রৌহিন RSS feed

নিজের পাতা

রৌহিন এর খেরোর খাতা। হাবিজাবি লেখালিখি৷ জাতে ওঠা যায় কি না দেখি৷

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • কিংবদন্তীর প্রস্থান স্মরণে...
    প্রথমে ফিতার ক্যাসেট দিয়ে শুরু তারপর সম্ভবত টিভিতে দুই একটা গান শোনা তারপর আস্তে আস্তে সিডিতে, মেমরি কার্ডে সমস্ত গান নিয়ে চলা। এলআরবি বা আইয়ুব বাচ্চু দিনের পর দিন মুগ্ধ করে গেছে আমাদের।তখনকার সময় মুরুব্বিদের খুব অপছন্দ ছিল বাচ্চুকে। কী গান গায় এগুলা বলে ...
  • অনন্ত দশমী
    "After the torchlight red on sweaty facesAfter the frosty silence in the gardens..After the agony in stony placesThe shouting and the crying...Prison and palace and reverberationOf thunder of spring over distant mountains...He who was living is now deadWe ...
  • ঘরে ফেরা
    [এ গল্পটি কয়েক বছর আগে ‘কলকাতা আকাশবাণী’-র ‘অন্বেষা’ অনুষ্ঠানে দুই পর্বে সম্প্রচারিত হয়েছিল, পরে ছাপাও হয় ‘নেহাই’ পত্রিকাতে । তবে, আমার অন্তর্জাল-বন্ধুরা সম্ভবত এটির কথা জানেন না ।] …………আঃ, বড্ড খাটুনি গেছে আজ । বাড়ি ফিরে বিছানায় ঝাঁপ দেবার আগে একমুঠো ...
  • নবদুর্গা
    গতকাল ফেসবুকে এই লেখাটা লিখেছিলাম বেশ বিরক্ত হয়েই। এখানে অবিকৃত ভাবেই দিলাম। শুধু ফেসবুকেই একজন একটা জিনিস শুধরে দিয়েছিলেন, দশ মহাবিদ্যার অষ্টম জনের নাম আমি বগলামুখী লিখেছিলাম, ওখানেই একজন লিখলেন সেইটা সম্ভবত বগলা হবে। ------------- ধর্মবিশ্বাসী মানুষে ...
  • চলো এগিয়ে চলি
    #চলো এগিয়ে চলি #সুমন গাঙ্গুলী ভট্টাচার্যমন ভালো রাখতে কবিতা পড়ুন,গান শুনুন,নিজে বাগান করুন আমরা সবাই শুনে থাকি তাই না।কিন্তু আমরা যারা স্পেশাল মা তাঁদেরবোধহয় না থাকে মনখারাপ ভাবার সময় না তার থেকে মুক্তি। আমরা, স্পেশাল বাচ্চার মা তাঁদের জীবন টা একটু ...
  • দক্ষিণের কড়চা
    দক্ষিণের কড়চা▶️অন্তরীক্ষে এই ঊষাকালে অতসী পুষ্পদলের রঙ ফুটি ফুটি করিতেছে। অংশুসকল ঘুমঘোরে স্থিত মেঘমালায় মাখামাখি হইয়া প্রভাতের জন্মমুহূর্তে বিহ্বল শিশুর ন্যায় আধোমুখর। নদীতীরবর্তী কাশপুষ্পগুচ্ছে লবণপৃক্ত বাতাস রহিয়া রহিয়া জড়াইতে চাহে যেন, বালবিধবার ...
  • #চলো এগিয়ে চলি
    #চলো এগিয়ে চলি(35)#সুমন গাঙ্গুলী ভট্টাচার্যআমরা যারা অটিস্টিক সন্তানের বাবা-মা আমাদের যুদ্ধ টা নিজের সাথে এবং বাইরে সমাজের সাথে প্রতিনিয়ত। অনেকে বলেন ঈশ্বর নাকি বেছে বেছে যারা কষ্ট সহ্য করতে পারেন তাঁদের এই ধরণের বাচ্চা "উপহার" দেন। ঈশ্বর বলে যদি কেউ ...
  • পটাকা : নতুন ছবি
    মেয়েটা বড় হয়ে গিয়ে বেশ সুবিধে হয়েছে। "চল মাম্মা, আজ সিনেমা" বলে দুজনেই দুজনকে বুঝিয়ে টুক করে ঘরের পাশের থিয়েটারে চলে যাওয়া যাচ্ছে।আজও গেলাম। বিশাল ভরদ্বাজের "পটাকা"। এবার আমি এই ভদ্রলোকের সিনেমাটিক ব্যাপারটার বেশ বড়সড় ফ্যান। এমনকি " মটরু কে বিজলী কা ...
  • বিজ্ঞানের কষ্টসাধ্য সূক্ষ্মতা প্রসঙ্গে
    [মূল গল্প - Del rigor en la ciencia (স্প্যানিশ), ইংরিজি অনুবাদে কখনও ‘On Exactitude in Science’, কখনও বা ‘On Rigour in Science’ । লেখক Jorge Luis Borges (বাংলা বানানে ‘হোর্হে লুই বোর্হেস’) । প্রথম প্রকাশ – ১৯৪৬ । গল্পটি লেখা হয়েছে প্রাচীন কোনও গ্রন্থ ...
  • একটি ঠেকের মৃত্যুরহস্য
    এখন যেখানে সল্ট লেক সিটি সেন্টারের আইল্যান্ড - মানে যাকে গোলচক্করও বলা হয়, সাহেবরা বলে ট্র্যাফিক টার্ন-আউট, এবং এখন যার এক কোণে 'বল্লে বল্লে ধাবা', অন্য কোণে পি-এন্ড-টি কোয়ার্টার, তৃতীয় কোণে কল্যাণ জুয়েলার্স আর চতুর্থ কোণে গোল্ড'স জিম - সেই গোলচক্কর আশির ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

রৌহিন প্রদত্ত সর্বশেষ দু পয়সা

<< লেখকের আরও নতুন লেখা      লেখকের আরও পুরোনো লেখা >> RSS feed

প্রসঙ্গ তিন তালাক: প্রতীচী ট্রাস্ট: অমর্ত্য সেন: এবং চাড্ডিত্ব

গত তিনদিন ধরে ফেসবুকের আকাশে বাতাসে ঘুরে বেড়াচ্ছে সেই অমোঘ বানী – অমর্ত্য সেন বলেছেন তালাকের ফলে মাত্র ১.৩% মুসলিম মহিলা বিচ্ছিন্না এবং ক্ষতিগ্রস্ত, অতএব তিন তালাক কোন সমস্যাই নয়। অমর্ত্য বামপন্থী (পড়ুন বামৈস্লামিক) বুদ্ধিজীবি বলেই এমন অসংবেদী কথা বলতে পারেন। এতেই প্রমাণ হল বামেরা কেবল মুসলিম তোষণকেই ধর্মনিরপেক্ষতা বোঝেন। তারা সিউডো সেকুলার। ইত্যাদি, প্রভৃতি।
প্রথমে একটু বিষয়টা বোঝা প্রয়োজন। কতটা সত্যি, কতটা জল, ইত্যাদি। ঘটনা হল প্রাতীচী ট্রাস্টের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এই স্টাডি লিঙ্কটি নেই। সে

ডন কুইকহোটের যুদ্ধ

কালো টাকার বিরুদ্ধে “জাতীয় জেহাদ” চতুর্থ দিনে পা দিল। প্যান্ডেমোনিয়ম অব্যাহত। মানুষ রেগে যাচ্ছেন, আবার অনেকে এটা সাময়িক অসুবিধা যাকে বৃহত্তর স্বার্থে মেনে নেওয়া যায় বলে নিজেদের সংযত রাখছেন। মোদীভক্তেরা ধন্য ধন্য করছেন একটা সাহসী পদক্ষেপের জন্য – আর মোদী এপোলজিস্টরা ঘন্টায় ঘন্টায় নতুন নতুন কারণ খুঁজে বার করছেন কেন এ কাজ সেরা তা প্রতিষ্ঠা করতে। এই সব নিয়ে চতুর্দিকে আলোচনা হচ্ছে – এখানে আরো একটা সরেস আলোচনা হতেই পারতো – কিন্তু আপাততঃ আমরা কিছু মুখরোচক অংশ বাদ দেব।
ঘটনা হচ্ছে মানুষ বেশ ভালোমত অস

মৌলিক নিষাদ

“এই এক আশ্চর্য সময়।
যখন আশ্চর্য বলে কোন কিছু নেই।
যখন নদীতে জল আছে কি না আছে
কেউ তা জানে না।
পিতামহ, আমি এক আশ্চর্য সময়ে বেঁচে আছি।
যখন আকাশে আলো নেই,
যখন মাটিতে আলো নেই,
যখন সন্দেহ জাগে, যাবতীয় আলোকিত ইচ্ছার উপরে
রেখেছে নিষ্ঠুর হাত পৃথিবীর মৌলিক নিষাদ – এই ভয় ।”
হ্যাঁ ভয়। আমার সন্ততির জন্য। আমার নিজের জন্য। প্রিয়জনদের জন্য। অপ্রিয়জনদের জন্যও। ভয় ছাড়া আর কী অনুভব করতে বা পারি? যখন আমার চারিদিকে পরিচিত অপরিচিত অসংখ্য মানুষ, বন্ধু-স্বজন সকলকে দেখি এক অদ্ভুত উন্ম

সিঙ্গুর রায়ঃ আমি কেন পালটি খেলাম

সিঙ্গুরের রায় বেরোনোর পর থেকে চারদিকে প্রচুর আলোচনা হয়েছে। সুপ্রীম কোর্ট জানিয়েছেন, সিঙ্গুরের জমির অধিগ্রহন অবৈধ ছিল এবং হাজার একর জমিই তার মালিকদের ফিরিয়ে দিতে হবে আগামী বারো সপ্তাহের মধ্যে। পক্ষে, বিপক্ষে, এখন যারা পক্ষে আছেন তাদের মধ্যে কয়জন ডিগবাজি খেয়েছেন, সত্যিই এই রায় পশ্চিমবঙ্গের ক্ষতি করল না লাভ – এসব নানা প্রশ্নে, নানা দৃষ্টিভঙ্গী থেকে, নানা পথে আলোচনা চলেছে।। আমি এই আলোচনায় বেশী অংশ নিই নি – কারণ আমার কিছু ভাবার ছিল। ইন্সট্যান্ট রিয়াকশন দিতে পারিনি। নিজেকে জাস্টিফাই করার দরকার হয়েছিল।

বিরাট, অনুষ্কা এবং ভারতীয় ক্রিকেট সমাজ

ক্রিকেট দেখা ছেড়ে দিয়েছি। অনেক কারনেই, সে সব কথা বিভিন্ন পরিসরে আলোচনা করি এবং করব। কিন্তু দেখা ছেড়ে দিলেও খেলাটা এককালে ভালোবাসতাম, নিজেও খেলেছি – কাজেই চোখের সামনে যখন অসাধারণ কোন পারফরম্যান্স চলে আসে, যেমন বিরাট কোহলির (আনন্দবাজার আবার ক’দিন হল “কোহালি” লিখছে দেখছি :D) রবিবারের ইনিংসটা, তখন আর মুখ ঘুরিয়ে থাকতে পারিনা। ক্লাস তো ক্লাসই। কাজেই এই ইনিংসের বিশ্লেষণ, প্রশংসা ইত্যাদির প্রক্রিয়ায় আমারও সামিল হতে ইচ্ছে করল। বিশেষ করে এখন তো ফেসবুক আছে, বক্তৃতাটা সাহস করে দিয়ে দিলেই হল – শ্রোতা কিছু জু

বীফ, পর্ক এবং কিছু অন্যান্য কথা

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গে সরকারী খরচে একটা বীফ ফেস্টিভ্যাল হয়ে গেল – কিছু ছোট বড় অবোধ সুবোধ নেতা উপনেতা হবুনেতা ইত্যাদিরা গোরু খাবার ছবি তুলে বেশ বাহবা কুড়োলেন। কেউ বলল বালামো, কেউ বলল ছ্যা ছ্যা, কেউ আবার বলল বেশ তো – একটা প্রতিবাদ তো হল। তো ঘটনা হচ্ছে এসব কী হচ্ছে? কেনই বা হচ্ছে? আরো মজার, এবার আবার একটা পর্ক ফেস্টিভ্যালও হতে চলেছে। তা হোক, ফেস্টিভ্যালের এমনিতেই শেষ নেই আরো দুটো কম বেশীতে ইতরবিশেষ কিছু এসে যাবে না। কিন্তু প্রশ্নটা হল - কাঁইকু?
আগে পর্কেরটা দিয়ে শুরু করি – কারণ এখানে প্রশ্নগুলো স

মারণী ফন্দি?

মৃত্যুদন্ড থাকা উচিৎ কি উচিৎ নয় এ নিয়ে বিভিন্ন থ্রেডে আলোচনা চলছে। কিছু ধর্মান্ধ লোক স্বভাবতঃই কোন যুক্তি তর্কের ধার ধারেন না শুধু ভাবাবেগের বেগ আর গলার (প্রয়োজন হলে কবজি বা অস্ত্রেরও) জোরে সব কিছু প্রমাণ হয়ে গেছে মার্কা স্টেটমেন্ট ছাড়েন। তাদের কিছু বোঝাতে আর বিরক্ত লাগছে। কিন্তু সবাই তা নন। কিছু মানুষ যুক্তি দিয়েছেন – এবং তাদের সঙ্গে এই আলোচনাটা হওয়া জরুরী মনে করি। আলোচনায় ঢোকার আগে আমার বায়াসটুকু জানিয়ে রাখা জরুরী – আমি সামগ্রিকভাবে মৃত্যুদন্ডের বিরোধী – সে ধনঞ্জয় চ্যাটার্জী হোক বা ইয়াকুব মেমন

আকাশের অর্ধেক = অর্ধেক আকাশ

সমকামিতা - একটি প্রাকৃতিক / জন্মগত শারিরীক অবস্থা নাকি অভ্যাসগত / আরোপিত? ব্যক্তির পছন্দ-অপছন্দের ওপর কিছু কি নির্ভর করে নাকি তার কোন জায়্গাই নেই? সমকামিতা কি নৈতিক না অনৈতিক? উচিৎ না অনুচিৎ? গ্রহনযোগ্য না বর্জনীয়?
অসংখ্য প্রশ্ন - যার উত্তর নিয়ে কাঁটাছেড়া চলছে৷ চলুক৷ আমরা এখানে এই প্রশ্নগুলির বাইরে বেরিয়ে কিছু বিষয় আলোচনা করতে চাই৷ করতে চাই কারণ সুপ্রীম কোর্ট সম্প্রতি (2013) জানিয়েছেন যে এই সংক্রান্ত আইনটি (দফা 377) বহাল এবং অপরিবর্তিত থাকছে আপাততঃ কারণ দিললী হাইকোর্টের এই আইন পরিবর্তন সংক্র

ধর্ষণ প্রসঙ্গে কিছু অবান্তর কথা

আবার একটি নৃশংস ধর্ষণ। আবারো একটি ভুল কারণে সংবাদের শিরোনামে রাণাঘাট – নদিয়া – পশ্চিমবঙ্গ – ভারতবর্ষ – আমরা। এবং আরো একবার এই ধর্ষকদের শাস্তির দাবীতে গর্জে উঠলেন বহু মানুষ যা এই আকালেও একটু স্বপ্ন দেখালো। আরো একবার ঘটনার গুরুত্ব অনুধাবন করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হলেন প্রশাসন অ সরকার – হতাশা বাড়ালো। কিন্তু এই সব ভালো লাগা-খারাপ লাগা, ক্রোধ-হতাশা ও আশার আলোর মাঝে দু-একটা কথা বলে নিতে চাই। ঠিক দুটো কথা। বিতর্কিত কথা। এক, ধর্ষণ বিষয়টাকে আমরা প্রয়োজনের চেয়ে বেশী গুরুত্ব দিচ্ছি। দুই, ধর্ষণ এই মুহুর্তে পশ্চ

চিঠি

চিঠি লেখার স্বভাব ছোটবেলায় খুবই ছিল - বহু ধরণের চিঠি৷ প্রতি বছর বিজয়া দশমী পার হলেই ওফ সে কি যন্ত্রণা - বাধ্যতামূলক আইন৷ আমার ঠাকুর্দাকে আবার ইংরেজিতে লিখতে হত - বাংলা মিডিয়ামে পড়ে প্রতি মাসে একটা গোটা চিঠি ইংরেজিতে লেখা যে কি যন্ত্রণার সে যারা ভুক্তভোগী তারা ছাড়া আর কে-ই বা জানবেন৷ আমি অবশ্য প্রতি তিন-চার মাস অন্তর কপি পেস্ট মারতাম প্রথম থেকেই - তখন তো জানতাম না যে ভবিষ্যতে এটা একটা অমূল্য শিক্ষা হয়ে থাকবে৷ ঠাকুর্দার চিঠিগুলো অবশ্য কপি পেস্ট হত না - ইংরেজিতে লেখা সেই গোটা চিঠিটা পড়া এবং তার মান
<< লেখকের আরও নতুন লেখা <<     >> লেখকের আরও পুরোনো লেখা >>

এদিক সেদিক যা বলছেনঃ

20 Oct 2018 -- 10:41 PM:মন্তব্য করেছেন
প্রতিভাদি - এই ভারতবর্ষকে চেনার চেষ্টা করি - কিন্তু তল পাইনা কিছুতেই। ইয়েলাম্মার গল্পটা জানতাম, কিন্ ...
20 Oct 2018 -- 10:00 PM:ভাটে বলেছেন
যা - ডান বাম সবাই মরে গেল?
16 Aug 2018 -- 08:51 AM:মন্তব্য করেছেন
চুক্তিটা অনেক আগেই করা যেত, - সরকারের ক্সছে উইন - উইন সিচুয়েশন ছিল। কিন্তু আরাবুলদের ব্যবহার করার ব ...
10 Aug 2018 -- 09:27 PM:মন্তব্য করেছেন
এই ইজারাদারদের কী বক্তব্য? এভাবে ভূমিদাস নিয়োগ কি বে-আইনী নয়?
05 Aug 2018 -- 09:07 AM:মন্তব্য করেছেন
একবার যখন আন্দোলনের স্বাদ পেয়েছো ভাই, তোমার, তোমাদের মধ্যে ঢুকে গেছে স্বাধীন চেতনার একটা ছোট্ট বীজ। ...
05 Aug 2018 -- 02:48 AM:মন্তব্য করেছেন
লড়াইজে কুর্ণিশ - সহস্রবার। সিস্টেমের বিরুদ্ধে যারাই লড়ছে, আমাদের লড়াই লড়ছে। সালাম ছাত্রছাত্রীদের।
31 Jul 2018 -- 11:27 AM:মন্তব্য করেছেন
লেখাটার সাথে পুরোপুরি একমত হয়েও শাক্যর কথাটাও মানতেই হচ্ছে যে এই সমাধান এই মুহুর্তে হবে না। কারণ এই ...
31 Jul 2018 -- 12:42 AM:মন্তব্য করেছেন
চল্লিশ লক্ষ মানুষ (সবাই বাঙালি নন সম্ভবতঃ - বিহারী, নেপালি, রাজবংশী, কোচ সবাই আছেন, কিন্তু তাতে মূল ...
29 Jul 2018 -- 07:57 PM:টইয়ে লিখেছেন
১৯৮১ মানে আমিও থ্রী। অদ্ভুতভাবে খুব কম স্মৃতি। সেই বছরেই সম্ভবতঃ প্রথম তিরধনুক চালাতে শিখি। ধনুক বান ...
26 Jul 2018 -- 10:19 AM:মন্তব্য করেছেন
খুব জরুরী লেখা। কিস্তিগুলো আরেকটু বড় বিড় হলে আল হয় - এই তথ্যগুলি আমাদের সবার জানা প্রয়োজন এবং দ্রুত। ...
19 Jul 2018 -- 12:21 AM:মন্তব্য করেছেন
সই আমিও করেছি - শেয়ারও। লড়াইটা চলুক। আমরা হারব না। যাদবপুরে হারিনি, মেডিকেল কলেজেও হারব না ...
18 Jul 2018 -- 08:03 PM:মন্তব্য করেছেন
এই পর্বে এসে লেখাটা বাঁক নিয়ে নিল। দারুণ
08 Jun 2018 -- 12:37 AM:মন্তব্য করেছেন
এই "ভালো লাগলো"টা আমার কমেন্ট নয় - যতদূর সম্ভব সঞ্জয় ভট্টাচার্যের - আবার যে কী করে আমার নাম দেখাচ্ছে ...
28 May 2018 -- 06:07 PM:মন্তব্য করেছেন
এই লেখায় তো কোন কমেন্ট করা যায় না - শুধু দম আটকে আসে। আমাদের ইতিহাস আমাদেরকে ছুরির ফলায় ক্ষতবিক্ষত ক ...
28 May 2018 -- 09:39 AM:মন্তব্য করেছেন
হায়ারমাথেরা তাদের কাজ করে চলেন। কিন্রু আমরা অধিকাংশই শুধু দেখে চলি। আর একদল মানুষ জানেন এই সব বে-আইন ...
28 May 2018 -- 09:14 AM:মন্তব্য করেছেন
এট্টু নিজে নিজেই তুললাম - যদি কারো ইন্টারেস্টিং লাগে
21 May 2018 -- 10:37 PM:মন্তব্য করেছেন
রাজাবাজার আর মেটিয়াবুরুজ নিয়ে মিথগুলো ভাঙার সময় এসেছে
07 May 2018 -- 12:23 AM:মন্তব্য করেছেন
এটা কী পড়লাম! এটা কী?!!
06 May 2018 -- 08:33 PM:মন্তব্য করেছেন
বিরক্ত হতেই পারেন। কিন্তু অদিতির বিশেষ কিছু করার ছিল না - সে তো সিনেমা দূর, সিরিয়ালের নায়িকাও না। তব ...
05 May 2018 -- 01:02 PM:ভাটে বলেছেন
মরালমাসীমেসোরা এখন সত্যিই আচ্ছে দিন দেখতে পাচ্ছেন আর কি। অনুকুল বাতাস যারে কয়।