এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16] [17] [18]     এই পাতায় আছে502--532


           বিষয় : গুপি গাইন বাঘা বাইন নিয়ে বাৎচিত
          বিভাগ : সিনেমা
          শুরু করেছেন : Arnab913
          IP Address : 113.73.226.166 (*)          Date:13 Jul 2017 -- 05:14 PM




Name:  lcm          

IP Address : 179.229.10.212 (*)          Date:27 Jul 2017 -- 09:39 PM

আর এইটা ছিল বেঙ্গল পলিটিক্যাল ক্রিটিক মহলের প্রধান অভিযোগ,

Cineaste: Some people see that as an abdication of the filmmaker's social role. A number of critics, especially those in Bengal, feel that you aren't political enough, that you can go further, but that you just haven't tested your limits.

Ray: No, I don't think I can go any further. It is very easy to attack certain targets like the establishment. You are attacking people who don't care. The establishment will remain totally untouched by what you are saying. So, what is the point? Film cannot change society. They never have. Show me a film that changed society or brought about any change.

বেশ পরিষ্কার করেই বলে দিয়েছেন।

https://www.jstor.org/stable/41686766


Name:  dc          

IP Address : 24.99.6.190 (*)          Date:27 Jul 2017 -- 10:31 PM

কল্লোলবাবু,
হীরক রাজা যেহেতু বিষয় নয় তাই সেটা আলোচনার বাইরে রাখছি । শ্রেণী সংগ্রাম হোক বা সমন্বয় তার জন্য দুটো জিনিস লাগে বলে জানি । একটা শাসক আর একটা শোষিত । কনফ্লিক্ট বা সমন্বয় এদের কেন্দ্র করেই হতে পারে । 'গুগাবাবায়' শাসক এবং শোষিত বলতে যেটা স্পষ্ট উল্লেখ আছে সেটা হাল্লার রাজ্যে । সেখানে 'মন্ত্রী' মূল 'ষড়যন্ত্রী' । রাজা আসলে 'পাপেট' । এবার গল্পটায় আসুন । সেখানে হাল্লার মন্ত্রীর লক্ষ্য শুন্ডি রাজ্য জয় । সুতরাং শাসক শোষিত বিষয় টা এখানে গৌণ , যা হীরক রাজার গল্পে নয় । এবার গল্পের পরিণতি আবার আপনাকে স্মরণ করিয়ে দি । সেখানে মূল ষড়যন্ত্রীর কোনো মনের পরিবর্তন দেখানো হয়নি । যুদ্ধে যে পরাজয় সেটা হাল্লার রাজার পরাজয় নয় , হাল্লার মন্ত্রীর পরাজয় এবং হাল্লাবাসীর শোষক মন্ত্রীর হাত থেকে মুক্তি ! শুন্ডীর রাজার অকারণ যুদ্ধ থেকে মুক্তিলাভ এবং নিজের ভাই কে ফিরে পাওয়া । অর্থাৎ বক্তব্য এখানে পরিষ্কার , শিল্প সংস্কৃতির মাধ্যমে যুদ্ধবাজ রাজনীতি কে পরাস্ত করা , রাজ্যে অনাচার কে দূর করা। এখানে শ্রেণী সংগ্রাম, সমন্বয় এগুলো তাৎপর্যহীন বলেই মনে হয় ! এর খুব বাস্তব উদাহরণ দেয়া যেতে পারে সেসময় 'ভিয়েতনাম থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহার । তার পেছনেও কিন্তু শক্তিধর গায়ক কবিদের একটা বড়ো ভূমিকা ছিল ( ডিলান, পিট্ সিগার , জোয়ান বায়েজ ইত্যাদি) । এবং এটা আশ্চর্য নয় যে তার পরোক্ষ প্রভাব যদি সত্যজিতের ওপর পড়ে থাকে ।


Name:   T          

IP Address : 190.255.241.43 (*)          Date:27 Jul 2017 -- 11:03 PM

আরে ধীরে কল্লোলদা, ধীরে। শ্রেণী সংগ্রামের গল্পও বলিনি রাজনৈতিক ছবি কিনা তাও বলিনি। ভূতের নেত্যয় শ্রেণী সংগ্রামের হদিস পাই নি সেটুকুই বলেছি। এরম ছড়িয়ে ফেললে কি করে হবে। একটু ভেবে চিনতে লিখুন না ক্যানো ক্লাস কোলাবরেশন মনে করেন।


Name:  T          

IP Address : 131.6.68.127 (*)          Date:27 Jul 2017 -- 11:09 PM

* শ্রেণী সংগ্রামের বা শ্রেণী সমন্বয়ের কোনোটারই


Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 01:40 AM

ভূতের নাচের ক্ষেত্রে একটা প্রশ্ন। রায়বাবু সিনেমা বেড়োনোর এক বছর পর ইন্টারভিউতে বলেছেন ভুতের নাচের ভূতরা "অ্যাকচুয়ালি কতকগুলি ক্লাস অফ পিপল যারা অবভিয়াসলি বাংলাদেশে ছিল ... সাহেবরাতো ... বহু মরেছে অল্পবয়েসে আর কি ... " অর্থাৎ সাহেব ভূতের ক্লাস টা ফর্ম করছে বাংলাদেশে থাকাকালীন মরে গেছে এমন সাহেবদের নিয়ে। কিন্তু খেরোর খাতায় যখন সিনেমা বানাবার আগে ছবি এঁকে প্ল্যান করছেন, তখন দেখছি সাহেব ভূতেদের গ্রুপটা ফর্ম করছে - হেস্টিংস, ক্লাইভ, চালিয়াৎ ভূত, কর্ণওয়ালিস, সৈনিক ভূত ও নীলকর সাহেব। এবার হেস্টিংস আর ক্লাইভ কিন্তু ভারতে মারা যান নি।

এখান থেকে দুটো সম্ভাবনার কথা মাথায় আসে। এক হেস্টিংস আর ক্লাইভ ভারতে মারা যায় নি সেটা ওঁর জানা ছিল না, বা খেয়াল ছিল না, খুবই রিমোট সম্ভাবনা। দুই, ইন্টারভিউ তে উনি ঠিক কথা বলেননি। হতে পারে প্রাথমিক ক্লাস ফর্মেশনের কারণটা ইন্টারভিউর সময় মনে ছিল না, বা বলতে চান নি। বলতে বা চাওয়ার কারণ হতে পারে নাচের ক্লাসটা যে অতটা ভেবে করা হয়েছে, সেটা পাবলিক করতে চান নি। তাহলে যতটা সহজ আনন্দে লোকে সিনেমাটা দেখছে তাতে একটা ব্যারিয়ার চলে আসবে। সিনেমাটা কমার্শিয়াল এর বদলে আর্ট ফিল্ম হিসেবে ট্রীটমেন্ট পেতে পারে। মুখে মুখে ছড়াতে পারে, দেখতে যতই সহজ লাগুক ভেতরে অনেক কঠিন জিনিস পোরা আছে। একেবারে এই জায়গা থেকেই, যেমন আমার মনে হয়, আসল কাজটার ৯০% মেরে দিয়ে (ঝাপসা করে গলিয়ে কাঁপিয়ে নেগেটিভ করে) বোধগম্য ১০% মাত্র সিনেমায় রেখেছেন। ইন্টারভিউর সময় তো আর জানতেন না ওঁর খেরোর খাতার স্কেচ এর ছবি মৃত্যুর পরে, ছেলের সৌজন্যে, ইন্টারভিউয়ের রিপ্রিন্টের পাশে ছেপে দেওয়া হবে!

খেয়াল করে দেখলে কিন্তু সাহেব ক্লাসটার ফর্মেশনে ভারতে/বাংলায় দুশো বছরের ব্রিটিশ ইতিহাসের সাহেবদের কনসাইজ করা আছে। মায় তাদের হাতের বন্দুক, ছড়ি, তরোয়াল, মদের বোতল আর পোশাকের বিভিন্নতা মিলিয়ে টোটাল সাহেবি চালচ্চিত্রটাই।

আরেকটা জিনিস হতে পারে, উনি যেরকম ডিটেলের প্রতি খুঁতখুঁতে ছিলেন সে জায়গা থেকে নাচের ডিটেলটা ওঁর নিজের চোখেই কম্প্রোমাইজ মতো ঠেকেছিল। হয়তো, কথার কথা বলছি, হেস্টিংস, ক্লাইভ, কর্ণওয়ালিস এর উপযুক্ত পোশাক পান নি, বা সেকেলে সাহেবি বন্দুক যোগাড় করা যায়নি, বা একই ভাবে কনিষ্ক যুগের রাজাদের পরিধান নিয়ে যথেষ্ট রিসার্চ করে উঠতে পারেননি - ইত্যাদি। এসব করার মতো সময় দেওয়া সম্ভবও ছিল না। যদিও এই জায়গাটা ঠিকঠাক করে তুলতে হলে প্রায় একটা পিরিয়ড পীস বানাবার প্রস্তুতি লাগে। ২৪ টা বিভিন্ন পিরিয়ডের চরিত্রকে বিশ্বাসযোগ্য ভাবে তুলে ধরা, তাদের সমস্ত প্রপস সমেত। তো সেই খামতিটা ঝাপসা করে ঢেকে দেওয়া হল। মোরওভার এত কান্ড করে লাভটা কি হত? একটা বাচ্চাদের সিনেমা অতিমাত্রায় ভারাক্রান্ত হয়ে পড়ত।

এর বাইরে গোটা সিনেমা জুড়ে, একজন সচেতন নির্দেশকের দিক থেকে স্বাভাবিকভাবেই নানা হিন্টস বা সাটল কমেন্ট থাকবে। হাল্লার প্রহরী/সান্ত্রীরা হবে সবাই রোগা দুবলা ভিসুয়ালি বুভুক্ষু। হীরকের রাজকোষ পাহারা দিচ্ছে যে সান্ত্রী তার তুলনায় দেখলে তো বোঝাই যায় এই চেহারা নির্বাচনের একটা মোটিফ রয়েছে। শুন্ডীর বাসিন্দাদের নির্বাক শৈল্পিক সৌন্দর্যের বিপ্রতীপে হাল্লার প্রহরীর দুর্বোধ্য কটুশ্রাব্য ক্যাঁওম্যাও। দূতের ভাষায় শুন্ডীতে সৈন্য নেই। তবে কী আছে? ফুল আছে, পাখি আছে, নদী আছে -- সেই ডায়লগ। এক যুদ্ধবাজ দেশে রাজা প্রজার সম্পর্কটা কতখানি শোষক শোষিতের যেখানে বুভুক্ষতম সেনাবাহিনীর সেনাপতি সর্বক্ষণ খাচ্ছে, শুন্ডীর বোবা জনতাকে সারাবার ওষুধ আবার হাল্লার ভিলেন মন্ত্রীর কাঙ্খিত - তার কারণ বর্ণনায় রাজনীতির এক আপাত ফ্যালাসির মোটিফ উন্মোচন।

একটু চোখ খুলে খুঁজলে পিওর ফ্যান্টাসীর ভাজে খাঁজে এমন নানা কমেন্ট পাবেন রায়বাবুর যা আপাদমস্তক রাজনৈতিক। ক্ষুধার রাজনীতি, যুদ্ধের রাজনীতি, ক্ষমতার রাজনীতি, বিজ্ঞান বা বিশেষ জ্ঞান ব্যবহারের (পড়ুন টেকনোলজির) রাজনীতি।

আর dc আমায় ঠিক কি করতে বললেন xylophone , trombone , vivraphone এগুলোর উপর কিছু আলোকপাত করতে বলে বুঝলাম না। আমি তো অনেকগুলো পিডিএফ নিয়ে হুমড়ি খেয়ে পরে ঠিক অবিকল হাল্লার মন্ত্রীর মতো শুরু করেছিলাম বলে শুনলাম। তার কোনটার কথা বললেন? এখন সত্যজিৎ এর সংখ্যাটা? এগুলো সিনেমায় কোন কোন সিকোয়েন্সে ব্যবহার করা হয়েছে সেই ক্যুইজ করলেন আমায়? নাকি এগুলোর উইকি পেজের লিং চাইলেন?




Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 01:51 AM


http://images.indianexpress.com/2016/05/satyajit-ray_ch208780_759_ie.j
pg


ডিটেলিং টা লক্ষ্য করুন !!


Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 02:03 AM


http://4.bp.blogspot.com/-vEYUQA_H0y8/UQi3Nbx4DqI/AAAAAAAAErE/ualeJZ_m
PyM/s1600/2009.01.0775_08.jpg



Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 03:24 AM

একটা মত বলে রাখি। ভূতের নাচ এ চারটে ক্লাস দেখানো হয়েছে এ নিয়ে কোনো ডাউট নেই। ক্লাসগুলোর নাম রায়বাবুর খাতা অনুযায়ী
১। রাজা বাদশা ইত্যাদি (পৌরাণিক আমল, বৌদ্ধযুগ, কনিষ্কের যুগ, মদ্রদেশীয়, মোগল সাধারণ)
২। চাষাভূষো ইত্যাদি (সাঁওতাল, চাষী, বাউল, মুসলমান, বেহারী দারোয়ান, লাঠিয়াল)
৩। সাহেব (হেস্টিংস, ক্লাইভ, চালিয়াৎ, কর্ণওয়ালিস, সৈনিক, নীলকর)
৪। নাড়ুগোপাল ইত্যাদি (বাবু-ইয়ার, বাবু-শহুরে, বানিয়া, পুরুত, হেড মাস্টার, পাদ্রী)

দেখানো হয়েছে প্রতিটা ক্লাসের নিজেদের মধ্যে যথেষ্ট মারামারি হয়েছে। (যুগে যুগে। এটা বলছি কারণ ক্লাসগুলো বহু যুগের টাইম স্প্যান নিয়ে ফর্ম করা হয়েছে।) প্রতি গ্রুপের আইডেন্টিটিবাচক আলাদা ইন্সট্রুমেন্ট নেওয়া হয়েছে। এই অবধি সবার জানা।

এবার যেটা এসেন্স, এই চারটে যন্ত্র কিন্তু মিলে একটা বিউটিফুল হারমোনি তৈরি করছে। অর্থাৎ এই চারটে শ্রেণী নিজেদের মধ্যে প্রভূত ক্যাচাল শুদ্ধু বহু যুগ ব্যাপী র‍্যাদার ইতিহাস ব্যাপী কো-এগজিস্টিং ইন হারমোনি। এর যদি ঐতিহাসিক সত্যতা থাকে, তবে তা শিক্ষনীয় - একে কল্লোলদার ভাষায় ক্লাস কোলাবরেশন বলা যায়, অর্থাৎ শ্রেণীগত এই বিভাজন ছিল, থাকবে, থাকাটা বাংলার সামাজিক ও হিস্টোরিকাল বিবর্তনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। ইন্টার ক্লাস স্ট্রাগল নেই অথচ / কারণ ইন্ট্রা ক্লাস দ্বন্দ্ব রয়েছে। দ্বন্দ্ব সত্ত্বেও বৈচিত্রের মধ্যে একটা ঐক্য আছে, চারটে ক্লাসের মধ্যে ডিসটিংকট সেপারেশন থাকলেও দিনের শেষে তারা সহাবস্থান করছে - এটা মানুষের সমাজে হচ্ছে না, কিন্তু মিউজিকের মাধ্যমে ভূতেদের ক্ষেত্রে সহজেই হচ্ছে বলে রায়বাবু ইন্টারভিউতে বলেছে। এটা ভূতেদের থেকে শিক্ষণীয় হতে পারে বা এটাই ভবিতব্য বলে দেখানো হচ্ছে হতে পারে কিন্তু ক্লাস স্ট্রাগল ভাই এই অন্তর্দ্বন্দ্বের মধ্যে হওয়া সম্ভব নয়, সেটা ইউটোপিয়া অন্তত বাংলার প্রেক্ষাপটে। এভাবেও কেউ ভাবতেই পারে।


Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 04:03 AM

BETH WATKINS
http://www.bethlovesbollywood.com/2012/08/goopy-gyne-bagha-byne.html

http://theculturalgutter.com/guest_star/using-fantasy-to-be-better-tha
n-we-are-in-real-life.html



Filmigeek
As charming as Goopy and Bagha are, though, I have to wonder how Ray, who can be so extraordinarily sensitive to the way women are bound and restricted in his society, could tell a story in which there are no women whatsoever, except until the final scene in which the kings' daughters are gifted to our young heroes as prizes for their noble efforts. The omission is notable, and discomfiting. It's just one film, just one story, but it is also a beloved film aimed in the direction of children, with its uncomplicated fable of a story and playfully silly visual design. And the message little girls get with the pervasiveness and repetition of stories like these is that there is no place for them in the world at large, no need for them to travel to distant lands, no opportunity to influence world affairs, no role to play except to stand silent and bashful as their fathers hand them off to suitably big-hearted young men. Stories like these reinforce and perpetuate the very cultures that create the caged and dissatisfied Charulatas, the othered and dehumanized Devis that Ray exposes with such a deft hand in many of his other works.
http://www.filmigeek.com/2015/09/goopy-gyne-bagha-byne-1969.html


Name:  T          

IP Address : 131.6.68.127 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 06:16 AM

অ্যায়, চারটে যন্ত্র মিলে যে হারমোনি তৈরী হয়েছে সেটা তো বাংলার ইতিহাস। মানে, কি সুন্দর এই পৃথিবী, এতো লোক কাঠি করচে, কিন্তু তাও চন্দ্র সূর্য উঠচে। কিন্তু এটা ট্রিভিয়াল হয়ে গ্যালো না? মানে বিভিন্ন শ্রেণী না থাগলেও তো দ্বন্দ্ব থাকত, ফুল ফল জ্যোৎস্না ও সুন্দর সবুজ বাংলাদেশ থাকত। মানে ইতিহাস তো তৈরী হতই। সময় তো বইবেই রে বাবা। এই বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য, বড়ো বেশী প্রক্ষিপ্ত হয়ে গ্যালো না?
দিনের শেষে তারা সহাবস্থান করছে, এইটা কি রে ঐ লাস্ট ফ্রেমটা দেখে বলছে, যেখানে উপরনীচে সবাই ছিল। এ কি সহাবস্থান হল? সব্বাইকে এক প্ল্যাটফর্মে নামিয়ে নাচানো তো রায়বাবুর কাছে সহজ ছিল। সকলে আসলি সহাবস্থান করছে, সঙ্গীতেও তার প্রমাণ রাখা গ্যালো।
কোলাবরেশনের প্রশ্ন তখনই উঠবে যখন দেখা যাবে যে প্রতিটি শ্রেণীই তাদের নিজেদের সুবিধার্থে এই ব্যবস্থা মেনে নিয়েছে এবং সেটিকে টিকিয়ে রাখার জন্য লড়ছে। এখানে কোথায় তা হল। প্রত্যেকের বক্তব্যই নিজেদের শ্রেণীর (ঐ তথাকথিত ক্লাস নয়) মধ্যে নির্দিষ্ট।


Name:  রে          

IP Address : 127.194.196.45 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 07:23 AM

হ্যাঁ লাস্ট ফ্রেমটা। প্রথম থেকেই সবাই একই ফ্রেমে নাচলে তো প্রথম থেকেই চারটে যন্ত্র একসাথে হারমোনিতে বাজিয়ে যেতে হবে। এক একটা ইনস্ট্রুমেন্ট খানিকক্ষণ একলা বাজিয়ে এবং সে সময় পর্দায় ঐ করেসপন্ডিং ক্লাস দেখিয়ে যন্ত্রটার সাথে ক্লাসটার ম্যাপিং না করালে যন্ত্রগুলোর হারমোনির সময়টাকে ক্লাসগুলির হারমোনিক সহাবস্থান বলে সিগনিফাই করানো যাবে কিকরে? লাস্ট ফ্রেমে সকলে এক প্ল্যাটফর্মে থেকে নাচলে, মানে ভিস্যুয়ালি চারটে ক্লাসকে ডিসটিংক্টলি আইডেন্টিফাই না করা গেলে বলতে বাধ্য হতাম ক্লাস ডিসলভড/ ইররেলিভ্যান্ট হয়ে শুধু মানুষই থেকে গেল এই আবহমানতা সিগনিফাই হচ্ছে। কিন্তু চারটে লেয়ারই আলাদা ভাবে রেখে দেওয়ায় তো ক্লাস সিস্টেমটার আবহমানতাই সিগনিফাই হয়ে গেল।


Name:  T          

IP Address : 165.69.109.92 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 08:05 AM

শ্রেণীর আবহমানতা সিগনিফাই হল না অতীত ইতিহাস সিগনিফাই হল। 'ভূত' যখন।

লাস্ট ফ্রেমে চারটে শ্রেণী একসাথে এক প্ল্যাটফর্ম যদি শেয়ার করত তো তাহলে দুটো মানে দেওয়া যায়। এক, যেহেতু মিউজিকের পক্ষে ঐ শেষাঙ্কে পৌঁছে একমাত্র হারমনির বার্তা ছাড়া আর কোনো বার্তাই দেওয়া সম্ভব নয়, তো সবাই মিলে একই প্ল্যাটফর্মে নাচছে এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে হারমনি মানে অবশ্যম্ভাবী একটা কম্পোজড ক্লাসের বার্তা আসে। একে টেনে নিয়ে গিয়ে কোলাবরেশনে ফেলে দেওয়া বিচিত্র নয়।
দুই, সকলে তাদের শ্রেণীবিভেদ ভুলে, ক্লাসকে ইরেলিভেন্ট করে দিল, ব্যাকগ্রাউন্ডে হারমনি, তারমানে সবে মিলি করি কাজ জাতীয় বার্তা।
দেখা যাচ্ছে এই দুটো রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ হিসেবে দেখলে দুইপ্রান্তে অবস্থান করছে। পরস্পর বিরোধী।

কিন্তু এইরকম মিলন তো আর লাস্ট ফ্রেমে হয় নি। যা দেখিয়েছেন তাতে প্রত্যেকেই নিজেদের শ্রেণীতে রয়েছে এবং স্পেস শেয়ার করছে ভার্টিক্যালি। এর দুটো মানে দেওয়া যেতে পারে। এক, তারা শেষাবধি এক ফ্রেমে এসেছে, তার মানে শ্রেণীগত বিভাজন মেনে নিয়েছে। এবং তা নিয়ে তাদের মাথা ব্যথা নেই। একধরণের আবহমানতার বার্তা বহন করছে ঐ লাস্ট ফ্রেম। টাইম অ্যারো প্রেজেন্ট থেকে ভবিষ্যতের দিকে।

অন্যটা হল, ভূতসমাজ আসলেই বঙ্গসমাজের চালচিত্রের এক্সটেনশন। দৈনন্দিনতার নিরিখে ইন্টার ক্লাস মারামারির বদলে, ইন্ট্রা ক্লাস মারামারি অনেক বেশী প্রকট। ফলে, এটা মেনে নেওয়ার প্রশ্ন নয়, নিছক যা ছিল অর্থাৎ অতীত ইতিহাসের ডেপিকশন। এক ধরণের ইন্ডীভিজুয়ালিটি। সেখানে ইতিহাসের কোনো সময়ই আলাদা করে গুরুত্ব পাচ্ছে না, প্রত্যেকে একই গুরুত্ব সহকারে ভার্টিক্যালি স্পেস শেয়ার করছে। টাইম অ্যারো বর্তমান থেকে পাস্টের দিকে।

এই মতামত দুটোও পরস্পর বিরোধী হল। তা এসব তো থাগবেই।

এবাদে আরো কিছু কথা আছে। ঐ খেরোর খাতার আঁকিবুকি ইত্যাদির প্রেক্ষিত যদি দেখি। এইরম মনে হয়। রইবারের সকাল। সৌমিত্র এবং কামু বাবু এসে হ্যাজাচ্চেন বসে বসে। রায়সাহেব চা খাচ্চেন এবং খাতায় স্কেচ করছেন। ক্যালোরব্যালোরের মধ্যে টোটাল হাইবার নেশন এবং মনোযোগ দিয়ে ডিটেলে ভূতের পোশাকের স্কেচ হয়ে গ্যালো। পাশে লিখে দিলেন এই ক্লাইভ এই হেস্টিংস। অথচ তথ্যে গলদ থেকে গেল। এইরমই বড়জোর, তার বেশী কিছু নয় বলেই মনে হয়। তো, খেরোর খাতাকে খুব ইয়ে হিসেবে ধরার কিছু নেই। কারণ চিন্তাশীল মানুষ তো। সিনেমা নিয়ে এতো ভেবেছেন, ইম্প্রোভাইজ করেছেন, শ্যুটিং এর সময় হয়তো আলাদা হয়তো কিছু কিছু ভেবেছেন, সে কে আর জানবে।

আর যেকোনো ক্রাফটসম্যানের প্রাথমিক ড্রয়িং এই ডিটেলিং দেখা খুব অস্বাভাবিক নয় তো। ইউরোপের ছবি আঁকিয়েদের মধ্যে দেখা যায়। প্রাথমিক পেন্সিল স্কেচের মধ্যে কাঠামোর প্রচুর খুঁটিনাটি দিক যা পরে ব্রাশ স্ট্রোকে মুছে গ্যাছে। তাই রায়সাহেবের ক্ষেত্রে, খুব ডিটেলে কস্টিউম ডিজাইন করে তাপ্পর ফিল্মে ঝাপসা করে দিলেন, এ ব্যাপারও খুব অস্বাভাবিক কিছু নয়।

ছবি ও ক্লাস কোলাবরেশন নিয়ে আরো দুকথা লিখে দি। পরের পোস্টে।


Name:  T          

IP Address : 165.69.109.92 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 08:45 AM

ভূতের নাচ যে ক্লাস ভাবনা থেকে আসা কোনো ডেপিকশন নয়, নিতান্ত মিউজিক থেকে আসা একটি কোরিওগ্র্যাফি, এই কথা আগে লিখেছি তো সেই নিয়ে নতুন কিছু বলছি না। বাড়ী ফিরে কিছু লেখাপত্তর খুঁজে বার করতে হবে। তারপর আরেকটু লিখব। এ বাদে কিছু সাধারণ অবজার্ভেশন,

দ্যাকো, একটা ছবিতে যুদ্ধ বিরোধী বাণী গোদা স্কেলেও দেওয়া যায়, সাটল ভাবেও দেওয়া যায়। কিন্তু সামগ্রিক ভাবে যুদ্ধ নয় শান্তি চাই, এটুকু জাস্ট ক্লাস নাইনের বাংলা রচনা। আর কিছু ভ্যালু নেই। গুগাবাবার মোটা দাগ (কারণ সরাসরি যুদ্ধ হব হব প্রায়, তারপর গুপী বাঘার যুদ্ধ থামানো) দেখে কেউ যদি বলে এটি যুদ্ধবিরোধী ছবি, তো সে আদতে সেই রচনাটিই লিখছে যা সে ক্লাস নাইনে লিখে এসেছে। ফলে এইখানে 'যুদ্ধ বিরোধী' রাজনীতির ছবি ইত্যাদি বলা নিছকই বাগাড়ম্বর হয়ে দাঁড়াও। মানে কে আর একটা লার্জার অডিয়েন্সকে টার্গেট করে যুদ্ধ চাই শান্তি নয় বা ভায়োলেন্স ফর পিস দেখাবে, প্রোপাগান্ডা মূলক কিছু না উদ্দেশ্য থাগলে। এই আপাত স্বাভাবিক ব্যাপারগুলো আমাদের বাংলা লিটল ম্যাগ ও সেই উত্তরাধিকার জনিত ইন্টেলিজেন্সিয়া এমন ভাবে প্রেজেন্ট করে যেন কী বিরাট বিশাল ব্যাপার। প্রচন্ড অ্যামবিগুয়াস ল্যাঙ্গুয়েজ (উদাহরণ, ঋত্বিক টইতে হিরণ মিত্রর লেখা), খুব গড়বড়ে মিনিং, বক্তব্যকে সহজ ভাবে উপস্থাপন না করা, এগুলো পার্ট অব কালচার যা আদ্যন্ত ফাঁপা এবং ক্ষেত্রবিশেষে একপ্রকার ঢাল হিসেবে দাঁড়িয়েছে (উদাহরণ, ছোটাইদির দেওয়া লিঙ্কে ঋত্বিক সংক্রান্ত অনিন্দ্য সেনগুপ্তর বক্তব্য)। এইসমস্ত আলোচনা, সমালোচনা, ক্রিটিক অথবা আলোচোনার মধ্যে অন্তর্নিহিত যেটুকু খুব সাদা চোখে ধরা পড়ে সেটা হল, লেখা পড়ে মানুষ কতটা আহা উহু করবে সেইটের একটা সচেতন প্রয়াস। যে ফিল্মের সম্পর্কে বলা হচ্ছে সেগুলোকে ছাপিয়ে গিয়ে আমাকে রিভিউ লিখতে হবে, এইরম। এই সবেরই অনুসারী হিসেবে ফিল্মে 'রাজনীতি' শব্দটি ঢুকে পড়ে। যে শব্দের অনেক বড় পটভূমি আছে, তাকে দুম করে ছুঁড়ে দিয়ে হুঁ হুঁ বাবা করে চলে গ্যালো। সিঁফো রেগে যেতে পারে, কিন্তু আমার বক্তব্য হল, এই ভাবালু, হাবেগ মার্কা, বিচিত্র বাংলা রচনার কিছু মানে নেই। খুব স্কেচি আইডিয়াকে বাংলা ভাষার জবড়জং গয়না পরিয়ে প্রেজেন্ট করা হচ্চে।
তো, এইবার আমি একটি পছন্দসই ইউটিউব চ্যানেলের উদা দেব। ফিল্মের স্ট্রাকচারাল অ্যানালিসিস, এবং বাংলায় এইরকম ভিডিও ব্লগ হলে খুব ভালো হয়। বীরেরা সেইসব করবেন কিনা জানা নেই।

https://www.youtube.com/watch?v=doaQC-S8de8

ক্লাস কোলাবরেশন যে রয়েছেই, এইটাকে প্রতিষ্টিত করা হচ্ছে কিন্তু 'ক্লাস স্ট্রাগল নেই' এইটার বিপ্রতীপে। ক্লাস স্ট্রাগল নাই হতে পারে, কিন্তু বাইনারি ক্লাসিফিকেশনই যে একমাত্র এইটা কে প্রমাণ করল। এইসব খোসা না আঁটি কত্তে গিয়েই মনে হয়, ডিসি যেমন বলেছেন, স্বাদটাই লোকে হারিয়ে ফেলছে। কারণ হতে পারে, ফিল্মের স্ট্রাকচারাল অ্যানালিসিস সম্পর্কে এনাদের খুব কিছু বলার নেই। যেখানে এর ক্রাফটিং টাও চুলচেরা বিচার করা যেতে পারত সেখানে উলটে নিয়ে আসা হচ্ছে বিবিধ গোলগাল ধারণা যা কিনা একমাত্র অ্যামবিগুইটির স্ফিয়ারে ঘোরাফেরা করে। স্ব স্ব অর্গ্যাজমের প্রচেষ্টা।

এর থেকে বেড়ালই ভালো।



Name:  T          

IP Address : 165.69.109.92 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 08:51 AM

যা ত্তারা আরেকটা কথা বলা হয় নি।
হ্যাঁ, মিউজিক তো আসলে বিবিধ টুং টাং ঝং ঝ্যাং পিড়িং মেয়াং ধপ টপ ক চ ট ত প ইত্যাদির কম্পোজিশন। তো এইবার বিভিন্ন কম্পাঙ্কের ব্যান্ড হিসেবে এদের ক্লাসিফাই করে দেওয়া হল। আঠারো কিলো হার্জ মানে বুর্জোয়া, ফিফটি হার্জের ওদিকে কিছু মাল চাষাভুষো ইত্যাদি। সব একজায়গায় কোলাবরেশনে আসছে। :) এবং এই হিসেবে পৃথিবীর সমস্ত মিউজিশিয়ানরা, চিত্র পরিচালক, চীনে ভূত প্রত্যেকেই ক্লাস কোলাবরেশনের প্রোপোনেন্ট। :)


Name:  dc          

IP Address : 121.93.226.242 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 10:03 AM

দুরন্ত হয়েছে । ইউ টিউব লিংকটা পরে নিশ্চই দেখবো , আপাতত সুযোগ নেই ! শুধু T এর কথার সাথে সংযোজন করে বলবো ওই ভূতের নাচের লাস্ট সিন এ যে একটাই ফ্রেম এ ভার্টিকাল লেয়ার দেখানো হয়েছে তার শিল্পগত একটা প্রেরণা হচ্ছে কোনারক এর সূর্য মন্দির এর গায়ে যে নাচের মোটিফ গুলো আছে তার একটা রিপ্রেসেন্টেশন । এটা কেও শ্রেণী বিচার/কলাবোরেশন এর সাথে মাথায় রাখলে ভালো মনে হয় !
রে আপনার কাছে ওই রেফারেন্স গুলো চেয়েছি জানার জন্য ওই বিশেষ ইন্সট্রুমেন্টগুলো গুগাবাবতে কোথায় ব্যবহার হয়েছে , কোনো কুইজ হিসেবে নয় । না পারলে ছেড়ে দিন , এটা কোনো জীবন মরণ সমস্যা নয় !


Name:  কল্লোল          

IP Address : 233.227.107.125 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 10:34 AM

তা, এতে এতো রাগারাগির কি হলো। ভূতের নেত্য দেখে আমার আর রেবাবুর শ্রেণী দ্বন্দ্ব মনে হলো। ডিসি আর টিএর মনে হলো না। এতো হতেই পারে।
হল্লার রাজা ভালো হয়ে গেলো এতে আমার শ্রেণী সমন্বয় মনে হলো, ডিসি আর টিএর মনে হলো না।
এমনই তো হবার কথা যেকোন মহৎ শিল্পের ক্ষেত্রে।
এতে এতো রেগে যাওয়া, গালমন্দ আসে কোদ্দিয়ে?




Name:  T          

IP Address : 165.69.109.92 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 10:40 AM

আরে রাগারাগি কোথায় কচ্চি। আপনি তো ভালো করে বল্লেনই না ক্যানো কোলাবরেশন মনে হয়েছে। যা বলার রে বলেচে।


Name:  dc          

IP Address : 121.93.226.242 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 11:05 AM

হ্যাঁ , শুধু beating about the bush !


Name:  কল্লোল          

IP Address : 233.227.61.80 (*)          Date:28 Jul 2017 -- 04:26 PM

তা ভালো। রাগ করেন নাই জেনে খুবই আশ্বস্ত হলাম।


Name:  ঋদ্ধিমান বসু          

IP Address : 113.220.1.176 (*)          Date:29 Jul 2017 -- 01:04 PM

'গুপি গাইন বাঘা বাইন' - কেও আমার অনেকাংশে 'metaphoric' মনে হয়। সময়টা খেয়াল করলে বোঝা যাবে যে ওই সময় 'USA' ও 'USSR'-এর মধ্যে 'Cold War'-টা চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌছেছিল। সেই সময়ে দাঁড়িয়ে, এমন একটা যুদ্ধবিরোধী বক্তব্য, নেহাত কাকতালীয় নয়। এছাড়া হাল্লার রাজা, একজন ক্ষমতাহীন 'Titular Head', এর পিছনেও কোন অনুপ্রেরণা আছে নিশ্চয়।


Name:  রে          

IP Address : 55.250.56.31 (*)          Date:30 Jul 2017 -- 09:21 PM

সুকুমার রায় নিয়ে খানিক ধস্তাধস্তি র জন্য এই বইটা পড়ে দেখতে পারেন। বিশেষত পলিটিকাল কনোটেশনগুলো, যেগুলো শঙ্খ ঘোষ ও মেনে নিচ্ছেন।

https://archive.org/details/in.ernet.dli.2015.454258


Name:  রে          

IP Address : 55.250.56.31 (*)          Date:30 Jul 2017 -- 09:38 PM

SATYAJIT RAY - THE INNER EYE - BIOGRAPHY OF A MASTER FILM MAKER
by ANDREW ROBINSON

https://archive.org/details/SatyajitRay-TheInnerEye-BiographyOfAMaster
FilmMaker



The cinema of Satyajit Ray
by Das Gupta, Chidananda (NBT) এটা লগ ইন করে ১৪ দিনের মধ্যে পড়তে হবে।
https://archive.org/details/cinemaofsatyajit00dasg


Name:  B          

IP Address : 69.97.156.96 (*)          Date:01 Aug 2017 -- 09:51 PM

বছর দুয়েক ধরে মাঝেসাঝে অল্পদিনের জন্য হাসপাতাল-ভ্রমণ একটা রুটিনে পরিণত হয়েছে, মানে, পার্ট্‌ অফ্‌ লাইফ্‌ বলা যায়, তার জন্য বেশ গ্যাপ পড়ে গেলো। দেখছি যে এ টই'ও এর মধ্যে অনেক পাতা এগিয়ে গেছে। শেষ লিখেছিলাম, মনে হয়, ২০শে জুলাই(অত কিলিক্‌-বাজিটা অন্যের দায়িত্বে রাখলাম) আর আজ ১লা আগস্ট। এ টই'ও এর পৃষ্ঠা ক্রম-সংখ্যায় ১০ থেকে ১৮য় পৌঁছেছে। অর্থাৎ বয়সের দিক থেকে ভাবলে ভোটাধিকার-যোগ্যতা-প্রাপ্তি বয়সে পৌঁছেছে। হয়ত বা লেখার মান ও ধরণেও। এতটা লেখা যে কতবার পড়লাম, আর কতটুকুই বা তার এ মোটামাথায় থাকল', তা গুরুদেব 'সত্যজিৎ' 'বাবু' জানেন (তালিয়াঁ..., তালিয়াঁ)

তাতে করে, আমাদের সবার বা কারুরই অবস্থান একচুল'ও নড়েছে ব'লে একদমই মনে হয় না - এটা একদমই আমার নিজস্ব মত। যদিও 'এটা পড়ে', 'ওটা জেনে', 'সমৃদ্ধ হয়েছি', এবং ফলতঃ 'যারপরনাই আহ্লাদিত হয়েছি' বলে সশব্দে ঘোষণাও হয়েছে।

কি আর করা? আমরা সব্বাই'ই যে সেই ইয়্যাক'ই থাকি, বা সেই ইয়্যাক'ই থাকব'- এটাও বোধহয় স্বতঃসিদ্ধ। বোধহয়। টই'এর প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর একেবারে হাত-পা-বাঁধা না থেকে কোন মন্তব্যকে বিচ্যুতি হিসেবে ধরে, তৎপর ব্যঙ্গ, তৎসহ বিদ্রূপ এবং ফলস্বরূপ বিস্তার, এ টই'কে সেখানেই, সেই বিচার-অনুমানেই নিয়ে গেল, যার বিরুদ্ধে এত লোক, বেছেবেছে লোক বিশেষে কাদা ছোঁড়াতে লিপ্ত হয়েছিল।(বিপরীতে ছুঁড়ি হয়েছে তাও মানতে হবে)।

এর মধ্যে রেফারেন্স'এর বা রে'র এই টইয়ে বিভিন্ন তথ্য যোগান একে অন্য মাত্রা দিয়েছে, যেরকম মাত্রা দিয়েছিল 'এলেবেলে'র এবং আরও কারও কারও মন্তব্যও। কেউ সহমত হতে পারেন, কেউ নাও পারেন।

যথারীতি বাদ যায় নি কিছু মন্তব্য, যা পাবলিক ফোরামে হবেই, যার উত্তর দায়ও কারুর থাকে না, নেই'ও।

আমার আগে মনে হত' না, এখন হয় যে এর কোন উপসংহারও হয় না, এর থেকে বেরিয়ে আসে না কোন জনাদেশ। তবে মজার ব্যাপার যেটা দেখা গেলো, যে, আজ বেড়ে ওঠা শিশু'রা প্রায় সবাই শিশু-মন-বিশেষজ্ঞ হিসেবে এমনভাবে মতামত রাখছেন, যার সঙ্গে, বিভিন্ন রাজ্য-প্রতিপালকদের (তাঁদের বেশভূষা ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের কথাই মনে পড়াত', আজও পড়ায়। জানি না, এ নিয়ে শিশুমন কি বার্তা নিত, বা আজ কি বার্তা নেয়) উদ্দেশ্যে হাল্লারাজের "নিস্তার নাই কাহারও সটকে"-স্বরূপ নিদান হাঁক্ড়ানোর একমাত্র তুলনা চলে।

নাঃ, "যার ভাণ্ডারে রাশিরাশি, সোনাদানা ঠাসাঠাসি, জেনো সে'ও সুখী নয়, সুখী নয়..." পংক্তির বার্তা-স্বাধীন শিশুরা "নিস্তারও নেই আমারও সট্‌কে" শুনে যেরকম খুশিত হইয়াছিল, সেরকমই বিদ্দ্বজনকে খুশিত করার (বিফল কিনা, জানি না) চেষ্টায় আমি বলি, 'নিস্তার নিই আমিও সটকে'।
******************************************************************************
মাননীয় 'এলেবেলে'
(দুটি কথা, এক- 'এ লেভেল'এর জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তিকে 'এলেবেলে' বলে সম্বোধন করতে বাধো, বাধো ঠেকছে, তবুও আপনার স্বপ্রদত্ত নাম বলেই ব্যবহার করলাম;
দুই, যদি আপনি এখনও এখানে আসার ধৃষ্টতা দেখান, তাই, আর আপনার মেল জানি না বলে, এখানেই লিখলাম),

বয়সে কনিষ্ঠ হলেই জ্ঞানে হতে হবে, আমি এটা মনে করি না। সেই জ্ঞানের কথা মাথায় রেখেই এই সম্বোধনকে মেনে নেবেন আশা করি। আপনার অনুরোধটি, এ পাতায় প্রকাশ্যভাবে রক্ষা করে, এত'জন বিদ্দ্বজনেদের বিরাগভাজন হই বা কি সাহসে। বরঞ্চ আপনি যদি আমার ই-মেল'এ আসেন, তো আপনাকে সব তথ্য দিয়ে দেব', তবে দেখবেন বিতণ্ডা নিমন্ত্রণ করবেন না। কারণ সর্ব্বদিকে 'গবেষক, গবচন্দ্র, জ্ঞানতীর্থ, জ্ঞানরত্ন, জ্ঞানাম্বুধি, জ্ঞানচূড়ামণি"দের জ্যোতির্ব্বলয় কিঞ্চিৎ পরিমান দ্যুতি হারাইলে সমূহ বিপদ। "গ্যাঁটের পয়সা খরচ করে" এই সভায় আসন পাচ্ছেন এই ঢের।
নিন, ইমেল-গুলোর যে কোনটি লিখে নিন, দুটিতেই আপনাকে স্বাগত জানাই।
(ক) khurhor.kal@gmail.com
(খ) rudra.dostidar@gmail.com
--------------------------------------------
মাননীয় ডিসি(চেন্নাই বা কলকাতা),
কোন একটি বা দুটি পোস্টে আপনি আমার মত একটেরে অজ্ঞকে উল্লেখ করে যে মূল্যবান সময় দিয়েছেন, তাতেই আমি শ্রদ্ধাবনত এবং আপনার ঐ বক্তব্যকে অসীম মান্যতা দিলাম।
---------------------------------------------
মাননীয় i,
উপরে ডিসি-কে লেখা বক্তব্যের হুবহু প্রতিলিপি আপনার উদ্দেশ্যেও রাখলাম।


Name:  dc          

IP Address : 121.93.226.242 (*)          Date:02 Aug 2017 -- 11:42 AM

মাননীয় B ,
আপনি ভালো থাকুন , সুস্থ থাকুন এটা একান্ত কাম্য । বাক বিতন্ডা এইসবের উর্দ্ধে মানুষে মানুষে সুস্থ সুন্দর সম্পর্ক । ব্যক্তিগতভাবে আমরা েকে ওপরের পরিচিত নই , কিন্তু তার মানেই আমাদের েকে অপরকে অসম্মান করার অধিকার জন্মায় না । আপনার খারাপ লেগে থাকলে আমি দুঃখিত । এটুকু বলতে পারি । ভালো থাকুন ।


Name:  ন্যাড়া          

IP Address : 109.72.224.255 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 09:36 AM

উৎপল দত্তর শেষবয়সের একটা নাটক আছে। খুব সম্ভবতঃ "আজকের সাজাহান"। তো সেখানে এক চিত্রপরিচালক একজন রিভিউয়ারকে বলছেন যে আপনার রিভিউতে যেখানে অমুক দৃশ্যে ডায়লগের পেছনে রাইফেলের আওয়াজের গভীর মানে খুঁজে পেয়েছেন, সেটা জায়গাটা খুবই ভাল। তবে কী জানেন, আসলে ওখানে ডাবিং থিয়েটারে আমাদের প্রোডিউসার ডাবিং চলাকালীন বসে বসে খোলা ভেঙে চিনেবাদাম খাচ্ছিলেন। রাইফেলের শব্দ বলে যেটা আপনার গভীর দ্যোতনাময় মনে হয়েছে, সেটা ওই চিনেবাদামের খোলা ফাটানোর আওয়াজ। পয়সা ছিলনা বলে রিডাব করা যায়নি।

আমার এই থ্রেডটা পড়ে নাটকের এই কথোপকথন মনে পড়ে গেল। ভীমরতি ধরছে বোধহয়। কিসের থেকে যে কী মনে পড়ে যায়!


Name:  lcm          

IP Address : 109.0.80.158 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 10:11 AM

হ্যা হ্যা।
আর মহানগর সিনেমার লাস্ট সিনে লাইটপোস্টের বাল্ব, একটা জ্বলছিল না - তাই নিয়ে গভীর আর্থসামাজিক ব্যাখা ।


Name:  i          

IP Address : 131.44.221.252 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 01:17 PM

B,
ও আচ্ছা। নমস্কার নেবেন।

ছোটাই।


Name:  শঙ্খ          

IP Address : 113.242.197.16 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 07:07 PM

ন্যাড়াদা পুরো সামারি করে দিয়েছেন।


Name:  modi          

IP Address : 208.96.155.3 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 07:27 PM

কিছুদিন আগে সব গায়কদের গানের টেকনিক নিয়ে ঐ রকম গভীর আলোচনা হচ্ছিল। তখন আমারও উৎপল দত্তের নাটকটা মনে পড়েছিল। অম্বলের ঢেঁকুর চাপতে গিয়ে গলা কেঁপে গিয়েছিল, সেটার নাম হল শ্রুতি।


Name:  pi          

IP Address : 57.29.222.118 (*)          Date:05 Aug 2017 -- 09:02 PM

এলেবেলে খামোখা মেইলে লিখতে যাবেন কেন? মানে সে যেতেই পারেন, কিন্তু এখানে লিখবেন না কেন আর আমরা সেটা পড়তে পারব না কেন?


Name:  agantuk          

IP Address : 138.48.44.88 (*)          Date:31 Aug 2017 -- 04:49 AM

রিংকি ভট্টাচার্যকে দেয়া সাক্ষাত্কার থেকেঃ

RB: This may sound simplistic to you but please allow me to satisfy my curiosity. I felt that you wanted to tuck in a message, or something close to message, in the final scene of Goopy Gyne Bagha Byne. About the futility of war, or that feuds can be sorted otherwise. It is an anti-war film.
SR: Yes, of course. I did put a very simple message, which the young can absorb. Apart from the [message of the] need for friendliness between nations.

RB: You mean averting war at any cost?
SR: That is one way of putting it. The same kind of message, but not the same message, is there in Hirak Rajar Deshe. In a realistic film, or naturalistic film, as most of my other films are, I am not concerned with a message. When you are making a film for the very young, who are at an impressionable age, I think it is important to give a simple message. A good moral tale; all fables have messages: Hitopadesha, Panchatantra or even Aesop’s Fables. These stories have messages in the end. I had that in mind. I deliberately planted a message; making it entertaining [and] at the same time not making people aware of the message all the time; it only comes in the end. But no one sort of says: ‘You must do that’!

http://www.forbesindia.com/article/recliner/meetings-with-the-master-a
-30yrold-conver-sation-with-satyajit-ray/40181/1


এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16] [17] [18]     এই পাতায় আছে502--532