, হিন্দুরা শুধু নিজের ভুমিই হারায় নি, হিন্দুদেরকে দিতে হয়েছে অনেক প্রাণ, অনেক রক্ত, অনেক মেয়ের সম্ভ্রম, অনেক মূল্য; তেমনি মমতার কারণেও এখনই এখানে সেখানে হিন্দুরা মুসলমানদের হাতে মার খাচ্ছে, হিন্দু মেয়েদেরকে তাদের সম্মান হারাতে (টুকটুকি) ও জীবন দিতে (মৌসুমি) হচ্ছে এবং ভবিষ্যতে আরও দিতে হবে। তাই মমতাকে এখনই থামাতে হবে, কারণ গান্ধীর কারণে যা গেছে, তাকে যেমন আর ফিরে পাওয়া, প্রায় অসম্ভব বা সম্ভবই না। তেমনি মমতার কারণেও যা যাবে, তাকে ফিরে পাওয়াও কখনোই সম্ভব হবে না।

লাভ জিহাদ সম্পর্কিত একটি সিনেমা বানানোর পর ঐ পরিচালককে জিজ্ঞেস করা হয়েছিলো, এমনটি কেনো বানালেন ? এর উল্টোটা কি হতে পারতো না, অর্থাৎ হিন্দু ছেলে মুসলিম মেয়ে ? সে ইশারায় বুঝিয়েছিলো টাকাই সব। অর্থাৎ টাকার জন্যই সব হচ্ছে। তাই এই টাকা প্রসঙ্গেই এই ধরণের আত্মঘাতী ও সমাজ-জাতি বিধ্বংসী সিনেমার পরিচালক ও অভিনেতা অভিনেত্রীদের বলছি, টাকার যদি আপনাদের এতই প্রয়োজন হয়, তাহলে আপনাদের ঘরের মা-বউ-বোন-মেয়েদের কাজে নামাচ্ছেন না কেনো ? দিল্লি-মুম্বাই-সুরাটের এর মতো শহরের পতিতাপল্লী, ম্যাসাজ পার্লার এবং আবাসিক হোটেলগুলোতে যৌনকর্মীদের প্রচুর চাহিদা। আপনারা বছরে একটি দুটি সিনেমা করে যে টাকা পান, আপনার পরিবারের একটি মেয়ে বছরে তার চেয়ে বেশি টাকা আয় করতে পারবে। টাকা আয় করার জন্য আপনাদের পরিবারের মেয়েদের স্বেচ্ছায় যৌনকর্মীর পেশা বেছে নেওয়ায় আপনাদের তো লাভ হবেই, কিন্তু ভারত তথা হিন্দুদের কোনো ক্ষতি হবে না। কিন্তু আপনারা সিনেমা বানানোর নামে যা করছেন, তাতে পুরো হিন্দু সমাজ শুধু ধ্বংসের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে না, শুধু নিজের জীবনকেই বিপন্ন করছেন না, নিজের বাড়ির মেয়েদেরকেও মুসলমানদের হাতে ধর্ষিতা হওয়ার পথ করে দিচ্ছেন।

আপনাদের লোভ আর ভুলের মাশুল পুরো হিন্দু সমাজ দেবে না। হিন্দু সমাজকে কিভাবে বাঁচানো হবে সেই সিদ্ধান্ত আমরা নিয়ে ফেলেছি, এই ধরণের সমাজ বিধ্বংসী কাজ চালিয়ে গিয়ে তার প্রথম শিকার যদি আপনারা হতে চান, আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

জয় হিন্দ।'




Name:  dc          

IP Address : 132.164.128.243 (*)          Date:21 Feb 2016 -- 06:18 PM

একটা ব্যাপার পরিষ্কার বুঝলাম। ওপরের রচনাটা যে লিখেছে সে অন্তত তামিলনাড়ুতে কখনো ঘুরতে আসেনি :p


Name:  abc          

IP Address : 53.252.140.64 (*)          Date:22 Feb 2016 -- 07:01 PM

.এইটা বোধহয় এখানেই যাবে ভাল।


https://www.youtube.com/watch?v=kSJFQzDLrSo


Name:  Abhyu          

IP Address : 78.117.212.154 (*)          Date:31 Jul 2016 -- 09:57 AM

http://www.anandabazar.com/national/nitish-says-family-will-be-sent-to
-jail-if-anyone-consumps-alcohol-1.446090#

কেউ মদ খেলে পরিবারের সবাইকে জেলে পাঠানোর বিল আনছেন নীতীশ

http://www.anandabazar.com/national/himachal-pradesh-high-court-tells-
central-govt-to-ban-cow-slaughter-beef-sale-in-6-months-dgtl-1.445670

দেশ জুড়ে গোহত্যা নিষিদ্ধ করতে হবে, কেন্দ্রকে নির্দেশ হিমাচল হাইকোর্টের




এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16]     এই পাতায় আছে433--463