এই আমাদের বৃষ্টিকণা, খেলাধুলো, মিনিময় আর মতের মিল। পড়ুনঃ মোদীবিরোধী রাজনীতি -- একটি প্রাথমিক খসড়া

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--4


           বিষয় : বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্ত ù
          বিভাগ : অন্যান্য
          বিষয়টি শুরু করেছেন : Biplob Rahman
          IP Address : 202.164.212.14          Date:25 Mar 2012 -- 07:00 PM




Name:  Biplob Rahman           Mail:  biplobr@gmail.com           Country:  Bangladesh

IP Address : 202.164.212.14          Date:25 Mar 2012 -- 07:08 PM

গুরুচণ্ডা৯-র ফেসবুক গ্রুপের একটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা ::

বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে।
Sushanta Kar
বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে। আমি আনাড়ি এই নিয়ে এক প্রবন্ধ ফাঁদবার তালে আছি। কে কে আমাকে নোট দিয়ে সাহায্য করবেন?
................................................
Point Mutant kolpona tai to sob kichhu drive kore.. shunechhi ei je Universe ke amra anudhabon kori - asole orokom kichhu sotyi exist korena.. amra jeta dekhi ba anubhob kori - segulo sob e amader chetona specific - bivinno prani - r chetona bivinno taai tader view of the universe is different... tahole to etai maante hobe je puro Universe tai amader mathhar modhye dhuke achhe ! :P

sekhetre kolpona tai amader natun jinis toiri korte sahajjyo kore.. sei kobita hok - engineering ba science.; )


Gautam BasuMullick ‘‘ বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে। ’’— তাই কি? আমি কিন্তু একমত হতে পারলুম না !!!!!!!!!!!!!

Maifuz Ali ‘‘ বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে। ’’— এটা খুবই ভালো বলেছেন | আমি একটা বই যে প্রচুর উদাহরণ পরেছিলাম , ঠিক ভাবে মনে পড়ছে না .......... তবে আপনি "পদার্থ বিদ্যার পিবর্তন "( The Evolution of Physics ) by by Albert Einstein and Leopold Infeld. এই বই টা দেখতে পারেন |


Maifuz Ali newton ' s law of motion এখনো পর্যন্ত কোনো experiment দ্বারা প্রমান করা সম্ভব হয় নি | আধুনিক বিজ্ঞানের বিশাল অংশ তার উপর ভর করে আছে | এটা আপনার বক্তব্যর সপক্ষে বিশাল একটা উদাহরণ | উক্ত বইটিতে Einstein এই উদাহরণ দিয়ে আপনার বক্তব্যটাকে বাখ্যা করেছেন |....


Maifuz Ali যে কোনো বড় বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবনের ইতিহাস study করলেই ও সত্যে পাওয়া যাই ............ নিচের link থেকে তার সমস্ত series গুলো দেখলে কিছু উদাহরণ হয়ত পেলেও পেতে পারেন .............

http://www.youtube.com/watch ? v=2zcuoEjuVCs

Maifuz Ali " karl popper ও বিজ্ঞানের দর্শন" by আশিশ লাহিড়ি , পাভলভ প্রকাসনি, এই বইটাও আপনি দেখতে পারেন ...............


Maifuz Ali " new heuristic " বলে বিজ্ঞনের journal যে, যার সম্পর্কে কথাটা use হয় তা একটা কল্পনা প্রসূত | কিন্তু এই কল্পনা যুক্তি সঙ্গত কল্পনা, আকাস কুসুম কল্পনা নয় | আবার এই কল্পনাকে experiment দ্বারা verify করিয়ে নিতে হয় এবং তার পরেই কল্পনাটা বিজ্ঞনের part হয়ে যাই ........


Maifuz Ali ‎Sushanta Kar বাবু এটা একটু দেখুন .......


Sushanta Kar বাহ! Maifuz Ali দারুণ সব তথ্য দিলেনতো! কাজে আসবে! কপি করে রাখলাম। ভিডিওটা শুনছি! দারুণ বলছেতো ছেলেটি।


Maifuz Ali এটা আমার অন্যতম interest য়ের বিষয় ........... আপনি যদি এটার উপর কাজ করতে চান তবে অনেকটাই করা যাবে .......


Sushanta Kar হ্যা, আপনারস সঙ্গে কথা বলব। এগোক কিছু। Gautam দা, উপরের ভিডিওতে সৌমিত্রের স্বাক্ষরের যুক্তি কী বুঝিয়ে বলুন!

Gautam BasuMullick ‎Sushanta Kar
বিজ্ঞান হল : পরীক্ষা — পর্যবেক্ষণ — সিদ্ধান্ত।

ঐ সূত্রটায় বর্গক্ষেত্রের মধ্যে এবং বৃত্তের মধ্যে করা স্বাক্ষরগুলোকে বিন্দু ধরলেই আর সমস্যা থাকে না। বর্গক্ষেত্রের ভেতরের বিন্দু সংখ্যা আর বৃত্তের ভেতরের বিন্দু সংখ্যার অনুপাত থেকেই তো সূত্র পাওয়া যাবে। ছোট ছোট বাচ্ছারা যেহেতু আসল ব্যাপারটা জানে না বা তাদের জানানো হয় না, তাই তারা সচেতন ভাবে শুধু কাগজের মাঝখানেই স্বাক্ষর করবে না, সমস্ত কাগজ জুড়েই করবে।


Shovon Chakraborty ‎Sushantada , agree that "বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে।" But , once some hypothesis is framed , then it has to be proven , either through tests or through logical explanation , mathematical formulae etc. Otherwise , it will homeopathy , not science.


Maifuz Ali ‎Shovon Chakraborty বাবু good.... কল্পনা যুক্তি সঙ্গত কল্পনা, আকাস কুসুম কল্পনা নয় | আবার এই কল্পনাকে experiment দ্বারা verify করিয়ে নিতে হয় এবং তার পরেই কল্পনাটা বিজ্ঞনের part হয়ে যাই ........


Sushanta Kar আরে! আকাশ কুসুমের কল্পনাতেইতো মহাকাশ বিজ্ঞান এগুচ্ছে। মহাবিশ্বের কল্পনাটা কুসুমের চেয়ে কম কিছু কি? বিশ্বাস একটা বড় জায়গা জুড়ে থাকে বিজ্ঞানের । হ্যা, তাকে পর্যবেক্ষণে সত্য প্রমাণিত হতে হয়, কিন্তু সেই সত্য প্রমাণ ইতিহাসে কখনো বা এতো পরে ঘটে যে কল্পনা দিয়েই মাঝে অনেক কাজ এগিয়ে যায়। কোয়াণ্টাম তত্ব নিয়ে আইনষ্টাইনের বিশ্বাস অবিশ্বাসের খেলাটাতে কেউ আলোকপাত করুন! বেনজিনের কাঠামো কল্পনার সঙ্গে দুটো ছবির গল্প জুড়ে আছে। একটা সাপ তার লেজ মুখে পুরে দিলে যেমন দেখাবে। কিম্বা একদল বানর প্রত্যেকে একে অন্যের ল্যাজ ধরে বসে আছে।


Maifuz Ali " বিজ্ঞান হল : পরীক্ষা — পর্যবেক্ষণ — সিদ্ধান্ত" এই philosophy এটা এছেছিল বিজ্ঞানের ডেভেলপমেন্ট এ Galileo Galilei সময়ে ............. এখন এই philosophy দিয়ে বিজ্ঞানের ডেভেলপমেন্ট করা খুবই সক্ত | যেমন mass energy relation ( E = mc square ) Einstein কবে দিয়েছিল আর application কবে হয়েছিল ? Bose - Einstein condensate ( BEC ) কবে proved হয়েছে ?

ফলত "পরীক্ষা — পর্যবেক্ষণ — সিদ্ধান্ত" এই philosophy টার কিন্তু একটা উন্নতি ঘটেছে .....
Newton ' s First laws of motion

First law: The velocity of a body remains constant unless the body is acted upon by an external force. এটা কি আজ proved করা গেছে ? with out any external force গতিশীল বস্তু চিরি কার সরলরেখায় চলবে এটাই Newton ' s laws | কিন্তু এটা আজ proved করা সম্ভব হয় নি | Reference: " History of Science " By J D Bernal , অনুবাদক আশিশ লাহিড়ি , পাভলভ প্রকাসনি, এই বইটাও আপনি দেখতে পারেন .............



Sushanta Kar আচ্ছা, আমি একটা ব্যাপার স্পষ্ট করে দিতে চাই, আমি কিন্তু যুক্তির গুরুত্বকে অস্বীকার করিনি। বলেছি, তার ভূমিকা পুরো প্রক্রিয়াতে কম। আমাদের যেটি হয়, আমরা বিজ্ঞান মনস্কতা মানে বেশির ভাগ সময়েই বুঝি ওতে কল্পনা, বিশ্বাস এগুলোর কোনো ভূমিকা নেই। আমার বক্তব্য হলো প্রবল ভাবে আছে। যুক্তি বাদী মন কেমন বিড়ম্বনা ঘটায় একটা ছোট্ট নজির দিই। যেমন ধরুন, 'কামধেনু'র কল্পনা। চট করে বলে দেয়া হবে, ওসব অবাস্তব, কবি কল্পনা মাত্র ইত্যাদি ইত্যাদি। এর মধ্যে সত্যি কোনো বাস্তব বুদ্ধি নেই?

Sushanta Kar আমরা নাস্তিকতাকে দূরে ঠেলতে গিয়ে বিশ্বাস ব্যাপারটাকেই ঠেলে পগার পার করে দিয়েছি। কিন্তু বিশ্বাসে ভর না করে বিজ্ঞান এক পাও এগোয় না। এই যেমন ধরুন, Maifuz যে বললেন নিউটনের গতির প্রথম সূত্রটা।


Maifuz Ali J D Bernal একবার ভারতে এছেছিলেন , saha institute of nuclear physics য়ের উদ্বোদন করতে .....


Maifuz Ali ঈস্বরে বিশ্বাস আর বিজ্ঞনের বিশ্বাস ২ টো কিন্তু আলাদা রকম | যেমন newton য়ের আলোক তত্ব্য ভুল প্রমানিত হলো মাত্র সবাই সেটাই মেনেনিলো | বিজ্ঞনের ক্ষেত্রে এটাকে ঠিক বিশ্বাস বলা যাই না ...........


Sushanta Kar "ভুল প্রমানিত হলো মাত্র সবাই সেটাই মেনেনিলো" এইটুকুনই তফাৎ। যদিও এটি এক মৌলিক তফাৎ। একে বিশ্বাস বলেইতো এসছেন সবাই। কল্পনার প্রসঙ্গে বলি,আমাকে কেউ স্থান-কালের সম্পর্কটা সহজ যুক্তি দিয়ে বোঝান। আজ অব্দি কেউ পারেনি। এবারে এক শিল্পীর ছবিতে দেখুন: http://www.toomanymornings.com/ ? attachment_id=6384 এর সঙ্গে গুরুর আড্ডাগুলোর গতিবিধি ( বা এই সাম্প্রতিক ফেক আইডি- নিয়ে বিতর্কগুলোকে) মনে রাখুন। আমরা একেকটা পোষ্টে আন্তর্জাতিক দিন তারিখ দেখছি বটে। কিন্তু সত্যিই কি তাই? আমরা কি সব্বাই একই স্থানে কালে কথা বলছি?



space - time artist’s rendering | Too Many Mornings

www.toomanymornings.com
You may use these HTML tags and attributes: a href= "" title= "" abbr title=...See More


Shovon Chakraborty ‎Maifuz Ali দা, ঠিক। Sushanta দা, আমিও বলছি না যে যুক্তির গুরুত্ব নেই। ব্যাপারটা হচ্ছে যে আমার-আপনার কাছে যেটা আকাশকুসুম লাগছে, সেটাই হয়তো যিনি ভাবছেন তার কাছে যুক্তিসংগতভাবে নেক্সট স্টেপ। বিজ্ঞানে যেকোন সূত্রের / ধারণার প্রমাণ দুভাবে হতে পারে। একটা হলো যে বিভিন্ন জায়গায় একই এক্সপেরিমেন্ট ইন্ডিপেন্ডেন্টলি করে যদি একই রকমের রেজাল্ট পাওয়া যায় তাহলে সূত্রটাকে সত্য হিসেবে ধরে নেওয়া যায়। আবার কোনও ক্ষেত্রে এমনও হতে পারে যে ল্যাবটেস্ট করার উপায় নেই, কিন্তু ম্যাথমেটিকাল বা লজিক্যাল এক্সট্রাপোলেশন করে দেখা যাচ্ছে যে সূত্রটা সত্যি হওয়া উচিত। এছাড়াও আছে ইম্পিরিক্যাল ল। মানে যেগুলো এক্সপেরিমেন্ট বা অবজারভেশন অনুযায়ী প্রুভ করা যায়, কিন্তু থিওরি দিয়ে নয়।


Sushanta Kar বিশ্বাস নিয়ে আইনষ্টাইনের বিখ্যাত উক্তিটি এই: I believe in Spinoza ' s God who reveals himself in the orderly harmony of what exists , not in a God who concerns himself with the fates and actions of human beings. ( Albert Einstein ) নিশ্চয়ই তিনি গীতা বা কোরাণের ঈশ্বরে বিশ্বাসের কথা বলেন নি। কিন্তু ভদ্রলোকের বিশ্ব শৃঙ্খলার প্রতি বিশ্বাসটা কিন্তু তখনকার সমস্ত বিরুদ্ধ প্রমাণের পরেও বেশ গভীরই ছিল। এবং আমার মনে হয় না সে ভুল ছিল। সত্যিইতো ঈশ্বর পাশা খেলেন না! ( এটা আইনষ্টানের উক্তি, জানেন আপনারা)


Maifuz Ali যেমন একটা building থেকে EM ( electromagnetic ) field diffract করছে ........ তা solve করের জন্য বিশাল equation .. A4 sizer পাতায় 4 কি 5 পাতা ....... বাস্তবে apply করা বিশাল কঠিন ........... তার পরিবর্তে একটি real applicable equation দিতে হবে | বাস্তবে দেখা যাছে প্রথম থেকে integration equation solve করে দিতে পারা যাছে না | তখন কল্পনা করে করে চোট equation বানাতে হয় | এই equation তাকে কিন্তু বিভিন্য application , experiment য়ের মাধমে প্রমান করতে হয় | প্রমান হয়েগেলে বলে " new heuristic " একুয়াতীয়ন যা এখন বিজ্ঞানের part | বিজ্ঞানের কল্পনায় বলুন আর বিশ্বাসী বলুন এই টুকু ...........


Shovon Chakraborty আর কল্পনা ছাড়া বিজ্ঞান এগোতে পারবেই না। বিগ ব্যাং থিয়োরিটাকেই ধরে নিন না। বা দা ভিঞ্চির হেলিকপ্টারের স্কেচ। বিভিন্ন মহাকাব্যে বা পৌরাণিক কাহিনীতেও দেখবেন কল্পনার উড়ান। রাবনের পুষ্পক রথ, যেটা উনবিংশ শতাব্দী পর্যন্ত আকাশকুসুম কল্পনা ছিলো, বিংশ শতাব্দীতে বিজ্ঞান সংগত সত্য হয়ে গেলো। বা গ্রিক মিথোলজির ইকারাস।


Sushanta Kar এইটাই Shovon রামায়ণের যুগে এটম বোম ছিল বলে মুর্খামী করব না বটে, কিন্তু হনুমান যদি তখন গন্ধমাদন নিয়ে উড়ে না আসত তবে হয়ে গেছিল আর কি কল্পনা চাওলার ৯০ মিনিটে পৃথিবী পরিক্রমার বাহাদুরী! কামধনুটাও অই রকমই। তাছাড়া, যে নারী, গরু বা পাখি দেখেনি , সে কবি কামধনু কল্পনাও করে নি। তার মানে কবিও সবটা আজগুবি কল্পনা দিয়ে কাজ করে না! আচ্ছা, এখানে দু'জন অন্তত আই আই টি খড়গপুরের বিজ্ঞানী বসে বসে মজা দেখছেন কিন্তু! কিছু বললে ভালো লাগবে।


Maifuz Ali বিগ ব্যাং থিয়োরিটার যে কল্পনা সেটা আর ভিঞ্চির হেলিকপ্টারের স্কেচ আর রাবনের পুষ্পক রথ এগুলোর মধ্যে বিশাল গুণগত পার্থক্য আছে | বিগ ব্যাং থিয়োরিটা বিজ্ঞানের part এ পুষ্পক রথ কিন্তু বিজ্ঞানের part নয় | ভিঞ্চির হেলিকপ্টারের স্কেচ টা আমি ভালোভাবে জানি না ...........


Shovon Chakraborty একটা ডিটেকটিভ গল্প পড়েছিলাম। এই স্থান কালের ওপর। একটা বাচ্চা বন্ধ রুমের ভেতর থেকে হারিয়ে গেলো। কি করে সম্ভব হয় এটা? একজন বিজ্ঞানী বাচ্চাটার বাবার ওপর প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য একটা সময়ের ভাঁজ ক্রিয়েট করে বাচ্চাটাকে এক ডিফারেন্ট টাইমে পাঠিয়ে দেন। যেমন ধরুন একটা A4 কাগজ। কাগজটার মাঝামাঝি একটা ফুটকি দিলাম। এবার ফুটকিটার আগে বা পরে দুটো জায়গায় কাগজটাকে ভাঁজ করে দিলাম। ফুটকিটা কাগজেই রইলো কিন্তু ওপর থেকে দেখলে সেটা অদৃশ্য।


Maifuz Ali আবার আমরা যে বিজ্ঞনের কথা বলছি এটা কিন্তু বিজ্ঞনের একটা ধারা | যেটা Europe develop হয়েছে ...... তার বাইরেও কিন্তু বিজ্ঞনের ধারা রয়েছে ... যেমন MK Gandhi র বিজ্ঞনের concept যা লোক বিজ্ঞন নামে পরিচিত |


Nilabhra Banerjee eita bolte mon e pore gelo Dr Jayanta Vishnu Narlikar er galpo.....1980 te porechhilaam..... same concept kaagoj er bhnaaj kore A to B travel....... mobius strip e bhor diye anyo dimension e chole jawa. romoharshok chhilo


Maifuz Ali এই বিজ্ঞন টা পুগিবাদের হাত ধরে develop বিজ্ঞন | আর বাহিরে যেটা রয়ে গেছে সেটা লোক বিজ্ঞন | যেমন পুরীর মাজিরা যা weather brought casting করে টা কিন্তু আমাদের modern weather brought casting system য়ের থেকে অনেক accurate , tribal medicine , আন্দামান দীপের জারুয়ারা কিন্তু সুনামির আগাম সংকেত পেয়েছিল , সুনামির সময় তারা সবাই পাহাড়ের উপরে চলে গিয়েছিল , এক জন মারা পরেনি | তারা প্রকৃতির অনেক কাছে .... আর আমাদের অনেকটাই detachment ঘটেছে ........


Shovon Chakraborty হ্যাঁ, পুষ্পক রথ বা ইকারাস বা ব্রহ্মাস্ত্র - এগুলো কবির কল্পনা, যেটা তাদের সময়ে মহাকাশ-কুসুম কল্পনা ছিলো। কিন্তু সেগুলো কোন লজিক্যাল এক্সটেনশন নয় বা লেখকরা যে খুব বিজ্ঞান মনস্ক ছিলেন সেটাও নয়।

বিগ ব্যাং থিয়োরি সম্পূর্ণভাবে আলাদা। কিন্তু এটাই দেখা যায় যে আজকে যেটা হয়ত ভিত্তিহীন কল্পনা, কালকে সেটাই বৈজ্ঞানিক সত্যও হয়ে যেতে পারে।

দা ভিঞ্চির স্কেচটাকে আমি কবির কল্পনা বলবো না, কারন সেটা এরোডিনামিক্স মেনে বানানো, যদিও সেই মেসিনটা প্‌র্‌যাকটিকালি কাজ করতো না।

Maifuz Ali MK Gandhi র "হিন্দ সরাজ " সবচে মহান concept কিন্তু লোক বিজ্ঞানের concept .... যা কোনো কোনো জায়গায় লোক বিদ্যা বলে , দেশে এখন অনেক লোক বিদ্যা center আছে .... যারা বিজ্ঞান টাকে একটু অন্য ভাবে দেখতে চায় .........


Shovon Chakraborty ‎Maifuz Ali , Sushanta দা, এই লিঙ্কতাটে স্কেচগুলো পাবেন -

http://www.leonardo - da - vinci - biography.com/leonardo - da - vinci - flying - machine.html



Atri Bhattacharya এই আলোচনায় উঠে আসা রেফারেন্সগুলির তালিকা:

1. The Evolution of Physic:Albert Einstein , Leopold Infeld

2. http://www.youtube.com/watch ? v=2zcuoEjuVCs

3. karl popper ও বিজ্ঞানের দর্শন : আশিষ লাহিড়ি , পাভলভ প্রকাশনি

4. History of Science: J D Bernal , অনুবাদক আশিষ লাহিড়ি , পাভলভ প্রকাশনি

5. http://www.toomanymornings.com/ ? attachment_id=6384

6. I believe in Spinoza ' s God who reveals himself in the orderly harmony of what exists , not in a God who concerns himself with the fates and actions of human beings. ( Albert Einstein )

7. http://www.leonardo - da - vinci - biography.com/leonardo - da - vinci - flying - machine.html

Atri Bhattacharya ইভলিউশন অফ ফিজিক্স- বইটি এখান থেকে ডাউনলোড করতে পারেন।

https://rapidshare.com/# ! download|2p2|81351136|0671201565.rar|18907|R~0|0|0
RapidShare – Secure Data Logistics


Atri Bhattacharya কার্ল পপারের বই:

http://strangebeautiful.com/other - texts/popper - logic - scientific - discovery.pdf
Friday at 8:28pm · Like · 1


Shuvra Rahman Ei sita - ta kintu darun interesting... dekhte pare...

http://www.robertlanzabiocentrism.com/


Robert Lanza , M.D. – BIOCENTRISM

www.robertlanzabiocentrism.com
Biocentrism is a new “Theory of Everything” proposed by American scientist Robert Lanza


Atri Bhattacharya এই আপদটা ৫৪৫ পাতার। আমার মাথা আর কম্পিউটার দুই-ই খারাপ করে এতক্ষণ বাদে নামলো।

Sumitra Purkayastha ‎Sushanta Kar: Lekhatite apnar bicharjo bishoy ki ki hobe seta bujhji na | Tobu duekti boi - er naam bolchhi; dekhte paren|
1. The Logic of Scientific Revolutions: Thomas S. Kuhn 2. The Character of Physical Law: Richard Feynman Amar duti boieri ebook achhe , lagle email id mention korun; inbox - e pouchhe jabe| Size jothakrome: ( 1 ) 2952 KB , ( 2 ) 15044 KB|


Sumitra Purkayastha " The Character of Physical Law " boiti paoa jabe ei site - e: http://www.physicsteachers.com/pdf/The_Character_of_Physical_Law.pdf


Keshab Das উৎসুকমহলের প্রতি নিবেদন: গৌতমবাবুর পরীক্ষা পর্যবেক্ষণ সিদ্ধান্ত ... এই ভাবনা হল স্কুলের বিজ্ঞান শিক্ষার ... যা কল্পনাকে নস্যাৎ করে প্রায় গোড়াতেই ... তবে আমার বলার কথা "আলোচনাচক্র" বলে একটি পত্রিকার বিভিন্ন সঙ্খ্যায় বিজ্ঞানের ... বিজ্ঞানচিন্তার বিভিন্নতা নিয়ে আলোচনা আছে ... সম্পাদক চিরঞ্জীব শূর ... উনি "পৃথিবীগ্রাম" নামক পত্রিকায় বাংলায় “ বিজ্ঞান ও কবিতা ” নিয়ে কিছু আলোকপাত করেছেন ... আপনারা যোগাযোগ করতে পারেন ... এ বিষয়ে প্রামাণ্য কিছু লেখালেখি হলে আমার পড়ার ভীষণ ইচ্ছে রয়েছে ... তবে সাম্প্রতিক বিজ্ঞানভাবনাকে ... বিশেষ করে কোয়ান্টাম থিয়োরির পরবর্তী অভিঘাতগুলো ধরতে পারলে বেশ ভালো হয় ... আর বাংলায় বিখ্যাত কবিবৃন্দ বিজ্ঞানের অন্দর নিয়ে কোনও কথা বলেন না ... আর এ বাংলায় বিজ্ঞানীরা তো বুদ্ধিজীবীই নন!(ব্যতিক্রম: আইনস্টাইন, যদিও ভিনদেশের) সাম্প্রতিক বিজ্ঞানীদের সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না। তবে "সংস্কৃতির দ্বিখণ্ডন"-আশীষ লাহিড়ী লিখিত বইটা অবশ্যই পড়ে নেবেন লেখার আগে ... রবীন্দ্রনাথের বিজ্ঞানচিন্তা নিয়ে উনি বেশকিছু ভালো লেখা লিখেছেন ... ওনার সঙ্গেও আলাপ জমাতে পারেন ... আমি তো এলেবেলে পাঠক তাই নোট্‌স সরবরাহ করতে পারলাম না ... আর সুমিত্রবাবুর বইদুটি কার্যকরী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল ... সাথে পল ডিরাক ও কার্ল সাগানকেও নিতে পারেন ... তবে লেখাটি অবশই লিখুন ... বাংলায় এইধরনের লেখালেখির বড় আকাল ... হাজারো কবি লাখো লাখো শব্দ উগ্রোচ্ছে ... বিজ্ঞানের যে দ্যাখা তা না করে কিছু বিজ্ঞানের পারিভাষিক শব্দব্যবহার করে জানান দিচ্ছে “ আম্মো বিজ্ঞান চাখি ”... যদিও তা য্‌ৎসামান্যই ... এ প্রসঙ্গে একটি কবিতা মোক্ষম হতে পারে:

আপেক্ষিকতার তঙ্কÄ বিষয়ে
আলবের্ট আইনস্টাইন আলোচনা করিতেছিলেন--

(কী বলিতে হইবে, তাহা আবিষ্কার করাকেই
তো বলে জ্ঞান)-----আলোচনা করিতেছিলেন

পল ভালেরির সঙ্গে,
জিজ্ঞাসা শুনিলেন:

হের আইনস্টাইন, আচ্ছা, আপনি আপনার
চিন্তাদের লইয়া কী করেন? মাথায় গজাইবা মাত্র

লিখিয়া ফ্যালেন? নাকি সন্ধ্যাবেলা অব্দি
অপেক্ষা করেন? কিংবা সকাল অব্দি?

আলবের্ট আইনস্টাইন উত্তর দিলেন:
মসিয়ঁ ভালেরি, আমাদের ব্যবসায়ে

চিন্তারা এতই দুর্লভ
যে যখন কারু মগজে কোন চিন্তা উদয় হয়

আপনি কিছুতেই তাহাকে ভুলিতে পারিবেন না। এমনকি একবছর পরেও না। --------------মিরোস্লাভ হোলুব অনুবাদ: মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়

Keshab Das সুশান্তবাবু আপনি ইমেইল id দিলে একটি লেখা পাঠাতে পারি ... যদি কাজে লাগে ...


Atri Bhattacharya কবিতাটি ভালো লাগল। মনে আছে বীরেন্দ্রনাথ চট্টোপাধায়ের কিছু কবিতা পড়েছি গ্যালিলেও প্রমুখকে উদ্দেশ্য করে লেখা। ভালো পয়েন্ট। এটা নিয়ে এতক্ষন কোন আলোচনা হয় নি। সবাইকে যোগ দিতে বলি।


Keshab Das জগদীশচন্দ্র বসু 'অব্যক্ত' গ্রন্থে লিখেছেন, “ বৈজ্ঞানিক ও কবি উভয়েই অনুভূতি অনির্বচনীয় একের সন্ধানে বাহির হইয়াছে। প্রভেদ এই, কবি পথের কথা ভাবেন না, বৈজ্ঞানিক পথটাকে উপেক্ষা করেন না। ”


Atri Bhattacharya পথ দেখানো শিল্পের কাজ কিনা এই নিয়ে তো বিস্তর মতভেদ। কিন্তু শিল্পের কাজ যে কি, আর কোথায় কথায় তা বিজ্ঞানের থেকে আলাদা, তা নিয়ে আমার ধন্দ কাটে না।


Keshab Das “ আমাকে যদি জিজ্ঞাসা কর বিশুদ্ধ আধুনিকতাটা কী তা হলে আমি বলব, বিশ্বকে ব্যক্তিগত আসক্তভাবে না দেখে বিশ্বকে নির্বিকার তদগতভাবে দেখা। এই দেখাটাই বিশুদ্ধ ; এই মোহমুক্ত দেখাতেই খাঁটি আনন্দ। আধুনিক বিজ্ঞান যে নিরাসক্ত চিত্তে বাস্তবতাকে বিশ্লেষণ করে, আধুনিক কাব্য সেই নিরাসক্ত চিত্তে বিশ্বকে দেখবে, এইটেই শাশ্বতভাবে আধুনিক। ”... রবীন্দ্রনাথ


Keshab Das “ আমাকে যদি জিজ্ঞাসা কর বিশুদ্ধ আধুনিকতাটা কী তা হলে আমি বলব, বিশ্বকে ব্যক্তিগত আসক্তভাবে না দেখে বিশ্বকে নির্বিকার তদগতভাবে দেখা। এই দেখাটাই বিশুদ্ধ ; এই মোহমুক্ত দেখাতেই খাঁটি আনন্দ। আধুনিক বিজ্ঞান যে নিরাসক্ত চিত্তে বাস্তবতাকে বিশ্লেষণ করে, আধুনিক কাব্য সেই নিরাসক্ত চিত্তে বিশ্বকে দেখবে, এইটেই শাশ্বতভাবে আধুনিক। ”... রবীন্দ্রনাথ


Atri Bhattacharya এই আসক্তি বা "ব্যাক্তিগত আসক্তি" ব্যাপারটা ঠিক কি? বিজ্ঞানীও মানুষ, সে ত নির্বিকার থাকতে পারেনা। সেখানে বিজ্ঞান আর কবিতা, বা বলা ভালো বিজ্ঞানী ও কবি আলাদা হল কোথায়? কবির-ও নিজেকে নিরপেক্ষ বলা উচিত নয়, কারন সেটা মিথ্যাচার হবে। খুব পাথুরে ভাষায় বলছি, কবি বা বৈজ্ঞানিক কেউ-ই তো নৈর্ব্যাক্তিক হতে পারেন না। তাহলে নিরাসক্তির প্রশ্ন আসছে কোথা থেকে?


Keshab Das এ আরেক অশেষ বিতর্ক ... রবীন্দ্রনাথ ও আইনস্টাইন-এর কথোপকথনেও এই প্রতর্কের ছায়া আছে ... আমি শুধু বিজ্ঞান ও কবিতা প্রসঙ্গে ভাবনাসূত্রগুলো উস্কে দিতে চাইছি .


Atri Bhattacharya একটা কথা ঠিক, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিজ্ঞানকে কবিতায় আত্মস্থ করবার প্রচেষ্টাগুলি মাঠে মারা গেছে। হয় তা হয়ে দাড়িয়েছে ক্লিশে, নয়তো এতই বাস্তবধর্মী, যে তা আর কবিতা নেই, বৈজ্ঞানিক জার্নালের কাছাকাছি কিছু। আপনি বলছিলেন বিজ্ঞানী বুদ্ধিজীবি, দু'-একজন নাম খুব স্পষ্ট চোখে পড়বে কিন্তু, যদি আপনি ধরে নেন সমাজবিজ্ঞান বা অর্থনীতি-দুই-ই বিজ্ঞান। তবু কোথায় যেন একটা ফারাক আছে। সেই ফারাকটাকেই ধরতে চাইছি।


Keshab Das বিনয় মজুমদারের ফিরে এসো চাকায় ... "দৃশ্যত সুনীল কিন্তু প্রকৃতপ্রস্তাবে স্বচ্ছ জলে পুনরায় ডুবে গেলো ... " ... সুনীল আর স্বচ্ছ-এর মধ্যে ... ব্যক্তিক আর নৈর্ব্যক্তিক-এর বোধোদয়গত পার্থক্যকে ধরার প্রস আছে ... আসক্ত মন-ই নিরাসক্তি-র সন্ধান চালায় ... যা হয়ত শিল্পের-ও গোড়ার কথা ... কে জানে ... আমি-ই বা ধুকে পড়ছি কেন ... এসব তো আমার কওয়া সাজে না ... মুখ্যু মানুষ ... আপ্নারাই ভাবেন ... আমারে ভাবান ...


Atri Bhattacharya হ্যা, আইনস্টাইনের সাথে রবীন্দ্রনাথের কথোপকথনে এই বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে। এই প্রসঙ্গে বলি, আমার ধারনা আইনস্টাইনের ঈশ্বরভাবনা বেদ-উপনিষদ দ্বারা প্রভাবিত।


Atri Bhattacharya আমি আপনার থেকেও মুখ্যু। যাই হোক, হ্যা, ভালো উদাহরন। যদিও এরকম ভুরি ভুরি উদাহরন পাওয়া যায় শুধু 'ফিরে এসো চাকা'-তেই। কবিদের মধ্যে তবে কিন্তু একমাত্র রবীন্দ্রনাথের পরিসর-ই, আমি দেখেছি, সবচেয়ে বড়, যেখানে মানবমনের কোন অনুভূতি, বা বলা ভালো চিন্তা, অচ্ছুৎ থাকেনি।


Keshab Das অত্রিবাবু আপনি সুশান্তবাবুর সাথে আলোচনা করুন ... আমি পাতি পাঠক ... এতো বেদ-অভেদে আমি মুখে-আঙুল ... সমাজ-বিজ্ঞান অর্থনীতি-বিজ্ঞান ... টুকলি করে পড়াশোনা আমার ... এত কি আমি বুঝি ভাই ... চণ্ডালে আছি ... গুরুতে নাই ... আপনেরা গুরুভাই ... চালায় যান ... এবার ঘুমোতে যাই ...

Nishan Chatterjee আমি বিজ্ঞানী নই, বিজ্ঞান নিয়ে বেশী কিছু জানি না, কিন্তু অঙ্ককে যদি বিজ্ঞান বলে ধরা যায় তাহলে অঙ্কে কিন্তু কল্পনা না থাকলে এক পাও এগোনো যাবে না, বিশ্বাস জিনিসটা যে অঙ্কে ভীষণ জরুরী এ কথা আগেও বলেছি নাস্তিক্য প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে, কাজেই সেই প্রবাদ "বিশ্বাসে মিলায় কৃষ্ণ / তর্কে বহুদূর"

Subhro Nil ekta bepar e ektu baje bokbo: amar somproti eta dharona hoyeche j ekdol buddhiman manush nijer sartho ba biswas k kolponar morok e mure bigyan k egiye niye jete chaiche ( ageo chilo eta ), jeta k porikolpito kolpona ( janina erokom kono sobdo thaka sombhob kina ) bola chole...

tai bodh hoy bigyan k review korte hoy , kobita nijer moto chole : )



Atri Bhattacharya kobita - r review dorkar nei bolchhen ?


Subhro Nil thik janina...kobita kotota khotikarok setai ei muhurte vabar chesta kore bertho holum : (


Atri Bhattacharya ek muhurte vabar cheshta - o korlen abar byartho - o hoye gelen ? Nishan Chatterjee might be right. :P


Subhro Nil amar motey: kobita kono ek samay onekgulo dimension e vese berate pare...bigyan e seta hoyna

Subhro Nil sofol hote onek muhurto lage , bertho hote ek i jothesto : )
Atri Bhattacharya ei line ta nia details - e shonar ichchha roilo. " amar motey: kobita kono ek samay onekgulo dimension e vese berate pare...bigyan e seta hoyna " .

Nishan Chatterjee অঙ্কে আমরা হাজার একটা dimension এ ভেসে বেড়াই কিন্তু!


Subhro Nil sob j bujhe boli emon to noy...onek kichu bolar por bujhi , onegulo na bujhe boli and bolar por o bujhi na...


Subhro Nil ‎4 khan niye himsim khacchi...abar onekgulo k niye keno tanatani koro vai Nishan !

Atri Bhattacharya ‎Nishan Chatterjee shohomot. Subhro Nil , eita na hoy , bolar por i bujhia din.


Nishan Chatterjee অনেকগুলো কি আমিই চাইছি রে ভাই, কিন্তু higher dimensional mobius map আমাকে ভোগাচ্ছে

Subhro Nil ami ektu onyo dimension er katha bolchilum r ki...dimesion er bangal khuje na pabar jonyoi emon bibhrom : ( bangla korle , bigyan e - jotota jani seta k nirbhor kore porer tukur uttor khuji...r kobitay - jana ba na jana tar opor uttor khoja nirbhor kore na...tai bollum r ki

Subhro Nil ai sabays ! tomar ' mobius map ' to boro rongeen goh


Nishan Chatterjee মাত্রা বলতে পারিস, তবে যা বললি সেটা হক কথা, সেটাই বিজ্ঞানের মূলগত বৈশীষ্ট, আর এটাই অঙ্ককে বিজ্ঞান বলার আগে ভাবায় : )
Atri Bhattacharya guliya jachchhe. apni " maatra " kimba " stor " ei dutor ekta bechhe nin. ei dutoi idaning chaalu shobdo kobitar khetre.

Shovon Chakraborty যা:, গাঁজায় এতগুলো ডাইমেনশন আসতেই পারেন। সিন্থেটিক লাগবে! :P

Subhro Nil , আমি আপনার সাথে কিছুটা একমত। বিজ্ঞানের সাথে যেহেতু বিভিন্ন কোম্পানির সার্থও অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িয়ে থাকে, তাই আপনার বলা মতে "পরিকল্পিত কল্পনা" এসে যায়।

কিন্তু কবিতার সাথে, বিজ্ঞানের ডিফারেন্স নিয়ে আবার টানাটানি কেনো? আর কবিরা শুনেছি প্ল্যাটোনিক লাভে বেশী উৎসাহী, যার জন্য মহামতি প্ল্যাটো এক মহিলা কবির ওপর ক্ষেপে গিয়ে কবিদেরকে নির্বাসিত করেছিলেন! : )

Nishan Chatterjee প্লেটোনিক লাভ একটা বাজে idea , ওসব আদৌ হয় না, তবে গাঁজায় dimension আসে, আর সিন্থেটিক গাঁজা ভারী মন্দ জিনিস, ফুফুসের বারোটা বাজিযে দেবে :P


Keshab Das ‎Sushanta Kar - da synthetic hok ba herbal....ganja tene ba na - tene...apni lekhati likhun...r akjon Richard Dawkins - er lekhapottor - o ulte - palte dekhte paren...achanok mone poray jure dilam...

Sushanta Kar বাহ! দারুণ আড্ডাতো, কাল আমি একটু ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলাম। আজ এসে যা দেখছি তাতে আমার চোখে চড়ক গাছ দেখছি। এখানে যে সব কথা এলো , সেগুলো ধরে এগুলেলেইতো চম্‌ৎকার একাধিক লেখা এগোয়।
Sushanta Kar ‎Keshab Das আপনাকে মেইল আইডি, দিয়েছি। এমনিতেও আমার প্রফাইল ইনফোতে আছেও। আপনি সঠিক বলেছেন, "আর বাংলায় বিখ্যাত কবিবৃন্দ বিজ্ঞানের অন্দর নিয়ে কোনও কথা বলেন না .. " একেবারে বলেননা তাও নয়, উত্তরাধুনিকতার চর্চাতে কিছু কিছু হয়েছে। কিন্তু আমার মনে হয়েছে এসবই পরের মুখে ঝাল খাওয়া। ওখানে কবিকুল খুব একটা কল্পনার আশ্রয় নেন নি। অবশ্যি, আমি আসলে আপনাদের তুলনাতে দেখছি শিশুই। লেখাটি লিখে সাবালক হবার প্রস করা মাত্র। Sumitra Purkayastha আমার উদ্দেশ্য, তাই যা প্রথম দু'বাক্যে লিখেছি। এবং যা নিয়ে আড্ডা হচ্ছে। মোদ্দাকথা 'যুক্তিবাদ'কে খানিক ঘায়েল করা।

Shovon Chakraborty ‎Sushanta দা, আরেকবার প্রমাণিত হলো, "বিনম্রতাই মহত্বের লক্ষণ!" :

Atri Bhattacharya ওটা বোধ হয় নম্রতা হবে। :P

Nishan Chatterjee কেউ এটার একটা doc করুন, in fact Sushanta দা নিজেই admin , আপনিই করুন!

Keshab Das sushantada mail - id check korun... compu khulei pathiyechi.....
Keshab Das প্রথমেই ঘায়েল করবেন ধরে এগোবেন সুশান্তদা ... না ... না ... কোন ধরাধরি করবেন না ... খানিক তদ্‌গত ভঙ্গিমায় ধ্যান করুন ... তাতে যুক্তিবাদ ঘায়েল হলে হবে ... কল্পনা ঘায়েল হলে হবে ... আপনি ঝুঁকে পড়লে প্রথমেই ... লেখাও ঝুলে যেতে পারে ... তবে লিখুন বিষয়টাকে কবিকুলের মধ্যে ছড়াতে পারলে বাংলা কবিতা আনন্দিত হবে কী!!!!
Jaladhi Ray উচ্চতর বিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান বা গণিতের ধারণা নেই আমার নেই । তবে যুক্তি কম কল্পনা বেশি কথাটাকে বাড়াবাড়ি মনে হচ্ছে । বিজ্ঞানে কল্পনা যুক্তির হাত ধরেই তো চলার কথা । যুক্তি কম কল্পনা বেশি তো কল্পবিজ্ঞানে হয় বলে জানি ।অআর বৈজ্ঞানিক কল্পনা ভুল প্রমাণিত হলে সকলেই সেটা মেনে নেন ---এটা এইটুকুন তফাত মনে হচ্ছে না, এটা বিরাট তফাত ।

Sunando Patra বিজ্ঞান নিয়ে পড়ছি বটে, তবে তেমন কিছুই বুঝিনা। কিন্তু এটুকু বলতে পারি- "বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে। "-- এটা মোটেই ঠিক কথা নয়। যে কোন idea আসে অবশ্যই কল্পনার ডানায় ভর করে, কিন্তু সেখানেই তার শেষ। তারপর শুরু হয় সেটাকে real world এর নিক্তিতে মাপা। কোন নতুন prediction এর অনেক আগে তার কাজ হলো পুরনো result reproduce করা, পারলে experimental anomaly reduce করা। এসব না করে উঠতে পারলে প্রথমেই সেটা ছুঁড়ে ফেলা হবে। অবধারিত। পুরো রাস্তাটা তখন যুক্তির। এমনকি নতুন চিন্তাও এসে গভীর যুক্তিবদ্ধ চিন্তার extrapolation এর মাধ্যমেই। এখানে লাগামহীন কল্পনার জায়গা কোনদিন ছিলো না, থাকবেও না। আমি Nishan এর সঙ্গে একমত, বরং তাঙ্কিÄক অঙ্কশাস্ত্রের সঙ্গে কবিতার মিল খুঁজে পাওয়া যেতে পারে- mainstream science এর মোটেই নয়।

Ipsita Pal কল্পনা মানেই কি অযৌক্তিক নাকি ? :)
Sunando Patra মোটেই না, সেটাই তো বলছি, তাই 'যুক্তি কম কল্পনা বেশি' ঠিক হতে পারেনা তো ...

Ghanada Ghanar Bachan কল্পনা চাওলাই কি সেই কল্পনা


Ipsita Pal চা ওয়ালাকে কোনদিন কল্পনা করার চেষ্টা করি নাই :(


Atri Bhattacharya ইপ্সিতাদি, বিজ্ঞান আর কবিতা- এই দুই ক্ষেত্রে কল্পনার সংজ্ঞা সম্পূর্ন আলাদা। কবিতায় কবির কাছে কোন বিশেষ নির্দিষ্ট ডায়মেনশন থাকে না, বা সে কোন ডায়মেনশন ধরতে বাধ্য নয়। তার কল্পনা এখানেই বিজ্ঞানের তথাকথিত কল্পনা থেকে আলাদা হয়ে যায়। হ্যা, কবি ও বিজ্ঞানী, পরীক্ষার উপাদান ও নিরীক্ষার প্রসার (এখানেও তর্ক আছে) উভয়ের কাছেই সমান। কিন্তু বিজ্ঞানীর নিরীক্ষা সীমাবদ্ধ, প্রয়োজনের বাইরের অংশটুকুর তার কাছে কোন মূল্য নেই। সিদ্ধান্তের বাধ্যবাধকতা কবির নেই, বিজ্ঞানীর আছে। কবি যে কোন স্তরে থেমে যেতে পারেন, বিজ্ঞানী পারেন না। আবার এই সিদ্ধান্ত বিজ্ঞানীর পরবর্ত্তী কল্পনার কাঁচামাল, কবির ক্ষেত্রে সে প্রশ্নই ওঠে না। বিজ্ঞানের অমিমাংসিত প্রশ্নগুলি নিয়ে কবি জাল বুনতে পারেন ইচ্ছামত, বিজ্ঞানী তাকে মেথডিকালি বিচার করবেন । খুব কম বুদ্ধিতে যা কুলোয় তা বোঝাবার চেষ্টা করলাম। এ প্রসঙ্গে একটা উদাহরন দিই, জানিনা কারো কাজে আসবে কিনা। কল্পবিজ্ঞান বিজ্ঞানের একটি জরুরি কিন্তু অবহেলিত গবেষনাগার, যেখানে অহরহ নতুন নতুন আইডিয়ার চাষ হচ্ছে। ধর, অদ্রিশ বর্ধনের একটি গল্প, "যেদিন ২৩ ঘন্টায় একদিন হয়েছিল"। গল্পটির উৎস টোকিও আস্ট্রোনমিক্যাল অব্জারভেটরি থেকে প্রচারিত একটি "বিজ্ঞানসত্য"। লক্ষনীয়, লেখক এখানে বিজ্ঞানসত্য শব্দটি ব্যবহার করেছেন। এর অর্থ, আমার মতে, বিজ্ঞানে সত্য শব্দটির তাৎপর্য্য অনন্য, যা, এমনকি কল্পবিজ্ঞানকেও প্রভাবিত করে। আবার একটি প্রকাশিত খবর যখন একটি কবিতাকে, বা সামগ্রিক অর্থে একটি বিশেষ শিল্পমাধ্যমকে প্রভাবিত বা উৎসাহিত (ইন্সপায়ার) করে, সেখানে তা অন্তহীন সম্ভাবনার পথ খুলে দেয়, বন্ধ করে খুব কম। আমার মতে, বিজ্ঞানে রিয়ালিটি আর ইম্যাজিনেশন- উভয়ের ভ্যারিয়েবল প্রায়শ: এক, যা কবিতার ক্ষেত্রে সব সময় সত্য নয়। "প্রমাণিত সত্য" বিজ্ঞানে কল্পনার প্রসারকে বাড়িয়ে দেয়। আর কবিতার ক্ষেত্রে তা বীপরিত। প্রমাণিত সত্য সেখানে অপ্রমাণের একটা পাল্টা যুক্তিমাত্র, যা ব্যবহার করা না করা কবির মর্জি ও ক্ষমতার উপর নির্ভরশীল।


Atri Bhattacharya উৎসাহিতটা ইন্সপায়ার হবে না। মানে ওটা হবে অনুপ্রাণিত।


Ipsita Pal Atri , ভাল লিখেছিস। কিন্তু 'বিজ্ঞানীর নিরীক্ষা সীমাবদ্ধ, প্রয়োজনের বাইরের অংশটুকুর তার কাছে কোন মূল্য নেই। ' এতে পুরো একমত নই। 'প্রয়োজন' কে ডিফাইন করছে ?

Atri Bhattacharya পরীক্ষার উদ্দেশ্য। সেটাই তো নীরিক্ষায় কি কি বিষয়ের উপর জোর দেওয়া হবে তা সংজ্ঞায়িত করে। তাই না?




Santanu Debnath orokom bhable anek kichhu abiskar ee hotona. lots of discoveries are accidental .

Atri Bhattacharya হ্যা তা তো বটেই। তবে আক্সিডেন্টের কথা মাথায় রেখে কেউ বিজ্ঞানচর্চা করতে বসেন না। আক্সিডেন্টে ভালো কবিতা বেরিয়ে যাবে ভেবে কেউ কবিতাও লিখতে বসেন না। মাথায় চিন্তা একটা থাকেই। সেটাই কল্পনা। এখানেই কল্পনার বিভাগ কবিতা আর বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে আলাদা।

Ipsita Pal কবিতার লাইন ও তো আক্সিডেন্টালি আসতে পারে


Nishan Chatterjee এককথায় বিজ্ঞান পরীক্ষানির্ভর, যেমন নিউটন না থাকলেও মাধ্যাকর্ষণ থাকতো, অন্য কেউ হয়তো খূঁজে পেত, কিন্তু রবীন্দ্রনাথ না থাকলে গীতাঞ্জলী থাকতো না, আর রীমান না থাকলে রীমানীয় জ্যামিতি থাকতো না, কাজেই বিজ্ঞান এবং অঙ্ক বা শিল্পের পার্থক্য, ববিজ্ঞান ঈশ্বরসৃষ্ট, কাজেই সত্যের উপরেই আধারিত, খুব বেশী এদিক ওদিক করার জায়গা নেই, অন্যগুলো মানবসৃষ্ট, কাজেই হাত পা ছড়ানোর অনেক জায়গা আছে!


Santanu Debnath thread ta ettu porlum . " kalponashokti " kotha ta loosely baybohar kora hochhe bole mone hochhe. Inductive Thinking and Deductive thinking process er basis e alochona korle substantiate korte subidha hobaaa !


Atri Bhattacharya ‎Sushantada , যুক্তিবাদকে ঘায়েল করাই যখন আপনার উদ্দেশ্য, বুঝতেই পারছি কল্পনার প্রতি আপনার পক্ষপাতিত্ব বেশি। (হাসিমুখ) পি বি শেলী ১৮২১ সালে তার " A Defence of Poetry " প্রবন্ধে যুক্তি ( Reason ) ও কল্পনা-র ( Imagination ) মধ্যে কি সম্পর্ক নির্ণয় করেছিলেন তার প্রতি আপনার দৃষ্টি আকর্ষন করছি। তিনি বলছেন," Reason is the enumeration of qualities already known; imagination is the perception of the value of those qualities , both separately and as a whole. Reason respects the differences , and imagination similitude of things. Reason is to imagination as the instrument to the agent , as the body to the spirit , as the shadow to the substance. "

Atri Bhattacharya http://www.poetryfoundation.org/learning/essay/237844 ? page=1
A Defence of Poetry by Percy Bysshe Shelley

Atri Bhattacharya J. Bronowski -র " The Reach of Imagination " প্রবন্ধটির লিঙ্ক দিলাম। http://www.public.iastate.edu/~bccorey/105%20Folder/The%20Reach%20of%2
0Imagine.pdf



Atri Bhattacharya তাঙ্কিÄক জীববিদ্যা-বিশারদ Stuart Kauffman এর বিজ্ঞান ও কবিতার তুলনামূলক আলোচনা সংক্রান্ত একটি প্রবন্ধ," Science and Poetry " . সঙ্গের মন্তব্যগুলিও আশা করি কাজে লাগবে।

http://www.npr.org/blogs/13.7/2010/10/04/130324199/science - and - poetry


Science And Poetry : NPR

www.npr.org
Newton and poetry.


Atri Bhattacharya এই প্রচেষ্টাটি আপনার সমধর্মী বলেই মনে হয়।

http://www.mukto - mona.com/project/muktanwesa/1st_issue/biggan_shilpo_Aparthib.htm


বিজ্ঞান, শিল্প ও নন্দনতঙ্কÄ : অপার্থিব

www.mukto - mona.com
Mukto - mona encourages rationalism among our members.

Atri Bhattacharya ‎Sushanta Kar , Maifuz Ali , আইনস্টাইনের ঈশ্বর বিশ্বাস নিয়ে এই প্রবন্ধে দীর্ঘ আলোচনা রয়েছে। http://www.zoklet.net/bbs/showthread.php ? t=184694


Einstein and god - Zoklet.net

www.zoklet.net
Einstein and god Religion and Spirituality


Atri Bhattacharya An abridgement of the letter from Albert Einstein to Eric Gutkind from Princeton in January 1954 , translated from German by Joan Stambaugh:


... I read a great deal in the last days of your book , and thank you very much for sending it to me. What especially struck me about it was this. With regard to the factual attitude to life and to the human community we have a great deal in common.


... The word God is for me nothing more than the expression and product of human weaknesses , the Bible a collection of honourable , but still primitive legends which are nevertheless pretty childish. No interpretation no matter how subtle can ( for me ) change this. These subtilised interpretations are highly manifold according to their nature and have almost nothing to do with the original text. For me the Jewish religion like all other religions is an incarnation of the most childish superstitions. And the Jewish people to whom I gladly belong and with whose mentality I have a deep affinity have no different quality for me than all other people. As far as my experience goes , they are also no better than other human groups , although they are protected from the worst cancers by a lack of power. Otherwise I cannot see anything ' chosen ' about them.


In general I find it painful that you claim a privileged position and try to defend it by two walls of pride , an external one as a man and an internal one as a Jew. As a man you claim , so to speak , a dispensation from causality otherwise accepted , as a Jew the priviliege of monotheism. But a limited causality is no longer a causality at all , as our wonderful Spinoza recognized with all incision , probably as the first one. And the animistic interpretations of the religions of nature are in principle not annulled by monopolisation. With such walls we can only attain a certain self - deception , but our moral efforts are not furthered by them. On the contrary.


Now that I have quite openly stated our differences in intellectual convictions it is still clear to me that we are quite close to each other in essential things , ie in our evalutations of human behaviour. What separates us are only intellectual ' props ' and ' rationalisation ' in Freud ' s language. Therefore I think that we would understand each other quite well if we talked about concrete things. With friendly thanks and best wishes


Yours , A. Einstein



Shuvra Rahman Albert Einstein kintu bivinno somoy emon kothao bolesilen -
" One thing I have learned in a long life is that all our science , measured against reality , is primitive and childlike... and yet , it is the most precious thing we have. "

" Before God we are all equally wise - and equally foolish. "

" If the facts don ' t fit the theory , change the facts. "

" As far as the laws of mathematics refer to reality , they are not certain; and as far as they are certain , they do not refer to reality. "

" The most incomprehensible thing about the world is that it is at all comprehensible. "

" The secret to creativity is knowing how to hide your sources. "

" Things should be as simple as possible , but not simpler. "

Atri Bhattacharya ‎Keshab Das , রিচার্ড ডকিন্স-এর একটি লেখার বাংলা অনুবাদ খুঁজে পেলাম।

http://www.mukto - mona.com/project/muktanwesa/1st_issue/iswar_bibhranti_dawkins.htm


ঈশ্বর বিভ্রান্তি ও প্রবঞ্চনা : রিচার্ড ডকিন্স ; অনুবাদ : অজয় রায়

www.mukto - mona.com

Sushanta Kar শুরুতেই ঝুঁকবনা বটে, কিন্তু ভাবনাটা ঢোকেছে ঐ 'যুক্তিবাদে' জনপ্রিয় বিস্তারে ক্লান্তির থেকে। এই যা--বাকি আপনারা বলে যান, আমি বোঝার চেষ্টা করছি।


Sumitra Purkayastha ‎Sushanta Kar: Boi - er je list apnake deoa hoyechhe e jabot , tate apni nischoy chomotkroito !! Aaro akta binito suggestion diy: Rabindranath - er " The Religion of Man " boi - er 221 - 225 patay royechhe Einstein - er songe tnar kothopohothon " NOTE ON THE NATURE OF REALITY " . ( A conversation between Rabindranath Tagore and Professor Albert Einstein , in the afternoon of July 14 , 1930 , at the Professor ' s residence in Kaputh. ) Dekhte paren|

Unlike · Unfollow Post · Report · 2 hours ago
You , Shovon Chakraborty and Ipsita Pal like this.




Name:  Biplob Rahman           Mail:  biplobr@gmail.com           Country:  Bangladesh

IP Address : 202.164.212.14          Date:25 Mar 2012 -- 07:11 PM

"টইপত্র" দেখি মোটেই বিজ্ঞান মেনে চলে না। টইয়ের নাম দিতে চাইলাম : "বিজ্ঞান কবিতার মতৈ এগোয় যুক্তি কম কল্পনাকে বেশি সঙ্গে করে", কিন্তু তা ভেঙেচুরে দাঁড়ালো কিম্ভুদাকার! কেমনে কী? (কলিকাল ইমো)



Name:  Sushanta           Mail:  karsushanta40@gmail.com           Country:  2477249424802468

IP Address : 117.198.57.81          Date:25 Mar 2012 -- 10:21 PM

কাজটা ভালো করেছেন, কিন্তু গুরুর সাইটের মজাও টের পেয়েছেনতো? : )



Name:  ranjan roy           Mail:             Country:  

IP Address : 122.168.58.51          Date:25 Mar 2012 -- 10:52 PM

বিপ্লব রহমান, সঙ্গে আছি।


এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--4