আপনার মতামত         


     
দুটি কবিতা
সুমন মান্না

আমি, ফেব্রুয়ারি ০৮

অবিরাম বৃষ্টি আজ অনসূয়া পকেটের কাছে নীল ভেজা ভেজা দাগ
রেখে গেছে লোকমুখে সারি সারি কথা যারা বাড়ি ফিরে একেবারে চুপ
হট করে নিয়ে ফেলা ধুপ ভিজে একশা হয়ে শুনে নেবে অলিগলি জল্পনা
কিছু হরিয়ে যাবে এমনি আর বাকিটুকু শুষে নেবে অন্ধকার কলতলা

অন্য যারা এলোপথে ফিরে গেল আজকের আকাশ দেখে টেখে।
মনে ছিল কিনে নেওয়া ঝুঁকি বাজারের দরে অজস্র চুনোপুঁটিওলা
শেষমেষ থামিয়েছে চলা আর কিছু আলো জ্বলে ওঠা আর নিভে থাকা
ডেকে গেছে অনেক দুরের কোনো পাতাটাতা থেকে উঠে এসে
আমাদের দশ বাই দশ ড্রইং কাম ডাইনিং স্পেসে।

আর ভালো থাকা যায়, তুইই বল, অমিতাভ।



২২ . ২. ০৮.

কেমন এসেছি আজ ফাঁকি দিয়ে দেদার ভ্রুকুটি
হয়তো আকাশ ভাঙা পকেটের ছেঁদা ছিল বলে
যাদের সীমানা ছিলো চারখানা গোল গোল রুটি
চট করে মুখ মুছে নিয়ে আলগোছে চুমুকটা ঢালে

তখনো ও ভেজা ছিলো পাড় আর কিছু থাকা বা না রাখা
ঐ দিকে থাকতো লোকেরা সন্ধেতে কালো কালো ধোঁয়া
ছেলেপিলে খেলে যেত যারা বাড়ি ফিরে কাঁদা জল মাখা
সবকিছু একছাঁচে ঢালা ভোরবেলা ওঠা থেকে শোওয়া


যদি মানি ভুল চোখে আজ সে পুরোনো বারান্দা রাখা
আঁকছিলে বুঝি রোদ্দুর তাই গাছে জল দেওয়া নেই
সম্বল গোটা দুই জামা গুণে দেখা আটান্নো টাকা
বহুদিন ফেরেনা এখানে, বলে দিও আজও বাড়ি নেই।