Abhijit Majumder RSS feed
Abhijit Majumder খেরোর খাতা

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ভাঙ্গর ও বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থা প্রসঙ্গে
    এই লেখাটা ভাঙ্গর, পরিবেশ ও বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থা প্রসঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে নানা স্ট্যাটাস, টুকরো লেখায়, অনলাইন আলোচনায় যে কথাগুলো বলেছি, বলে চলেছি সেইগুলো এক জায়গায় লেখার একটা অগোছালো প্রয়াস। এখানে দুটো আলাদা আলাদা বিষয় আছে। সেই বিষয় দুটোয় বিজ্ঞানের সাথে ...
  • বিদ্যালয় নিয়ে ...
    “তবে যেহেতু এটি একটি ইস্কুল,জোরে কথা বলা নিষেধ। - কর্তৃপক্ষ” (বিলাস সরকার-এর ‘ইস্কুল’ পুস্তক থেকে।)আমার ইস্কুল। হেয়ার স্কুল। গর্বের জায়গা। কত স্মৃতি মিশে আছে। আনন্দ দুঃখ রাগ অভিমান, ক্ষোভ তৃপ্তি আশা হতাশা, সাফল্য ব্যার্থতা, এক-চোখ ঘুগনিওয়ালা, গামছা কাঁধে ...
  • সমর্থনের অন্ধত্বরোগ ও তৎপরবর্তী স্থবিরতা
    একটা ধারণা গড়ে ওঠার সময় অনেক বাধা পায়। প্রশ্ন ওঠে। সঙ্গত বা অসঙ্গত প্রশ্ন। ধারণাটি তার মুখোমুখি দাঁড়ায়, কখনও জেতে, কখনও একটু পিছিয়ে যায়, নিজেকে আরও প্রস্তুত করে ফের প্রশ্নের মুখোমুখি হয়। তার এই দমটা থাকলে তবে সে পরবর্তী কালে কখনও একসময়ে মানুষের গ্রহণযোগ্য ...
  • ভি এস নইপাল : অভিবাসী জীবনের শক্তিশালী বিতর্কিত কথাকার
    ভারতীয় বংশদ্ভূত নোবেল বিজয়ী এই লেখকের জন্ম ও বড় হয়ে ওঠা ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের ত্রিনিদাদে, ১৯৩২ সালের ১৭ অগস্ট। পরে পড়াশোনার জন্য আসেন লন্ডনে এবং পাকাপাকিভাবে সেতাই হয়ে ওঠে তাঁর আবাসভূমি। এর মাঝে অবশ্য তিনি ঘুরেছেন থেকেছেন আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ, ভারত সহ ...
  • আবার ধনঞ্জয়
    আজ থেকে চোদ্দ বছর আগে আজকের দিনে রাষ্ট্রের হাতে খুন হয়েছিলেন মেদিনীপুরের যুবক ধনঞ্জয় চট্টোপাধ্যায়। এই "খুন" কথাটা খুব ভেবেচিন্তেই লিখলাম, অনেকেই আপত্তি করবেন জেনেও। আপত্তির দুটি কারণ - প্রথমতঃ এটি একটি বাংলায় যাকে বলে পলিটিকালি ইনকারেক্ট বক্তব্য, আর ...
  • সীতাকুণ্ডের পাহাড়ে এখনো শ্রমদাস!
    "সেই ব্রিটিশ আমল থেকে আমরা অন্যের জমিতে প্রতিদিন বাধ্যতামূলকভাবে মজুরি (শ্রম) দিয়ে আসছি। কেউ মজুরি দিতে না পারলে তার বদলে গ্রামের অন্য কোনো নারী-পুরুষকে মজুরি দিতে হয়। নইলে জরিমানা বা শাস্তির ভয় আছে। তবে সবচেয়ে বেশি ভয় যেকোনো সময় জমি থেকে উচ্ছেদ ...
  • অনুপ্রদান
    শিক্ষাক্ষেত্রে তোলাবাজিতে অনিয়ম নিয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করলেন শিক্ষামন্ত্রী। প্রসঙ্গত গত কিছুদিনে কলেজে ভর্তি নিয়ে তোলাবাজি তথা অনুদান নিয়ে অভিযোগের সামনে নানা মহল থেকেই কড়া সমালোচনার মুখে পরে রাজ্য সরকার।শিক্ষামন্ত্রী এদিন ...
  • গুজবের সংসার
    গুজব নিয়ে সেই মজা নেওয়া শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু চারটা লাশ আর চারজন ধর্ষণের গুজব কি গুজব ছিল না? এত বড় একটা মিথ্যাচার, যার কারনে কত কি হয়ে যেতে পারত, এই জনপথের ইতিহাস পরিবর্তন হয়ে যেতে পারত অথচ রসিকতার ছলে এই মিথ্যাচার কে হালকা করে দেওয়া হল। ছাত্রলীগ যে ...
  • মহামূর্খের দল
    মূল গল্প : আইজ্যাক আসিমভরাইগেল গ্রহের যে দীর্ঘজীবী প্রজাতির হাতে এই গ্যালাক্সির নথিপত্র রক্ষণাবেক্ষণের ভার, সে পরম্পরায় নারন হল গিয়ে চতুর্থজন ।দুটো খাতা আছে ওনার কাছে । একটা হচ্ছে প্রকাণ্ড জাবদা খাতা, আর অন্যটা তার চেয়ে অনেকটা ছোট । গ্যালাক্সির সমস্ত ...
  • মানুষ মানুষের জন্য?
    স্মৃতির পটে জীবনের ছবি যে আঁকে সে শুধু রঙ তুলি বুলিয়ে ছবিই আঁকে, অবিকল নকল করা তার কাজ নয়। আগেরটা পরে, পরেরটা পরে সাজাতে তার একটুও বাঁধেনা। আরো অনেক সত্যের মধ্যে রবীন্দ্রনাথ তাঁর জীবনস্মৃতির আরম্ভেই এই ধ্রুব সত্য মনে করিয়ে দিয়েছেন। কথাটা মনে রেখেই ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

যে কথা ব্যাদে নাই

Abhijit Majumder

যে কথা ব্যাদে নাই

আমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন মাথা লাগাইয়া দিত। এই যেমন গণশার করসিল। যন্তু...জানোয়ার.... ওই মানে হাতের কাসে যা পাওয়া যায় আর কি। তারপর হইল কি, লোকজন ইস্যামত মাথা কাটতে আরম্ভ কইর্র্যা দিল। কারুর লাল মাথা কাটি সবুজ কইর্র্যা দিল, তো কাউরে মুকুলেই কাইট্যা করি দিল কমলা। সে কি কান্ড। কুইনটা যে কে, সে চেনাই বড় দায়। আজ যারে দাদা কইয়্যা ফুল পাঠাই, কাল তারই সাথে দেহি কুস্তি। হইব না ক্যান, চ্যাহারাখান পাল্টাইয়া গ্যালে মানষের আর থাকে কি। তাছাড়া গণশা যে জীবনে হ্যার বউরে আর চুমা খাইতে পাইরল না, সেই দু:খের কথা তো কেউ কেউ কইলই না।

এই অবস্থা দেইখ্যা একদিন সব বড় বড় মনষীরা এক লগে বইল। কিসু একডা তো করন লাগে। শ্যাষ কালে ঠিক হইল আর মাথা পাল্টানো চইলব না। তার বদলা বেরেন পাল্টাইতে হইব। মানষের মাথায় জন্তু জানোয়ারের ব্রেন। য্যামন ধরেন কুত্তার বেরেন, গিরগিটির ব্রেন, ভেড়ার বেরেন, শুয়ারের ব্রেন- এমন আরও কত কি।

কিন্তু রিসার্চে তো গন্ডগোল হয়ই। নইলে সায়েন্স ফিকশন কি কইর্র্যা হইব? হেইভাবেই হইলডা কি, ট্রান্সপ্ল্যান্ট করা বেরেনের বৈশিষ্ট্য কি কইর্র্যা যেন হেরিটেবল মানে বংশগত হইয়া গেল। বাপ থেইক্যা পোলায়, মাইয়ায় চইলতে লাইগল। অবস্থা এমন জায়গায় গিয়া দাঁড়াইল যে বাচ্চা হইলে হক্কলে জিগাইতে লাইগল কুত্তা হইসে না বিলাই।

বৈদিক যুগের গবেষণায় এই গোলমালের জইন্য দায়ী কে সঠিক কওন যায় না, তবে নেহরুই হইব। ওই হালার পো হালাই তো হক্কল গোলমালের লাইগ্যা র্যাসপন্সিবল।

বৈদিক বৈজ্ঞানিকেরা গোবর আর গোমূত্র দিয়া একটা ওসুদ অলমোস্ট বানাইয়া ফালাইসিল, এমন সময় বাবর আইস্যা অ্যাটাক কইর্যা দিল। তারপর আইল তৈমুর, সৈফ, করিনা আরও কত কে। (মুখেই কয় করিনা, করে কি আর না?)

মানষের আর মানষ হওন হইল না। কেউ পা চাটা কুত্তা হইয়া গেলাম, কেউ হইলাম কুয়ার ব্যাং। কারোর বেরেন হইল নোংরা ঘাঁটা শুয়ারের মত। কেউ গিরগিটির মত রং চেন্জ কইরতে লাগলাম, কেউ ঝাঁপ দিলাম এই ডাল হইতে ওই ডালে। কেউ চক্ষু বুইজ্যা ভেড়ার মতই চইলতে লাইগলাম। কারোর বেরেন হইল রক্তচুষা মশার মত। মানষের বেরেন আর খুঁইজ্যা পাওন গেল না।

আমগো সব আছিল। মানষের বেরেন, মানষের হার্ট, মানষের মন, মানষের আত্মা।

অহন কেবল মানষের চেহারাখান আছে।

শেয়ার করুন


Avatar: dd

Re: যে কথা ব্যাদে নাই

বেশ বেশ। ভালো লাগলো
Avatar: শঙ্খ

Re: যে কথা ব্যাদে নাই

বাহ
Avatar: tania

Re: যে কথা ব্যাদে নাই

তীক্ষ্ণ!
Avatar: lcm

Re: যে কথা ব্যাদে নাই

লেখাটা বেড়ে হইসে... তবে কি কথাডা হইল - এত হতাশার কিসু নাই... আসে আসে, মানবিকতা আসে...
Avatar: মহাশক্তিমান

Re: যে কথা ব্যাদে নাই

পূর্ব বাঙলায় আমাগো সব আছিলো। এই তো বেশি দিনের কথা না। ষাইট -সত্তর বসর হইব। আমাগো গোয়াল ভরা গরু আছিলো ,পুকুর ভরা মাস। আমাগো বাপ -দাদাগো কাফের ,মালাউন কইকার উখান থিক্কা ভাগাইয়া দিলো। জান -মান আর মা -দাদীমার ইজ্জত তো বাঁচাইতে হইবো। ঠাকুরদা আইলো ,বাবা আইলো ,মা আইলো , মায়ের পেটে আমি আইলাম। এক্কেবারে উদবাস্তু। এখানে আইয়া সবকিছু ধীরে ধীরে হইলো। আমরা হইয়া গেলাম কমিনিস্ট আর সিকিউলার। গনসার নামে যা কিসু কইতে পারি। নবীর নামে কিসু কোই না। কল্লা কাটাইয়া ফালাইয়া দিবে। দেশডা ইন্টলারেন্সে ভইরা গেলো। যাইগ্গা , অফিসের পর ক্যান্ডেললাইট মিছিল আশে #নট ইন মাই নেম।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন