Srijita Sanyal Sur RSS feed

Srijita Sanyal Surএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর
    পর্ব ১-------( লালগড় সম্প্রতি ফের খবরের শিরোনামে। শবর সম্প্রদায়ের সাতজন মানুষ সেখানে মারা গেছেন। মৃত্যু অনাহারে না রোগে, অপুষ্টিতে না মদের নেশায়, সেসব নিয়ে চাপান-উতোর অব্যাহত। কিন্তু একটি বিষয় নিয়ে বোধ হয় বিতর্কের অবকাশ নেই, প্রান্তিকেরও প্রান্তিক এইসব ...
  • 'কিছু মানুষ কিছু বই'
    পূর্ণেন্দু পত্রীর বিপুল-বিচিত্র সৃষ্টির ভেতর থেকে গুটিকয়েক কবিতার বই পর্যন্তই আমার দৌড়। তাঁর একটা প্রবন্ধের বই পড়ে দারুণ লাগলো। নিজের ভালোলাগাটুকু জানান দিতেই এ লেখা। বইয়ের নাম 'কিছু মানুষ কিছু বই'।বেশ বই। সুখপাঠ্য গদ্যের টানে পড়া কেমন তরতরিয়ে এগিয়ে যায়। ...
  • গানের মাস্টার
    আমাকে অংক করাতেন মনীশবাবু। গল্পটা ওনার কাছে শোনা। সত্যিমিথ্যে জানিনা, তবে মনীশবাবু মনে হয়না মিছে কথা বলার মানুষ। ওনার বয়ানেই বলি।তখনও আমরা কলেজ স্ট্রীটে থাকি। নকশাল মুভমেন্ট শেষ। বাংলাদেশ যুদ্ধও শেষ হয়ে গেছে। শহর আবার আস্তে আস্তে স্বভাবিক হচ্ছে। লোকজন ...
  • বিজ্ঞানে বিশ্বাস, চিকিৎসা বিজ্ঞানে বিশ্বাস বনাম প্রশ্নের অভ্যাস
    এই লেখাটি চার নম্বর প্ল্যাটফর্ম ওয়েবম্যাগে প্রকাশিত। এইখানে আবারও দিলাম। যাঁরা পড়েন নি, পড়ে দেখতে পারেন। বিজ্ঞানে বিশ্বাস, চিকিৎসাবিজ্ঞানে বিশ্বাস বনাম প্রশ্নের অভ্যেসবিষাণ বসু“সোমপ্রকাশ। - স্বয়ং হার্বাট স্পেন্সার একথা বলেছেন। আপনি হার্বাট স্পেন্সারকে ...
  • অতীশ দীপংকরের পৃথিবী : সন্মাত্রনন্দের নাস্তিক পণ্ডিতের ভিটা
    একাদশ শতকের প্রথমদিকে অতীশ দীপঙ্কর বৌদ্ধধর্ম ও সংশ্লিষ্ট জ্ঞানভাণ্ডার নিয়ে বাংলা থেকে তিব্বতে গিয়েছিলেন সেখানকার রাজার বিশেষ অনুরোধে। অতীশ তিব্বত এবং সুমাত্রা (বর্তমান ইন্দোনেশিয়া) সহ পূর্ব ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বিস্তৃর্ণ ভূভাগে বৌদ্ধ ধর্ম ও দর্শনের ...
  • the accidental prime minister রিভিউ
    ২০০৫ সালের মে মাসে ইউপিএ সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে হঠাৎ একটা খবর উঠতে শুরু করল যে প্রধাণমন্ত্রী সব ক্যাবিনেট মিনিস্টারের একটা রিপোর্ট কার্ড তৈরি করবেন।মনমোহন সিং যখন মস্কোতে, এনডিটিভি একটা স্টোরি করল যে নটবর সিং এর পারফর্মেন্স খুব বাজে এবং রিপোর্ট কার্ডে ...
  • উল্টোরথ, প্রসাদ ও কলিন পাল
    ছোটবেলা থেকেই মামাবাড়ির 'পুরোনো ঘর' ব'লে একটি পরিত্যক্ত কক্ষে ঝিমধরা দুপুরগুলি অতিবাহিত হতো। ঘরটি চুন সুরকির, একটি অতিকায় খাটের নীচে ডাই হয়ে জমে থাকত জমির থেকে তুলে আনা আলু, পচা গন্ধ বেরুত।দেওয়ালের এক কোণে ছিল বিচিত্র এক ক্ষুদ্র নিরীহ প্রজাতির মৌমাছির ...
  • নির্বাচন তামসা...
    বাংলাদেশে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হয়ে গেছে। এবার হচ্ছে একাদশ তম জাতীয় নির্বাচন। আমি ভোট দিচ্ছি নবম জাতীয় নির্বাচন থেকে। জাতীয় নির্বাচন ছাড়া স্থানীয় সরকার নির্বাচন দেখার সুযোগ পেয়েছি বেশ কয়েকবার। আমার দেখা নির্বাচন গুলোর মাঝে সবচেয়ে মজার নির্বাচন ...
  • মসলা মুড়ি
    #বাইক_উৎসব_এক্সরে_নো...
  • কাঁচঘর ও ক্লাশ ফোর
    ক্লাস ফোরে যখন পড়ছি তখনও ফেলুদার সঙ্গে পরিচয় হয়নি, পড়িনি হেমেন্দ্রকুমার। কিন্তু, যথাক্রমে, দুটি প্ররোচনামূলক বই পড়ে ফেলেছি। একটির নাম 'শয়তানের ঘাঁটি' ও অপরটি 'চম্বলের দস্যুসর্দার'। উক্ত দুটি বইয়ের লেখকের নাম আজ প্রতারক স্মৃতির অতলে। যতদূর মনে পড়ে, এই ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ভূতচতুর্দশী

Srijita Sanyal Sur

ভূতচতুর্দশী

অমিত বাড়িতে ঢুকে বাজারের ব্যাগটা নামিয়ে বারান্দায় বসল। এবার এক কাপ চা আর খবরের কাগজ। এই পুজো গন্ডার দিনে বাজার করা যে কি চাপের। এপার বাঙলার লোকজন কাল লক্ষীপুজো করবে। বাজারে ভীড় ভর্তি। আয়েশ করে চেয়ারে বসতে না বসতেই রান্নাঘর থেকে বাসন্তীর আর্তনাদ ভেসে আসে, "দাদা আ আ, চোদ্দ শাক কই?!!!"
এই রে! তালেগোলে ওটাই তো ভুলে গেছি, ভাবে অমিত। বলে, " নেই রে। বাজারে নেই। সব জায়গায় ফ্ল্যাট উঠে গিয়ে আর শাক পাওয়া যায় না। তুই ওই ধনেপাতা চোদ্দটা নিয়ে নে না!"
কোমরে হাত দিয়ে বাসন্তী বাইরে এসে দাঁড়ায়। " শোনো দাদা। আমাকে এসব বাজে কথা বলতে এসো না। এখুনি বাজারে গিয়ে চোদ্দ শাক নিয়ে আসবে। বৌদি চোদ্দশাক বানানোর ছোট কড়াই বার করে রেখে গেছে। আজ ওই শাক না নামালে আমার রক্ষে থাকবে না। এখুনি আবার বাজারে যাও।"
অগত্যা, চায়ের আশা ত্যাগ করে গজগজ করতে করতে আবার বাজারের দিকে হাঁটা লাগায় অমিত।

বাজারে গিয়ে দাঁড়াতেই মুরাদ দাঁত বের করে হাসে," চোদ্দ শাক? আমি জানি আবার ফিরবেন। বল্লুম তখন। খ্যায়াল ই করলেন না। বৌদি নে যান তো। নেন। আলাদা করে রাখা আচে।" অমিত বিরক্ত হয়ে ফেরে বাড়ির দিকে। একবার যেন চোদ্দশাক ছাড়া চলত না। যত্তসব।
বাড়ি ফিরে এককাপ চা এবার পেল অমিত। শান্তমত কাপ নামানোর আগেই আবার বাসন্তী হাজির। " দাদা, রাগ কোরো না। আরেকবার দোকানে যাও। ছোটকু আজ কলেজে গেছে। নইলে।" বিনয়ে প্রায় মাটিতে মিশে যাওয়া বাসন্তীর দিকে তাকিয়ে রাগ সামলাতে সামলাতে অমিত বলে, "এবার কী?"
"ময়দা!"
"খিচুডি কর।"
" অসম্ভব। এই দুদিন এবাড়িতে ময়দা খাওয়া হয়। আমার ঘাড়ে একটাই মাথা। আমি খিচুড়ি নামিয়ে গেলে আমায় বৌদি মেরে ফেলবে। তুমি একবারটি যাও দাদা। পিলিজ।"
চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়ায় অমিত। "বৌদি নেই, ছোটকু নেই, শুধু দাদাকে দ্যাখো, না? একবারে বল আর কি লাগবে?আমার রাজ্য সরকার আর আমার ছুটি আছে বলে আমাকে বাজার সরকার বানিয়ে দিবি তোরা?" রীতিমত হুঙ্কার ছাড়ে অমিত।
গড়গড় করে বাসন্তী বলে, " বাতি এনো ছাদের জন্য, মাটির প্রদীপ কটার জন্য সর্ষের তেল আর সলতে।"

ব্যাগ নিয়ে আবার বাজারে ছোটে অমিত। এই মহিলা তার জীবনটাকে কন্ট্রোল করেই চলেছে। বৌদি এই বলেছে, বৌদি ওই বলেছে। বৌদি বকবে, কেন, সে বকতে পারেনা? দাদা যেন কেউ নয়।
দোকান থেকে ফেরার পথে সামনেই বাজীর দোকান। গজগজ করতে করতেই অমিত দুখানা ফানুস কিনেই ফেলল, তেনার পছন্দ। কি করা যাবে।
বাড়ি ফিরে খাওয়াদাওয়া সেরে বাড়ি সাজাতে বসল অমিত৷ টুনি লাগিয়ে, বাতি দিয়ে ছাদ সাজিয়ে নিচের বারান্দায় এসে দাঁড়ায় সে। বাসন্তী বাড়ি চলে গেল কাজ সেরে। এক এক করে আশেপাশের বাড়িতে আলো জ্বলে উঠছে৷ সুন্দর লাগছে।
শব্দ পেয়ে তাকিয়ে দেখল, গেট খুলে ছোটকু ঢুকছে। হাতে ফুল ভর্তি ব্যাগ। তাকে দেখে একগাল হেসে বলল, " হ্যাপ্পি ভূতচতুর্দশী বাবা। তুমি বাড়িটা তো খুব সুন্দর সাজিয়ে ফেলেছো। কিন্তু মা চোদ্দ প্রদীপ না জ্বালালে ভারী রাগ করবে। ভোরে উঠে দেখলাম মা রান্নাঘরে বাসন বার করেছে, চোদ্দ প্রদীপের জায়গা গুছিয়েছে। তুমি আর আমি মিলে আগে প্রদীপগুলো জ্বালাই।
তারপর মা র ছবিতে ফুল দিয়ে সাজাবো। দ্যাখো মার পছন্দের রজনীগন্ধার মালা এনেছি। চলো। মা তো এবাড়িতে রয়েই গেছে। একসাথেই বাড়িটা গোছাই।"
হাসিমুখে দুজনে চোদ্দ প্রদীপ জ্বালাতে গেল।
এরপরে দুজনে ফানুসও ওড়াবে। কে জানে, বাড়ির গিন্নি কোন ঘর থেকে দাঁড়িয়ে অদৃশ্যে তাঁর সাধের সংসার দেখে খুশি হচ্ছিলেন।

518 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: mahua

Re: ভূতচতুর্দশী

চমৎকার
Avatar: sch

Re: ভূতচতুর্দশী

bah
Avatar: kumu

Re: ভূতচতুর্দশী

মায়া,বড় মায়াময় এই লেখা।
Avatar: Sir Donald Ramsay

Re: ভূতচতুর্দশী

স্কিউঝ ম্‌হি এই ভুটো ছাটুরঢেশি খি আছেঈ?
Avatar: Tim

Re: ভূতচতুর্দশী

ভারি সুন্দর এই লেখাটা।
Avatar: AS

Re: ভূতচতুর্দশী

বাঃ
Avatar: ম

Re: ভূতচতুর্দশী

শেষের এই ধাক্কাটা নিদারুণ, এবং চমৎকার।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন