সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায় RSS feed

আর কিছুদিন পরেই টিনকাল গিয়ে যৌবনকাল আসবে। :-)

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • বাম-Boo অথবা জয়শ্রীরাম
    পর্ব ১: আমরাভণিতা করার বিশেষ সময় নেই আজ্ঞে। যা হওয়ার ছিল, হয়ে গেছে আর তারপর যা হওয়ার ছিল সেটাও শুরু হয়ে গেছে। কাজেই সোজা আসল কথায় ঢুকে যাওয়াই ভালো। ভোটের রেজাল্টের দিন সকালে একজন আমাকে বললো "আজ একটু সাবধানে থেকো"। আমি বললাম, "কেন? কেউ আমায় ক্যালাবে বলেছে ...
  • ঔদ্ধত্যের খতিয়ান
    সবাই বলছেন বাম ভোট রামে গেছে বলেই নাকি বিজেপির এত বাড়বাড়ন্ত। হবেও বা - আমি পলিটিক্স বুঝিনা একথাটা অন্ততঃ ২৩শে মের পরে বুঝেছি - যদিও এটা বুঝিনি যে যে বাম ভোট বামেদেরই ২ টোর বেশী আসন দিতে পারেনি, তারা "শিফট" করে রামেদের ১৮টা কিভাবে দিল। সে আর বুঝবও না হয়তো ...
  • ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনঃ আদার ব্যাপারির জাহাজের খবর নেওয়া...
    ভারতের নির্বাচনে কে জিতল তা নিয়ে আমরা বাংলাদেশিরা খুব একটা মাথা না ঘামালেও পারি। আমাদের তেমন কিসছু আসে যায় না আসলে। মোদি সরকারের সাথে বাংলাদেশ সরকারের সম্পর্ক বেশ উষ্ণ, অন্য দিকে কংগ্রেস বহু পুরানা বন্ধু আমাদের। কাজেই আমাদের অত চিন্তা না করলেও সমস্যা নেই ...
  • ইন্দুবালা ভাতের হোটেল-৪
    আম তেলবিয়ের পরে সবুজ রঙের একটা ট্রেনে করে ইন্দুবালা যখন শিয়ালদহ স্টেশনে নেমেছিলেন তখন তাঁর কাছে ইন্ডিয়া দেশটা নতুন। খুলনার কলাপোতা গ্রামের বাড়ির উঠোনে নিভু নিভু আঁচের সামনে ঠাম্মা, বাবার কাছে শোনা গল্পের সাথে তার ঢের অমিল। এতো বড় স্টেশন আগে কোনদিন দেখেননি ...
  • জোড়াসাঁকো জংশন ও জেনএক্স রকেটপ্যাড-৯
    আমি যে গান গেয়েছিলেম, মনে রেখো…। '.... আমাদের সময়কার কথা আলাদা। তখন কে ছিলো? ঐ তো গুণে গুণে চারজন। জর্জ, কণিকা, হেমন্ত, আমি। কম্পিটিশনের কোনও প্রশ্নই নেই। ' (একটি সাক্ষাৎকারে সুচিত্রা মিত্র) https://www.youtube....
  • ডক্টর্স ডাইলেমা : হোসেন আলির গল্প
    ডক্টর্স ডাইলেমা : হোসেন আলির গল্পবিষাণ বসুচলতি শতকের প্রথম দশকের মাঝামাঝি। তখন মেডিকেল কলেজে। ছাত্র, অর্থাৎ পিজিটি, মানে পোস্ট-গ্র‍্যাজুয়েট ট্রেনি। ক্যানসারের চিকিৎসা বিষয়ে কিছুটা জানাচেনার চেষ্টা করছি। কেমোথেরাপি, রেডিওথেরাপি, এইসব। সেই সময়ে যাঁদের ...
  • ঈদ শপিং
    টিভিটা অন করতেই দেখি অফিসের বসকে টিভিতে দেখাচ্ছে। সাংবাদিক তার মুখের সামনে মাইক ধরে বলছে, কতদূর হলো ঈদের শপিং? বস হাসিহাসি মুখ করে বলছেন,এইতো! মাত্র ছেলের পাঞ্জাবী আমার স্যুট আর স্ত্রীর শাড়ি কেনা হয়েছে। এখনো সব‌ই বাকি।সাংবাদিক:কত টাকার শপিং হলো এ ...
  • বর্ণমালা, আমার দুঃখিনী বর্ণমালা
    ‘কেন? আমরা ভাষাটা, হেসে ছেড়ে দেবো?যে ভাষা চাপাবে, চাপে শিখে নেবো?আমি কি ময়না?যে ভাষা শেখাবে শিখে শোভা হবো পিঞ্জরের?’ — করুণারঞ্জন ভট্টাচার্যস্বাধীনতা-...
  • ফেসবুক সেলিব্রিটি
    দুইবার এস‌এসসি ফেইল আর ইন্টারে ইংরেজি আর আইসিটিতে পরপর তিনবার ফেইল করার পর আব্বু হাল ছেড়ে দিয়ে বললেন, "এই মেয়ে আমার চোখে মরে গেছে।" আত্নীয় স্বজন,পাড়া প্রতিবেশী,বন্ধুবান্ধ...
  • বর্ণমালা, আমার দুঃখিনী বর্ণমালা
    ‘কেন? আমরা ভাষাটা, হেসে ছেড়ে দেবো?যে ভাষা চাপাবে, চাপে শিখে নেবো?আমি কি ময়না?যে ভাষা শেখাবে শিখে শোভা হবো পিঞ্জরের?’ — করুণারঞ্জন ভট্টাচার্য স্বাধীনতা-পূর্ব সরকারি লোকগণনা অনুযায়ী অসমের একক সংখ্যাগরিষ্ঠ ভাষাভাষী মানুষ ছিলেন বাঙালি। দেশভাগের পরেও অসমে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায়

একদা যে কলেজটিতে পড়তাম, তার নাম বিই কলেজ। নাম বদলে যদিও এখন আই আই ইএসটি। কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু তাতে কিছু এসে যায়না। আমাদের কাছে এখনও বিই কলেজই। সেখানে যে সরকারি উদ্যোগে একটি হিন্দি সেল তৈরি হয়েছে জানতামই না, যদিনা আমার বন্ধু গৌরব ফেসবুকে একটি পোস্ট করত। তার পোস্টের সূত্র ধরে কলেজ তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে দেখি, সেখানে ইংরিজির পাশে একটি হিন্দি সংস্করণও আছে। এবং হিন্দি সেলকে সরকারি ভাবে একটি আলাদা ওয়েবসাইট (সাবডোমেন) ও দান করা হয়েছে। সেখানে গিয়ে নানা মণিমুক্ত দেখা গেল। পুরোটাই হিন্দিতে। হিন্দি তেমন বুঝিনা বলে বহু কিছু অধরাও থেকে গেল। কিন্তু তার মধ্যে নাকের ডগায় হিন্দিতে ঝোলানো যে বার্তাটি একেবারেই নজর এড়ানো অসম্ভব, অক্ষম অনুবাদে তা মোটামুটি এইঃ

"রাষ্ট্রভাষার অর্থ হল রাষ্ট্রের ভাষা (Language of the nation)। সেই ভাষা, যার প্রয়োগ দেশের সব ভাষার লোক সহজে করতে পারে, বলতে পারে, লিখতে পারে। হিন্দি আমাদের দেশের সেই ভাষা। স্বাধীনতার আগে ইংরেজরা ইংরিজি দিয়ে সব কাজ চালিয়েছে, কিন্তু নিজের দেশের সবার জন্যই একটি ভাষা থাকা আবশ্যক, যে ভাষা দেশের নিজের। একমাত্র হিন্দিই হল সেই ভাষা"।

একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান, জাতীয় প্রতিষ্ঠান, নির্দ্বিধায় এই মিথ্যে এবং আধিপত্যমূলক কথাগুলি নিজের ওয়েবসাইটে লিখে রেখেছে। সদর্পে। এরা জানেনা এমন নয়, যে, ভারতবর্ষের কোনো রাষ্ট্রভাষা নেই। অনেকগুলি সম মর্যাদার ভাষা নিয়ে তৈরি একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর নাম ভারতবর্ষ। এরা জানেনা এমন নয়, যে, সংবিধানে রাষ্ট্রভাষার কোনো অস্তিত্ব নেই। এরা এও জানেনা এমন নয়, যে, কেন্দ্রীয় সরকারি প্রতিষ্ঠান হয়ে সংবিধানের বিরুদ্ধে গিয়ে কোনো ভাষাকে রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি দেওয়া যায়না। এগুলি একজন শিক্ষিত ভারতীয় নাগরিকের সাধারণ জ্ঞানের মধ্যে পড়ে। কিন্তু সব জেনেও নির্দ্বিধায় এবং সদর্পে এরা হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা আখ্যা দেয়। সরকারি ওয়েবসাইটে ঝুলিয়ে রাখে। সরকারি প্রতিষ্ঠানে হিন্দি সেল বানায়। এবং "দেশের সকলেরই একটি ভাষা থাকা আবশ্যক" বলে ফতোয়া জারি করে। এবং সমবেত ভদ্রসমাজ হিন্দি সিরিয়ালের মতই সেই অনিবার্যতার সামনে নতজানু হয়।

সে যে যা খুশি করুক। এটা লিখছি, কারণ আমার লজ্জা রাখার আর জায়গা নেই, কারণ এই প্রতিষ্ঠানটিকে আমি এখনও আমার মনে করি। সেখানে তথাকথিত রাষ্ট্রভাষার এই দাপাদাপি এখনও মেনে নিতে খারাপ লাগে। যেমন লাগে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় মন্ত্রীসান্ত্রীদের হিন্দি বলতেই হবে, এই ফতোয়া। সেই ফতোয়ার কোনো প্রতিবাদ করেনি প্রতিষ্ঠিত দলগুলি। বরং তারা সংসদে গিয়ে নিজের ভাষায় নিজেকে ব্যক্ত না করার জন্যই উন্মুখ। এই ক্ষেত্রেও কোনো রাজনৈতিক প্রতিবাদ হবে আশা করছিনা। কিন্তু এই টুকুই বলার, যে, সরকারি খরচে হিন্দি সেল হবে, হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা বলে ঘোষণা করা হবে, ভাষাগত যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে দুমড়ে মুচড়ে খতম করে দেওয়া হবে, এর বিরুদ্ধে মুখ না খুলে হিন্দি-হিন্দু-হিন্দুস্তানের দর্শনের প্রতিবাদ করা যায়না। জিওর হাতে বিএসএনএল এর পরিকাঠামো তুলে দেওয়ার চেয়ে এ কিছু কম বিপজ্জনক বিষয় নয়। বরং অনেক বেশিই।

পুঃ
১। ওয়েবসাইটের লিংক এখানে রইল। http://hindicell.iiests.ac.in/gallery.html
২। ঘোষণার ছবিঃ
https://i.postimg.cc/PxSQmsnq/hindi-cell.png



1360 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: কুশান

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

আমি একটি কেন্দ্রীয় সংস্থায় মুম্বইতে কর্মসূত্রে প্রায় সাড়ে চার বছরের মতন ছিলাম। এক বছর ট্রেনিং এর পর যখন একটি ডিভিশনে যোগ দিই আমার তৎকালীন সেকশন হেড একটি সার্কুলার ধরান। তাতে আমাকে বলা হয় একটি ন্যূনতম ছয় মাস ব্যাপী হিন্দির ওরিয়েন্টেশন কোর্স আমাকে করতে হবে। আমি তা করতে অস্বীকার করি। তথাপি আমাকে একপ্রকার চাপ দেওয়া হয়। আমার তখন প্রবেশন পিরিয়ড। আমি যুক্তি দিয়েই এবং দৃঢ়তার সঙ্গে তা অস্বীকার করি। কিন্তু, আমি ঐ কোর্স অনেককে করতে দেখেছি। বিশেষত দক্ষিণ ভারতীয়দের।

কেন্দ্রীয় সংস্থায় প্রতিটি ডিভিশনের সম্ভাব্য এবং আশ্চর্য সমস্ত হিন্দি নাম চোখে পড়ত। সেগুলি খায় না মাথায় দেয় কোনো দিনই বুঝতে পারিনি। সবচেয়ে বড় কথা এই নামগুলি কেউ ব্যবহার ও করত না।

IIEST কেও এই কেন্দ্রীয় ও রাষ্ট্রীয় ব্যারামে ধরেছে, বোঝাই যাচ্ছে।
Avatar: sm

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

হিন্দি ভাষা শিখে কি কি লাভ হয়, সেইটা আগে জানতি হবে।
যদি ভালো লাভ হয়, তবে লিশ্চয় শিখবো।
খালি মোদির ভাষণ বোঝার জন্যি শিখবো না।
Avatar: রিভু

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

আপনি শিখতেই পারেন। কিন্তু সেটা এই লেখার বিষয় নয়।
Avatar: sm

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

বিষয়টা ঠিক কি?
Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

সংবিধানে না থাকলে কথিত রাষ্ট্রভাষার নামে হিন্দী চাপিয়ে দেওয়া চলবে না। শিক্ষার্থীদের জোর প্রতিবাদ করা উচিৎ।

ঢাকা থেকে সংহতি। 👍
Avatar: Izhikevich

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

IIEST কেন্দ্রীয় সংস্থা। ইউজিসি/এমএইচআরডি এর সার্কুলার আসে এই সমস্ত ইস্যুতে। ইয়োগা ডে, হিন্দি পাখোয়ারা ইত্যাদি অনেক কিছুই হচ্ছে। ঝাঁটা নিয়ে স্বচ্ছ ভারতের ড্রামাও। এবং বর্তমান ডিরেক্টর এক্স বিএইচইউ, তাঁকে বিশেষভাবে আনা হয়েছে এমএইচআরডি থেকে। লোকটি পরিচিত চাড্ডি।
Avatar: joutho

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

কি ই বা এসে যায়! একদিন ইনরিজি হয়ে যাবে পৃথিবীর ভাষা আর সব এক্জাতি একপ্রাণ ...
Avatar: Abhijit

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

হিন্দি সেল Aaj নয় বহুকাল থেকে বিদ্যমান। IIT Kharagpur এ দেখেছি স্টুডেন্ট Secretary স্পোর্টস এর হিন্দি অনুবাদ ছাত্রা মহামন্ত্রী খেলকুঁদ।
Avatar: Prativa

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

খোদ কলকাতা শহরে ফেয়ারলি প্লেসে পি এন বি ব্যাঙ্কে লোক আদালতের কারণে ঢুকে এক আশ্চর্য বার্তা দেখেছিলাম। ঢুকতেই কাঠের বোর্ডে লেখা, হিন্দিমে বাত করে তো অচ্ছা লগে।
কি বিনয় আর কি আধিপত্যকামী মানসিকতা !
Avatar: অমর মিত্র

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

এই আধিপত্য বহুকাল ধরে চলছে এই দেশে। সাহিত্য অকাদেমির অনুষ্ঠানে হিন্দি লেখকরা হিন্দিতেই গল্প কবিতা পাঠ করেন। অন্য ভাষার লেখকদের ইংরেজি বা হিন্দিতে অনুবাদ করে নিয়ে যেতে হয়। দক্ষিণ ভারতের লেখকরা হিন্দি পাঠের সময় অন্য দিকে মুখ ফিরিয়ে থাকেন।
Avatar: pi

Re: বি ই কলেজ ও রাষ্ট্রভাষা

অমরদা এই নিয়ে বড় করে লিখুন না। প্রতিভাদি, কী সান্ঘাতিক, ছবি তোলা যাবে একটু?
কুশানদা, অভিজিতের অভিজ্ঞতা আমারো। ২০০৪-৫ থেকেই এই হিন্দি সেল,
হিন্দি দিভস পাখোয়াড়া দেখে আসছি। এটা টি আয় এফ আরের কথা বললাম। কোলকাতায় কাল্টিভেশন, আই আই সি বি,সি এস আউ আর ওন্স্টি গুলোতে ডুকলেই রোজ বোর্ডে একটা করে হিন্দি শব্দ লাগান থাকত, শেখার জন্য, আমাদেরও।

তবে রমরমা আরো বাড়ছে, ছড়াছে বোধহয়।
এটা গ্রুপে লিখেছিলাম গতবছর।

সব কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কি সব কিছু হিন্দিতে লেখা বাধ্যতামূলক ? সেদিন ত্রিপুরা বিশ্ববিদ্যালইয়ে গিয়ে পুরো ব্যোমকে গেলাম, থমকে গেলাম। সবার নাম , সব বিভাগের নাম ইংলিশ আর হিন্দিতে লেখা। বাংলা প্রায় নেই বললেই চলে। এমনকি বাংলা বিভাগেও তাই !! তারপরের চমক ছিল , একটা বিশাল অংশ জুড়ে এবিভিপি র পতাকা । জানিনা, এবিভিপি র অনুপ্রবেশে এই রকম হিন্দিময় পরিবেশ নাকি এটাই কেন্দ্রীয় সরকারি নিয়ম ? এন আই টি , আই আই টি তে নাহয় তাও বাইরের অনেক ছাত্রছাত্রী আসে, কিন্তু রাজ্যের কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালইয়ে তো তাই না। এমনকি বাংলা বিভাগে ও !! ঃ( পব র খবর জানতে চাই।)

সুতোতে অনেকে অনেক কিছু লিখেছিলেন, রইল তাই

https://m.facebook.com/groups/175129282505026?view=permalink&id=15
82029365148337





আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন