স্বাতী রায় RSS feed

Swati Rayএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা ও লিঙ্গ অসাম্য
    ভারতের সেরা প্রযুক্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কোনগুলি জিজ্ঞেস করলেই নিঃসন্দেহে উত্তর চলে আসবে আইআইটি। কিন্তু দেশের সেরা ইনস্টিটিউট হওয়া সত্ত্বেও আইআইটি গুলিতে একটা সমস্যা প্রায় জন্মলগ্ন থেকেই রয়েছে। সেটা হল ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যার মধ্যে তীব্ররকমের লিঙ্গ অসাম্য। ...
  • যে কথা ব্যাদে নাই
    যে কথা ব্যাদে নাইআমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন ...
  • কাল্পনিক কথোপকথন
    কাল্পনিক কথোপকথনরাম: আজ ডালে নুন কম হয়েছে। একটু নুনের পাত্রটা এগিয়ে দাও তো।রামের মা: গতকাল যখন ডালে নুন কম হয়েছিল, তখন তো কিছু বলিস নি? কেন তখন ডাল তোর বউ রেঁধেছেন বলে? বাবা: শুধু ডাল নিয়েই কেন কথা হচ্ছে? পরশু তো মাছেও নুন কম হয়েছিল। তার বেলা? ...
  • ছদ্ম নিরপেক্ষতা
    আমেরিকায় গত কয়েক বছর ধরে একটা আন্দোলন হয়েছিল, "ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার" বলে। একটু খোঁজখবর রাখা লোকমাত্রেই জানবেন আমেরিকায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো বেশ ভালই রয়েছে। বিশেষত পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা হবার ঘটনা আকছার হয়। সামান্য ট্রাফিক ভায়োলেশন যেখানে ...
  • শুভ নববর্ষ
    ২৫ বছর আগে যখন বাংলা নববর্ষ ১৪০০ শতাব্দীতে পা দেয় তখন একটা শতাব্দী পার হওয়ার অনুপাতে যে শিহরণ হওয়ার কথা আমার তা হয়নি। বয়স অল্প ছিল, ঠিক বুঝতে পারিনি কি হচ্ছে। আমি আর আমার খালত ভাই সম্রাট ভাই দুইজনে কয়েকটা পটকা ফুটায়া ঘুম দিছিলাম। আর জেনেছিলাম রবীন্দ্রনাথ ...
  • আসিফার রাজনৈতিক মৃত্যু নিয়ে কিছু রাজনৈতিক কথা
    শহিদদের লম্বা মিছিলে নতুন নাম কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার আট বছরের ছোট্ট মেয়ে আসিফা। এক সপ্তাহ ধরে স্থানীয় মন্দিরে হাত-পা বেঁধে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করে তাকে ধর্ষণ করা হল একাধিক বার, শ্বাসরোধ করে খুন করা হল মন্দিরের উপাসনালয়ে। এবং এই ধর্ষণ একটি প্রত্যক্ষ ...
  • হউল মাছের মজা
    এইবার আমি যেই গল্পটি বলব আপনাকে তা কিন্তু আমার জীবনের না সরাসরি, তবে একেবারে আমার জীবনের না তাও বলা যায় না, বরং একরকম জীবনের সাথে সংযুক্ত বলা যায়; কিন্তু একেবারে নিজের গল্প যেমন, যেমন আমার ছেলেবেলার গল্প, আলোর ইস্কুলে যাবার গল্প, কিংবা কিংবা দূর দীঘির জলে ...
  • আনন্দের বাজারে হাম্পটি ডাম্পটি
    পথিকের প্রদর্শিত পথ সুজয়যুক্ত করতে আনন্দের বাজারে এখন হাম্পটি ডাম্পটি।গতকাল ( ৬ই এপ্রিল, ২০১৮) যে দৈনিক দৈনিক না পড়লে আপনি পিছিয়ে পড়বেন তাঁরা আপনাকে এগিয়ে রাখতে জেনেভা থেকে নিয়ে এলেন হাম্পটি ডাম্পটি কে ( এখানে দেখুনঃঃ ...
  • কৃত্যা
    কৃত্যা : তৃতীয় পর্বপ্রসেনজিৎ বসু[পাণ্ডবগণ অধোনেত্রে নীরব এবং ধৃতরাষ্ট্র অন্ধনেত্রে সরব -- এমন সময়ে দুঃশাসন দ্রৌপদীর বস্ত্রাঞ্চল ধরে সজোরে টান দেন।]প্রবল উল্লাসধ্বনির মাঝে প্রথমে কিছুই বোঝা যায় না। পৈশাচিক আমোদে সভা তখন মত্ত। আঁচল খসে যায়, কিন্তু দ্রৌপদীর ...
  • মকুবাবুর প্রত্যাবর্তন
    গোটা ব্যাপারটাই বোগাস ! তবে সুখের কথা এই যে কোনোরকম বাওয়ালি ছাড়াই ২৪ ঘন্টার ওপর কেটে গেছে। বামৈস্লামিক ফিরে এসেছে যথাস্থানে। স্ক্রেপিংপূর্বক আমাদের আদরের থাম্বনেলটিও ফেরত পাওয়া গেছে। তন্ময়বাবু জানিয়েছেন যে গোটা ব্যাপারটাই আসলে ভুলবোঝাবুঝি ছিল। ত্রিপুরায় ...

বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

স্বাতী রায়


জর্জ ফাঁকা শুয়োরের খোঁয়াড়টার দিকে হাঁ করে তাকিয়ে ছিল আর ভাবছিল যে শুয়োরটা কি এমনি এমনি হাওয়া হয়ে গেল? একবার চোখ বন্ধ করে আবার খুলল - যদি কোন বিচ্ছিরি আলোর কারচুপি হয়ে থাকে! কিন্তু আবার যখন চোখ খুলল , দেখল - নাঃ শুয়োরটা নেই ই. ওর মোটকু গোলাপী রংএর বিশাল বপুটা কোথাও দেখা যাচ্ছে না। সত্যি কথা বলতে কি, জর্জ যখন দ্বিতীয় বারের মত ব্যাপারটা খতিয়ে দেখতে গেল, ব্যাপারটা খারাপ থেকে খারাপতর হল। ও দেখল যে খোঁয়ারের পাশের দরজাটা হাট করে খোলা। তার মানে কেউ একজন সেটা ঠিক করে বন্ধ করে নি। আর সেই কেউ একজনটা খুব সম্ভবতঃ ও নিজেই।

জর্জি - ওর মা ওকে রান্নাঘর থেকে ডাকছেন. "আমি রাতের খাওয়ার বন্দোবস্ত শুরু করছি- তোর হাতে তাই আর মাত্র এক ঘন্টা আছে. তোর হোমটাস্ক শেষ হয়েছে? "

হ্যাঁ মা, ও গলায় মিথ্যে খুশী এনে বলল।

তোর শুয়োর কেমন আছে?

খুব ভালো, ভালো . জর্জ় ক্যাচরম্যাচর করে বলল। ও পরীক্ষামূলক ভাবে দুএকবার ঘোঁত ঘোঁত করে নিল, যাতে সবার মনে হয় সবকিছু ঠিকঠাক চলছে । এখানে এই ছোট্ট পিছনের বাগানে অনেক অনেক শাকসব্জি আছে আর আছে একটা বিশাল শুয়োর। সে অবশ্য এখন এখানে নেই। সব যে ঠিক আছে এটা বোঝাবার জন্য ও আরো কয়েকবার ঘোঁত ঘোঁত করে নিল। জর্জ কোন একটা বুদ্ধি বার করার আগে ওর মা যেন বাগানে না আসেন, এটা খুব জরুরী। ও বুঝতেই পারছে না যে ও কিকরে চুপিচুপি শুয়োরটাকে খুঁজে বার করে ফের খোঁয়াড়ে এনে ঢোকাবে! ও সেটাই ভাবছে। আর প্ল্যানটা ছকে ফেলার আগে ওর বাবা বা মা বাগানে চলে আসুন এটা ও একদম চাইছে না।

জর্জ জানে, ওর বাবা মা শুয়োরটাকে মোটেই পছন্দ করেন না। ওর বাবা মা একটা শুয়োরকে পিছনের বাগানে রাখতে চান নি। বিশেষত ওর বাবার যখনই মনে পড়ে ওই পিছনের সব্জির ক্ষেতের ওপারে কে আছে, তখনই তিনি দাঁত কিড়মিড় করে ওঠেন। শুয়োরটা এসেছিল উপহার হিসেবে। কয়েকবছর আগে একবার এক ঠান্ডা ক্রীসমাসের আগের সন্ধ্যেতে, ওদের দোরগোড়ায় একটা ক্যাঁচরম্যাচর , ফোঁচফাঁচ শব্দ সমেত একটা কার্ডবোর্ডের বাক্স এসে হাজির হয়। জর্জ বাক্সটা খুলতেই দেখে একটা পুঁচকে গোলাপী শুয়োর রয়েছে ভিতরে। জর্জ সাবধানে ওকে বাক্স থেকে বার করে। জর্জ খুব মজা পায় যখন ও দেখে যে ওর নতুন বন্ধু ছোট্ট ছোট্ট পায়ে ক্রিসমাস ট্রীর চারপাশে গড়াগড়ি খাচ্ছে। বাক্সটার গায়ে একটা চিঠিও লাগান ছিল। সবাইকে উদ্দেশ্য করে ওর ঠাকুমা লিখেছেন যে ও এই ছোট্ট বাচ্চাটা একটা বাড়ি চায়- তোমরা কি ওকে আপন করে নেবে?

এই নতুন প্রাণীটির আগমনে জর্জের বাবা একেবারেই খুশী হন নি। তিনি মাছ মাংস খান না যদিও, তাই বলে তিনি জীবজন্তুও ভালবাসেন না। আসলে তিনি গাছপালা ভালবাসেন। তাদের সামলান ঢের সহজ.।তারা সবকিছু নোংরা করে না বা রান্নাঘরের মেঝের উপর টরটরিয়ে ঘুরে বেড়ানর কাদার ছাপ রেখে যায় না বা চুরি করে ঢুকে টেবিলের উপর থেকে সব বিস্কুট ও খেয়ে নিয়ে যায় না। তবে জর্জ ভারী খুশী হয়েছিল এক্কেবারে নিজের একটা শুয়োর পেয়ে। সব বারের মত সেবারও ও তার বাবা-মার থেকে খুব বাজে উপহার পেয়েছিল। ওর মা দিয়েছিলেন বাড়িতে বানান বেগুনী আর কমলা ডোরাকাটা জাম্পার যার হাতাগুলো প্রায় মাটি ছোঁয় ছোঁয়। ও কক্ষণো প্যানপাইপ ( এক রকমের সুরেলা যন্ত্র যাতে অনেকগুলো বাঁশি একসঙ্গে থাকে ) চায় নি।আর ও যখন কাগজের মোড়ক খুলে নিজের কেঁচো রাখার জায়গা তৈরী করার সেট পেল, ওকে খুব কষ্ট করে মুখটা হাসি হাসি রাখতে হচ্ছিল।

জর্জ সত্যিকরে , সব থেকে বেশি চেয়েছিল, একটা কম্প্যুটার। তবে ও জানত ওর বাবা মার সেটা ওকে কিনে দেওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। ওঁরা আজকালকার আবিষ্কার খুব অপছন্দ করেন। চেষ্টা করেন যতটা সম্ভব সাধারণ ঘর গেরস্থালীর জিনিস ছাড়াই কাজ চালাতে। একটা সহজ সরল জীবন চালানর জন্য ওঁরা কাপড় চোপড় হাতেই কাচেন, নিজেরা গাড়ী কেনেন নি আর ইলেকট্রিসি না ব্যবহার করে বাড়িতে মোমবাতি ব্যবহার করেন।

এগুলো সব করা যাতে জর্জ একটা স্বাভাবিক আর অপেক্ষাকৃত ভাল, বিষমুক্ত জীবন যাপন করতে পারে। তবে একটাই সমস্যা যে জর্জের ক্ষতি হতে পারে এমন সব জিনিস জীবন থেকে বাদ দিতে গিয়ে ওঁরা এমন অনেক কিছুও বাদ দিয়ে দিষেছেন যেগুলোর থেকে জর্জ আনন্দ পেত। জর্জের বাবা মা মে পোলের চারপাশে নাচতে ভালবাসতেই পারেন বা ইকো প্রটেস্ট মার্চে যেতে বা বাড়িতে রুটি বানানোর ময়দা পেষাই করে আনন্দ পেতেই পারেন, কিন্তু জর্জের সেসব ভাল লাগে না। সে থীম পার্কে গিয়ে রোলার কোস্টারে চড়তে চায় বা কম্প্যুটারে গেমস খেলতে চায় বা এরোপ্লেনে চড়ে অনেক অনেক দূরের দেশে যেতে চায়। তার বদলে, সে পেয়েছে শুধুই একটা শুয়োর .....

***********************************************

স্টিফেন হকিং কে আমরা অনেকেই জানি শুধু সময়ের ইতিহাস ( a brief history of time ) বলে দেওয়া মানুষ হিসেবে। কিন্তু নিজের মেয়ে, লুসি হকিং এর সঙ্গে লেখা জর্জের অ্যাডভেন্চারের সিরিজটা কেন জানি না একটু কম প্রচলিত এ দেশে। তাই টীজার হিসেবে অল্প একটু অনুদিত অংশ থাকল George's Secret Key To The Universe বইটার প্রথম চ্যাপ্টার থেকে , সিরিজের প্রথম বই। বাকী বই গুলি George's Cosmic Tresure Hunt, George and the Big bang, George and The Unbreakable Code প্রকাশক Random house গ্রুপের Doubleday. ...সিরিজটার হয়ত বাংলা অনুবাদ হয়েছে, ঠিক জানা নেই। না হয়ে থাকলে অবশ্যই হওয়া উচিত। সেক্ষেত্রে প্রকাশকদের অনুরোধ করব এদিকে একটু দৃষ্টি দিতে। বাচ্চাদের বিজ্ঞানমুখী করার খুব ভাল সহায়ক. বড়দেরও ভালো লাগার কথা।

শেয়ার করুন


Avatar: দ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

অত্যন্ত ভাল উদ্যোগ। আমার পরামর্শ হল প্রকাশককে মেল কতে আগে বাংলা অনুবাদের অনুমতি নিয়ে এবার ঝপাঝপ অনুবাদ করে ফেল। দিব্বি হয়েছে টিজারখান। স্লাইট আড়ষ্ট কিন্তু ও আর খানিক করলেই ঠিক হয়ে যাবে।
Avatar: দ

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

মেল করে
Avatar: dc

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

এই সিরিজটা খুব ভালো। এখনো অবধি যেকটা বই বেরিয়েছে মেয়েকে কিনে দিয়েছি, বইগুলো মেয়ের ফেভারিট। পাঁচটা বই বেরিয়েছে, শেষেরটা George and the blue moon.
Avatar: pinaki

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

আমার মেয়েকেও গোটা তিনেক পড়িয়েছি। ভালো লেগেছে। অনুবাদ হলে তো খুবই ভালো হয়।
Avatar: স্বাতী রায়

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

পাঁচ নম্বর বইটার নাম জানতাম না , পড়িও নি বলাই বাহুল্য। জানানোর জন্য অনেক ধুন্যবাদ।

জানি না ব্যক্তিগত ভাবে অনুবাদের অনুমতি পাওয়া কতটা সহজ বা কঠিন। খোঁজ নেব।



Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

তারপর? 👌
Avatar: স্বাতী রায়

Re: জর্জের বিশ্ববহ্মান্ডের গোপন চাবি

@বিপ্লব এই লেখাটা শুধু teaser ছিল। আসলে মূল বই গুলো কপিরাইটেড, অগত্যা ...


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন