বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

কবিতা

মণিশঙ্কর বিশ্বাস

কান্না

গভীর জলের মাছ তুমি—

জলের অনেক নিচে যেই মনোরম
তাকে আমি প্রত্যক্ষ করেছি

তোমার ভিতর

~~~~

অনুবাদ কবিতা

দেয়ালে পিঁপড়ের সারি স্যানিটাইজার দিয়ে মুছে ফেলা হল। বৃষ্টির আগে পিঁপড়েরা ওদের পুরনো কলোনি ছেড়ে নিরাপদ আবাসস্থলের দিকে চলে যাচ্ছিল। এর মধ্যেই পথ হারাল ওরা। মুছে গেল গন্ধরেখা, মুছে গেল পথশ্রম, শ্রমিক, কুলি-কামিনের নতুন ঘরের দিকে চলে যাবার জেনেটিক ঘোর। এর পরেও যারা বেঁচে থাকবে, তাদের পুরনো ঘর ভেসে যাবে বৃষ্টি-বাদলে, কীটনাশকে। মুছে যা্বে পিঁপড়ে-কলোনি, একটা পিঁপড়ে-ডায়ালেক্ট।

অনেকটা ঠিক এই একইভাবে কেউ মুছে ফেলবে তোমার ভাষা। তোমার রক্ত শুকিয়ে উদ্বায়ী হয়ে আকাশে একটা লাল রঙ্গের মেঘ তৈরি করবে।

খুব দূরে একটা অতিবেগুনী আলোর ভিতর বসে কেউ টুকে নেবে এই দৃশ্য।
হয়ত একটা ছবি করে তাকে টাঙিয়ে রাখবে কোনো দেয়ালে।

~~~~

প্লেজ্যারিজম

ঘরের ভিতর যে ধুলো
তার সত্তর শতাংশ মানুষের ত্বকের ভগ্নাংশ—
ছিন্ন ত্বক, মৃত কোষকলা, ঘাপটি মেরে বসে থাকে
খাটের তলায়, বইয়ের তাকে, আলমারিতে।
জীবন্ত শরীর তাকে ভয় পায়—
মনে করে অন্য কেউ ঢুকে পড়ছে তার এলাকায়—
অনুপ্রবেশকারী!

হাঁচি পায়।

~~~~

লেবুফুল

আজ দুপুরের দিকে চব্বিশ বছরের পুরনো একটা হাওয়া আসে
প্রথমে মনে হয় সুলতা
তারপর বুঝি, সে ওর আইবুড়ো মেজদিদি—
আজো সেই একইরকম—
দাঁত সামান্য উঁচু, মাজা গায়ের রঙ
চোখ আঁকা নাভি— সবেদা গাছের নিচে কবেকার
ঈষৎ পিচ্ছিল সবুজ ঘাটের রাণা—
যেখানে আমরা, আমার বয়সী সকলেই
আছাড় খেয়েছি

আর লেবুফুলের গন্ধে ভরে গেছে আমাদের বয়ঃসন্ধি।

~~~~

যাওয়া

দূরে ঐশ্বরিক নিশ্চেষ্ট পাহাড়, সর্বময় মেঘ
ছাতিম গাছের ছায়া ভেদ করে,
কাঠবেড়ালির লেজের মতো উষ্ণ তুলতুলে
রোদ এসে পড়ে—

এর চেয়ে বেশী কিছু চাইবার আগে
যে বাতাসে আমার শরীর মিলিয়ে যাবে
তারই সপ্রতিভ হাতের টোকায়
একটা দুটো করে ঝরে পড়ে
ছাতিম গাছের পাতা—
ওদের যাবার মতো সহজ সরল
চলে যেতে চাই
আর তো তেমন কিছু চাইবার ছিল না, নেই।



3496 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

কোন বিভাগের লেখাঃ কাব্যি  বুলবুলভাজা 
শেয়ার করুন


Avatar: নাহার তৃণা

Re: কবিতা

কবিতা পড়ে ভালো লেগেছে।
Avatar: মঙ্গল গুপ্ত

Re: কবিতা

কবিতা পড়ে যুগপৎ মুগ্ধ ও ঈর্ষান্বিত হইয়াছি
Avatar: প্রতিভা

Re: কবিতা

আমার প্রিয় কবি। প্রত্যেকটি কবিতা অনন্যসাধারণ। ওঁর লেখা চন্দনপিঁড়ি কাব্যগ্রন্থটি সমস্ত কবিতার মানুষের পড়া দরকার।
Avatar: অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়

Re: কবিতা

লেখাগুলি পড়ে ভালো লাগলো। মনিশংকরের পরের লেখার জন্য অপেক্ষা করবো।
Avatar: রাজীব ঘোষাল

Re: কবিতা

খুব ভালো লাগল। প্রতিটি লেখাই দারুণ
Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: কবিতা

অনুবাদ কবিতাটি মারাত্মক! 👌
Avatar: কুশান

Re: কবিতা



গভীর জলের মাছ তুমি—

জলের অনেক নিচে যেই মনোরম
তাকে আমি প্রত্যক্ষ করেছি

তোমার ভিতর


গভীর কবিতা। গহন। ভাবতে বাধ্য করে। অন্তবর্তী পংক্তি ভাবাচ্ছে। শেষ দুটি লাইন, এবং ভেঙে শেষ লাইন বিস্ময়কর।

বাকিগুলো, অনুবাদ কবিতাটি অত্যন্ত সুন্দর।



আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন