স্বাতী রায় RSS feed

Swati Rayএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • বাম-Boo অথবা জয়শ্রীরাম
    পর্ব ১: আমরাভণিতা করার বিশেষ সময় নেই আজ্ঞে। যা হওয়ার ছিল, হয়ে গেছে আর তারপর যা হওয়ার ছিল সেটাও শুরু হয়ে গেছে। কাজেই সোজা আসল কথায় ঢুকে যাওয়াই ভালো। ভোটের রেজাল্টের দিন সকালে একজন আমাকে বললো "আজ একটু সাবধানে থেকো"। আমি বললাম, "কেন? কেউ আমায় ক্যালাবে বলেছে ...
  • ঔদ্ধত্যের খতিয়ান
    সবাই বলছেন বাম ভোট রামে গেছে বলেই নাকি বিজেপির এত বাড়বাড়ন্ত। হবেও বা - আমি পলিটিক্স বুঝিনা একথাটা অন্ততঃ ২৩শে মের পরে বুঝেছি - যদিও এটা বুঝিনি যে যে বাম ভোট বামেদেরই ২ টোর বেশী আসন দিতে পারেনি, তারা "শিফট" করে রামেদের ১৮টা কিভাবে দিল। সে আর বুঝবও না হয়তো ...
  • ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনঃ আদার ব্যাপারির জাহাজের খবর নেওয়া...
    ভারতের নির্বাচনে কে জিতল তা নিয়ে আমরা বাংলাদেশিরা খুব একটা মাথা না ঘামালেও পারি। আমাদের তেমন কিসছু আসে যায় না আসলে। মোদি সরকারের সাথে বাংলাদেশ সরকারের সম্পর্ক বেশ উষ্ণ, অন্য দিকে কংগ্রেস বহু পুরানা বন্ধু আমাদের। কাজেই আমাদের অত চিন্তা না করলেও সমস্যা নেই ...
  • ইন্দুবালা ভাতের হোটেল-৪
    আম তেলবিয়ের পরে সবুজ রঙের একটা ট্রেনে করে ইন্দুবালা যখন শিয়ালদহ স্টেশনে নেমেছিলেন তখন তাঁর কাছে ইন্ডিয়া দেশটা নতুন। খুলনার কলাপোতা গ্রামের বাড়ির উঠোনে নিভু নিভু আঁচের সামনে ঠাম্মা, বাবার কাছে শোনা গল্পের সাথে তার ঢের অমিল। এতো বড় স্টেশন আগে কোনদিন দেখেননি ...
  • জোড়াসাঁকো জংশন ও জেনএক্স রকেটপ্যাড-৯
    আমি যে গান গেয়েছিলেম, মনে রেখো…। '.... আমাদের সময়কার কথা আলাদা। তখন কে ছিলো? ঐ তো গুণে গুণে চারজন। জর্জ, কণিকা, হেমন্ত, আমি। কম্পিটিশনের কোনও প্রশ্নই নেই। ' (একটি সাক্ষাৎকারে সুচিত্রা মিত্র) https://www.youtube....
  • ডক্টর্স ডাইলেমা : হোসেন আলির গল্প
    ডক্টর্স ডাইলেমা : হোসেন আলির গল্পবিষাণ বসুচলতি শতকের প্রথম দশকের মাঝামাঝি। তখন মেডিকেল কলেজে। ছাত্র, অর্থাৎ পিজিটি, মানে পোস্ট-গ্র‍্যাজুয়েট ট্রেনি। ক্যানসারের চিকিৎসা বিষয়ে কিছুটা জানাচেনার চেষ্টা করছি। কেমোথেরাপি, রেডিওথেরাপি, এইসব। সেই সময়ে যাঁদের ...
  • ঈদ শপিং
    টিভিটা অন করতেই দেখি অফিসের বসকে টিভিতে দেখাচ্ছে। সাংবাদিক তার মুখের সামনে মাইক ধরে বলছে, কতদূর হলো ঈদের শপিং? বস হাসিহাসি মুখ করে বলছেন,এইতো! মাত্র ছেলের পাঞ্জাবী আমার স্যুট আর স্ত্রীর শাড়ি কেনা হয়েছে। এখনো সব‌ই বাকি।সাংবাদিক:কত টাকার শপিং হলো এ ...
  • বর্ণমালা, আমার দুঃখিনী বর্ণমালা
    ‘কেন? আমরা ভাষাটা, হেসে ছেড়ে দেবো?যে ভাষা চাপাবে, চাপে শিখে নেবো?আমি কি ময়না?যে ভাষা শেখাবে শিখে শোভা হবো পিঞ্জরের?’ — করুণারঞ্জন ভট্টাচার্যস্বাধীনতা-...
  • ফেসবুক সেলিব্রিটি
    দুইবার এস‌এসসি ফেইল আর ইন্টারে ইংরেজি আর আইসিটিতে পরপর তিনবার ফেইল করার পর আব্বু হাল ছেড়ে দিয়ে বললেন, "এই মেয়ে আমার চোখে মরে গেছে।" আত্নীয় স্বজন,পাড়া প্রতিবেশী,বন্ধুবান্ধ...
  • বর্ণমালা, আমার দুঃখিনী বর্ণমালা
    ‘কেন? আমরা ভাষাটা, হেসে ছেড়ে দেবো?যে ভাষা চাপাবে, চাপে শিখে নেবো?আমি কি ময়না?যে ভাষা শেখাবে শিখে শোভা হবো পিঞ্জরের?’ — করুণারঞ্জন ভট্টাচার্য স্বাধীনতা-পূর্ব সরকারি লোকগণনা অনুযায়ী অসমের একক সংখ্যাগরিষ্ঠ ভাষাভাষী মানুষ ছিলেন বাঙালি। দেশভাগের পরেও অসমে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

স্বাতী রায়


জর্জ ফাঁকা শুয়োরের খোঁয়াড়টার দিকে হাঁ করে তাকিয়ে ছিল আর ভাবছিল যে শুয়োরটা কি এমনি এমনি হাওয়া হয়ে গেল? একবার চোখ বন্ধ করে আবার খুলল - যদি কোন বিচ্ছিরি আলোর কারচুপি হয়ে থাকে! কিন্তু আবার যখন চোখ খুলল , দেখল - নাঃ শুয়োরটা নেই ই. ওর মোটকু গোলাপী রংএর বিশাল বপুটা কোথাও দেখা যাচ্ছে না। সত্যি কথা বলতে কি, জর্জ যখন দ্বিতীয় বারের মত ব্যাপারটা খতিয়ে দেখতে গেল, ব্যাপারটা খারাপ থেকে খারাপতর হল। ও দেখল যে খোঁয়ারের পাশের দরজাটা হাট করে খোলা। তার মানে কেউ একজন সেটা ঠিক করে বন্ধ করে নি। আর সেই কেউ একজনটা খুব সম্ভবতঃ ও নিজেই।

জর্জি - ওর মা ওকে রান্নাঘর থেকে ডাকছেন. "আমি রাতের খাওয়ার বন্দোবস্ত শুরু করছি- তোর হাতে তাই আর মাত্র এক ঘন্টা আছে. তোর হোমটাস্ক শেষ হয়েছে? "

হ্যাঁ মা, ও গলায় মিথ্যে খুশী এনে বলল।

তোর শুয়োর কেমন আছে?

খুব ভালো, ভালো . জর্জ় ক্যাচরম্যাচর করে বলল। ও পরীক্ষামূলক ভাবে দুএকবার ঘোঁত ঘোঁত করে নিল, যাতে সবার মনে হয় সবকিছু ঠিকঠাক চলছে । এখানে এই ছোট্ট পিছনের বাগানে অনেক অনেক শাকসব্জি আছে আর আছে একটা বিশাল শুয়োর। সে অবশ্য এখন এখানে নেই। সব যে ঠিক আছে এটা বোঝাবার জন্য ও আরো কয়েকবার ঘোঁত ঘোঁত করে নিল। জর্জ কোন একটা বুদ্ধি বার করার আগে ওর মা যেন বাগানে না আসেন, এটা খুব জরুরী। ও বুঝতেই পারছে না যে ও কিকরে চুপিচুপি শুয়োরটাকে খুঁজে বার করে ফের খোঁয়াড়ে এনে ঢোকাবে! ও সেটাই ভাবছে। আর প্ল্যানটা ছকে ফেলার আগে ওর বাবা বা মা বাগানে চলে আসুন এটা ও একদম চাইছে না।

জর্জ জানে, ওর বাবা মা শুয়োরটাকে মোটেই পছন্দ করেন না। ওর বাবা মা একটা শুয়োরকে পিছনের বাগানে রাখতে চান নি। বিশেষত ওর বাবার যখনই মনে পড়ে ওই পিছনের সব্জির ক্ষেতের ওপারে কে আছে, তখনই তিনি দাঁত কিড়মিড় করে ওঠেন। শুয়োরটা এসেছিল উপহার হিসেবে। কয়েকবছর আগে একবার এক ঠান্ডা ক্রীসমাসের আগের সন্ধ্যেতে, ওদের দোরগোড়ায় একটা ক্যাঁচরম্যাচর , ফোঁচফাঁচ শব্দ সমেত একটা কার্ডবোর্ডের বাক্স এসে হাজির হয়। জর্জ বাক্সটা খুলতেই দেখে একটা পুঁচকে গোলাপী শুয়োর রয়েছে ভিতরে। জর্জ সাবধানে ওকে বাক্স থেকে বার করে। জর্জ খুব মজা পায় যখন ও দেখে যে ওর নতুন বন্ধু ছোট্ট ছোট্ট পায়ে ক্রিসমাস ট্রীর চারপাশে গড়াগড়ি খাচ্ছে। বাক্সটার গায়ে একটা চিঠিও লাগান ছিল। সবাইকে উদ্দেশ্য করে ওর ঠাকুমা লিখেছেন যে ও এই ছোট্ট বাচ্চাটা একটা বাড়ি চায়- তোমরা কি ওকে আপন করে নেবে?

এই নতুন প্রাণীটির আগমনে জর্জের বাবা একেবারেই খুশী হন নি। তিনি মাছ মাংস খান না যদিও, তাই বলে তিনি জীবজন্তুও ভালবাসেন না। আসলে তিনি গাছপালা ভালবাসেন। তাদের সামলান ঢের সহজ.।তারা সবকিছু নোংরা করে না বা রান্নাঘরের মেঝের উপর টরটরিয়ে ঘুরে বেড়ানর কাদার ছাপ রেখে যায় না বা চুরি করে ঢুকে টেবিলের উপর থেকে সব বিস্কুট ও খেয়ে নিয়ে যায় না। তবে জর্জ ভারী খুশী হয়েছিল এক্কেবারে নিজের একটা শুয়োর পেয়ে। সব বারের মত সেবারও ও তার বাবা-মার থেকে খুব বাজে উপহার পেয়েছিল। ওর মা দিয়েছিলেন বাড়িতে বানান বেগুনী আর কমলা ডোরাকাটা জাম্পার যার হাতাগুলো প্রায় মাটি ছোঁয় ছোঁয়। ও কক্ষণো প্যানপাইপ ( এক রকমের সুরেলা যন্ত্র যাতে অনেকগুলো বাঁশি একসঙ্গে থাকে ) চায় নি।আর ও যখন কাগজের মোড়ক খুলে নিজের কেঁচো রাখার জায়গা তৈরী করার সেট পেল, ওকে খুব কষ্ট করে মুখটা হাসি হাসি রাখতে হচ্ছিল।

জর্জ সত্যিকরে , সব থেকে বেশি চেয়েছিল, একটা কম্প্যুটার। তবে ও জানত ওর বাবা মার সেটা ওকে কিনে দেওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। ওঁরা আজকালকার আবিষ্কার খুব অপছন্দ করেন। চেষ্টা করেন যতটা সম্ভব সাধারণ ঘর গেরস্থালীর জিনিস ছাড়াই কাজ চালাতে। একটা সহজ সরল জীবন চালানর জন্য ওঁরা কাপড় চোপড় হাতেই কাচেন, নিজেরা গাড়ী কেনেন নি আর ইলেকট্রিসি না ব্যবহার করে বাড়িতে মোমবাতি ব্যবহার করেন।

এগুলো সব করা যাতে জর্জ একটা স্বাভাবিক আর অপেক্ষাকৃত ভাল, বিষমুক্ত জীবন যাপন করতে পারে। তবে একটাই সমস্যা যে জর্জের ক্ষতি হতে পারে এমন সব জিনিস জীবন থেকে বাদ দিতে গিয়ে ওঁরা এমন অনেক কিছুও বাদ দিয়ে দিষেছেন যেগুলোর থেকে জর্জ আনন্দ পেত। জর্জের বাবা মা মে পোলের চারপাশে নাচতে ভালবাসতেই পারেন বা ইকো প্রটেস্ট মার্চে যেতে বা বাড়িতে রুটি বানানোর ময়দা পেষাই করে আনন্দ পেতেই পারেন, কিন্তু জর্জের সেসব ভাল লাগে না। সে থীম পার্কে গিয়ে রোলার কোস্টারে চড়তে চায় বা কম্প্যুটারে গেমস খেলতে চায় বা এরোপ্লেনে চড়ে অনেক অনেক দূরের দেশে যেতে চায়। তার বদলে, সে পেয়েছে শুধুই একটা শুয়োর .....

***********************************************

স্টিফেন হকিং কে আমরা অনেকেই জানি শুধু সময়ের ইতিহাস ( a brief history of time ) বলে দেওয়া মানুষ হিসেবে। কিন্তু নিজের মেয়ে, লুসি হকিং এর সঙ্গে লেখা জর্জের অ্যাডভেন্চারের সিরিজটা কেন জানি না একটু কম প্রচলিত এ দেশে। তাই টীজার হিসেবে অল্প একটু অনুদিত অংশ থাকল George's Secret Key To The Universe বইটার প্রথম চ্যাপ্টার থেকে , সিরিজের প্রথম বই। বাকী বই গুলি George's Cosmic Tresure Hunt, George and the Big bang, George and The Unbreakable Code প্রকাশক Random house গ্রুপের Doubleday. ...সিরিজটার হয়ত বাংলা অনুবাদ হয়েছে, ঠিক জানা নেই। না হয়ে থাকলে অবশ্যই হওয়া উচিত। সেক্ষেত্রে প্রকাশকদের অনুরোধ করব এদিকে একটু দৃষ্টি দিতে। বাচ্চাদের বিজ্ঞানমুখী করার খুব ভাল সহায়ক. বড়দেরও ভালো লাগার কথা।

261 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: দ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

অত্যন্ত ভাল উদ্যোগ। আমার পরামর্শ হল প্রকাশককে মেল কতে আগে বাংলা অনুবাদের অনুমতি নিয়ে এবার ঝপাঝপ অনুবাদ করে ফেল। দিব্বি হয়েছে টিজারখান। স্লাইট আড়ষ্ট কিন্তু ও আর খানিক করলেই ঠিক হয়ে যাবে।
Avatar: দ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

মেল করে
Avatar: dc

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

এই সিরিজটা খুব ভালো। এখনো অবধি যেকটা বই বেরিয়েছে মেয়েকে কিনে দিয়েছি, বইগুলো মেয়ের ফেভারিট। পাঁচটা বই বেরিয়েছে, শেষেরটা George and the blue moon.
Avatar: pinaki

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

আমার মেয়েকেও গোটা তিনেক পড়িয়েছি। ভালো লেগেছে। অনুবাদ হলে তো খুবই ভালো হয়।
Avatar: স্বাতী রায়

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

পাঁচ নম্বর বইটার নাম জানতাম না , পড়িও নি বলাই বাহুল্য। জানানোর জন্য অনেক ধুন্যবাদ।

জানি না ব্যক্তিগত ভাবে অনুবাদের অনুমতি পাওয়া কতটা সহজ বা কঠিন। খোঁজ নেব।



Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

তারপর? 👌
Avatar: স্বাতী রায়

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

@বিপ্লব এই লেখাটা শুধু teaser ছিল। আসলে মূল বই গুলো কপিরাইটেড, অগত্যা ...
Avatar: র২হ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

এই লেখাটির জন্য অনেক ধন্যবাদ!
জানা ছিল না সিরিজটা নিয়ে, মেয়েকে বলায় লাইব্রেরি থেকে এনে পড়ছে। সেকেন্ড গ্রেড, খুব হয়তো বুঝতে পারছে না, রি-রিড করতে হচ্ছে বারবার, তবে মজা পাচ্ছে। আপাতত বিগ ব্যাং শেষ হলো।
ছোটদের ননফিকশন নিয়ে আরো লেখা পেলে ভালো লাগবে।
Avatar: স্বাতী রায়

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

@র২হ কে অনেক ধন্যবাদ. আপনি মেয়েকে, যদি না পড়ে থাকে, Gerald Durrell ও পড়াতে পারেন. হয়ত ভাল লাগবে.
Avatar: র২হ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

আচ্ছা, থ্যাঙ্কিউ! লাইব্রেরী ক্যাটালগ খুঁজি।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন